গাংনীতে রবি মেডিকেয়ার ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের উদ্বোধন

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলা শহরের প্রাণ কেন্দ্রে রবি মেডিকেয়ার ডায়াগনষ্টিক সেন্টার নামক একটি স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্রের উদ্বোধন করা হয়েছে। মানসম্মত স্বাস্থ্যসেবা দেয়ার প্রত্যয় নিয়ে গাংনী উপজেলা শহরের কাথুলী মোড়ে এ স্বাস্থ্য কেন্দ্রটির আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। গতকাল শনিবার দুুপুরে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে প্রতিষ্ঠানটির উদ্বোধন করেন কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের চিকিৎসক (ডাক্তার) নুরুন্নাহার। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন গাংনী উপজেলা  স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার রিয়াজুল আলম, গাংনী উপজেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক ও গাংনী ওষধ ব্যবসায়ী (ফার্মেসী) সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা। এসময় উপস্থিত ছিলেন গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক (ডাক্তার) সাদিয়া সুলতানা, ডাক্তার বিডি দাস, ডাক্তার সাদমান সাকিব, কুষ্টিয়া ইসলামী  বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনিয়র টেকনিশিয়ান ডাক্তার অশোক চন্দ্র বিশ্বাস। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ। অনুষ্ঠানের শুরুতে ফিতা কেটে প্রতিষ্ঠানটির উদ্বোধন করা হয়। পরে সংক্ষিপ্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়।

মসজিদে বিস্ফোরণের ঘটনা সর্বোচ্চ দক্ষতা দিয়ে তদন্ত করা হবে – সিআইডি

ঢাকা অফিস ॥ নারায়ণগঞ্জ শহরের পশ্চিম তল্লার বাইতুস সালাত জামে মসজিদ পরিদর্শন করেছেন পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি) মাঈনুল হাসান। মসজিদে বিস্ফোরণে হতাহতের ঘটনায় পুলিশের দায়ের করা মামলার তদন্তভার এখন সিআইডির হাতে। গতকাল শনিবার বেলা ১১টার দিকে তার নেতৃত্বে সিআইডির একটি দল ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। এ সময় ডিআইজির সঙ্গে ছিলেন সিআইডির অতিরিক্ত ডিআইজি ইমাম হোসেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (অপরাধ) টিএম মোশাররফ হোসেনসহ পুলিশ ও সিআইডির কর্মকর্তারা। সিআইডির ডিআইজি মাঈনুল হাসান বলেন, মসজিদে যে ঘটনাটি ঘটেছে, তা অত্যন্ত মর্মান্তিক। এ ঘটনায় ৩১ জনের প্রাণহানি ঘটেছে। এ ঘটনায় ফতুল্লা মডেল থানায় পুলিশ মামলা করেছে। মামলাটি তদন্তের জন্য সিআইডির ওপর দায়িত্ব পড়েছে। আমরা সর্বোচ্চ পেশাদারি ও দক্ষতা দিয়ে মামলার তদন্তকাজ দ্রুত শেষ করব। সাক্ষ্য-প্রমাণের ভিত্তিতে যাদের দোষ পাওয়া যাবে, তাদের প্রত্যেককে অভিযুক্ত করে আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করা হবে। তিনি বলেন, কেবল মামলা হয়েছে। আমরা এসেছি ঘটনাস্থল দেখার জন্য। এটার তদন্তকাজও অগ্রসর হবে। ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেফতার কিংবা জিজ্ঞাসাবাদ করব। প্রাথমিকভাবে মনে হয়েছে, গ্যাস থেকে এই দুর্ঘটনা ঘটে থাকতে পারে। তদন্ত অগ্রসর হলে পুরো ঘটনাটি বোঝা যাবে। আলামত পাওয়া গেছে কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ফায়ার সার্ভিস, তিতাস গ্যাসসহ আমাদের নিজস্ব ফরেনসিক আছে যাদের, তাদের তত্ত্বাবধানে আলামত সংগ্রহ করা হচ্ছে। স্থানীয় লোকজনের সাক্ষ্যগ্রহণ, আলামত যেগুলো আছে সেগুলো ফরেনসিক বিভাগে পরীক্ষা করা হবে। সবকিছু মিলিয়ে যে ধরনের তথ্য-প্রমাণ পাওয়া যাবে, সেগুলো নিয়ে তদন্তকাজ সম্পন্ন করব আমরা। ৪ সেপ্টেম্বর রাতে নারায়ণগঞ্জের তল্লা বাইতুস সালাত জামে মসজিদে বিস্ফোরণে এক শিশুসহ ৩১ জনের মৃত্যু হয়েছে। দগ্ধ অবস্থায় শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে পাঁচজন চিকিৎসাধীন। এ ঘটনায় ফায়ার সার্ভিস, জেলা প্রশাসন, তিতাস গ্যাস, ডিপিডিসি ও সিটি করপোরেশন পৃথক পাঁচটি তদন্ত কমিটি গঠন করে। বিস্ফোরণের ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে একটি মামলা করে। মামলাটি তদন্তের জন্য গত বৃহস্পতিবার সিআইডির কাছে হস্তান্তর করা হয়।

সংকট মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে হবে – পরিকল্পনা মন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ করোনা ভাইরাসসহ সব সংকট মোকাবিলায় প্রধানমন্ত্রীর হাতকে শক্তিশালী করতে হবে। মনে রাখতে হবে গণমানুষের দল আওয়ামী লীগকে শক্তিশালী করতে পারলে মোহাম্মদ নাসিমসহ সব নেতাকে শ্রদ্ধা জানানো হবে। এটা করতে পারলে দেশ হবে সত্যিকারের অসাম্প্রদায়িক। গতকাল শনিবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের বঙ্গবন্ধু একাডেমির উদ্যোগে আয়োজিত আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিমের স্মরণ সভায় এসব কথা বলেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান। তিনি বলেন, খন্দকার মোশতাক তার ক্যাবিনেটে জাতীয় নেতাদের যোগ দিতে বলেন, অনেকে যোগ দেন তবে জাতীয় চার নেতা যোগ দেননি। এ কারণে ষড়যন্ত্র করে তাদের নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে। ওই চার নেতার অন্যতম একজন ছিলেন ক্যাপ্টেন মনসুর আলী, তাকে আমরা শ্রদ্ধার সঙ্গে স্মরণ করি। তার পুত্র মোহাম্মদ নাসিমকেও আমরা সেভাবে স্মরণ করতে চাই। তার অনেক ত্যাগ, শ্রম রয়েছে গণমানুষের এ দলটির জন্য। আমাদের ওপর মাঝে মধ্যে ঝড় আসে, তুফানের মতো বাতাসও আসে তবে ভয়ের কিছু নেই। মনে রাখতে হবে আমাদের মূল সংগঠন ততদিন থাকবে যতদিন বাংলাদেশ থাকবে। আওয়ামী লীগ নেতা ওয়ার্ড কাউন্সিলর চিত্তরঞ্জন দাসের সভাপতিত্বে স্মরণ সভায় আরও বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগ নেতা বলরাম পোদ্দার, ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সাবেক সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, বলরাম পোদ্দার, সিনিয়র সাংবাদিক মানিক লাল ঘোষ প্রমুখ।

