গাংনীতে ভিমরুলের কামড়ে কৃষকের মৃত্যু

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার গাঁড়াবাড়িয়া গ্রামে ভিমরুলের (ভুল্লা) কামড়ে ফকরুল ইসলাম (৫৫) নামের এক কৃষকের মৃত্যু হয়েছে। দু’সন্তানের জনক কৃষক ফকরুল গাঁড়াবাড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা। মঙ্গলবার সন্ধ্যারাতে ফকরুল ইসলামের মৃত্যু হয়। স্থানীয়রা জানান ফকরুল এদিন বিকেলে গ্রামের মাঠে কাজ করতে যান। কাজ করার এক পর্যায়ে আকস্মিকভাবে কয়েকটি ভিমরুলে তাকে কামড় দেয়। ভিমরুলের কামড় খেয়ে সে অসুস্থ্য হয়ে মাটিতে লুটে পড়েন। এসময় মাঠের অন্যান্য কৃষকরা তাকে উদ্ধার করে স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা দেয়ার সময় মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়েন।

মিরপুরে শ্রীরামপুর মোজাদ্দেদীয়া মাদরাসায় মা ও অভিভাবক সমাবেশ

মিরপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার শ্রীরামপুর মোজাদ্দেদীয়া দাখিল মাদরাসায় মা-অভিভাবক সমাবেশ ও কৃতি শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান বুধবার সকাল ১১টায় মাদরাসা প্রাঙ্গণে অনুষ্ঠিত হয়। মাদরাসার সভাপতি আব্দুল হালিমের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি’র বক্তব্য রাখেন জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও মিরপুর উপজেলা জাসদের সাধারন সম্পাদক আহাম্মদ আলী। মাদরাসার সহকারী শিক্ষক আনিচুর রহমান বাদশার সঞ্চালনে বিশেষ অতিথি’র বক্তব্য দেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জুলফিকার হায়দার, উপজেলা জাসদের সহ-সভাপতি বদর উদ্দিন ভদু চেয়ারম্যান, কেএম মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক আসাদুল হক, উপজেলা জাসদের সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আফতাব উদ্দীন, মাদরাসার সাবেক সভাপতি মোঃ আব্দুল বারী বিশ্বাস, মিরপুর উপজেলা জাসদের নেতা মোঃ ফরিদ উদ্দিন, মাদরাসার সুপার মাওলানা আজিজুর হক, সহ-সুপার ইমদাদুল হক, সহকারী শিক্ষক মোঃ নুরুল ইসলাম, কারী মোঃ আঃ কুদ্দুস, নজরুল ইসলাম, আব্দুল হাই, শাহীনুল ইসলাম, শরিফুল হক, আব্দুস সাত্তার, আশাদুল হক, ইসাহক আলী, আব্দুস সোবহান, জাতীয় যুব  জোট মিরপুর উপজেলা শাখার সহ-সভাপতি রেজাউল হক তুফান, সমাজসেবক বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ আঃ গণি ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী আজিজুল হক। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন মাদরাসা পরিচালনা পর্ষদের সদস্য, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সম্মানিত শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ, এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিগণ ও সাংবাদিকবৃন্দ ।

নরেন্দ্র মোদির বিরোধিতা করতে তাদের লজ্জা করে না – কাদের

ঢাকা অফিস ॥ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধের প্রধান মিত্র দেশ ভারত। কাজেই ভারতকে বাদ দিয়ে মুজিববর্ষ পূর্ণতা পায় না। মুজিববর্ষে ভারতের প্রধানমন্ত্রীর বাংলাদেশে আমন্ত্রণের বিরোধিতাকারীদের কড়া সমালোচনাও করেছেন তিনি। বুধবার রাজধানীর ধানমন্ডির আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের ঘোষণাপত্র ও গঠনতন্ত্র বই হস্তান্তর অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। ভারতের প্রধানমন্ত্রীকে মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ জানানো প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, নরেন্দ্র মোদিকে আমরা আমন্ত্রণ জানিয়েছি ভারতের প্রতিনিধি হিসেবে। সে ভারত থেকে প্রতিনিধিত্ব করবে, ভারতকে বাদ দিয়ে মুজিববর্ষ পূর্ণাঙ্গ রূপ পাবে না। নরেন্দ্র মোদির আগমনের বিরোধিতাকারীদের উদ্দেশ্যে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, যারা আজকে নরেন্দ্র মোদির আগমনের বিরোধিতা করছে প্রকারান্তরে তারা মুজিববর্ষেরই বিরোধিতা করছেন। নরেন্দ্র মোদির বিরোধিতা করতে তাদের লজ্জা করে না? ওবায়দুল কাদের বলেন, আজকে মুজিববর্ষ ঘিরে সারাদেশে– এমনকি সারাবিশ্বে যে জাগরণের ঢেউ আমরা লক্ষ্য করছি, দেশের ইতিহাস ঐতিহ্য আমাদের সংগ্রাম সাফল্য উন্নয়ন অর্জন সবকিছুকে ঘিরে নতুন আলোক সম্পাদিত হয়েছে, এটি অনেকের সহ্য হচ্ছে না। এটা অনেকের গাত্রদাহের কারণ। এসব কারণেই তারা এই মুজিববর্ষকে সামনে রেখে নরেন্দ্র মোদির আগমনের বিরোধিতা করছেন। বিএনপির সমালোচনা করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, কারা এই বিরোধিতা করছে? এরা তারা যারা ভারতে গিয়ে পানির কথা বলতে ভুলে গিয়েছিল। ভারতে গিয়ে নিজেদের স্বার্থসংশ্লিষ্ট গঙ্গা পানি চুক্তি নিয়ে যখন ঢাকায় প্রশ্ন করা হয়েছিল, তখন তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া বলেছিলেনÑ আমি তো এ কথা ভুলেই গেছি। আমরা আমাদের স্বার্থের কথা ভুলি না। ভারতের সঙ্গে বন্ধুত্ব করতে গিয়ে আমরা আমাদের স্বার্থকে ভুলে যাইনি। তিনি আরও বলেন, আমাদের ক্ষমতার উৎস দেশের জনগণ। ভারত আমাদের দুঃসময়ের বন্ধু। ভারত আমাদের উন্নয়নের সহযোগী। ভারতের সঙ্গে এটাই হচ্ছে আমাদের বন্ধুত্ব। তারা (বিএনপি) ক্ষমতার জন্য দাসত্ব করতেও প্রস্তুত। এটার বড় প্রমাণ নরেন্দ্র মোদি যখন নির্বাচিত হলেন, তখন ঢাকার ভারতীয় দূতাবাসের অফিস খোলার আগেই বিএনপির প্রতিনিধিরা ফুলের মালা আর মিষ্টি নিয়ে হাজির হয়েছিলেন। এখন তাদের লজ্জা করে না নরেন্দ্র মোদির বিরোধিতা করতে? এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য মতিয়া চৌধুরী, জাহাঙ্গীর কবির নানক, দফতর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, উপ-দফতর সম্পাদক আবু সায়েম খান প্রমুখ।

 

