গাংনীতে দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস পালিত

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনীতে দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস পালিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকালের দিকে গাংনী উপজেলা দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা কমিটি দিবসটি পালনে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করে। সকাল ১০টার দিকে উপজেলা শহরে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালীটি শহরের প্রধান-প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালীতে নেতৃত্ব প্রদান করেন গাংনী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মেহেরপুর জেলা আ.লীগের সাধারণ সম্পাদক এমএ খালেক। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ইয়ানুর রহমান, উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারহানা ইয়াসমিন, বিশিষ্ট সমাজ সেবক, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সিরাজুল ইসলাম স্যার, জাতীয় পার্টি (জাপা)’র কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও জেলা জাপার সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সেলিম, বামন্দী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম বিশ্বাস, গাংনী উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের সহকারী কর্মকর্তা প্রকৌশলী জাকির হোসেন, বামন্দী ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা ইছাহাক আলী, সহকারী কর্মকর্তা মহিউদ্দীন, গাংনী সরকারী উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আশরাফুজ্জামান লালু, ছাত্রলীগ নেতা তৌহিদুল ইসলাম, আ.লীগ নেতা আলা-হামদু মিয়াসহ সরকারের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা-কর্মচারী ও বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষিকা এবং শিক্ষার্থীরা।  পরে গাংনী হাইস্কুল ফুটবল মাঠে স্থানীয় বামন্দী ফায়ার সার্ভিসদল ও গাংনী সরকারী উচ্চ বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রীদের অংশগ্রহণে আগুন নেভানোর সহড়া অনুষ্ঠিত হয়। সবশেষে ফুটবল মাঠ প্রাঙ্গণে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। সাংবাদিক আমিরুল ইসলাম অল্ডামের সঞ্চালনায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এমএ খালেক। এসময় বক্তব্য রাখেন অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।

করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে আমলাপাড়ায় রাজা স্মৃতি স্পোর্টিং ক্লাবের মাক্স বিতরণ

নিজ সংবাদ ॥ করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে কুষ্টিয়া শহরের আমলাপাড়ায় রাজা স্মৃতি স্পোর্টিং ক্লাবের উদ্যোগে জনসাধারণের মধ্যে মাক্স বিতরণ করা হয়েছে। ১০ মার্চ মঙ্গলবার দিনব্যাপী কুষ্টিয়া শহরের আমলাপাড়ার বিভিন্ন স্থানে এ মাক্স বিতরণ করা হয়। মাক্স বিতরণের মূল পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে ছিলেন রাজা স্মৃতি স্পোর্টিং ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া বড় বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুজ্জামান বিশ্বাস জনি। এ সময় রাজা স্মৃতি স্পোর্টিং ক্লাবের অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন।

ফ্রান্সের সংস্কৃতিমন্ত্রী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত

ঢাকা অফিস ॥ বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়া নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ফ্রান্সের সংস্কৃতিমন্ত্রী ফ্রঁক রিয়েস্তা। মঙ্গলবার ফ্রান্সের সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা সিএনএনকে একথা জানিয়েছেন। রোববার তার দেহে ভাইরাসটির সংক্রমণ ধরা পড়ার পর থেকে তিনি নিজেকে গৃহবন্দি করে রেখেছেন বলে মন্ত্রণালয়টি জানিয়েছে। বিশ্বের যে ১০টি দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ সবচেয়ে বেশি ছড়িয়েছে ফ্রান্স তার অন্যতম। ইউরোপের ইতালির পর ফ্রান্সেই আক্রান্তের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। সিএনএন জানায়, সোমবার একদিনেই দেশটিতে ২৮৬ জন নতুন করে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত হয়েছেন। এতে দেশটিতে আক্রান্তের মোট সংখ্যা এক হাজার ৪১২ জনে দাঁড়িয়েছে বলে দেশটির জনস্বাস্থ্য বিভাগের পরিচালক জেরম সালোমন জানিয়েছেন। চীনের মধ্যাঞ্চলীয় শহর উহান থেকে ছড়ানো এই প্রাণঘাতী ভাইরাসটিতে ফ্রান্সে এ পর্যন্ত অন্তত ৩০ জনের মৃত্যু হয়েছে। ফ্রান্সের প্রতিবেশী দেশ ইতালিতে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ৩৬৬ জন থেকে বেড়ে হয়েছে ৪৬৩। আক্রান্তের সংখ্যা ৯ হাজার ১৭২ জনে দাঁড়িয়েছে। চীনের মূল ভূখন্ড বাদ দিলে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা ইতালিতেই সবচেয়ে বেশি। নতুন রোগী ও মৃতের সংখ্যা বাড়তে থাকায় পুরো ইতালিতে চলাচলের ওপর কড়াকড়ি আরোপের পাশাপাশি জনসমাগম নিষিদ্ধ করার মত কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছে দেশটির সরকার। ফ্রান্সের আরও দুই প্রতিবেশী দেশেও উল্লেখযোগ্য মাত্রায় ছড়াচ্ছে ভাইরাসটি। স্পেনে ভাইরাসটিতে এক হাজার ২০৪ জন আক্রান্ত হয়েছেন ও মারা গেছে ২৮ জন আর জার্মানিতে আক্রান্ত ১১১২ জন ও মারা গেছে দুই জন। ফ্রান্সের সঙ্গে সড়ক যোগাযোগ থাকা দ্বীপদেশ যুক্তরাজ্যে আক্রান্ত ২৭৩ আর মৃত্যু হয়েছে পাঁচ জনের। ইউরোপের অন্যান্য দেশেগুলোর মধ্যে সুইজারল্যান্ড ও নেদারল্যান্ডে ভাইরাসটিতে আক্রান্ত আরও দুই জনের মৃত্যু হয়েছে। সার্স ও মার্স পরিবারের সদস্য নভেল করোনাভাইরাসে বিশ্বব্যাপী মৃতের সংখ্যা ৪০১৮ জনে ও আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ১৩ হাজার ৯ জনে দাঁড়িয়েছে।

পরিবার বা দলের কথায় খালেদা জিয়ার মুক্তি হবে না – কাদের

ঢাকা অফিস ॥ পরিবার বা দলের নেতাদের কথায় কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি হবে না বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। গতকাল মঙ্গলবার আওয়ামী লীগ সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে খালেদা জিয়ার মুক্তি চেয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে করা আবেদনের বিষয়ে সাংবাদিকরা দৃষ্টি আকর্ষণ করলে তিনি এ মন্তব্য করেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, যদি চিকিৎসকরা খালেদা জিয়ার চিকিৎসার প্রয়োজনে কোনো সুপারিশ করেন, তবেই খালেদা জিয়ার মুক্তির বিষয়টি বিবেচনাযোগ্য। তিনি বলেন, খালেদা জিয়া দন্ডিত হয়ে কারাগারে আছেন। যেহেতু মানবিক কারণ বা চিকিৎসার জন্য খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন আদালত একাধিকবার নাকচ করে দিয়েছেন, তাই পরিবারের আবেদনে বা মানবিক কারণে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেয়ার সুযোগ নেই। দল ও পরিবারের কথায় খালেদা জিয়ার জামিন বা মুক্তির সুযোগ নেই মন্তব্য করে সেতুমন্ত্রী আরও বলেন, খালেদা জিয়ার বিদেশে চিকিৎসা প্রয়োজন এ কথা শুধু তার দলের নেতা ও পরিবারের লোকজন বলছেন। তার চিকিৎসায় নিয়োজিত চিকিৎসকরা সে কথা বলছেন না। সুতরাং স্বভাবতই তার জামিন বা মুক্তির কোনো সুযোগ নেই।