দৌলতপুর সীমান্তে ৬০ ফেনসিডিল উদ্ধার

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সীমান্তে বিজিবি’র অভিযানে ৬০বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার হয়েছে। শুক্রবার দিবাগত রাত ২টার দিকে উপজেলার প্রাগপুর ধারের মাঠে বিজিবি অভিযান চালিয়ে এসব ফেনসিডিল উদ্ধার করে। বিজিবি সূত্র জানায়, মাদক পাচারের গোপন সংবাদ পেয়ে ৪৭ বিজিবি ব্যাটালিয়ন অধিনস্থ প্রাগপুর বিওপি’র টহল দল ওইদিন রাতে প্রাগপুর ধারের মাঠে অভিযান চালিয়ে ৬০ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে। তবে উদ্ধার হওয়া মাদকের সাথে জড়িত কেউ আটক হয়নি।

সরকার কারোনা আক্রান্ত রোগীর ভুল পরিসংখ্যান তৈরি করছে – রিজভী

ঢাকা অফিস ॥ সরকার কারোনা আক্রান্ত রোগীর ভুল পরিসংখ্যান তৈরি করছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। গতকাল শনিবার এক অনুষ্ঠানে তিনি এ অভিযোগ করেন। রিজভী আহমেদ বলেন, অনেক লোক মারা যাচ্ছে করোনা আক্রান্ত হয়ে। গতকালের (গত শুক্রবার) সংবাদে বেরিয়েছে যে, সরকার যে ডাটা তৈরি করছে করোনায় কতজন আক্রান্ত, তার মধ্যে প্রায় ৮২ হাজার লোকের নাম বাদ পড়েছে। তিনি বলেন, তার মানে সঠিকভাবে কোনো সিদ্ধান্ত নিতে সরকার পারছে না, কোনো প্রতিকার পাচ্ছে না। এই যে হঠাৎ একটা বৈশ্বিক মহামারির ধাক্কা। তার জন্য যে ওষুধ, হাসপাতাল…যে স্বাস্থ্যবিধি তৈরি করা দরকার, এটা সরকার করেনি। মানুষ রাস্তায় মারা যাচ্ছে, হাসপাতালের বারান্দায় মারা যাচ্ছে, কোনো চিকিৎসা না পেয়ে অ্যাম্বুলেন্সের ভেতরে মারা যাচ্ছে। বিএনপির এই যুগ্ম-মহাসচিব বলেন, ওরা (সরকার) ক্ষমতা দখলে রাখার জন্য, চিরস্থায়ী করার জন্য কয়েকটি পদ্ধতি বেছে নিয়েছে। (একটি) বিচারবহির্ভূত হত্যা। আপনার ছেলে অন্য দল করে, ভিন্নমত পোষণ করে, সরকারের সঙ্গে একমত পোষণ করে না, (তাহলে দেখবেন) রাতের অন্ধকারে দুইদিন-তিনদিন নেই। হয়তো ধান খেতে তার লাশ পাওয়া যাবে, না হয় চিরদিনেও তার হদিস পাওয়া যাবে না। রিজভী আহমেদ বলেন, সেনাবাহিনী একজন অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মেজর সিনহা। থানার একজন ওসি ধরে নিয়ে গিয়ে মেরে ফেলে দিল। কোনো বিচার নেই, আইন নেই, কোনো কিছুই নেই। একজন সামরিক বাহিনীর অফিসারের যদি এই পরিণতি হয়…একজন ইউএনও তার মাথা কুপিয়ে দিল, তার আজকে মরণাপন্ন অবস্থা। চারদিকে খুন, গুম, হত্যা-এটাই হচ্ছে সরকারের কর্মসূচি। সরকার চাচ্ছে একটা এতিম জেনারেল তৈরি করতে। বিএনপির নেতাকর্মীদের ত্রাণসামগ্রী বিতরণকালেও সরকারের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বাধা দিচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন জ্যেষ্ঠ যুগ্ম-মহাসচিব। ঢাকা জেলা বিএনপির উদ্যোগে দোহার-নবাবগঞ্জে নদীভাঙনে ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ উপলক্ষে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এরপর শোল্লা ও ইকোরিয়াসহ কয়েকটি ইউনিয়নে বন্যাকবলিত এলাকার মানুষের মধ্যে ত্রাণ বিতরণ করেন রিজভী। জেলা সাধারণ সম্পাদক খন্দকার আবু আশফাকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে জেলা ও স্থানীয় নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

ঝিনাইদহে পানিতে ডুবে শিশু মৃত্যু

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহ সদর উপজেলার গোপিনাথপুরে পানিতে ডুবে আব্দুল্লাহ (৪) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সে ওই গ্রামের তারিক হোসেনের ছেলে। ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি মিজানুর রহমান জানান, বেলা ১২টার দিকেও শিশু তুয়াম মায়ের কাছে ছিল। হঠাৎ করে সবার অজান্তে বাড়ির পাশে পুকুর পাড়ে একটি তাল গাছের নিচে তাল কুড়াতে যায়।  সে সময় শিশুটি পুকুরে পড়ে যায়। গতকাল শনিবার বেলা ১টার দিকে জেলেরা ওই পুকুরে মাছ ধরতে এসে শিশুটির মৃতদেহ ভাসমান অবস্থায় দেখতে পায়। টের পেয়ে পরিবারের লোকজন তাকে উদ্ধার করে ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষনা করেন।

