লাহোরে বাংলাদেশ-পাকিস্তান ম্যাচ বৃষ্টিতে পরিত্যক্ত

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ বৃষ্টির কারণে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ খেলাটি পরিত্যক্ত হয়। গতকাল সোমবার বাংলাদেশ সময় বিকাল ৩টায় লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে খেলা শুরু হওয়ার কথা থাকলেও বৃষ্টির কারণে টসও হয়নি। টানা বৃষ্টি হওয়ার কারণে বিকাল পাঁচটার ঠিক কিছু আগে ম্যাচটি পরিত্যক্ত ঘোষণা করেন আম্পায়াররা। তবে তৃতীয় ম্যাচের আগেই প্রথম দুই খেলায় টানা জয়ে সিরিজ নিজেদের করে নিয়েছে স্বাগতিক পাকিস্তান। প্রথম খেলায় আগে ব্যাট করে ১৪১ রান করা বাংলাদেশ হেরে যায় ৫ উইকেটে। আর দ্বিতীয় ম্যাচে আগে ব্যাট করে ৬ উইকেটে ১৩৬ রান করা মাহমুদউল¬াহ রিয়াদের নেতৃত্বাধীন দলটি পরাজিত হয় ৯ উইকেটের বিশাল ব্যবধানে। লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়াম থেকেই বিমানবন্দর যাওয়ার কথা রয়েছে টাইগারদের। নিরাপত্তা শঙ্কার কারণে পাকিস্তান সফরে হোটেল টু মাঠে সীমাবদ্ধ থেকেছেন টাইগাররা। যে কারণে সিরিজ শেষ হতেই দেশে ফিরতে উদগ্রীব ক্রিকেটাররা। শনিবার বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালক আকরাম খান লাহোর থেকে ফোনে জানিয়েছেন, হোটেলে বসে থাকতে ভালো লাগছে না। জীবনটা যেন কয়েকদিনেই একঘেঁয়ে হয়ে গেছে। এ থেকে চটজলদি মুক্তি দিতে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচ শেষ করেই লাহোর বিমানবন্দরে যাব আমরা। তিনি জানান, স্থানীয় সময় রাত ১১টায় দেশের উদ্দেশে রওনা হবে বাংলাদেশ দল। রাত ৩টার দিকে ঢাকায় পৌঁছবেন ক্রিকেটাররা। টিম ম্যানেজমেন্ট সূত্রে জানা যায়, বুলেটপ্র“ফ বাসে যাতায়াত করেন খেলোয়াড়রা। প্রতিটি রুমের পাশে বন্দুক নিয়ে পাহারায় থেকেছেন নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্য। হোটেলের লবি পর্যন্ত খেলোয়াড়দের চলাফেরা সীমাবদ্ধতা ছিল। কাউকে হোটেলের বাইরে বের হতে দেয়া হয়নি। এ বন্দিজীবন থেকে মুক্তি পেতেই স্টেডিয়াম থেকে সরাসরি বিমানবন্দর যাবেন মাহমুদউল¬াহ রিয়াদরা।

বার্সাকে ৩ পয়েন্ট পেছনে ফেলল রিয়াল

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ আগের দিন বার্সেলোনা হেরে যাওয়ায় রিয়াল মাদ্রিদের জন্য মঞ্চ ছিল প্রস্তুত। রিয়াল ভাইয়াদলিদ দারুণ লড়াই করলেও মাদ্রিদের ক্লাবটিকে শেষ পর্যন্ত আটকাতে পারেনি। দারুণ এক জয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠেছে জিনেদিন জিদানের দল। লা লিগায় রোববার রাতে পয়েন্ট টেবিলের নিচের দিকের দলটির মাঠে ১-০ গোলে জিতেছে রিয়াল। একমাত্র গোলটি করেন নাচো ফের্নান্দেস। এই জয়ে চির প্রতিদ্বন্দ্বী বার্সেলোনার চেয়ে ৩ পয়েন্টে এগিয়ে গেছে প্রতিযোগিতার সফলতম ক্লাবটি। আগস্টে লিগে প্রথম দেখায় রিয়ালকে তাদেরই মাঠে ১-১ গোলে রুখে দিয়েছিল ভাইয়াদলিদ। ম্যাচের দ্বাদশ মিনিটে সেট পিসে গোলমুখে বল পেয়ে হেডে জালে পাঠিয়েছিলেন কাসেমিরো। তবে ভিএআরের সাহায্যে অফসাইডের বাঁশি বাজান রেফারি। অধিকাংশ সময় বল দখলে রেখে প্রতিপক্ষের ওপর চাপ ধরে রাখলেও বিরতির আগে তেমন কোনো উলে¬খযোগ্য সুযোগ  তৈরি করতে পারেনি জিদানের দল। দ্বিতীয়ার্ধের ষষ্ঠ মিনিটে এগিয়ে যেতে পারতো তারা। তবে রদ্রিগোর জোরালো শট ঝাঁপিয়ে রুখে দেন স্বাগতিক গোলরক্ষক। ৬৭তম মিনিটে তরুণ ব্রাজিলিয়ান এই ফরোয়ার্ডের দারুণ ক্রসে করিম বেনজেমার হেড একটুর জন্য লক্ষ্যভ্রষ্ট হয়। একের পর এক আক্রমণ করেও মিলছিল না গোলের দেখা। অবশেষে ৭৮তম মিনিটে মেলে সাফল্যের দেখা। ডান দিক থেকে টনি ক্রুসের বাড়ানো ক্রসে হেডে ঠিকানা খুঁজে নেন নাচো। শেষ দিকে ভাইয়াদলিদও একবার জালে বল পাঠিয়েছিল। তবে পরিষ্কার অফসাইডে ছিলেন স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড গুয়ার্দিওলা। ২১ ম্যাচে ১৩ জয় ও সাত ড্রয়ে রিয়ালের পয়েন্ট ৪৬। দুইয়ে নেমে যাওয়া বার্সেলোনার পয়েন্ট ৪৩। ৩৮ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আছে সেভিয়া।

হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত, মার্কিন বাস্কেটবল তারকা কোবি ব্রায়ান্ট নিহত

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক বাস্কেটবল তারকা কোবি ব্রায়ান্ট ও তার মেয়েসহ নয় জন লস অ্যাঞ্জেলসের কাছে হেলিকপ্টার বিধ্বস্ত হয়ে নিহত হয়েছেন। রোববার স্থানীয় সময় সকাল ১০টার একটু আগে কুয়াশাচ্ছন্ন আবহাওয়ার মধ্যে ক্যালিফোর্নিয়ার ক্যালাবাসেসের কাছে পার্বত্য অঞ্চলে সিকোরস্কি এস-৭৬ হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হয়। এ ঘটনায় ওই এলাকার বনে আগুন ধরে যায় বলে কর্মকর্তারা জানিয়েছেন। ঘটনাস্থল লস অ্যাঞ্জেলসের কেন্দ্রস্থল থেকে ৬৫ কিলোমিটার উত্তরপশ্চিমে বলে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। এলএ লেকারসকে পাঁচবার ন্যাশনাল বাস্কেটবল অ্যাসোসিয়েশনের (এনবিএ) শিরোপা জেতানো কোবি ব্রায়ান্টকে যুক্তরাষ্ট্রের সর্বকালের সেরা খেলোয়াড়দের একজন হিসেবে বিবেচনা করা হয়। তার আন্তর্জাতিক তারকা খ্যাতি বাস্কেটবলকেও ছাড়িয়ে গিয়েছিল। কিন্তু মাত্র ৪১ বছর বয়সে ১৩ বছর বয়সী মেয়েসহ পৃথিবী থেকে বিদায় নিতে হলো তাকে। তার মৃত্যুর খবরে ন্যাশনাল বাস্কেটবল অ্যাসোসিয়েশনজুড়ে শোকের ছায়া নেমে আসে। বিশ্বজুড়ে তার ভক্তরা বিমুঢ় হয়ে পড়েন। নিহতদের মধ্যে ব্রায়ান্ট ও তার কন্যা জিয়ানা রয়েছেন বলে এনবিএ-র কমিশনার অ্যাডাম সিলভার নিশ্চিত করেছেন। তিনি ব্রায়ান্টের স্ত্রী ভেনেসার কাছে শোক বার্তা পাঠিয়েছেন। “আমাদের খেলার ইতিহাসে অন্যতম সবচেয়ে অসাধারণ খেলোয়াড় ছিল সে, কল্পনা ছোঁয়া দক্ষতা ছিল তার,” বলেছেন সিলভার। ব্রায়ানের মৃত্যুতে খেলোয়াড়, রাজনীতিবিদ ও বিনোদন জগতের তারকারাও শোক জানিয়েছেন। লস অ্যাঞ্জেলস এলাকার কুখ্যাত ট্র্যাফিক জ্যাম এড়াতে খেলোয়াড় থাকার সময় থেকেই ব্রায়ান্ট নিয়মিত হেলিকপ্টার ব্যবহার করতেন।  হেলিকপ্টারটির বিধ্বস্ত হওয়ার কারণ জানা যায়নি। মার্কিন ফেডারেল অ্যাভিয়েশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন ও ন্যাশনাল ট্রান্সেপোর্টেশন সেইফটি বোর্ড তদন্ত শুরু করেছে। ঘটনার কারণ বের করতে কয়েক মাস লেগে যেতে পারে বলে জানিয়েছে রয়টার্স। লাস অ্যাঞ্জেলসের কাউন্টি শেরিফ অ্যালেক্স ভিলেনউয়েভা এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, “কেউ বেঁচে নেই।” ফ্লাইটের আরোহী তালিকা থেকে হেলিকপ্টারটিতে নয় জন থাকার বিষয়টি নিশ্চিত হওয়া গেছে বলে জানিয়েছেন তিনি, কিন্তু নিহত অন্যান্য আরোহীদের পরিচয় প্রকাশ করতে রাজি হননি। বিধ্বস্ত হেলিকপ্টারের ধ্বংসাবশেষ ও এর থেকে সূত্রপাত হওয়া আগুন সান্তা মোনিকা পর্বতমালার পাদদেশে ঘাসে আচ্ছাদিত ঢালের কোয়ার্টার একর এলাকায় ছড়িয়েছিল বলে কাউন্টির দমকল প্রধান ডারেল অসবি জানিয়েছেন। হেলিকপ্টারটিতে ব্রায়ান ও তার কন্যার সঙ্গে জিয়ানার বাস্কেটবল দলের এক সহখেলোয়াড়, ওই খেলোয়াড়ের মা-বাবা ও পাইলট থাকার কথা এনবিসি নিউজের প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে। অরেঞ্জ কোস্ট কলেজের বেইসবল কোচ জন আলটোবেলিও হেলিকপ্টারটিতে ছিলেন বলে সহকারী কোচ রন লা রুফার উদ্ধৃতি দিয়ে জানিয়েছে অরেঞ্জ কাউন্টি রেজিস্টার।