পাপিয়ার দুই মামলার তদন্তভার পেল র‌্যাব

ঢাকা অফিস ॥ যুব মহিলা লীগের নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া তিন মামলার মধ্যে শেরেবাংলা নগর থানার অস্ত্র ও মাদক আইনের দুই মামলার তদন্তভার অবশেষে র‌্যাবকে দেওয়া হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বিমানবন্দর থানার জাল নোটের মামলাটি গোয়েন্দা পুলিশের হাতেই রেখেছে বলে র‌্যাব-১-এর অধিনায়ক লেফটেন্যান্ট কর্নেল শাফি উল্লাহ বুলবুল জানিয়েছেন। গোয়েন্দা পুলিশের হাতে পাপিয়ার রিমান্ড মঙ্গলবারই শেষ হচ্ছে জানিয়ে বুলবুল বলেন, “আমরা আরও দশ দিনের রিমান্ডে নিয়ে আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আদালতে আবেদন করব।” এই র‌্যাবের অভিযানেই গত ২২ ফেব্র“য়ারি পাপিয়া, তার স্বামী মফিজুর রহমান ওরফে সুমন চৌধুরী (মতি সুমন) এবং তাদের দুই সহযোগী গ্রেপ্তার হন। এরপর মাদক ও অস্ত্র চোরাচালান, জমি দখল এবং ওয়েস্টিন হোটেলে নারীদের দিয়ে ‘যৌন বাণিজ্যসহ’ নানা অপকর্মের অভিযোগ আসতে থাকে নরসিংদী জেলা যুব মহিলা লীগের সাধারণ সম্পাদক পাপিয়া ওরফে পিউয়ের বিরুদ্ধে। তখন দল থেকে তাকে বহিষ্কার করা হয়। বিমানবন্দর এলাকা থেকে গ্রেপ্তারের সময় পাপিয়াদের কাছ থেকে সাতটি পাসপোর্ট, ২ লাখ ১২ হাজার ২৭০ টাকা, ২৫ হাজার ৬০০ টাকার জাল নোট, ৩১০ ভারতীয় রুপি, ৪২০ শ্রীলঙ্কান রুপি ও সাতটি মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। ওই ঘটনায় বিমানবন্দর থানায় দায়ের করা হয় জাল নোটের মামলাটি, যাতে পাপিয়া ও তার স্বামীর সঙ্গে তার দুই সহযোগীকেও আসামি করা হয়। আর ওয়েস্টিন হোটেলে পাপিয়ার ভাড়া করা প্রেসিডেনশিয়াল স্যুইট এবং ইন্দিরা রোডে পাপিয়াদের দুটি অ্যাপার্টমেন্টে অভিযান চালিয়ে বিদেশি পিস্তল, ২০ রাউন্ড গুলি, পাঁচ বোতল মদ উদ্ধারের ঘটনায় শেরেবাংলা নগর থানায় দায়ের করা হয় দুটি মামলা। অস্ত্র ও মাদক আইনের এ দুই মামলায় পাপিয়া ও তার স্বামীকেই কেবল আসামি করা হয়। ওই তিন মামলায় পাপিয়াকে পাঁচ দিন করে মোট ১৫ দিন রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দেয় আদালত। বিমানবন্দর থানার মামলায় আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদ চলার মধ্যেই তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় গোয়েন্দা পুলিশের হাতে। কিন্তু পাপিয়াদের গ্রেপ্তার ও পরে বাসা- হোটেলের অভিযানে সম্পৃক্ত থাকায় র‌্যাবও মামলার তদন্তভার পেতে আগ্রহী ছিল। সে কারণে র‌্যাবের পক্ষ থেকে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমতি চেয়ে আবেদন করা হয়। এর মধ্যে দুটি মামলা তদন্তের অনুমতি পাওয়ার পর র‌্যাব কর্মকর্তা বুলবুল মঙ্গলবার বলেন, “আমরা বৈঠক করে তদন্তের বিষয়ে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেব।”

করোনাভাইরাস

দুই সপ্তাহ স্কুল বন্ধ রাখার দাবি বিএনপির

ঢাকা অফিস ॥ বিশ্বজুড়ে আতঙ্ক ছড়ানো নভেল করোনাভাইরাস এখন বাংলাদেশে চলে আসায় সব স্কুল দুই সপ্তাহ বন্ধ রাখার দাবি জানিয়েছে বিএনপি। দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর গতকাল মঙ্গলবার নয়া পল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি তুলে ধরেন। তিনি বলেন, “আমরা মনে করি, স্কুল-কলেজ, শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান অবিলম্বে বন্ধ করা দরকার। অন্ততঃ প্রথম দিকে দুই সাপ্তাহ বন্ধ হওয়া প্রয়োজন। তারপর অবস্থা দেখে ব্যবস্থা নেওয়া প্রয়োজন।” আইইডিসিআর গত রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে দেশে প্রথমবারের মত তিনজনের দেহে নভেল করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়ার কথা জানায়। এরপর থেকেই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার বিষয়টি নিয়ে আলোচনা চলছে। সোমবার সচিবালয়ে করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভার পর স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধা রাখার মত পরিস্থিতি এখনও  তৈরি হয়নি। আর শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি বলেন, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধের সিদ্ধান্ত নিতে হলে বিশেষজ্ঞদের মতামতের ভিত্তিতেই তা নেওয়া হবে। ফখরুলের যুক্তি, দেশের শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানগুলোতেই প্রতিদিন সবচেয়ে বেশি রুটিন জমায়েত হয়। শিশুদের পাশাপাশি অভিভাবকরাও স্কুলে যাতায়াত করেন। আর নভেল করোনাভাইরাস থেকে নিরাপদ থাকতে যেহেতু জনসমাগম এড়িয়ে চলার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে, সেহেতু আপাতত দুই সপ্তাহ স্কুল বন্ধ রাখাই নিরাপদ হবে বলে বিএনপি মনে করছে। ফখরুল অভিযোগ করেন, করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে যে প্রস্তুতি প্রয়োজন ছিল- সরকার তা নিতে ‘ব্যর্থতার পরিচয়’ দিয়েছে। “আপনারা জানেন যে, তিনটি হাসপাতালকে ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের নেওয়ার জন্য চিহ্নিত করা হয়েছে, তার মধ্যে একটি হচ্ছে কুর্মিটোলা হাসপাতাল।… ওই হাসপাতাল থেকে সাধারণ রোগীদের সরানো হয়নি। করোনাভাইরাস আর ডেঙ্গু তো এক জিনিস নয়। করোনাভাইরাস এতো ছোঁয়াচে যে, অন্যান্য রোগীরা সেখানে আক্রান্ত হয়ে পড়বেন। “প্রাথমিক পর্যায়ে সরকারের উচিত ছিল সেখান থেকে অন্য রোগীদের সরিয়ে দিয়ে শুধুমাত্র করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের সেখানে রাখার ব্যবস্থা করা। দুর্ভাগ্যজনকভাবে সেটা করা হয়নি। ডাক্তার ও নার্সদের যে ট্রেনিং দেওয়া দরকার তা এখনোও দেওয়া হয়নি।” সরকারের উদ্দেশে ফখরুল বলেন, “আমরা যত দ্রুত সম্ভব আক্রান্ত রোগী ও সাম্ভব্য আক্রান্তদের সুচিকিৎসা ও ভাইরাসের প্রকোপ যাতে না বাড়ে সেজন্য সর্তকতা ও প্রতিরোধমূলক যাবতীয় ব্যবস্থা নিশ্চিত করার জোর দাবি জানাচ্ছি। এ ব্যাপারে সরকারের ব্যর্থতা জনগণ কখনো ক্ষমা করবে না। কারণ জনগণ ১৯৭৪ সালের মত আরেকবার গণমৃত্যুর শিকার হতে চায় না।” বিএনপি নেতাদের মধ্যে গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, সেলিমা রহমান, ইকবাল হাসান মাহমুদ টুকু, চেয়াপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য আমানউল্লাহ আমান, জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, কেন্দ্রীয় নেতা খায়রুল কবির খোকন, ফজলুল হক মিলন, নাজিমউদ্দিন আলম, হাবিবুল ইসলাম হাবিব মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল, আবদুস সালাম আজাদ, আমিরুল ইসলাম খান আলীম, শওকত শাহিন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