রোহিঙ্গারা মিয়ানমার সরকারকে বিশ্বাস করেন না – পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন বলেছেন, রোহিঙ্গারা নিরাপত্তার ক্ষেত্রে মিয়ানমার সরকারকে বিশ্বাস করেন না। সে কারণে তারা সেখানে ফিরে যেতে চান না। তিনি বলেন, মিয়ানমার তার দেশে রোহিঙ্গা ফেরাতে অনুকূল পরিবেশ তৈরি করতে সম্মত হয়েছিল। কিন্তু তার পরিবর্তে রাখাইন রাজ্যে চলছে লড়াই ও গোলাগুলি। দুর্ভাগ্যক্রমে আজ অবধি একজন রোহিঙ্গাও মিয়ানমারে ফিরে যায়নি। গতকাল শনিবার ভিয়েতনামের উপপ্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী এবং আসিয়ান আঞ্চলিক ফোরামের চেয়ারম্যান ফাম বিন মিনহের সভাপতিত্বে ২৭তম আসিয়ান রিজিওনাল ফোরামের (এআরএফ) ভার্চুয়াল সম্মেলনে আবদুল মোমেন এসব কথা বলেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মিয়ানমারে গণহত্যার হাত থেকে পালিয়ে আসা প্রায় ১১ লাখ নিপীড়িত মানুষকে মানবিক আশ্রয় দিয়েছে বাংলাদেশ। বন্ধুত্বপূর্ণ প্রতিবেশী চেতনায় গঠনমূলক কূটনীতির মাধ্যমে সংকট সমাধানে বাংলাদেশ আগ্রহী। মিয়ানমার আমাদের বন্ধুদেশ। তাই প্রত্যাবাসনের জন্য বাংলাদেশ মিয়ানমারের সঙ্গে তিনটি সমঝোতা স্বাক্ষর করেছে। মিয়ানমার রোহিঙ্গাদের যাচাই-বাছাইয়ের পরে ফিরিয়ে নিতে রাজি হয়েছিল। তারা স্বেচ্ছায় প্রত্যাবাসনের জন্য অনুকূল পরিবেশ তৈরি এবং বাস্তুচ্যুত মানুষের সুরক্ষা নিশ্চিত করতে সম্মত হয়েছিল। তবে দুর্ভাগ্যক্রমে আজ অবধি কেউ মিয়ানমারে ফিরে যায়নি এবং অনুকূল পরিবেশ তৈরির পরিবর্তে রাখাইন রাজ্যে লড়াই ও গোলাগুলি চলছে। আবদুল মোমেন আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, যদি এই সমস্যাটি দ্রুত সমাধান না করা হয় তাহলে এই সংকট উগ্রবাদের পকেটে পরিণত হতে পারে। যেহেতু সন্ত্রাসীদের কোনো সীমানা নেই। তাই এই অঞ্চলে অনিশ্চয়তা তৈরি হওয়ার উচ্চ সম্ভাবনা রয়েছে- যা আমাদের শান্তিপূর্ণ, সুরক্ষিত ও স্থিতিশীল অঞ্চলের জন্য হুমকি। তিনি বলেন, সুরক্ষার বিষয়ে মিয়ানমার সরকারকে বিশ্বাস করে না বলেই রোহিঙ্গারা মূলত তাদের স্বদেশে ফিরছে না। রোহিঙ্গাদের আস্থা ঘাটতি ও আত্মবিশ্বাস বাড়ানোর লক্ষ্যে আমরা মিয়ানমারকে তাদের বন্ধুত্বপূর্ণ দেশ চীন, রাশিয়া, ভারত বা তাদের পছন্দের অন্যান্য বন্ধু দেশ থেকে অ-সামরিক ও বেসামরিক পর্যবেক্ষকদের জড়িত রাখার পরামর্শ দিয়েছিলাম। এতে আস্থার ঘাটতি হ্রাস করতে পারে। ড. মোমেন আরও বলেন, অসহায় রোহিঙ্গারা যেন সুরক্ষা এবং মর্যাদার সঙ্গে তাদের বাড়িতে ফিরতে পারে, সেজন্য আমরা এআরএফ অংশীদারদের কাছ থেকে এ বিষয়ে সমর্থন প্রার্থনা করছি। ড. মোমেন বলেন, বাংলাদেশ করোনা ভাইরাস মহামারি মোকাবিলা করছে। তবে খুব কম সংখ্যক রোহিঙ্গা করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। করোনার টিকা পাওয়া গেলে কোনো ধরনের বৈষম্য ছাড়াই তা বিতরণে জোর দেওয়া হবে। আসিয়ান রিজিওনাল ফোরামের পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন ভিয়েতনামের উপ-প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ফাম বিন মিনহ। এদিকে, গতকাল শনিবার দুপুরে সিলেট জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে করোনাকালে ক্ষতিগ্রস্ত খেলোয়াড়, প্রশিক্ষক, ক্রীড়া সংগঠকদের প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক অনুদান উপহার প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী। সেখানে ভিডিও কনফারেন্সে তিনি বলেন, ভ্যাকসিন যেখান থেকেই আসবে, সেটিই সঙ্গে সঙ্গে সংগ্রহ করা হবে। ভ্যাকসিন এলে কেউ যেনো বাদ যায় না, সেই চেষ্টা চালাচ্ছে সরকার। সরকারের বিভিন্ন পদক্ষেপের কারণে পার্শ্ববর্তী দেশগুলোর তুলনায় মহামারীর প্রাদুর্ভাব অনেক কম হয়েছে বলে মন্তব্য করেন তিনি। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসক এম কাজী এমদাদুল ইসলাম, জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহি উদ্দিন আহমেদ সেলিমসহ ক্রীড়াঙ্গনের কর্মকর্তারা। অনুষ্ঠান শুরুতেই ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হন সিলেট-১ আসনের সংসদ সদস্য পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা করোনাভাইরাসের সংকট মোকাবেলায় অত্যন্ত সফলতার সঙ্গে কাজ করছেন। ব্যবসায়, পেশাজীবী, চাকরিজীবী, ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীর পাশাপাশি খেলোয়াড়, সংস্কৃতিকর্মী, সমাজকর্মীসহ বিপদগ্রস্ত সব মানুষের পাশে দাঁড়িয়েছেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, দেশে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় ৬৮ হাজার জনপ্রতিনিধির মধ্যে মাত্র ৫৩ জন জনপ্রতিনিধি কারচুপির সঙ্গে জড়িত হয়েছেন। তাদের প্রত্যেকেরই শাস্তি নিশ্চিত করা হয়েছে। এটা সুশাসনের অনন্য নজির। ড. একে মোমেন বলেন, বিশ্বের বিভিন্ন দেশের সঙ্গে যোগাযোগ অব্যাহত রেখে রফতানি বিষয়টি স্বাভাবিক রাখার চেষ্টা করছে সরকার। সবশেষে জেলা প্রশাসক কাজী এমদাদুল ইসলাম ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মাহি উদ্দিন আহমেদ সেলিমের কাছ থেকে অনুদানের চেক সংগ্রহ করেন জেলার ফুটবল ক্রিকেট এথলেটিক ব্যাডমিন্টনসহ বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে ৪৫ জন খেলোয়াড়।

