আফগান নির্বাচনের ৫ মাস পর আশরাফ গনির জয় ঘোষণা

ঢাকা অফিস ॥ আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ফল নিয়ে তিক্ত বিতর্ক এবং দীর্ঘ বিলম্বের পর অবশেষে প্রেসিডেন্ট আশরাফ গনির জয় ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন। এক সংবাদ সম্মেলনে মোট ভোটের প্রায় ১৫ শতাংশের অডিটের পর ফল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশনের প্রধান বলেন, খুবই কম ভোটের ব্যবধানে ৫০.৬৪ শতাংশ ভোটে জয়ী হয়েছেন আশরাফ গনি। জয় পেতে দরকার ছিল ন্যূনতম ৫০ শতাংশ ভোট। গনি এর সামান্য একটু বেশি ভোটে জিতেছেন। আর তার প্রতিপক্ষ আবদুল¬াহ পেয়েছেন ৩৯.৫ ভোট। গনি জয় পাওয়ায় তিনি আরেকবারের জন্য আগামী পঁচবছর মেয়াদে আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট হলেন। বিরোধীদলীয় রাজনীতিবিদরা এ ফলের বিরোধিতা করছে। এতে করে যুক্তরাষ্ট্র-তালেবানের সম্ভাবনাময় শান্তি চুক্তির আগে দিয়ে পুরোদস্তুর আরেকটি রাজনৈতিক সংকট দেখা দেওয়ার আশঙ্কা করা হচ্ছে। গনির প্রধান প্রতিপক্ষ আবদুল¬াহ আবদুল¬াহর সমর্থকরা গনির অনুকূলে ফল প্রকাশ করার জন্য আফগান নির্বাচন কমিশনকে দোষারোপ করেছে এবং প্যারালাল সরকার গড়ারও হুমকি দিয়েছে। আফগানিস্তানে একের পর এক তালেবান হামলা এবং নির্বাচন বানচালের চেষ্টার মধ্যে গত ২৮ সেপ্টেম্বরে ভোট হয়। এর আগে যুক্তরাষ্ট্র-তালেবান আলোচনার কারণে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন দুই দফা পিছিয়েও গিয়েছিল। কিন্তু পরে একটি চুক্তিতে উপনীত হতে হতে শেষ পর্যন্ত ওই আলোচনা ভেস্তে যাওয়ায় নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করে আফগান সরকার। কিন্তু তালেবান গোষ্ঠী ভোটকেন্দ্রে হামলা চালানোর হুমকি দেওয়ায় ভোটার উপস্থিতি অস্বাভাবিক রকম কম ছিল এবং ভোট গ্রহণ পদ্ধতি নিয়ে অনেক বেশি অভিযোগ উঠার কারণে ভোটের ফলাফল অধিকাংশের কাছে গ্রহণযোগ্য না হওয়ার আশঙ্কা সৃষ্টি হয়। সেক্ষেত্রে ভোটের ফল বাতিল হয়ে যাওয়া বা দেশজুড়ে নতুন করে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ারও শঙ্কা ছিল। ডিসেম্বরে নির্বাচন কমিশন ভোটের ‘প্রাথমিক ফলে’ গনির জয় ঘোষণা করে। কিন্তু প্রতিপক্ষ আবদুল¬াহ আবদুল¬াহ কারচুপির অভিযোগ তুলে এ ফল প্রত্যাখ্যান করেন এবং ভোট পুনর্গণনার আহ্বান জানিয়েছিলেন। তবে গনি  নির্বাচন নিয়ে ওঠা সব অভিযোগ অস্বীকার করেন।