গাংনীতে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে ঢেউটিন বিতরণ

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার কাথুলী ইউনিয়নের রাধাগোবিন্দপুর (ধলা) গ্রামে অগ্নিকান্ডের ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের মাঝে ঘর সংস্কারের জন্য ঢেউটিন বিতরণ করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে গাংনী উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের পক্ষ থেকে ২ বাইন ঢেউটিন ও নগদ ৬ হাজার টাকা প্রদান করা হয়। রাধাগোবিন্দপুর গ্রামের ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের প্রধান জাফর আলী ঢেউটিন ও নগদ অর্থ গ্রহণ করেন। প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে ঢেউটিন ও নগদ অর্থ প্রদান করেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিলারা রহমান। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের সহকারী কর্মকর্তা প্রকৌশলী জাকির হোসেন, কাথুলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও মেহেরপুর জেলা আ.লীগের ত্রাণ ও পূর্নবাসন বিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান রানা। জানা যায়, গতকাল মঙ্গলবার সকালের দিকে রাধাগোবিন্দপুর গ্রামের মৃত দাউদ আলীর ছেলে দরিদ্র জাফর আলীর বাড়িতে বিদ্যুত লাইন থেকে আগুনের সূত্রপাত হয়। ওই আগুন তার বসতঘরে লেগে আসবাবপত্রসহ বিভিন্ন মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে যায়। অগ্নিকান্ডে ক্ষতির বিষয় কাথুলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান রানা গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিলারা রহমানকে অবগত করেন। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ক্ষতির বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে তাৎক্ষনিকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ জাফর আলীকে ঘর সংস্কার করার জন্য ঢেউটিন ও আর্থিক সহযোগিতা করেন।

করোনা আতঙ্কে ৭০ হাজার কয়েদী ছেড়ে দিল ইরান

ঢাকা অফিস ॥ চীনের হুবেই প্রদেশ থেকে ছড়িয়ে পড়া করোনা ভাইরাসে বিশ্বে আক্রান্ত হয়েছে লক্ষাধিক মানুষ। এর মধ্যে ইরানে প্রতিনিয়ত বাড়ছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। এমন অবস্থায় করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে প্রায় ৭০ হাজার কয়েদীকে সাময়িক ভাবে মুক্তি দিয়েছে ইরান সরকার। সোমবার ইরানের বিচার বিভাগীয় এমন সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম আল জাজিরা। দেশটির বিচার বিভাগীয় সংবাদ সংস্থা মিজানে প্রকাশিত সংবাদের বরাতে বিভাগীয় প্রধান ইব্রাহিম রাইসি এ তথ্য জানান। তবে মুক্তি পাওয়াদের মধ্যে অন্য কোনো দেশের নাগরিক রয়েছেন কিনা সে বিষয়ে কোনো তথ্য জানা যায়নি। তিনি আরও জানান, যদি ছেড়ে দেওয়া বন্দিরা সমাজের নিরাপত্তা বিঘিœত না করে, তাহলে এভাবে বন্দিদের ছেড়ে দেওয়া অব্যাহত থাকবে। খবরে বলা হয়, শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত নতুন করে ইরানে করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরো ৪৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এতে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো ২৩৭ জনে।

গত বছরের ডিসেম্বরে চিনের উহান শহর থেকে করোনা ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ে এখনও পর্যন্ত ১০২টির বেশি দেশে ছড়িয়েছে। এতে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা এক লক্ষ দশ হাজার ছাড়িয়েছে। করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের শরীরে প্রাথমিক লক্ষণ হিসেবে শ্বাসকষ্ট, জ্বর, সর্দি, কাশির মত সমস্যা দেখা দেয়। ভাইরাসটি ২৭ দিন পর্যন্ত শরীরে সুপ্ত অবস্থায় থাকতে পারে।

 

