ঝিনাইদহে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার রাতে শহরের একটি রেস্টুরেন্টে ইনসেপ্টা কোম্পানীর প্যান্টোনিক্সের সহযোগিতায় এ বিজ্ঞান বিষয়ক সেমিনারের আয়োজন করে বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশন (বিএমএ) জেলা শাখা। বিএমএ জেলা শাখার সভাপতি ডা: এবিএম সিদ্দিকুল ইসলামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিভিল সার্জন ডা: সেলিনা বেগম। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বিএমএ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ডা: রাশেদ আল মামুন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, বিএমএ জেলা শাখার সহ-সভাপতি ডা: নুরুন নবী, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ডা: দুলাল কুমার চক্রবর্তী, সহ-সভাপতি ডা: মুন্সী রেজা সেকেন্দার, সদর হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা: আইয়ুব আলী। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, ইনসেপ্টা গ্র“পের ডেপুটি সেলস ম্যানেজার আবুল হোসেন, রিজিওনাল সেলস ম্যানেজার মতিয়ার রহমান, এরিয়া ম্যানেজার আলমগীর হোসেন,  এম এন নুরুল ইসলাম, শফিকুল ইসলাম গনেশ কুমার দাস প্রমুখ। পরে করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বিভিন্ন চিকিৎসকদের করনীয় বিষয়ে আলোচনা ও বিভিন্ন গবেষনা তুলে ধরে একাধিক চিকিৎসক। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা: প্রসেনজিৎ বিশ্বাস পার্থ। সেমিনারে ঝিনাইদহে কর্মকর্তা ১৫৫ জন চিকিৎসক অংশগ্রহণ করেন। পরে জেলা পদায়নকৃত ৩৭ ও ৩৯তম বিসিএস’এ নিয়োগ প্রাপ্ত ৮৭ জন চিকিৎসককে সংবর্ধনা দেওয়া হয়।

 

গাংনীতে সড়ক দূর্ঘটনায় ২জন আহত

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার গোপালনগর গ্রামের অদূরে মোটরসাইকেল ও আলগামন গাড়ীর মুখোমখি ধাক্কায় ২জন আহত হয়েছেন। আহতরা হলেন-মেহেরপুর সদর উপজেলার বর্শিবাড়িয়া গ্রামের নুর আলমের ছেলে মোটরসাইকেল আরোহী হুসাইন কবির (২৭) ও গাংনী উপজেলার ষোলটাকা ইউনিয়নের আমতৈল গ্রামের  নুরুল ইসলামের ছেলে আলগামন চালক পালান হোসেন (৪৬)। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় গাংনী-হাটবোয়ালিয়া সড়কের গোপালনগর গ্রামের অদূরে এ দূর্ঘটনা ঘটনা। গোপালনগর গ্রামের যুবক সজল হোসেন জানান, পালান হোসেন তার আলগামন গাড়ী নিয়ে গাংনী উপজেলা শহরের দিক থেকে দ্রুতগতিতে বাড়ি যাচ্ছিলেন। সে গোপালনগর গ্রামের অদূরে একটি ব্রিজের নিকট পৌঁছালে,হাটবোয়ালিয়া বাজারের দিক  থেকে মোটরসাইকেলযোগে দ্রুতগতিতে  আসা হুসাইন কবির আলগামনকে মুখোমুখি ধাক্কা দেয়। ওই ধাক্কায় দু’জনই মারাত্বকভাবে আহত হন। পথচারীরা তাদের উদ্ধার করে গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

মিরপুরে দারুস সালাম একাডেমীতে বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরণ

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে দারুস সালাম একাডেমীর বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে বিদ্যালয়ের খেলার মাঠে এ ক্রীড়া প্রতিযোগিতা শেষে পুরষ্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে পৌর মেয়র হাজী এনামুল হক বলেন, খেলাধুলার মাধ্যমে দেশ ও জাতি বিশ্ববাসীর কাছে সহজেই পরিচিতি লাভ করে। যুব সমাজকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করতে ক্রীড়া চর্চা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। সুষ্ঠু ও সুন্দর জাতি গঠনে লেখাপড়ার পাশাপশি খেলাধুলার বিকল্প নেই।  খেলাধুলায় শরীর ও মন সুস্থ থাকে। খেলাধুলা বিনোদনের অন্যতম মাধ্যম। তিনি শিক্ষার্থীদেরকে সৎ যোগ্য ও দেশপ্রেমিক নাগরিক হিসেবে নিজেদেরকে গড়ে তোলার আহ্বান জানান। দারুস সালাম একাডেমীর সভাপতি অধ্যাপক জোমারত আলীর সভাপতিত্বে এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল গফুর, দারুস সালাম একাডেমীর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি শাহজাহান আলী মোল্লা, পৌর কাউন্সিলর জমির উদ্দিন, আব্দুস সালাম, পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীন আলী মন্ডল। শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন দারুস সালাম একাডেমীর অধ্যক্ষ ইব্রাহীম খলিল। বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মাওঃ গোলাম মুস্তফার পরিচালনায় এ সময়ে বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আমির হামজা, ওসমান গণি, আবু তাহের, হালিমা খাতুন, প্রিয়াংকা খাতুন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মুক্তিযুদ্ধের প্রধান মিত্র দেশ হিসেবে ভারতকে মুজিববর্ষে আমন্ত্রণ – কাদের

ঢাকা অফিস ॥ আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, মুক্তিযুদ্ধের প্রধান সাহায্যকারী ও মিত্র দেশ হিসেবে ভারতকে মুজিববর্ষে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। তিনি বলেন, “তাদের দেশের অভ্যন্তরের বিষয়ে যে সংঘাত, সংঘর্ষ, এটা চিন্তা করে আমরা তাদের আমন্ত্রণ জানাইনি। মুক্তিযুদ্ধের প্রধান সাহায্যকারী ও সবচেয়ে বড় মিত্র দেশ ভারত।” ওবায়দুল কাদের গতকাল বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সভাকক্ষে সমসাময়িক ইস্যুতে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন। তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপন অনুষ্ঠানে ভারতের প্রতিনিধিত্বকে আমরা বাদ দেবো এটাতো চিন্তাও করা যায় না। ওবায়দুল কাদের বলেন, “মুজিববর্ষে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আমন্ত্রণ জানানোর মূল কারণ তারা আমাদের মুক্তিযুদ্ধের সময় সহযোগিতা করেছে। আমাদের শরণার্থীদের সাহায্য করেছে। ভারতই আমাদের অস্ত্র ও ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা করেছে। মিত্রবাহিনী ও মুক্তিবাহিনীর যৌথ কমান্ডে আমরা বিজয় ছিনিয়ে এনেছিলাম। আমাদের রক্তের সঙ্গে ভারতের রক্ত মিশে আছে। কাজেই ভারতকে এই মুজিববর্ষের অনুষ্ঠানে আমন্ত্রণ না জানানো অকৃতজ্ঞতার পরিচয়। ” সাংবাদিকদের অপর এক প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার দুর্নীতির মামলা ২০০ কোটি না ২ কোটি এটা বিষয় না। দুর্নীতি হয়েছে কিনা সেটা দেখার বিষয়। তিনি বলেন, দুদক স্বাধীন না হলে সরকারের মন্ত্রী-এমপিরা টার্গেটে কেন। ঢাকা থেকে ভাঙ্গা পর্যন্ত দেশের প্রথম এক্সপ্রেসওয়ের উদ্বোধনের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এটার প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে। মুজিববর্ষে বিদেশি অতিথিরাও আসবেন। এ জন্য যাবতীয় প্রস্তুতির কাজ এগিয়ে চলছে। মন্ত্রী বলেন, এক্সপ্রেসওয়ে উদ্বোধন আমাদের খুব জরুরি বিষয়। এটা যোগযোগের জন্যও খুব প্রয়োজন। মুজিববর্ষে টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিস্থলে অনেকেই যাবেন।

