আলমডাঙ্গায় ব্লাক বেঙ্গল জাতের ছাগল পালনকারী খামারীদের মেলা ও পুরস্কার বিতরণ

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ আলমডাঙ্গায় ব্লাক বেঙ্গল জাতের  ছাগল উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ প্রকল্পের  আওতায় ব্লাক বেঙ্গল জাতের ছাগল পালনকারী খামারিদের মেলা ও পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠিত হয়েছে। উপজেলা প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তরের আয়োজনে  গতকাল সোমবার দুপুরের দিকে অনুষ্ঠিত এ মেলা উপলক্ষে এক সংক্ষিপ্ত র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে মেলার উদ্বোধন করেন আলমডাঙ্গা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আইয়ুব হোসেন।  জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডাক্তার গোলাম মোস্তফার সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো: লিটন আলী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাড. সালমুন আহমেদ ডন। স্বাগত বক্তব্য রাখেন  উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাক্তার আব্দুল্লাহিল কাফি।

উপজেলা প্রাণী সম্পদ সম্প্রসারণ কর্মকর্তা ডা. শাহাদৎ জামান আল  বেলালের উপস্থাপনায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আলমডাঙ্গা  প্রেসক্লাবের সভাপতি খন্দকার শাহ আলম মন্টু।

প্রাণী সম্পদ অধিদপ্তর  পারদূর্গাপুরের লাভলী খাতুনসহ ৩জন ছাগল পালনকারীকে ছাগল উন্নয়নে উন্নতমানের ঘর নির্মাণ করে দিয়েছেন। অনূষ্ঠানে লাভলী খাতুন জানান, মাত্র কয়েকটি ব্লাক বেঙ্গল জাতের ছাগল পালন করে  এখন তিনি ৬০টি ছাগলের মালিক। অর্থনৈতিকভাবে তিনি এখন স্বাবলম্বী।

দর্শকের ভূমিকায় সওজ কর্তৃপক্ষ

মেহেরপুরে সরকারী জমিতে হোটেলসহ অবৈধ স্থাপনা

মেহেরপুর প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুর আঞ্চলিক মহাসড়কে জায়গায় অবৈধভাবে গড়ে ওঠা কয়েক হাজার স্থাপনা এখন গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে। জনসংখ্যার হার বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বৃদ্ধি পেয়েছে যানবাহন। প্রভাবশালীরা রাজনৈতিক শক্তির অপব্যবহার করে সড়ক ও জনপথ বিভাগের জায়গা দখল করে রাস্তার দুই পাশে বিভিন্ন স্পটে গড়ে তুলেছে হোটেল রেস্তারা দোকান পাটসহ নানা ধরনের বিপণিবিতান। সড়ক ও জনপথ বিভাগের (সওজের) কর্মকর্তাদের উদাসিনতার কারনেই  বেদখল হয়ে যাচ্ছে সওজের সরকারি জমি। দখলবাজদের কাছ থেকে জমি উদ্ধারে কোন তৎপরতা নেই কর্তৃপক্ষের। মেহেরপুর-কুষ্টিয়া, মেহেরপুর-চুয়াডাঙ্গা, মেহেরপুর-মুজিবনগর, মেহেরপুর কাথুলী ভায়া গাংনী-হেমায়েতপুর পর্যন্ত রাস্তার দুপাশ দখল করে গড়ে তুলেছে  দোকানপাট। শুধু সড়কের দুধারই দখল করেনি দখল করেছে মুল রাস্তার ৩ফিট পর্যন্ত। একারনে চলাচলে প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন বাসচালক বলেন, স্থানীয় প্রশাসন ও সওজ কর্তৃপক্ষকে ম্যানেজ করে ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের প্রভাব খাটিয়ে মেহেরপুর কলেজ মোড় সহ জেলার বিভিন্ন সড়কের পাশের সরকারি জমি দখল করে গড়ে তুলেছেন দোকানপাট ও হোটেল রেস্তোরা । স্থানীয়দের দাবি, মেহেরপুর কলেজ মোড় জেলার প্রবেশ পথ হলেও সওজের রাস্তা ও জমি দখল করে গড়ে উঠেছে ইয়ারুল হোটেলসহ বেশ কিছু দোকান। এছাড়া রাস্তা দখল করে অন্যান্য দোকানের পাশাপাশি ইটবালি খোয়া রেখে দখল করা হয়েছে। হোটেল ব্যবসায়ীর ক্ষমতার দাপটের কাছে অনেকটাই অসহায় সড়ক ও জনপথ বিভাগের (সওজের) কর্মকর্তারা। কাকডাকা ভোর থেকে গভীর রাত্রী পর্যন্ত রাস্তা দখল করে বীরদর্পে চলে ব্যবসা বানিজ্য। মটরসাইকেল, অটোবাইকের লম্বা লাইনের কারনে যানবাহন ও মানুষের চলাচলে প্রতিবন্ধকতা তৈরি হলেও হোটেল মালিকের ক্ষমতার দাপটে কেউ মুখ খুলতে সাহস পাইনা। সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, কলেজ মোড়ের জমি দখল করে অবৈধ দোকানপাট তৈরি হওয়ার কারনে নির্বিঘেœ যান চলাচল করতে পারেনা। এজন্য প্রায় প্রতিদিনই দূর্ঘটনা ঘটছেই। দূর্ঘটনায় অনেক পথচারী মটরসাইকেল চালক ও অটোবাইকে থাকা যাত্রীরাও রক্ষা পায়না। অবৈধ দখলে থাকা বেশির ভাগ দোকান অস্থায়ী ভিত্তিতে তোলা হলেও অনেকেই স্থায়ী পাকা দোকান তৈরি করলেও সড়ক জনপথ বিভাগের (সওজ) কর্মকর্তাদের কোনো মাথা ব্যথা নেই। তারা নীরব দর্শকের ভূমিকা পালন করায় কয়েকশ’ কোটি টাকার সরকারি সম্পত্তি সরকারের বেহাত হয়ে গেছে। দ্রত সময়ের মধ্যে কলেজ মোড় সহ জেলার সব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে দূর্ঘটনার হাত থেকে রক্ষা করতে জেলা প্রশাসক, সড়ক ও জনপথ বিভাগের (সওজের) কর্মকর্তাদের দৃষ্টি কামনা করেছেন ভুক্তভুগীরা। কয়েকজন ব্যবসায়ী জানান, অবৈধ দখলদারদের কাছ থেকে দোকান ভাড়া নিয়ে ব্যবসা করছেন তারা। ভাড়া দেওয়ার পাশাপাশি দেয়া হয়েছে মোটা অংকের জামানত। হোটেল রেস্তোরার মালিক সহ অবৈধ কয়েকজন দখলদার ব্যবসায়ী জানান, সরকারী জমি পড়ে থাকে এ কারনে দোকান পাট তৈরি করা হয়েছে। এরআগে ভেঙ্গে দিলেও পুনরায় সকলেই দখল করে স্থাপনা তৈরি করেছে। তবে কর্তৃপক্ষ না চাইলে তারা দোকান তুলে নেবেন। কয়েকজন মাইক্রোবাস চালক জানান, রাস্তার কয়েক ফুটসহ জমি দখল করে অবৈধ স্থাপনা তৈরি করার কারনে অনেক সময় মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। রাস্তার দুপাশ দখলমুক্ত থাকলে অনেকটাই দূর্ঘটনা কমে আসবে। মেহেরপুর সড়ক জনপথ বিভাগের (সওজ) উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী মো: সুলতান মাহমুদ বলেন- ইতোপূর্বে অবৈধ দোকানপাট উচ্ছেদ করা হয়েছিলো। গত বছরও উচ্ছেদ কার্যক্রমের উদ্যোগ নেয়া হলেও রাজনৈতিক কারনে সম্ভব হয়নি। তবে নতুন করে উদ্যোগ নেয়া হবে।