করোনা সংকট

বিশ্বব্যাপী চিকিৎসা উপকরণে ঘাটতির শঙ্কা ডব্লিউএইচও’র

ঢাকা অফিস ॥ করোনাভাইরাস সংক্রমণের কারণে অবিলম্বেই বিশ্বের বিভিন্ন দেশে চিকিৎসা উপকরণে ঘাটতি দেখা দিতে পারে বলে আশঙ্কা করছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডল্লিউএইচও)। এই সংকট মোকাবিলায় মেডিকেল কোম্পানিগুলোকে উৎপাদন ৪০ শতাংশ বাড়ানোর অনুরোধ জানিয়েছে তারা। মঙ্গলবার ডব্লিউএইচও প্রধান টেড্রস আধানম গ্যাব্রিয়েসুস জেনেভায় এ কথা জানান। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মহাপরিচালক বলেন, নভেল করোনাভাইরাসে সৃষ্ট কোভিড-১৯ রোগে আক্রান্তদের মধ্যে মৃত্যুর হার প্রায় ৩ দশমিক ৪ শতাংশ, যা মৌসুমী ফ্লুতে মৃত্যুহারের (এক শতাংশ) চেয়ে অনেক বেশি। ‘সংক্ষেপে বললে, কোভিড-১৯ ফ্লুর চেয়ে কম ছড়ায়, অনাক্রান্তদের মাধ্যমে সংক্রমণ ঘটে না, ফ্লুর চেয়ে কম গুরুতর অসুস্থতা দেখা যায়। এর ওষুধ বা প্রতিষেধক এখনও আসেনি এবং এটি নিয়ন্ত্রণযোগ্য।’ বিশ্বজুড়ে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৯২ হাজার ৭৯৬ জন, মারা গেছেন অন্তত ৩ হাজার ২০১ জন। স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের মতে, কোভিড-১৯ আক্রান্তদের মৃত্যুহার দেশ ভেদে দুই থেকে সর্বোচ্চ চার শতাংশ। খুবই স্বল্পমাত্রায় রোগাক্রান্ত হাজার হাজার মানুষকে হিসাবে আনলে মৃত্যুহার আরও কম হবে। করোনাভাইরাস সংক্রমণের পর মেডিকেল উপকরণের মূল্যবৃদ্ধি নিয়েও গভীর উদ্বেগ জানিয়েছে ডব্লিউএইচও। তাদের হিসাবে, ভাইরাসের কারণে সার্জিক্যাল মাস্কের দাম বেড়েছে, এন৯৫ মাস্কের দাম তিনগুণ হয়েছে এবং ভাইরাসপ্রতিরোধী গাউনের দামও দ্বিগুণ বেড়ে গেছে। সংস্থাটি বলছে, করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে বিশ্বব্যাপী মেডিকেল কর্মীদের প্রতি মাসে অন্তত ৮৯ মিলিয়ন মাস্ক, ৭৬ মিলিয়ন গ¬াভস এবং ১ দশমিক ৬ মিলিয়ন বিশেষ চশমা প্রয়োজন। করোনায় ইরানের পরিস্থিতি নিয়েও উদ্বিগ্ন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার কর্মকর্তারা। ডব্লিউএইচও’র ইমারজেন্সি প্রোগ্রামের প্রধান মাইকেল রায়ানের মতে, অন্য দেশের তুলনায় ইরানেরই মেডিকেল উপকরণ সংকট সবচেয়ে বেশি। দেশটিতে হঠাৎ করোনার প্রকোপ বেড়ে যাওয়াকে তিনি ‘আগুন নিভে যাওয়ার আগে দপ করে জ্বলে ওঠার’ সঙ্গে তুলনা করেছেন। গত ৩১ ডিসেম্বর চীনের উহানে প্রথমবারের মতো করোনাভাইরাস ধরা পড়ে। ইতোমধ্যে অন্তত ৮০টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস। এর মধ্যে সর্বোচ্চ আক্রান্ত ও মৃত্যু চীনে। দেশটির মূল ভূখন্ডে এ পর্যন্ত ২ হাজার ৯৮১ জন মারা গেছেন, আক্রান্ত হয়েছেন অন্তত ৮০ হাজার ২৭০ জন। চীনের বাইরে সর্বোচ্চ আক্রান্তের সংখ্যা দক্ষিণ কোরিয়ায়। সেখানে অন্তত ৫ হাজার ৩২৮ জনের শরীরে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস পাওয়া গেছে, মারা গেছেন ৩২ জন। করোনাভাইরাসে প্রাণহানির সংখ্যায় দ্বিতীয় অবস্থানে ইউরোপের দেশ ইতালি। মঙ্গলবার একদিনে আরও ২৭ জন মারা যাওয়ায় দেশটিতে মোট মৃতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭৯ জন, যা চীনের বাইরে এখন পর্যন্ত সর্বোচ্চ। ইতালিতে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজার ২৬৩। ইউরোপের দেশ ফ্রান্সে নতুন করে ১৪ জনের শরীরে নভেল করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে দেশটিতে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ২০৪ জন। সেখানে অন্তত চারজন কোভিড-১৯ রোগী মারা গেছেন। করোনা রোগীর সংখ্যা বেড়েছে জার্মানিতেও। দেশটিতে মোট ১৯৬ জন এনসিওভি-১৯ আক্রান্ত হয়েছেন। এছাড়া, সুইজারল্যান্ডে ৫৫ জন ও স্পেনে ৪৬ জনের শরীরে করোনাভাইরাস ধরা পড়েছে। মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে এ পর্যন্ত আড়াই হাজারেরও বেশি মানুষ করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। এর মধ্যে সবচেয়ে ভয়াবহ অবস্থা ইরানে। দেশটিতে অন্তত ৭৭ জন করোনায় প্রাণ হারিয়েছেন, আক্রান্ত হয়েছেন ২ হাজার ৩৩৬ জন। এছাড়া সংযুক্ত আরব আমিরাতে ২১, কুয়েতে ৫৬, বাহরাইনে ৪৭, লেবাননে ১২, ওমানে ১৩, ইসরায়েলে ১০, কাতারে সাত, জর্ডানে একজনের শরীরে নভেল করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। সৌদি আরবে একজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন, কোয়ারেন্টাইনে রয়েছেন অন্তত ৭০ জন। বিশ্বজুড়ে এ পর্যন্ত সাত বাংলাদেশি করোনা আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানা গেছে। এর মধ্যে সিঙ্গাপুরে পাঁচ, সংযুক্ত আরব আমিরাতে এক ও ইতালিতে এক বাংলাদেশি ভাইরাস আক্রান্ত হয়েছেন। ভারতে এ পর্যন্ত ২৮ জনের শরীরে প্রাণঘাতী করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে।