উন্নত চিকিৎসায় ‘সম্মতি দেননি’ খালেদা

ঢাকা অফিস ॥ দুর্নীতি মামলায় দ-িত খালেদা জিয়া মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ী ‘অ্যাডভানসড ট্রিটমেন্ট’ নিতে সম্মতি দেননি বলে আদালতকে জানিয়েছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের এই প্রতিবেদন পাওয়ার পর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন বৃহস্পতিবার নাকচ করেদেয় বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি কেএম জহিরুল হকের হাই কোর্ট বেঞ্চ। আদালতে খালেদা জিয়ার পক্ষে শুনানিতে ছিলেন আইনজীবী জয়নুল আবেদীন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম এবং দুদকের পক্ষে ছিলেন খুরশীদ আলম খান। জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট মামলায় খালেদার জামিন আবেদন নাকচ করে গত ১২ ডিসেম্বর এক আদেশে আপিল বিভাগ বলেছিল, বিএনপি চেয়ারপারসনের সম্মতি থাকলে বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ী তাকে দ্রুত ‘অ্যাডভানসড ট্রিটমেন্ট’ দেওয়ার পদক্ষেপ নিতে হবে। খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা দুই মাসের মাথায় নতুন করে জামিন আবেদন করার পাশাপাশি বিএনপি চেয়ারপারসনের সর্বশেষ শারীরিক অবস্থার প্রতিবেদন দিতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যের প্রতি নির্দেশনা চান হাই কোর্টের কাছে। এই প্রেক্ষাপটে গত ২৩ ফেব্র“য়ারি শুনানি করে বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের উপাচার্যকে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ দেয় হাই কোর্ট। আপিল বিভাগের নির্দেশনা অনুযায়ী উন্নত চিকিৎসা নিতে খালেদা জিয়া সম্মতি দিয়েছেন কি না, দিয়ে থাকলে তার চিকিৎসা শুরু হয়েছে কি না, শুরু হয়ে থাকলে সর্বশেষ কী অবস্থা- তা সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রারের জেনারেলের মাধ্যমে আদালতকে জানাতে বলা হয়। সে অনুযায়ী বঙ্গবন্ধু মেডিকেলের পাঠানো প্রতিবেদন বৃহস্পতিবার আদালতে উপস্থাপন করেন সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল। পরে বেঞ্চের জ্যেষ্ঠ বিচারক তা পড়ে শোনান। সেখানে বলা হয়, খালেদা জিয়া উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস, অ্যাজমা ও প্রতিস্থাপনজনিত হাঁটুর ব্যথায় (অস্টিও-আরথ্রাইটিস) ভুগছেন। অন্য সমস্যাগুলো নিয়ন্ত্রণে থাকালেও অস্টিও-আরথ্রাইটিসের ‘অ্যাডভানসড ট্রিটমেন্ট’ শুরুর বিষয়ে তিনি সম্মতি দেননি। এমনকি সেই চিকিৎসকার জন্য যেসব পরীক্ষা-নিরীক্ষা দরকার, সেগুলোও করা যাচ্ছে না। খালেদা জিয়ার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন আদালতেকে বলেন, বিএনপি চেয়ারপারসন কেন সম্মতি দেননি, সেটা জানতে তার সঙ্গে কথা বলতে চান তিনি। সেজন্য সময়ের আবেদন করে তিনি জামিন প্রশ্নে আদেশের বিষয়টি রোববার পর্যন্ত পিছিয়ে দেওয়ার আবেদন করেন। তবে তাতে সাড়া না দিয়ে বিচারক বলেন, খালেদা জিয়া কেন সম্মতি দেননি, সেটা তার ব্যক্তিগত বিষয়। তার জামিনের বিষয়ে বেলা ২টায় আদেশ দেওয়া হবে।

মেধা কুষ্টিয়ার উপদেষ্টা এ্যাড. অনুপ কুমার নন্দী কুষ্টিয়া বারের ২য় বার সভাপতি নির্বাচিত হওয়ায় মেধার পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানাচ্ছেন এম এ শামীম, এম. আলমগীর হোসেনসহ অন্যান্য কর্মকর্তাবৃন্দ।

