দৌলতপুর সীমান্তে মাদক, চোরাচালান, নারী ও শিশু পাচাররোধে জনসচেতনতামূলক সভা

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সীমান্তে মাদক, চোরাচালান, নারী ও শিশু পাচাররোধে জনসচেতনতামূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার চিলমারী ইউনিয়নের চর সরকারপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় ৪৭ বিজিবি ব্যাটালিয়নের অধিনায়ক লেঃ কর্নেল মোঃ রফিকুল আলম পিএসসি উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও চিলমারী ও রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের ইউপি সদস্য, বিভিন্ন স্কুলের শিক্ষক এবং এলাকার সুধীজন উপস্থিত ছিলেন। সভায় মাদক, চোরাচালান, নারী ও শিশু পাচার রোধে সীমান্ত সংক্রান্ত বিভিন্ন সমস্যা নিয়ে উপস্থিত সকলের সাথে আলোচনা ও মতবিনিময় করা হয়।

প্রতিবন্ধী ব্যক্তির অধিকার ও সুরক্ষা আইন ২০১৩ বাস্তবায়নে এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত

গতকাল কুষ্টিয়ায় একটি স্থানীয় রেস্টুরেন্টে প্রতিবন্ধী ব্যক্তির অধিকার ও সুরক্ষা আইন ২০১৩ বাস্তবায়নে এ্যাডভোকেসি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ব্লু’ল ইন্টারন্যাশনাল, এলএলপি ইউএসএইড এর আর্থিক সহায়তায় ইউএসএইড এর এক্সপান্ডিং পার্টিসিপেশন অব পিপল উইথ ডিজএবিলিটি (ইপিডি) প্রোগ্রামের আওতায় কুষ্টিয়াসহ সাতটি জেলায় জাতীয় তৃণমূল প্রতিবন্ধী সংস্থা, প্রতিবন্ধী নারীদের জাতীয় পরিষদ এবং বাংলাদেশ লিগ্যাল এইড এন্ড সার্ভিসেস ট্রাস্ট (ব্লাস্ট) এর সহযোগিতায় প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের সংগঠন বা ডিপিও সমূহের ক্ষমতায়নের মাধ্যমে প্রতিবন্ধী ব্যক্তির অধিকার ও সুরক্ষা আইন, ২০১৩ এর সুষ্ঠু বাস্তবায়ন নিশ্চিত করার লক্ষ্যে এ সভা অনুষ্ঠিত হয়। কার্যক্রমের মধ্যে প্রতিবন্ধী ব্যক্তির অধিকার ও সুরক্ষা আইন ২০১৩ বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান ও অধিকার সম্পর্কে সচেতন করা ও জেলা কমিটির সদস্যবৃন্দের সাথে আইনজীবী, চিকিৎসক, ব্যবসায়ী, সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মিসহ বিভিন্ন পেশাজীবীদের সাথে আলোচনা ও প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের অধিকার লংঙ্ঘনের  ক্ষেত্রে ৩৬ ধারায় আইনী সহায়তা প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানে কম্পন জেলা প্রতিবন্ধী ফেডারেশন এর সভাপতি মোঃ জেদ আলীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ^বিদ্যালয়ের আইন অনুষদের ডিন প্রফেসর ডঃ রেবা মন্ডল। বিশেষ অতিথি ব্লু’ল ইন্টারন্যাশনাল এর সিনিয়র এসোসিয়েট হেজি স্মিথ, ইসলামী বিশ^বিদ্যালয়ের আইন অনুষাদ এর প্রফেসর ডঃ শাহজাহান মন্ডল, কুষ্টিয়া যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক মোঃ মাসুদুল হাসান, কুষ্টিয়া তথ্য অফিসের কর্মকর্তা শিল্পি মন্ডল, কুষ্টিয়া জেলা সমাজ সেবা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মোঃ মুরাদ হোসেন। এ সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন ব্লাষ্ট কুষ্টিয়া ইউনিট সমন্বয়কারী এ্যাডঃ শংকর মজুমদার, এ্যাডঃ এম এ মান্নাফ, কম্পন জেলা প্রতিবন্ধী ফেডারেশনের সহ-সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক, সাধারণ সম্পাদক স্বপন আহম্মেদ, সদস্য  রোকেয়া সুলতানা ময়নাসহ বিভিন্ন সংস্থার প্রতিনিধিবৃন্দ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

পাটিকাবাড়ী ইউনিয়নের আ’লীগের পুনরায় সভাপতি ও সম্পাদক হলে সাইদুর রহমান ও সফর উদ্দিন

মিলন আলী ॥ সকল জল্পনা কল্পনার অবসান ঘটিয়ে সদর উপজেলার পাটিকাবাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নতুন কমিটি ঘোষনা করা হয়। জানা যায়, আলামপুর ইউপির বালিয়াপাড়ায় সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে পাটিকাবাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি হিসেবে সাবেক সভাপতি, সাইদুর রহমান বিশ^াসকে আগামী ৩ বছরের জন্য ইউনিয়ন অআওয়ামীলীগে সভাপতি এবং পাটিকাবাড়ী ইউপির বার বার নির্বাচিত চেয়ারম্যান ও সাবেক সাধারন সম্পাদক সফর উদ্দিনকে আবারও আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক ঘোষনা করা হয়। ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নতুন সভাপতি সাইদুর রহমান বিশ^াস বলেন, জেলার মধ্যে আওয়ামীলীগের ঘাটি নামে খ্যাত পাটিকাবাড়ী ইউনিয়ন। আওয়ামীলীগকে সুশৃংখল আধুনিক যুগ উপযোগী  করার জন্য বিরামহীন ভাবে কাজ করে যাব। কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি আধুনিক কুষ্টিয়ার উন্নয়নের জনক বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক, সদর আসনের সংসদ সদস্য মাহবুবউল আলম হানিফকে তিনি আমাকে আবারও পাটিকাবাড়ী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি নির্বাচিত করার জন্য।

সদর উপজেলা আওয়ামী লীগে চমক

দু:সময়ের কান্ডারী রেজাউল হক পেলেন সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব  