ব্যবসায়ীদের ডেকে চাঁদার ফর্দ ধরিয়ে দেওয়া হচ্ছে – রিজভী

ঢাকা অফিস ॥ মুজিববর্ষ উদযাপনকে সামনে রেখে সারাদেশে ‘চাঁদাবাজির মহোৎসব’ চলছে বলে অভিযোগ করেছেন বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী। নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে গতকাল বুধবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, “মুজিব জন্মশতবার্ষিকী পালন নিয়ে চলছে তুঘলকি কান্ড, মুজিব জন্মশতবার্ষিকী নিয়ে সারাদেশে চলছে চাঁদাবাজির মহোৎসব। ব্যবসায়ীদের দিন কাটছে চাঁদাবাজদের আতঙ্কে।” রিজভী বলেন, “আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের যতই বলুন না কেন মুজিববর্ষের নামে চাঁদাবাজির দোকান দেওয়া যাবে না, এটি তার মুখের কথা। বাস্তবে এর কোনো প্রতিফলন নেই। নেতারা বড় বড় ব্যবসায়ীদের ডেকে চাঁদার ফর্দ ধরিয়ে দিচ্ছেন। “এখানেই থেমে নেই। সিটি করপোরেশন মুজিববর্ষ উপলক্ষে রাজধানীর প্রতিটি বাড়ির দেয়াল রং ও সংস্কার করতে গণবিজ্ঞপ্তি জারি করেছে। সাধারণ মানুষকে বাধ্য করা হচ্ছে এই বর্ষ পালনে। সদ্য সরকারি হওয়া ৩০৪টি কলেজকে শেখ মুজিবের ভাস্কর্য তৈরি করতে গত ১৪ জানুয়ারি নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।” তিনি বলেন, “মুজিব জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে কেবল যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে আয়োজন করতে যাচ্ছে ৯৭টি ইভেন্ট, যার সম্ভব্য ব্যয় ধরা হয়েছে ১৭৬ কোটি ৬ লাখ টাকা। এভাবে প্রতিটি মন্ত্রণালয় ও সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠান যে পরিমাণ টাকা খরচের উদ্যোগ নিয়েছে তাতে সবাই হতবাক। যেখানে দেশের তরুণ সমাজ বেকারত্বে ধুঁকছে, মানুষ অর্ধহারে-অনাহারে দিনযাপন করছে, সেখানে এভাবে অর্থ খরচের উৎসব নিয়ে জনমনে প্রশ্ন উঠেছে।” মুজিববর্ষের আয়োজনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আমন্ত্রণ জানানোর সমালোচনা করে রিজভী বলেন, “দিল্লিতে সুপরিকল্পিতভাবে গণহত্যা সংঘটিত হয়েছে। এটি কেবল বাংলাদেশের মানুষের বক্তব্য নয়, গতকাল ভারতের পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জিও সমাবেশে স্পষ্ট ভাষায় বলেছেন, দিল্লিতে সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা হয়নি বরং সুপরিকল্পিতভাবে গণহত্যা চালানো হয়েছে। “নিজ দেশেই যে রক্ত ঝরছে সেটিকে বন্ধ না করে মিস্টার মোদী যে বাংলাদেশে আসছেন সেটি কি এদেশের মানুষকে উপহাস করা নয়? এটি তার বিবেচনায় থাকা উচিত।” পিরোজপুরের সরকার দলীয় এক সাবেক সাংসদ ও তার স্ত্রীকে সকালে কারাগারে পাঠিয়ে বিচারক বদলের পরই বিকালে তাদেরকে জামিন দেওয়ার ঘটনাকে নজিরবিহীন অভিহিত করেন রুহুল কবির রিজভী। “দুঃখজনক হলেও সত্য, দেশের বিচার বিভাগের স্বাধীনতা, স্বকীয়তা ও পৃথকীকরণের পরিবর্তে নিশিরাতের সরকার বিচার বিভাগকে আইন ও বিচার মন্ত্রণালয়ের একটি শাখা হিসেবে পরিণত করেছে। বিচারকের কাজ এখন ন্যায় বিচারের মাধ্যমে রায় দেওয়া নয়, ক্ষমতাসীন মহলের কাছ থেকে পাঠানো রায় পাঠ করা। আওয়ামী লীগ আইন আদালতকে তাদের পকেট আর ভ্যানেটি ব্যাগ ভরেছে। বাংলাদেশের বিচার বিভাগ স্বাধীন এই কথা এখন নিছক কৌতুক।” “এখন পিরোজপুরের সেই স্বাধীন বিবেকের বিচারকের পরিণতি কী হবে তা নিয়ে দেশবাসী শংকিত। তার পরিণতি কি এস কে সিনহার মতো হবে, না মোতাহার হোসাইনের মতো হবে তা নিয়ে দেশবাসীসহ সংশ্লিষ্ট সবাই গভীর শঙ্কা নিয়ে অপেক্ষা করছে।” সংবাদ সম্মেলনে দলের চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য শাহিদা রফিক, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, কেন্দ্রীয় নেতা হাবিবুল ইসলাম হাবিব প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সরকারি কর্মকর্তাদের বিদেশে প্রশিক্ষণ নিতে শর্ত যুক্ত করার সুপারিশ

ঢাকা অফিস ॥ সরকারি কর্মকর্তাদের অনেকেই চাকরি জীবনের শেষ দিকে প্রশিক্ষণের জন্য বিদেশে যান। অনেক ক্ষেত্রে দেখা গেছে প্রশিক্ষণ নিয়ে এসে কিছুদিনের মধ্যে অবসরে গেছেন সেই কর্মকর্তা। এর ফলে তার প্রশিক্ষণলব্ধ জ্ঞান সরকারের কোনো কাজেই আসে না। বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে সরকারি কর্মকর্তাদের দেশের বাইরে প্রশিক্ষণে পাঠানোর ক্ষেত্রে চাকরি থেকে অবসরের মেয়াদ ন্যূনতম চার বছর থাকার শর্তযুক্ত করতে সুপারিশ করেছে সংসদীয় কমিটি। বুধবার জাতীয় সংসদ ভবনে বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির বৈঠকে এ সুপারিশ করা হয়। কমিটির সভাপতি র আ ম উবায়দুল মোকতাদির চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে কমিটির সদস্য বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী, আশেক উল্লাহ রফিক এবং সৈয়দা রুবিনা আক্তার অংশ নেন। বৈঠকে জানানো হয়, কক্সবাজারকে বিশ্বের মানচিত্রে অন্যতম আকর্ষণীয় পর্যটন কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তুলতে এবং প্রতিবেশী দেশ বিশেষত ভারত, মিয়ানমার, থাইল্যান্ড ও চীনের কুনমিংয়ের সঙ্গে আকাশপথে যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়নের লক্ষ্যে কক্সবাজার বিমানবন্দরকে আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে উন্নীত করতে ‘কক্সবাজার বিমানবন্দর উন্নয়ন’ প্রকল্পের কাজ চলমান রয়েছে। এ ছাড়া পাঁচ তারকা হোটেলে গান পরিবেশনকারী শিল্পীরা যাতে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত না হয় সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে কমিটি সুপারিশ করেছে। বৈঠকে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের প্রাইভেট ও কমার্শিয়াল এয়ারক্রাফটের পার্কিং সুবিধা বৃদ্ধি, বৈরী আবহাওয়ায় পার্কিং এয়ারক্রাফ্টগুলোর শেল্টার সুবিধা এবং এয়ারক্রাফটগুলোর রুটিন সার্ভিসিং ও মেরামত কাজের সুবিধা সৃষ্টির জন্য শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে জেনারেল এভিয়েশন হ্যাঙ্গার অ্যাপ্রোণ নির্মাণ প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে বলে জানানো হয়।

সাংবাদিকরা তো খবরের পেছনে ছুটবেই, তাদের দোষ দেখছি না – হাইকোর্ট

ঢাকা অফিস ॥ সাংবাদিক দম্পতি সাগর-রুনির হত্যা মামলার তদন্তের অগ্রগতি প্রতিবেদন আদালতের উপস্থাপনের আগেই গণমাধ্যমে কিভাবে প্রকাশ পেল তা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে হাইকোর্ট। বুধবার বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ এ প্রশ্ন তোলেন। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী সাগর-রুনি হত্যা মামলার অগ্রগতি প্রতিবেদন হাইকোর্টের উপস্থাপনের পর বেঞ্চের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম বলেন, এ রিপোর্ট মিডিয়ায় কিভাবে গেল? হয় অ্যাটর্নি জেনারেল কার্যালয় বা তদন্ত সংস্থার কাছ থেকে এ রিপোর্ট ছুটেছে। কোর্টে উপস্থাপনের আগেই এভাবে মিডিয়ায় রিপোর্ট প্রকাশ পেলে জনমনে এক ধরণের পারসেপশন তৈরি হয়। এ পর্যায়ে ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অমিত তালুকদার বলেন, আমি সাংবাদিক ছিলাম, আমি কাউকে কোনো রিপোর্ট দেইনি। যার কারণে আমার সাংবাদিক বন্ধুরা আমাকে দেখতে পারেন না। তখন বিচারপতি ইনায়েতুর রহিম বলেন, সাংবাদিকদের কাজই হল খবরের পেছনে ছোটা। তারা খবর সংগ্রহ করতে ছুটবেই। আমরা তো সাংবাদিকদের কোন দোষ খুঁজে পাচ্ছি না। অমিত তালুকদার বলেন, এভাবে রিপোর্ট প্রকাশ আদালত অবমাননার শামিল। বিচারপতি এম. ইনায়েতুর রহিম বলেন, সাংবাদিকরা রিপোর্ট পেলেই ছাপাবে এটাই স্বাভাবিক। যদি আপনি ওই রিপোর্টের সঙ্গে তদন্ত প্রতিবেদনের মিল না থাকে তখন তাদের দোষারোপ বা ধরার সুযোগ থাকে। তিনি আরো বলেন, রিপোর্ট আদালতে দাখিলের আগেই যে সাংবাদিকদের হাতে গেছে দোষ তো কাউকে না কাউকে স্বীকার করতেই হবে। উল্লেখ্য,গত সোমবার সাগর-রুনি হত্যা মামলায় র‌্যাবের সর্বশেষ অগ্রগতি প্রতিবেদন আদালতে দাখিলের আগেই ইত্তেফাকসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রকাশ পায়। এদিকে আদালতের এখতিয়ার থাকার পরেও শুনানির এখতিয়ার নিয়ে প্রশ্ন তোলায় হাইকোর্ট মামলার আসামি তানভীর রহমানের আবেদন কার্যতালিকা থেকে বাদ দিয়েছেন। ফলে আদালতে এ মামলার অগ্রগতি প্রতিবেদনের উপর শুনানি হয়নি।