ঢাকাসহ সারা দেশে বিক্ষোভ ডেকেছে বিএনপি

ঢাকা অফিস ॥ দুই বছরেরও বেশি সময় ধরে কারাবন্দি দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন খারিজ হওয়ার প্রতিবাদে শনিবার ঢাকা মহানগরসহ সারা দেশের বিভাগীয় শহর ও জেলা সদরে বিক্ষোভ ডেকেছে বিএনপি। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকালে নয়াপল্টনের দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী এ ঘোষণা দেন। রিজভী বলেন, শনিবার ঢাকাসহ সারা দেশের বিভাগীয় শহর ও জেলা সদরে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করা হবে। এছাড়া শনিবার দুপুর ২টায় কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন খারিজের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে সংবাদ সম্মেলনে রিজভী বলেন, এই খারিজ আদেশের মধ্য দিয়ে সরকারের হিংসাশ্রয়ী নীতিরই প্রকাশ হয়েছে। এ সময় সরকারের তীব্র সমালোচনা করেন তিনি। বিএনপির এই সিনিয়র নেতা অভিযোগ করে বলেন, এই সরকার দেশনেত্রীকে অন্যায়ভাবে সব ধরনের আইনি অধিকার হরণ করে কারারুদ্ধ করে রেখেছে। প্রসঙ্গত, জিয়া অরফানেজ ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির দুই মামলায় ১৭ বছরের দন্ড মাথায় নিয়ে ২০১৮ সালের ৮ ফেব্র“য়ারি থেকে কারাবন্দি খালেদা জিয়া ২০১৯ সালের এপ্রিল থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। দল ও পরিবারের সদস্যরা সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে অন্য হাসপাতালে নিতে চাইলে তাতে অনুমতি মেলেনি। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় জামিন চেয়ে এর আগেও হাইকোর্টে আবেদন করেন খালেদা জিয়া। কিন্তু অপরাধের গুরুত্ব, সংশ্লিষ্ট আইনের সর্বোচ্চ সাজা এবং বিচারিক আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়াসহ অন্য আসামিদের করা আপিল শুনানির জন্য প্রস্তুত- এমন তিন বিবেচনায় হাইকোর্ট বেঞ্চ ৩১ জুলাই সেই আবেদন খারিজ করে দেন। এর পর খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা আপিল বিভাগে যান। কিন্তু খালেদা জিয়া জামিন পাননি। গত বছরের ১২ ডিসেম্বর আপিল বিভাগ কিছু পর্যবেক্ষণ দিয়ে জামিন আবেদনটি খারিজ করে দেন। আপিল বিভাগের ওই রায়ে বলা হয়, বিএনপি চেয়ারপারসনের সম্মতি থাকলে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ী তাকে দ্রুত ‘অ্যাডভান্সড ট্রিটমেন্ট’ দেয়ার পদক্ষেপ নিতে। সেই রায় ১৯ জানুয়ারি প্রকাশিত হওয়ার পর হাইকোর্টে নতুন করে জামিন আবেদন করার উদ্যোগ নেন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। ৩৬টি মামলার মধ্যে ৩৪টি মামলায় খালেদা জিয়া জামিনে আছেন বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবীরা।

করোনা রোধে সৌদিতে ওমরাহ ও ভিজিট ভিসা স্থগিত

ঢাকা অফিস ॥ ভয়াবহ করোনা ভাইরাসের বিস্তার রোধে বিশ্বের সব দেশের নাগরিকদের জন্য আপাতত ওমরাহ হজ বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে সৌদি আরব। এছাড়াও করোনা সংক্রমিত দেশের মানুষকে সৌদিতে ভ্রমণ নিষিদ্ধ করেছে সৌদি কৃর্তপক্ষ। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, সৌদি জনগণের নিরপত্তার কথা চিন্তা করে সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। সৌদি আরবের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধের বিষয়টি পুরোপুরি তাদের নজরদারিতে রায়েছে। এরই মধ্যে করোনা আক্রান্ত যেসব দেশের মানুষ সৌদি আরবের পর্যটক ভিসা পেয়েছেন, উচ্চমাত্রার ঝুঁকির কথা বিবেচনা করে তাদের ভিসাও বাতিল করা হয়েছে। সম্প্রতি মধ্যপ্রাচ্যে দেশ ইরান, বাহরাইন, ইরাক, সংযুক্ত আবর আমিরাতসহ কয়েকটি দেশে করোনা ছড়িয়ে পড়েছে । গত বছরের শেষের দিকে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকে ছড়িয়ে পড়ে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস। এখন পুরো চীন থেকে পুরোপুরি অবরুদ্ধ অবস্থায় আছে উহান। এই ভাইরাসে শুধুমাত্র চীনেই প্রাণ হারিয়েছে ২ হাজার ৮০৪ জন। আক্রান্ত হয়েছে ৮২ হাজার ১৬৬ জন। এখন পর্যন্ত ৩৩ হাজার ২০৬ জন চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন। চীনের বাইরে ইরান, ইটালি, সাউথ কোরিয়া, জাপানসহ কয়েকটি দেশে প্রাণ হারিয়েছে আরও অর্ধশতাধিক মানুষ।

দৌলতপুরের আল্লারদর্গায় যমুনা ব্যাংকের শাখা উদ্বোধন

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের আল্লারদর্গায় যমুনা ব্যাংকের শাখা উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় আল্লারদর্গা বাজারে যমুনা ব্যাংকের এ শাখার উদ্বোধন করা হয়। যমুনা ব্যাংক কুষ্টিয়া শাখার ব্যবস্থাপক মো. বদরুল আলমের সভাপতিত্বে যমুনা ব্যাংকের ব্যাংক উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন, যমুনা ব্যাংক খুলনা জোনাল অফিসের ভাইস প্রেসিডেন্ট মো. সাব্বির আহম্মেদ খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন যমুনা ব্যাংক যশোর ব্রাঞ্চের ভাইস প্রেসিডেন্ট প্রশান্ত কুমার দাস ও কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের সাবেক সংসদ সদস্য আলহাজ¦ রেজাউল হক চৌধুরী। এসময় উপস্থিত ছিলেন, আল্লারদর্গা বাজার কমিটির সভাপতি হবিবর রহমান লস্কর ও জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক শাহরিয়ার জামিল জুয়েলসহ স্থানীয় সুধীজন। পরে অতিথিবৃন্দ ফিতা কেটে আনুষ্ঠানিকভাবে যমুনা ব্যাংকের আল্লারদর্গা শাখার উদ্বোধন করেন।

গাংনীতে প্রতিবন্ধী বৃদ্ধকে হুইল চেয়ার প্রদান করলে ইউএনও

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার অফিসার (ইউএনও)-এর উদ্যোগে কাফিরুল ইসলাম নামের এক শারীরিক প্রতিবন্ধী বৃদ্ধ হুইল চেয়ার পেয়েছেন। হুইল চেয়ার গ্রহণকারী বৃদ্ধ কাফিরুল উপজেলার তেঁতুলবাড়ীয়া গ্রামের বাজার পাড়ার মৃত আছির উদ্দীনের ছেলে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিলারা রহমান নিজ কার্যালয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে হুইল চেয়ার বিতরণ করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন বিশিষ্ট আ.লীগের নেতা মনিরুজ্জামান আতু, গাংনী উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি আমিরুল ইসলাম অল্ডাম, সাংবাদিক জুলফিকার আলী কানন,মাসুমসহ একাধিক সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। প্রতিবন্ধী কাফিরুল ইসলাম জানান আমি বেশ কয়েক বছর যাবত শারীরিকভাবে অক্ষম হয়ে কষ্টে জীবন-যাপন করে আসছিলাম। এলাকার কয়েকজন আমার ব্যাপারে ইউএনও স্যারকে বলেন। স্যার আমার বিষয়টি দেখে আমার চলাফেরার জন্য একটি হুইল চেয়ার দেন। এদিকে হুইল চেয়ার পেয়ে প্রতিবন্ধী কাফিরুল ইসলাম ইউএনও দিলারা রহমানের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

