কবুরহাট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, নবীন বরণ ও পুরস্কার বিতরণ

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বটতৈল ইউনিয়নের কবুরহাট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, নবীন বরণ ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠান বিদ্যালয় চত্বরে গতকাল বুধবার দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত হয়েছে। স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতি আব্দুল মজিদ বাবুলের সভাপতিত্ব্ েঅনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক রেজাউল হক।

বিশেষ অতিথি ছিলেন বটতৈল ইউনিয়নের চেয়ারম্যান এম এ  মোমিন মন্ডল, বটতৈল ইউনিয়ন  আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আবু বক্কর সিদ্দিক, সাধারণ সম্পাদক মফিজুল ইসলাম মফিজ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন- কবুরহাট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক খন্দকার তারিক  হোসেন। বক্তব্য অনুষ্ঠান শেষে প্রধান অতিথি বিদ্যালয়ের ২০১৯ সালের এসএসসি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ এ-প্লাস ও  জেএসসি পরীক্ষায় এ প্লাস প্রাপ্ত আশরাফ জাহান তৃষ্ণা, সালমা আক্তার, খন্দকার লবিবা ইশরাত,  তসলিমা জাহান ইতি, তসলিমা খাতুন, এস এম জান্নাতুল ফেরদৌস নূপুর, শিউলি আক্তার মুক্তা, আরফিন আক্তার মিম, শাপলা খাতুন, শাকিব হোসেন ও মো মিজান এবং জে এস সি পরীক্ষায় উত্তীর্ণ  এ প্লাস প্রাপ্ত সরাইয়া খাতুন, জান্নাতুল মাওয়া, সাগর  হোসেন, জীবন হোসেন, রেজওয়ান আহম্মেদ, সিরাতুল হক শুভ, মাশরাফি বিন ভর্তুকির হাতে পুরস্কার তুলে দেন। পরে  ছাত্র-ছাত্রীদের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা শেষে বিজয়ীদের মাঝে অতিথিরা পুরস্কার বিতরণ করেন। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন শিক্ষক গিয়াস উদ্দিন।

করোনা ভাইরাস বিষয়ে হালসা হাই স্কুলে সচেতনতামুলক আলোচনা

মিলন আলী ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুর থানার ঐতিহ্যবাহী হালসা হাই স্কুলের প্রধান শিক্ষক আ: সালাম বিদ্যালয়ের প্রতিটি  শ্রেণী কক্ষে গিয়ে ছাত্র-ছাত্রী  মরন ব্যাধি ঘাতক রোগ করোনা ভাইরাস সম্পর্কে অবগত করার জন্য বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন করোনা ভাইরাস রোগ নিয়ে আতংকিত হওয়ার কিছু  নেই কারন এটি একটি ছোয়াচে রোগ একটি পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অবলম্বন করলে এই রোগ থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। আরও উপস্থিত ছিলেন সহকারী প্রধান শিক্ষক আনারুল ইসলাম, ইংরেজি শিক্ষক মখলেসুর রহমান,জাফর ইকবাল।

পাপিয়া ফের ১৫ দিনের রিমান্ডে

ঢাকা অফিস ॥ যুব মহিলা লীগের বহিস্কৃত নেত্রী শামিমা নূর পাপিয়া ও তার স্বামী মফিজুর রহমান ওরফে সুমন চৌধুরীকে (মতি সুমন) তিন মামলায় আবারও ৫ দিন করে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিয়েছে আদালত। গতকাল বুধবার ঢাকার দুইজন মহানগর হাকিম এই আদেশ দেন। বিমানবন্দর থানায় দায়ের জাল নোটের মামলায় রিমান্ডের অনুমতি দেন মহানগর হাকিম দেবব্রত বিশ্বাস। আর শেরেবাংলা নগর থানায় অস্ত্র ও মাদক আইনের দুই মামলায় রিমান্ডের আদেশ দেন মহানগর হাকিম সারাফুজ্জামান আনছারী। আদালত সংশ্লিষ্ট পুলিশের সাধারণ নিবন্ধন কর্মকর্তা এসআই মাহমুদুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। এর আগেও প্রথম দফায় দুইজনকে ১৫ দিনের রিমান্ডে পেয়েছিল পুলিশ। সেই রিমান্ড শেষে বুধবার তাদেরকে আদালতে হাজির করে তিন মামলায় দশদিন করে রিমান্ড চাওয়া হয়। বিমানবন্দর থানার মামলার তদন্ত কর্মকর্তা র‌্যাব-১ এর সহকারী পুলিশ সুপার মো. সালাউদ্দিন ১০ দিন করে রিমান্ড আবেদন করেন পাপিয়া ও তার স্বামী সুমন চৌধুরী এবং তাদের দুই সহযোগী সাব্বির খন্দকার ও শেখ তায়্যিবা নূরের। সাব্বির খন্দকার ও শেখ তায়্যিবা নূরকে এদিন আদালতে হাজির করা হয়নি। পরে বিচারক তাদের রিমান্ড শুনানির জন্য রোববার দিন ধার্য এবং পাপিয়া ও তার স্বামীর পাঁচদিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। অন্যদিকে শেরেবাংলা নগর থানার অস্ত্র আইনের মামলায় পাপিয়া ও তার স্বামীর রিমান্ড আবেদন করেন র‌্যাব-১ এর এসআই মো. আরিফুজ্জামান। আর একই থানার মাদক আইনের মামলায় রিমান্ড আবেদন করেন র‌্যাব-১ এর এসআই খোরশেদ আলম। শুনানি নিয়ে মহানগর হাকিম সারাফুজ্জামান আনছারী পাঁচদিন করে রিমান্ডের আদেশ দেন। এদিন আদালতে পাপিয়া ও সুমনের পক্ষে কোনো আইনজীবী ছিলেন না। ঢাকার বিমানবন্দর এলাকা থেকে গত ২২ ফেব্রুয়ারি পাপিয়া, তার স্বামী মফিজুর রহমান ওরফে সুমন চৌধুরী (মতি সুমন) এবং তাদের দুই সহযোগী গ্রেপ্তার হন। বিমানবন্দর এলাকা থেকে গ্রেপ্তারের সময় পাপিয়াদের কাছ থেকে সাতটি পাসপোর্ট, ২ লাখ ১২ হাজার ২৭০ টাকা, ২৫ হাজার ৬০০ টাকার জাল নোট, ৩১০ ভারতীয় রুপি, ৪২০ শ্রীলঙ্কান রুপি ও সাতটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। ওই ঘটনায় বিমানবন্দর থানায় দায়ের করা হয় জাল নোটের মামলাটি, যাতে পাপিয়া ও তার স্বামীর সঙ্গে তার দুই সহযোগীকেও আসামি করা হয়। আর ওয়েস্টিন হোটেলে পাপিয়ার ভাড়া করা প্রেসিডেনশিয়াল স্যুইট এবং ইন্দিরা রোডে পাপিয়াদের দুটি অ্যাপার্টমেন্টে অভিযান চালিয়ে বিদেশি পিস্তল, ২০ রাউন্ড গুলি, পাঁচ বোতল মদ উদ্ধারের ঘটনায় শেরেবাংলা নগর থানায় দায়ের করা হয় দুটি মামলা। অস্ত্র ও মাদক আইনের এ দুই মামলায় পাপিয়া ও তার স্বামীকেই কেবল আসামি করা হয়। মঙ্গলবার অস্ত্র ও মাদক আইনের মামলা দুটির তদন্তভার দেওয়া হয় র‌্যাবকে। গ্রেপ্তারের মাদক ও অস্ত্র চোরাচালান, জমি দখল এবং ওয়েস্টিন হোটেলে নারীদের দিয়ে ‘যৌন বাণিজ্যসহ’ নানা অপকর্মের অভিযোগ আসতে থাকে নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক পাপিয়া ওরফে পিউয়ের বিরুদ্ধে। তখন দল থেকে তাকে বহিষ্কার করা হয়।