মিরপুরে দুর্নীতি প্রতিরোধে পরিবারের ভূমিকায় মুখ্য প্রতিপাদ্যে বিতর্ক প্রতিযোগিতা

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে দুর্নীতি প্রতিরোধে পরিবারের ভূমিকায় মুখ্য প্রতিপাদ্যে বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার দিনব্যাপি উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের উদ্যোগে মিরপুর সরকারী বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, নাজমুল উলুম ফাজিল মাদ্রাসা এবং মিরপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ে এ বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। বিতর্ক প্রতিযোগিতায় উপজেলার সকল মাধ্যমিক ও মাদ্রাসার শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করেন। প্রতিযোগিতায় মডারেটরের দায়িত্ব পালন করেন উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জুলফিকার হায়দার, সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার হোসনে মোবারক, একাডেমিক সুপারভাইজার আশিকুজ্জামান প্রমুখ। এসময় তাদের সহযোগিতা করেন বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক ও সহকারী শিক্ষকবৃদ।

করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্কের কিছু নেই – মোদী

ঢাকা অফিস ॥ ভারতে করোনাভাইরাস নিয়ে নতুন করে আতঙ্ক ছড়িয়েছে। ইতালি ও দুবাই থেকে আসা দুই ভারতীয়র দেহে এ ভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ার পর এ আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরিস্থিত মোকাবেলায় শেষ পর্যন্ত করোনাভাইরাস নিয়ে ভারতীয়দেরকে আশ্বাসবাণী শুনিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বলেছেন, করোনাভাইরাস নিয়ে আতঙ্কিত হওয়ার কোনো কারণ নেই। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আছে। সংক্রমণ ঠেকাতে কেন্দ্রীয় সরকারের মন্ত্রীরা একযোগে কাজ করছেন। সোমবার করোনাভাইরাসে দিল্লি ও তেলেঙ্গানার দুই ভারতীয়ের আক্রান্ত হওয়ার খবর ছড়াতেই আতঙ্ক দেখা দেয়। তেলঙ্গানার বাসিন্দা, বেঙ্গালুরুতে কর্মরত ২৪ বছর বয়সী এক সফ্টওয়্যার ইঞ্জিনিয়ারের শরীরে ভাইরাস সংক্রমণ ধরা পড়ে। এর আগে তিনি বেঙ্গালুরুতে ছিলেন। তাতেই আতঙ্ক ছড়িয়েছে কর্ণাটকে। উদ্বিগ্ন রাজ্য প্রশাসনও। বেঙ্গালুরুর যে এলাকায় ওই ব্যক্তি ছিলেন, সেখানে পৌঁছেছেন রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের কর্মকর্তারা।এলাকার মানুষজনের ওপর নজর রাখা হচ্ছে। এনডিটিভি জানিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী মঙ্গলবার নাগরিকদেরকে আশ্বস্ত করে বলেছেন, “সরকার সবরকম ব্যবস্থা নিচ্ছে। বিদেশ থেকে যারা ভারতে পা রাখছেন তাদের পর্যবেক্ষণে রেখে শারীরিক পরীক্ষা করা হচ্ছে। তাই আতঙ্কের কিছু নেই। আমাদের একযোগে কাজ করতে হবে। ভাইরাসের আক্রমণ রোধে ন্যূনতম সাবধানতার মাধ্যমে নিজের সুরক্ষা নিজেকেই নিশ্চত করতে হবে।” করোনাভাইরাস থেকে বাঁচতে দেশবাসীকে সচেতন হওয়ার বার্তা দিয়ে টুইটে মোদী লিখেছেন,  “এই মারণ ভাইরাস সংক্রমণ থেকে বাঁচতে সচেতনতা হিসাবে কিছু নিয়ম মেনে চলুন।” বারবার হাত ধোয়ার পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। একই সঙ্গে সর্দি কাশি হলে মুখে মাস্ক অথবা মুখ টিসু দিয়ে ঢেকে রাখারও পরামর্শ দিয়েছেন। করোনাভাইরাসের প্রকোপে চিন-সহ বিশ্বে ইতোমধ্যেই মৃত্যুসংখ্যা ৩০০০ ছাড়িয়েছে। ভারতে এখন পর্যন্ত মোট পাঁচ জন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। যার মধ্যে প্রথম তিনজনই কেরালার বাসিন্দা। চিকিৎসার পর আপাতত সুস্থ তারা। এরপরই নতুন করে দু’জনের আক্রান্ত হওয়ার খবর এসেছে। তাতেই ভারতজুড়ে উদ্বেগ ছড়িয়েছে।

ইতালিতে এক বাংলাদেশি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত

ঢাকা অফিস ॥ ইতালিতে বাংলাদেশি এক নাগরিক নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন বলে জানিয়েছে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)। গতকাল বুধবার ইনস্টিটিউটের নিয়মিত ব্রিফিংয়ে আইইডিসিআরের পরিচালক মীরজাদী সেব্রিনা ফ্লোরা সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান। এ নিয়ে তিন দেশে মোট ছয়জন বাংলাদেশির এ ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার তথ্য পাওয়া গেল, যাদের মধ্যে দুইজন ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন। অধ্যাপক ফ্লোরা বলেন, “এটা আমাদের জন্য একটি দুঃসংবাদ যে, ইতালিতে একজন বাংলাদেশি করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি অসুস্থ, কিন্তু মাইল্ড অসুস্থ। তিনি বাসাতেই আছেন, বাসায় রেখেই তার চিকিৎসা করা হচ্ছে।” দুই মাস আগে চীনের উহান থেকে ছড়াতে শুরু করা নভেল করোনাভাইরাসে মৃত্যুর সংখ্যা ইতোমধ্যে ৩ হাজার ২০০ ছাড়িয়ে গেছে; আক্রান্তের সংখ্যা পৌঁছেছে প্রায় ৯৩ হাজারে। এর আগে সিঙ্গাপুরে পাঁচ প্রবাসী বাংলাদেশি এবং সংযুক্ত আরব আমিরাতে একজন নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হন। তাদের মধ্যে সিঙ্গাপুরে চিকিৎসা নেওয়া দুজন সুস্থ হয়ে বাসায় ফিরে গেছেন বলে গত শনিবার আইইডিসিআর থেকে জানানো হয়। তবে চীনে থাকা বাংলাদেশি বা বাংলাদেশে কারও মধ্যে এ পর্যন্ত নতুন করোনাভাইরাসের সংক্রমণের তথ্য পাওয়া যায়নি। আইইডিসিআরের পরিচালক জানান, নভেল করোনাভাইরাসের বিস্তার রোধে বাংলাদেশের বিমানবন্দরে ইরান, ইতালি, জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ার নাগরিকদের ‘অন অ্যারাইভাল’ ভিসা সুবিধা আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে। ফলে কেউ আসতে চাইলে তাদের আগেই নিয়ম মাফিক ভিসার আবেদন করতে হবে। “আমাদের দূতাবাস থেকে তাদের ভিসা নিয়ে আসতে হবে। ভিসা নেওয়ার সময় তাদের যে করোনাভাইরাস নেই বা কোয়ারেন্টিন পার করেছেন- এমন সার্টিফিকেট দাখিল করতে হবে।” চলাফেরায় ব্যাপক কড়াকড়ি আরোপের মাধ্যমে চীনের ভেতরে ভাইরাসের বিস্তার কমিয়ে আনা গেলেও চীনের বাইরে সংক্রমণ বাড়ছে দ্রুত গতিতে। ইতোমধ্যে ৭৩ দেশে এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে জানিয়ে আইইডিসিআরের পরিচালক বলেন, “প্রতিদিনই উদ্বেগ আস্তে আস্তে বাড়ছে। ইতালি, দক্ষিণ কোরিয়া, ইরান ও জাপানকে হটস্পট হিসেবে চিহ্নিত করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা।” তিনি বলেন, “হাঁচি-কাশির মাধ্যমে করোনাভাইরাস বাইরে বেরিয়ে গেলে দুই থেকে সাত ঘণ্টা বেঁচে থাকে। সেদিক থেকে সীমান্ত দিয়ে আসা পণ্যের মাধ্যমে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা নেই।” তবে করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাব দেখা দিয়েছে এমন কোনো দেশে আপাতত জরুরি প্রয়োজন ছাড়া না যেতে এবং সেসব দেশ থেকে প্রবাসী বাংলাদেশিদের দেশে না আসাতার আহ্বান জানান অধ্যাপক ফ্লোরা। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “করোনাভাইরাস পরিস্থিতি নিয়ে কোনো তথ্য সরকার গোপন করছে না। রোগী বা আক্রান্ত ব্যক্তি শনাক্ত হলে সাথে সাথে জানানো হবে।”