গাংনীতে যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার  

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার ধানখোলা ইউনিয়নের ভাটপাড়া গ্রামে বকুল হোসেন (২৭) নামের এক যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। যুবক বকুল ভাটপাড়া গ্রামের ফজলুল হকের ছেলে।  গতকাল বৃহস্পতিবার সকালের দিকে নিজ ঘরের আড়ার সাথে তার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করে স্থানীয় কসবা পুলিশ ক্যাম্পের সদস্যরা। স্থানীয়রা জানান বকুল ছিল মানসিক প্রতিবন্ধী। তাকে এলাকার মানুষ বকুল পাগল নামে ডাকতো। সে সবার অজান্তে ঘরের আড়ার সাথে রশি পেঁচিয়ে আত্মহত্য করেছে বলে মনে হচ্ছে। গাংনী থানার ওসি ওবাইদুর রহমান জানান লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। বকুল যেহেতেু মানসিক রোগি ছিল। মানসিক রোগের কারণে সে যেখানে চিকিৎসা নিতো এমন প্রমাণপত্র যাচাই করে মরদেহ ময়না তদন্ত ছাড়াই দাফনের অনুমতি দেয়া হয়েছে। তাছাড়াও এ বিষয় নিয়ে কেউ বাদি হয়নি।

খোকসা প্রেসক্লাবের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত

খোকসা প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার খোকসা প্রেসক্লাবের ২০তম প্রতিষ্ঠা বাষিকী উপলক্ষে আলোচনাসভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে খোকসা প্রেসক্লাব হলরুমে এ উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মৌসুমি জেরীন কান্তা, থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মজিবুর রহমান, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার ফজলুল হক, মৎস্য কর্মকর্তারাসেদ হাসান, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সবুজ কুমার সাহা, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার নাজমূল হক, প্রেসক্লাবের সদস্য মনিরুল ইসলাম মাসুদ, ইউনুস আলী, অধ্যাপক রবিউল ইসলাম, সুমন কুমার মন্ডল, উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা বদিউজ্জামান প্রমুখ। সভাপতিত্ব করেন প্রেসক্লাবের সভাপতি ও সমকাল প্রতিনিধি মুনসী লিটন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সাধারণ সম্পাদক শেখ সাইদুল ইসলাম প্রবীন। পরে অতিথিরা কেকে কাটেন। ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

মিরপুরে দারুস সালাম একাডেমীর ৭ শিক্ষার্থী বৃত্তি পেয়েছে

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীতে দারুস সালাম একাডেমীর ৭ জন শিক্ষার্থী বৃত্তি পেয়েছে। এর মধ্যে ৩ জন ট্যালেন্টপুলে এবং ৪ জন সাধারণ গ্রেডে বৃত্তি লাভ করেন। বৃত্তি প্রাপ্তরা হলেন ট্যালেন্টপুলে সোনালী আক্তার সিনথিয়া, সোহেলী আক্তার সিমলা ও নাহিদা খাতুন, সাধারণ গ্রেডে সুলাইমান হোসেন, আফ্রিয়া ফারজানা রোশনী, নিশাত জামান নেহা এবং ফারসত আহীয়ান প্রাপ্ত। একাডেমীর অধ্যক্ষ ইব্রাহীম খলিল জানান, ২০১৯ সালে প্রাথমিক শিক্ষা সমাপনীতে ১৭ জন শিক্ষার্থী অংশ নিয়ে শতভাগ শিক্ষার্থী উর্ত্তীণ হয়। এর মধ্যে ৬ জন জিপিএ-৫, ৮ জন এ প্লাস ও ৩ জন শিক্ষার্থী এ মাইনাস পেয়ে উর্ত্তীণ হয়। তিনি আরো বলেন, সাধারণ শিক্ষার পাশাপশি আধুনিক ও ইসলামিক শিক্ষার সমন্বয়ে দেশ এবং জাতিকে এগিয়ে নিতে এ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শিক্ষার আলো ছড়িয়ে যাচ্ছে। বিদ্যালয়ের শিক্ষক, অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় এ ফল অর্জন করা সম্ভব হয়েছে।

সদরপুর ইউনিয়ন পরিষদে উন্মুুক্ত ভাতা প্রত্যাশী বাছাই

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে মাইকিং করে ২০১৯-২০২০ অর্থবছরের অতিরিক্ত বরাদ্ধপ্রাপ্ত বয়স্ক, বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা মহিলা, অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধী সুবিধাভোগীদের উন্মুক্ত বাছাই কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দিনব্যাপি মিরপুর উপজেলা সমাজসেবা অফিসের উদ্যোগে সদরপুর ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে এ কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। এতে সদরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রবিউল হক রবির সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মর্জিনা খাতুন। বিশেষ অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা জামসেদ আলী, সদরপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মাজেদুর আলম বাচ্চু, সাবেক সভাপতি আবু বক্কর চৌধুরী, কুষ্টিয়া পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির সচিব কাঞ্চন কুমার, সদরপুর ইউনিয়ন পরিষদের সচিব আশরাফুল হক, সদরপুর ইউনিয়ন সমাজ কর্মী আরিফুল ইসলাম, ফিল্ড সুপারভাইজার মসলেহ উদ্দিন, ছাতিয়ান ইউনিয়ন সমাজকর্মী কামরুল ইসলাম, কুর্শা ইউনিয়ন সমাজকর্মী মুজাহিদ হোসেন, ধুবইল ইউনিয়ন কারিগরি প্রশিক্ষক রাকিবুল ইসলাম, ইউপি সদস্য মাসুদ রেজা মাছেদ, ছাবদার  হোসেন, দাউদ হোসেন, আসিদুল হক আসাদ, আশরাফুল হক, জামিরুল ইসলাম, জহুরুল ইসলাম, বাবুল হক, আশরাফুল ইসলাম, রেজেলা খাতুন, বিউটি খাতুন, নুরজাহান খাতুন প্রমুখ। দিনব্যাপী বয়স্ক, বিধবা ও স্বামী নিগৃহীতা মহিলা, অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধী সুবিধাভোগীদের উন্মুক্ত বাছাই কার্যক্রম পরিচালিত হয়। এসময় ইউনিয়ন পরিষদের কর্মরত সকল গ্রামপুলিশ এবং এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এবং ভাতা প্রত্যাশী হাজারো মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