নেইমারের জোড়া গোলে পিএসজির জয়

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ দর্শনীয় গোলে বিরতির আগে দলকে এগিয়ে নিলেন নেইমার। দ্বিতীয়ার্ধে পেনাল্টি থেকে করলেন আরও একটি। লিগ ওয়ানে লিলের বিপক্ষে সহজ জয় পেল পিএসজি। রোববার প্রতিপক্ষের মাঠে ২-০ গোলে জেতে টমাস টুখেলের দল। সব প্রতিযোগিতা মিলে এ নিয়ে টানা ১৭ ম্যাচ অপরাজিত রইল লিগ ওয়ান চ্যাম্পিয়নরা। ২৮তম মিনিটে দারুণ নৈপুণ্যে পিএসজিকে এগিয়ে নেন নেইমার। আনহেল দি মারিয়ার বাড়ানো ক্রস বুক দিয়ে নামিয়ে পাস বাড়ান মার্কো ভেরাত্তিকে। ফিরতি পাস পেয়ে ডি-বক্সের ঠিক বাইরে থেকে জোরালো উঁচু শটে কাছের পোস্ট দিয়ে জাল খুঁজে নেন তিনি। ৫২তম মিনিটে স্পট কিকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন নেইমার। ডি-বক্সে প্রতিপক্ষের এক খেলোয়াড়ের হাতে বল লাগলে পেনাল্টি পায় পিএসজি। আসরে বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফুটবলারের গোল হলো ১৩টি। ২১ ম্যাচে ১৭ জয় ও এক ড্রয়ে ৫২ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে পিএসজি। ১০ পয়েন্ট কম নিয়ে দুইয়ে আছে মার্সেই। সপ্তম স্থানে থাকা লিলের পয়েন্ট ৩১।

ঘুরে দাঁড়িয়ে শেষ আটে ফেদেরার

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ আগের রাউন্ডের মতো এবারও প্রথম সেটে হার। যথারীতি এই ম্যাচেও দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের কোয়ার্টার-ফাইনাল নিশ্চিত করেছেন ছয়বারের চ্যাম্পিয়ন রজার ফেদেরার। একই দিনে সরাসরি সেটের জয়ে শেষ আটে উঠেছেন সাতবারের বিজয়ী নোভাক জোকোভিচ। মেলবোর্ন পার্কে রোববার হাঙ্গেরির মার্টন ফুচোভিচকে ৪-৬, ৬-১, ৬-২, ৬-২ গেমে হারান ফেদেরার।

আগের রাউন্ডে জন মিলম্যানের বিপক্ষে প্রায় সাড়ে চার ঘণ্টার লড়াই শেষে শেষ ষোলোর টিকেট পেয়েছিলেন ৩৮ বছর বয়সী সুইস তারকা। এবার রেকর্ড ২০ গ্র্যান্ড স্ল¬্যাম জয়ী তারকার প্রতিপক্ষ যুক্তরাষ্ট্রের টেনিস স্যান্ডগ্রেন। আর্জেন্টিনার দিয়াগো শোয়ার্টজম্যানকে ৬-৩, ৬-৪, ৬-৪ গেমে হারিয়ে শেষ আটে উঠেন বর্তমান চ্যাম্পিয়ন জোকোভিচ। এবার ১৬ গ্র্যান্ড স্ল¬্যাম জয়ীকে লড়তে হবে মিলোস রাওনিচের বিপক্ষে। মারিন সিলিচকে সরাসরি সেটে হারিয়ে কোয়ার্টার-ফাইনালে উঠেছেন ৩২তম বাছাই কানাডার রাওনিচ। শেষ আটে নিজ নিজ খেলায় জিতলে সেমি-ফাইনালে মুখোমুখি হবেন ফেদেরার ও জোকোভিচ।

 

থেমে গেল গাউফের স্বপ্নযাত্রা

ক্রীড়া প্রতিবেদক \  গ্র্যান্ড স্ল্যামের কোয়ার্টার-ফাইনালে খেলার অপেক্ষা বাড়ল কোকো গাউফের। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনে যুক্তরাষ্ট্রের ১৫ বছরের কিশোরীর চমকপ্রদ পথচলা থেমে গেছে চতুর্থ রাউন্ডে। স্বদেশি সোফিয়া কেনিনের কাছে হেরে গেছেন গাউফ। মেলবোর্ন পার্কে রোববার টাইব্রেকারে প্রথম সেট জিতলেও পরের দুই সেটে তেমন লড়াই করতে পারেননি গাউফ, হেরে যান ৬-৭ (৫-৭), ৬-৩, ৬-০ গেমে।

যুক্তরাষ্ট্রের এই উঠতি তারকা প্রথম রাউন্ডে হারিয়েছিলেন সাতবারের গ্র্যান্ড স্ল্যামজয়ী ভেনাস উইলিয়ামসকে। বর্তমান চ্যাম্পিয়ন নওমি ওসাকাকে হারিয়ে পান চতুর্থ রাউন্ডের টিকেট। এবারই অবশ্য প্রথম নয়, গাউফ প্রথমবার সাড়া জাগান গত উইম্বল্ডনে। প্রাতিযোগিতার পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন ভেনাসকে হারিয়ে। গত অক্টোবরে ডব্লিউটিএ শিরোপার স্বাদ পান গত ১৫ বছরের মধ্যে সবচেয়ে কম বয়সী হিসেবে। এবার অস্ট্রেলিয়ান ওপেনেও ছুটছিলেন তার প্রতিভার ঝলক দেখিয়ে।  তবে উইম্বলডনের মতোই থামতে হলো চতুর্থ রাউন্ডে। গাউফকে থামিয়ে সামনে এগিয়েছেন যিনি, সেই কেনিনের জন্যও দিনটি স্মরণীয়। প্রথমবার গ্র্যান্ড স্ল্যামের কোয়ার্টার-ফাইনাল উঠলেন তিনি, যেখানে তার প্রতিপক্ষ তিউনিশিয়ার ওন্স জাবের। গাউফের জন্য দিনটা হতাশার হলেও জাবেরের জন্য দিনটি ছিল ইতিহাস রচনার। সেরেনা উইলিয়ামসকে হারিয়ে উঠেছিলেন যিনি, সেই ওয়াং কিয়াংকে হারিয়ে শেষ আটে উঠেছেন জাবের। আরব বিশ্বের প্রথম নারী হিসেবে গ্র্যান্ড স্ল্যামের কোয়ার্টার-ফাইনালে পা রাখলেন ২৫ বছর বয়সী এই তিউনিশিয়ান। একই দিন শেষ আট নিশ্চিত করেছেন মেয়েদের এককের এক নম্বর বাছাই অ্যাশলি বার্টি। যুক্তরাষ্ট্রের অ্যালিসন রিস্ককে ৬-৩, ১-৬, ৬-৪ গেমে হারান অস্ট্রেলিয়ার এই তারকা। কোয়ার্টার-ফাইনালে বার্টি লড়বেন সাত নম্বর বাছাই পেত্রা কেভিতোভার বিপক্ষে। একই রাউন্ডে গত আসরে বার্টিকে হারিয়েছিলেন কেভিতোভা। গতবারের ফাইনালিস্ট কেভিতোভা এ দিন হারান গ্রিসের মারিয়া সাকারিকে।