কালরাতের স্মরণে ১ মিনিট অন্ধকারে থাকবে দেশ

ঢাকা অফিস ॥ একাত্তরের কালরাতের স্মরণে গণহত্যা দিবসে আগামী ২৫ মার্চ এক মিনিট অন্ধকারে থাকবে পুরো দেশ। গতবারের মতই গুরুত্বপূর্ণ ও জরুরি স্থাপনা ছাড়া সারা দেশে ওইদিন রাত ৯টা থেকে ৯টা ১ মিনিট পর্যন্ত এই প্রতীকী ‘ব্ল্যাক আউট’ চলবে বলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল জানিয়েছেন। গণহত্য দিবস এবং স্বাধীনতা দিবস পালন নিয়ে গতকাল বুধবার সচিবালয়ে এক আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা শেষে মন্ত্রী সাংবাদিকদের এই তথ্য জানান। তিনি বলেন, “গণহত্যা দিবস পালন উপলক্ষ্যে ২৫ মার্চ রাত ৯টা থেকে ৯টা ১ মিনিট পর্যন্ত সারাদেশে বাতি নিভিয়ে প্রতীকী ব্লাক আউট পালন করব। “তবে জরুরি স্থাপনা বা কেপিআই যেমন হাসপাতাল এবং অন্যান্য স্থানে যেখানে ব্লাক আউট করলে অসুবিধা হবে এবং চলমান যানবাহন এর বাইরে থাকবে। এই কর্মসূচি পালনের সময় ঢাকা মহানগরসহ সারাদেশে নিরাপত্তার ব্যবস্থা থাকবে।” কামাল বলেন, “এই কর্মসূচি সারা দেশে পালনের জন্য দেশবাসীকে অনুরোধ করছি এবং পালনের ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য বলছি। আমরা গণহত্যা দিবসকে স্মরণ করে এই প্রতীকী কর্মসূচি পালন করব। জাতীয় সংসদের স্বীকৃতির পর একাত্তরের ২৫ মার্চ পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর বর্বর হত্যাযজ্ঞের দিনটিকে ‘গণহত্যা দিবস’ হিসেবে ঘোষণা করে সরকার। জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে পালনের জন্য ২৫ মার্চকে ‘ক’ শ্রেণিভুক্ত দিবস হিসেবে গণহত্যা দিবস হিসেবে অন্তর্ভুক্তের প্রস্তাবও মন্ত্রিসভার অনুমোদন পেয়েছে। বাঙালির মুক্তির আন্দোলনের শ্বাসরোধ করতে ১৯৭১ সালের ২৫ মার্চ রাতে এ দেশের নিরস্ত্র মানুষের ওপর ঝাঁপিয়ে পড়ে পাকিস্তানি সেনাবাহিনী। ‘অপারেশন সার্চলাইট’ নামের সেই অভিযানে কালরাতের প্রথম প্রহরে ঢাকায় চালানো হয় গণহত্যা। ২৬ মার্চ প্রথম প্রহরে পাকিস্তানি বাহিনীর হাতে গ্রেপ্তার হওয়ার আগে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়ে যান। অবশ্য তার আগেই ৭ মার্চ ঢাকার তৎকালীন রেসকোর্স ময়দানে এক জনসভায় বাঙালির অবিসংবাদিত এই নেতা বলেন, “এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম- এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম।” কার্যত সেটাই ছিল বাংলাদেশের স্বাধীনতার ঘোষণা, যার পথ ধরে কালরাতের পর শুরু হয় বাঙালির প্রতিরোধ পর্ব। নয় মাসের যুদ্ধে ত্রিশ লাখ শহীদের আত্মদান, আড়াই লাখ মা-বোনের সম্ভ্রমহানি এবং জাতির অসাধারণ ত্যাগের বিনিময়ে ১৬ ডিসেম্বর অর্জিত হয় চূড়ান্ত বিজয়। বিশ্বের মানচিত্রে বাংলাদেশ নামের একটি স্বাধীন সার্বভৌম রাষ্ট্রের অভ্যুদয় ঘটে।

বিশেষ শিশুদের পাশে অনন্য কর্মসূচি নিয়ে মেগাটেক ফাউন্ডেশন

মিলন আলী ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার পোড়াদহ ইউনিয়নের সুগন্ধী গ্রামে বনলতা প্রতিবন্ধী উন্নয়ন সংস্থার বিশেষ শিশুদের জন্য বিশেষ কর্মসূচি গ্রহন করেছে পোড়াদহ  মেগাটেক ফাউন্ডেশন। বনলতা প্রতিবন্ধী উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি সুমি খাতুনের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে বিশেষ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন মেগাটেক ফাউন্ডশনের প্রতিষ্ঠাতা, উপ-পুলিশ কমিশনার, ডি,এম,পি, ঢাকা, প্রকৌশলী এস.এম মোক্তারুজ্জামান। বিশেষ অতিথি ছিলেন মেগাটেক ফাউন্ডেশনের প্রধান নির্বাহী সোনিয়া সুলতানা। প্রধান অতিথি প্রকৌশলী মুক্তারুজ্জামান বলেন বিশেষ শিশুদের জন্য উপযুক্ত শিক্ষার পরিবেশ, গুনগতমানের প্রশিক্ষণ প্রাপ্ত শিক্ষক যাতায়াতের জন্য ভাল যানবাহন, স্কুলের পরিকাঠামোর মান উন্নয়ন করা এবং মেগাটেক সংস্থা মাঝে মাঝে শিশুদের মেধা বিকাশের চিত্র বিনোদনের ব্যবস্থা করবে ও ভাল খাবার প্রদান করবে। আর উপস্থিত ছিলেন আহমেদপুর ফাঁড়ির আইসি সোলাইমান হোসেন, তানিয়া, জাহিদুল ইসলাম, হাফিজুর রহমান, সোনিয়া আক্তার, হাসান আলী। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন হাসিব আহমেদ।