দিল্লিতে সহিংসতা চলছেই, নিহত বেড়ে ৩৪

ঢাকা অফিস ॥ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ‘শান্তি ও ভ্রাতৃত্বের’ আহ্বান সত্ত্বেও থামেনি দিল্লির দাঙ্গা, উত্তরপূর্ব দিল্লির পরিস্থিতি আগের মতোই উত্তেজনায় টান টান হয়ে আছে। টানা চার দিন ধরে দাঙ্গার পর গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল পর্যন্ত নিহতের সংখ্যা ৩৪ জনে দাঁড়িয়েছে এবং আহতের সংখ্যা দুইশ ছাড়িয়ে গেছে বলে এনডিটিভি জানিয়েছে। এ দিন গগন বিহার-জোহরিপুর এলাকার একটি ড্রেন থেকে দুটি লাশ পাওয়ার পর মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৪ জনে দাঁড়ায়। রোববার যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের ভারত সফর চলাকালেই রাজধানী দিল্লিতে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনের (সিএএ) সমর্থক ও বিরোধীদের পাল্টাপাল্টি মিছিল থেকে সংঘর্ষ শুরু হয়। এক পর্যায়ে সংঘর্ষ ছড়িয়ে পড়ে হিন্দু-মুসলিম দাঙ্গার রূপ নেয়। বুধবার রাতেও মুসলিম অধ্যুষিত উত্তরপূর্ব দিল্লির ভজনপুরা, মৌজপুর ও কারাওয়াল নগরে অগ্নিসংযোগ ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এর কয়েক ঘণ্টা আগে ভারতের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা অজিত দোভাল উত্তরপূর্ব দিল্লির সহিংসতা কবলিত এলাকাগুলো পরিদর্শন করে ‘সরকার শান্তি ফিরিয়ে আনবে’, ব্যক্তিগতভাবে এমন আশ্বাস দিয়ে গেলেও শান্তি ফিরে আসেনি। দাঙ্গা শুরু হওয়ার তিন দিন পর চতুর্থ দিন প্রথমবারের মতো এক বিবৃতিতে ‘শান্তি ও ভ্রাতৃত্বের’ ডাক দেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী মোদী। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ নিরাপত্তা কর্মকর্তাদের সঙ্গে একের পর এক রিভিউ মিটিং করে গেলেও দাঙ্গা নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার অভিযোগ উঠেছে তার বিরুদ্ধে। পরিস্থিতি তাদের নিয়ন্ত্রণে আছে দাবি করে দিল্লি পুলিশ ১৮ মামলা ও সহিংসতার সঙ্গে জড়িত থাকার দায়ে ১৩০ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে। দাঙ্গা পরিস্থিতি নিয়ে ক্ষুব্ধ দিল্লি হাইকোর্ট পুলিশকে ঘৃণা ও উস্কানিমূলক বক্তব্য দেওয়া ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করতে বলেছে। চার বিজেপি নেতার বক্ততৃার ভিডিও দেখার পর আদালত এমন নির্দেশনা দেয়। ওই বিজেপি নেতাদের মধ্যে কেন্দ্রের মোদীর সরকারের মন্ত্রী অনুরাগ ঠাকুর ও স্থানীয় নেতা কপিল মিশ্রও আছেন। রোববার বিকালে এই কপিল মিশ্রের সমাবেশ থেকেই সহিংসতা শুরু হয় বলে অভিযোগ উঠেছে। দাঙ্গা থামিয়ে দিল্লিতে শান্তি ফিরিয়ে আনার দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে নিরাপত্তা উপদেষ্টা অভিত দোভালকে। বুধবার সন্ধ্যায় তিনি দ্বিতীয়বারের মতো নগরীর দাঙ্গা কবলিত এলাকাগুলোতে যান। দাঙ্গায় সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকাগুলোর একটি জাফরাবাদ এলাকায় পুলিশের গাড়িবহর নিয়ে হাঁটার সময় উপস্থিত সাংবাদিকদের তিনি বলেন, “ইনশাল্লাহ, এখানে শান্তি ফিরে আসবে।” এর কিছুক্ষণের মধ্যেই এক তরুণী এসে তার সামনে দাঁড়িয়ে সাহায্যের জন্য করুণ আর্তি জানান। দাঙ্গাকারীদের সবাইকে ধরা হবে বলে তিনি তরুণীকে আশ্বাস দেন। বুধবার দিল্লির বিধানসভায় দেওয়া এক বক্তৃতায় মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল বলেন, “সহিংসতায় হিন্দু বা মুসলিম, কারো লাভ হবে না। দিল্লির সামনে এখন দুটি পথ খোলা আছে: লোকজন সবাই মিলেমিশে পরিস্থিতির উন্নতি ঘটাতে পারে অথবা তারা একে অপরকে আঘাত করে হত্যা করতে পারে।” এই সহিংসতার জন্য বহিরাগত ও রাজনৈতিক উস্কানিকে দায়ী করেন তিনি। এর আগে দাঙ্গা পরিস্থিতি মোকাবিলায় সেনাবাহিনী নামানোর দাবি জানিয়েছিলেন তিনি, কিন্তু অমিত শাহের দায়িত্বে থাকা ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তার দাবি প্রত্যাখ্যান করে। দাঙ্গা নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার জন্য স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ-র তীব্র সমালোচনা করেছেন কংগ্রেস নেত্রী সোনিয়া গান্ধী। ব্যর্থতার দায় স্বীকার করে শাহর পদত্যাগ করা উচিত বলে মন্তব্য করেছেন তিনি। সোনিয়া দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী কেজরিওয়ালেরও সমালোচনা করেছেন। রোববার সংঘর্ষ শুরু হওয়ার পর কেন্দ্রীয় সরকার ও দিল্লির সরকার উভয়েই পরিস্থিতি সামাল দিতে ব্যর্থ হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন তিনি।

দিল্লি সংঘর্ষ – ৮৫ বছরের মুসলিম বৃদ্ধাকে পুড়িয়ে হত্যা

ঢাকা অফিস ॥ ভারতের রাজধানী দিল্লিতে চলছে সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন নিয়ে সংঘাত। আর এই সংঘাতের মধ্যে দিল্লির গামরি এলাকায় আকবরি নামের ৮৫ বছর বয়সী এক মুসলিম বৃদ্ধাকে পুড়িয়ে হত্যার অভিযোগ করেছেন তার সন্তান। এই বিষয়ে আকবরির পুত্র সাঈদ সালমানি ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভিকে জানায়, মঙ্গলবার সকালে বিক্ষুব্ধ জনতা বাড়িতে আগুন জ্বালিয়ে দেয়। ওই সময় বাড়িতে আকবরির সঙ্গে চারজন নাতি ছিল বলেও জানান সাঈদ সালমানি। সাঈদ সালমানি বলেন, সকাল ১১টার দিকে ঘরে বাচ্চাদের জন্য দুধ না থাকায় আমি বাইরে যাই। পরে আসার পর আমার ছেলের কাছ থেকে জানতে পারি ১৫০ থেকে ২০০ লোক আমাদের বাড়িতে এসে আগুন লাগিয়ে দিয়েছে। পরে আমার মা শ্বাসকষ্টে মারা যান। এছাড়া তার শরীরও পুড়ে যায়। বৃদ্ধ হওয়ায় বাড়িটির তিন তলা থেকে আমার মা আর বের হতে পারেননি। এদিকে এই ঘটনায় প্রাণে বেঁচে গেছেন সাঈদ সালমানি চার সন্তান। এই বিষয়ে আকবরির ছেলে সালমানি আরো বলেন, আমার মনে হয় আমার মা জীবন বাঁচানোর আকুতি করেছেন । তবে কেউই তার সাহায্যে এগিয়ে আসেনি। প্রসঙ্গত, সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে ভারতের রাজধানী দিল্লিতে গত সোমবার শুরু হয় সংঘাত যা এখনো থামেনি।