কালুখালী থানার পক্ষ থেকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১০টি টিফিন বক্স প্রদান

কালুখালী প্রতিনিধি ॥ গতকাল সোমবার রাজবাড়ীর কালুখালী থানার পক্ষ থেকে কালুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে আসা করোনা রোগীদের খাবার সরবরাহ করার জন্য টিফিন বক্স প্রদান করা হয়েছে। রাজবাড়ী জেলা পুলিশ সুপার মোঃ মিজানুর রহমান পিপিএম (বার) এর সার্বিক তত্বাবধানে কালুখালী থানা অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ কামরুল হাসানের পক্ষ থেকে ১০ টি টিফিন বক্স প্রদান করেন। এসময় অফিসার ইনচার্জ মোহাম্মদ কামরুল হাসান কালুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ খোন্দকার মোহাম্মদ আবু জালালের নিকট এ টিফিন বক্স হস্তান্তর করেন। উল্লেখ্য করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের শুরু থেকে কালুখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স করোনা রোগীদের চিকিৎসা সেবা প্রদান করে যাচ্ছে।

দৌলতপুর সীমান্তে বিজিবি’র পৃথক অভিযানে মাদক উদ্ধার

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সীমান্তে বিজিবি’র পৃথক অভিযানে মাদক উদ্ধার এবং মহিষ ও ইলিশ মাছ জব্দ করা হয়েছে। গতকাল সোমবার ভোররাত সোয়া ৪টার দিকে উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের সীমান্ত সংলগ্ন ক্রোফোর্ডনগর মাঠে অভিযান চালিয়ে ৮ কেজি গাঁজা উদ্ধার করেছে ৪৭ বিজিবি ব্যাটালিয়ন অধিনস্থ আশ্রয়ন বিওপি’র টহল দল। রবিবার রাত পৌন ১১টার দিকে একই ইউনিয়নের মোহাম্মদপুর নদীরপাড় এলাকায় অভিযান চালিয়ে মালিকবিহীন অবস্থায় ভারতীয় একটি ছোট মহিষ জব্দ করেছে রামকৃষ্ণপুর বিওপি’র বিজিবি। একইদিন ভোররাত সাড়ে ৪টার দিকে চিলমারী ইউনিয়নের সীমান্ত সংলগ্ন আতারপাড়া চরে উদয়নগর বিওপি’র টহল দল অভিযান চালিয়ে ৩৫০ কেজি ইলিশ মাজ জব্দ করেছে। পরে তা এলাকার দরিদ্রদের মাঝে বিতরণ করা হয়। এছাড়াও শনিবার দিবাগত রাত ১২টার দিকে বিলগাথুয়া পশ্চিম মাঠে অভিযান চালিয়ে জয়পুর বিওপি’র টহল দল ৪৮ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে। একইদিন রাত সোয়া ১১টার দিকে বিলগাথুয়া বিওপি’র টহল দল বিলগাথুয়া মাঠে অভিযান চালিয়ে ৪০ বোতল ভারতীয় বেঙ্গল টাইগার মদ উদ্ধার করেছে।

তালবাড়িয়ায় পবিত্র আশুরা উপলক্ষে দোয়া মাহ্ফিল ও তবারক বিতরণ

নিয়ামুল হক ॥ মিরপুর উপজেলার তালবাড়িয়ায় পবিত্র আশুরা উপলক্ষে দোয়া  মাহ্ফিল ও তাবারক বিতরণ করা হয়েছে। গত রবিবার ১০ মহররম বিকেলে মালিথাপাড়া মোড়ে বাদ আসর এ দোয়া মাহ্ফিলের আয়োজন করে মালিথাপাড়াবাসি। দোয়া মাহ্ফিলে হিজরি ৬১ সনের ১০ মহররম এই দিনের তাৎপর্য তুলে ধরে বয়ান করেন চাঁড়–লিয়া জামে মসজিদের খতিব মোঃ রবিউল ইসলাম ও কুষ্টিয়া পল্লী বিদ্যুৎ জামে মসজিদের খতিব রতন ইসলাম। এ সময় সকল শহীদের প্রতি, সকল কবর বাসির রুহ এর শান্তি কামনা ও মোহল্লাহ বাসি, বাংলাদেশসহ বিশ্ববাসির রোগ মুক্তি শান্তি কামনায় বিশেষ মোনাজাত করা হয়। পরে দোয়া মাহ্ফিলে আগতদের মাঝে তাবারক বিতরণ করা হয়।  উল্লেখ্য, হিজরি ৬১ সনের ১০ মহররম এই দিনে মহানবী হযরত মুহাম্মদ (সা.)-এর দৌহিত্র হযরত ইমাম হোসেইন (রা.) এবং তাঁর পরিবার ও অনুসারীরা সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে যুদ্ধ করতে গিয়ে ফোরাত নদীর তীরে কারবালা প্রান্তরে ইয়াজিদ বাহিনীর হাতে শহীদ হন। এ ঘটনা স্মরণ করে বিশ্ব মুসলিম যথাযোগ্য মর্যাদায় দিনটি পালন করে থাকে। শান্তি ও সম্প্রীতির ধর্ম ইসলামের মহান আদর্শকে সমুন্নত রাখতে তাদের এই আত্মত্যাগ মানবতার ইতিহাসে সমুজ্জ্বল হয়ে রয়েছে।

হিজলবাড়ীয়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাতা বার্ষিকীর অনুষ্ঠানে এমএ খালেক

জিয়াউর রহমান ছিলেন ইতিহাসের খলনায়ক

গাংনী প্রতিনিধি ॥ আগষ্ট মাসেই স্বাধীনতার বিরোধী শক্তিরা নানা ষড়যন্ত্র লিপ্তে মরিয়া হয়ে উঠে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সপরিবারে আগষ্ট মাসের ১৫ তারিখে হত্যার শিকার হয়েছিলেন। এর দীর্ঘ বছর পর তারই যোগ্য কন্যা, জননেত্রী শেখ হাসিনা ২১ আগষ্ট বোমা হামলার শিকার হয়েছিলেন। বোমাঘাতে তিনি বেঁচে গেলেও স্বাধীনতার সপক্ষের দল আ.লীগের/ নেত্রী আইভি রহমানসহ অনেককে জীবন দিতে হয়েছিল। তাই আগষ্ট মাস আসলেই স্বাধীনতার বিরোধী শক্তি বিএনপি-জামায়াতরা বেপোরোয়া হয়ে পড়ে। মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার সাহারবাটী ইউনিয়নের হিজলবাড়ীয়া (৫নং ওয়ার্ড) আ.লীগ আয়োজিত বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৫তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য প্রদানকালে কথাগুলো বলেন মেহেরপুর জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক ও গাংনী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এমএ খালেক।