দলের পারফরম্যান্সে ঘাটতি দেখছেন বার্সা কোচ

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ ভালেন্সিয়ার কাছে হারের পর হতাশা প্রকাশ করেছেন বার্সেলোনা কোচ কিকে সেতিয়েন। দলের পারফরম্যান্সে ঘাটতি দেখছেন এই স্প্যানিয়ার্ড। লা লিগায় শনিবার স্থানীয় সময় বিকেলে ভালেন্সিয়ার মাঠে ২-০ গোলে হারে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। গোলশূন্য প্রথমার্ধের পর আত্মঘাতী গোলে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। পরে ব্যবধান বাড়ান মাক্সি গোমেস। সবশেষ ছয় ম্যাচে বার্সেলোনার জয় কেবল দুটি। নতুন কোচ সেতিয়েনের অধীনে সব প্রতিযোগিতা মিলে তৃতীয় ম্যাচেই হারের স্বাদ পেল কাতালান দলটি। আগের দুই ম্যাচে কষ্টের জয় নিয়ে মাঠে ছাড়ে তারা।

হারের কারণ হিসেবে গোল করতে না পারাকে বড় করে দেখছেন সেতিয়েন। “বা¯Íবতা হলো, আমরা এই ম্যাচে ভালো খেলিনি। বিশেষ করে প্রথমার্ধে। আমরা গোলের পথ খুঁজে পাইনি। এছাড়াও আরো কিছু বিষয় আমরা ঠিকঠাকভাবে করিনি। এরপর ভালেন্সিয়া আমাদের ভুলের সুযোগ নিয়েছে।” অবশ্য পারফম্যান্স খারাপ হলেও খেলোয়াড়দের মনোযোগের অভাব দেখছেন না ৬১ বছর বয়সী কোচ। “সমস্যাটা মনোভাবে নয়, তাদেরকে প্রতিজ্ঞাবদ্ধই দেখাচ্ছিল। কিন্তু আমরা ভালো খেলতে পারিনি। আমরা প্রচুর অর্থহীন পাস দিয়েছি, কেবল দিতে হয় তাই।” লিগে চলতি মৌসুমে ২১ ম্যাচে বার্সেলোনার এটি চতুর্থ হার। ১৩ জয় ও চার ড্রয়ে তাদের পয়েন্ট ৪৩। এক ম্যাচ কম খেলে সমান পয়েন্ট নিয়ে গোল ব্যবধানে পিছিয়ে দুইয়ে আছে রিয়াল মাদ্রিদ। রোববার রাতে রিয়াল ভাইয়াদলিদকে হারিয়ে তালিকার শীর্ষে ওঠার সুযোগ আছে জিনেদিন জিদানের দলের।

বিদায়ের আগে ফিল্যান্ডারের শাস্তি

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ ইংল্যান্ডের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ দিয়েই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিদায় নেবেন জানিয়েছেন আগেই। ক্যারিয়ারের শেষ ম্যাচে অনুপযুক্ত ভাষা ব্যবহারের জন্য শা¯িÍর মুখে পড়লেন ভার্নন ফিল্যান্ডার। প্রোটিয়া অলরাউন্ডারকে ম্যাচ ফির ১৫ শতাংশ জরিমানা করা হয়েছে। সঙ্গে পেয়েছেন একটি ডিমেরিট পয়েন্ট। জোহানেসবার্গে সিরিজের চতুর্থ টেস্টের দ্বিতীয় দিনে শনিবার এই কান্ড ঘটান ফিল্যান্ডার। ইংল্যান্ডের প্রথম ইনিংসের ৮৫তম ওভারে জস বাটলারকে আউট করার পর তাকে লক্ষ্য করে অনুপযুক্ত ভাষা ব্যবহার করেন তিনি। মাঠে অশ্লীল কোনো কথার প্রমাণ পেলে সেটিকে আইসিসি আচরণবিধির লেভেল এক ভাঙার অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হয়। এই মাত্রার আচরণবিধি ভাঙার অপরাধে ডিমেরিট পয়েন্টসহ ফিল্যান্ডারকে জরিমানা করেন ম্যাচ রেফারি অ্যান্ডি পাইক্রাফট। ৩৪ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার অপরাধ মেনে নেওয়ায় আনুষ্ঠানিক শুনানির প্রয়োজন পড়েনি।

 

বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের শিরোপা জিতল ফিলিস্তিন।

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপের ফাইনালে বুরুন্ডিকে ৩-১ গোলে হারিয়ে শিরোপা জিতেছে যুদ্ধবিধ্বফিলিস্তিন। শনিবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে ফাইনাল ম্যাচটি অনুষ্ঠিত হয়। এ নিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো শিরোপা জিতল মাকরাম দাবুবের শিষ্যরা। ম্যাচের ৩ মিনিটেই খালেদ সালেমের গোলে এগিয়ে যায় ফিলি¯িÍন। মোহাম্মদ ডারউইমের কাছ থেকে বল পেয়ে জালে জড়ান সালেম। ম্যাচের ৯ মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন অধিনায়ক সামেহ মারাবা। মাহমুদ আবুওয়ারদার নেওয়া কর্নার কিক বুরুন্ডির খেলোয়াড়রা ক্লিয়ার করতে না পারলে বল চলে যায় মারাবার কাছে। মারাবা ট্যাপ করলে বল গোললাইনের ভেতরে গিয়ে পড়ে।

২০ মিনিটে গোল শোধ করার সুযোগ পেয়েছিল বুরুন্ডি। কিন্তু ফিলি¯িÍনের গোলরক্ষক তৌফিক আবুহাম্মাদের কারণে গোলবঞ্চিত হয় বুরুন্ডি। ২৬ মিনিটে ব্যবধান ৩-০ করে ফেলে ফিলি¯িÍন। খালেদ সালেমের নেয়া শট পোস্টে লেগে ফিরে আসলে আলতো টোকায় বল জালে পাঠান লাইথ খারুব। ফলে ৩-০ গোলে এগিয়ে থেকেই প্রথমার্ধ্বের খেলা শেষ করে ফিলি¯িÍন। বিরতির পর ৫৫ মিনিটে বুরুন্ডির ফরোয়ার্ড বেঞ্জামিন গাসোংগো গোলরক্ষককে একা পেয়েও গোল করতে পারেননি। এ সময় কর্নার পায় বুরুন্ডি। কর্নার থেকে বল পেয়ে আসমান দিকুমানাকে পাস দেন ব¬ানচার্ড গাবোনজিজার। দিকুমানার নেওয়া শট জালে জড়ায়। বাকি সময়ে আরো বেশি কিছু সুযোগ তৈরি করে তারা। কিন্তু সেগুলোর কোনোটি থেকেই কাঙ্খিত গোলের দেখা পায়নি বুরুন্ডি। আগের আসরের ফাইনালে নির্ধারিত সময় গোলশূন্যথাকার পর টাইব্রেকারে ৪-৩ ব্যবধানে জিতেছিল ফিলি¯িÍন।

চতুর্থ রাউন্ডে নাদাল

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ স্বদেশি পাবলো কারেনো বু¯Íাকে সরাসরি সেটে হারিয়ে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের চতুর্থ রাউন্ডে উঠছেন র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ তারকা রাফায়েল নাদাল। রজার ফেদেরারের ২০ গ্র্যান্ড ¯¬্যামের রেকর্ড স্পর্শ করার মিশনে মেলবোর্ন পার্কে শনিবার ৬-১, ৬-২, ৬-৪ গেমে জেতেন ৩৩ বছর বয়সী স্প্যানিশ তারকা।