মাতারবাড়ী গভীর সমুদ্র বন্দর প্রকল্পের অনুমোদন

ঢাকা অফিস ॥ জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) ২৪ হাজার ১১৩ কোটি ২৭ লাখ টাকা ব্যয়ে ‘মাতারবাড়ী পোর্ট ডেভেলপমেন্ট’ প্রকল্পসহ মোট ৯ প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে। এই প্রকল্প ব্যয়ের মধ্যে সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে পাওয়া যাবে ৬ হাজার ১৫১ কোটি ২৬ লাখ টাকা, সংস্থার নিজস্ব অর্থায়ন ২ হাজার ২১৩ কোটি ২৫ লাখ টাকা এবং প্রকল্প সাহায্য হিসেবে বৈদেশিক ঋণ পাওয়া যাবে ১৫ হাজার ৭৪৮ কোটি ৭৬ লাখ টাকা। গতকাল মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলানগর এনইসি সম্মেলনকক্ষে একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত একনেক সভায় এসব প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়। বৈঠকশেষে পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান প্রকল্পের বিষয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। তিনি বলেন, বড় আকারের জাহাজ ভেড়ার উপযোগী করে কক্সবাজারের মহেশখালী উপজেলার মাতারবাড়ী ও ধলঘাট এলাকায় গভীর সমুদ্র বন্দর স্থাপনের লক্ষ্যে ‘মাতারবাড়ী পোর্ট ডেভেলপমেন্ট’ প্রকল্পের অনুমোদন দেয়া হয়েছে। এই সমুদ্র বন্দর নির্মিত হলে দেশের কার্গো হ্যান্ডলিং ক্ষমতা অনেক বৃদ্ধি পাবে। পাশাপাশি ভবিষ্যতে এই বন্দর আন্তর্জাতিক বাণিজ্য চাহিদা মিটানো এবং প্রতিবেশী দেশগুলোর সাথে ত্বরিত বন্দরসেবা প্রদানে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। মন্ত্রী এই প্রকল্পটিকে স্বপ্নের প্রকল্প আখ্যা দিয়ে বলেন, মাতারবাড়ী গভীর সমুদ্র বন্দর নির্মাণের মধ্যে দিয়ে বৈদেশিক বাণিজ্যে আমাদের অবস্থান আরো শক্তিশালী হবে। প্রকল্প বাস্তবায়নে ব্যয় ধরা হয়েছে ১৭ হাজার ৭৭৭ কোটি ১৬ লাখ টাকা। এর মধ্যে জাপানের আন্তর্জাতিক উন্নয়ন সহযোগিতা সংস্থা (জাইকা) বৈদেশিক ঋণ সহায়তা প্রদান করবে ১২ হাজার ৮৯২ কোটি ৭৬ লাখ টাকা। এছাড়া বাংলাদেশ সরকারের তহবিল থেকে ২ হাজার ৬৭১ কোটি ১৫ লাখ এবং সংস্থার নিজস্ব তহবিল থেকে পাওয়া যাবে ২ হাজার ২১৩ কোটি ২৫ লাখ টাকা। জানুয়ারি ২০২০ হতে ডিসেম্বর ২০২৬ মেয়াদে চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ এবং সড়ক ও জনপথ বিভাগ যৌথভাবে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করবে। প্রকল্প প্রস্তাবনায় বলা হয়েছে, মাতারবাড়ী সমুদ্রবন্দরে ৩০০ ও ৪৬০ মিটার দৈর্ঘ্যের দু’টি টার্মিনাল থাকবে। এর একটি হবে বহুমুখী টার্মিনাল ও অপরটি কন্টেইনার টার্মিনাল। এছাড়া, বন্দরের সাথে সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা হবে। একসঙ্গে ৮ হাজার কন্টেইনারবাহী জাহাজ বন্দরে ভিড়তে পারবে। পরিকল্পনামন্ত্রী বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির (এডিপি) হালনাগাদ তথ্য উপস্থাপন করে বলেন, চলতি অর্থবছরের জুলাই থেকে ফেব্র“য়ারি পর্যন্ত সময়ে ৭৯ হাজার ৭৮৫ কোটি ৮৬ লাখ টাকার এডিপি বাস্তবায়ন হয়েছে, যা মোট এডিপির ৩৭ দশমিক ০৯ শতাংশ। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নে জবাবে তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসের কারণে বিশ্ব অর্থনীতি চাপের মুখে পড়েছে। তিনি বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতিতেও এর নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে। তবে, সেই প্রভাবটি ঠিক কি ধরণের হবে, সেটা এখনই আমরা বলতে পারছি না। একনেকে অনুমোদিত অন্য প্রকল্পসমূহ হলো-লেবুখালী-রামপুর-মির্জাগঞ্জ সংযোগ সড়ক নির্মাণ প্রকল্প, এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৪১৯ কোটি ৮৯ লাখ টাকা, কচুয়া-বেতাগী-পটুয়াখালী- লোহালিয়া-কালাইয়া সড়কের ১৭তম কিলোমিটারে পায়রা নদীর সেতু নির্মাণ প্রকল্প, যার বাস্তবায়ন খরচ হবে ১ হাজার ৪২ কোটি ৪৮ লাখ টাকা, স্পেশাল সিকিউরিটি ফোর্সেস ফায়ারিং রেঞ্জের আধুনিকায়ন প্রকল্পের খরচ ধরা হয়েছে ৫১ কোটি ৫৪ লাখ টাকা। এছাড়া, পার্বত্য চট্টগ্রাম অঞ্চলের মৎস্যসম্পদ উন্নয়ন প্রকল্পের খরচ ধরা হয়েছে ১১৮ কোটি ২৮ লাখ টাকা, বছরব্যাপী ফল উৎপাদনের মাধ্যমে পুষ্টি উন্নয়ন প্রকল্পে ব্যয় হবে ১৬১ কোটি ৫ লাখ টাকা, জামালপুর জেলার মাদারগঞ্জ উপজেলাধীন পাকেরদহ ও বালিজুরি এবং বগুড়া জেলার সারিয়াকান্দি উপজেলার জামথল যমুনা নদীর ভাঙন থেকে রক্ষা প্রকল্প, এর খরচ ধরা হয়েছে ৫৮৪ কোটি ৭২ লাখ টাকা, জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা কার্যালয়ের ২০ তলা ভিত বিশিষ্ট দু’টি বেইজডসহ ১০ তলা প্রধান কার্যালয় নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়নে খরচ ধরা হয়েছে ১০২ কোটি ৭৫ লাখ টাকা ও ঢাকা স্যানিটেশন ইমপ্রুভমেন্ট প্রকল্পের খরচ ধরা হয়েছে ৩ হাজার ৮৫৫ কোটি ৬০ লাখ টাকা।

মিরপুরে ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অগ্নিকান্ড

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে অগ্নিকান্ডে ৪টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে উপজেলার নওপাড়া বাজারে জুয়েল আহমেদের বাচ্চু ফার্মেসীতে বৈদ্যুতিক সকসার্কিট থেকে আগুনে সূত্রপাত হয়। মুহুর্তের মধ্যে আগুন ওই বাজারের মকলেছুর রহমানের মুদির দোকান, অনুকুলের নিলয় টেলার্স ও নাসির উদ্দিনের কীটনাশকের দোকানে ছড়িয়ে পড়ে। এতে ওই ৪টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের মালামাল ভূষ্মিভুত হয়ে যায়। সংবাদ পেয়ে ফায়ার সার্ভিস এন্ড সিভিল ডিফেন্সের কর্মীরা ঘটনাস্থলে হাজির হয়ে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। এতে ব্যবসায়ীদের ৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে বলে জানা গেছে।

মিরপুরে জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস পালন

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে জাতীয় দুর্যোগ প্রস্তুতি দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন ও দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের যৌথ উদ্যোগে র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল মঙ্গলবার সকালে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আব্দুল কাইয়ুম খানের নেতৃত্বে উপজেলা চত্বর থেকে এক বর্নাঢ্য র‌্যালী বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করেন। এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন মিরপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রাশেদুজ্জামান রিমন, ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের ষ্টেশন কর্মকর্তা রুহুল আমিন, প্রেসক্লাবের সাবেক আহ্বায়ক হুমায়ূন করিব হিমু, সহকারী কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা অশোক কুমার কর্র্মকার, তালবাড়ীয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি আমিরুল ইসলাম, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয়ের কার্যসহকারী দিগেন্দ্র নাথ বর্মন, অফিস সহকারী শরিফ জোয়ার্দ্দার, চাল ব্যবসায়ী হাফিজুর রহমান, সাবান মন্ডল, উপজেলা শ্রমিকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আশরাফুল আলম হীরা, সাংবাদিক আলম মন্ডল, সুমন মাহমুদ প্রমুখ। পরে ভূমিকম্প ও অগ্নিকান্ড বিষয়ক সচেতনতা বৃদ্ধির মহড়া এবং লিফলেট বিতরণ করা হয়।