এবারও জামিন হয়নি খালেদা জিয়ার

ঢাকা অফিস ॥ জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন আবারও খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ৩ টায় এ আদেশ দেন। খালেদা জিয়ার সবশেষ স্বাস্থ্য প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে জামিন আবেদনের ওপর দেয়া আদেশে আদালত বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসা তার মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শে হবে। তার চিকিৎসা বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালেই সম্ভব। এর আগে বেলা ১১টায় জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় জামিন আবেদনের শুনানি শুরু হয়। এসময় কারাহেফাজতে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসনের সবশেষ স্বাস্থ্যগত অবস্থার প্রতিবেদন হাইকোর্ট বেঞ্চে দাখিল করা হয়। এর পরই রিপোর্টটি আদালতে পড়ে শোনান বেঞ্চের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি ওবায়দুল হাসান। রিপোর্টে সাত সদস্যের মেডিকেল বোর্ড তাদের মতামত দিয়েছেন। রিপোর্টে বলা হয়, খালেদা জিয়ার ডায়াবেটিস, হাইপারটেনশন, অ্যাজমা, ব্যাকপেইন ও আর্থ্রাইটিজের সমস্যা রয়েছে। তবে ডায়াবেটিস, হাইপারটেনশন, অ্যাজমা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। কিন্তু আর্থ্রাইটিজ ও ব্যাকপেইনের চিকিৎসার জন্য যেসব মেডিসিন পুশ করা দরকার, যেই বেটার ট্রিটমেন্ট দরকার তার জন্য খালেদা জিয়া অনুমতি দেননি। এতে করে উন্নত চিকিৎসা দেয়া যাচ্ছে না। এ সময় আদালত বলেন, ‘আমরা এখন আদেশ দেব।’ এ সময় খালেদা জিয়ার আইনজীবী আ্যডভোকেট জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘মাই লর্ড, আমাদের একটু আবেদন রয়েছে। তিনি কেন অনুমতি দেননি, তা জানা দরকার। আমরা খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে চাই। আমরা তার কাছে জানব, কেন তিনি চিকিৎসা নিচ্ছেন না।’ জবাবে আদালত বলেন, ‘এটা আমরা দিতে পারি না। এটার কোনো সুযোগ নেই। আমরা আদেশ দিচ্ছি।’ এ সময় জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘মাই লর্ড, এক্ষুনি আদেশ দেবেন না। আমাদের জানা দরকার কেন তিনি চিকিৎসা নেবেন না। প্লিজ, আমাদের অনুমতি দেন।’ জবাবে আদালত বলেন, ‘এটা আমরা দিতে পারব না। আমরা আদেশ দেব।’ তখন জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘আমাদের সম্পূরক আবেদনটি দিতে দেন। তার পর শুনে আদেশ দেন। আমাদের কোনো আপত্তি নেই।’ এর পর রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম দাঁড়িয়ে বলেন, খালেদা জিয়ার এই রোগগুলো দীর্ঘদিন ধরেই আছে। যখন কোনো বন্দি কারাগারে থাকেন, তখন সরকারেরও তার বিষয়ে উদ্বেগ থাকে। এ পর্যায়ে কোনো সম্পূরক আবেদন দেয়ারও সুযোগ নেই। এ সময় খালেদা জিয়ার আরেক আইনজীবী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ বলেন, ‘মাই লর্ড, যেই মেডিসিন পুশ করার কথা বলা হচ্ছে, তা বিদেশি ওষুধ। তা পুশ করার পর কী রিঅ্যাকশন হবে, সেটা দেখা দরকার।’ আদালত বলেন, ‘তিনি কি এক্সপার্ট? তিনি কি ডাক্তার? তিনি কীভাবে বুঝবেন?’ আদালত বলেন, ‘আমরাও চিকিৎসার জন্য দরকার হলে ঢাকা মেডিকেল কলেজের ডাক্তারদের কনসার্ন নিয়ে চিকিৎসা করি। আমাদের একজন বিচারপতি প্যারালাইজড হয়ে গেছেন। তিনিও চিকিৎসার জন্য সিঙ্গাপুরে গেছেন। কিন্তু যাওয়ার আগে ঢাকা মেডিকেলের ডাক্তারের কনসার্ন নিয়ে গেছেন।’ এ সময় মওদুদ আহমদ বলেন, ‘মাই লর্ড, খালেদা জিয়ার সঙ্গে আমাদের দেখা করে জানার দরকার।’ জবাবে আদালত বলেন, ‘আপনারা কি ডাক্তার? আপনারা ট্রিটমেন্টের কী বুঝবেন? এ সময় অপর আইনজীবী জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘আমাদের বারবার আপনাদের কাছেই আসতে হয়। আমাদের সবকিছু বন্ধ করবেন না। আমাদের একটু অনুমতি দেন। আর এ বিষয়ে আদেশের জন্য আগামী রোববার দিন ধার্য রাখেন।’ আদালত বলেন, ‘আমাদের একরিূপ্ল্যান রয়েছে। কোর্টের নিজস্ব প্ল্যান থাকে। সেই অনুযায়ী কোর্ট চলে।’ জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘মাই লর্ড, এইটুকু কনসিডার করেন। আপনাদের কাছে বারবার আসতে হয়। আগামী রোববার আদেশের জন্য দিন রাখেন।’ এ সময় অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম বলেন, ‘মেডিকেল বোর্ড রিপোর্ট দিয়েছে। তিনি (খালেদা জিয়া) যদি চিকিৎসার অনুমতি না দেন, তাহলে মেডিকেল বোর্ডের কী করার আছে? উনার সমস্যাগুলো নিয়ন্ত্রণে রয়েছে।’ এ সময় আদালত বলেন, ‘ব্যাকপেইন ও আর্থ্রাইটিসের সমস্যা রয়েছে। ঠিক আছে আমরা আদেশ দিই।’ পরে আবার আইনজীবী জয়নুল আবেদীন বলেন, ‘মাই লর্ড, দুপুর ২টা রাখেন।’ পরে আদালত জামিনের আদেশের জন্য দুপুর ২টায় সময় দেন। বেলা ২টায় আদালত শুনানি শুরু হয়। আদালত জামিন আবেদন খারিজ করে দেন। খালেদা জিয়ার পক্ষে আইনজীবী ছিলেন খন্দকার মাহবুব হোসেন, মওদুদ আহমদ, জয়নুল আবেদীন, এ জে মোহাম্মদ আলী ও ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম ও দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে খুরশিদ আলম খান। আদালতে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন। দুর্নীতির দুই মামলায় ১৭ বছরের দন্ড মাথায় নিয়ে কারাবন্দি খালেদা জিয়া এপ্রিল থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। দল ও পরিবারের সদস্যরা সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়াকে অন্য হাসপাতালে নিতে চাইলে তাতে অনুমতি মেলেনি। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় জামিন চেয়ে এর আগেও হাইকোর্টে আবেদন করেন খালেদা জিয়া। কিন্তু অপরাধের গুরুত্ব, সংশ্লিষ্ট আইনের সর্বোচ্চ সাজা এবং বিচারিক আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে খালেদা জিয়াসহ অন্য আসামিদের করা আপিল শুনানির জন্য প্রস্তুত- এমন তিন বিবেচনায় হাইকোর্ট বেঞ্চ ৩১ জুলাই সেই আবেদন খারিজ করে দেন। এর পর খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা আপিল বিভাগে যান। কিন্তু খালেদা জিয়া জামিন পাননি। গত বছরের ১২ ডিসেম্বর আপিল বিভাগ কিছু পর্যবেক্ষণ দিয়ে জামিন আবেদনটি খারিজ করে দেন। আপিল বিভাগের ওই রায়ে বলা হয়, বিএনপি চেয়ারপারসনের সম্মতি থাকলে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ী তাকে দ্রুত ‘অ্যাডভান্সড ট্রিটমেন্ট’ দেয়ার পদক্ষেপ নিতে। সেই রায় ১৯ জানুয়ারি প্রকাশিত হওয়ার পর হাইকোর্টে নতুন করে জামিন আবেদন করার উদ্যোগ নেন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা। ৩৬টি মামলার মধ্যে ৩৪টি মামলায় খালেদা জিয়া জামিনে আছেন বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবীরা।