প্রতিযোগিতার ২০০৯ সালের চ্যাম্পিয়ন নাদাল শেষ ষোলোয় লড়বেন নিক কিরগিয়সের বিপক্ষে। সাড়ে চার ঘনইা স্থায়ী ম্যাচে রাশিয়ার কারেন খাচানোভকে ৬-২, ৭-৬ (৭-৫), ৬-৭ (৬-৮), ৬-৭ (৭-৯), ৭-৬ (১০-৮) গেমে হারান কিরগিয়স। হার্ড কোর্টে নাদালের বিপক্ষে তিনবারের মুখোমুখি লড়াইয়ে দুবার জিতেছেন ২৪ বছর বয়সী এই অস্ট্রেলিয়ান। যুক্তরাষ্ট্রের ঊনবিংশ বাছাই জন ইসনার চোটের কারণে ম্যাচ শেষ করতে পারেননি। সে সময় ৬-৪, ৪-১ গেমে এগিয়ে থাকা সুইজারল্যান্ডের ¯Íানি¯¬াস ভাভরিঙ্কা পেয়ে যান চতুর্থ রাউন্ডের টিকেট। শেষ ষোলোয় উঠেছেন অস্ট্রিয়ার পঞ্চম বাছাই ডমিনিক টিমও। মেয়েদের এককে তৃতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় নিয়েছেন দুই নম্বর বাছাই কারোলিনা পি¬সকোভা। আনা¯Íাসিয়া পাভলুচেঙ্কোভার বিপক্ষে ৭-৬ (৭-৪), ৭-৬ (৭-৩) গেমে হেরে যান তিনি। এ¯েÍানিয়ার অনেত কোনতাভিয়েতের বিপক্ষে ৬-০, ৬-১ গেমে হেরে বিদায় নিয়েছেন সুইজারল্যান্ডের ছয় নম্বর বাছাই বেলিন্ডা বেনচিচ। ইউক্রেনের পঞ্চম বাছাই এলিনা ভিতোলিনাকে ৬-১, ৬-২ গেমে উড়িয়ে চতুর্থ রাউন্ডে উঠেছেন দুইবারের গ্র্যান্ড ¯¬্যামজয়ী গার্বিনে মুগুরুসা। এছাড়া সরাসরি সেটে জিতে শেষ ষোলোয় উঠেছেন চতুর্থ বাছাই রোমানিয়ার সিমোনা হালেপ।

 

দর্শককে কটু কথা বলে বিপদে স্টোকস

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ একসময় বিতর্ক ছিল তার নিত্য সঙ্গী। তবে সেই দিনগুলিকে পেছনে ফেলেছেন বলেই মনে হচ্ছিল। গত বছর দুয়েকে ২২ গজে অসাধারণ পারফরম্যান্স দিয়েই আলোড়ন তুলেছেন বারবার। কিন্তু আবার বিতর্কে জড়ালেন বেন স্টোকস। দর্শককে কটু কথা বলায় শা¯িÍর সম্মুখীন হতে পারেন আইসিসির বর্তমান বর্ষসেরা ক্রিকেটার। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে জোহানেসবার্গ টেস্টের প্রথম দিনে শুক্রবার এই কান্ড ঘটান স্টোকস। মাত্র ২ রানে আউট হয়ে ফেরার পথে ড্রেসিং রুমের সিঁড়িতে পা রাখার ঠিক আগে ডান পাশে গ্যালারিতে একজনের দিকে তাকিয়ে ইংলিশ অলরাউন্ডার বলেন, “এসো, মাঠের বাইরে এসে আমাকে এটা বলো…।” এটুকুর পর অশ্রাব্য ভাষায় আরেকটু কথা বলে উঠে যান সিঁড়ি দিয়ে। টিভির সরাসরি স¤প্রচারে সেটা ধরা পড়েনি। তবে পরে ব্রডকাস্টাররা সেই দৃশ্য বেশ কয়েকবার দেখিয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তা ভাইরাল হয়ে যায় দ্রুতই। ওই দর্শক স্টোকসকে কি বলেছিলেন, টিভি ক্যামেরায় তা ধরা পড়েনি। তবে ইএসপিএনক্রিকইনফো জানিয়েছে, মধ্য বয়সী ওই দর্শক সম্ভবত বলেছিলেন, স্টোকসকে দেখতে গায়ক এড শিরানের মতো লাগে। মাঠে অশি¬ল কোনো কথার প্রমাণ পেলে সেটিকে আইসিসি আচরণবিধির লেভেল এক ভাঙার অপরাধ হিসেবে গণ্য করা হয়। এটির শা¯িÍ একটি ডিমেরিট পয়েন্ট। স্টোকসের নামের পাশে এখন কোনো ডিমেরিট পয়েন্ট জমা নেই। তাই এই শা¯িÍ পেলে বলা যায় আপাতত রক্ষাই পাবেন স্টোকস। কিন্তু তার কথাকে যদি আঘাতের হুমকি হিসেবে গণ্য করা হয়, তাহলে আচরণবিধির লেভেল তিন ভাঙার অভিযোগ আনা হবে তার বিরুদ্ধে। সেটি প্রমাণিত হলে ৫ থেকে ৬টি ডিমেরিট পয়েন্ট পাবেন স্টোকস, মানে নিশ্চিত নিষেধাজ্ঞা। আর যদি তার কথায় খেলাটির জন্য দুর্নাম বয়ে আনার কিছু পান ম্যাচ রেফারি, তাহলে আচরণবিধির লেভেল এক থেকে চার পর্যন্ত যে কোনো ধারা ভঙ্গের অভিযোগ আনা হতে পারে। লেভেল চার মানে সবচেয়ে গুরুতর অপরাধ। ম্যাচ রেফারি অবশ্য অভিযোগ আনার সময় কিছু কিছু ব্যাপার মাথায় রাখবেন। ওই দর্শকের মন্তব্য স্টোকসকে কতটা উসকে দেওয়ার মতো ছিল, এটা দেখা হবে। স্টোকসের বাবা অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে ভর্তি আছেন, তাই তার মানসিক অবস্থাও বিবেচনায় নেওয়া হবে।

পাত্তাই পেল না বাংলাদেশ

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ পাকি¯Íানের কাছে পাত্তাই পেল না বাংলাদেশ। দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশকে ৯ উইকেটে গুঁড়িয়ে দিয়েছে পাকি¯Íান। তিন ম্যাচের সিরিজ তারা জিতে নিল প্রথম দুই ম্যাচেই। লাহোরে শনিবার তামিম ইকবাল খেলেন ৬৫ রানের ইনিংস। কিন্তু বল খেলেন ৫৩টি! ব্যাটিং লাইনআপের বাকিদের অবস্থাও তথৈবচ। ২০ ওভারে তাই বাংলাদেশ করতে পারে কেবল ১৩৬ রান। রান তাড়ায় পাকি¯Íান জিতে অনায়াসে। শুরুতে উইকেট হারালেও বাবর আজম ও মোহাম্মদ হাফিজের শতরানের অবিচ্ছিন্ন জুটিতে জয় ২০ বল বাকি রেখেই। গাদ্দাফি স্টেডিয়ামের উইকেট আগের দিনের মতো অতটা মন্থর ছিল না এ দিন। ১৬০-১৭০ হতে পারত লড়ার মতো রান। বাংলাদেশ পারেনি কাছে যেতেও। বাংলাদেশের ভোগান্তির শুরু ম্যাচের শুরু থেকেই। শাহিন শাহ আফ্রিদির অফ স্টাম্প ঘেঁষা ডেলিভারিতে ব্যাট ছুঁইয়ে আউট হন মোহাম্মদ নাঈম শেখ। এবারের বিপিএলে তিন-চারে নেমে ব্যাটিং সামর্থ্যরে ঝলক দেখানো মেহেদি হাসানকে সুযোগ দেওয়া হয় তিনে। প্রায় দুই বছর পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফেরার ম্যাচে খানিকটা আশা জাগিয়েছিলেন তিনি ইমাদ ওয়াসিমকে ¯¬গ সুইপে ছক্কা মেরে। কিন্তু মোহাম্মদ হাসনাইনের গতি সামলাতে না পেরে আউট হন বাজে শটে। আরেক পাশে তামিম এগোতে থাকেন নিজের গতিতে। বল প্রতি রান তুলেছেন ঠিকই, কিন্তু ছিল না টি-টোয়েন্টির তাড়া। পাওয়ার পে¬র ৬ ওভারে রান তাই ২ উইকেটে ৩৩। রানের গতিতে দম দিতে পারেননি লিটন দাসও। হারিস রউফকে দৃষ্টিনন্দন একটি চার মারেন, বাকি সময়টা টাইমিং করতে ধুঁকতে দেখা যায় তাকে। তার অবদান ১৪ বলে ৮। ৮ ওভার শেষে উইকেট নেই তিনটি, দলের রান রেট কেবল পাঁচের সামান্য ওপরে। প্রয়োজন ছিল তখন একইসঙ্গে একটি জুটি ও দ্রুত রান। তামিম ও আফিফ হোসেনের জুটি প্রথমটি পেরেছে, দ্বিতীয়টি নয়। শাদাব খানকে পরপর দুই বলে চার ও ছক্কা মারেন আফিফ। ইফতিখারকে বেরিয়ে এসে ছক্কায় ওড়ান তামিম। কিন্তু ছিল না ধারাবাহিকতা। ৪৫ রানের জুটিতে তাই লাগে ৪২ বল। থিতু হওয়ার পর যখন প্রয়োজন ঝড় তোলার, আফিফ আউট তখনই। ২০ বলে করতে পারেন কেবল ২১ রান। অধিনায়ক মাহমুদউল¬াহও এরপর পারেননি বড় শট খেলতে। সৌম্য সরকারের খুব বেশি করার সুযোগই ছিল না। ভরসা ছিলেন কেবল তামিম। কিন্তু দেশের সফলতম ব্যাটসম্যানও পারেননি শুরুর ঘাটতি শেষে পুষিয়ে দিতে। শাদাবকে বাউন্ডারিতে ৪৪ বলে ফিফটি স্পর্শ করেন তামিম। ওই ওভারে মারেন আরও দুটি বাউন্ডারি। ওই ওভারের পর বাকি ছিল ৪ ওভার। তামিম-মাহমুদউল¬াহ জ্বলে উঠলে হয়তো দেড়শ ছুঁতে পারত বাংলাদেশ। পারেননি কেউই। আগের ম্যাচের মতোই রান আউট হন তামিম। ইমাদের দারুণ থ্রো সরাসরি ফেলে দেয় বেলস, তবে দৌড়ের শুরুতে শ¬থ থাকায় দায় ছিল তামিমের নিজেরও। শেষ ওভারে আমিনুল ইসলাম বিপ¬বের দুটি বাউন্ডারিতে বাংলাদেশ যেতে পারে ১৩৬ পর্যন্ত। তবে মাঝ বিরতিতেও বোঝা যাচ্ছিল, ওই স্কোর যথেষ্ট নয়। বাবর ও হাফিজের ব্যাটিংয়ে প্রমাণ হয়েছে সেটিই। শফিউল ইসলাম যদিও নিজের প্রথম ওভারে দলকে উইকেট এনে দিয়েছিলেন আবারও। এহসান আলি আউট হন ৭ বলে শূন্য রান করে। কিন্তু বাংলাদেশের সাফল্যের শেষ ওখানেই। রান রেটের চাপ ছিল না, বাংলাদেশের বোলিং ছিল না ধারাবাহিক। বাবর ও হাফিজ তাই এগিয়েছেন অনায়াসেই। সময় যত গড়িয়েছে, আরও নুইয়ে পড়েছে বাংলাদেশ। শেষ দিকে হাফিজকে ফেরানোর সুযোগ এসেছিল। মু¯Íাফিজের বলে সহজ ক্যাচ ছাড়েন লিটন। ব্যর্থতার ষোলো কলা তাতে পূর্ণ হয়। ১৩১ রানের অপরাজেয় জুটিতে দলকে জিতিয়ে ফেরেন বাবর ও হাফিজ। টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর ব্যাটসম্যান বাবর অপরাজিত ৬৪ করেন ৪৪ বলে। হাফিজ অপরাজিত থেকে যান ৪৯ বলে ৬৭ রান করে। আগের দিন ব্যাটিং ব্যর্থতার পরও কিছুটা লড়াই করতে পেরেছিলেন বোলাররা। এ দিন সেই স্ব¯িÍও মেলেনি। বাংলাদেশ উড়ে গেছে সব বিভাগেই। সংক্ষিপ্ত স্কোর: বাংলাদেশ: ২০ ওভারে ১৩৬/৬ (তামিম ৬৫, নাঈম ০, মেহেদি ৯, লিটন ৮, আফিফ ২১, মাহমুদউল¬াহ ১২, সৌম্য ৫*, বিপ¬ব ৮*; ইমাদ ২-০-১৬-০, আফ্রিদি ৪-০-২২-১, হাসনাইন ৪-০-২০-২, রউফ ৪-০-২৭-১, শাদাব ৩-০-২৮-১, মালিক ২-০-৯-০, ইফতিখার ১-০-১২-০)।