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া শহর আওয়ামী লীগের পর এবার অনুষ্ঠিত হলো সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন। গতকাল উপজেলার বালিয়াপাড়া কলেজ মাঠে জমকালো অনুষ্ঠানের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হয় সম্মেলন। শহর আওয়ামী লীগের পরীক্ষিত নেতৃত্বের স্বীকৃতি দেয়া হলেও চমক আসে সদর উপজেলা সম্মেলনে। প্রবীণ আওয়ামী লীগ নেতা বিশিষ্ট আইনজীবি অ্যাড. আসম আখতারুজ্জামান মাসুম স্বপদে বহাল থাকলেও সাধারণ সম্পাদক পদে আসে চমক। দায়িত্ব পান সদর উপজেলা যুবলীগের সাবেক সভাপতি রেজাউল হক। তিনি সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হবেন এমনটি কস্মিনকালেও ভাবেননি অনেকেই। কারন এক ডজন প্রার্থি। তার মধ্যে রয়েছেন অনেক পরিচিত মুখ। তার মানে এই নয়, রেজাউল অযোগ্য কিংবা জনপ্রিয় নন। ছাত্র রাজনীতি থেকে যুবলীগের রাজনীতি। সেখানে টানা ১০বছর থেকেছেন সদর থানা যুবলীগের সভাপতির দায়িত্বে। সেই ২০০৩ সাল থেকে ২০১৩ সাল।  দীর্ঘ ১০ বছর দায়িত্বে থেকে যুবলীগকে করেছিলেন সমৃদ্ধ। তাঁর আগে বা পরে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের আমলে নির্যাতিত হন তিনি। পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার অত:পর কারাবরণ করেন  অসংখ্যবার। সামগ্রিক দিক বিবেচনায় তিনি সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হবেন এমনটি প্রত্যাশা থাকলেও এই সম্মেলনে যে তাকে সাধার সম্পাদক হিসেবে গুরু দায়িত্ব দেয়া হবে তা ভাবেননি অনেকেই। তবে সকল জল্পনা কল্পনার অবসান হয় যখন মঞ্চে ঘোষণা করা হয় তাঁর নাম। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সদস্য এসএম কামাল যখন তাঁর নাম ঘোষণা করেন তখন চমকে ওঠেন সামনের সারির তৃনমুলের বিপুল কর্মী বাহিনী। অবাক হন মঞ্চে থাকা স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতৃবৃন্দও। তবে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে তাঁর নাম ঘোষণায় আক্ষেপ কিংবা কষ্ট পাননি কেউই। বরং যোগ্য স্বীকৃতি দেয়ায় খুঁশি হন সবাই। আর এই ঘোষণার মধ্যে প্রমাণ হলো অনুপ্রবেশকারী কিংবা বিতর্কিত কাউকে আওয়ামী লীগে ঠাঁই নেই। যোগ্যতার ভিত্তিতে দেয়া হয় কমিটি। যার নেতৃত্বে আসেন বর্ণাঢ্য রাজনৈতিক ক্যারিয়ারের মালিক অ্যাড. আসম আখতারুজ্জামান মাসুম ও রেজাউল হক। সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় পুরো কৃতিত্ব দেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া-৩(সদর) আসনের সংসদ সদস্য মাহবুবউল আলম হানিফকে। সেই সাথে তাঁরই অনুজ কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান আতাকেও ভুলেননি তিনি। স্থানীয় রাজনীতিতে তাদেরকে আদর্শ মানেন তিনি। কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, সাধারণ সম্পাদকসহ জেলা আওয়ামী লীগের সকল নেতৃবৃন্দের প্রতি। তাঁদের চুলচেরা বিশ্লেষণে আমাকে যোগ্য মনে করে সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব অর্পণ করেছেন।

একনজরে রেজাউলের রাজনৈতিক ক্যারিয়ার

১৯৬৭ সালে কুষ্টিয়া সদর উপজেলার জগতি হাটপাড়া এলাকায় এক মধ্যবিত্ত আওয়ামী পরিবারে জন্মগ্রহন করেন রেজাউল হক। বাবা মৃত আজীজুল হক ছিলেন এলাকার জনপ্রিয় মানুষ। তিন ভাই দুই বোনের মধ্যে রেজাউল হক সবার বড়। স্কুল জীবন থেকেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শ মেনে আওয়ামী রাজনীতির সাথে যুক্ত হন তিনি। ৮৬-৮৭ সালে কুষ্টিয়া সরকারী কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থায় ছাত্রলীগের রাজনীতির সাথে সক্রিয় হন। ইউনিয়ন ও সদর উপজেলা ছাত্রলীগের গুরুত্বপূর্ণ পদে দীর্ঘ সময় দায়িত্ব পালন করেন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুকে স্বপরিবারে হত্যার পর যখন আওয়ামী লীগের নাম মুখে নেয়ার পরিস্থিতি ছিলনা তখন ছোট্ট যুবক এই রেজাউল জয়বাংলা শ্লোগানে বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে ধারণ করে আওয়ামী রাজনীতি করে গেছেন। বিএনপি-জামায়াত জোট রাষ্ট্রক্ষমতায় আসার পর দেশে যখন গণতন্ত্রের নামে লুটপাটের রাজনীতিতে ভরপুর, উন্নয়নের নামে দলের মন্ত্রী এমপি নেতাকর্মীদের ভাগ্যের উন্নয়ন ঘটেছে তাখন মানুষের অধিকার রক্ষায় ছোট্ট কর্মী হিসেবে আন্দোলন সংগ্রাম চালিয়েছেন। যদিও এজন্য কারাবরণ করতে হয় অসংখ্যবার। ছাত্র রাজনীতি ছেড়ে ঝুঁকে পড়েন যুবলীগের রাজনীতিতে। স্থানীয় পর্যায়ে নেতৃত্ব দেয়া রেজাউল হক আওয়ামী লীগের সিনিয়ন নেতৃবৃন্দের নজরে পড়েন। দায়িত্ব পান সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতির। ২০০৩ সাল থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত টানা ১০ বছর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে সংগঠনকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যান। এর আগে ১৯৯১ সাল থেকে ২০০২ সাল পর্যন্ত সদর উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হিসেবে টানা দু’বার দায়িত্ব পালন করেন। এরই মাঝে ক্ষমতার স্বাদ পেলেও নিজের নীতি আদর্শ থেকে কখনো বিচ্যুত হননি। লোভ লালসা উপেক্ষা করে নিষ্ঠা ও সততার সাথে বিএনপি-জামায়াত জোট সরকারের চোখ রাঙানি উপেক্ষা করে চালিয়ে যান রাজনীতি। ২০১৩ থেকে কোন পদে না থাকলেও সংগঠনের পেছনে বড় একটি সময় ব্যয় করেন তিনি। যার ফল তিনি আজ পেয়েছেন। কুষ্টিয়া সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে গুরুত্বপূর্ণ পদে আসীন হন তিনি। এজন্য তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া-৩(সদর) আসনের সংসদ সদস্য, কুষ্টিয়ার উন্নয়নের রূপকার মাহবুবউল আলম হানিফ ও তাঁরই অনুজ কুষ্টিয়া সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতার প্রতি কৃতজ্ঞ প্রকাশ করেন। রেজাউল হক বলেন জননেত্রী  শেখ হাসিনা যখন দলে ফ্রেশ ইমেজের নেতৃত্ব সম্মেলনের মাধ্যমে বেছে নেয়ার নির্দেশ দেন তখন সেই নির্দেশনা বাস্তবায়নে তাঁরই আস্থাভাজন নেতা বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ আমাকে যোগ্য হিসেবে বেছে নেন। এজন্য তিনি আবারও মাহবুবউল আলম হানিফের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। সেই সাথে আগামীতে যেন মাহবুবউল আলম হানিফের সাহচার্যে থেকে দলকে সাংগঠনিকভাবে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যেতে পারি এজন্য সকলের দোয়া ও সহায়তা কামনা করেন।