ভেড়ামারায় সড়ক  সংস্কারের দাবিতে মানববন্ধন

আল-মাহাদী ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার মোকারিমপুর, বাহাদুরপুর ও জুনিয়াদহ ইউনিয়নের চলাচলের একমাত্র রাস্তা  ভেড়ামারা-জুনিয়াদহ সড়ক যেন মরণ ফাঁদ। মোকারিমপুর, বাহাদুরপুর ও জুনিয়াদহ ইউনিয়নের পক্ষ থেকে বিজেএম ডিগ্রী কলেজের প্রফেসর সাইফুজ্জামান ফিরোজের উদ্যোগে গতকাল মঙ্গলবার সকাল ১১টায় ভেড়ামারা-জুনিয়াদহ সড়কের দ্রুত সংস্কার ও চার দফা দাবিতে কুচিয়ামোড়া বাজার ৪ রাস্তার মোড়ে এক বিশাল মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মানববন্ধনে ৩ ইউনিয়নের সকল বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী, ব্যবসায়ী, ডাক্তার, শিক্ষাবিদ, অটো ড্রাইভার, সিএনজি ড্রাইভারসহ সুশীল সমাজের সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেয়। মানববন্ধন শেষে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, বিজেএম ডিগ্রী কলেজে’র প্রফেসর সাইফুজ্জামান ফিরোজ, প্রফেসর মিজানুর রহমান ও ভেড়ামারা ডিগ্রী কলেজে’র প্রভাষক মাসুদ হাসান। বক্তাগণ তাদের বক্তব্যে রাস্তার বেহাল দশার বিভিন্ন ক্ষতির দিকসমূহ জনগণের সামনে তুলে ধরেন এবং সর্বশেষে ঘোষণা দেওয়া হয় যে এই মানববন্ধনে দাবি আদায় না হলে এর থেকেও কঠিন কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে এবং তা বাস্তবায়ন করা হবে ইনশাল্লাহ।

বিভিন্ন মহলের অভিনন্দন

কুষ্টিয়া বড় বাজার সার্বজনীন পূজা মন্দিরের নবনির্বাচিত পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া বড় বাজার সার্বজনীন পূজা মন্দির’র নবনির্বাচিত ত্রি-বার্ষিক কমিটিকে বিভিন্ন মহল’র পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানানো হয়েছে। ১০ মার্চ মঙ্গলবার সকাল থেকে বড় বাজার সার্বজনীন পূজা মন্দির’র নবনির্বাচিত ত্রি-বার্ষিক এ কমিটিকে বিভিন্ন মহল’র পক্ষ থেকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানানো হয়। এর আগে ৭ মার্চ ২০২০ তারিখ সন্ধ্যায় কুষ্টিয়া বড় বাজার সার্বজনীন পূজা মন্দির প্রাঙ্গনে মন্দির কমিটির এক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বিশ্বনাথ সাহাকে সভাপতি এবং উত্তম কুমার সাহাকে সাধারণ সম্পাদক করে সর্বসম্মতিক্রমে এ কমিটি অনুমোদিত হয়। পূর্ণাঙ্গ কমিটির নেতৃবৃন্দরা হলেন, প্রধান উপদেষ্টা অশোক সাহা, উপদেষ্টা মন্ডলী বৈদ্যনাথ সাহা, শ্যামল কুমার সাহা, বিদ্যুৎ কুমার সাহা, পবন সরাফ (পাপ্পু), দিব্য জ্যোতি পাল, দিলীপ কুমার সাহা, পিযুষ সাহা, শৈলেন্দ্রনাথ সাহা, বুদ্ধু কুন্ডু, বিজয় কাশেরা, সুভাষ চন্দ্র পাল, অসিম কুমার সাহা (কালা), সুভাষ চন্দ্র সাহা (বাঁশি), অসিম সাহা (বাণিজ্য বিতান), জগন্নাথ সাহা ও প্রনব কুমার সাহা। আইন উপদেষ্টা ব্যারিস্টার গৌরব চাকী। সভাপতি বিশ্বনাথ সাহা, সহ-সভাপতি স্বপন কুমার সাহা, বিশ্বনাথ সাহা, অজয় সুরেকা, ডাঃ বিশ্বনাথ পাল, ভজন কুমার সাহা, অনন্ত সাহা, সাধারণ সম্পাদক উত্তম কুমার সাহা, যুগ্ম-সম্পাদক প্রবীর কুমার সাহা, রমেন পোদ্দার (টিটু), সঞ্জয় সাহা (মিঠু), সহ-সম্পাদক উত্তম খৈতান (লাল), ডিম্পল ক্যাশেরা, তপন ঘোষ, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রমদ আগরওয়াল, বিজন সাহা, কৃষ্ণ সাহা, উজ্জ্বল দত্ত, প্রচার সম্পাদক সঞ্জীব সাহা (ঝন্টু), সত্য দাস (ফাল্গুনী সু ষ্টোর), দপ্তর সম্পাদক মনোজ সাহা, কার্ত্তিক সাহা, ধর্মীয় সম্পাদক রামকৃষ্ণ দেবরায়, কোষাধ্যক্ষ বুদ্ধদেব সাহা, সহ-কোষাধ্যক্ষ গৌতম আগরওয়ালা, সাংস্কৃতিক সম্পাদক অলোক সাহা (গণেশ), সমাজ কল্যাণ সম্পাদক প্রদীপ কুমার সাহা ও অপূর্ব সরকার। নির্বাহী সদস্যরা হলেন প্রভাষ চন্দ্র পাল, প্রকাশ কুমার সাহা (পদো), তপন পাল, বরেন পোদ্দার, স্বপন সাহা, রাজীব সাহা, মনোজ আগরওয়ালা, বিনোদ আগরওয়ালা, উত্তম পাল, রাজ কুমার পাল (বাণী), শ্যামল পাল, ভোলানাথ বসু, বিশু সাহা, কাঞ্চন সাহা, আকাশ সাহা, দীনেশ সাহা, মনোজ সেন, শাওন সাহা, মিলন ঘোষ, জয়দেব পোদ্দার ও শিশির সাহা।

কুষ্টিয়ায় জিপি ও পিপি শীপবৃন্দের মুজিববর্ষের ব্যাচ পরানো কর্মসূচী উদ্বোধন

নিজ সংবাদ ॥ সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালী, স্বাধীনতা স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষ্যে, সরকারি আইন কর্মকর্তাবৃন্দ (জিপি, পিপিশীপ) কুষ্টিয়ার আয়োজনে, মুজিববর্ষের ব্যাচ পরানো কর্মসূচীর উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে পাবলিক প্রসিকিউটরের কার্যালয়ে এ কর্মসূচীর উদ্বোধন করা হয়। এ সময় কুষ্টিয়ার পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এ্যাডঃ অনুপ কুমার নন্দী, বিজ্ঞ জিপি এ্যাডঃ আ.স.ম আখতারুজ্জামান মাসুম, স্পেশাল পিপি আলহাজ্ব রফিকুল ইসলাম লালনসহ সরকারি আইন কর্মকর্তাবৃন্দ (জিপি, পিপি শীপ) কুষ্টিয়ার অন্যান্য কর্মকর্তা, আইনজীবীবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