আ.লীগ নেতা এমএ খালেক তার বক্তব্যেই আরো বলেন- বঙ্গবন্ধুর হত্যার ঘটনায় জিয়াউর রহমানের ষড়যন্ত্র ছিলেন। বঙ্গবন্ধুকে হত্যার মাধ্যমে জিয়াউর রহমান ইতিহাসের খলনায়কের পরিচয় দিয়েছিলেন। জিয়াউর রহমান ছিলেন মানিলন্ডারিংয়ের মহানায়ক। বঙ্গবন্ধুর হত্যার সাথে জড়িতদের চাকরীতে পদোন্নতি দিয়েছিলেন জিয়াউর রহমান। গতকাল সোমবার বিকেলে হিজলবাড়ীয়া গ্রামে আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সাহারবাটী ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ড কৃষকলীগের সভাপতি ইউনুস আলী। গাংনী পৌর  ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি জীবন আকবর-এর সঞ্চালনায়- অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন সাহারবাটী ইউনিয়ন আ.লীগের সভাপতি আকরাম আলী খাঁন, গাংনী পৌর আ.লীগের সভাপতি সানোয়ার হোসেন বাবলু, সাধারণ সম্পাদক আনারুল ইসলাম বাবু, গাংনী উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি তৌহিদুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক বিপ্লব হোসেন। এসময় বক্তব্য রাখেন- গাংনী পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি ইমরান হাবীব, হিজলবাড়ীয়া ওয়ার্ড আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মজিদ। এসময় উপস্থিত ছিলেন, জেলা আ.লীগের সদস্য ফেরদৌস আলী, ছাত্রলীগ নেতা রাবিকুল ইসলাম টুটুল, আশিকুজ্জামান পিন্টু, স্থানীয় আ.লীগ নেতা মশিউর রহমান মন্টু মাষ্টার, মহিবুল ইসলাম, ইউপি সদস্য ফেরদৌসী খাতুন, ইউপি সদস্য নিজাম উদ্দীন, আ.লীগ নেতা বাবলু হোসেন, আবুল কাশেম, আব্দুল গনি, আব্দুর রাজ্জাক,শফিউল ইসলাম, বিল্লাল হোসেন, ইদ্রিস আলী, মঞ্জরুল আলম মুন্টু প্রমুখ। আয়োজনের প্রথমে আলোচনা  সভা অনুষ্ঠিত হয়। পরে দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। দোয়া মাহফিল পরিচালনা করেন মাওলানা  মোহাম্মদ গোলাম আজম।

ভেড়ামারায় ট্রেতে চারা উতপাদন করে রাইস ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে ধানের চারা রোপণ

ভেড়ামারা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা বাহিরচর ইউনিয়নের মুসল্লিপাড়া গ্রামে গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১০টায় উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসের আয়োজনে ২০২০-২০২১ অর্থবছরে খরিপ-২ মৌসুমে সম্ভাব্য বন্যার ক্ষয়ক্ষতি পুষিয়ে নিতে কৃষি প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় কমিউনিটি ভিত্তিক রোপা আমন ধানের চারা ও রাইস ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে রোপণের জন্য ট্রেতে নাবী জাতের আমন ধানের চারা ক্ষতিগ্রস্থ প্রান্তিক ও ক্ষুদ্র কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বিতরণ অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে। ভেড়ামারা উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার শাহানাজ ফেরদৌসী’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উদ্বোধন ঘোষনা করেন ভেড়ামারা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ¦ আক্তারুজ্জামান মিঠু। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ শায়খুল ইসলাম, বাহিরচর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোছাঃ রওশনারা খাতুন, সাংবাদিক আবু ওবাইদা-আল-মাহাদী, উপ সহকারী কৃষি অফিসার মোঃ সদরুল ইসলাম, মোঃ সাইফুল ইসলাম (এসএএও), মোঃ আশরাফুল ইসলাম সহ প্রমূখ। উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ শায়খুল ইসলাম জানান, ট্রেতে চারা উৎপাদন করে রাইস ট্রান্সপ্লান্টারের মাধ্যমে ধানের চারারোপণ কার্যক্রমে ১৬ জন চাষী ১ বিঘা জমিতে চারা রোপণের জন্য চারা পেয়েছেন। আপদকালীন বীজতলায় ৩৪ শতাংশ জমিতে চারা উৎপাদনের জন্য ১০২ কেজি বীজ দেওয়া হয়েছে। এতে প্রত্যেক কৃষক ১বিঘা জমিতে রোপণের জন্য ১.৫ শতাংশ জমি’র চারা পেয়েছেন।

মাস কালাই উতপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ভেড়ামারায় ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ

আল-মাহাদী ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলা কৃষি অফিস চত্বরে গতকাল সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসের আয়োজনে ২০২০-২০২১ অর্থবছরে খরিপ-২ মৌসুমে কৃষি প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় মাস কালাই উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষ্যে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণ অনুষ্ঠানের শুভ উদ্বোধন করা হয়েছে। উপজেলা কৃষি অফিসার মোঃ শায়খুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উদ্বোধন করেন ভেড়ামারা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ¦ আক্তারুজ্জামান মিঠু। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা জাসদের সভাপতি ইমদাদুল ইসলাম আতা। মাস কালাই প্রনোদনাতে ১৬০ জন কৃষক প্রত্যেকে ৫ কেজি বীজ, ১০ কেজি ডিএসপি এবং ৫ কেজি এমওপি সার পেয়েছেন ১ বিঘা জমিতে রোপণের জন্য।

গোপালগঞ্জের মোকসেদপুরে সেনাবাহিনীর উদ্যোগে মুজিব জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা প্রদান

মহামারী করোনাকালীন এই কঠিন সময়ে প্রান্তিক অঞ্চলের মানুষের কাছে চিকিৎসা সেবা পৌঁছে দিয়ে তাদের দূর্ভোগ কমানোর লক্ষ্যে মানবতার সেবায় নিয়মিত কার্যক্রম চালিয়ে যাচ্ছেন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৫৫ পদাতিক ডিভিশন। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী উপলক্ষে জিওসি, ৫৫ পদাতিক ডিভিশন ও এরিয়া কমান্ডার, যশোর এরিয়া এর নির্দেশনায় যশোর  সেনানিবাসের সেনাসদস্যরা বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের সমন্বয়ে বৃহত্তর যশোর অঞ্চলের বিভিন্ন জেলায় অসহায় ও দুস্থ মানুষের মাঝে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা ও ঔষধ বিতরণ করে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায় গতকাল  ৩১ আগস্ট ২০২০ (সোমবার) গোপালগঞ্জ জেলার  মোকসেদপুর উপজেলার সাবের মিয়া জসিম উদ্দিন মডেল উচ্চ  বিদ্যালয়ে  সকাল ৯ টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত সর্বমোট ০৬ জন  সেনাবাহিনীর বিশেষজ্ঞ ডাক্তার এবং স্থানীয় ডাক্তারের সমন্বয়ে অসহায় ও দুস্থ মানুষের জন্য একটি অস্থায়ী ফ্রী মেডিক্যাল ক্যাম্পেইন পরিচালিত হয়। এই ক্যাম্পেইনের মাধ্যমে ৩৬৬ জন  মানুষের মাঝে বিনামূল্যে  বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষা-নিরীক্ষা, চিকিৎসা সেবা এবং ঔষধ বিতরনের পাশাপাশি স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত প্রয়োজনীয় দিকনির্দেশনা প্রদান করা হয়।  পাশাপাশি চিকিৎসা সেবা নিতে আগত সাধারণ মানুষের মাঝে মাস্ক, হ্যান্ড, স্যানিটাইজার, সাবান এবং ত্রাণ বিতরণ করেন সেনা সদস্যরা।  এছাড়াও করোনা মোকাবেলায় সেনাবাহিনীর নিজস্ব অর্থায়নে দরিদ্র ও অসহায় মানুষের মাঝে ত্রাণ বিতরণ, সচেতনতামূলক কার্যক্রম পরিচালনা, স্বাস্থ্যবিধি সংক্রান্ত নীতিমালা বাস্তবায়ন, গণপরিবহন মনিটারিং, অসহায় কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ বিতরণসহ বহুমূখী জনকল্যানমূলক কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে যশোর সেনানিবাসের  সেনাসদস্যরা। অন্যদিকে আম্পানে ক্ষতিগ্রস্থ খুলনার উপকূলীয় এলাকায় বাঁধ নির্মাণ অব্যাহত রাখার পাশাপাশি  নানাবিধ জনসেবামূলক কার্যক্রম অব্যাহত রেখেছে যশোর সেনানিবাসের সেনাসদস্যরা।

 