ন্যায়বিচার পাইনি, রায়ে আমরা ক্ষুব্ধ – খালেদা জিয়ার আইনজীবী

ঢাকা অফিস ॥ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন খারিজ হওয়ায় ন্যায়বিচার পাননি বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবী অ্যাডভোকেট জয়নুল আবেদিন। তিনি বলেন, রায়ে আমরা ক্ষুব্ধ। জামিন আবেদনটি আদালতের বিবেচনায় নেয়া উচিত ছিল। আলোচনা করে পরবর্তী সিদ্ধান্ত আমরা নেব। জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন আবারও খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি এ কে এম জহিরুল হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ৩ টায় এ আদেশ দেন। রায়ের পর তিনি বলেন, রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত মামলায় খালেদা জিয়াকে কারাগারে রাখা হয়েছে, গত দুই বছর ধরে। এটি মিথ্যা ও হয়রানিমূলক মামলা। এতে খালেদা জিয়ার কোনো সংশ্লিষ্টতা নেই। খালেদা জিয়াকে বেআইনিভাবে কারাগারে রাখা হয়েছে এটাকে ষড়যন্ত্র বলে আখ্যা দেন বিএনপির এই ভাইস-চেয়ারম্যান। তিনি বলেন, সরকার খালেদা জিয়াকে রাজনৈতিক ভয় পায়। খালেদা আইনি লড়াইয়ের মাধ্যমে জামিনে আসুক, সরকার তা চায় না। তিনি জানান, খালেদা জিয়া বলেছেন- আইন লড়াইয়ে জামিন পাওয়া আমার সাংবিধানিক অধিকার। আইনের প্রতি সম্মান রেখেই সে কারণে বারবার আমরা আদালতে আসি। তিনি বলেন, এর আগেও আমরা সর্বোচ্চ আদালতের আপিল বিভাগে গিয়েছিলাম। কিন্তু বিএসএমএমইউ থেকে যে রিপোর্ট এসেছে, তা ছিল অসম্পূর্ণ। সেই রিপোর্টের ওপর নির্ভর করে সর্বোচ্চ আদালত একটা রায় দিয়েছিল। ‘খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা খুবই খারাপ। তিনি এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। কিন্তু এই হাসপাতাল থেকে কোনো নিরপেক্ষ প্রতিবেদন পাওয়া সম্ভব না।’ তিনি বলেন, বিএসএমএমইউ এমনভাবে রিপোর্ট দিচ্ছে, যাতে আদালত তা মানবিকভাবে দেখতে না পারেন। খালেদা জীবন এখন খুবই ঝুঁকিপূর্ণ। খালেদা জিয়ার সবশেষ স্বাস্থ্য প্রতিবেদন পর্যালোচনা করে জামিন আবেদনের ওপর দেয়া আদেশে আদালত বলেন, খালেদা জিয়ার চিকিৎসা তার মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শে হবে। তার চিকিৎসা বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালেই হবে। এর আগে বেলা ১১টায় জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় জামিন আবেদনের শুনানি শুরু হয়। এসময় কারাহেফাজতে চিকিৎসাধীন বিএনপি চেয়ারপারসনের সবশেষ স্বাস্থ্যগত অবস্থার প্রতিবেদন হাইকোর্ট বেঞ্চে দাখিল করা হয়। এর পরই রিপোর্টটি আদালতে পড়ে শোনান বেঞ্চের জ্যেষ্ঠ বিচারপতি ওবায়দুল হাসান। রিপোর্টে সাত সদস্যের মেডিকেল বোর্ড তাদের মতামত দিয়েছেন। রিপোর্টে বলা হয়, খালেদা জিয়ার ডায়াবেটিস, হাইপারটেনশন, অ্যাজমা, ব্যাকপেইন ও আর্থ্রাইটিজের সমস্যা রয়েছে। তবে ডায়াবেটিস, হাইপারটেনশন, অ্যাজমা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে। কিন্তু আর্থ্রাইটিজ ও ব্যাকপেইনের চিকিৎসার জন্য যেসব মেডিসিন পুশ করা দরকার, যেই বেটার ট্রিটমেন্ট দরকার তার জন্য খালেদা জিয়া অনুমতি দেননি। এতে করে উন্নত চিকিৎসা দেয়া যাচ্ছে না।