দৌলতপুরে স্কাউটস সমাবেশ অনুষ্ঠিত

দৌলতপর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ৯ম উপজেলা স্কাউটস সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার রাতে ছিল স্কাউটস সমাবেশের তাবু জলসা ও সমাপনি অনুষ্ঠান। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, দৌলতপুর উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড. এজাজ আহমেদ মামুন। দৌলতপুর সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আজগর আলীর সভাপতিত্বে স্কাউটস সমাবেশের তাবু জলসা ও সমাপনি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, দৌলতপুর থানার ওসি এস এম আরিফুর রহমান, দৌলতপুর মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সরদার মো. আবু সালেক, দৌলতপুর স্কাউটসের সাধারণ সম্পাদক মো. মজিবর রহমান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক সফিকুল ইসলাম ও দৌলতপুর পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. জহুরুল ইসলামসহ বিভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকবৃন্দ ও স্কাউটস সমাবেশে অংশ নেয়া শিক্ষার্থীরা। গত রবিবার দৌলতপুর পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও দৌলতপুর স্কাউটসের সভাপতি শারমিন আক্তার এ সমাবেশের উদ্বোধন করেন। এর আগে দৌলতপুর স্কাউটসের প্রতিষ্ঠাতা ফিলিপনগর হাইস্কলের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক মুহ. শাহজাহান আলীকে বিশেষ সম্মাননা দেওয়া হয়।

কুষ্টিয়ায় মত বিনিময়কালে অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ

রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প হবে জাতীয় মহাবিপদের প্রকল্প

“প্রাণ-প্রকৃতি, পরিবেশ ও জাতীয় সম্পদ রক্ষার আন্দোলন বেগবান করুন” শ্লোগানকে ধারণ করে সরকারের ব্যয়বহুল ঋণ নির্ভর ও পরিবেশ বিধ্বংসী বিদ্যুৎ মহাপরিকল্পনার বিপরীতে জাতীয় কমিটির সামগ্রীক প্রস্তাবনা, ভুলনীতি ও দুর্নীতির দায় জনগণের উপর  চাপাতেই দফায় দফায় বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধি করা হচ্ছে এবং রামপাল ও রূপপুর বিদ্যুৎ প্রকল্প কার স্বার্থে ? শীর্ষক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।  গতকাল মঙ্গলবার বিকেল ৪টায় কুষ্টিয়া হাই স্কুল মিলনায়তনে তেল-গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি কুষ্টিয়া জেলা শাখার আয়োজনে কমিটির আহ্বায়ক এ্যাড. মীর আরশেদ আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মতবিনিময় সভায় প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় কমিটির কেন্দীয় সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ। এসময় প্রধান আলোচক তেল-গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির সদস্য সচিব বলেন, ঈশ^রদীর রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ প্রকল্প হবে জাতীয় মহাবিপদের প্রকল্প। বিশে^র যেসব দেশে এজাতীয় প্রকল্প স্থাপন করেছিলো তারা পরবর্তীতে এর জীবনধ্বংসী নেতিবাচক প্রভাবে শিকার হয়ে তারা ওইসব প্রকল্প বন্ধ করে দিয়েছেন। এসব প্রকল্প স্থাপনে যে সব অঞ্চল ও আয়তন বিবেচনায় রেখে স্থাপন করার পরও নিজেদের রক্ষা করতে না পেরে অবশেষে বন্ধ করে দিতে বাধ্য হয়েছে এবং মানব সভ্যতা ধ্বংসে আগ্রাসী প্রকল্প হিসেবে চিহ্নিত করেছে তারা। ঠিক সেই সময় আমাদের দেশে এই প্রকল্প নতুন করে কোন প্রকার শর্ত বিবেচনা না করেই রূপপুর প্রকল্প স্থাপন করা হচ্ছে; যা এ অঞ্চলের বিস্তীর্ণ এলাকাজুড়ে জীবনধ্বংসী বিরান ভুমিতে পরিনত করবে। সেই সাথে এই প্রকল্প বাস্তবায়নে রাশিয়ার সাথে সম্পাদিত চুক্তির শর্তানুযায়ী একদিকে রাশিয়া ও ভারত তাদের ব্যবসায়িক স্বার্থসিদ্ধি করবে ঠিকই অপরদিকে বাংলাদেশকে বইতে হবে বিশাল এক ঋণের বোঝা। তিনি বলেন, তেল-গ্যাস, খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটির দেয়া সামগ্রীক প্রস্তাবনার আলোকে বাস্তবায়নের মধ্যদিয়ে দেশের বিদ্যুৎ ও জ¦ালানী খাতের নাগরিক সেবা আরও সুলভে ও কম খরচে দেশবাসীর দোরগোড়ায় পৌছে দেয়া সম্ভব। অথচ সরকার সেদিকে নজর না দিয়ে উল্টা অযৌক্তিকভাবে গ্যাস ও বিদ্যুতের মূল্য বৃদ্ধির সিদ্ধান্ত চাপিয়ে দিয়ে জনজীবনকে নাভিশ^াস করে তুলছেন। এসময় সেখানে উপস্থিত জাতীয় কমিটি কুষ্টিয়া জেলার শাখার নেতৃবৃন্দ ছাড়াও বক্তব্য রাখেন, কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ^বিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক মুঈদ রহমান, জাতীয় কমিটি কুষ্টিয়া জেলার শাখার সাবেক আহ্বায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড. জহুরুল ইসলাম, বাসদ কুষ্টিয়া জেলা আহ্বায়ক কমরেড শফিউর রহমান শফি, সদস্য সচিব মাসুদ হাসান, সিপিবি কুষ্টিয়ার সাধারণ সম্পাদক হেলাল উদ্দিন, জাতীয় গণফ্রন্ট কুষ্টিয়ার আহ্বায়ক আজিজুর রহমান জালাল প্রমুখ। এছাড়াও সেখানে বিভিন্ন পেশাজীবী, রাজনৈতিক, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এসময় বক্তারা বিদ্যুৎ গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধিকে গণবিরোধী, জনগণের দুর্ভোগ বাড়িয়ে কার্যত: আইএমএফ- বিশ্ব ব্যাংক এবং  দেশি-বিদেশি এজেন্টদের খুশি করার প্রজেক্ট হিসেবে আখ্যায়িত করেছেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

নভেল করোনাভাইরাসে দেশে নতুন কেউ সংক্রমিত হননি – আইইসিডিআর

ঢাকা অফিস ॥ প্রথম তিন জনের পর বাংলাদেশে যাদের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে, তাদের কারো শরীরে প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পায়নি রোগতত্ত্ব ও রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠান (আইইডিসিআর)। এর মধ্যে মঙ্গলবার বেলা ১২টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে সাতজনের শরীরের নমুনা পরীক্ষা করে কারও শরীরে ভাইরাসটি না পাওয়ার কথা জানিয়েছেন সরকারি প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক অধ্যাপক ডা. মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা। দুপুরে নিয়মিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, “ যে সাতজনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে, তাদের মধ্যে বিদেশফেরত যাত্রীও রয়েছেন। তার মানে হচ্ছে, বাংলাদেশে এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা তিনজন।” নভেল করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়ার পর রোববার হাসপাতালে ভর্তি হওয়া তিন জনের মধ্যে দুজন পুরুষ ও এক নারী রয়েছেন। তাদের সবার অবস্থা ‘স্থিতিশীল’ বলে জানান ডা. মীরজাদী। তিনি বলেন, “এদের দুজনের মধ্যে খুবই মৃদু উপসর্গ ছিল। কিন্তু তাদেরকে এখন আমরা ছাড়তে পারব না। পরপর দুটো নমুনা পরীক্ষায় যদি তারা নেগেটিভ হয়, তাহলেই কেবল হাসপাতাল থেকে তাদের ছাড়পত্র দেওয়া হবে।” নিউমোনিয়া সদৃশ নানা লক্ষণ নিয়ে চীনের উহান থেকে ছড়িয়ে পড়া প্রাণঘাতী নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে বৃদ্ধ ও রোগাক্রান্তদের মৃত্যুঝুঁকি বেশি বলে সরকারি গবেষণায় উঠে এসেছে। ঝুঁকিপূর্ণ রোগগুলোর তালিকায় রয়েছে- হৃদরোগ, ডায়াবেটিক, শ্বাসযন্ত্রের দীর্ঘস্থায়ী রোগ ও উচ্চ রক্তচাপ। বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া নভেল করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ৪০১৮ জনে দাঁড়িয়েছে এবং আক্রান্তের সংখ্যা ১ লাখ ১৩ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। মৃত ও আক্রান্তদের অধিকাংশই চীনের মূলভূখন্ডের বাসিন্দা। তবে এখন চীনে নতুন আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা উল্লেখযোগ্যভাবে হ্রাস পেয়েছে। নতুন আক্রান্তের ৯৯ শতাংশ খবর এখন আসছে চীনের বাইরে থেকে। এর মধ্যে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা ইতালিতেই সবচেয়ে বেশি। সোমবার ইতালিতে নভেল করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা ৩৬৬ জন থেকে বেড়ে হয়েছে ৪৬৩ জন। আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়িয়ে গেছে নয় হাজার।

করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্ক না ছড়িয়ে সতর্ক থাকতে হবে – কাদের

ঢাকা অফিস ॥ আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্ক না ছড়িয়ে সতর্ক থাকতে হবে। এই ভাইরাস প্রতিরোধে সরকার সব ধরনের প্রস্তুতি নিয়েছে। তিনি বলেন, ‘করোনাভাইরাস নিয়ে রাজনীতি করার কিছু নেই, মানবতা ও জনস্বাস্থ্যের কথা চিন্তা করে মুজিব শতবর্ষের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান পুনর্বিন্যাস করা হয়েছে।’ ওবায়দুল কাদের গতকাল মঙ্গলবার ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, করোনা ভাইরাসকে পুঁজি করে কিছু অসাধু ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট যে মজুদদারির পাঁয়তারা শুরু করেছে তার বিরুদ্ধে ইতোমধ্যে সরকারের পক্ষ থেকে অভিযান শুরু হয়েছে। সংবাদ সম্মেলনে বঙ্গবন্ধুর জন্মদিনে জনসমাগম এড়িয়ে আওয়াামী লীগের পক্ষ থেকে নেয়া বিভিন্ন কর্মসূচি ঘোষণা করেন ওবায়দুল কাদের। এ সময় দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য মতিয়া চৌধুরী, জাহাঙ্গীর কবির নানক, শাহজাহান খান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ, আফম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, মির্জা আজম, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দি, দপ্তর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। ওবায়দুল কাদের বলেন, পরিবার বা দলের নেতার কথায় দন্ডিত আসামী বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি হবে না। চিকিৎসকরা তার চিকিৎসার্থে কোনো সুপারিশ করলেই কেবল তা বিবেচনাযোগ্য। মানবিক কারণ বা চিকিৎসার জন্য তার জামিন আবেদন আদালত একাধিকবার নাকচ করে দিয়েছে। তিনি বলেন, ‘খালেদা জিয়ার বিদেশে গিয়ে চিকিৎসা প্রয়োজন একথা শুধু তার দলের নেতা বা পরিবারের লোকজন বলছেন। খালেদা জিয়ার চিকিৎসায় নিয়োজিত চিকিৎসকরা সে কথা বলছেন না।’ ওবায়দুল কাদের বলেন, করোনা মোকাবেলায় রাজধানী ঢাকার সব হাসপাতালে প্রস্তুতিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। জেলা-উপজেলার হাসপাতালগুলোও প্রস্তুতি রয়েছে। তিনি বলেন, করোনা নিয়ে আতংকিত হওয়ার কিছু নেই।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক জানান, জনস্বাস্থ্যের কথা মাথায় রেখেই জনসমাগম এড়াতে মুজিব বর্ষের কর্মসূচি পুনর্বিন্যাস করা হয়েছে। বিদেশী অতিথিরা আসবেন বলে যারা এ নিয়ে রাজনীতি করছেন তা সঠিক নয়। মুজিব বর্ষের কর্মসূচি পুনর্বিন্যাস করায় কোনো রাজনীতি নেই। ওবায়দুল কাদের মুজিব শতবর্ষের ১৭ মার্চের পুনর্বিন্যাসকৃত কর্মসূচি ঘোষণা করেন। তিনি জানান, এদিন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর উদ্বোধন হবে। ওইদিন সকালে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করা হবে। দলীয় ও জাতীয় পতাকা ওড়ানো হবে। দেশের সব ধর্মীয় উপাসনালয়ে বিশেষ প্রার্থনার আয়োজন করা হবে। গরিব ও দুস্থদের মাঝে খাবার বিতরণ করা হবে। দেশের সব গণমাধ্যমে বিশেষ অনুষ্ঠান প্রচার করা হবে। রাত ৮টায় বঙ্গবন্ধুর জন্মক্ষণে একযোগে সারাদেশে আতশবাজি ফোটানো হবে। এছাড়া পুরো মুজিববর্ষে দলের পক্ষে বৃক্ষরোপণ এবং গৃহহীনদের ঘর দেয়া হবে।

 

দেশ সেরা পাট বীজ উৎপাদনকারী ভেড়ামারার সান্টু

আমলা অফিস ॥ সোনালী আশেঁর সোনার দেশ, মুজিব বর্ষে বাংলাদেশ এই প্রতিপাদ্যে দেশে পালিত হয় জাতীয় পাট দিবস। নানা আয়োজনের মধ্যদিয়ে দিবসটি পালন করে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়। দেওয়া হয় দেশের সেরা পাট চাষী ও সেরা পাট বীজ উৎপাদনকারী কৃষকসহ বেশ কয়েকটি ক্যাটাগরিতে পুরষ্কার। দেশের সেরা পাট বীজ উৎপাদনকারী চাষী হিসাবে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার চর গোলাপনগর এলাকার চাষী শাহানুর আলম সান্টু মনোনীত হয়। জাতীয় পাট দিবসে তাকে সেরা পাটবীজ উৎপাদন চাষী হিসাবে তুকে পুরষ্কার পদান করেন বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, বীর প্রতিক, এমপি।

মঙ্গলবার (১০ মার্চ) দুপুরে দেশের সেরা পাট বীজ উৎপাদনকারী চাষী শাহানুর আলম সান্টুকে অভিনন্দন জানান কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসন ও পাট অধিদপ্তর। জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের এসময় উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মো. আসলাম হোসেন, কুষ্টিয়ার মুখ্য পাট পরিদর্শক মো. সোহরাব উদ্দিন বিশ্বাসসহ বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তারা। বাংলাদেশের পাট খাতের সার্বিক উন্নয়নের লক্ষ্যে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা যতগুলো পদক্ষেপ গ্রহণ করেছেন তার মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার ক্ষেত্রে এটা একটি অন্যতম পদক্ষেপ বলেন জেলা প্রশাসক মো. আসলাম হোসেন।

 