শৈলকুপায় সাপের কামড়ে শিশুর মৃত্যু

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার নিত্যানন্দপুর ইউনিয়নের বাগুটিয়া গ্রামে সাপের কামড়ে ইজাহিদ হোসেন নামের ৮ বছরের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। সে ওই গ্রামের মনোয়ার হোসেন মোল¬ার ছেলে। শিশু ইজাহিদ বাগুটিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ২য় শ্রেণীর ছাত্র। বাগুটিয়া গ্রামের সাহেব আলী নামের এক ব্যক্তি জানান, শুক্রবার রাতে শিশু ইজাহিদ তার পিতার সাথে ঘুমিয়ে ছিল। রাত সাড়ে ১০টার দিকে তাকে একটি বিষধর সাপে দংশন করে। সাথে সাথে পরিবারের সদস্যরা তাকে গ্রামের এক কবিরাজের নিকট নিয়ে চিকিৎসা শুরু করে। কবিরাজের ঝাড়ফুক চলাকালিন শনিবার সকাল ৮টার দিকে তার মৃত্যু হয়। শৈলকুপা থানার ওসি জাহাঙ্গীর আলম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।

কুষ্টিয়ায় রেগুলার ইলেক্ট্রিশিয়ান ট্রেনিং’র পকেটমানি ও টুলস বিতরণ

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ায় “রেগুলার ইলেক্ট্রিশিয়ান ট্রেনিং” শীর্ষক প্রশিক্ষণ কর্মসূচির তৃতীয় ব্যাচের প্রশিক্ষণ শেষে পকেটমানি ও টুলস বক্স বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার বিকেলে কুষ্টিয়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির উদ্যোগে সমিতির প্রশিক্ষণ কক্ষে এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এতে কুষ্টিয়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির জেনারেল ম্যানেজার প্রকৌশলী মো. সোহরাব আলী বিশ্বাসের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সহকারী জেনারেল ম্যানেজার (সদস্য সেবা) প্রকৌশলী খন্দকার জসীম উদ্দীন, এমএসসি স্বপন কুমার ভারতী, পিইউসি মোস্তাফা কামাল প্রমুখ। সভাপতির বক্তব্যে প্রকৌশলী মো. সোহরাব আলী বিশ্বাস বলেন, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘরে ঘরে বিদ্যুতের আলো পৌঁছে দিচ্ছেন। বিদ্যুৎ আমাদের জাতীয় সম্পদ। আমাদের সকলের উচিৎ বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হওয়া। সেই সাথে বিদ্যুৎ ব্যবহারে সতর্ক হওয়া। তিনি প্রশিক্ষনার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন- সব সময় কর্মক্ষেত্রে নিজের সুরক্ষা আগে মাথায় রাখতে হবে। বিদ্যুতের কাজের ক্ষেত্রে খুবই সর্তক থাকতে হবে। পরে “রেগুলার ইলেক্ট্রিশিয়ান ট্রেনিং” এর আওতায় কুষ্টিয়ার বিভিন্ন উপজেলার ৩য় ব্যাচের ২৭জন প্রশিক্ষনার্থীর মাঝে বৈদ্যুতিক কাজের টুলস ও পকেট মানি প্রদান করা হয়।

বৃহত্তর যশোর অঞ্চলে করোনা মোকাবেলায় ত্রাণ বিতরণসহ বহুমূখী জনকল্যানমূলক কার্যক্রমে সেনাবাহিনী

প্রাণঘাতী করোনা মোকাবেলায় নিজেদের পেশাদারিত্ব, সততা ও নিষ্ঠার মাধ্যমে দেশের আপামর মানুষের পাশে থেকে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী। এরই ধারাবাহিকতায় অন্যান্য দিনের মত আজও দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের অসহায় এবং সত্যিকারের দুস্থ মানুষের হাতে খাদ্য সামগ্রী পৌছে দেয়ার নিরন্তর প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছে যশোর সেনানিবাসের সেনাসদস্যরা। পাশাপাশি সামাজিক দূরত্ব নিশ্চিতের মাধ্যমে করোনার সংক্রমণ  থেকে সাধারণ মানুষকে রক্ষা করতে সেনা সদস্যরা নিয়মিত টহল  জোরদার করেছে। এছাড়াও স্থানীয় বাজার ও হাটে জনসমাগম এড়াতে নজরদারি বৃদ্ধি, গণপরিবহন মনিটারিং, ফ্রি চিকিৎসা সেবা প্রদান, ঔষুধ বিতরণ এবং স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত নীতিমালা বাস্তবায়নসহ নানাবিধ জনকল্যাণমূলক কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। অন্যদিকে খুলনা উপকূলীয় এলাকায় ক্ষতিগ্রস্ত বেড়িবাঁধ মেরামতের কাজ অব্যাহত রাখার পাশাপাশি বৃহত্তর যশোর অঞ্চলের বন্যা কবলিত এলাকায় ফ্রী  চিকিৎসা সেবা প্রদান এবং বিশুদ্ধ পানি ও ঔষধ বিতরণ  কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

আলমডাঙ্গায় অজ্ঞাত এক ব্যক্তির ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ চুয়াডাঙ্গা জেলার আলমডাঙ্গায় অজ্ঞাত এক ব্যক্তির ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ। গতকাল ১২ সেপ্টেম্বর শনিবার সকাল ৮টার দিকে আলমডাঙ্গা- সরোজগঞ্জ সড়কের আটকপাট নামক স্থান থেকে ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে থানা পুলিশ। জানা গেছে,  গতকাল সকালে  স্থানীয় কৃষকরা  আট কপাটের অদুরবর্তী বাদেমাজু গ্রামের মুনতাজ ফকিরের ধান  ক্ষেতের আইলের ধারে গাছে অজ্ঞাত ব্যক্তির ঝুলন্ত লাশ দেখতে পাই। ঘটনাটি তারা আলমডাঙ্গা থানা পুলিশকে অবগত করে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। সুরতহাল রিপোর্ট শেষে থানার অফিসার ইনচার্জ আলমগীর কবির বলেন- লাশের মাথার পিছনে ভারী বস্তু দিয়ে আঘাতের চিহ্ন আছে। প্রাথমিকভাবে এটি একটি হত্যাকান্ড বলে ধারনা করছি। ঝিনাইদহ পি,বি,আই এর একটি টিমের ইন্সপেক্টর আমির আব্বাস, এসআই দীলিপ লাশের পরিচয় শনাক্ত করতে প্রয়োজনীয় স্যাম্পল সংগ্রহ করেছেন। সঠিক তদন্তের মাধ্যমে যথাযথ আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে তিনি জানান। ময়না তদন্তে লাশ চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে প্রেরন করা হয়েছে।

হাউজিং এফ ব্লকের প্লটের দক্ষিণে বালি ভরাট করে জায়গা দখলের পাঁয়তারা প্রসঙ্গে সংবাদের প্রতিবাদ