ঝিনাইদহে শিক্ষার্থী ধর্ষণ মামলার আসামীর বাড়ি থেকে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহে স্কুল শিক্ষার্থী গণ-ধর্ষণ মামলায় রিমান্ডের আসামী আলমগীর হোসেন (৩১) এর বাড়ি থেকে অস্ত্র ও গুলি উদ্ধার করেছে পুলিশ। গতকাল ভোর রাতে সদরের মান্দার বাড়িয়া এলাকা থেকে এ অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। সে ওই গ্রামের আজিবর বিশ্বাসের ছেলে। ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি মঈন উদ্দিন জানান, জেলা সদরের মগরখালী এলাকায় ২৩ অক্টোবর তারিখে ৯ম শ্রেণীর এক স্কুল শিক্ষার্থী গণধর্ষনের ঘটনা ঘটে। ওই দিনই ভুক্তভোগী পরিবারের পক্ষ থেকে ৭ জনকে আসামী করে থানায় মামলা করা হয়। পরে ঘটনার তৃতীয় দিনে থানায় আত্মসমর্পণ করে মামলার ২নম্বর আসামী আলমগীর হোসেন। পরে আদালতের অনুমতিক্রমে গতকাল মঙ্গলবার তাকে রিমান্ড নেওয়া হয়। পরে তার স্বীকারোক্তি মোতাবেক নিজ বাড়িতে অভিযান চালায় পুলিশ। সেসময় বাড়ির পাশের বিচালীর গাদা থেকে একটি বিদেশী পিস্তল ও ১ রাউন্ড গুলি উদ্ধার করা হয়। তার বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনেও আরো একটি মামলা করা হয়েছে। গ্রেফতারকৃত আলমগীর হোসেন চাদাবাজি, ধর্ষণসহ নানা সন্ত্রাসীমুলক কর্মকান্ডের সাথে দীর্ঘদিন জড়িত ছিল বলেও জানান ওসি।

কুষ্টিয়া শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদের পক্ষ থেকে এ্যাড. মাসুমকে অভিনন্দন

স্বাধীনতা পরবর্তী কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি, কুষ্টিয়ার সরকারী কৌসুলী (জিপি) বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড. আ স ম আখতারুজ্জামান মাসুম বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ কুষ্টিয়া সদর উপজেলা শাখার পুনরায় সভাপতি নির্বাচিত হওয়ায় কুষ্টিয়া পূর্ব মজমপুর শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদের পক্ষ থেকে ফুলের শুভেচ্ছা জানানো হয়েছে। গতকাল বুধবার রাতে এ্যাড. আখতারুজ্জামান মাসুমের থানাপাড়াস্থ বাসভবনে এ ফুলের শুভেচ্ছা জানানো হয়।

এসময় উপস্থিত ছিলেন শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক, দৈনিক আন্দোলনের বাজার পত্রিকার সম্পাদক আনিসুজ্জামান ডাবলু, সাধারণ সম্পাদক মোঃ রাশিদুজ্জামান খান টুটুল, সহ-সভাপতি এ্যাড. সেলিম সোহরাব খান, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক  এ্যাড. নাজমুন নাহার, ডাঃ খায়রুল ইসলাম,  চ্যানেল ২৪ কুষ্টিয়া স্টাফ রিপোর্টার শরিফ বিশ^াস, সংসদের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মাছুদুর রহমান মাছুদ, যুগ্ম-সম্পাদক রকিবুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ শাহ্ আলম সান্টু, ক্রীড়া সম্পাদক মোঃ মামুনুর রহমান মামুন, নির্বাহী সদস্য তাইন রিজভী সুজন, আরিফুল ইসলাম ও সাইফুল প্রমুখ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

মিরপুরে আনঝুচর সিদ্দিকীয়া দাখিল মাদরাসায় অভিভাবক সমাবেশ

মিরপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার আসাননগর আনঝুচর সিদ্দিকীয়া দাখিল মাদরাসার উদ্যোগে অভিভাবক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সমাবেশে প্রধান অতিথি’র ছিলেন উপজেলা জাসদের সাধারন সম্পাদক আহাম্মদ আলী। বিশেষ অতিথি’র বক্তব্য রাখেন  ডাংগাপাড়া দাখিল মাদরাসার সুপার মাওলানা মুফতি ইব্রাহিম খলিল, কাকিলাদহ কে এম আইডিয়াল কলেজের অধ্যক্ষ মাসুদুর রহমান ঝন্টু, আসাননগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ কুতুব উদ্দিন, শ্রীরামপুর দাখিল মাদরাসার সুপার মাওলানা মোঃ আজিজুর রহমান, মাদরাসা পরিচালনা পর্ষদের সাবেক সভাপতি আঃ হান্নান মেম্বার, জাসদের নেতা ফরিদ উদ্দিন, আবুরী মাগুরা মাধ্যমিক বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি আঃ মান্নান, মালিহাদ ইউপি সদস্য নওয়াব আলী, গফিরুল ইসলাম, জাতীয় যুব জোটের সভাপতি নাজমুল হোসেন ও সহ-সভাপতি রেজাউল হক তুফান। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করে মাদরাসার সুপার মাওলানা মোঃ নুরুল ইসলাম।

খোকসায় প্রাথমিক শিক্ষার্থীদের ঝড়ে পড়া রোধে মিড ডে মিল চালু

খোকসা প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার খোকসায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের ঝরে পড়া রোধে মিড ডে মিল চালু করা হয়েছে। গতকাল বুধবার দুপুরে খোকসা-জানিপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে কুষ্টিয়া জেলা পরিষদ সদস্য রোজী সুলতানার সহযোগিতায় মিড ডে মিলের উদ্বোধন করেন খোকসা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৌসুমী জেরিন কান্তা। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু হানিফ, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ আলী, খোকসা উপজেলা শিক্ষা অফিসার মিজা গোলাম মোহাম্মদ বেগ, সহকারী উপজেলা শিক্ষা অফিসার হুসেইন মো: বেলাল, ইউআরসি ইন্সট্রাক্টর আহম্মেদ আলী মিয়া। এসময় উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বলেন, মিড ডে মিল চালুর ফলে বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীর উপস্থিতির সংখ্যা বৃদ্ধি পাবে। এটি নিয়মিতভাবে চালু রাখার নির্দেশনা দেন তিনি।

কুষ্টিয়া শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায়

ফুলের শুভেচ্ছায় সিক্ত হলেন আতাউর রহমান আতা

সুজন কর্মকার ॥ ফুলের শুভেচ্ছায় সিক্ত হলেন কুষ্টিয়া শহর আওয়ামী লীগের নব-নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান আতা। আতাউর রহমান আতা শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় হাজারো নেতা-কর্মী ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা জানানো হয়। ১২ নভেম্বর মঙ্গলবার কুষ্টিয়া ইসলামিয়া কলেজ মাঠে শহর আওয়ামীলীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। এ সম্মেলনে কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়। সম্মেলন শেষ হবার সাথে সাথে শতশত নেতা-কর্মী আতাউর রহমান আতাকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান। সেই থেকে গতকাল বুধবার রাত পর্যন্ত হাজারো নেতা-কর্মী ও বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের পক্ষ থেকে কুষ্টিয়া শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান আতাকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানান। এ সময় শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান আতার পক্ষ থেকে সকলকে মিষ্টি মুখ করানো হয়। আতাউর রহমান আতা সকলকে দেশ ও জাতির কল্যাণে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ বুঁকে ধারণ করে কাজ করার আহবান জানান।  সেই সাথে জননেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে আরো শক্তিশালী করতে নেতা-কর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থেকে কাজ করার আহবান জানান।