‘জয় বাংলা’ নয়, ‘জিন্দাবাদ’ স্লোগানের পক্ষে রিজভী

ঢাকা অফিস ॥ মুক্তিযুদ্ধের অনুপ্রেরণাদায়ী স্লোগান ‘জয় বাংলা’কে উচ্চ আদালত জাতীয় স্লোগান হিসেবে ব্যবহারের কথা বললেও তাতে একমত নন বিএনপি নেতা রুহুল কবির রিজভী। তিনি বরং ‘জিন্দাবাদ’ স্লোগানের পক্ষে। নিজের এই অবস্থানের পক্ষে যুক্তিও দিয়েছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রিজভী। তিনি বলেছেন, “দেখুন জয় বাংলা, মানে বাংলার জয় হোক। যখন বাংলা পরাধীন ছিল তখন জয়ের প্রশ্ন এসেছে। ১৯৭১ সালে জয় বাংলা স্লোগান ছিল, মানুষ দিয়েছে। এরপরে তো স্বাধীন হয়ে গেছে দেশ, এখন দেশটা টিকিয়ে থাকার ব্যাপার। চারিদিকে আধিপত্যগামী বিভিন্ন দেশ আছে বা বাংলাদেশকে যারা ছোট করে রাখতে চায়, খাটো করে রাখতে চায় তাদের আধিপত্য বজায় রাখতে চায়। “এই সমস্ত জায়গা থেকে সবচেয়ে বড় হচ্ছে যে, বাংলাদেশকে টিকে থাকা, এই টিকে থাকার জন্য অপরিহার্য স্লোগান হচ্ছে- জিন্দাবাদ, জিন্দা থাকতে হবে।” মঙ্গলবার একটি রিট মামলায় অ্যাটর্নি জেনারেলসহ সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ আইনজীবীদের মত শুনে হাই কোর্টের একটি বেঞ্চ আগামী বিজয় দিবস থেকে সর্বস্তরে ‘জয় বাংলা’ জাতীয় স্লোগান হিসেবে ব্যবহার করা উচিৎ বলে অভিমত দেয়। এ বিষয়ে বুধবার সংবাদ সম্মেলনে রুহুল কবির রিজভীর দৃষ্টি আকর্ষণ করেন সাংবাদিকরা। জবাবে তিনি আরও বলেন, “কে কোন স্লোগান দেবেন, কোন রাজনৈতিক দল কীভাবে স্লোগান দেবেন, কী স্লোগান দেবেন- সেটা আদালতের রায় দিয়ে নির্ধারিত হয় না।” প্রশ্ন রেখে রিজভী বলেন, “আমি কোন স্লোগান দেব, এটার জন্য আদালত কেন পরামর্শ দিতে যাবেন? যখন বাংলাদেশের স্বায়ত্তশাসনের আন্দোলন চলছে বা স্বাধীনতা সংগ্রাম চলছে তখন কার আদালত ছিল? তখন পাকিস্তানিদের আদালত ছিল। তারা যদি মনে করত যে, এই সংগ্রাম ঠিক না, তারা আদালতের রায় দিয়ে কি স্বাধীনতা যুদ্ধকে ঠেকাতে পারত? তারা স্বাধীনতা যুদ্ধকে ঠেকাতে পারত না। “আমি বলতে চাই, ইতিহাস নির্মাণ হয় জনগণের ইচ্ছায় এবং জনগণের পক্ষের নেতৃত্বের মধ্য দিয়ে। এখানে আদালতের রায়ের কোনো ভূমিকা নেই। কারণ মানুষ যখন সচেতন হয়ে তার আশা-আকাক্সক্ষা, তার অধিকারগুলো নিয়ে যখন সচেতন হয় তখন তারা সংগ্রাম করে কায়েমি স্বার্থবাদী গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে। এটাই যুগে যুগে হয়েছে।” রুহুল কবির রিজভী বলেন, “আদালতের রায় দিয়ে পৃথিবীতে কখনও স্বাধীনতা যুদ্ধ হয়নি, কখনও রেভ্যুলেশন হয়নি, সব হয়েছে জনগণের ইচ্ছায়। জনগণ যখন বঞ্চিত হয়েছে, জনগণ যখন পদদলিত হয়েছে তার বিপক্ষে রুখে দাঁড়িয়েছে জনগণ তখনই একটা পরিবর্তন হয়েছে। সেটাই হচ্ছে ইতিহাসের আনন্দিত উচ্চারণ, সেটাই ইতিহাসে লিপিবদ্ধ হবে। “আদালতের রায়ের উপরে যদি ফরাসি বিপ্লব হত, আমেরিকান রেভ্যুলেশন হত তাহলে আদালতের রায় হয়ত দিত ওইগুলোর বিরুদ্ধে। মানুষ ফুঁসে উঠেছে কায়েমি স্বার্থবাদীর বিরুদ্ধে যারা তখন দেশ শাসন করছে, যাদের স্বার্থ আছে, তাদের পক্ষেই তো আদালত থাকে। এর বাইরে তো আদালত যেতে পারছে না।” নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলনে দলের নেতা আবুল খায়ের ভুঁইয়া, খায়রুল কবির খোকন, হাবিবুল ইসলাম হাবিব, আবদুস সালাম আজাদ, আনোয়ার হোসেন বুলু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ভেড়ামারায় কৃষক মাঠ স্কুলে মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় কৃষক মাঠ স্কুলে মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার দুপুরে ভেড়ামারা উপজেলার ঠাকুর দৌলতপুর এলাকায় ভেড়ামারা উপজেলা কৃষি অফিসের উদ্যোগে “খামার পর্যায়ে উন্নত পানি ব্যবস্থাপনা প্রযুক্তির মাধ্যমে ফসল উৎপাদন বৃদ্ধি”  প্রকল্পের আওতায় এ মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়। স্থানীয় মডেল কৃষক রবিউল ইসলামের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন ভেড়ামারা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ শায়খুল ইসলাম। এসময় তিনি বলেন, ফসল উৎপাদনের পানি সাশ্রয়ী প্রযুক্তি ও পানি ব্যবস্থাপনায় বর্তমানে সরকারের সময়ে নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহের ফলে বোরো  ক্ষেতে পানির অভাব নেই, পানি সাশ্রয়ী প্রযুক্তিগত ব্যবহার ও সঠিক ব্যবস্থাপনা মাধ্যমে কৃষি উৎপাদন বৃদ্ধিতে সুযোগ সুবিধা কৃষকদের জন্য অবারিত রাখছে। সরকার কৃষি উন্নয়নে কৃষকদেরকে প্রণোদনা সহায়তাসহ অন্যান্য ব্যাপক কার্যক্রম হাতে নিয়েছে, তারই ফল আমরা  পেতে শুরু করেছি। তিনি বলেন, আমাদের দেশের জনসংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে সেখানে যথাযথ কৃষি প্রযুক্তি ব্যবহার করে অধিক ফলনশীল ফসল উৎপাদন অব্যহত রয়েছে যার ফলে আমরা খাদ্যে স্বয়ংসম্পন্ন হয়েছি। ফসলের উৎপাদন বাড়াতে কৃষক-কৃষানীদের পানি অপচয়  রোধে সচেতন করা হচ্ছে বলে তিনি তাঁর বক্তব্যে উল্লেখ করেন। অনুষ্ঠানে উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা আব্দুল মুন্নাফ এর পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা আমিনুল ইসলাম, বাহাদুরপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য জহির উদ্দিন প্রমুখ। অনুষ্ঠানে প্রায় উক্ত এলাকার দুই শতাধিক কৃষক/কৃষাণী এবং কৃষক মাঠ স্কুলের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান শেষে ২৫ জন প্রশিক্ষনার্থীদের মাঝে জন প্রতি ১ হাজার ৮শ টাকা ও সনদপত্র বিতরণ করেন অতিথিরা।

মেহেরপুরে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে সচেতনতা প্রচারপত্র বিতরণ

মেহেরপুর প্রতিনিধি  ॥ মেহেরপুরে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে মেহেরপুর জেলা রোভার স্কাউটদল সচেতনতামূলক প্রচারপত্র বিতরণ করেছে। গতকাল বুধবার সকাল সাড়ে ১১টার দিকে মেহেরপুর প্রেসক্লাবের সামনে প্রচারপত্র বিতরণ করা হয়। মেহেরপুর জেলা রোভার কমিশনার ও মেহেরপুর মহিলা কলেজের উপাধ্যক্ষ রফিকুল ইসলাম প্রচারপত্র বিতরণের উদ্বোধন করেন। এসময় রোভারের সাধারণ সম্পাদক ফররুক আহমেদসহ অন্যান্য সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

আতঙ্কের মধ্যে সরকার ব্যস্ত মুজিববর্ষ নিয়ে – রিজভী

ঢাকা অফিস ॥ দেশে নভেল করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্কের সময় ‘মুজিববর্ষ’ নিয়ে সরকারের কর্মকান্ডের সমালোচনা করেছেন বিএনপি জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গতকাল বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, “করোনাভাইরাস নিয়ে দেশজুড়ে আতংকজনক পরিস্থিতি তৈরি হলেও সরকার এ নিয়ে রীতিমত চরম উদাসীনতা ও খামখেয়ালীপনা প্রদর্শন করছে। তাদের সমস্ত মনোযোগ ও ব্যস্ততা মুজিববর্ষ পালন নিয়ে।” গত রোববার বিকালে বাংলাদেশে প্রথম নভেল করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঘটনা নিশ্চিত করেছে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান-আইইডিসিআর। আক্রান্ত তিনজনের মধ্যে দুজন ইতালির দুটি শহর থেকে সম্প্রতি দেশে ফিরেছেন। তাদের একজনের সংস্পর্শে আসায় পরিবারের এক সদস্য আক্রান্ত হন। বিমানবন্দরের কিছু অসাধু কর্মকর্তা ‘করোনাভাইরাস মুক্তি সার্টিফিকেট’ বিক্রি করছে বলেও অভিযোগ করেন রিজভী। “করোনাভাইরাস নিয়ে কেউ দেশে প্রবেশ করলে শনাক্তের কোনো যথাযথ ব্যবস্থা নেই। বিমানবন্দরে টাকার বিনিময়ে করোনাভাইরাস মুক্তি সার্টিফিকেট বিক্রি করছে এক শ্রেণির অসাধু কর্মকর্তা। এটা ইতিমধ্যে গণমাধ্যমেও প্রকাশিত হয়েছে। “যে কারণে বিমানবন্দরে ইতালি থেকে করোনাভাইরাস নিয়ে যারা দেশে এসেছেন তাদের রোগ শনাক্ত হয়নি। দেশে ফেরার চারদিন পর অবস্থার অবনতি হওয়ায় তারা নিজেরাই চিকিৎসকের কাছে গেলে সরকার তাদেরকে হাসপাতালে স্থানান্তর করে। ইতিমধ্যে তাদের একজনের স্ত্রীও করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন।” রিজভী বলেন, “দেশের সীমান্ত, স্থলবন্দর অরক্ষিত, বিমানবন্দরগুলোতে স্ক্যানার মেশিন নেই, যাও দুই-একটা ছিল তাও আবার নষ্ট হয়ে গেছে। আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরে তিনটি থার্মাল স্ক্যানার মেশিন বসানো হলেও তা নষ্ট হয়ে গেছে।” “দেশের অধিকাংশ সরকারি হাসপাতালে আইসিইউ বেড নেই, ভেন্টিলেটন মেশিন নেই, চিকিৎসক ও নার্সদের নিরাপত্তা বা সুরক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় মেডিকেল মাস্ক ও ইউনিফর্ম নেই। ভাইরাস প্রতিরোধী পোশাকও নেই। করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সরকারের কোনো কার্যকর প্রস্তুতিই নেই।” মাস্ক ও স্যানিটাইজার যথেষ্ট পরিমানে আমদানি বা উৎপাদনের ব্যবস্থা না নেওয়ায় সেগুলো কয়েকগুণ বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। স্বাস্থ্য অধিপ্তরের চালু করা হটলাইনে কল করে কাউকে পাওয়া যায় না বলে জানান তিনি। এক প্রশ্নের জবাবে রিজভী বলেন, “আমরা মানুষকে করোনাভাইরাস সম্পর্কে সচেতন করে তুলছি, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে করণীয় কী কী তা নিয়ে লিফলেট ছাপিয়ে ব্যাপকভাবে সারা দেশে বিতরণের কর্মসূচি নিয়েছি। “মানুষকে সচেতন করার যে পদ্ধতিগুলো নেওয়া দরকার সেগুলোর আমরা প্রস্তুতি নিচ্ছি।”