কুষ্টিয়া জেলার সদর থানাধিন কালিশংকরপুর মৌজার সিএস-১৬৫৪ নং খতিয়ানের ১৭১৮ নং দাগের ১.৬৫ একর জমির শীতল মন্ডল (চৌদ্দ আনা) ও সিদু বেওয়া ওরফে নিদু বেওয়া (দুই আনা) অংশে শর্তবান থাকে। সিদু বেওয়া ওরফে নিদু বেওয়া মারা গেলে ততদিও শর্তাংশ পুত্র শীতল মন্ডল প্রাপ্ত হয়েন। শীতল মন্ডল মারা গেলে ৫ পুত্র হুজ্জতুল্লা মন্ডল, দরাপ মন্ডল, নাছের মন্ডল, মনির উদ্দীন মন্ডল, ভোলা মন্ডল ও এক কন্যা গৌরি নেছা ওয়ারেশ থাকে উল্লেখ থাকে যে, মনিরউদ্দিন মন্ডল তাহার স্বাতাংশ রওশন মন্ডল, ছবির উদ্দিন মন্ডল ওরফে খবির মন্ডল ও আলেক মন্ডল ওরফে মালেক মন্ডলের নিকট হস্তান্তর করেন। নাছের মন্ডলের স্বাতাংশ মোঃ ইয়াকুব আলীর নিকট হস্তান্তর করেন। এবং ভোলাই মন্ডলের স্বতাংশ মোঃ আকছেদ আলীর নিকট হস্তান্তর করে দখল প্রদান করেন। সাবেক ১৭১৮ নং দাগের ১.৬৫ একর জমির মধ্যে .৭৩ একর জমি সর্বপূর্বাংশ থেকে এল এ ২৬/৬৩-৬৪ নং কেসে মৎস্য খামারের পক্ষে হুকুম দখল হয়। পরবর্তী এল এ ৪/৭৯-৮০ নং কেসে .৮৫ একর জমি ঢাকা রোডের মাটি কাটার নিমিত্তে হুকুম দখল হয়। এবং পরে মালিকদের বরাবর ইং ১১/০৪/১৯৮৩ইং তারিখে ডিরিকুয়েজেশন করা হয় এবং মালিকদের নিকট দখল শর্ত বুঝিয়ে দেন। অতপর এই মালিকানা জমিজমা মালিকগণ ভোগ দখল থাকা অবস্থায় সাবেক ১৭১৮ নং দাগের জমি ভুলক্রমে আর,এস ৯নং খতিয়ানের ৫৯০৩ নং দাগের মধ্যে ২.৭৬৮৭ একর জমি হাউজিং এর জমি হিসেবে অন্তভূক্ত হয়। পরে মালিকগণ দেঃ ২৪৯/১৯৯৬ নং একটি দেঃ মকদ্দমা দায়ের করেন কুষ্টিয়া বিজ্ঞ সদর সহকারী জজ আদালতে। পবর্তীতে এই বাদীগণের অনুকুলে ইং ২৬/১১/১৯৯৮ তারিখে রায় ও ০১/১২/১৯৯৮ইং ডিগ্রী হয়। বর্তমান মালিকগণ পূর্বাধিকারী ক্রমে স্থাপনা নির্মাণে ও বালি ভরাট করিয়া শর্তবান ও ভোগ দখল করিয়াছেন। গত ১২/০৯/২০২০ তারিখে স্থানীয় দৈনিক আন্দোলনের বাজার পত্রিকায় পড়ে “হাউজিং এফ ব্লকের প্লটে দক্ষিণে বালি ভটার করে জায়গা দখলের পায়তারা”   শিরোনামে যে মিথ্যা সংবাদ উল্লেখ করছে তাহা সম্পূর্ণ মিথ্যা বানোয়াট ও কল্পকাহিনী মূলে সৃজিত।

প্রকৃত বৃত্তান্ত এই যে, মোঃ রেজাউল করিম (রেজা) ব্যাংকার হাউজিং এর নিকট হইতে আড়াই কাঠা জমি ক্রয় করিয়া তিন তলা বিশিষ্ট বিল্ডিং স্থাপন করিয়া বসবাস করছেন। তার বিল্ডিং এর সামনে উত্তর দিকে হাউজিং এর পাকা প্রশস্ত বিশ ফিট চওড়া রাস্তা বিদ্যমান রয়েছে। এবং তাহার প্লটে পূর্ব পশ্চিম এর প্লটের মালিকগণ নিজ নিজ জমির সীমানা প্রাচীর দিয়া ভোগ দখল করিতেছে। কিন্তু এই ব্যাংকার রেজাউল করিম দীর্ঘদিন যাবৎ তার লাগা দক্ষিণে  মালিকানাধিন মালিকের জমি জবরদখল করিয়া ভোগ করিবার নিমিত্তে  যোগসাজুসীভাবে বিভিন্ন অসাধু ব্যক্তিদের সহযোগী লইয়া এই মালিকানাধী ব্যাক্তিদের নানাভাবে অত্যাচার করিতেছেন। ব্যাংকার রেজাউল করিমের অত্যাচার তাহার লাগা দক্ষিণের মালিকানাধীন জমির মালিকগণ নিরাপত্তাহীনতায় ভূগিতেছেন।

শিক্ষা ঋণ চালুর বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী সম্মতি জানিয়েছেন – দীপু মনি

ঢাকা অফিস ॥ শিক্ষার্থীদের সহজে পড়ালেখা চালিয়ে যাওয়ার জন্য সরকার ঋণ দেয়ার কথা ভাবছে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। তিনি বলেছেন, সংসদে এই ঋণের বিষয়ে বলার পর প্রধানমন্ত্রী মাথা নেড়ে সম্মতি জানিয়েছেন। শনিবার ‘করোনাকালে ই-লার্নিং’ শীর্ষক অনলাইন আলোচনায় তিনি একথা বলেন। ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) উদ্যোগে আলোচনায় শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমি সংসদে বলেছি- শিক্ষার্থীদের সহজে শিক্ষা চালিয়ে নিতে শিক্ষা ঋণ দেয়া যেতে পারে। এ সময় প্রধানমন্ত্রী মাথা নেড়ে সম্মতি জানিয়েছেন। আমরা এখন থেকে শিক্ষা ঋণ দেয়ার কথা ভাবছি। দীপু মনি বলেন, কীভাবে শিক্ষার্থীদের সক্ষম করে তুলব সেটি নিয়ে ভাবছি। যেখানে যতটুকু প্রয়োজন সেটা যেন তারা (শিক্ষার্থী) মেটাতে পারেন। এসব বিষয়গুলো নিয়ে আমরা কাজ করছি। কোনোভাবেই যেন শিক্ষার্থীরা বৈষম্যের শিকার না হয়, সেটি নিশ্চিত করব। ‘ই লার্নিং’ আলোচনায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন যুক্তরাজ্যের ‘ইউনিভার্সিটি অব সারে’এর প্রো-ভিসি অধ্যাপক ওসামা খান। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ডিসিসিআই সভাপতি শামস মাহমুদ। জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. হারুন-উর রশিদ, আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভাসিটি বাংলাদেশের উপাচার্য অধ্যাপক ড. কারম্যান জেড লামাংনা, বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান ড. মো. মুরাদ হোসেন মোল্লা, ইউনাইটেড ইন্টারন্যাশনাল ইউনির্ভাসিটির ইলেকট্রিকাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. খাজা ইফতেখার উদ্দিন আহমদ, নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের একাউন্টিং অ্যান্ড ফিন্যান্স বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ইশতিয়াক আজিম প্রমুখ আলোচনায় অংশ নেন।