দৌলতপুরেও চালের বাজার অস্থির

সব রকম চালের দাম বেড়েছে কেজি প্রতি ৫-৭ টাকা

শরীফুল ইসলাম ॥ সারা দেশের ন্যায় কুষ্টিয়ার দৌলতপুরেও চালের বাজার অস্থির হয়ে পড়েছে। হঠাৎ করেই বেড়েছে চিকন ও মোটা চালের দাম। প্রায় সব রকম চিকন চালের দাম কেজিতে বেড়েছে ৫-৭ টাকা আর মোটা চাল কেজিতে বেড়েছে ২-৩ টাকা। চালের দাম বেশ কয়েক মাস স্থিতিশীল থাকলেও চালের বাজার হঠাৎ করে বেড়ে যাওয়ায় অস্বস্তিতে পড়েছেন ক্রেতারা। বিক্রেতাদের দাবী মোকাম বা পাইকার বাজার থেকে বেশি দামে চাল কিনতে হচ্ছে বলে বেশি দামে বিক্রি করতে হচ্ছে চাল। আবার চালকল মালিকরা বলছেন বাজারে চিকন ধানের সংকট থাকায় বেশি দামে কিনতে হচ্ছে ধান। গতকাল বুধবার বিভিন্ন চালের বাজার ঘুরে জানাগেছে, প্রায় ৬-৭ মাস চালের বাজার স্থিতিশীল ছিল। কৃষকের উৎপাদিত ধানের দাম কম থাকায় চালের বাজার স্থিতিশীল ছিল। কিন্তু গত এক সপ্তাহে বাজারে হঠাৎ করে বেড়ে গেছে সব রকম চিকন চালের দাম। মিনিকেট চালের দাম আগে যেখানে ৩৮টাকা ছিল সেই চালে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৪ থেকে ৪৫ টাকা, একই হারে বেড়েছে কাজল লতাও। ৩২ টাকা থেকে বেড়ে বিক্রি হচ্ছে ৩৮টাকা। তবে ২৮ চালের দাম তেমন একটা না বাড়লেও প্রতি কেজি বিক্রয় হচ্ছে ৩০টাকা থেকে বেড়ে ৩২-৩৩টাকা। চালের বাজার হঠাৎ বেড়ে যাওয়ায় অস্বস্তিতে পড়েছেন ক্রেতারা। তাদের দাবী ব্যবসায়ীরা সিন্ডিকেট করে হাঠাৎ করে চালের দাম বাড়িয়েছে। উপজেলার তারাগুনিয়া এলাকার ছানোয়ার ইসলাম নামে এক চাল ক্রেতা জানান, এক সপ্তাহ আগে মিনিকেট চালের দাম যা ছিল তা থেকে প্রতি কেজিতে আজ (বুধবার) ৭টাকা বেশী নিচ্ছে বিক্রেতা। একই অভিযোগ করেছেন দৌলতপুরের নিজাম উদ্দিন নামে অপর এক চাল ক্রেতা। তবে চাল ব্যবসায়ী ও বিক্রেতারা বলছেন গত এক সপ্তাহ ধরে বাজারে চিকন চালের দাম বেড়েছে কেজিতে ৫-৭টাকা। মোটা চালের দাম কেজিতে ২-৩টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। তাদের দাবী মোকাম থেকে বেশি দামে চাল কিনতে হচ্ছে। কাজিম উদ্দিন নামে এক চাল ব্যবসায়ী জানান, চালের মোকাম থেকে বেশী দামে চাল কিনতে হচ্ছে তাই খুচরা বাজারে ধরন অনুযায়ী চালের দাম কেজি প্রতি ৫-৭টাকা বেড়েছে। একই অভিযোগ করেছেন, নাজমুল ইসলাম নামে এক খুচরা চাল ব্যবসায়ীর। তিনি জানান পাইকার বাজার থেকে বেশী দামে চাল কিনতে হচ্ছে। তাই খুচরা বাজারেও চালের দাম কেজিতে বেড়েছে ৭টাকা পর্যন্ত। এদিকে চাল ব্যবসায়ীরা বলছেন দীর্ঘ সময় ধানের দাম স্থিতিশীল থাকায় চালের দাম বাড়েনি। কিন্তু বর্তমানে ধানের বাজার বেড়ে যাওয়ায় চালের দাম বেড়েছে।

ঝিনাইদহ-২আসনের এমপির পিএসসহ দুই জনকে কুপিয়ে জখম

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহ শহরের নিজ কার্যালয় মাওলানা ভাষানী সড়কে মঙ্গলবার রাতে ঝিনাইদহ-২ আসনের সংসদ সদস্য তাহ্জীব আলম সিদ্দিকী’র পিএস কামাল হোসেন (৪৩) ও পলাশ (৩০) নামে দুই জনকে মাথায় কুপিয়ে জখম করেছে সন্ত্রাসীরা। কামাল হোসেন হরিণাকুন্ডু উপজেলার বড় ভাদড়া গ্রামের আব্দুল জলিল মন্ডলের ছেলে। তিনি শহরের আরাপপুর এলাকায় বসবাস করেন। এছাড়া আহত পলাশ একই উপজেলার ছোট ভাদড়া গ্রামের শাহজামালের ছেলে। আহতদের ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সন্ত্রাসীরা তাদের মাথায় কুপিয়ে যখম করে পালিয়ে যায়। পুলিশ জানায় মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে কামাল হোসেন তার অফিসে বসে ছিলেন। এ সময় ৮-১০ জন সন্ত্রাসী অতর্কিতভাবে তাকে ও তার সাথে থাকা পলাশকে কুপিয়ে জখম করে। তবে কে বা কারা এই হামলার সাথে জড়িত তা নিশ্চিত করতে পারেনি। ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি মঈন উদ্দীন জানান, হামলার সাথে জড়িতদের খুঁজে বের করা হবে। সন্ত্রাসী হামলার খবর পেয়ে পুলিশ সুপার মোঃ হাসানুজ্জামানসহ বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তা হাসপাতালে আহতদেরকে দেখতে যান। রাতে হামলাকারীদের গ্রেফতারের দাবীতে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাইদ বিশ্বাসের নেতৃত্বে শহরে বিক্ষোভ মিছিল করে। বুধবার সকালে তাহজীব আলম সিদ্দিকী এমপি’র নেতৃত্বে শহরে বিক্ষোভ মিছিল ও সন্ত্রাসীদের দ্রুত গ্রেফতারের দাবি জানানো হয়। একইসাথে শ্রমিক ইউনিয়নের সদস্য ড্রাইভার পলাশকে কুপিয়ে আহত করায় সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারের দাবিতে ঝিনাইদহ বাস-মিনিবাস শ্রমিক ইউনিয়নের নেতৃত্বে বুধবার সকল থেকে সকল রুটের গাড়ি বন্ধ করে দেওয়া হয়। প্রায় তিন ঘন্টাপরে পুলিশ প্রশাসনের আশ্বাসে অবরোধ তুলে নেওয়া হয়।

 