মুজিববর্ষ উপলক্ষে নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটিতে বিতর্ক প্রতিযোগিতা ও দেয়াল পত্রিকা প্রকাশ

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী (মুজিব বর্ষ-২০২০) উপলক্ষে নর্থ ওয়েস্টার্ন ইউনিভার্সিটি কর্তৃক আয়োজিত বছরব্যাপী বিবিধ অনুষ্ঠানমালার অংশ হিসেবে বুধ ও বৃহস্পতিবার ভবন-১ এ দু’দিনব্যাপী বিতর্ক প্রতিযোগিতা ও দেয়াল পত্রিকা প্রকাশ করা হয়। সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর  ড. তারপদ ভৌমিক। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ^বিদ্যালয়ের ট্রেজারার ও মুজিববর্ষ উদ্যাপন কমিটির আহবায়ক প্রফেসর সুধীর কুমার পাল। বিতর্ক প্রতিযোগিতায় স্পিকারের দায়িত্বে ছিলেন মোঃ তাকদিরুল গনি। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিশ^বিদ্যালয়ের প্রক্টর, সহকারি প্রক্টর, প্রতিযোগিতা আয়োজক কমিটির আহবায়ক তৌফিকুল ইসলাম, সদস্য সচিব নাছিফ আলভী, বিভিন্ন বিভাগের প্রধানগণ, শিক্ষকবৃন্দ ও বিপুল সংখ্যক  শিক্ষার্থীবৃন্দ। সংসদীয় বিতর্কের চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগ এবং ইংরেজি বিভাগ অংশগ্রহণ করে। বিতর্ক প্রতিযোগিতার শেষে বিচারক মন্ডলী ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগকে বিজয়ী ঘোষণা করে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

ঝিনাইদহে উগ্রবাদ প্রতিরোধে জনপ্রতিনিধিদের ভূমিকা শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

সুলতান আল একরাম ॥ ঝিনাইদহে উগ্রবাদ প্রতিরোধে জনপ্রতিনিধিদের ভূমিকা  শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার সকালে জেলা শিল্পকলা একাডেমী মিলনায়তনে এ সেমিনারের উদ্বোধন করেন ঝিনাইদহ-১ আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল হাই। অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট রবিউল ইসলাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য খালেদা খানম, পুলিশ সুপার মো: হাসানুজ্জামান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) সেলিম রেজা, ডিএমপির উপ-পুলিশ কমিশনার মোহাম্মদ আসাদুজ্জামান, অতিরিক্ত উপ পুলিশ কমিশনার তোহিদুল ইসলাম ও সিদ্দিকুর রহমান। পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম এন্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের আয়োজনে এ সেমিনারের জেলার ৬৭টি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান, ইউপি সদস্য, আনসার সদস্যসহ ৫০০ জন অংশ নেয়। এসময় উগ্রবাদ বিরোধে জনপ্রতিনিধিদের বিভিন্ন বিষয়ে দিক নির্দেশনা প্রদাণ করা হয়।

দৌলতপুরে অগ্নিকান্ডে দু’টি বাড়ি ভষ্মিভূত

দৌলতপর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে অগ্নিকান্ডে দু’টি বাড়ি ভষ্মিভূত হয়েছে। মঙ্গলবার রাত ৮টার দিকে উপজেলার রিফায়েতপুর ইউনিয়নের ভাদালিয়াপাড়া গ্রামে অগ্নিকান্ডের এ ঘটনা ঘটে। স্থানীয়রা জানায়, রান্না ঘরের চুলা থেকে অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত হলে তা আব্দুল মন্ডল ও শরিফুল ইসলামের বাড়িতে ছড়িয়ে পড়ে। এলাকাবাসী ও ফারায় সার্ভিস দল আগুন নিয়ন্ত্রন করলেও দু’টি বাড়ির সব ঘর পড়ে যায়। এতে দুই পরিবারের আসবাবপত্র, খাদ্যশস্যসব সম্পদ পুড়ে ছাই হয়ে যায়। রিফায়েতপুর ইউপি চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম বাবু জানান, অগ্নিকান্ড ঘটে দুই পরিবারের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। বর্তমানে তাদের বিভিন্নভাবে সহায়তা প্রদান করা হচ্ছে।

মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে থাকছেন নরেন্দ্র মোদি ‘ভিডিও মেসেজে’

ঢাকা অফিস ॥ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শততম জন্মবর্ষের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ‘ভিডিও মেসেজ’-এর মাধ্যমে উপস্থিত থাকছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। দিল্লির হায়দ্রাবাদ হাউজে ২০ বাংলাদেশি সাংবাদিকের সঙ্গে আলোচনাকালে ভারতের পররাষ্ট্র সচিব হর্ষ বর্ধন শ্রীংলা এ কথা জানান। এ সময় তিনি জানান, আগামী ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবর্ষের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির রেকর্ড করা একটি ভিডিও মেসেজ প্রদান করা হবে। ভারতের পররাষ্ট্র বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে হওয়া এই আয়োজনে তিনি আরো জানান, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবর্ষ উপলক্ষে বাংলাদেশকে ১৫০ অ্যাম্বুলেন্স উপহার হিসেবে দিচ্ছে ভারত। তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে এটি উপহার। এ বিষয়ে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেবেন তিনি।’ তিনি জানান, এখানে বঙ্গবন্ধুর শততম জন্মবর্ষ উপলক্ষে ১০০ অ্যাম্বুলেন্স প্রদান করা হচ্ছে। আর ৫০ অ্যাম্বুলেন্স প্রদান করা হচ্ছে ভারত-বাংলাদেশ দ্বিপাক্ষিক সুসম্পর্কের জন্য। মুজিববর্ষের উদ্বোধন অনুষ্ঠানে নরেন্দ্র মোদিসহ আরো বেশ কয়েকজন বিশ্ব নেতার উপস্থিত হবার কথা ছিলো। কিন্তু করোনা ভাইরাসের কারণে নরেন্দ্র মোদিসহ অন্যান্য বিশ্ব নেতাদের নিয়ে এই আয়োজন স্থগিত করা হয়।

পবিত্র ওমরা হজ পালনে গ্রাহকদের সাথে প্রতারনা

এয়ার ওয়ার্ল্ড ইন্টাঃ হজ কাফেলাকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা

নিজ সংবাদ ॥ পবিত্র ওমরা হজ পালনে গ্রাহকদের সাথে প্রতারনার অভিযোগে এয়ার ওয়ার্ল্ড ইন্টাঃ হজ কাফেলা নামের একটি এজেন্সীকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা আরোপ ও আদায় করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তর। পবিত্র হজ পালনে হাজীদের প্রতিশ্রত সেবা না দেওয়ায় এই জরিমানা করা হয়েছে নিশ্চিত করেছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তর কুষ্টিয়ার সহকারী পরিচালক কাজী রকিবুল হাসান। অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, কুষ্টিয়া শহরের হাউজিং এলাকার গিয়াস উদ্দিন আহমেদ নামে এক ব্যক্তি জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তর কুষ্টিয়া জেলা শাখার সহকারী পরিচালক বরাবর একটি অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগে তিনি উল্লেখ করেন, তিনিসহ তার স্ত্রী ফেরদৌসি গিয়াস পবিত্র ওমরা হজ পালনের জন্য এয়ার ওয়ার্ল্ড ইন্টাঃ হজ কাফেলা নামের একটি এজেন্সী নামে একটি হজ এজেন্সীর স্বরনাপন্ন হন। এই দম্পতির সাথে প্রতিষ্ঠানটি ১ লক্ষ ৮৮ হাজার টাকায় পবিত্র ওমরা হজ পালনে চুক্তিবদ্ধ হন। চুক্তি অনুযায়ী পূরো টাকা পরিশোধ করা হয় এই হজ এজেন্সীকে। অভিযোগকারী গিয়াস উদ্দিন আহমেদ জানান, যে পবিত্র হজ পালনে যে সকল প্রতিশ্র“তি দেওয়া হয়েছিলো তার কোন শর্তই রাখেনি এয়ার ওয়ার্ল্ড ইন্টাঃ হজ কাফেলা নামে ওই এজেন্সীর পরিচালক আলহাজ্জ মাওলানা মোঃ আমিরুল ইসলাম বেলালী। অভিযোগ আছে পবিত্র হজ্জ পালনে গমন হাজীদের বিভিন্ন ভয়ভীতি প্রদর্শনসহ ধর্মীয় বিভিন্ন অযুহাতে হাজীদের সাথে প্রতারনা করেছেন এই ব্যক্তি। শুধু তাই নয় তার আপন ভাই এয়ার ওয়ার্ল্ড ইন্টাঃ হজ কাফেলার মালিক আলহাজ্ব মোঃ আইনুল হকও দীর্ঘদিন হজ এজেন্সীর আড়ালে হাজীদের সাথে প্রারণা করে আসছেন। হজ পালন যারা সৌদি আরবে গমন করেন তাদের বিভিন্ন সুযোগ সুবিধা দেওয়ার কথা বলা হলেও পবিত্র মক্কা মদিনায় গমনের পর হাজীদের প্রতিশ্র“ত নিশ্চিত করে না প্রতিষ্ঠানটি। যার কারনে যাত্রাপথে পদে পদে বিড়ম্বনায় পড়তে হয় তাদের প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে হজ করতে যাওয়া হাজীদের। শুধু হাউজিংয়ের বাসিন্দা গিয়াস উদ্দিন আহমেদ নয় তার প্রতারণার শিকার হয়েছে হজ গমনে যাওয়া অনেক হাজী। জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তরে অভিযোগ আসার পর বিষয়টি প্রকাশ্যে এসেছে। অভিযোগকারী গিয়াস উদ্দিন আহমেদ দম্পতি জানান, পবিত্র ওমরা হজ পালনে তারা যে পরিমান বিড়ম্বনার শিকার হয়েছেন তা ভাষায় প্রকাশ করার মত না। এই প্রতিষ্ঠানটি ধর্শপ্রাণ মুসলমানদের সাথে প্রতারণা করছেন বলেও তারা ক্ষোভ প্রকাশ করেন। যে কারনে তিনি তাদের এই এজেন্সী এবং প্রতারকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেছেন। জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তর কুষ্টিয়ার সহকারী পরিচালক কাজী রকিবুল হাসান জানান, একজন অভিযোগকারীর অভিয়োগের প্রেক্ষিতে বিষয়টি আমলে শুনানিন্তে নিয়ে প্রতিষ্ঠানটির পবিত্র ওমরা হজ পালনে হাজীদের সাথে প্রতারণার বিষয়টি প্রমানিত হওয়ায় তাদের ৩০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। পাশাপাশি তাদের সাবধান করা হয়েছে কোন ব্যক্তি যেন পবিত্র হজ পালনে কোন ভোগান্তির শিকার না হন।

করোনায় আক্রান্তের ঝুঁকিতে  ট্রাম্প, কোয়ারেন্টাইনে তার দুই সঙ্গী

ঢাকা অফিস ॥ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিতে পড়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। কোয়ারেন্টাইনে থাকা কংগ্রেসের দুই রিপাবলিকান সদস্যের সঙ্গে হাত মেলানোর পরই এই আশঙ্কার কথা উঠে আসে। সিএনএনের প্রতিবেদনে বলা হয়, গত শনিবার ম্যারিল্যান্ড অঙ্গরাজ্যে ‘কনজারভেটিভ পলিটিক্যাল অ্যাকশন কনফারেন্স’ অংশ নেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। তার সঙ্গে ছিলেন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্সও। সেই কনফারেন্সে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত এক রোগী ছিলেন। তার সংস্পর্শে এসেছিলেন মার্কিন কংগ্রেসের দুই রিপাবলিকান সদস্য। এরপর তারা নিজেরাই কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন বলে ঠিক করেন। কিন্তু আশঙ্কার কথা, ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠক করেছেন এবং হাত মিলিয়েছেন কোয়ারেন্টাইনে থাকার ঘোষণা দেয়া এই দুই রিপাবলিকান নেতা। এই দুই রিপাবলিকান কংগ্রেসম্যান হলেন- ডগ কলিন্স ও ম্যাট গেইটজ। এর মধ্যে ডগ কলিন্সের সঙ্গে ট্রাম্পের সাক্ষাৎ হয়েছে এবং তারা হাতও মিলিয়েছেন। এছাড়া ম্যাট গেইটজ গত সোমবার ট্রাম্পের সঙ্গে লিমুজিনে চড়ে সানশাইন স্টেটে সফর করেছেন। তবে হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র স্টেফানি গ্রিশাম জানিয়েছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্টের করোনা পরীক্ষার কোনো প্রয়োজন নেই। তিনি করোনায় আক্রান্ত নন। প্রেসিডেন্ট সুস্থ্য আছেন। সবসময় তিনি চিকিৎসকের পর্যবেক্ষণে রয়েছেন। হোয়াইট হাউসের বরাত দিয়ে সিএনএন জানায়, এ ঘটনার পর প্রেসিডেন্টসহ হোয়াইট হাউসের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য সতর্কতা মূলক ব্যবস্থা নিয়েছে মার্কিন সিক্রেট সার্ভিস। আমেরিকান কনজারভেটিভ ইউনিয়ন জানায়, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত ওই ব্যক্তিকে নিউ জার্সির একটি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। সেখানে তাকে পৃথক করে রাখা হয়েছে। সেই সঙ্গে তার চিকিৎসা চলছে। এদিকে ট্রাম্প সিএনএনকে বলেন, ‘আমি এতে শঙ্কিত নই। মোটেও উদ্বিগ্ন নই। আমরা অনেক ভালো আছি। ’ তবে ট্রাম্প সর্তক করে এও বলেছেন, যে কোনো আমেরিকান করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হতে পারেন। ট্রাম্পের স্বাস্থ্যের বিষয়টি উদ্বেগজনক ভাবেই দেখা হচ্ছে। কারণ করোনায় সংক্রমিত আমেরিকানদের সংখ্যা এরইমধ্যে ৭ হাজারের উপর দাঁড়িয়েছে। সেখানে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ২১ জনে দাঁড়িয়েছে।

ভারতে করোনাভাইরাস আক্রান্ত বেড়ে ৫৬

ঢাকা অফিস ॥ ভারতে দ্রুত ছড়াচ্ছে করোনাভাইরাস সংক্রমণ। কর্ণাটকে চারজন নতুন করে ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছে। পুণেতেও দু’জন আক্রান্ত হয়েছে করোনাভাইরাসে। কেরালায় মঙ্গলবার করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে আরও ছয় জন। সব মিলিয়ে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ৫৬।

কর্নাটকের স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেছেন, ‘‘কর্নাটকে চার জনের করোনাভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়েছে। চার জনকেই নিয়ে যাওয়া হয়েছে আইসোলেশন ওয়ার্ডে।’’ কর্ণাটকে এ নিয়ে করোনা ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছে মোট ১২ জন, এ মারণ ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের সংস্পর্শে আসা ২৭০ জনকে চিকিৎসা নজরদারিতে রাখা হয়েছে। আনন্দবাজার পত্রিকা জানায়, সোমবার রাতে দুবাই থেকে পুনে ফিরে আসা দুই বাসিন্দা আক্রান্ত হওয়া নিয়ে এই প্রথম মহারাষ্ট্রতেও করোনাভাইরাস সংক্রমণের খবর পাওয়া গেল। এর আগের দিন এ ভাইরাস আক্রান্ত হওয়ার খবর এসেছে বেঙ্গালুরু, দিল্লি, কেরল, উত্তরপ্রদেশ, জম্মু, পঞ্জাব ও পুণে থেকে। তার মধ্যে পুণে বাদে সবখানেই এদিন এক জন করে আক্রান্ত হয়েছেন করোনাভাইরাসে।