বিভিন্ন মহলের শোক প্রকাশ

তরুণ সংগঠক ও সংস্কৃতিকর্মী রাকিবুল হাসান রিকো চলে গেলেন না  ফেরার দেশে 

কুষ্টিয়া মিলপাড়ার কৃতিসন্তান,  তরুণ সংগঠক ও সংস্কৃতিকর্মী, করোনাকালীন সময়ে ফ্রন্টলাইনের যোদ্ধা রাকিবুল হাসান রিকো আর  নেই৷ গত ৩০ আগষ্ট রোববার ভোর ৪টা ৫০ মিনিটে রাজশাহী  মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল¬াহে ওয়া ইন্না ইলাহে রাজেউন)৷ মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৩২ বছর৷ জানা গেছে, দীর্ঘদিন যাবত তিনি জটিল প্যানক্রিয়াটাইটিস রোগে ভুগছিলেন৷ শহরের চাউলের বর্ডারস্থ আল ইকরা জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে ঐদিনই বাদ যোহর নামাজে জানাজা শেষে তাকে চাঁদাগাড়া কবরস্থানে দাফন করা হয়৷ আগামী ৪ সেপ্টেম্বর, শুক্রবার বাদ জুম্মা আল ইকরা জামে মসজিদে তার কুলখানী অনুষ্ঠিত হবে৷ অকালপ্রয়াত রিকো জেলার একাধিক সামাজিক ও রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃত্বস্থানীয় পদে ছিলেন৷ তিনি কবি ও সাংবাদিক শৈবাল আদিত্য রিপনের একমাত্র অনুজ৷ তরুণ সংগঠক ও সংস্কৃতিকর্মী রিকো’র অকাল মৃত্যুতে কুষ্টিয়ার সুশীল সমাজ, সেচ্ছাসেবী ও সামজিক সংগঠন, রাজনৈতিক অঙ্গন, গণমাধ্যমসহ রিকো’র নিজ এলাকায় নেমে এসেছে শোকের ছায়া। বিভিন্ন সংগঠনের পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করা হয় এবং মরহুমের রুহের মাগফিরাত কামনা করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমাবেদনা জানানো হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

কুষ্টিয়া জেলা ক্রীড়া সংস্থা নির্বচন ২০২০-২০১৪

মোঃ আমজাদ আলী খান আপনাদের দোয়া ও ভোট প্রত্যাশী

সাধারন সম্পাদক পদপ্রার্থী

আসসালামু আলাইকুম।

কুষ্টিয়া জেলা ক্রীড়া সংস্থা নির্বাচন ২০২০-২০২৪ সাধারন সম্পাদক পদ প্রার্থী কুষ্টিয়া জেলার কৃতি সন্তান মোঃ আমজাদ আলী খান শৈশবকাল থেকেইে ক্রীড়াঙ্গনের সাথে জড়িয়ে আছেন। শৈশবে বিভিন্ন বিভাগে খেলাধূলা করলেও শেষ পর্যন্ত গোলক নিক্ষেপ ও চাকতি নিক্ষেপে তার সস্বীকৃত মেলে এবং সুনাম ছড়িয়ে পড়ে ক্রীড়াঙ্গনে। বিভাগীয়, জাতৃীয় ও আর্ন্তজাতিক পর্যায়ে পৌছে যায়। তার ফলশ্র“তিতে ১৯৯৩ সালে কষ্টিয়া জেলা ক্রীড়া সংস্থা নির্বাচনে সর্বোচ্চ ভোট পেয়ে তিনি নির্বাহী সদস্য নির্বাচিত হন। ১৯৮৭ সালে স্কুল পর্যায়ের ক্রীড়া প্রতিযোগীতায় তিনি শতফুট, চাকতি নিক্ষেপ ও বর্ষা নিক্ষেপে ব্যাক্তিগত চ্যাম্পিয়ন হবার সন্মান লাভ করেন। ১৯৭৯ সালেও একই পর্যায়ের সন্মান লাভ করেন। ১৯৮০ সালে নবম জাতীয় স্কুল প্রতিযোগীতায় গোলক ও চাকতি নিক্ষেপে প্রথম স্থান লাভ করে। ১৯৮১ সালে দশম জাতীয় স্কুল প্রতিযোগীতায় গোলক ও চাকতি নিক্ষেপে ২য় ও ৩য় স্থান লাভ করে। ১৯৮২ সালে একাদশ জাতীয় স্কুল প্রতিযোগীতায় প্রথম ও ৩য় স্থান লাভ করে। ১৯৮৩ জাতীয় স্কুল প্রতিযোগীতায় প্রথম ও ২য় স্থান লাভ করে। ১৯৮৪ সালে একই প্রতিযোগীতায় প্রথম ও ৩য় স্থান লাভ করে। ১৯৮৬ সালে বাংলাদেশ ডাক বিভাগের জাতীয় পর্যায়ের খেলায় দুটিতে প্রথম এক একটিতে ২য় স্থান লাভ করে ব্যাক্তিগত চ্যাম্পিয়ন হবার সন্মান লাভ করেন। ১৯৮৭ সালে বাংলাদেশ ডাক বিভাগের চাকতি নিক্ষেপে নতুন রেকর্ড গড়ে তিনি ২টিতে প্রথম ও ১টিতে ২য় স্থান লাভ করে ব্যাক্তিগত চ্যাম্পিয়ন হবার গৌরব লাভ করে। ১৯৮৮ সালে বাংলাদেশ ডাক বিভাগে ২টি  প্রথম ও একটিতে তৃতীয় স্থান লাভ করায় ব্যক্তিগতভাবে রানার্স আপ হওয়ার সম্মান লাভ করেন।

১৯৮৭ সালে যশোর মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষাবোর্ডের আন্তেকলেক ক্রীড়া প্রতিয়োগিতায় ব্যক্তিগতভাবে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করেন। পঞ্চম বাংলাদেশ গেমস এ অংশগ্রহণ তার ক্রীড়া জীবনের সফল প্রপ্তি। ১৯৯০ সাল থেকে  ১৯৯৩ সাল পর্যন্ত বালাদেশ আসছার বাহিনীর একজন নিয়োমিত খেলোড়ার ছিলেন। তিনি ক্রীড়াঙ্গনে খেলোড়ার হিসেবে বিচনরন করলেও কালে কালে একজন সংগঠক হিসেবেও আবিরভূত হয়। ১৯৮০ সালে সব যুবক ক্রীড়া চক্র নামে একটি ক্লাব প্রতিষ্ঠা করেন এবং যে ক্লাবে তিনি প্রতিষ্ঠাতা সাধারণ সম্পাদক। পরবর্তিতে তিনি স্বধীনবাংলা ফুটবলদলের খেলোড়ার ও আবাহনীক্রীড়া চক্রের কোচ,মরহুম আলী ক্রীড়াচক্রনামে ক্লাবের প্রতিষ্ঠাতা। কুষ্টিয়া জেলা রেফারী ও আমপায়ার সমিতির সাথে দীর্ঘ ত্রিশ বছর জরিত আছেন এ সমিতিতে অতীতে যুগ্ন-সম্পাদকের মত গুরু দায়িত্ব নিষ্ঠার সাথে পালন করছেন। বর্তমানে এই সংগঠনের একজন সাধারণ সদস্য হিসেবে কাজ করছেন। পঞ্চম বাংলাদেশ গেমসে চাকতি নিক্ষেপে অংশগ্রহণ করে ৪র্থ স্থান লাভ করে এবং ক্রীড়া ব্যক্তিত্ব লালন একাডেমি ও রেড়ক্রিসেন্ট সোসাইটির আজীবন সদস্য পদের মাধ্যমে সমাজ সেবামূলক কাজেও নিজেকে জড়িয়ে রাখেন। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে তিনি বাংলাদেশ অ্যাথলেটিকস ফেডারেশনের ২০১০ সালে কাউন্সিলর হিসেবে মনোনিত হয়ে অদ্যববি দায়িত্বে আছে । বাংলাদেশ সাতার ফেডারেশনের ২০১২ সালের কাউন্সিলর, ২০১০ -২০১৪ সালে বাংলাদেশ ডাক বিভাগ ক্রীড়া কমিটির সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত, ২০১০-২০১৪-২০১৮-২০২৩ পর্যন্ত নির্বাচিত সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন ।