ত্রি-ধারায় বিভক্ত নেতা-কর্মীরা

দৌলতপুরে আওয়ামী লীগের ইউনিয়ন কমিটিগুলো অন্ধকারে

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার ১৪টি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের মধ্যে ১০টি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাঁকী ৪টি চিলমারী, রামকৃষ্ণপুর, ফিলিপনগর ও মরিচা ইউনিয়নের সম্মেলন আগামীকাল শুক্রবার উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। তবে ১০টি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলন সম্পন্ন হলেও কোন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কমিটির নাম ঘোষনা করা হয়নি। অথচ সম্মেলন স্থলেই ইউনিয়ন কমিটির অন্তত: শীর্ষ পদগুলির নাম ঘোষনার মধ্যদিয়ে সম্মেলন সম্পন্ন হওয়ার কথা। কিন্তু তা করা হয়নি। সবই রয়েছে অন্ধকারে। কারন দলীয় কোন্দল, দলের নেতা-কর্মীদের বিশৃঙ্খলা এবং কমিটির সদস্যদের নাম ঘোষণা করা হলে বঞ্চিতরা বিক্ষোভ করে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ করবে এমন আশংকা থেকে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলন স্থল থেকে কমিটির নাম ঘোষনা করা হয়নি বলে দলীয় নেতাদের অভিমত। যার কারনে প্রতিটি ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলন স্থল থেকে পদ প্রত্যাশীদের একাধিক প্যানেল জমা হলে তা বগলদাবা করে জেলায় নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ফলে এক প্রকার অবমূল্যায়িত হয়েছে দৌলতপুর আওয়ামী লীগের বর্তমানে যে কমিটি রয়েছে সে কমিটির নেতৃবৃন্দ। আর এমনই অভিমত প্রকাশ করেছেন মাঠ পর্যায়ের আওয়ামী লীগ দলীয় নেতা-কর্মীরা। গতকাল বুধবার ছিল রিফায়েতপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সম্মেলন। এ সম্মেলনেও সভাপতি পদে ২৩ জন আর সাধারণ সম্পাদক পদে ২২জন প্রার্থী নিজেদের নাম ঘোষনা করেছেন। এখানেও সব প্রার্থীদের নামের তালিকা বগলদাবা করে নিয়ে যাওয়া হয়েছে জেলা সদরে।

বর্তমানে দৌলতপুর আওয়ামী লীগ নেতৃত্ব চলছে তিন ধারায় বিভক্ত হয়ে। আর তিন ধারা সমর্থিত নেতা-কর্মীরা ইউনিয়ন কমিটির পদ পাওয়ার আশায় পৃথক পৃথক প্যানেল জমা দিয়ে জট বাঁধিয়েছেন। এদের মধ্যে দৌলতপুর আওয়ামী লীগের সভাপতি প্রবীন আওয়ামী লীগ নেতা সাবেক এমপি আফাজ উদ্দিন সমর্থিত মাঠ পর্যায়ের নেতা-কর্মীদের ভিড় ভাট্টা বেশী লক্ষ্য করা গেছে। সাবেক এমপি রেজাউল চৌধুরী সমর্থিত নেতা-কর্মীরাও রয়েছেন ভিড় ভাট্টার দলে। আর সব সময়ই সরকার দলীয় এমপি’র কাছাকাছি থাকা দলছুট কিছু নেতা-কর্মী রয়েছেন, যারা এমপি’র নেক দৃষ্টি পাবেন এমন আশায় ছুটোছুটিতে ব্যস্ত রয়েছেন। পদ পাওয়ার আসায় তারাও রয়েছেন বগলদাবা তালিকায়। সব মিলিয়ে তিন ভাগে বিভক্ত নেতা-কর্মীরা একমত না হওয়ার কারনে কোন কমিটির তালিকা চুড়ান্ত হয়নি। আগামী ১৯ নভেম্বর দৌলতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে। সেই সম্মেলনে ইউনিয়ন পর্যায়ের পদ পাওয়া নেতাদের সমর্থনে দৌলতপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ বিভিন্ন পদ নির্বাচিত হবে। কিন্ত যারা উপজেলার আওয়ামী লীগের নেতা নির্বাচন করবেন তারাও এখনও রয়েছেন অন্ধকারে। তারপরও দৌলতপুরের তৃণমুল পর্যায়ের নেতা কর্মীরা আশায় বুক বাঁধছেন। কারন ২০০২ সালের দৌলতপুর আওয়ামী লীগের কমিটি দিয়ে দীর্ঘ দেড় যুগ পার হয়েছে। নতুন কমিটিতে নতুন নেতৃত্ব আসবে যারা দৌলতপুর আওয়ামী লীগকে নতুন করে ঢেলে সাজাবে যেখানে থাকবেনা বিএনপি-জামায়াত থেকে আসা পরগাছা।

দৌলতপুরের ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের কমিটি অন্ধকারে থাকার বিষয়ে দৌলতপুর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. শরীফ উদ্দিন রিমন বলেন, সময় স্বল্পতার কারনে তড়ি ঘড়ি করে দ্রুততার সাথে ইউনিয়ন সম্মেলন সম্পন্ন করা হচ্ছে। একাধিক প্রার্থী ও প্যানেল জমা হওয়ায় পর সমঝোতা না হওয়ার কারনে সবার তালিকা একত্রিত রয়েছে। প্রতিদ্বন্দ্বীরা নিজেরা ঐক্যমতে পৌঁছাতে না পারলে তখন বসে ইউনিয়ন কমিটিগুলো নির্বাচন করা হবে।

আজ বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস

কুষ্টিয়া ডায়াবেটিক সমিতির আয়োজনে র‌্যালী ও আলোচনাসভা

আজ ১৪ নভেম্বর বিশ্ব ডায়াবেটিস দিবস। এ উপলক্ষে  র‌্যালী ও আলোচনা সভা করবে কুষ্টিয়া ডায়াবেটিক সমিতি ও মুজিবুর রহমান মেমোরিয়াল ডায়াবেটিক হাসপাতাল। আজ সকাল ৯টায় র‌্যালী ও সাড়ে ৯টায় হাসপাতাল প্রাঙ্গনে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়েছে। টেলিকনফারেন্সে মাধ্যমে অনুষ্ঠানের উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেবেন বঙ্গবন্ধু পরিষদের কেন্দ্রিয় সাধারণ সম্পদক এবং প্রধানমন্ত্রীর সাবেক রাজনৈতিক উপদেষ্টা ডা.এস এ মালেক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি প্রফেসর ড.আআমস আরেফীন সিদ্দিক। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখবেন কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডাঃ এসএম মুসতানজিদ। প্রধান বক্তা সদর উপেজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা। বিশেষ অতিথি থাকবেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম এন্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্টের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড.মাহবুব আরেফীন, কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের সহযোগী অধ্যাপক ও মেডিসিন বিভাগীয় প্রধান ডাঃ সালেক মাসুদ। অনুষ্ঠানে সকলকে উপস্থিত থাকার আহবান জানিয়েছেন কুষ্টিয়া ডায়াবেটিক সমিতির সভাপতি মতিউর রহমান লাল্টু ও সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