পাকি¯Íান: ১৬.৪ ওভারে ১৩৭/১ (বাবর ৬৬*, এহসান ০, হাফিজ ৬৭*; মেহেদি ৪-০-২৮-০, শফিউল ৩-০-২৭-১, আল আমিন ৩-০-১৭-০, মু¯Íাফিজ ৩-০-২৯-০, বিপ¬ব ২-০-১৬-০, আফিফ ১-০-১৬-০, মাহমুদউল¬াহ ০.৪-০-৩-০)। ফল: পাকি¯Íান ৯ উইকেটে জয়ী।  সিরিজ: ৩ ম্যাচ সিরিজে পাকি¯Íান ২-০তে এগিয়ে। ম্যান অব দা ম্যাচ: বাবর আজম।

চ্যাম্পিয়ন ওসাকাকেও হারালেন গাউফ

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ বর্তমান চ্যাম্পিয়ন নাওমি ওসাকাকে সরাসরি সেটে হারিয়ে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের চতুর্থ রাউন্ডে উঠেছেন ১৫ বছরের কিশোরী কোকো গাউফ। মেলবোর্ন পার্কের রড লেভার অ্যারেনায় শুক্রবার মাত্র ৬৭ মিনিটে ৬-৩, ৬-৪ গেমে জেতেন র‌্যাঙ্কিংয়ের ৬৭তম গাউফ। যুক্তরাষ্ট্রের এই উঠতি তারকা প্রথম রাউন্ডে হারিয়েছিলেন সাতবারের গ্র্যান্ড ¯¬্যামজয়ী ভেনাস উইলিয়ামসকে। গত ইউএস ওপেন জয়ের পথে তৃতীয় রাউন্ডে গাউফকে হারিয়েছিলেন ২৩ বছর বয়সী ওসাকা। শেষ ষোলোয় গাউফ লড়বেন চীনের ঝাং শাউই ও যুক্তরাষ্ট্রের সোফিয়া কেনিনের মধ্যকার ম্যাচের বিজয়ীর বিপক্ষে। একই দিন চতুর্থ রাউন্ড নিশ্চিত করেন মেয়েদের এককের এক নম্বর তারকা অ্যাশলি বার্টি ও গতবারের ফাইনালিস্ট পেত্রা কেভিতোভা। তৃতীয় রাউন্ড থেকে বিদায় নিয়েছেন সাত বারের চ্যাম্পিয়ন সেরেনা উইলিয়ামস ও ২০১৮ সালের বিজয়ী কারোলিন ওজনিয়াকি।

হতাশায় ক্যারিয়ার শেষ ওজনিয়াকির

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ হার দিয়ে ক্যারিয়ার শেষ হলো কারোলিন ওজনিয়াকির। অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের তৃতীয় রাউন্ডে ওনস জাবেরের বিপক্ষে হেরে বিদায় নিয়েছেন মেয়েদের সাবেক এক নম্বর খেলোয়াড়। মেলবোর্ন পার্কে শুক্রবার তৃতীয় রাউন্ডে লড়াই করলেও শেষ পর্যন্ত পেরে ওঠেননি ২৯ বছর বয়সী ওজনিয়াকি। ক্যারিয়ার জুড়ে যেই ফোরহ্যান্ড এরর-এ বারবার ভুগেছেন তিনি, তার শেষটাও হলো ওই ভুলেই। ম্যাচ হেরে যান ৭-৫, ৩-৬, ৭-৫ গেমে। ম্যাচ শেষ তাই যেন কিছুটা মজা করে বললেন, “শেষ ম্যাচটা যেন এমনই হওয়ার ছিল-তিন সেটের লড়াই এবং আমার ক্যারিয়ার শেষ হবে ফোরহ্যান্ড এরর-এ, ক্যারিয়ার জুড়ে আমি এগুলোই অনুশীলন করেছি।” “মনে হয়, এটা এমনই হওয়ার ছিল। দারুণ এক পথচলার শেষ হলো।” ৭১ সপ্তাহ মেয়েদের এককে  র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষে ছিলেন ওজনিয়াকি। ডবি¬উটিএ শিরোপা জিতেছেন ৩০টি। ইউএস ওপেনের ফাইনালে দুইবার হারের পর অস্ট্রেলিয়ান ওপেন জিতেন ২০১৮ সালে; প্রথম গ্র্যান্ড ¯¬্যাম জয়ের স্বাদ পান ফাইনালে সিমোনা হালেপকে হারিয়ে। ক্যারিয়ারে গ্র্যান্ড ¯¬্যাম ওই একটিই।