মোঃ আমজাদ আলী খান বাংলাদেশ মাস্টার্স অ্যাথলেটিক্স ভারতের কলিকাতায় আমন্দ্রতমূলক প্রতিযোগীতাতয় ২০১৪ সালে চাকতি নিক্ষেপে ¯¦র্ণপদক, গোলোক নিক্ষেপে রৌপ্য পদক লাভ করে তিনি ভারতে ৫ম  আন্তর্জাতিক মাস্টার্স অ্যাথলেটিক্স প্রতিযোগীতায় চাকতি নিক্ষেপে ৩য় স্থান লাভ করেন। বাংলাদেশ মার্স্টার্স অ্যাথলেটিক্স দলের হয়ে সিংগাপুরে আংশগ্রহণ করেন। তিনি ১৯তম এশিয়া মাস্টার্স অ্যাথলেটিক্স প্রতিযোগীতায় সিংগাপুরে চাকতি নিক্ষেপে ৪র্থ স্থান অর্জন করেন। বাংলাদেশ দলের টিম ম্যানেজার হিসাবে সিংগাপুরে দায়িত্ব পালন করেন। বাংলাদেশ ১ম জাতীয় মাস্টার্স অ্যাথলেটিক্স প্রতিযোগীতায় চাকতি নিক্ষেপে স্বর্ণপদক লাভ করেন এবং গোলোক নিক্ষেপে রৌপপদক ভাল করেন। বাংলাদেশ ২য় জাতীয় মাস্টার্স অ্যাথলেটিক্স প্রতিযোগীতায় চট্টগ্রামে চাকতি নিক্ষেপে তিনি রৌপপদক লাভ করেন। তিনি কলিকাতা, দিল্লি, মেহেশুর, গোহাসহ ভারতের বিভিন্ন প্রদেশে মাস্টার্স অ্যাথলেটিক্স প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহণ করেন। তিনি বাংলাদেশ অ্যাথলেটিক্স  ফেডারেশন, সুইমিং ফেডারেশন, বাংলাদেশ উশু ফেডারেশন এবং বিভিন্ন ফেডারেশন এর সাথে জরিত আছেন। বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ মাস্টার্স অ্যাথলেটিক্স এ্যসোসিয়েশনের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ঢাকা মতিঝিল বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদ এর প্রতিষ্ঠিাতা হিসেবে কাজ করেন। খেলোয়াড়ী জীবনের পাশাপাশি তিনি রাজনৈতিক জীবনেও সমানভাবে দায়িত্ব পালন করছেন একটানা ২৬ বছর যাবত তিনি কুষ্টিয়া জেলা শ্রমিকলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে গুরুদায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন

ট্রাম্প সমর্থকদের সঙ্গে বর্ণবাদবিরোধীদের সংঘর্ষে নিহত ১

ঢাকা অফিস ॥ যুক্তরাষ্ট্রের ওরেগন অঙ্গরাজ্যের পোর্টল্যান্ডে বর্ণবাদবিরোধীদের সঙ্গে ট্রাম্প সমর্থকদের সংঘর্ষে গুলিতে একজন নিহত হয়েছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমর্থকরা ৬০০ গাড়ির একটি বহর নিয়ে শহরে ঢোকার পর বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সংঘর্ষ শুরু হয়। বর্ণবাদবিরোধী ব্ল্যাক লাইভস ম্যাটার আন্দোলনের কর্মীদের পূর্বঘোষিত প্রতিবাদ কর্মসূচি চলাকালেই সেখানে গাড়িবহর নিয়ে হাজির হন ট্রাম্প সমর্থকরা। নির্বাচন সামনে রেখে গত কয়েক সপ্তাহ ধরে পোর্টল্যান্ড শহরে শক্তির মহড়া চালাচ্ছেন ট্রাম্প সমর্থকরা। এ নিয়ে তৃতীয়বার শনিবার ট্রাম্পের সমর্থকদের সঙ্গে বিক্ষোভকারীদের সংঘর্ষ হলো। পুলিশ বলেছে, শনিবার সংঘর্ষ চলাকালে গুলিবিদ্ধ হয়ে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। নিহতের পরিচয় প্রকাশ করেনি পুলিশ। কৃষ্ণাঙ্গ নাগরিকদের সঙ্গে বৈষম্যের প্রতিবাদে গত কিছু দিন ধরে পোর্টল্যান্ডের রাজপথে টানা বিক্ষোভ চলছে। ২৫ মে শ্বেতাঙ্গ পুলিশের গুলিতে কৃষ্ণাঙ্গ জর্জ ফ্লয়েড নিহতের পর পুলিশি নিপীড়নের বিষয়টি আবারও সামনে আসে। এর প্রতিবাদে বিক্ষোভের কেন্দ্রবিন্দুতে পরিণত হয়েছে শহরটি। জর্জ ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদে বিক্ষোভ যুক্তরাষ্ট্র ছাড়িয়ে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে ছড়িয়ে পড়ে।

কুষ্টিয়া জেলা ক্রীড়া উন্নয়ন পরিষদ প্যানেলের মতবিনিময় সভায় এ্যাড. অনুপ কুমার নন্দী

সদর সাংসদ মাহবুবউল আলম হানিফকে সাথে নিয়ে ক্রীড়াঙ্গণের উন্নয়ন করতে চাই

কুষ্টিয়া জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাচন (২০২০-২০২৪) উপলক্ষ্যে রবিবার (৩০ আগস্ট) দুপুরে কুষ্টিয়া সান আপ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজ-২ চত্বরে “কুষ্টিয়া জেলা ক্রীড়া উন্নয়ন পরিষদ” প্যানেলের আয়োজনে প্রার্থীদের সাথে ভোটার ও ক্লাব প্রতিনিধিদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মতবিনিময় সভায় সভাপতিত্ব করেন প্যানেল থেকে বিনা-প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত সহ-সভাপতি আলী হাসান মন্টা। মতবিনিময় সভায় সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী এ্যাড. অনুপ কুমার নন্দী বলেন- বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া সদর-৩ আসনের সংসদ সদস্য জননেতা মাহবুবউল আলম হানিফের দিক নির্দেশনা ও  সার্বিক সহযোগিতায় প্রাণ ফিরে পেয়েছে কুষ্টিয়ার ক্রীড়াঙ্গণ। তিনি সংসদ সদস্য হওয়ার পর থেকেই কুষ্টিয়ার ক্রীড়াঙ্গণের উন্নয়ন নিয়ে আমাদের আর তেমন বেগ পেতে হয়না। এ্যাড. অনুপ বলেন- জননেতা হানিফ এমপি কুষ্টিয়া স্টেডিয়ামের নাম পরিবর্তন করে শেখ কামাল স্টেডিয়াম নামকরণ এবং স্টেডিয়াম নির্মাণে ৪৪ কোটি টাকা বরাদ্দ এনে দিয়ে আমাদেরকে কৃতজ্ঞ করেছেন। আমরা পূর্ণপ্যানেলে বিজয়ী হয়ে জননেতা মাহবুবউল আলম হানিফের সাথে নিয়ে কুষ্টিয়ার ক্রীড়াঙ্গণের আরও ব্যাপক উন্নয়ন করতে চাই। এজন্য তাদের প্যানেলকে পূর্ণপ্যানেলে ভোট দিয়ে বিজয়ী করতে ভোটারদের প্রতি অনুরোধ জানান এ্যাড. অনুপ কুমার নন্দী।