ঝিনাইদহের নবগঙ্গা নদীর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ অভিযান চলছে

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহে ২য় দিনের মত নবগঙ্গা নদীর অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। গতকাল বুধবার সকাল থেকে বিকাল পর্যন্ত এ অভিযান চালায় জেলা প্রশাসন ও পানি উন্নয়ন বোর্ড। এসময় শহরের চাকলাপাড়া ও ক্যাসেল ব্রীজ সংলগ্ন টিনের ঘর, পাকা-আধাপাকা দোকান ঘর গুড়িয়ে দেওয়া হয়। অভিযানে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী সারোয়ার জাহান সুজনসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা অংশ নেয়। মঙ্গলবার সকালে শহরের চাকলাপাড়া ব্রীজ এলাকা থেকে পবহাটি ব্রীজ এলাকা পর্যন্ত ৭৩টি উচ্ছেদ অভিযান শুরু হয়। এ দু’দিনে গুড়িয়ে দেওয়া হয় অর্ধশতাধিক স্থাপনা। এসময় নির্বাহী প্রকৌশলী সারোয়ার জাহান সুজন জানান, অবৈধ দখলদারদের তালিকা প্রনয়ণ করে তাদের অবৈধ স্থাপনা স্বেচ্ছায় সড়িয়ে নিতে নোটিশ দেওয়া হয়েছিল। অনেকে স্বেচ্ছায় সরিয়ে নিয়েছে। যার স্থাপনা সরাননি  সেইগুলো উচ্ছেদ শুরু হয়েছে। ২ দিনে চাকলাপাড়া, আরাপপুরের ক্যাসেল ব্রীজ এলাকার স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। উচ্ছেদ শেষ না হওয়া পর্যন্ত এ অভিযান চলবে বলেও জানান তিনি।

কুমারখালীতে গরু বোঝায় নসিমন খাদে

ফায়ার সার্ভিস কর্মিদের প্রচেষ্টায় উদ্ধার হয় মৃতদেহ

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে গরু বোঝায় নমিসন খাদে পড়ে এক গরু ব্যবসায়ী মারা গেছে। মঙ্গলবার উপজেলার হোগলা গ্রামে এ ঘটনায় ওই ব্যবসায়ীর মৃতদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস কর্মিরা। ব্যবসায়ীর নাম নজরুল ইসলাম। বাড়ি খোকসা উপজেলার আমলাবাড়িতে। উদ্ধার অভিযানে অংশ নেন কুমারখালী ফায়ার সার্ভিসের সদস্য সাইদুর রহমান, শাহিন মুন্সী ও মাহবুবুর রহমানসহ অন্যরা। তাদের প্রচেষ্টায় উদ্ধার হয় ব্যবসায়ীর মৃতদেহ। জীবনের ঝুঁকি নিয়ে তারা এ অভিযান পরিচালনা করেন।

বীর মুক্তিযোদ্ধা বদর উদ্দিন বদুর ৭ম মৃত্যু বার্ষিকী আজ

নিজ সংবাদ ॥ আজ ৫ মার্চ বীর মুক্তিযোদ্ধা বদর উদ্দিন বদু’র ৭ম মৃত্যু বার্ষিকী। এ উপলক্ষ্যে আজ বৃহস্পতিবার কুষ্টিয়া শহরের আড়–য়াপাড়াস্থ কহিনুর স্মরনীতে বাদ আছর বীর মুক্তিযোদ্ধা বদর উদ্দিন বদু ভাব সঙ্গীত ও শান্তি আশ্রমে এক দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। এদিকে এ উপলক্ষ্যে ৬ মার্চ শুক্রবার বাদ আছর বীর মুক্তিযোদ্ধা বদর উদ্দিন বদু’র নিজ বাসভবনে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়েছে। উক্ত দোয়া মাহফিলে রাজনৈতিক সঙ্গী, রনাঙ্গনের সাথী বীর মুক্তিযোদ্ধাগনসহ সকল শুভাকাঙ্খীদের দোয়া মাহফিলে শরীক হবার জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা বদর উদ্দিন বদুর ছোট ভাই মোঃ রেজাউল হক।

ভেড়ামারার ফাইজা’র আঁকা ছবি প্রধানমন্ত্রীর বাংলা নববর্ষ ১৪২৭-এর কার্ডের জন্য মনোনীত

ভেড়ামারা প্রতিনিধি  ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারার যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা রশিদুল আলম প্রতিবন্ধী ও অটিজম বিদ্যালয়ের প্রতিবন্ধী ছাত্রী মরিয়ম খাতুন ফাইজার আঁকা ছবি প্রধানমন্ত্রীর বাংলা নববর্ষ ১৪২৭ এর কার্ডের জন্য মনোনীত হয়েছে। গতকাল বুধবার দুপুরে এ উপলক্ষে নিজ অফিস কক্ষে প্রধানমন্ত্রীর কাছে থেকে প্রাপ্ত একলাখ টাকার চেক ও চিঠি ফাইজার হাতে তুলে দেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহেল মারুফ। এসময় স্কুলটির প্রধান শিক্ষক রুহুল ইসলাম, ফাইজার অভিভাবকসহ স্কুলের শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

দৌলতপুরে জাতীয় শিশু দিবস ও মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপনের প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত 