রান উতসবের ম্যাচে ভারতের রেকর্ড গড়া জয়

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ ছোট মাঠ, উইকেট ব্যাটিং স্বর্গ। ইডেন পার্ক তাই প্রায়ই হয়ে ওঠে বোলারদের বধ্যভূমি আর ব্যাটসম্যানদের প্রিয় প্রাঙ্গন। তেমনই আরেকটি রান উৎসবের ম্যাচে শেষ পর্যন্ত হেরে গেল নিউ জিল্যান্ড। দেশের বাইরে নিজেদের রান তাড়ার নতুন রেকর্ড গড়ে জিতল ভারত। পাঁচ ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে নিউ জিল্যান্ডকে ৬ উইকেটে হারিয়েছে ভারত। অকল্যান্ডে শুক্রবার তিন ব্যাটসম্যানের ঝড়ো ফিফটিতে নিউ জিল্যান্ড ২০ ওভারে করেছিল ২০৩ রান। ভারত জিতেছে ১ ওভার বাকি রেখে। ভারতের রান তাড়ায় ওপেনিংয়ে দারুণ ফিফটি করেছেন লোকেশ রাহুল। বিরাট কোহলি খেলেছে কার্যকর ইনিংস। দুর্দান্ত অপরাজিত ফিফটিতে ম্যাচ জিতিয়ে ফিরেন শ্রেয়াস আইয়ার। দেশের বাইরে এই প্রথম দুইশ রান তাড়ায় জিতল ভারত। আগের রেকর্ড ছিল ২০১৮ সালে, ব্রিস্টলে ইংল্যান্ডের ১৯৮ রান টপকে জয়। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা নিউ জিল্যান্ডকে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন কলিন মানরো ও মার্টিন গাপটিল। পাওয়ার পে¬র ৬ ওভারে দুজন দলকে এনে দেন ৬৮ রান। মার্টিন গাপটিলকে ফিরিয়ে উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন শিবম দুবে। অষ্টম ওভারে তখন ৮০ রান তুলে ফেলেছে কিউইরা। ১৯ বলে ৩০ করে গাপটিল আউট হন সীমানায় রোহিত শর্মার দারুণ ক্যাচে। শুরুর গতি দ্বিতীয় উইকেটে ধরে রাখেন মানরো ও কেন উইলিয়ামসন। ৩৬ বলে মানরো স্পর্শ করেন তার দশম টি-টোয়েন্টি ফিফটি। মানরোর ইনিংস থামে ৪২ বলে ৫৯ রান করে শার্দুল ঠাকুরের বলে। পরের ওভারে রবীন্দ্র জাদেজার বলে আলগা শটে শূন্য রানেই বিদায় নেন বিপজ্জনক কলিন ডি গ্রান্ডহোম। তবে জোড়া ধাক্কায় খুব কাবু হয়নি নিউ জিল্যান্ড। উইলিয়ামসন ও রস টেইলর টর্নেডো জুটিতে এগিয়ে নেন দলকে। ২৮ বলে ৬১ রানের জুটি গড়েন দুই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান। অধিনায়ক উইলিয়ামসন ফেরেন চারটি করে চার ও ছক্কায় ২৬ বলে ৫১ রান করে। টেইলর দলকে পার করান দুইশ। অপরাজিত থাকেন তিনটি করে চার ও ছক্কায় ২৭ বলে ৫১ রান করে। অবিশ্বাস্য হলেও সত্যি, প্রায় ৬ বছর পর টি-টোয়েন্টি ফিফটি করলেন টেইলর। সবশেষটি ছিল ২০১৪ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে, চট্টগ্রামে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে। মাঝের সময়টায় ফিফটি না করলেও অবশ্য রান পেয়েছেন তিনি। ভারতের শক্তিশালী ব্যাটিংয়ে সামনে কিউইদের সেই রানও যথেষ্ট হয়নি। রোহিত শর্মা যদিও আউট হয়ে যান একটি ছক্কা মেরেই। দ্বিতীয় উইকেটে রাহুল ও কোহলির জুটি দলকে গড়ে দেয় জয়ের ভিত। ৫১ বলে ৯৯ রানের জুটি গড়েন দুজন। দশম টি-টোয়েন্টি ফিফটিতে রাহুল করেছেন ২৭ বলে ৫৬। গাপটিলের অসাধারণ ক্যাচে কোহলি ফেরেন ৩২ বলে ৪৫ রান করে। পরপর দুই ওভারে এই দুজনকে হারালেও পথ হারায়নি ভারতের ইনিংস। শিবম দুবে ও মনিশ পান্ডেকে নিয়ে দলকে জয়ের ঠিকানায় নিয়ে যান শ্রেয়াস। মনিশের সঙ্গে ৩৪ বলে ৬২ রানের অবিচ্ছিন্ন জুটি গড়েছেন শ্রেয়াস, যেখানে মনিশের রান কেবল ১৪, শ্রেয়াসের অবদান ৪৮। ২৯ বলে ৫৮ রানের ম্যাচ জেতানো ইনিংসে ম্যাচের সেরা শ্রেয়াস। সংক্ষিপ্ত স্কোর: নিউ জিল্যান্ড: ২০ ওভারে ২০৩/৫ (গাপটিল ৩০, মানরো ৫৯, উইলিয়ামসন ৫১, ডি গ্র্যান্ডহোম ০, টেইলর ৫৪*, সাইফার্ট ১, স্যান্টনার ২*; বুমরাহ ৪-০-৩১-১, শার্দুল ৩-০-৪৪-১, শামি ৪-০-৫৩-১, চেহেল ৪-০-৩২-১, দুবে ৩-০-২৪-১, জাদেজা ২-০-১৮-১)। ভারত: ১৯ ওভারে ২০৪/৪ (রোহিত ৭, রাহুল ৫৬, কোহলি ৪৫, শ্রেয়াস ৫৮*, দুবে ১৩, মনিশ ১৪*; সাউদি ৪-০-৪৮-০, স্যান্টনার ৪-০-৫০-১, বেনেট ৪-০-৩৬-০, টিকনার ৩-০-৩৪-১, সোধি ৪-০-৩৬-২)। ফল: ভারত ৬ উইকেটে জয়ী