করোনা পরিস্থিতিতে অহেতুক নোংরা রাজনীতি করবেন না – বিএনপিকে ওবায়দুল কাদের

ঢাকা অফিস ॥ করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে অহেতুক নোংরা রাজনীতি না করে সরকারকে সহযোগিতা করতে বিএনপির প্রতি আহবান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে অহেতুক নোংরা রাজনীতি করবেন না। মানবিক ও সংবেদনশীল বিষয় নিয়ে রাজনীতি করা উচিত নয়। এই পরিস্থিতিতে আপনাদের উচিত সরকারকে সহযোগিতা করা। করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় সরকারের সব ধরনের প্রস্তুতি রয়েছে। ওবায়দুল কাদেও গতকাল বুধবার বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক যৌথ সভায় এ কথা বলেন। মুজিববর্ষ উদযাপনের উদ্বোধনী কর্মসূচির পুনর্বিন্যাস ও সমসাময়িক ইস্যুতে ঢাকা মহানগর উত্তর-দক্ষিণ ও সহযোগী সংগঠনের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক এবং দলীয় সংসদ সদস্য ও দুই সিটি মেয়রদের সাথে এক যৌথসভা আহ্বান করা হয়। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ১৫ আগস্ট ও ২১ আগস্টের মতো ঘটনার কারণে রাজনীতিতে কর্মসম্পর্ক বিএনপিই নষ্ট করেছে। তারপরও করোনা ভাইরাস ইস্যুতে সবার সহযোগিতা প্রয়োজন। তাই বিএনপিকে বলবো এই সময়ে রাজনৈতিক বিষেদাগার থেকে বিরত থাকুন। তিনি বলেন, সারাবিশ^ই করোনাভাইরাস নিয়ে একটা উদ্বেগ ও আতঙ্কে আছে। বাংলাদেশে যারা বলছেন, সরকার করোনাভাইরাস মোকাবেলায় প্রস্তুত ছিল না। তাদের উদ্দেশে বলতে চাই, করোনা ভাইরাসের উপস্থিতির সঙ্গে সঙ্গে বাংলাদেশই একমাত্র দেশ, যে দেশ সবার আগে নিয়েছে কেন্দ্রীয়ভাবে প্রস্তুতি নিয়েছে, পরিস্থিতি মোকাবেলায় সরকারের স্বাস্থ্য বিভাগ থেকে শুরু করে যারা এর সঙ্গে সংশ্লিষ্ট সব জায়গাতেই যথাযথ প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে। করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় প্রস্তুতির ব্যাপারে সরকারের কোন ঘাটতি আমাদের ছিল না দাবি করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ইতালি থেকে যে দুইজন প্রবাসী বাংলাদেশী এসেছে, তারা কিন্তু প্রস্তুতি আছে বলেই তাদের সংক্রমণের ব্যাপারটা ধরা পড়েছে এবং তাদের ব্যাপারে সরকার প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিয়েছে। তাদের দুজন থেকে আরেকজন সংক্রামণ হয়েছে, সে ব্যাপারেও ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। এছাড়া নতুন কেউ সংক্রামণ হয়নি। আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক বলেন, বিএনপি নামক সংগঠনটির আসলে তাদের কারণেই আজকে আন্দোলন নির্বাচনে ব্যর্থ হয়েছে। তারা আইনী লড়াইয়ে ব্যর্থ হয়ে বেগম জিয়াসহ বিভিন্ন বিষয়ে তারা রাজনীতি করে বেড়াচ্ছে। রাজনীতির ইস্যু খুঁজে বেড়াচ্ছে। করোনাভাইরাস নিয়েও তারা তাদের সেই নিকৃষ্ট রাজনীতির আশ্রয় নিয়েছেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, এই মানবিক স্বার্থের বিষয়টি এটা সারা বিশে^র একটা জনস্বার্থ সম্পর্কিত একটা সমস্যা। অনেক দেশ আক্রান্ত হয়েছে। নতুন নতুন দেশে ছড়িয়ে পড়ছে। আমরা প্রস্তুত আছি বলেই আমরা ভাগ্যবান এখনো আমাদের দেশে এই রোগের বিস্তার হয়নি। এখানে সংক্রমণ সে পর্যায়ে আসেনি। তার আগেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছেন। তিনি বলেন, করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় যারা সরকারের সদিচ্ছা-আন্তরিকতার ঘাটতি খুঁজে, যারা সরকারের প্রস্তুতি নিয়ে আজকে এ ধরনের অপপ্রচার করে; আমি মনে করি তারা হীন রাজনৈতিক উদ্দেশে এটা করছে। আমরা এ ধরনের কর্মকান্ড থেকে বিরত থাকতে আবারও তাদেরকে অনুরোধ করছি। সভায় আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য শাজাহান খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ ও আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন ও মির্জা আজম, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, কৃষি ও সমবায় সম্পাদক ফরিদুর নাহার লাইলীসহ ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলন।

তিন যুবক আটক

৮৫ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, ৪টি মোবাইল ও নগদ ১২হাজার টাকা লুট

 কুষ্টিয়া শহরে কমলাপুরে  ঠিকাদার আবু জাফরের বাড়ীতে দুর্ধর্ষ ডাকাতি

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া শহরের কমলাপুর পুলিশ লাইনের পেছনে সেনাবাহিনী ও পুলিশ বাহিনীর ঠিকাদার আবু জাফর মোল্লার স্বপ্ন বিলাস বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতির ঘটনা ঘটে। ঠিকাদার আবু জাফর মোল্লা জানান, মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে পাশের বাড়ির টিনের ছাউনির উপর দিয়ে আমার বাড়িতে প্রবেশ করে। তারা বাড়ির রান্না ঘরের জানালার গ্রিল কেটে দুই জন ভেতরে প্রবেশ করে। সেখান থেকে চাবি নিয়ে গেট খুলে ৮/৯ জন দেশীয় ধারাল অস্ত্র নিয়ে বাড়িতে প্রবেশ করে। পরে বাড়ির মহিলাদের এক রুমে আটকে রাখে এবং আমাকে ও আমার ছোট ভাই জাকির হোসেন মোল্লাকে বেঁধে ফেলে। ওরা আমাদের মারধর করে এবং হুমকি প্রদান করে। এই ডাকাতদল ৮৫ ভরি স্বর্ণালঙ্কার, ৪টা মোবাইল ও ১২হাজার নগদ টাকা নিয়ে যায়। তাদের প্রত্যেকের বয়স ১৮ থেকে ২২ এর মধ্যে। এদের মুখ ঢাকা ছিল কাউকে চিনতে পারিনি। পরে পুলিশকে খবর দিলে পুলিশ এসেছিল। আমি দীর্ঘদিন ধরে ১নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দাযড়ত্ব পালন করে আসছি। এছাড়াও রাশেদ এন্টারপ্রাইজ, গড়াই ডাল ও চাল মিল, জাফর ফুড ইন্ডাস্ট্রিজ নামের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান রয়েছে। আবু জাফর মোল্লা শহরের কমলাপুর পুলিশ লাইনের পেছন গেটের পাশের খয়বার আলম মোল্লার ছেলে। এলাকাবাসী জানায়, কিছুদিন আগে পুলিশ লাইনের সামনে চুরির ঘটনা ও তার কয়েক মাস আগে পুনাক মার্কেটে চুরির ঘটনা ঘটে। এখন এই ডাকাতি আমাদের ভাবিয়ে তুলেছে। এই ঘটনার পর কমলাপুর এলাকার আল আমিন, মুস্তাক ও আকিক কে পুলিশ নিয়ে গেছে বলেও জানান এলাকাবাসী। একটি সূত্রে জানা যায়, ৫জন একটি প্রাইভেট কারে করে রেনউইক এর দিক দিয়ে যায়। তাদের কাছে আগ্নেয়াস্ত্র ছিল বলে জানান তারা। এদিকে পুলিশ লাইনের পিছনে এই ডাকাতি হওয়ায় শহর জুড়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে। এদিকে কুষ্টিয়া মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ গোলাম মোস্তফার মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, আমরা এই ঘটনার পর জড়িত সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তিন জনকে নিয়ে আসা হয়েছে। ঘটনা তদন্ত চলছে খুব তাড়াতাড়ি এই গ্র“পকে ধরা পরবে বলেও জানান তিনি।