সভায় প্যানেল থেকে বিনা-প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত সহ-সভাপতি মোঃ মকবুল হোসেন লাবলু বলেন-  কুষ্টিয়ার ক্রীড়াঙ্গনে জননেতা মাহবুবউল আলম হানিফ’র উন্নয়ন ধারা অব্যাহত রাখতে কুষ্টিয়া জেলা ক্রীড়া উন্নয়ন পরিষদ প্যানেলের কোন বিকল্প নেই। তিনি বলেন, ইতোমধ্যে আমাদের প্যানেলের ৭জন প্রার্থী বিনা-প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত হয়েছেন। আশারাখি আগামী ৫ সেপ্টেম্বর নির্বাচনে আমরা পূর্ণপ্যানেলে জয়লাভ করবো। তিনি এক এবং ঐক্যবদ্ধ হয়ে কুষ্টিয়া জেলা ক্রীড়া উন্নয়ন পরিষদ প্যানেলে সবাইকে ভোট দেয়ার অনুরোধ জানান। প্যানেল থেকে বিনা-প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত য্গ্মু-সম্পাদক খন্দঃ সাদাত-উল আনাম পলাশের পরিচালনায় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন প্যানেল থেকে বিনা-প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত কোষাধ্যক্ষ মোঃ লিয়াকত আলী খান, অতিরিক্ত সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী এ্যাড. মোসাদ্দেক আলী মনি, নির্বাহী সদস্য প্রার্থী কাইয়ুম নাজার, আফরোজা আক্তার ডিউ, শহীদ আনসার মেমোরিয়াল ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক এস এম কাদেরী শাকিল, পূর্ব মজমপুর শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আনিসুজ্জামান ডাবলু, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব  (কেপিসি) সভাপতি মোঃ রাশেদুল ইসলাম বিপ্লব, দৌলতপুর উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক মোঃ মাহফুজুল কালাত, সুর্যসেনা স্পোটিং ক্লাব প্রতিনিধি মোঃ আজমত আলী, পুর্ব মজমপুর ক্রীড়াচক্র প্রতিনিধি কাজী রফিকুর রহমান, বৈদনাথ দত্ত জিমনেশিয়াম প্রতিনিধি স্বপন কুমার পাড়ই (কালা), কৃষ্ণচুড়া আনসার ভিডিপি প্রতিনিধি জামিল হাসান খান খোকন, নর্থ স্টার ক্লাব প্রতিনিধি মোঃ আব্দুল আলীম, কুষ্টিয়া জিমনাস্টিক ক্লাব প্রতিনিধি  শফিকুজ্জামান দোলন, গড়াই স্পোর্টিং ক্লাব প্রতিনিধি মোঃ আব্দুল কাদের জুয়েল, আড়ুয়াপাড়া জিমন্যাস্টিক ক্লাব প্রতিনিধি মোঃ ইয়াসির আরাফাত, জুপিটর স্পোটিং ক্লাব প্রতিনিধি মুশফিকুর রহমান টরলিন, জেলা মহিলা ক্রীড়া সংস্থা প্রতিনিধি হাবিবা আক্তার শিউলি, জগতি স্পোর্টিং ক্লাব প্রতিনিধি  মিসেস সালেহা নাজনীন, হাটস হরিপুর ইউনিয়ন নবারুণ সংঘ প্রতিনিধি মোঃ আনোয়ারুল হক,  আমলাপাড়া স্পোর্টিং ক্লাব প্রতিনিধি রবিউল হক, শিশু কিশোর ক্রীড়া চক্র প্রতিনিধি মোঃ মহসিন আলী প্রমুখ। সভায় প্যানেলের ২৭ জন প্রার্থীসহ  বিভিন্ন ক্লাব প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।

 

বিংশ শতকের অন্যতম প্রভাবশালী ও সাহসী নেতা বঙ্গবন্ধু – রীভা

ঢাকা অফিস ॥ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে আধুনিক বাংলাদেশের স্থপতি এবং বিংশ শতকের অন্যতম প্রভাবশালী ও সাহসী নেতা হিসেবে অভিহিত করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ। মুজিববর্ষ উদযাপনের অংশ হিসেবে দেশের ১০০টি কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে বই উপহার দেয় ঢাকায় ভারতের হাইকমিশন। ঢাকা, চট্টগ্রাম, খুলনা, রাজশাহী, সিলেটসহ বিভিন্ন অঞ্চলে অবস্থিত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও মুক্তিযুদ্ধের ওপর বিখ্যাত লেখক-ইতিহাসবিদদের লেখা এসব বই উপহার দেয়া হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল সোমবার একটি ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানের আয়োজন করে হাইকমিশন। এতে প্রধান বক্তা ছিলেন শিক্ষা উপমন্ত্রী ব্যারিস্টার মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল। উপমন্ত্রী হাইকমিশনকে এই উদ্যোগের জন্য ধন্যবাদ জানান এবং বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যকার সম্পর্কের অসাধারণ শক্তি ও উষ্ণতার কথা পুনর্ব্যক্ত করেন। বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার রীভা গাঙ্গুলি দাশ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুকে আধুনিক বাংলাদেশের স্থপতি এবং বিংশ শতকের অন্যতম প্রভাবশালী ও সাহসী নেতা হিসেবে অভিহিত করেন। অনুষ্ঠানে আরও অংশ নেন বাংলাদেশ প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক সত্য প্রসাদ মজুমদার, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ ফায়েকুজ্জামান, চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ফরিদ উদ্দিন আহমেদ, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আবদুস সোবহান এবং চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক গৌতম বুদ্ধ দাস।

আলমডাঙ্গায় ট্রাফিক পুলিশের অভিযান

৫০টি মামলা ও ৪০টি মোটর বাইক জব্দ

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ আলমডাঙ্গা পৌর শহরে ট্রাফিক পুলিশ ব্যাপক অভিযান চালিয়েছে ।  রোববার পরিচালিত এ অভিযানে  কাগজপত্র না থাকাসহ নানা অভিযোগে ৫০টি মামলা ও ৪০টি মটর বাইক জব্দ করা হয়। জানা গেছে, আলমডাঙ্গা পৌর শহরে দিনব্যাপী চুয়াডাঙ্গা ট্রাফিক পুলিশের একটি দল অভিযান চালিয়েছে।  ট্রাফিক সার্জেন্ট মৃত্যুঞ্জয়ী বিশ্বাস ও মাহবুব কবীরের নেতৃত্বে সকাল থেকে  বিকেল পর্যন্ত শহরের বিভিন্ন মোড়ে এ অভিযান চালানো হয়। অভিযানে মটরসাইকেলের কাগজপত্র না থাকায় ৪০টি মোটর বাইক আটক ও সহ নানা ক্রটির কারণে সড়ক পরিবহন আইন ২০১৮’র মোতাবেক ৫০টি মামলা দায়ের করা হয়।

জমি সংক্রান্ত বিরোধের ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের ॥ আটক-২