 

স্মরণীয় হয়ে থাকার জন্য কমিটমেন্ট থাকতে হয় -আইনমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, নিজে স্মরণীয় হয়ে থাকার জন্য মানুষকে খুব একটা লাফালাফি করতে হয় না। শুধু কমিটমেন্ট থাকতে হয়। আর কমিন্টমেন্টই চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। প্রয়াত দুই সচিবের স্মরণ সভায় মন্ত্রী এসব কথা বলেন। আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আইন ও বিচার বিভাগের সচিব আবু সালেহ্ শেখ মে. জহিরুল হক এবং লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগের সচিব নরেন দাসের অকাল মৃত্যুতে শুক্রবার বিকেলে এক ভার্চুয়্যাল স্মরণ সভায় মন্ত্রী প্রধান অতিথির বক্তবে এসব কথা বলেন। আখাউড়ার রাবিয়া খাতুন স্মৃতি পাঠাগার ও আকছির চৌধুরী চ্যারিটি ট্রাস্ট স্কুলের উদ্যোগে এ স্মরণ সভার আয়োজন করা হয়। মন্ত্রী ঢাকা থেকে ওই সভায় অংশ নেন। সভায় সভাপতিত্ব করেন অ্যাডভোকেট আকছির এম চৌধুরী। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বিচারপতি এএইচএম শামসুদ্দিন চৌধুরী মানিক, আইন ও বিচার বিভাগের সচিব মো. গোলার সারওয়ার। মন্ত্রী তাঁর বক্তব্যে আরো বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ২০২১ও ২০৪১ সালের যে ভিশন দিয়েছেন সেই লক্ষ্যে কাজ করছেন। বাংলাদেশকে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করেছেন। আমরা এখন দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছি। সেই এগিয়ে নেওয়ার কাতারে ছিলেন প্রয়াত ওই দুই সচিব।

আওয়ামী লীগ তাসের ঘর নয় যে টোকা লাগলে পড়ে যাবে – কাদের

ঢাকা অফিস ॥ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের নিজ দল প্রসঙ্গে বলেছেন, আওয়ামী লীগ তাসের ঘর নয় যে টোকা লাগলে পড়ে যাবে। তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের শক্তির উৎস দেশের জনগণ, বন্দুকের নল নয়। আওয়ামী লীগের শেকড় মাটির অনেক গভীরে। মাটি ও মানুষের দল হিসেবে জনমানুষের বুকের গভীরে শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগ ঠাঁই করে নিয়েছে। গতকাল শনিবার রাজধানীর কাকরাইলে ইনস্টিটিউট অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স বাংলাদেশে (আইডিইবি) প্রতিনিধি সম্মেলনে উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক। সরকারি বাসভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অনুষ্ঠানে যুক্ত হন তিনি। ওবায়দুল কাদের বলেন, দেশের প্রতিটি দুর্যোগ ও সংকটে গত ৭০ বছর ধরে জনগণের পাশে থেকেছে আওয়ামী লীগ। তাই যারা মনে করেন আওয়ামী লীগের অবস্থান তাসের ঘরের মতো, তারা বোকার স্বর্গে বাস করছেন। প্রকৌশলীদের উদ্দেশে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী বলেন, ২০৪১ সালের মধ্যে সমৃদ্ধ বাংলাদেশের লক্ষমাত্রা অর্জনের ক্ষেত্রে সরকারের মহাপরিকল্পনা বাস্তবায়নে প্রকৌশলীদের শক্তিশালী ভূমিকা রাখতে হবে। আপনাদের নিজস্ব মেধা ও শ্রম দিয়ে সরকারের উন্নয়ন পরিকল্পনা এগিয়ে নেয়ার পাশাপাশি যেকোনো অনিয়ম, দুর্নীতি ও অপচয়ের বিরুদ্ধে সচেষ্ট থাকতে হবে। তিনি বলেন, বিশেষজ্ঞদের মতে, আসন্ন শীতে বাংলাদেশে করোনার দ্বিতীয় তরঙ্গ দেখা দিতে পারে। তাই এখন থেকেই সাবধানতা অবলম্বন করে চলতে হবে। মাস্ক বাধ্যতামূলক পরিধান করতে হবে। আইডিইবির সভাপতি একেএম হামিদের সভাপতিত্বে সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মো. শামসুর রহমান অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন।

দৌলতপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় অটো চালক নিহত : ময়না তদন্ত ছাড়াই দাফন

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় নুর সালাম (৬০) নামে এক অটো চালক নিহত হয়েছেন। শুক্রবার রাত ১০টার দিকে হোসেনাবাদ বাজার পার হয়ে মাঠের মধ্যে স্যালো ইঞ্জিন চালিত অবৈধ ষ্টিয়ারিং গাড়ির সাথে অটো’র সংঘর্ষে হলে অটো চালক নুর সালাম গুরুতর আহত হয়। আহত নুর সালামকে উদ্ধার করে প্রথমে দৌলতপুর হাসপাতালে নেওয়া হয়। অবস্থার অবনতি হলে তাকে কুষ্টিয়া হাসপাতালে নেয়ার পথে তিনি মারা যান। নিহত নুর সালাম উপজেলার মরিচা ইউনিয়নের টলটলিপাড়া গ্রামের মৃত মকছেদ মন্ডলের ছেলে। পরে নিহতের লাশ ময়না তদন্ত ছাড়াই গতকাল শনিবার বেলা ১১টার দিকে নিজ গ্রামে দাফন করা হয়। মরিচা ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলমগীর সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত নুর সালামের মৃত্যু ও দাফনের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তবে স্যালো ইঞ্জিন চালিত অবৈধ ষ্টিয়ারিং গাড়ির সাথে অটো’র সংঘর্ষে অটো চালক নুর সালাম নিহত হওয়ার বিষয় কিছু জানেন না বলে জানিয়েছেন দৌলতপুর থানার ওসি বাবু নিশিকান্ত সরকার। দৌলতপুরের চকদৌলতপুর এলাকার রিপন আলীর অবৈধ স্যালো ইঞ্জিন চালিত ষ্টিয়ারিংয়ের সাথে অটোর সংঘর্ষে অটো চালক নুর সালাম নিহত হলে রাতারাতি মাত্র ৪৫ হাজার টাকায় মিমাংসা করে বিষয়টি ধামা চাপা দেওয়া হয়েছে বলে একটি সূত্র জানিয়েছে।