একই প্রশ্নপত্রে ইবির ইংরেজি বিভাগে দুই শিক্ষাবর্ষের পরীক্ষা

ইবি প্রতিনিধি ॥ একই প্রশ্নপত্র দিয়ে কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগে টানা দুইবার অনার্স তৃতীয় বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা গ্রহণের অভিযোগ উঠেছে। গত ৯ নভেম্বর অনুষ্ঠিত ৩০৫ন কোর্সের পরীক্ষায় ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত পরীক্ষার প্রশ্নপত্রের হুবহু মিল পাওয়া গেছে বলে অভিযোগ করেছেন বিভাগের শিক্ষার্থীরা। কোর্স শিক্ষকদের দেয়া প্রশ্ন সমন্বয় না করেই বিগত বছরের প্রশ্ন কপি করে এ পরীক্ষা গ্রহণ করেছেন অনার্স তৃতীয় বর্ষের চূড়ান্ত পরীক্ষা কমিটির সভাপতি অধ্যাপক আজগর হোসেন। জানা যায়, গত ৯ নভেম্বর এলিজাবেথান এ্যান্ড জ্যাকোবিয়ান ড্রামা (৩০৫) কোর্সের পরীক্ষা-২০১৯ অনুষ্ঠিত হয়। এতে ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত একই কোর্সের ২ ও ৩ নং প্রশ্ন পরির্বতন করে একই অংশে অথবা হিসেবে ব্যবহৃত প্রশ্ন হুবহু মিল  রেখে পরীক্ষা গ্রহণ করা হয়েছ। এছাড়াও ব্যাখ্যা অংশে ‘সি’ নং ব্যতিত সকল প্রশ্ন মিল রেখে তিনি এ পরীক্ষা গ্রহণ করেছেন। তবে দুই এবং তিন নং প্রশ্নের মূল প্রশ্ন পরিবর্তন করা হলেও বিকল্প প্রশ্ন দুটির কোন পরিবর্তন করা হয়নি। এছাড়াও ৬নং প্রশ্নের ৮ টি ব্যাখার মধ্যে ৪ টি  উত্তর করতে বলা হয় এতে সকল প্রশ্ন যথাযথ স্থানে মিল রেখে শুধুমাত্র ‘সি’ নং প্রশ্নটি পরিবর্তন করা হয়েছে। এতে শিক্ষার্থীদের মাঝে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। এভাবে একই প্রশ্ন দিয়ে পরীক্ষা গ্রহণ কতটুকু যুক্তিযুক্ত এ নিয়ে সচেতন শিক্ষক মহলে আলোচনা-সমালোচনার ঝড় উঠেছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক শিক্ষার্থী বলেন, ২০১৮ সলের প্রশ্ন দিয়েই ২০১৯ সালে আমাদের পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে। এই কোর্সের প্রশ্ন আগে থেকে কিছু শিক্ষার্থীদের দেওয়া হয়েছে বলেও তারা মন্তব্য করেন। অধ্যাপক আজগর হোসেনের বিরুদ্ধে প্রশ্ন দেয়ার প্রলোভন  দেখিয়ে বিভাগীয় মেয়ে শিক্ষার্থীদের সাথে যৌন হয়রানী করার অভিযোগ রয়েছে। এছাড়াও মেয়ে শিক্ষার্থীদের বাসা যাতায়াত সহ তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ রয়েছে। এ ব্যাপারে ইংরেজি বিভাগের এক শিক্ষক বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্ডিন্যান্স অনুযায়ী পুর্ববর্তী বছরের প্রশ্নের সাথে পরবর্তী বছরের প্রশ্নে কোনভাবেই ২০ শতাংশের বেশি প্রশ্ন পুণরাবৃত্তি করা যাবে না। যদি কেউ করে তাহলে বিশ্ববিদ্যালয়ের অডিন্যান্স ভঙ্গ করা হবে।’ পরীক্ষা কমিটির সভাপতি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক ড. আজগর হোসেন বলেন, যেভাবে খুশি পরীক্ষা কমিটি প্রশ্ন করতে পারে। এ ব্যাপারে কোন বিধি নিষেধ নেই। আর যে সকল শিক্ষক এই কোর্সের ক্লাস নিয়েছে তারা যদি একই বিষয় এবারও পড়ান তাহলে একই ধরনের প্রশ্ন হবে এতে আমার কিছু করার নেই।

আ’লীগে দূষিত রক্তের প্রয়োজন নেই – কাদের

ঢাকা অফিস ॥ আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ‘আওয়ামী লীগে দূষিত রক্তের প্রয়োজন নেই। গুটিকয়েক খারাপ লোকের জন্য গোটা দল বদনামের ভাগিদার হবে না। যারা অন্তঃকলহ করবে, অপকর্ম করবে, দুর্নীতি করবে- তাদের এ দলে স্থান হবে না।’ বুধবার চট্টগ্রাম নগরীর কেবি কনভেনশন সেন্টারে আয়োজিত প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা আখতারুজ্জামান চৌধুরী বাবুর ৭ম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত স্মরণসভায় তিনি এসব কথা বলেন। কারও অপকর্মের দায় আওয়ামী লীগ নেবে না মন্তব্য করে ওবায়দুল কাদের বলেন, চট্টগ্রামসহ সারা দেশে বিভিন্ন উন্নয়ন হচ্ছে। ১০টা উন্নয়ন ম্লান হয়ে যাবে যদি একটি খারাপ আচরণ হয়। আমরা পরিবর্তন চাই, কিন্তু সেই পরিবর্তন চাই না যে পরিবর্তন আওয়ামী লীগকে আদর্শের শিকড় থেকে বিচ্ছিন্ন করে দেয়। শিকড়ের সঙ্গে আদর্শ বিস্তৃত। সরকারের ভিশন ২০২১ ও ২০৪১ বাস্তবায়নে যারা কাজ করবে তাদের চরিত্র হারালে চলবে না। সভায় বক্তব্য দেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ, ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, চট্টগ্রাম সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন, উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ সালাম প্রমুখ।

কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের রায়

মাদক মামলায় ১জনের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া সদর থানার একটি মাদক (ফেন্সিডিল) মামলায় ১জনের যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও ৫০হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো এক বছর কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল বুধবার দুপুরে কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিজ্ঞ বিচারক অরূপ কুমার গোস্বামী জনাকীর্ণ এক আদালতে আসামীর উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষনা করেন। দন্ডপ্রাপ্ত আসামী হলেন-মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার হোগলবাড়িয়া (উত্তরপাড়া) গ্রামের মৃত মোস্তফা আলীর ছেলে মোঃ আক্কাস আলী। আদালত ও মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, সিপিসি-১, র‌্যাব-১২ জেসিও মোঃ মজিবুর রহমান ২০১৭ সালের ১৫ অক্টোবর দুপুরে কুষ্টিয়া জেলার সদর উপজেলার বটতৈল এলাকায় টহল করাকালীন সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারেন যে, কুষ্টিয়া জেলার সদর থানাধীন মিনাপাড়া গ্রামের বাইপাস সড়ক এলাকায় একজন মাদক ব্যবসায়ী ফেনসিডিল বিক্রি করছে। উক্ত সংবাদের পরিপ্রেক্ষিতে মিনাপাড়া গ্রামের মাঠ এলাকায় বাইপাস সড়কে অভিযান চালিয়ে আক্কাস আলী নামে একজনকে আটক করে। আটককৃত আাসামীর নিকটে থাকা ২টি বস্তা থেকে ১৮৭ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করে কুষ্টিয়া সদর থানায় মালামালসহ আসামীকে সোপর্দ করা হয়। পরে কুষ্টিয়া সদর থানায় আক্কাস আলীকে আসামী করে মাদকদ্রব্য আইনে একটি মামলা করা হয়। থানার মামলা নং- ২৭, তারিখ- ১৫/১০/২০১৭ ইং। কুষ্টিয়া জজ কোর্টের পিপি এ্যাড. অনুপ কুমার নন্দী জানান, কুষ্টিয়া সদর থানায় দায়েরকৃত মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ আইনের ১৯ (১) (খ) ধারার এই মামলাটি তদন্ত শেষে ২০১৭ সালের ২১ নভেম্বর আসামী আক্কাস আলীর বিরুদ্ধে পুলিশ আদালতে চার্চশীট দাখিল করলে সেশন ২৪৮/১৮ নং মামলায় নথিভুক্ত হয়ে বিচার কাজ শুরু হয়। দীর্ঘ স্বাক্ষ্য শুনানী শেষে বিজ্ঞ আদালত আসামীর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমানিত হওয়ায় এই রায় ঘোষনা করেন। আসামী পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন এ্যাড. দেওয়ান মাসুদ করিম মিঠু।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের রায়