কুষ্টিয়ার চরথানাপাড়ায় মিমাংসাস্থলেই হামলায় আহত-৪

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া শহরস্থ চর থানাপাড়া এলাকায় জমি সংক্রান্ত বিরোধে প্রতিপক্ষের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। হামলায় ৪জন আহত হয়েছে। এর মধ্যে গুরুত্বর আহত হয়ে একজন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ বিষয়ে থানায় মামলা হয়েছে। আসামীদের মধ্যে দুজনকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। জানা যায়, কুষ্টিয়া শহরস্থ চরথানাপাড়া এলাকার রবিউল ইসলাম মুন্সী (৪৮) ও থানাপাড়ার এলাকার মৃত বিদু শেখের ছেলে রতন শেখ (৪৮) এর মধ্যে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলছিল। এ বিষয়ে গত ২৯ আগষ্ট বিকেল সাড়ে ৫টার সময় চরথানাপাড়া পুরাতন বাঁধের উপর শহিদের চায়ের দোকানের সামনে সামাজিক আপোষ-মিমাংসার বৈঠক বসানো হয়। এতে ওই এলাকার জনপ্রতিনিধি ও মাতব্বররা উপস্থিত ছিল। কিন্তু মিমাংসাস্থলে বিচারকদের সামনেই রতনগংরা হামলা চালায় রবিউল ইসলাম মুন্সীর উপর। এসময় অন্যরা ঠেকাতে আসলে তাদের উপরও হামলা চালায় রতন শেখ, তার ছেলে জুয়েল শেখ (২৭), রতনের স্ত্রী শান্ত খাতুন (৪২), রতনের মেয়ে জয়া খাতুন (২২)। হামলায় খোকন নামের একজন মারাত্মক ভাবে আহত হয়। এ বিষয়ে রবিউল ইসলাম মুন্সী বাদী হয়ে কুষ্টিয়া মডেল থানায় হামলাকারীগণসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৩-৪ জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন। মামলা নং-৩৮, তাং-৩০-০৮-২০২০। আসামীদের মধ্যে রতন ও তার ছেলে জুয়েল কে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়েছে পুলিশ। বাকী আসামীদের ধরতে পুলিশ অভিযান অব্যাহত রেখেছে।  এদিকে রতনের স্ত্রী শান্ত ও মেয়ে জয়া’র বিরুদ্ধে এলাকার মধ্যে বিশৃঙ্খলার সৃষ্টি করার অভিযোগ রয়েছে। বর্তমানেও তারা বিভিন্ন ভাবে এলাকাতে বিশৃঙ্খলা তৈরীর চেষ্টা করছে। ভুক্তভোগী ও এলাকাবাসী অতিদ্রুত বাকী আসামীদের ধরতে পুলিশকে আরো কঠোর হওয়ার অনুরোধ জানিয়েছে।

সাব-রেজিস্ট্রার মাহফুজ রানার শোক

গাংনী উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের মহুরা জাকির হোসেনের মৃত্যু

নিজ সংবাদ ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রি অফিসের মহুরা জাকির হোসেন (৫০) আর নেই। গত বুধবার রাত এগারটার দিকে মোহাম্মদপুর গ্রামে নিজ বাসভবনে তিনি  শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)। তিনি মোহাম্মদপুর গ্রামের মৃত ফাকের আলীর ছেলে। গত বৃহস্পতিবার সকালে স্থানীয় বাইতুল আমান জামে মসজিদ প্রাঙ্গনে জানাজা শেষে পারিবারিক গোরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

জাকির হোসেন দীর্ঘদিন ধরে সুনামের সাথে গাংনী সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে মুহুরার দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন। তাঁর মৃত্যুতে গাংনী সাব রেজিষ্ট্রার মো. মাহফুজ রানা গভীর শোক প্রকাশ করেছেন। এক শোক বার্তায় তিনি বলেন, ‘গাংনী সাব রেজিষ্ট্রার কার্যালয়ের কলম যোদ্ধা লেখক মো. জাকির হোসেনের প্রয়ানে রেজিষ্ট্রেশন পরিবারের পক্ষ থেকে গভীর শোক প্রকাশ করছি। তার বিদেহী আতœার মাগফেরাত ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রভূত কল্যাণ কামনা করছি।’

জাকির হোসেন বেশ কয়েক বছর আগে থেকেই হৃদরোগে আক্রান্ত ছিলেন। চিকিৎসা চলছিল বিভিন্ন হাসপাতালে। কয়েক বছর আগে বাইপাস সার্জারি করার পরে কিছুটা স্বস্তিতে ছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী ও দুই ছেলেসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন।

জাকির হোসেনের বড় ভাই গাংনী উপজেলা সাবেক আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা মহিবুল হক এবং ভাতিজা প্রথম আলো কুষ্টিয়া প্রতিনিধি তৌহিদী হাসান মরহুমের আত্মার মাগফেরাত কামনায় সকলের কাছে দোয়া কামনা করেছেন।

কুষ্টিয়ার আলোচিত বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র লিপু হত্যাকান্ডের ৬ষ্ঠ বার্ষিকী আজ

নিজ সংবাদ ॥ আজ আলোচিত বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্র তৌহিদুল ইসলাম লিপুর ৬ষ্ঠ মৃত্যু বার্ষিকী। ২০১৪ সালের ৩১ আগষ্ট কুষ্টিয়া শহরের রেনউইক মোড়ের বাসা থেকে তৌহিদুল ইসলাম লিপুর বাবা ওয়াহিদুল ইসলামের মামাতো ভাই জুহাইম খন্দকার শুভ ও শুভর বন্ধু রাকিবুল ইসলাম বাপ্পী লিপুকে অপহরন করে মোটা অংকের চাঁদা দাবী করে। এক সময় টাকার সমঝোতাও হয়। কিন্তু লিপু তার চাচা শুভকে চিনে ফেলায় পরবর্তীতে সব ফাঁস হয়ে যেতে পারে এ আশংকায় নির্মম নিষ্ঠুর নৃশংসভাবে লিপুকে হত্যা করে শুভ, বাপ্পী ও তাদের সহযোগীরা। ১ সেপ্টেম্বর হত্যার পরে লাশের চিহ্ন যেন না পাওয়া যায় সেজন্য তারা লাশের পেট কেটে ও দড়ির সাথে ইট বেঁধে লাশ পদ্মায় ফেলে দেয়ার কথা স্বীকার করে অভিযুক্তরা । এদিকে কুষ্টিয়ার বিজ্ঞ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের বিচারক এটি এম মাহমুদুল হক ২০১৭ সালের ৮ই ডিসেম্বর দুইজনকে ফাঁসী, আটজনকে যাবজ্জীবন ও চারজনকে বিভিন্ন মেয়াদে সাজা প্রদান করেন। পরবর্তীতে মামলার রায়ের বিরুদ্ধে আসামীরা উচ্চ আদালতে আপিল করে যা রায় পাওয়ার জন্য এখনও অপেক্ষার প্রহর গুনছে পরিবার। এদিকে ঘটনার ৬ বছর পার হলেও এক মুহুর্তের জন্য লিপুকে ভুলতে পারিনি তার বাবা-মা ও একমাত্র ছোটবোন। নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের মেধাবী ছাত্র তৌহিদুল ইসলাম লিপুর হতভাগ্য পরিবার এখন সন্তান হত্যার বিচারের অপেক্ষার প্রহর গুনছে। মামলাটি বর্তমানে উচ্চ আদালতে বিচারাধীন আছে।