করোনাভাইরাস – মৃতের সংখ্যা ৪০০০ ছাড়াল

ঢাকা অফিস ॥ বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া নভেল করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ৪০১৮ জনে দাঁড়িয়েছে এবং আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ১৩ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। মৃত ও আক্রান্তদের অধিকাংশই চীনের মূলভূখন্ডের বাসিন্দা, এ দেশটিরই উহান শহরে গত বছরের ডিসেম্বরের শেষ দিনে প্রাণঘাতী এ ভাইরাসটির প্রাদুর্ভাব প্রথম শনাক্ত হয়েছিল। তারপর থেকে বিশ্বজুড়ে ভাইরাসটি ব্যাপকভাবে ছড়িয়ে পড়লেও এখন চীনে নতুন আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস পেয়েছে। চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন (এনএইচসি) সোমবার দেশটিতে করোনাভাইরাসে নতুন করে মাত্র ১৯ জন আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছে। এক কী দুই মাস আগে সেখানে প্রতিদিন নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ২০০০ জনের মতো ছিল। ভাইরাসটির সংক্রমণজনিত রোগ কভিড-১৯ এ এদিন ১৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। মৃত্যুর ঘটনাগুলো সব হুবেই প্রদেশে ঘটেছে। সোমবার পর্যন্ত চীন করোনভাইরাসে মৃতের মোট সংখ্যা ৩১৩৬ জনে ও মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৮০ হাজার ৭৫৪ জনে দাঁড়িয়েছে। চীনের বাইরে বিশ্বের অপরাপর দেশ ও অঞ্চলে মৃতের সংখ্যা ৮৮২ জনে এবং আক্রান্তের সংখ্যা ৩২ হাজার ২৫৫ জনে পৌঁছে গেছে। চীনসহ বিশ্বব্যাপী মোট মৃতের সংখ্যা ৪০১৮ জনে ও আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ১৩ হাজার ৯ জনে পৌঁছেছে। চীনে সোমবার কভিড-১৯ আক্রান্ত আরেকজন চিকিৎসকের মৃত্যু হয়েছে, অপরদিকে আক্রান্তের সংখ্যা কমতে থাকায় উহানের অধিকাংশ অস্থায়ী হাসপাতালের কার্যক্রম বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এ পরিস্থিতিতে দেশটির প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং প্রাদুর্ভাব ছড়ানোর পর প্রথমবারের মতো উহান পরিদর্শন করেছেন। চীনের পরিস্থিতি উন্নতি হলেও এখন ভাইরাসটির প্রাদুর্ভাব যুক্তরাষ্ট্র, ইতালি ও জার্মানির মতো বিশ্বের অন্যান্য অংশেই বেশি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। পরিস্থিতি মারাত্মক হয়ে দাঁড়িয়েছে ইতালিতে। নতুন রোগী ও মৃতের সংখ্যা বাড়তে থাকায় পুরো দেশে চলাচলের ওপর কড়াকড়ি আরোপের পাশাপাশি জনসমাগম নিষিদ্ধ করেছে ইতালির সরকার। এর ফলে নভেল করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে ইউরোপে সবচেয়ে নাজুক অবস্থায় পড়া দেশটির সাড়ে ছয় কোটি মানুষ কার্যত অবরুদ্ধ দশার মধ্যে পড়েছে। সরকারি তথ্য অনুযায়ী, সোমবার ইতালিতে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ৩৬৬ জন থেকে বেড়ে হয়েছে ৪৬৩ জন। আক্রান্তের সংখ্যা ৯ হাজার ১৭২ জনে দাঁড়িয়েছে। চীনের মূল ভূখন্ড বাদ দিলে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা ইতালিতেই সবচেয়ে বেশি। সোমবার দক্ষিণ কোরিয়ার নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ১৩১ জন, এতে দেশটিতে আক্রান্তের মোট সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ হাজার ৫১৩ জনে। আক্রান্তদের মধ্যে এদিন তিনজনের মৃত্যু হওয়ায় এখানে মৃতের সংখ্যা ৫৪ জনে দাঁড়িয়েছে বলে দক্ষিণ কোরিয়ার রোগ নিয়ন্ত্রণ ও প্রতিরোধ কেন্দ্র জানিয়েছে। চীন ও ইতালির পর সবচেয়ে বেশি মানুষ মারা গেছে ইরানে, ২৩৭জন। মধ্যপ্রাচ্যের দেশটিতে মৃতের সংখ্যা একদিনে বেড়েছে ৪৩ জন আর আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭ হাজার ১৬১ জনে। জাপানে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১২১০ জনে, এদের মধ্যে ইয়োকোহামা বন্দরে কোয়ারেন্টিনে থাকা ডায়মন্ড প্রিন্সেস প্রমোদতরীতে আক্রান্ত ৬৯৬ জনও রয়েছেন। দেশটির মৃতের সংখ্যা ১৬ জনে দাঁড়িয়েছে। ইতালির পর ইউরোপের সবচেয়ে বেশি সংক্রমণ ছড়িয়েছে ফ্রান্স ও জার্মানিতে। ফ্রান্সে ১১১৬ জনের সংক্রমণ ধরা পড়েছে আর জার্মানিতে ধরা পড়েছে ১১১২ জনের। ফ্রান্সে ৩০ জনের মৃত্যু হলেও জার্মানিতে দুই জন মারা গেছেন। যুক্তরাষ্ট্রে আক্রান্তের সংখ্যা ৭২৮ আর মারা গেছেন ২৬ জন। স্পেনে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন ৬৪৭ জন আর মারা গেছেন ২৮ জন। যুক্তরাজ্যে আক্রান্ত ২৭৩ আর মৃত্যু হয়েছে পাঁচ জনের। এর বাইরে বিশ্বের অন্যান্য দেশগুলোর মধ্যে ইরাকে ৭, হংকংয়ে ৩, অস্ট্রেলিয়ায় ৩ ও ফিলিপিন্স, সুইজারল্যান্ড, নেদারল্যান্ড, আর্জেন্টিনা, মিশর, তাইওয়ান, থাইল্যান্ড ও কানাডায় একজন করে মারা গেছেন।

ইবিতে “স্টেকহোল্ডারর্স ওয়ার্কশপ অন কোয়ালিটি এস্যুরেন্স” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে বুধবার টিএসসিসি’র বীরশ্রেষ্ঠ হামিদুর রহমান মিলনায়তনে “স্টেকহোল্ডারর্স ওয়ার্কশপ অন কোয়ালিটি এস্যুরেন্স” শীর্ষক দিনব্যাপী সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়। ওয়ার্কশপে বিশ্ববিদ্যালয়ের ইন্সটিটিউশনাল কোয়ালিটি এস্যুরেন্স সেল (আইকিউএসি)’র পরিচালক প্রফেসর ড. এ কে এম আব্দুস সোবহানের সভাপতিত্বে  প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী বিশ^বিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেন,  তোমাদের এক একজনকে দক্ষ মানব সম্পদে পরিণত হতে হবে। বিশ্ব যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে সেই উপযোগী করে তোমাদের নিজেদেরকে গড়ে তুলতে হবে। পাশাপাশি একুশ শতকের উপযোগী শিক্ষা ব্যবস্থা গ্রহন করতে হবে। তিনি বলেন, বর্তমান সরকারের গতিশীল নেতৃত্বে দেশ যে এগিয়ে যাচ্ছে তার একটি প্রকৃষ্ট উদাহরন দক্ষিন এশিয়ায় মানব উন্নয়নের অনেক সূচকে আমরা আজ প্রতিবেশী দেশগুলোকে ছাড়িয়ে গেছি। এছাড়া তোমাদেরকে মনে রাখতে হবে তোমরা সমৃদ্ধ হলে বিশ্ববিদ্যালয় সমৃদ্ধ হবে ও দেশ সমৃদ্ধ হবে। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে, বিশ্ববিদ্যালয় আর্ন্তজাতিকীকরনের পথে সকলে দল, মত, পথ নির্বিশেষে যার যার অবস্থান থেকে কাজ করবে। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ  সেলিম তোহা বলেন, কিভাবে নিজেকে গড়ে তোলা যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ও দেশের স্বার্থে সেদিকে সবসময়ে তোমাদেরকে সজাগ থাকতে হবে। তিনি বলেন, বর্তমান প্রশাসন বিশ্ববিদ্যালয়কে আর্ন্তজাতিকীকরনের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।  তোমাদেরকেও সেই  মানের শিক্ষা গ্রহন করতে হবে নিজ নিজ শ্রেণীকক্ষে। অনুষ্ঠানে রিসোর্সপারসন ছিলেন ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী। দিনব্যাপী ওয়ার্কশপে কোয়ালিটি এস্যুরেন্স সেল (আইকিউএসি)’র অতিরিক্ত পরিচালক ও শিক্ষক সমিতির সভাপতি প্রফেসর ড. কাজী আকতার হোসেন, বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