কুষ্টিয়ায় গৃহবধু ধর্ষণের দায়ে ৪জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া মডেল থানার একটি ধর্ষন মামলায় চারজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ডসহ অর্থদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। গতকাল বুধবার বেলা ১১টায়  কুষ্টিয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের বিচারক মুন্সী মো: মশিয়ার রহমান আসামীদের উপস্থিতিতে জনাকীর্ণ আদালতে এই রায় ঘোষনা করেন। ধর্ষণ মামলায় যাবজ্জীবন দন্ডপ্রাপ্ত আসামীরা হলেন- সদর উপজেলার বটতৈল মধ্যপাড়া গ্রামের মোস্তফা প্রামানিকের ছেলে লখাই প্রামানিক ওরফে আজাদ (৫০), চৌড়হাস ফুলতলা গ্রামের আসাদুলের ছেলে শামীম হোসেন (৩২) কাথুলিয়া গ্রামের আনোয়ার বিশ^াসের ছেলে চন্নু বিশ^াস ও শফি মন্ডলের ছেলে নজরুল। আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২৮ মে সন্ধায় সদর উপজেলার বটতৈল দক্ষিণপাড়া গ্রামের বাড়ি থেকে ওই গৃহবধুকে কৌশলে ডেকে নিয়ে পাশর্^বর্তী পাট ক্ষেতে দলবেধে ধর্ষণের ঘটনার অভিযোগে কুষ্টিয়া মডেল থানায় ভুক্তভোগী ওই গৃহবধু নিজেই বাদি হয়ে ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত শেষে ২০১৫ সালের ৭ অক্টোবর ৬জনের বিরুদ্ধে অভিযোগ এনে আদালতে চার্জশীট দাখিল করেন পুলিশ। ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের (ভারপ্রাপ্ত) সরকারী কৌশুলী সাইফুল ইসলাম বাপ্পী বলেন, গৃহবধু গ্যাং রেফএর ঘটনায় ছয়জনের বিরুদ্ধে চার্জগঠন ও স্বাক্ষ্য শুনানী শেষে লখাই, শামীম, চুন্নু ও নজরুলের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীত প্রমানিত হওয়ায় তাদের যাবজ্জীবন কারাদন্ডসহ প্রত্যেকের ৫০হাজার টাকা জরিমানা আদেশ এবং অভিযোগ প্রমানিত না হওয়ায় লাহরী ও নাজিমকে খালাস দিয়েছেন আদালত।

কুষ্টিয়া শিল্পকলা একাডেমীর সাধারন সম্পাদক আমিরুল ইসলামের মায়ের ইন্তেকাল

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া শিল্পকলা একাডেমীর সাধারন সম্পাদক আমিরুল ইসলামের মাতা রাবেয়া বেগম (৯০) গতকাল বুধবার দুপুরে বার্ধক্যজনিত কারনে থানাপাড়াস্থ নিজ বাসভবনে ইন্তেকাল করেছেন (ইন্না—রাজেউন)। মৃত্যুকালে ৪ ছেলে ও ২ মেয়ে, নাতী নাতনীসহ অসংখ্য গুনাগ্রাহী রেখে গেছেন। মরহুমের মৃত্যুর খবরে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। প্রতিবেশী এবং আত্মীয় স্বজনেরা মরহুমাকে শেষবারের মত দেখতে সেখানে ভিড় জমায়। বাদ এশা থানাপাড়া জামে মসজিদে মরহুমার জানাজার নামাজ অনুষ্ঠিত হয়। জানা যায়, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব সদর উদ্দিন খান, সাধারন সম্পাদক আসগর আলী, শহর আওয়ামীলীগের সভাপতি তাইজাল আলী খান, সাধারন সম্পাদক ও কুষ্টিয়া সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাড, আখতারুজ্জামান মাসুম ও নবনির্বাচিত সাধারন সম্পাদক রেজাউল হকসহ এলাকার মুসল্লীগণ উপস্থিত ছিলেন। পরে কুষ্টিয়া কেন্দ্রীয় গোরস্থানে দাফন সম্পন্ন হয়েছে। আগামী শুক্রবার বাদ আসর পুরুষদের জন্য থানাপাড়া জামে মসজিদ এবং মেয়েদের জন্য মরহুমার থানাপাড়া পুলিশ ক্লাব সংলগ্ন বাসভবনে মিলাদ দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে বলে মরহুমার পারবারিক সুত্রে জানা গেছে।

 

সংসদ সদস্য হানিফ’র শোক

কুষ্টিয়া জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারন সম্পাদক আমিরুল ইসলামের মাতা রাবেয়া বেগম (৯০) এর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন, বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া-৩ (সদর) আসনের সাংসদ মাহবুবউল আলম হানিফ। তিনি মরহুমার বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করে  শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

 

আতাউর রহমান আতা’র শোক

কুষ্টিয়া জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারন সম্পাদক আমিরুল ইসলামের মাতা রাবেয়া বেগমের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন, কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও কুষ্টিয়া শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান আতা। সেই সাথে শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

 

কুষ্টিয়া সদর উপজেলা আ’লীগের শোক

কুষ্টিয়া জেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারন সম্পাদক আমিরুল ইসলামের মাতা রাবেয়া বেগমের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন, কুষ্টিয়া সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাডঃ আ. স. ম. আখতারুজ্জামান মাসুম ও নবনির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক রেজাউল হক। সেই সাথে শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।

কুষ্টিয়ায় সাহিত্যিক মীর মশাররফ হোসেনের ১৭২তম জন্মবার্ষিকীর উৎসব শুরু

সোহেল হাবিব ॥ কুষ্টিয়ার কুমারখালি উপজেলার লাহিনীপাড়ায় শুরু হয়েছে সাহিত্যিক মীর মশাররফ হোসেনের ১৭২তম জন্মবার্ষিকীর উৎসব। গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় মীর মশাররফ হোসেনের বসতভিটা লাহিনী পাড়ায় তিন দিনব্যাপি উৎসব প্রধান অতিথি হিসেবে উৎসবের উদ্বোধন করেন ও বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মোঃ আসলাম হোসেন। সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের সহযোগিতায় ও কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসনের আয়োজনে আলোচনা পর্বে সভাপতিত্ব করেন কুমারখালি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ রাজীবুল ইসলাম খান। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত-বিপিএম(বার), উপসচিব মৃনাল কান্তি দে, লেখক গিয়াস উদ্দিন আহমেদ মিন্টু, কুমারখালি প্রেসক্লাবের সভাপতি বাবলু জোয়ারদার প্রমুখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন চাঁপড়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মনির হাসান রিন্টু। শেষে জেলা শিল্পকলা একাডেমির পরিবেশনায় অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। এ উপলক্ষে মীরের বসত ভিটায় বসেছে ঐতিহ্যের গ্রামীণ মেলা।