কালুখালীতে মোবাইল দোকানীর টাকা ছিনতাই

কালুখালী প্রতিনিধি ॥ রাজবাড়ী জেলাধীন কালুখালীতে উপজেলার লাড়ীবাড়ী বাজারের বিকাশ এজেন্টের মালিক মোঃ মনির উদ্দিন বিশ্বাসের কাছ থেকে টাকা ছিনতাই করে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে।  লাড়ীবাড়ী বাজারের মোবাইল ফোন, বিকাশ, ফেক্সিলোড ও ফটোকপির  দোকান “জননী টেলিকম সেন্টার”  এর প্রোপাইটার সাওরাইল ইউনিয়নের আখরজানী বিশ্বাসপাড়া গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য মোঃ আব্দুল গফুর বিশ্বাস এর পুত্র মোঃ মনির উদ্দিন বিশ্বাস। ঘটনার বিবরণে গতকাল সোমবার তিনি জানান, গত শুক্রবার রাত ৮ টার দিকে দোকান বন্ধ করে বাড়ী ফিরছিলাম। বাজার থেকে কিছুদূর আসার পর মেররা কালীবাড়ী নামক স্থানে আসলে পিছন থেকে মুখোষধারী ৩/৪ জন লোক আমার গতিরোধ করে। পরে পিছন থেকে একজন লোক লাঠি দিয়ে আমার মাথায় আঘাত করে। এসময় আমি চিৎকার করলে আবারও আমার মুখে ও শরীরে লাঠি দিয়ে আঘাত করে। এসময় আমার হাতে ১ লাখ ৭০ হাজার টাকা, ৪ টি বাটন মোবাইল ফোন, ১ টি অপো মোবাইল ফোন, ১ টি ক্যামেরা সহ অন্যান্য মালামাল ভর্তি ব্যাগটি ছিনিয়ে নিয়ে চলে যায়। তাদের সকলের মুখ গামছা দিয়ে ঢাকা ছিলো। আমি কাউকে চিনতে পারিনি। আমার আত্ম চিৎকারে পরে স্থানীয়রা ও মৃগী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের পুলিশ, ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ শহিদুল ইসলাম আলী এসে আমাকে উদ্ধার করে পাংশা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। এ ব্যাপারে মৃগী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে একটি ডায়রি করেছি। মামলার ব্যাপারে মৃগী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইন্সপেক্টর আবুল কালাম গতকাল সাংবাদিকদের বলেন, আমরা অপরাধীদের ধরতে অভিযান অব্যাহত রেখেছি। আশা করি অতিদ্রুত আসামীদের আটক করে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

কুষ্টিয়ায় জঙ্গিবাদ ও ধর্ষন চেষ্টার অভিযোগে কিষ্ট পলিটেকনিকের ৬ শিক্ষক-কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ায় জঙ্গিবাদ ও নারী নির্যাতনের অভিযোগে কিষ্ট পলিটেকনিকের ৬ শিক্ষক-কর্মচারীর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। কুষ্টিয়া মডেল থানার মামলা নং-৩১ তারিখ ২৪/০৮/২০ জিআর মামলা নং কুষ্টিয়া জিআর ৩৬১/২০২০। ধারা ৯(৪)(খ)/১০/৩০ ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন সংশোধনী ২০০৩, তৎসহ ৫০৬  পেনাল কোড ১৮৬০ শ্লীলতাহানী ধর্ষণের চেষ্টাসহ সহযোগিতাসহ জীবন নাশের হুমকি। মামলার এজাহার সূত্রে জানা যায় দীর্ঘদিন ধরে ঐ প্রতিষ্ঠানের ভাইস প্রিন্সিপাল পাবনা এলাকার শিবির ক্যাডার রাশেদুল হাসান ও কুষ্টিয়া হাউজিং এলাকার মনোরুবা রহমান এর নেতৃত্বে জঙ্গি তৎপরতা চলছিলো। প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের জঙ্গিবাদে সম্পৃক্ত করা হচ্ছিল সম্প্রতি জনৈক এক শিক্ষিকা এর প্রতিবাদ করলে তার উপর  নেমে আসে অমানুষিক নির্যাতন। ১৬ আগষ্ট কুষ্টিয়া শহরের এনএস রোড ইব্রাহীম প্লাজার কর্ণারে অবস্থিত ঐ শিক্ষিকাকে রাশেদুল হাসান তার অফিস রুমে ডেকে নিয়ে ইসলামের শক্রদের বিরুদ্ধে জিহাদ ঘোষনা একটা ফরমে স্বাক্ষর করতে বলেন, স্বাক্ষর করতে রাজি না হওয়ায় তার উপর শারীরিক নির্যাতন ও ধর্ষনের চেষ্টা করে। প্রতিবাদ করলে দেওয়া হয় হত্যার হুমকি। মামলার আসামীরা হচ্ছে আসামী ১. মোহা: রাশেদুল হাসান (৩৯) পিতা মো: আব্দুল মতিন, ভাইস প্রিন্সিপাল কিষ্ট কুষ্টিয়া, মার্কাস মসজিদ গলি কোর্টপাড়া কুষ্টিয়া। ও বাসা ০১৬৫-০১ , গ্রাম/রাস্তা মধ্য অরণ্যকোলা শহীদ আমিনপাড়া, ঈশ্বরদী, পাবনা ২. বুলবুল আহমেদ (৩০) পিতা-আবেদ আলী ল্যাব সহকারি কিষ্ট কুষ্টিয়া , গ্রাম হারখালী, থানাঃ সরিশাবাড়ি, জেলাঃ জামালপুর ৩.সানজিদা সুলতানা (২৭) পিতা –আইয়ুব হোসেন অফিস সহকারী কিষ্ট কুষ্টিয়া, মার্কাস মসজিদ গলি  কোর্টপাড়া কুষ্টিয়া, মোক্তার বাড়ি আউচপাড়া গাজিপুর সদর গাজিপুর ৪. মনোরুবা রহমান (৩৮) পিতা মাহফিজুর রহমান, কিষ্ট কুষ্টিয়া ও ১০৮ হাউজিং সি ব্লক কুষ্টিয়া সদর কুষ্টিয়া ৫. আবুল হাসান (৩৫) পিতা -ইংরাজ আলী গ্রাম কালীদাসপুর থানা দৌলতপুর, জেলা কুষ্টিয়া ৬. মো:  মোস্তফা কামাল, পিতা রুস্তম আলী, গ্রাম উথলী পশ্চিমপাড়া, থানা- খোকশা। মামলার বাদী রাসনা শারমীন  জানান ১৬ আগষ্ট ঘটনারপর মানষিকভাবে ভেঙে পড়েছিলাম পরে আত্মীয় স্বজনের সাথে কথা বলে ২১ আগষ্ট থানায় মামলা করতে যায় সেদিন ওসি স্যার বলেন তদন্ত ছাড়া মামলা নেওয়া যাবে না। এরপর তদন্ত শেষে ওসিস্যার ২৪ আগষ্ট মামলা  রেকর্ড করেন। কিন্তু মামলার ৭ দিন পার হলেও প্রভাবশালী মহলের চাপে পুলিশ কোন আসামীকে গ্রেফতার করছে না। আসামীরা অফিস করছে প্রকাশ্যে ঘুরছে ও আমাকে মামলা তুলে নিতে হুমকি দিচ্ছে।”

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা কুষ্টিয়া মডেল থানার এসআই জিয়াউর রহমান জানান আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে। কুষ্টিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম মোস্তফা জানান প্রাথমিক তদন্ত শেষে ঘটনার সত্যতা পাওয়ায় মামলা দায়ের করা হয়েছে তদন্তকারী কর্মকর্তা আসামীদের গ্রেফতারে কাজ করছে আশাকরি শীগ্রই আসামীদের গ্রেফতার করা সম্ভব হবে।

দৌলতপুরে মাস্ক ব্যবহার না করায় ১২ জনের অর্থদন্ড

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে মুখে মাস্ক ব্যবহার না করায় দায়ে ও ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে ১২জনকে ৫৯ হাজার টাকা অর্থদন্ড করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত। গতকাল সোমবার বিকেল ৫টায় দৌলতপুর উপজেলার বড়গাংদিয়া হাবলু মোল্লা চত্বরে অভিযান চালিয়ে করোনা স্বাস্থ্যবিধি না মেনে মুখ মাস্ক ব্যবহার না করার দায়ে ১৮৬০ সালের দ: বি: ২৬৯ ধারায় (সংক্রমক রোগ প্রতিরোধ নিয়ন্ত্রন ও নির্মূল আইন) ১১জনকে ৩৯হাজার টাকা অর্থদন্ড করেন ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও দৌলতপুর নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার। এসময় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইনে একজনকে ২ হাজার টাকা অর্থদন্ড করা হয়।  একইসাথে সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী শতভাগ মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিত করা এবং করোনা স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলার জন্য নির্দেশনা ও পরামর্শ দেওয়ার পাশাপাশি আদালতের অভিযান চলমান রাখার কথা জানানো হয়।