শরীফুল ইসলাম ॥ মুজিববর্ষে কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে যথাযোগ্য মর্যাদায় ১৭ মার্চ জাতীয় শিশু দিবস, ২৫ গণহত্যা দিবস এবং ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস উদযানের প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারের সভাপতিত্বে গতকাল বুধবার বেলা ১১টায় উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে পৃথক প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপস্থিত ছিলেন দৌলতপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাড. এজাজ আহমেদ মামুন, দৌলতপুর সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আজগর আলী, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সাক্কির আহমেদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সোনালী খাতুন আলেয়া, উপজেলা প্রকৌশলী ইফতেখার উদ্দিন জোয়াদ্দার, দৌলতপুর প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা, দৌলতপুর প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সাইদুর রহমান, মথুরাপুর ইউপি চেয়ারম্যান সরদার হাসিম উদ্দিন হাসু, পিয়ারপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবু ইউসুফ লালু, ফিলিপনগর ইউপি চেয়ারম্যান একেএম ফজলুল হক কবিরাজ ও রামকৃষ্ণপুর ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজ মন্ডল। সভার শুরুতে মুজিববর্ষে উপস্থিত সকলকে শুভেচ্ছা জানিয়ে স্বাগত বক্তব্য রাখেন দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার। এরপর ১৭ মার্চ জাতীয় শিশু দিবস এবং মুজিববর্ষ যথাযোগ্য ও স্বাড়ম্বরে উদ্যাপনের বিস্তারিত কর্মসূচী তুলে ধরেন দৌলতপুর সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আজগর আলী। ১৭ মার্চ কর্মসূচীর মধ্যে রয়েছে প্রত্যুষে শতবার তোপধ্বনির মধ্যদিয়ে দিবসের শুভ সুচনা। এরপর জাতির পিতার প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পন। সকাল ৯টায় শিশু কিশোরদের নিয়ে বর্নাঢ্য শোভাযাত্রা, আলোচনা সভাসহ বিভিন্ন কর্মসূচী। এছাড়াও মুজিববর্ষ উপলক্ষ্যে ১৬ মার্চ স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীদের চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। সভায় আগামী ২৬ মার্চ মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস দু’দিনব্যাপী উদযাপনের লক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচী গ্রহন করা হয়। একই সাথে ২৫ মার্চ গণহত্যা দিবস পালনে কর্মসূচী গ্রহণ করা হয়। পৃথক সভায় মতামত তুলে বক্তব্য রাখেন, জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক ডেপুটি কান্ডার ও দৌলতপুর দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম, দৌলতপুর প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মুনতাকিমুর রহমান, দৌলতপুর শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক সরকার আমিরুল ইসলাম, দৌলতখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মজিবর রহমান ও প্রভাষক শরীফুল ইসলাম প্রমুখ। সভার শেষে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার জাতীয় শিশু দিবস, গণহত্যা দিবস এবং মহান স্বাধীনতা ও জাতীয় দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

 

ভিপি নূরকে ৩ দিনের মধ্যে পাসপোর্ট দেওয়ার নির্দেশ

ঢাকা অফিস ॥ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ-ডাকসুর সহ-সভাপতি (ভিপি) নুরুল হক নূরকে তিন দিনের মধ্যে পাসপোর্ট দিতে নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্ট। পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে এ নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। পাসপোর্ট দেওয়ার নির্দেশনা চেয়ে নূরের করা একটি রিট আবেদনে জারি করা রুল যথাযথ ঘোষণা করে বিচারপতি গোবিন্দ চন্দ্র ঠাকুর ও বিচারপতি মোহাম্মদ উল্লাহর হাই কোর্ট বেঞ্চ বুধবার এই রায় দিয়েছে। আদালতে রুলের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী মহসীন রশিদ। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন আবু ইয়াহিয়া দুলাল। রায়ের পর নূরের আইনজীবী সাংবাদিকদের বলেন, “রায়ের অনুলিপি পাওয়ার তিন দিনের মধ্যে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের ভিপি নূরকে পাসপোর্ট দিতে পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালককে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।” মহসিন রশিদ বলেন, আবেদন করে নির্ধারিত সময়ে পাসপোর্ট না পেয়ে স্বরাষ্ট্র সচিব ও পাসপোর্টের ডিজিকে লিগ্যাল নোটিশ দিয়েছিলেন নূর। তাদের কাছ থেকে কোনো সাড়া না পেয়ে হাই কোর্টে এই রিট করেছিলেন তিনি। গত ১ আগস্ট এই রিট আবেদন করে নূর সাংবাদিকদের বলেছিলেন, “আমি ডাকসু ভিপি হয়েও এ পর্যন্ত চার বার ছাত্রলীগের সন্ত্রাসীদের দ্বারা আক্রমণের শিকার হয়েছি। সে কারণে আমি আহত। চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য আমাকে বিদেশে যাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। সে কারণে ২৩ এপ্রিল ইমার্জেন্সি পাসপোর্টের জন্য আবেদন করেছিলাম যথাযথ নিয়মে। “২ মে পাসপোর্ট দেওয়ার কথা ছিল। কিন্তু রহস্যজনক কারণে দীর্ঘদিন পাসপোর্টটি ঝুলিয়ে রাখা হল। পরে আদালতের শরণাপন্ন হই।” ওই রিটের প্রাথমিক শুনানি করে বিচারপতি মো. আশফাকুল ইসলাম ও মোহাম্মদ আলীর হাই কোর্ট বেঞ্চ রুল জারি করে। ররুলে নুরুল হক নূরকে কেন জরুরি ভিত্তিতে পাসপোর্ট দিতে নির্দেশ দেওয়া হবে না, তা জানতে চাওয়া হয়। ওই রুলই যথাযথ ঘোষণা করে রায় দিয়েছে উচ্চ আদালত।

ভেড়ামারায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা

ভেড়ামারা প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলা অডিটোরিয়ামে বুধবার উপজেলা প্রশসানের উদ্যোগে আগামী ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন, ২৫ মার্চ গনহত্যা দিবস, ২৬ মার্চ স্বাধীনতা দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভা অনুষ্ঠিত হয়। ভেড়ামারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহেল মারুফের সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন, ভেড়ামারা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আক্তারুজ্জামান মিঠু, ভেড়ামারা পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব শামিমুল ইসলাম ছানা, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার এ্যাডঃ আলম জাকারিয়া টিপু, উপজেলা জাসদের সাধারন সম্পাদক আনছার আলী, থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) জহির, ভেড়ামারা সরকারি মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ আঃ রাজ্জাক রাজা, ভেড়ামারা কলেজের অধ্যক্ষ খলিলউল্লাহ, রেল বাজার  বনিক সমিতি’র সাধারন সম্পাদক আবু দাউদ প্রমুখ।

মেহেরপুরে শিলাবৃষ্টিতে উঠতি ফসলের ক্ষতি 

মেহেরপুর প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরে শিলাবৃষ্টি হয়েছে। শিলাবৃষ্টিতে উঠতি ফসলের ক্ষতি হয়েছে। এ মৌসুমে মেহেরপুর সদর উপজেলা, গাংনী ও মুজিবনগর উপজেলাব্যাপী ব্যাপক গম-মসুর ক্ষেত রয়েছে। এছাড়াও এবারের আমের মুকুল চোখে পড়ার মতো। গতকাল বুধবার সন্ধ্যার পূর্ব মুহুর্তে শিলাবৃষ্টি ও মৃদু বাতাস হওয়ায় গম-মসুর ক্ষেতের ক্ষতি হয়েছে। ঝরে পড়েছে আমের মুকুল। এলাকাবাসি জানায়, শিলাবৃষ্টি ও মৃদু বাতাস হলেও তার সময়কাল ছিল স্বল্প। তাই ফসলের কিছুটা কম ক্ষতি হয়েছে। জেলার অধিকাংশ এলাকায় বৃষ্টি হয়েছে। তবে কিছু-কিছু এলাকায় বৃষ্টির পাশাপাশি শিলা পড়েছে। ফলে ওই সব এলাকায় ফসল ও আমের মুকুল ঝরে ক্ষতি সাধিত হয়েছে।