জয় বাংলাকে জাতীয় স্লোগান ঘোষণার রায়

ঢাকা অফিস ॥ জাতীয় দিবস, সরকারি অনুষ্ঠান ও শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে উচ্চারণের উপর জোর দিয়ে ‘জয় বাংলা’ স্লোগানকে তিন মাসের মধ্যে জাতীয় স্লোগান হিসেবে কার্যকর করার নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্ট। এক রিট আবেদনে দুই বছর আগে দেওয়া রুলের নিষ্পত্তি করে মঙ্গলবার বিচারপতি এফ আর এম নাজমুল আহাসান ও বিচারপতি কে এম কামরুল কাদেরের বেঞ্চ এ রায় ঘোষণা করে। আদালতে রিটকারী পক্ষে ছিলেন আইনজীবী বশির আহমেদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এবিএম আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার। আদেশে আদালত বলেছে, “আমরা ঘোষণা করছি যে, জয় বাংলা বাংলাদেশের জাতীয় ¯ে¬াগান হবে। সকল জাতীয় দিবসগুলোতে এবং উপযুক্ত ক্ষেত্রে সাংবিধানিক পদাধিকারীগণ এবং রাষ্ট্রীয় সকল কর্মকর্তা সরকারি অনুষ্ঠানের বক্তব্য শেষে যেন জয়বাংলা স্লোগান উচ্চারণ করেন, সে জন্য সংশ্লিষ্ট বিবাদীরা যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন। “সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে অ্যাসেম্বলি সমাপ্তির পর ছাত্র-শিক্ষকগণ যেন জয়বাংলা স্লোগান উচ্চারণ করেন, তার জন্য বিবাদীরা যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন।” রায় বাস্তবায়নের অগ্রগতির প্রতিবেদন তিন মাসের মধ্যে সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেলের কাছে দাখিলে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। এর আগে রায়ের পর্যবেক্ষণে আদালত বলেছে, জয় বাংলা জাতীয় ঐক্যের স্লোগান। জয় বাংলা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর শেখ মুজিবুর রহমানের প্রিয় স্লোগান এবং জয় বাংলা ৭ মার্চের ভাষণের সঙ্গে সংবিধানে অন্তর্ভুক্ত রয়েছে। “আবেদনকারী সংবিধানের ৩ ও ৪ নম্বর অনুচ্ছেদের ধারাবাহিকতায় জাতীয় স্লোগান হিসেবে জয় বাংলাকে অন্তর্ভুক্ত করা দাবি করেছেন। কিন্তু এটা এই আদালতের এখতিয়ারবর্হিভূত। কারণ কোনো আইন প্রণয়ন এবং সংবিধান সংশোধন করার একমাত্র অধিকার জাতীয় সংসদের।” তবে রাষ্ট্রপক্ষ এ রুলের সমর্থনে হলফনামা দিয়েছে উল্লেখ করে রায়ে আদালত বলেছে, আইনসচিব ও মন্ত্রিপরিষদ সচিব জয় বাংলাকে জাতীয় স্লোগান করায় একমত পোষণ করেছেন। জয় বাংলাকে জাতীয় স্লোগান করার আর্জি জানিয়ে বশিরের করা রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে ২০১৭ সালের ৪ ডিসেম্বর মন্ত্রিপরিষদ সচিব, আইন সচিব ও শিক্ষা সচিবের প্রতি রুল জারি করা হয়। ‘জয় বাংলা’কে কেন ‘জাতীয় স্লোগান ও মূলমন্ত্র’ হিসেবে ঘোষণার নির্দেশ দেওয়া হবে না তা জানতে চাওয়া হয় তাদের কাছে। আদালতে আবেদনকারী নিজেই শুনানি করেন; রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার। এছাড়াও সুপ্রিম কোর্টের জ্যেষ্ঠ কয়েকজন আইনজীবীও বক্তব্য দিয়েছেন আদালতে। সবাই ‘জয় বাংলা’কে জাতীয় স্লোগান হিসেবে সংবিধানে অন্তর্ভুক্ত করার পক্ষে মত দিয়েছেন। রায় ঘোষণার পর ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার সাংবাদিকদের বলেন, “রায়ে আদালত বলেছেন, বাংলাদেশের জাতীয় ¯ে¬াগান হবে জয় বাংলা। “তবে আদালত বলেছেন, তাদের (কোর্ট) সাংবিধানিক সীমাবদ্ধতা রয়েছে। আবেদনকারী, সকল আইনজীবীর (এর রুল শুনানিতে যেসব আইনজীবীর মতামত নিয়েছে আদালত) আবেগ-অনুভূতির সঙ্গে আদালতও একমত। কিন্তু আইন প্রণয়ন, সংবিধান সংশোধনের ক্ষমতা হাই কোর্ট বিভাগের নেই। “তবে আদালত তাদের পর্যবেক্ষণে বলেছে, রাষ্ট্র চাইলে, আইন বিভাগ যদি মনে করে সংবিধান সংশোধন করে জয় বাংলাকে জাতীয় স্লোগান করে আইনগত কার্যকারিতা প্রদান করা সম্ভব।”

পদ্মাসেতুর ৩ হাজার ৯শ’ মিটার দৃশ্যমান

ঢাকা অফিস ॥ শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তে পদ্মাসেতুর ২৬তম স্প্যান ‘৫-ডি’ সেতুর ২৮ ও ২৯ নম্বর পিলারের উপর স্থাপন করা হয়েছে। এতে সেতুর ৩ হাজার ৯শ’ মিটার (৩.৯ কিলোমিটার) দৃশ্যমান হয়েছে। সেতুতে এই স্প্যানটি বসানোর পর আর মাত্র ১৫টি স্প্যান বসানো বাকী থাকলো। অর্থ্যাৎ ৬.১৫ কিলোমটার সেতুর ২.২৫ কিলোমিটার বাকি রয়েছে। ২৫তম স্প্যান বসানোর ১৮দিনের মাথায় এই ২৬তম স্প্যানটি বসানো সম্ভব হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল ৯টা ৯ মিনিটের দিকে স্প্যানটি বসানো সম্পন্ন হয়। মূল সেতুর উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির এই তথ্য নিশ্চিত করে জানান, এর আগে সোমবার সকাল সাড়ে ৮টায় মাওয়ার কনস্ট্রাকশন ইয়ার্ড থেকে ধূসর রঙের ১৫০ মিটার দৈর্ঘ্যরে ৩ হাজার ১৪০ টন ওজনের স্প্যানটিকে নিয়ে রওনা হয়। ৩৬শ’ টন ধারণক্ষমতার ভাসমান ক্রেন ‘তিয়ান ই’ স্প্যানটি বহন করে নিয়ে আসে ২৮ নম্বর পিলারের কাছে। প্রকৌশলীরা জানান, ভাসমান ক্রেনটি নোঙর করে পজিশনিং করে ইঞ্চি ইঞ্চি মেপে স্প্যানটিকে তোলা হয় পিলারের উচ্চতায়। এরপর দুই পিলারের বেয়ারিংয়ের ওপর রাখা হয় স্প্যানটিকে। খুঁটিনাটি বিষয়গুলো আগে থেকেই বিশেষজ্ঞ প্যানেল দ্বারা পর্যবেক্ষণ করা হয়। করোনাভাইরাসের কারণে নববর্ষের ছুটিতে গিয়ে চীনে বেশকিছু কর্মী আটকা পড়লেও সেতুর কাজ এগিয়ে চলছে। একের পর এক স্প্যান বসিয়ে এভাবেই স্বপ্নের পদ্মাসেতু নির্মাণ করা হচ্ছে।