কুষ্টিয়া সদর উপজেলার সকল ইউনিয়ন আ’লীগের নেতৃবৃন্দের নাম ঘোষণা

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া সদর উপজেলার সকল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নাম ঘোষণা করা হয়েছে। কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও শহর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান আতা’র মাধ্যমে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নাম জানাগেছে। আতাউর রহমান আতা বলেন, সকল ইউনিয়নে যে কমিটি প্রকাশ করা হয়েছে, তা চূড়ান্ত। ইউনিয়ন পর্যায়ে যারা রয়েছেন এলাকায় কোন বিশৃঙ্খলা করা যাবে না। যারা পদ বঞ্চিত হয়েছেন তাদেরকেও মূল্যায়িত করা হবে। দলের জন্য সু-শৃঙ্খলভাবে কাজ করার আহব্বান জানান আতাউর রহমান আতা। আগামী ৩ বছরের জন্য কমিটি অনুমোদন দেয়া হয়। দ্রুত সকল কমিটি পূর্নাঙ্গ কমিটি করার নির্দেশনা প্রদান করা হয়। ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নেতৃবৃন্দরা হলেন, হাটশ হরিপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি মিলন মন্ডল, সাধারন সম্পাদক হাজী আরিফুল ইসলাম। বটতৈল ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিক, সাধারণ সম্পাদক মফিজুল ইসলাম। আইলচারা ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আব্দুল মোতালেব হোসেন, সাধারণ সম্পাদক খাকছার জোয়ার্দ্দার। পাটিকাবাড়ি ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি সাইদুর রহমান সাহেদ, সাধারণ সম্পাদক সফর উদ্দিন। গোস্বামী দুর্গাপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক দবির উদ্দিন বিশ্বাস। মনোহরদিয়া ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি জহিরুল ইসলাম জহুর, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল হামিদ। ঝাউদিয়া ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি কেরামত আলী বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক জহুরুল ইসলাম ঠান্টু। আব্দালপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি শেখ আরব আলী, সাধারণষ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা। হরিনারায়ণপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি মহি উদ্দিন মন্ডল, সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসেন। উজানগ্রাম ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি ছানোয়ার মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক আবু বক্কর সিদ্দিকী। জিয়ারখী ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি শাহজাহান বিশ্বাস, সাধারণ সম্পাদক মুছা আহমেদ।  কাঞ্চনপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি সেকেন্দার আলী, সাধারণ সম্পাদক রহিদুল ইসলাম। আলামপুর ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি আব্দুল হান্নান, সাধারণ সম্পাদক সেলিম উদ্দিন।

‘শুদ্ধি’ অভিযান চলবে – প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ ঢাকার ক্রীড়া ক্লাবগুলোতে ক্যাসিনো বন্ধের মধ্য দিয়ে যে ‘শুদ্ধি’ অভিযান শুরু হয়েছে, তা চালিয়ে যাওয়ার কথা বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেড় মাস আগে এই অভিযান শুরুর পর তাতে কিছুটা ভাটা দেখা দেওয়ার মধ্যে বুধবার সংসদে এক প্রশ্নের উত্তরে সরকার প্রধান বলেন, “এ অভিযান অব্যাহত থাকবে।” গত সেপ্টেম্বরে মতিঝিলের ক্রীড়া ক্লাবে র‌্যাবের অভিযানে অবৈধ ক্যাসিনো পরিচালনার তথ্য বেরিয়ে আসে। এতে জড়িত কয়েকজনকে গ্রেপ্তারও করা হয়েছে। শেখ হাসিনা বলেন, “ক্যাসিনোর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী ইতোমধ্যে কঠোর অভিযান পরিচালনা করে ক্যাসিনোর আস্তানাগুলো উচ্ছেদ করে। সংশ্লিষ্ট অপরাধীদের গ্রেপ্তার করে বিচারের আওতায় আনতে আদালতে সোপর্দ করেছে। ভবিষ্যতে যাতে কেউ এ ধরনের অবৈধ কর্মকান্ড পরিচালনা করতে না পারে সেজন্য আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর নজরদারি অব্যাহত আছে। “দুর্নীতি, মাদক, সন্ত্রাস, জুয়াসহ সব সামাজিক অপরাধের বিরুদ্ধে জেলা,উপজেলা ও পৌরসভাসহ সকল সেক্টরে এবং স্থানে সরকারের চলমান অভিযান অব্যাহত থাকবে।” জাতীয় পার্টির রুস্তম আলী ফরাজীর প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকার দুর্নীতি, সন্ত্রাস, মাদক ও জুয়াসহ সব সামাজিক অপরাধের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি নিয়েছে। মাদক কারবারি ও মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর কঠোর অভিযান চলমান রয়েছে। এ অভিযান অব্যাহত থাকবে। “সন্ত্রাসীদের বিরুদ্ধে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর অব্যাহত অভিযানে অনেক সন্ত্রাসী আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর কাছে আত্মসমর্পণ করেছে। সন্ত্রাস নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর অভিযান চলবে। “সব দুর্নীতিবাজকে আইনের আওতায় আনতে দুর্নীতি দমন কমিশন কাজ করে যাচ্ছে। সরকারি কর্মচারীসহ অন্য যে সব ব্যক্তি জড়িত, তাদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।” প্রধানমন্ত্রী জানান, গত ১০ বছরে দুর্নীতি দমন কমিশন ১৩ হাজার ২৩৮টি অভিযোগের অনুসন্ধান, ৩ হাজার ৬১৭টি মামলা দায়ের এবং ৫ হাজার ১৭৯টি অভিযোগপত্র দিয়েছে। জাতীয় পার্টির মুজিবুল হকের প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, ক্যাসিনো ও দুর্নীতির সাথে যেই জড়িত থাকুক না কেন, তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে এবং তা অব্যাহত থাকবে। ““সাম্প্রতিক সময়ে দুর্নীতি দমন কমিশন ক্যাসিনোর সাথে জড়িত বিভিন্ন ব্যক্তির সম্পদের তথ্য চেয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকসহ বিভিন্ন দপ্তরে চিঠি দিয়েছে। তাছাড়া বাংলাদেশের কোন কোন ব্যক্তি সিঙ্গাপুরে ক্যাসিনো খেলেছে, সে সম্পর্কিত তথ্য প্রেরণের জন্য দুদক সিঙ্গাপুর সরকারকে অনুরোধ করেছে।” প্রধানমন্ত্রী বলেন, “দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রাখতে দুদক বদ্ধপরিকর। এছাড়া কারা কারা অভিজাত গাড়ি কিনেছে, সেই সম্পর্কিত তথ্য সংগ্রহের কাজ চলমান রয়েছে।” সাতক্ষীরা-২ আসনের সংসদ সদস্য মীর মোস্তাক আহমেদ রবির প্রশ্নের জবাবে সংসদ নেতা বলেন, দলমত নির্বিশেষে সব ধরনের অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইন কঠোরভাবে প্রয়োগ করা হচ্ছে। সারাদেশের এ ধরনের অপরাধীদের বিরুদ্ধে আইন শৃঙ্খলাবাহিনী অভিযান পরিচালনা করছে। জাতীয় পার্টির সৈয়দ আবু হোসেন বাবলার প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী বলেন, “দুর্নীতির বিষবৃক্ষ সম্পূর্ণ উপড়ে ফেলে দেশের প্রকৃত আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের জন্য একটি সুশাসনভিত্তিক প্রশাসনিক কাঠামো তৈরি করতে সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।”