পিরোজপুরের জজের ব্যবহার ছিল ‘অত্যন্ত অশালীন’ – আইনমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ আওয়ামী লীগ নেতা এ কে এম এ আউয়ালের জামিন নিয়ে নাটকীয়তায় আলোচনার প্রেক্ষাপটে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, পিরোজপুরের জেলা ও দায়রা জজ মো. আব্দুল মান্নান ‘অত্যন্ত অশালীন ও রূঢ়’ ব্যবহার করায় তাকে তাৎক্ষণিক বদলি করা হয়েছে। ক্ষমতাসীন দলের নেতাকে কারাগারে পাঠানো ওই বিচারককে তাৎক্ষণিক বদলি আইনের শাসনের ব্যত্যয় কিংবা বিচারিক কাজে হস্তক্ষেপ নয় বলেও দাবি করেন আইনমন্ত্রী। দুর্নীতির মামলায় পিরোজপুরের সাবেক সংসদ সদস্য আউয়াল ও তার স্ত্রী লায়লা পারভীনের জামিনের আবেদন নাকচ করে মঙ্গলবার সকালে তাদের কারাগারে পাঠানোর আদেশে দিয়েছিলেন জেলা জজ আব্দুল মান্নান। এরপর পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আউয়ালের সমর্থকদের বিক্ষোভ-ভাংচুরের প্রেক্ষাপটে জজ আব্দুল মান্নানকে বদলি করা হয়। বিকালে পিরোজপুরের ভারপ্রাপ্ত জেলা ও দায়রা জজের দায়িত্ব নিয়ে নাহিদ নাসরিন আওয়ামী লীগ নেতা আউয়াল ও তার স্ত্রীকে জামিন দেন। এনিয়ে তুমুল আলোচনার মধ্যে বুধবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, “পিরোজপুরে জেলা জজের কাছে পিরোজপুর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং তার স্ত্রীর দুর্নীতির মামলার জন্য জামিত চাইতে গিয়েছিলেন। “জামিন চাওয়ার সময় তার আইনজীবী এবং বারের সকল আইনজীবীর সাথে আমরা যে তথ্যাদি পেয়েছি, জেলা ও দায়রা জজ অত্যন্ত অশালীন এবং রূঢ় ব্যবহার করেন। সেই উদ্ভুত পরিস্থিতিতে এমন একটা অবস্থা দাঁড়ায়, যেখানে বারের সকলে আদালত বর্জন করার সিদ্ধান্ত নেয়। “এই অবস্থায় যখন এসব গন্ডগোল চলছিল এবং রাস্তায় লোকজন বেরিয়ে গিয়েছিল, সেটাকে কন্ট্রোল করার জন্য তাকে (জজ) ওখান থেকে স্ট্যান্ড রিলিজ (তাৎক্ষণিক বদলি) করে আদেশ দেওয়া হয়, আইন মন্ত্রণালয়ের প্রস্তাবে।” জেলা জজের এই ব্যবহার করা সমীচীন হয়নি মন্তব্য করে তিনি বলছেন, ‘সিচুয়েশনটাকে প্রশমিত’ করতেই আওয়ামী লীগ নেতা আউয়াল ও তার স্ত্রী জেলা মহিলা লীগের সভাপতি লায়লা পারভীনকে জামিন দেওয়া হয়েছে এবং এতে আইনের শাসনের ‘ব্যত্যয় হয়নি’। জজ আব্দুল মান্নানকে বদলির এই ঘটনাকে বিচার বিভাগের উপর চাপের নজির হিসেবে দেখাচ্ছে বিএনপি। এই বদলি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছে হাই কোর্টও। ‘কারও জামিন দেওয়া, না দেওয়ার এখতিয়ার সম্পূর্ণ আদালতের’ মন্তব্য করেই আইনমন্ত্রী আত্মপক্ষ সমর্থনের সুরে বলেন, “কিন্তু আদালত যদি এমন কোনো ব্যবহার করে, এমন একটা পরিস্থিতির সৃষ্টি করেন যেখানে আইনশৃঙ্খলা এবং আইনের শাসন রক্ষা করা সম্ভব হচ্ছে কি না, সেটা প্রশ্নবিদ্ধ হয়, তখন কিন্তু একটা ব্যবস্থা নিতে হয়। “সেই অবস্থার আলোকে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে এবং উদ্ধুত পরিস্থিতির জন্যই পরে এই সম্পূর্ণ সিচুয়েশনটাকে প্রশমিত করার জন্য পিরোজপুর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং তার স্ত্রীকে বেইল দেওয়া হয়েছে। আমি মনে করি না যে এখানে আইনের শাসনের কোনো ব্যত্যয় হয়েছে। সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী আনিসুল হক বলেন, “মামলার মেরিট নিয়ে আমি কথা বলতে চাই না। মামলায় শুধু এফআইআর হয়েছে, এখনও চার্জশিট হয়নি। তাকে হাই কোর্ট অ্যান্টিসিপেটরি বেইল দিয়েছিল, সেটা আপিল বিভাগে গিয়েছে চ্যালেঞ্জ করার জন্য, আপিল বিভাগ সেটা খারিজ করে দিয়েছিল। “মামলার বেইল আর নো-বেইল, এটার মেরিট নিয়ে আমি আলাপ-আলোচনা করতে চাই না। আমি শুধু বলছি কালকে যদি এই ব্যক্তি (জজ) বারের সাথে যেভাবে ব্যবহার করেছেন, সেটা যদি না করতেন তাহলে আজকের এই পরিস্থিতি হত না।” তবে পুরো ঘটনার তদন্ত হবে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, “যতটুকু তথ্যাদি এসেছে তাতে প্রমাণ পাওয়া গেছে এবং বারের রেজুলেশন আছে বারের জেলা জজ যে ব্যবহার করেছেন সে ব্যবহার করা সমীচীন হয়নি।” এই ঘটনার মাধ্যমে আইনের শাসন প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে কি না- এই প্রশ্নে আইনমন্ত্রী বলেন, “আইনের শাসন নিশ্চিত হচ্ছে, এটা আপনারা দেখছেন, বিচার হচ্ছে, এটা আপনারা দেখছেন। কিন্তু উদ্ভুত পরিস্থিতিতে কী ব্যবস্থা নিতে হয়, সেটা আমাকে নিতেই হবে। “এখানে সরকারি দলের লোক বা অপজিশনের লোক, সেটা কনসিডার করা হয়নি। আমি বার বার আপনাদের বলছি, ব্যবহারটা ঠিক করে করা হয়নি।” তদন্ত না করেই বিচারককে দোষী বানিয়ে বদলি করা হল কেন- সে প্রশ্নে আইনমন্ত্রী বলেন, “পরিস্থিতি যাতে আরও খারাপ না হয় সেজন্য ব্যবস্থা নিয়েছি।” তবে ‘দোষি সাব্যস্ত করে ওই বিচারককে বদলি করা হয়নি’ বলেও মন্তব্য করেন মন্ত্রী। এই ঘটনায় সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সম্পাদক ও বিএনপি নেতা মাহবুব উদ্দিন খোকন আইনমন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি করেছেন। এর প্রতিক্রিয়ায় আনিসুল হক বলেন, “উনি তো অনেক কিছুই চাইতে পারেন। কিন্তু দুঃখের হচ্ছে, তথ্যাদি না জেনে আমাকে দোষারোপ করে তিনি অন্যায় করেছেন। এর থেকে বাড়লে আমি ব্যবস্থা নেব।” এ ধরনের ঘটনা ইতোপূর্বে ঘটেনি- দুদকের এমন বক্তব্যের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ করলে মন্ত্রী বলেন, “দুদকের আইনজীবীরা এই পরিস্থিতির সম্মুখীন হয়েছেন কি না, সেটা আমাকে জিজ্ঞাসা করতে হবে।” এদিকে আউয়াল দাবি করেছেন, তাকে কারাগারে পাঠানোর ক্ষেত্রে বিচারকের উপর চাপ প্রয়োগ করেছিলেন পিরোজপুরের সংসদ সদস্য ও মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।  তিনি বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, “মঙ্গলবার দুদকের মামলায় আমার জামিন নামঞ্জুর করতে বিচারক মো. আব্দুল মান্নানকে প্রভাবিত করেছেন মৎস্য ও পশুসম্পদমন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।” তবে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী শ ম রেজাউল করিম এ অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, “সংবাদ সম্মেলনে আমার বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সর্বৈবভাবে অসত্য ও মিথ্যাচার।”

জেলাশিক্ষা অফিসার বললেন জবাব না মিললে ব্যবস্থা

দি ওল্ড কুষ্টিয়া হাইস্কুলে শিক্ষক প্রতিনিধি মনোনয়নে জালিয়াতির অভিযোগে প্রধান শিক্ষককে শোকজ