ঢাকার নবনির্বাচিত মেয়র তাপস ও আতিকুলের শপথ গ্রহণ

ঢাকা অফিস ॥ ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তর সিটি কর্পোরেশনের নবনির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরগণ গতকাল বৃহস্পতিকার সকালে শপথ নিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁর কার্যালয়ের শাপলা হলে ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস এবং উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র আতিকুল ইসলাম শপথ পাঠ করান। এছাড়া স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো: তাজুল ইসলাম একই স্থানে দুই সিটি কর্পোরেশনের সাধারণ ওয়ার্ড ও সংরক্ষিত আসনের নির্বাচিত ১৭২ জন কাউন্সিলরকে শপথ পাঠ করান। ১ ফেব্রুয়ারি ডিএসসিসি ও ডিএনসিসি’র নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে নগরবাসী ভোটের মাধ্যমে আগামী ৫ বছরের জন্য আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপসকে ডিএসসিসি’র এবং আতিকুল ইসলামকে ডিএনসিসি’র মেয়র হিসেবে নির্বাচিত করেছে। নির্বাচিত দুই মেয়রের পাশাপাশি ডিএসসিসিতে ১০০ কাউন্সিলরের মধ্যে ৭৫ জন সাধারণ এবং সংরক্ষিত আসন থেকে ২৫ জন মহিলা কাউন্সিলর এবং ডিএনসিসিতে ৭২ জন কাউন্সিলরের মধ্যে ৫৪ জন সাধারণ ও সংরক্ষিত আসন থেকে ১৮ জন মহিলা কাউন্সিলর নির্বাচিত হয়েছেন। তবে নবনির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলরদের দায়িত্ব নেয়ার জন্য মে পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে। কারণ বর্তমান মেয়র ও কাউন্সিলরদের মেয়াদ ডিএসসিসিতে ১৭ মে এবং ডিএনসিসিতে ১৩ মে শেষ হবে। সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো: তাজুল ইসলাম এবং নবনিযুক্ত দুই মেয়র এ সময় মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন।

বঙ্গবন্ধু পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির বিবৃতি

বিশেষ কোন স্বার্থ চরিতার্থ করার লক্ষ্যে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ নির্বাচন কমিশন”-কে অপতৎপরতা থেকে বিরত থাকার অনুরোধ

বঙ্গবন্ধু পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেস এন্ড মিডিয়া উইং আনন্দ কুমার সেন স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ডাঃ এস এ মালেক গত ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদের একটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন করেন। উক্ত কমিটির সভাপতি আইসিটি বিভাগের প্রফেসর ড. মাহবুবুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক ব্যবস্থাপনা বিভাগের প্রফেসর ড. মাহবুবুল আরফিন। অনুমোদনের পর থেকে উক্ত কমিটি যথারীতি কেন্দ্রীয় কমিটির পরামর্শ মোতাবেক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। ইতিমধ্যে এ কমিটি বেশ কিছু কর্মসূচি গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করে বিশ্ববিদ্যালয়সহ সর্বমহলে প্রশংসিত হয়েছে। এমতাবস্তায় কেন্দ্রীয় কমিটি গভীর উদ্বেগের সাথে লক্ষ্য করছে যে, “ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ নির্বাচন কমিশন” নামে একটি সংগঠন হঠাৎ করে তৎপরতা শুরু করেছে। এই কমিশন নামধারী প্রতিষ্ঠানটি “ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ (শিক্ষক ইউনিট) নামের আরেকটি সংগঠনের জন্য নির্বাচন ঘোষনা করেছে। কে বা কারা, কি উদ্দেশ্যে এ ধরনের কমিটি গঠন করেছে ও ‘তৎপরতা’ চালাচ্ছে বঙ্গবন্ধু পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটি তা একেবারেই অবগত নয়। যেখানে একটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদিত সেখানে বঙ্গবন্ধু পরিষদের নামে বা বঙ্গবন্ধু পরিষদের নাম ভাঙিয়ে এ ধরনের কার্যক্রম হীন উদ্দেশ্য, ব্যক্তি ও মহল বিশেষের বিশেষ কোন স্বার্থ চরিতার্থ করার লক্ষ্যে বলে কেন্দ্রীয় পরিষদ মনে করে। তাছাড়া, বঙ্গবন্ধু পরিষদ (শিক্ষক ইউনিট) নামে বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধু পরিষদের কোন শাখা নেই। একই সাথে বঙ্গবন্ধু পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটি এ ধরনের কোন সংগঠনের স্বীকৃতি দেয় না। “ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ নির্বাচন কমিশন”- কে এ ধরনের অপতৎপরতা থেকে বিরত থাকার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা গেল। অন্যথায় উদ্ভুত যে কোন পরিস্থিতি জন্য “ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ নির্বাচন কমিশন” ও এর সাথে জড়িতদেরকেই দায়ী থাকতে হবে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

সিএএ- বাংলাদেশি ছাত্রীকে ভারত ছাড়ার নোটিস

ঢাকা অফিস ॥ সরকারবিরোধী কর্মকান্ডে অংশ নেওয়ার অভিযোগে কলকাতার বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ুয়া এক বাংলাদেশি ছাত্রীকে ভারত ছাড়তে বলেছে কেন্দ্রীয় সরকার। প্রতিবেশী দেশটিতে সহিংসতা উসকে দেওয়া নাগরিগত্ব সংশোধন আইন (সিএএ) নিয়ে ক্যাম্পাসে এক বিক্ষোভের কয়েকটি ছবি সম্প্রতি ফেইসবুকে পোস্ট করার পর তাকে এ নির্দেশ দেওয়া হয় বলে ভারতীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে। কুষ্টিয়ার মেয়ে আফসারা আনিকা মিম ২০১৮ সালে বিশ্বভারতীর কেন্দ্রীয় কলাভবনের চারুকলা অনুষদের গ্রাফিক ডিজাইনে পড়তে পশ্চিবঙ্গে যান। টেলিগ্রাফ ইন্ডিয়ার প্রতিবেদনে বলা হয়, নাগরিকত্ব সংশোধন আইনবিরোধী ওই বিক্ষোভের ছবি ফেইসবুকে পোস্ট করার পর থেকে ওই ছাত্রী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘ট্রলের’ শিকার হচ্ছেন। গত ডিসেম্বরে বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল শিক্ষার্থী ও শিক্ষক নতুন আইনটির বিরুদ্ধে ক্যাম্পাসে বেশ কয়েকবার বিক্ষোভ মিছিল বের করে। ১৪ ফেব্র“য়ারি স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিদেশি নিবন্ধকের আঞ্চলিক কার্যালয় থেকে আফসারাকে চিঠি পাঠিয়ে ভারত ছাড়তে বলা হয়। নোটিসে বলা হয়, স্টুডেন্ট ভিসা নিয়ে ভারতে পড়তে এসে ‘সরকারবিরোধী কর্মকান্ডে জড়িত হয়ে’ বাংলাদেশি পাসপোর্টধারী আফসারা আনিকা মিম তার ভিসার শর্ত লঙ্ঘন করেছেন। তাকে ১৫ দিনের মধ্যে দেশ ছাড়তে নোটিসে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে বলে টেলিগ্রাফ ইন্ডিয়া জানিয়েছে।