একুশে পদকপ্রাপ্ত কবি আজিজুর রহমানের ৪২তম প্রয়াণ দিবসে স্মরনসভা

নিজ সংবাদ ॥ একুশে পদক প্রাপ্ত কবি গীতিকার আজিজুর রহমানের (১৮অক্টোবর, ১৯১৪-১২ সেপ্টেম্বর, ১৯৭৮) ৪২তম প্রয়াণ দিবস স্মরণে আলোচনা সভা ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল শনিবার সকাল ১০টায় কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হাটশ হরিপুর বাজারস্থ কবি সমাধীস্থলে ‘প্রয়ান দিবস উদযাপন কমিটির’ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত স্মরণ সভায় সভপতিত্ব করেন স্থানীয় ইউপি সদস্য সেলিম উদ্দিন বিশ^াস। এসময় কবি স্মৃতি স্মরণে বক্তব্য রাখেন- খোকসা সরকারী কলেজের বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক রবিউল ইসলাম, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান এম মুশতাক হোসেন মাসুদ, সাংবাদিক হাসান আলী, এম এ কাইয়ুম ও বজলার রহমান প্রমুখ। শেষে কবির আত্মার মাগফিরাত কামনায় মাজার জিয়ারত ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়।

বক্তারা বলেন, কবি আজিজুর রহমান প্রায় ৩ হাজারের অধিক গান লিখেছেন। তার জনপ্রিয় গানগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য- ‘ভবের নাট্যশালায় মানুষ চেনা দায় রে’, ‘কারো মনে তুমি দিও না আঘাত, সে আঘাত লাগে কাবার ঘরে’, ‘আকাশের ঐ মিটি মিটি তারার সাথে কইবো কথা, নাই বা তুমি এলে’, ‘পৃথিবীর এই পান্থশালায়, হায় পথ ভোলা কবি’, ‘আমি রূপনগরের রাজকন্যা রূপের জাদু এনেছি’, ‘বুঝি না মন যে  দোলে বাঁশিরও সুরে’, ‘দেখ ভেবে তুই মন, আপন চেয়ে পর ভালো’, ‘পলাশ ঢাকা কোকিল ডাকা আমারই দেশ ভাই রে’ প্রভৃতি। এ জাতীয় অসংখ্য  আধুনিক ও দেশাত্মবোধক বাংলা গানের গীতিকারের যথার্থ মূল্যায়ন না থাকায় আজ চরমভাবে অবহেলিত।

তিনি প্রায় ৩০০-এর উপরে কবিতা রচনা করেছেন। তার মধ্যে  নৈশনগরী, মহানগরী, সান্ধ্যশহর, ফেরিওয়ালা, ফুটপাত, তেরশপঞ্চাশ,  সোয়ারীঘাটের সন্ধ্যা, বুড়িগঙ্গার তীরে, পহেলা আষাঢ়, ঢাকাই রজনী,  মোয়াজ্জিন, পরানপিয়া, উল্লেখযোগ্য। এ কবিতাগুলো এক সময় নবযুগ, নবশক্তি, আনন্দবাজার পত্রিকা, শনিবারের চিঠি, সওগাত, মোহাম্মাদী, আজাদ, বুলবুল পত্রিকায় নিয়মিত ছাপা হতো। ‘আজাদীর বীর সেনানী : কুমারখালীর কাজী মিয়াজান’, পাঁচমিশালী গানের সংকলন ‘উপলক্ষের গান’ দেশাত্মবোধক নিজস্ব গানের সংকলন ‘এই মাটি এই মন’, ‘ছুটির দিনে’। ১৯৫৪ সালে তিনি ঢাকা বেতারে প্রথমে অনিয়মিত এবং পরে নিয়মিতভাবে যোগ দেন। মৃত্যু আগ পর্যন্ত তিনি বাংলাদেশ বেতারে চাকরীতে বহাল ছিলেন।

১৯৭৮ সালের ৯ সেপ্টেম্বর কবি আজিজুর রহমান গুরুতর অসুস্থ হয়ে পড়েন। সে সময় তাকে ভর্তি করা হয় তৎকালীন ঢাকার পিজি হাসপাতালে। এর ৩ দিন পর ১২ সেপ্টেম্বর শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি। পরে ১৯৭৯ সালে মরণোত্তর রাষ্ট্রীয় সম্মান ‘একুশে পদক’ লাভ করেন। কিন্তু অত্যন্ত দুঃখের বিষয় এই- কবির মৃত্যুবার্ষিকীতেও কোথাও  তেমন কোনো কর্মসূচি চোখে পড়ে না।

কুষ্টিয়ায় সড়ক দূর্ঘটনায় ২ জন নিহত

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে পাখি ভ্যান ও মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষে দুইজন নিহত হয়েছেন। নিহতরা হলেন মাদারীপুরের শিবচরের ইনছান (৩০) ও রমজান (৩৫)। গতকাল শনিবার বিকেলে কুষ্টিয়া-রাজবাড়ি আঞ্চলিক মহাসড়কের তরুণ মোড় শিপলু ফিলিং স্টেশনের সামনে এ দুর্ঘটনা ঘটে। কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মজিবুর রহমান জানান, অহত অবস্থায় দুইজনকেই কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা দেওয়ার পর অবস্থার অবনতি হওয়ায় চিকিৎসকরা তাদের কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে পাঠায়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তারা মারা যান।

সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন কেন্দ্রীয় সভাপতি জিয়াউদ্দীন তারেক আলীর স্মরণে কুষ্টিয়ায় শোক সভা

সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি, জাতীয় জাদুঘরের প্রতিষ্ঠাতা ট্রাস্টি ও ছায়ানটের নির্বাহী কমিটির সদস্য বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব বীর মুক্তিযোদ্ধা জিয়াউদ্দীন তারেক আলীর স্মরণে গতকাল শনিবার সকাল ১১ টায় কুষ্টিয়ায় ফেয়ার অফিসে এক শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন কুষ্টিয়ার সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন বৃহত্তর কুষ্টিয়া জেলায় ১৯৭১ সালে প্রথম পতাকা  উত্তোলক বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাডঃ আব্দুল জলিল, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ইকবাল হোসেন, সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব কনক চৌধুরী, কমরেড শফিউর রহমান, রাজনিতিবীদ কারশেদ আলম, রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর হাসিবুর রহমান তামিম, মানবাধিকার কর্মি তাজরিন খানম, আক্তারী সুলতানা, চারুকলার শিক্ষক এস কে সাদী, ফেয়ারের নির্বাহী পরিচালক দেওয়ান আখতারুজ্জামান, আল মাহাদী সজিবসহ স্থানীয় নেতৃবৃন্দ।  শোকসভা পরিচালনা করেন সংগঠনের সাধারন সম্পাদক সাংবাদিক শরিফ বিশ্বাস। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