নিজ সংবাদ ॥ প্রতিটি স্কুলে একজন করে শিক্ষক প্রতিনিধি থাকেন। আর ওই শিক্ষক প্রতিনিধি মনোনয়নে সুপারিশ করে থাকেন জেলা শিক্ষা অফিসার। স্কুল কর্তৃপক্ষের দেয়া নামের তালিকা যাচাই বাছাই করেই অপেক্ষাকৃত যোগ্য শিক্ষকের নাম কর্তৃপক্ষের মাধ্যমে পাঠানো হয় সংশ্লিষ্ট শিক্ষাবোর্ডে। সেখান থেকে যে নামটি আসবে সেটিই চুড়ান্ত বলে বিবেচিত হবে। শিক্ষক প্রতিনিধি মনোনয়নে এমন নিয়ম মানা হলেও কুষ্টিয়ার হাটশ হরিপুরের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দিওল্ড কুষ্টিয়া হাইস্কুলে মানা হয়নি সেই নিয়ম। গত ২০ মার্চ জেলা শিক্ষা অফিসার জায়েদুর রহমান স্বক্ষরিত ৩৭.১০.৫০০০.০০০.০৬.২০-১১০১ স্মারকে এডহক কমিটিতে জেলা শিক্ষা অফিসার অপেক্ষাকৃত যোগ্য শিক্ষকের নাম উল্লেখ করে প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে মামুনর রশিদের নাম উলেক্ষখ করে তা যশোর শিক্ষাবোর্ডে পাঠানো হলেও সেখানে জালিয়াতির আশ্রয় নিয়ে নাম পাল্টে পাঠানো হয় মতিয়ার রহমান নামে অন্য এক সহকারী শিক্ষকের নাম। খোঁজ নিয়ে দেখা গেছে জেলা শিক্ষা অফিসার কর্তৃক প্রেরিত চিঠিতে উল্লেখিত শিক্ষক মামুনর রশিদের নামের ওপর কাগজ মেরে সেখানে মতিয়ার রহমান নামে অন্য এক শিক্ষকের নাম লিখে তা বোর্ডে পাঠান স্কুলের প্রধান শিক্ষক গোলাম আযম। বিষয়টি জানাজানি হলে গোটা হরিপুর ইউনিয়ন জুড়ে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। বিক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন বিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষার্থী এমনকি সুধী মহল। এনিয়ে বিক্ষোভ মিছিল পর্যন্ত হয় এলাকায়। স্কুলের প্রধান শিক্ষককে দায়ি করে তাঁর কঠোর শাস্তি দাবী করেন বিক্ষোভকারীরা। এদিকে এমন জালিয়াতির ঘটনায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়ে রোববার স্কুলে ছুটে যান জেলা শিক্ষা অফিসার জায়েদুর রহমান। কেন শিক্ষা অফিস প্রেরিত নাম পাল্টে অন্য শিক্ষকের নাম পাঠানো হলো তার ব্যাখ্যা চান তিনি। অবশ্য কারন দর্শানো নোটিশও দেন জেলা শিক্ষা অফিসার। এবিষয়ে জেলা শিক্ষা অফিসার জানান এডহক কমিটিতে শিক্ষক প্রতিনিধি হিসেবে মনোনয়নকৃত নাম পাল্টে দেয়ার ঘটনা আমার গোচরে আসার পর আমি নিজেই স্কুলে যায়। মামুনর রশিদের পরিবর্তে মতিয়ার রহমানের নাম কেন আসলো এমন ব্যাখ্যাও চাওয়া হয় প্রধান শিক্ষক গোলাম আযমের কাছে। এবিষয়ে কারন দর্শানো নোটিশও প্রদান করেছি। সঠিক জবাব পাওয়া না গেলে অবশ্যই সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও জানান তিনি। বিদ্যালয়ের অভিভাবক জহুরুল ইসলাম জানান দিওল্ড কুষ্টিয়া হাইস্কুল আমাদের ঐতিহ্যবাহী প্রতিষ্ঠান। এই প্রতিষ্ঠানের যথেষ্ট সুখ্যাতি রয়েছে। কিন্তু প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক শিক্ষক প্রতিনিধি মনোনয়নে জালিয়াতির আশ্রয় নিয়ে বিদ্যালয়ের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করেছেন। এতে আমরা মর্মাহত হয়েছি। আমরা প্রধান শিক্ষকের দৃষ্টান্ত দাবী করেছেন। স্থানীয় ইউপি সদস্য ও ওই বিদ্যালয়ের অভিভাবক সেলিম উদ্দিন জানান নানা কারনে এতদ্বাঞ্চলের ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে কলঙ্কিত করা হচ্ছে। নতুন করে যুক্ত হয়েছে জালিয়াতির ঘটনা। শিক্ষক প্রতিনিধি মনোনয়ন নিয়ে যে ঘটনাটি ঘটানো হয়েছে তা দু:খজনক। এর দায় এড়াতে পারেন না প্রধান শিক্ষক। অবশ্য এবিষয়ে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোলাম আযম নিজেকে নির্দোষ দাবী করেন। বলেন জালিয়াতির বিষয়ে আমি কিছুই জানিনা। এদিকে বিদ্যালয়কে ঘিরে এতসব অনিয়মের হোতা হিসেবে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোলাম আযমকেই দায়ি করছেন সকলে। তাদের মতে নিজের অবস্থান পাকাপোক্ত করতেই নিজের পছন্দের শিক্ষকদের বিভিন্ন পদে পদায়নের পাঁয়তারা করছেন। যা বিদ্যালয়ের ভবিষ্যৎ অন্ধকারের দিকে ঠেলে দিচ্ছে বলে মনে করেন তারা।

ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক বন্ধুত্বের, দাসত্বের নয় – ওবায়দুল কাদের

ঢাকা অফিস ॥ সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেছেন, প্রতিবেশী দেশ ভারতের সাথে আমাদের সম্পর্ক বন্ধুতের, দাসত্বের নয়। তিনি বলেন,‘আমরা ভারতের সঙ্গে বন্ধুত্বের সম্পর্ক রক্ষা করতে গিয়ে দেশের স্বার্থের কথা ভুলে যাই না। ভারত আমাদের মুক্তিযুদ্ধের অকৃত্রিম বন্ধু।’ ওবায়দুল কাদের গতকাল বুধবার রাজধানীর ধানমন্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে কুমিল্লা ও কুড়িগ্রাম জেলা আওয়ামী লীগের নেতাদের হাতে নতুন করে দলীয় কর্মী অন্তর্ভূক্তির লক্ষ্যে দলের ‘প্রাথমিক সদস্য ফরম’ ও ‘গঠনতন্ত্র’ তুলে দেয়ার সময় এ কথা বলেন। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সেদেশের প্রতিনিধি হিসেবে ‘মুজিববর্ষের’ অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন, ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) হয়ে নয়। যারা মোদির বাংলাদেশে আসার বিরোধিতা করছেন,তারাই ভারতের সঙ্গে দাসের মতো আচরণ করেন বলেও ওবায়দুল কাদের উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, ‘বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী থাকাকালে ভারত সফরে গিয়ে গংগার পানির ন্যায্য হিস্যা নিয়ে আলোচনা করতে ভুলে গিয়েছিলেন। সেই দলটির নেতারাই ভারতের নেতাদের খুশি করতে দাসের মতো আচরণ করেন।’ বিএনপি এখন নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশ সফরের বিরোধীতা করছে এ কথা উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন,‘মোদির বাংলাদেশে আসার ব্যাপারে যারা বিরোধিতা করছেন, তারা মুজিববর্ষেরই বিরোধিতা করছেন’। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সন্ত্রাসী ও জঙ্গিবাদে জড়িত, সাম্প্রদায়িক মনোভাবান্ন এবং মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা বিরোধী এমন কাউকে দলের সদস্য না করতে তৃণমূল নেতাদের নির্দেশনা দেন। তিনি বলেন, দাগি, সন্ত্রাসী, চাঁদাবাজ, ভূমিদস্যু, মাদক-ব্যবসায়ী এবং মাদকাসক্তরা আওয়ামী লীগের সদস্য হতে পারবে না। আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়–য়া, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর, উপ-দফতর সম্পাদক সায়েম খান প্রমুখ এ সময় উপস্থিত ছিলেন।