সিরিজ: ৫ ম্যাচ সিরিজে ভারত ১-০তে এগিয়ে ম্যান অব দা ম্যাচ: শ্রেয়াস আইয়ার

হার দিয়ে বাংলাদেশের শুরু

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ মোহাম্মদ রিজওয়ানের শটে মিড উইকেটে সহজ ক্যাচ, কিন্তু মোহাম্মদ মিঠুন পারলেন না হাতে জমাতে। ওই শটেই দুই রান নিয়ে জিতে গেল পাকি¯Íান। ম্যাচের শেষটা বাংলাদেশের জন্য হয়ে রইল যেন প্রতীকী। ব্যাটিং-বোলিংয়ে বাংলাদেশ ক্ষেত্র তৈরি করে দারুণ কিছুর, কিন্তু বারবার নিজেরাই ফসকে ফেলেছে সুযোগ। পাকি¯Íান সিরিজ শুরু করেছে জয়ে। তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে শুক্রবার পাকি¯Íানের কাছে ৫ উইকেটে হেরেছে বাংলাদেশ। লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ে নামা বাংলাদেশ ২০ ওভারে করতে পারে ১৪১ রান। রান তাড়ায় শুরুটা ভালো করতে পারেননি পাকি¯Íান, খুঁড়িয়েছে শেষ দিকেও। তবে হারায়নি পথ, জিতেছে ৩ বল বাকি রেখে। সবশেষ দুই সিরিজে হোয়াইটওয়াশড হওয়ার পর শোয়েব মালিককে প্রায় এক বছর পর দলে ফিরিয়েছে পাকি¯Íান। ম্যাচ জেতানো ইনিংস খেলে অভিজ্ঞ ক্রিকেটার দিয়েছেন প্রতিদান। ৪৫ বলে ৫৮ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে তিনিই দলকে নিয়ে গেছেন কাঙ্ক্ষিত ঠিকানায়। গাদ্দাফি স্টেডিয়ামের উইকেট ছিল বেশ মন্থর। বল ব্যাটে এসেছে ধীরে, নিচু হয়েছে অনেক ডেলিভারি। দুই দলের ব্যাটিংয়েই তাই ছিল না টি-টোয়েন্টির ঝাঁঝ। অভিজ্ঞ মালিক সেখানে গড়ে দিয়েছেন ব্যবধান। বাংলাদেশ পিছিয়ে পড়ে ব্যাটিংয়ে। ছিল না খুব পরিকল্পনার ছাপ। উদ্বোধনী জুটিতে তামিম ইকবাল ও মোহাম্মদ নাঈম শেখ ১০ ওভার খেললেও পাননি টি-টোয়েন্টির ছন্দ। পরের ব্যাটসম্যানরাও মেটাতে পারেননি সময়ের দাবি। মাঝারি পুঁজিতে বোলাররা চেষ্টা করেন লড়াইয়ের। পেরে ওঠেননি মালিকের সঙ্গে। ম্যাচের প্রথম ওভার থেকে স্পষ্ট হয়ে যায়, উইকেট বেশ মন্থর। বাংলাদেশের রানের গতিও ছিল উইকেটের মতো ধীর। পাওয়ার পে¬র ৬ ওভারে তামিম ইকবাল ও মোহাম্মদ নাঈম শেখ তোলেন কেবল ৩৫ রান। পাওয়ার পেরু পরও গতি খুঁজে পাননি দুজন। কোনো উইকেট না হারিয়েও ১০ ওভার শেষে রান ছিল মোটে ৬২। লেগ স্পিনার শাদাব খানকে স্লগ সুইপে ছক্কা মেরে তামিম ইঙ্গিত দিয়েছিলেন শেকল ভাঙার। কিন্তু দ্বিতীয় রান নেওয়ার চেষ্টায় রান আউট হয়ে যান সেই ওভারেই। ৩৪ বলে ৩৯ করে ফিরেছেন তামিম। ইনিংসটির পথে সাকিব আল হাসানকে টপকে টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে বেশি রানের তালিকায় আবার উঠে গেছেন শীর্ষে। আরেক ওপেনার নাঈমের ইনিংসও এগিয়েছে একই পথ ধরে। পারেননি শুরুর ঘাটতি পরে পুষিয়ে দিতে। আউট হয়েছেন ৪১ বলে ৪৩ করে। ঝড় তোলার জন্য যার দিকে তাকিয়ে ছিল বাংলাদেশ, সেই লিটন দাস করতে পেরেছেন ১৩ বলে ১২। আফিফ হোসেন করেছেন কেবল ১০ বলে ৯। প্রায় একই পথের পথিক সৌম্য সরকার (৫ বলে ৭)। রানের গতি বাড়াতে চারে উঠে আসা মাহমুদউল্লাহও পারেননি প্রত্যাশিত দ্রুততায় রান তুলতে। ১৪ বলে করেছে ১৯। বাংলাদেশ তাই যেতে পারেননি দেড়শ পর্যন্তও। ব্যাটিংয়ে ১৫-২০ রান কম হওয়ার হতাশা পেছনে ফেলে বোলিংয়ের শুরুটা দারুণ করেছিল বাংলাদশ। ইনিংসের দ্বিতীয় বলে শফিউল ইসলাম ফিরিয়ে দেন বাবর আজমকে। টি-টোয়েন্টি র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষ ব্যাটসম্যান এই সংস্করণে প্রথমবার শূন্য রানের স্বাদ পেলেন ঘরের মাঠে নিজের প্রথম নেতৃত্বে ম্যাচে। মু¯Íাফিজুর রহমান আলগা কিছু বলে রান গুনলেও ফিরিয়ে দেন মোহাম্মদ হাফিজকে। পাওয়ার প্লেতে পাকি¯Íান ২ উইকেট হারিয়ে তোলে কেবল ৩৬ রান। সেই চাপ থেকে পাকি¯Íান আ¯েÍ আ¯েÍ বেরিয়ে আসে এহসান আলি ও মালিকের জুটিতে। অভিষিক্ত এহসান নিজের ২৫ রানে একটি সুযোগ দিয়েছিলেন আমিনুল ইসলাম বিপ¬বকে, কিন্তু কঠিন সেই ফিরতি ক্যাচ নিতে পারেননি এই লেগ স্পিনার। পরে বিপ্লবকেই উড়িয়ে মারতে গিয়ে এহসান ফেরেন ৩২ বলে ৩৬ রান করে। শফিউল-আল আমিনদের দারুণ বোলিংয়ে পাকি¯Íানের পরের পথটুকু পাড়ি দেওয়া হয়ে উঠেছে কঠিন। কিন্তু অভিজ্ঞতার ভেলায় দলকে টেনে নিয়ে গেছেন মালিক। শেষ দিকে দুর্দান্ত ডাইভ দিয়েও মালিকের ক্যাচ নিতে পারেননি লং অফ ফিল্ডার। মালিক তখন বিদায় নিলেও হতে পারত নাটকীয় কিছু। এমনকি শেষে রিজওয়ানের ওই ক্যাচ মিঠুন নিতে পারলেও ৩ বলে পাকি¯Íানের লাগত ২ রান। হতে পারত অনেক কিছুই। কিন্তু হলো না কিছুই। পারল না বাংলাদেশ। সংক্ষিপ্ত স্কোর: বাংলাদেশ: ২০ ওভারে ১৪১/৫ (তামিম ৩৯, নাঈম ৪৩, লিটন ১২, মাহমুদউলøাহ ১৯*, আফিফ ৯, সৌম্য ৭, মিঠুন ৫*; ইমাদ ৩-০-১৫-০, আফ্রিদি ৪-০-২৩-১, হাসনাইন ৪-০-৩৬-০, রউফ ৪-০-৩২-১, মালিক ১-০-৬-০, শাদাব ৪-০-২৬-১) পাকি¯Íান: ১৯.৩ ওভারে ১৪২/৫ (বাবর ০, এহসান ৩৬, হাফিজ ১৭, মালিক ৫৮*, ইফতিখার ১৬, ইমাদ ৬, রিজওয়ান ৫*; শফিউল ৪-০-২৭-২, মু¯Íাফিজ ৪-০-৪০-১, আল আমিন ৪-০-১৮-১, সৌম্য ২.৩-০-২২-০, বিপ¬ব ৪-০-২৮-১, আফিফ ১-০-৬-০) ফল: পাকি¯Íান ৫ উইকেটে জয়ী ম্যান অব দা ম্যাচ: শোয়েব মালিক

 

তারুণ্যে ভরসা রেখে জয়ের আশা মাহমুদউললাহর

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ বঙ্গবন্ধু বিপিএলের পারফরমারদের নিয়ে গড়া টি- টোয়েন্টি সিরিজের দল নিয়ে মাহমুদউল¬াহর অনেক আশা। আফিফ হোসেন, মোহাম্মদ নাঈম শেখ, আমিনুল ইসলামের মতো তরুণদের সামর্থ্যে ভরসা করছেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। দলে অভিজ্ঞতারও কোনো ঘাটতি নেই। পাকি¯Íানে সিরিজ জিততে প্রয়োজন গ্রেফ একটা দল হিসেবে নিজেদের সেরা ক্রিকেটটা খেলা। লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে শুক্রবার শুরু হবে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টি। এর আগের দিন সংবাদ সম্মেলনে মাহমুদউল¬াহ জানালেন, তারুণ্য ও অভিজ্ঞতার মিশ্রণে ভারসাম্যপূর্ণ দলটি নিয়ে নিজের আশার কথা। “বিপিএল যদি দেখে থাকেন, সেখানে পারফর্ম করা দারুণ এক ঝাঁক তরুণ আছে আমাদের। ওই তরুণদের ওপর আমরা নির্ভর করব। অভিজ্ঞ ক্রিকেটাররাও আছে দলে; আমি, সৌম্য, তামিম, মু¯Íাফিজ, রুবেল অনেক দিন থেকে খেলছি। আল আমিন, শফিউলরাও।” “আমার মনে হয়, তারুণ্য ও অভিজ্ঞতার দারুণ মিশ্রণ আছে আমাদের। এখন প্রয়োজন ব্যক্তিগত ও দলগতভাবে আমাদের খেলা নিয়ে ভাবা। তাহলে ভালো পারফরম্যান্স সম্ভব।” বিপিএলে ভালো করে প্রথমবারের মতো জাতীয় দলে ডাক পেয়েছেন তরুণ পেসার হাসান মাহমুদ। নাজমুল হোসেন শান্ত টুর্নামেন্টে একমাত্র স্থানীয় ক্রিকেটার হিসেবে করেছেন সেঞ্চুরি। আরও পরিণত হওয়ার আভাস মিলেছে লিটন দাসের ব্যাটিংয়ে। আন্দ্রে রাসেলের মুগ্ধতা কুড়িয়েছেন আফিফ। সব মিলিয়ে তরুণরাই এবার অধিনায়কের বাজি। “এই তরুণরা ঘরোয়া ক্রিকেট ও বিপিএলে পারফর্ম করেছে। তাদের সামনে এটি ভালো সুযোগ নিজেদের মেলে ধরার। আমার ধারণা, এরা সুযোগের জন্য মুখিয়ে আছে।”

লাহোরের বল-বয় থেকে অধিনায়ক বাবর

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ ১৩ বছর আগে যে মাঠে ছিলেন বল-বয়, সেই মাঠেই দলকে নেতৃত্ব দিতে নামতে যাচ্ছেন পাকি¯Íানি ব্যাটসম্যান বাবর আজম।

লাহোরের গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টি-টোয়েন্টিতে আজ শুক্রবার মুখোমুখি হবে বাংলাদেশ ও পাকি¯Íান। লাহোরের সন্তান বাবর এই প্রথম দেশকে নেতৃত্ব দেবেন ঘরের মাঠে, নিজ দর্শকদের সামনে। ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে পা রাখেন বাবর। এরপর নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করেছেন সময়ের অন্যতম সেরা ব্যাটসম্যান হিসেবে। আইসিসির শীর্ষ ব্যাটসম্যানদের তালিকায় তিন সংস্করণেই রয়েছে তার নাম। নিজেকে প্রমাণ করেছেন বিভিন্ন দেশে ভিন্ন ভিন্ন কন্ডিশনে। আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টিতে ৩৬ ম্যাচে ৫০.১৭ গড়ে বাবরের রান এক হাজার ৪০৫। অন্তত ৫০০ রান করেছেন, এমন ব্যাটসম্যানদের ব্যাটিং গড় ৫০-এর উপরে আছে কেবল আর একজনেরই। ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি ৭৮ ম্যাচে ৫২.৭২ গড়ে করেছেন দুই হাজার ৬৮৯ রান। এই সংস্করণে দীর্ঘ দিন ধরে র‌্যাঙ্কিংয়ের এক নম্বর ব্যাটসম্যান বাবর। ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে আছেন তিন নম্বরে। টেস্টে একটা সময় রেকর্ড বিবর্ণ থাকলেও গত কিছুদিনে নিয়মিতই হাসছে ২৫ বছর বয়সীর ব্যাট। নিজেকে তুলে নিয়েছেন র‌্যাঙ্কিংয়ের সপ্তম স্থানে। ব্যাটিংয়ে সাফল্যের পথচলাতেই ধরা দিয়েছে নেতৃত্বের সম্মান। গত সেপ্টেম্বরে অধিনায়ক হিসেবে পথচলা শুরু হয় বাবরের। অস্ট্রেলিয়া সফরে তিন ম্যাচের সিরিজে দল ২-০ ব্যবধানে হারলেও যথারীতি রান ছিল তার ব্যাটে। এবার ঘরের দলকে নেতৃত্ব দেবেন নিজ শহরের মাঠে।

বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ শুরুর আগের দিন বাবর ফিরে গেলেন তার  শৈশবের দিনগুলিতে, যখন স্বপ্নাতুর চোখে ছুটে যেতেন এই মাঠে। “মনে হচ্ছে, এই তো গতকালের ঘটনা, ২০০৭ সালে পাকি¯Íান-দক্ষিণ আফ্রিকা দ্বিতীয় টেস্টে কাজ করেছি বল-বয় হিসেবে। প্রতিদিন প্রায় তিন মাইল হেঁটে গাদ্দাফি স্টেডিয়ামে যেতাম।” “খেলাটির খেলার প্রতি ভালোবাসার কারণেই যেতাম। কয়েকজন তারকার প্রতি প্রবল আকর্ষণের ব্যাপারও ছিল, ইনজামাম-উল-হক, ইউনিস খান, মোহাম্মাদ ইউসুফ, মিসবাহ-উল-হক, গ্রায়েম স্মিথ, হাশিম আমলা, জ্যাক ক্যালিস এবং ডেল স্টেইন। তাদের টানেই আমি কোনো কোনো কিছুর তোয়াক্কা না করে ঘর থেকে বের হয়ে ছুটতাম পাকি¯Íানের হোম অব ক্রিকেটে।” বাবর জানালেন, বল-বয়ের সেই দিনগুলিই তার মনে এঁকে দিয়েছিল ভবিষ্যতের স্বপ্ন। “আমার কাছে সেটি ছিল টেস্ট ক্রিকেট ও কিংবদন্তি ক্রিকেটারদের কাছাকাছি যাওয়ার উপলক্ষ্য। ওই ম্যাচের সময় তাদের পিঠ চাপড়ে দেওয়া ও তাদের মুখের হাসি ছিল আমার কাছে সবচেয়ে বড় পুরস্কার। যে কোনো তরুণের জন্য সেটি এক জীবনের অভিজ্ঞতা।” সেই বাবর আজ পাকি¯Íানের সেরা ব্যাটসম্যান, বিশ্ব ক্রিকেটের সেরাদের একজন। দেশকে নেতৃত্ব দিতে পারার গৌরব তার সঙ্গী। ক্রিকেটের আঙিনায় নিজের সফলতার মন্ত্রটাও জানালেন তিনি। “ক্রিকেটে প্রতি আবার আবেগ, যেখানে মিশে আছে ক্রিকেটের প্রতি পাগলের মতো ভালোবাসা, আর খানিকটা ভাগ্যের সহায়তা আমাকে এই পর্যায়ে তুলে এনেছে। এই ভ্রমণে আমি ছিলাম ভাগ্যবান। অনেকেই আমার পাশে দাঁড়িয়েছেন, কোচরা আমাকে শিখিয়েছেন, পরামর্শ দিয়েছেন, ভালো ও মন্দ দিনে পাশে থেকেছেন।” “সব সাফল্যের জন্য আমি সেই সব আড়ালের নায়কদের কাছে ঋণী। এখন আমার দায়িত্ব উৎকর্ষের পেছনে ছোটা, যেন খেলোয়াড় ও অধিনায়ক হিসেবে আমি প্রত্যাশা পূরণ করতে পারি।”

 

লিগ কাপের ফাইনালে পিএসজি

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ রাঁসকে হারিয়ে ফরাসি লিগ কাপের ফাইনালে উঠেছে পিএসজি। শেষ চারের লড়াইয়ে বুধবার রাতে প্রতিপক্ষের মাঠে ৩-০ গোলে জেতে টুর্নামেন্টের সফলতম দলটি। ফাইনালে তাদের প্রতিপক্ষ লিগ ওয়ানের পয়েন্ট তালিকায় সপ্তম স্থানে থাকা অলিম্পিক লিওঁ। ম্যাচ জুড়ে দারুণ খেলা নেইমারের পাস থেকে নবম মিনিটে দলকে এগিয়ে নেন মার্কিনিয়োস। ৩১তম মিনিটে আত্মঘাতী গোল করে বসেন স্বাগতিকদের ডিফেন্ডার কোনান। ৭৩তম মিনিটে সরাসরি লাল কার্ড দেখেন রাঁসের মিডফিল্ডার মার্শাল মুনেতসি। ৭৭তম মিনিটে তরুণ ফরাসি ডিফেন্ডার তোঙ্গি কুয়াস্সির গোলে বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে টমাস টুখেলের দল। সব প্রতিযোগিতা মিলে এটি পিএসজির ৪ হাজারতম গোল। প্যারিসে ফাইনাল হবে আগামী ৪ এপ্রিল, ফ্রান্সের জাতীয় স্টেডিয়ামে।

কোপা দেল রের শেষ ষোলোয় রিয়াল

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ তৃতীয় সারির দল ইউনিয়নি¯Íাস দে সালামানকাকে হারিয়ে কোপা দেল রের শেষ ষোলোয় উঠেছে রিয়াল মাদ্রিদ। প্রতিপক্ষের মাঠে বুধবার রাতে শেষ-৩২এর ম্যাচটি ৩-১ গোলে জিতে রিয়াল। তাদের দুই গোলদাতা গ্যারেথ বেল ও ব্রাহিম দিয়াস। ১৮তম মিনিটে ডি-বক্সে স্বাগতিকরা বল বিপদমুক্ত করতে ব্যর্থ হলে বুক দিয়ে বল নামিয়ে শট নেন বেল। বল একজনের পায়ে লেগে দিক পাল্টে পোস্ট ঘেঁষে জালে জড়ায়। ৫৭তম মিনিটে পাল্টা আঘাত হানে সালামানকা। ডি-বক্সের মধ্যে থেকে শটে ঠিকানা খুঁজে নেন আলভারো রোমেরো। তাদের সে স্ব¯িÍ অবশ্য বেশিক্ষণ থাকেনি। আত্মঘাতী গোল করে বসেন স্প্যানিশ ডিফেন্ডার হুয়ান গনগোরা। আর যোগ করা সময়ের দ্বিতীয় মিনিটে তরুণ স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড ব্রাহিম দিয়াস ব্যবধান আরও বাড়ালে জয় নিশ্চিত হয়ে যায় স্পেনের সফলতম দলটির। তৃতীয় সারির আরেক ক্লাব ইবিজাকে ২-১ গোলে হারিয়ে শেষ ষোলোয় উঠেছে বার্সেলোনা। কাতালান ক্লাবটির দুটি গোলই করেন অঁতোয়ান গ্রিজমান।

 

তৃতীয় রাউন্ডে ফেদেরার-জোকোভিচ

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ সহজ জয়ে অস্ট্রেলিয়ান ওপেনের তৃতীয় রাউন্ডে উঠেছেন বর্তমান চ্যাম্পিয়ন নোভাক জোকোভিচ ও রেকর্ড ২০টি গ্র্যান্ড ¯¬্যাম জয়ী রজার ফেদেরার। মেলবোর্ন পার্কে বুধবার জাপানের অবাছাই তাতসুমা ইতোকে ৬-১, ৬-৪, ৬-২ গেমে হারান ১৬টি গ্র্যান্ড ¯¬্যাম জয়ী জোকোভিচ। প্রতিযোগিতার রেকর্ড সাতবারের চ্যাম্পিয়ন এই সার্বিয়ান তারকা শেষ বত্রিশে লড়বেন আরেক জাপানি প্রতিপক্ষ ইয়োশিহিতো নিশিওকার বিপক্ষে। আরেক ম্যাচে সার্বিয়ার ফিলিপ ক্রাইনোভিচকে ৬-১, ৬-৪, ৬-১ গেমে হারান প্রতিযোগিতার ছয় বারের চ্যাম্পিয়ন ফেদেরার। পরের রাউন্ডে ৩৮ বছর বয়সীর প্রতিপক্ষ অস্ট্রেলিয়ার জন মিলম্যান। প্রতিপক্ষ চোটের কারণে সরে দাঁড়ানোয় কোর্টে না নেমেই তৃতীয় রাউন্ডের টিকেট পেয়েছেন গ্রিসের ষষ্ঠ বাছাই ¯েÍফানোস সিৎসিপাস। চতুর্থ রাউন্ডে ওঠার লক্ষ্যে কানাডার মিলোস রাওনিচের মুখোমুখি হবেন ২০১৯ সালের এটিপি ফাইনালস জয়ী সিৎসিপাস।