কুষ্টিয়া জেলা ক্রীড়া সংস্থার পূণরায় নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. অনুপ কুমার নন্দীর ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা প্রকাশ

কুষ্টিয়া জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচনে (২০২০-২০২৪) ‘কুষ্টিয়া ক্রীড়া উন্নয়ন পরিষদ’ প্যানেল বিপুল ভোটে নির্বাচিত হওয়ায় প্যানেলের পূণরায় নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. অনুপ কুমার নন্দী প্যানেলের পক্ষ থেকে সকল কাউন্সিলর, জেলা প্রশাসন, পুলিশ প্রশাসন, নির্বাচন কমিশন, প্রিন্ট, ইলেকট্রনিক ও অনলাইন মিডিয়ার সাংবাদিকসহ শুভানুধ্যায়ীদের আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

ধন্যবাদ বার্তায় তিনি বলেন, এ বিজয় কুষ্টিয়ার ক্রীড়ামোদী এবং ক্রীড়াবিদদের বিজয়। তিনি আরও বলেন, এ বিজয়ের মধ্যদিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের য্গ্মু-সাধারণ সম্পাদক এবং কুষ্টিয়া সদর-৩ আসনের সংসদ সদস্য জননেতা মাহবুবউল আলম হানিফ কুষ্টিয়ার ক্রীড়াঙ্গনের উন্নয়ন নিয়ে যে স্বপ্ন দেখছেন, আশারাখি তাঁর সেই স্বপ্ন পূরণ হবে।

সালাম রাইস মিলের মালিক সালাম প্রধান ও তার ছেলের বিরুদ্ধে থানায় জিডি

কুষ্টিয়ায় ‘দাদা রাইস’ নাম ব্যবহার করে নিম্নমানের চাল বাজারে ছাড়ার অভিযোগ

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ার খাজানগর এলাকার বিশিষ্ট চাল ব্যবসায়ী আরশাদ আলীর একক মালিকাধীন ‘দাদা রাইস’ মিলের নাম ব্যবহার করে এক শ্রেনীর অসাধু ব্যবসায়ী নিম্নমানের চাল বাজারে সরবরাহ করছে। এ ব্যাপারে আরশাদ আলী লিখিতভাবে কুষ্টিয়া মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন। গত শুক্রবার কুষ্টিয়া মডেল থানায় গিয়ে তিনি এ জিডি করেন।

জিডিতে উল্লেখ করা হয়, দাদা রাইস মিলের  প্রোপাইটার কুষ্টিয়া খাজানগর জগতি এলাকার মো: আরশাদ আলী। আশে পাশের এলাকাসহ সারাদেশে তাঁর তৈরি দাদা রাইস ব্রান্ডের খাবার চাউল বস্তা জাত করে বিক্রয় করে থাকেন। যা কিনা এই এলাকায় অত্যন্ত সুনাম অর্জন করে। একই সময়ে একই এলাকার সালাম অটো রাইস মিলের মালিক তাঁর আপন বড় ভাই আব্দুস সালাম প্রধান এবং তার ছেলে আনোয়ার হোসেন তাদের নিজনামে সালাম রাইচ খাবার চাউল বস্তা জাত করে বাজার জাত করে আসছিলো । কিন্তু সম্প্রতি সময়ে আরশাদের একক মালিকানাধীন দাদা রাইচের সুনাম ও মর্যাদায় ইর্ষান্বিত হয়ে আবদুস সালাম ও আনোয়ার নানা সময়ে দাদা রাইচ নাম দিয়ে নিম্নমানের চাউল বাজারে ছেড়ে অনৈতিকভাবে লাভবান হওয়ার চেষ্টা করে। এবং তারা অসৎ উদ্দেশ্যে ‘দাদা রাইচ’ নাম দিয়ে ট্রেড মার্ক করার উদ্দেশ্যে আবেদন দাখিল করে । এমন খবর জানতে পেরে ট্রেড মার্ক অফিসে  দাদা রাইচের পক্ষে আরশাদ আলী ট্রেড লাইসেন্স, ফ্যাক্টরী লাইসেন্স, টিন ও ভ্যাট সার্টিফিকেটসহ অন্যান্য সকল কাগজপত্র উপস্থাপন করে আপত্তি প্রদান করে। এতে বিজ্ঞ ট্রেডমার্ক ট্রাইব্যুনাল ২০১৯ সালের ৪ নভেম্বর ১২৫৩৯২নং ট্রেড মার্ক আবেদনটি বাতিল করে দাদা রাইচের একক মালিক হিসাবে আরশাদ আলীর নাম লিপিবদ্ধ করার আদেশ দেন (স্মারক নং ৯৪২৫/১৯, তারিখ-০৪/১১/২০১৯ ), এবং ‘দাদা রাইচ’ নামে আরোও একটি আবেদন বিজি প্রেস হতে ট্রেডমার্ক জার্নালে প্রকাশিত হয়, যাহার আবেদন নং-২০৬৮২৮। উক্ত আবেদনটি আমার একক নামে প্রকাশিত হয়।

দাদা রাইচ ব্রান্ডের ওপর আরশাদ আলীর একক মালিকানা পুনরায় নিশ্চিত করা হয়। পরবর্তীতে সালাম প্রধান মহামান্য হাইকোর্টে এ বিষয়ে ট্রেড মার্ক আপিল নং ০৩/২০২০ দায়ের করে । সেখানে বিজ্ঞ ট্রেডমার্ক ট্রাইব্যুনালের রায়কে অক্ষুন্ন রেখে আপিল কার্য্যক্রম অব্যহত রয়েছে।

আরশাদ আলী অভিযোগ করেন, ‘সালাম প্রধান এবং তার ছেলে আনোয়ার হোসেন ট্রাইব্যুনালের রায় ও আদালতের কার্যধারা উদ্দেশ্যে প্রনোদিত মিথ্যা ও ভুল ব্যাখ্যা দিয়ে ক্রেতা ও ভোক্তাদেরকে বিভ্রান্ত করে দাদা রাইচের নকল বস্তায় নিম্নমানের চাউল বাজার জাতকরন মজুদ ও বিক্রি করছেন। বাধা দিতে গেলে আমাকে ও আমার ছোট ভাইসহ প্রতিষ্ঠানের সকল কর্মচারীকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়। বিষয়টি নিয়ে আমরা খুব ভয়ে বা দুচিন্তায় আছি এবং আমার ব্যবসার সুনামহানীসহ অনিরাপদ জীবন যাপন করছি । এবং আমি ব্যসায়িকভাবে মারাত্মক ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছি।’

কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) গোলাম মোস্তফা বলেন, থানায় জিডি হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করতে একজন এসআইকে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদন পাবার পর ব্যবস্থা নেওয়া হবে।