আজ প্রথম যাত্রাবাড়ী-মাওয়া-ভাঙ্গা এক্সপ্রেসওয়ে যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করবেন প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ মুজিব বর্ষের প্রক্কালে যাত্রাবাড়ী-মাওয়া-ভাঙ্গা রুটে দেশের প্রথমবারের মত এক্সপ্রেসওয়ে আজ বৃহস্পতিবার যানবাহন চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করা হবে। এর মাধ্যমে বাংলাদেশ যোগাযোগ ক্ষেত্রে এক নতুন যুগে প্রবেশ করবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আজ তাঁর সরকারী বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে এই এক্সপ্রেসওয়ের উদ্বোধন করবেন। ভ্রমণের সময় কমানোর পাশাপাশি দক্ষিণপশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলোর লোকদের জন্য আরামদায়ক ও নিরবচ্ছিন্ন যাতায়াত নিশ্চিত করার লক্ষ্যে আধুনিক সকল সুযোগ সুবিধা সম্বলিত ৫৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এই এক্সপ্রেসওয়ে নির্মাণ করা হয়। প্রকল্প কর্মকর্তারা বলেন, আন্তর্জাতিক মানের এই এক্সপ্রেসওয়ে দুইটি সার্ভিস লেনের মাধ্যমে দেশের দক্ষিণ পশ্চিমাঞ্চলের সঙ্গে রাজধানীকে যুক্ত করবে। প্রকল্পের বিবরণ অনুসারে, এক্সপ্রেসওয়েতে পাঁচটি ফ্লাইওভার, ১৯ টি আন্ডারপাস এবং প্রায় ১০০টি সেতু এবং কালভার্ট রয়েছে, যা দেশের ব্যবসা-বাণিজ্য বাড়িয়ে জাতীয় অর্থনীতিতে অবদান রাখবে। এটিতে মাওয়া থেকে ৩৫ কিলোমিটার দীর্ঘ যাত্রাবাড়ী চৌরাস্তা এবং ২০ কিলোমিটার দীর্ঘ পানছার থেকে ভাঙ্গা পর্যন্ত দুটি এক্সপ্রেসওয়ে পুরো খুলনা ও বরিশাল বিভাগ এবং ঢাকা বিভাগের একটি অংশের উন্নয়নে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখবে বলে আশা করা হচ্ছে। পাশাপাশি ঢাকা শহর এবং দেশের দক্ষিণ-পশ্চিম অংশের মধ্যে যোগাযোগ জোরদার করবে। বরিশাল বিভাগের ছয় জেলা, খুলনা বিভাগের ১০ টি জেলা এবং ঢাকা বিভাগের ছয় জেলাসহ দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের ২২ টি জেলার মানুষ সরাসরি এই আন্তর্জাতিক মানের এক্সপ্রেসওয়ে থেকে উপকৃত হবেন। আধুনিক এক্সপ্রেসওয়ের দুটি অংশ ৬.১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ পদ্মা সেতুর মধ্য দিয়ে সংযুক্ত হবে, যা বর্তমানে নির্মাণাধীন রয়েছে। দেশের দীর্ঘতম পদ্মা সেতুর চার কিলোমিটার গত মঙ্গলবার ২৬তম স্প্যান বসানোর পরে ইতোমধ্যে দৃশ্যমান হয়েছে। ২০২১ সালের জুনের মধ্যে ট্র্যাফিকের জন্য ব্রিজটি চালু করার পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের। পদ্মা সেতুর নির্মাণ কাজ শেষ হয়ে গেলে, কোনও ভ্রমণকারীকে ভাঙ্গা থেকে ঢাকা আসা এবং যেতে এক ঘন্টা সময় লাগবে না। এই হাইওয়েতে আগামী ২০ বছরের জন্য ক্রমবর্ধমান ট্রাফিকের পরিমাণ বিবেচনা করে ঢাকা-খুলনা মহাসড়কে প্রায় ১১০০৩.৯০ কোটি টাকা ব্যয়ে এক্সপ্রেসওয়েটি নির্মিত হয়েছে। সড়ক ও জনপথ বিভাগ এবং বাংলাদেশ সেনাবাহিনী যৌথভাবে ২০১৬ সালে চারটি জেলাÑ ঢাকা, মুন্সীগঞ্জ, মাদারীপুর এবং ফরিদপুরে এক্সপ্রেসওয়ে প্রকল্পের বাস্তবায়ন শুরু করে এবং এটি নির্ধারিত সময়সীমার তিন মাস আগে নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করে। নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করার নির্ধারিত সময়সীমা ছিল ২০২০ সালের ২০ জুন। ১৭ মার্চ জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে মুজিব বর্ষ উদযাপন শুরুর প্রাক্কালে এক্সপ্রেসওয়ে ট্রাফিকের জন্য উন্মুক্ত হতে চলেছে। স্থানীয় ও ধীর গতি সম্পন্ন যানবাহনের জন্য এক্সপ্রেসওয়ের দু’পাশে দুটি পরিসেবা লেন রাখা হয়েছে যাতে দ্রুত যানবাহনগুলো নিরবচ্ছিন্নভাবে রাস্তায় চলাচল করতে পারে এবং এইভাবে দীর্ঘপথের যাত্রীদের ভ্রমণের সময় হ্রাস করতে পারে। এক্সপ্রেসওয়ের পাঁচটি ফ্লাইওভারের মধ্যে একটি ২.৩ কিলোমিটার কদমতলী-বাবুবাজার লিংক রোড ফ্লাইওভার রয়েছে। অন্য চারটি ফ্লাইওভার হলো আবদুল্লাহপুর, শ্রীনগর, পুলিয়াবাজার এবং মালিগ্রামে। ৫৫ কিলোমিটার এক্সপ্রেসওয়েতে জুরাইন, কুচিয়ামোড়া, শ্রীনগর ও আতাদিতে চারটি রেলওয়ে ওভার ব্রিজ রয়েছে এবং চারটি বড় সেতু রয়েছে যার মধ্যে ৩৬৩ মিটার ধলেশ্বরী -১, ৫৯১ মিটার ধলেশ্বরী -২, ৪৬৬-মিটার আড়িয়াল খান এবং ১৩৬-মিটার কুমার সেতু। গতকাল এক্সপ্রেসওয়ের যাত্রাবাড়ী-মাওয়া অংশ পরিদর্শন করে বাসস সংবাদদাতা দেখতে পান যে শ্রমিকরা আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনের প্রাক্কালে নিরবচ্ছিন্ন দ্রুতগতির রাস্তায় চূড়ান্ত স্পর্শ দিচ্ছিল। মাওয়ার নিকটবর্তী রাস্তার পাশে নিরালা রেস্তোঁরার মালিক মোহাম্মদ মাসুদ বলেছেন, এক্সপ্রেসওয়ের কারণে মাওয়া থেকে ঢাকা যেতে আগের দুই ঘন্টার পরিবর্তে এখন ৩০-৪০ মিনিট সময় লাগে। “এক্সপ্রেসওয়েতে যানজট না থাকায় বাস ও ট্রাক দ্রুতগতিতে চলাচল করতে পারে,” উল্লেখ করে তিনি বলেন, এর আগে পোস্তগোলা রেলপথ পারাপারে ৩০ মিনিট থেকে ৬০ মিনিট সময় লেগেছিল, তবে এখন মাত্র কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই স্পটটি অতিক্রম করা যায়। তিনি বলেন,“ভ্রমণের সময় হ্রাস হওয়ায় রোগীরা খুব অল্প সময়ের মধ্যে রাজধানী থেকে খুব সহজেই মানসম্পন্ন স্বাস্থ্যসেবা নিতে পারবেন। দ্রুত যোগাযোগের অগ্রগতির কারণে এখন অনেক লোকই আমাদের এলাকায় ঘরবাড়ি এবং অন্যান্য স্থাপনা তৈরি করতে চায়।” তিনি আশাবাদী তাঁর অঞ্চলটি একটি পর্যটন স্পটে পরিণত হবে। বর্তমানে ঢাকায় অবস্থানরত ব্রিটিশ বাংলাদেশী নাগরিক আরিফ চৌধুরী এক্সপ্রেসওয়ে পরিদর্শন করে বলেছেন, “এটা চমৎকার, আমি অভিভূত। আমার কাছে মনে হয় আমি যুক্তরাজ্যের কোথাও আছি , এই এক্সপ্রেসওয়ের মান এবং সৌন্দর্য দেখে আমি গর্ব অনুভব করছি।” সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন সরকার বাংলাদেশকে একটি উন্নত দেশ হিসেবে গড়ে তোলার জন্য আন্তরিকভাবে কাজ করছে, বাংলাদেশ এখন মধ্যম আয়ের মর্যাদা অর্জন করতে চলেছে।