করোনা ভাইরাস নিয়ে মিথ্যা গুজবে কান দিবেন না – স্বাস্থ্যমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ করোনা ভাইরাস নিয়ে মিথ্যা কোন গুজবে কান না দিতে দেশের জনগণের প্রতি আহবান জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক। গতকাল বুধবার সকালে রাজধানীর মহাখালীস্থ নবনির্মিত নার্সিং অধিদপ্তরের নতুন ভবন পরিদর্শনকালে সাংবাদিকদের সাথে আলাপ কালে তিনি এই আহবান জানান। জাহিদ মালেক বলেন, ‘করোনা ভাইরাস নিয়ে এক শ্রেণির মানুষ কিছু মিথ্যা গুজব ছড়ানোর চেষ্টা করছে যা কোনভাবেই কাম্য হতে পারেনা। মুরগির মাংস খাওয়া, মাস্ক ব্যবহার করা থেকে শুরু করে বিদেশ ফেরত কোন সুস্থ্ মানুষকে নিয়ে মিথ্যা গুজব ছড়ানোর চেষ্টা করা হচ্ছে।’ তিনি বলেন, ‘করোনা ভাইরাস নিয়ে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর থেকে প্রতিদিনই আপডেট দেয়া হচ্ছে এবং করণীয় বিষয়গুলি বলা হচ্ছে। সুতরাং কোথাও কোন রকম মিথ্যা গুজব ছড়ানো যাবেনা এবং স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্দেশনার বাইরে অন্য কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের কোন ধরনের কথায় কান দেয়া যাবেনা।’ করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে বাংলাদেশের স্বাস্থ্যখাত কতটা প্রস্তুত এমন প্রশ্নের জবাবে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে স্বাস্থ্যখাত সবদিক দিয়ে এখন পুরোপুরি প্রস্তুত। ইতোমধ্যেই দেশের সকল প্রবেশ পথে ২ লাখেরও বেশি মানুষকে স্ক্রিনিং করা হয়েছে। সন্দেহজনক প্রায় ৭২ জন বিদেশ ফেরত মানুষকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করা হয়েছে। এখন পর্যন্ত দেশে একজনও করোনা ভাইরাস সংক্রমিত হয়নি। আর কোন কারনে কোন সক্রমিত করোনা রোগী চলে এলেও তার চিকিৎসার সব ধরনের জোড়ালো প্রস্তুতি দেশের স্বাস্থ্যখাতের রয়েছে। নার্সিং অধিদপ্তরের গুরুত্ব উল্লেখ করে জাহিদ মালেক বলেন, দেশে বর্তামানে সরকারি, বেসরকারি সব মিলিয়ে ৩৭৬ টি নার্সিং ইন্সটিটিউট রয়েছে। এখান থেকে প্রতি বছর গড়ে প্রায় ২০ হাজার নার্স বের হয়ে আসছে। প্রতিষ্ঠানগুলোকে সরকারের নীতিমালার আওতায় আনতে হবে। প্রতিষ্ঠানগুলোর সরকারের নীতিমালা পুরোপুরি মেনে চলতে এবং নার্সিং পেশাকে আরো আধুনিকায়ন করতে নার্সিং অধিদপ্তরের গুরুত্ব অনেক। নতুন ভবনের অবকাঠামোগত সব কাজই প্রায় শেষ হয়েছে। সবকিছু ঠিক থাকলে আগামী মাসেই ভবনটিতে কার্যক্রম শুরু করা সম্ভব হবে। পরিদর্শনকালে স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের সচিব আলী নূর, নার্সিং অধিদপ্তরের মহাপরিচালক সিদ্দিকা আক্তারসহ মন্ত্রণালয় ও অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

দৌলতপুরে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারদের মাঝে ত্রাণ সহায়তা প্রদান

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারদের মাঝে ত্রাণ সহায়তা হিসেবে নগদ টাকা, শাড়ী, লুঙ্গি ও টিন প্রদান করা হয়েছে। গতকাল বুধবার অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে এসব ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়। ব্যবসায়ী তোফাজ্জেল হোসেন অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ ১৪ পরিবারকে ৩ বান্ডিল করে ঢেউটিন প্রদান করেন। রামকৃষ্ণপুর ইউপি সদস্য শহিদুল ইসলাম প্রদান করেন শাড়ী ও লুঙ্গিসহ পোষাক পরিচ্ছদ। ইটালী প্রবাসী গোলাম সরোয়ার এবং ব্যবসায়ী ইউসুফ আবু জাফর পাপ্পু পরিবার প্রতি দুই হাজার টাকা করে প্রদান করেন। এসময় রিফাজ উদ্দিন, আব্দুল আজিজ, মহিদুল ইসলাম ও সোহেল রানা উপিস্থত ছিলেন। উল্লেখ্য, রবিবার দুপুর সোয়া ১টার দিকে উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের পদ্মারচর লোকনাথপুর গ্রামের জিন্নাত সর্দারের পাড়ায় অগ্নিকান্ড ঘটে ৩০টি ঘর ভষ্মিভূত হয়েছে। আগুনে পুড়ে মারা গেছে ৭টি ছাগল। এতে ১৪টি পরিবারের অর্ধকোটির টাকার সম্পদ ভষ্মিভূত হয়েছে। অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থরা বর্তমানে খোলা আকাশের নীচে থাকলেও মানবিক সাহায্য ও সহযোগিতা হিসেবে তাদের মাঝে বিভিন্ন সংগঠন ও সুধীজনের ত্রান সহায়তা প্রদান অব্যাহত রয়েছে।

জার্মানিতে মসজিদে হামলার পরিকল্পনা, গ্রেফতার ১২

ঢাকা অফিস ॥ জার্মানির একটি উগ্র ডানপন্থী গোষ্ঠী দেশটির মসজিদগুলোতে হামলার পরিকল্পনা করেছিল বলে জানিয়েছে দেশটির সরকার। আর এজন্য ১২ জন সন্দেহভাজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার জার্মান সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয় উগ্র ডানপন্থী গোষ্ঠীটি দেশটির মসজিদগুলোতে বড় ধরনের হামলার পরিকল্পনা করেছিল। খবর ডয়চে ভেলের। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে দায়িত্বরত একজন কর্মকর্তা জানান, একটি দলের এমন সন্ত্রাসী সেল থাকার ঘটনায় তারা হতবাক। বিদ্যমান পরিস্থিতিতে প্রার্থনাস্থলে কোনো হামলার ঘটনার আশঙ্কাও একেবারে উড়িয়ে দেয়া যাচ্ছে না। এ ঘটনায় চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মার্কেলের মুখপাত্র স্টেফান সাইবার্ট বলেন, স্বাধীনভাবে ধর্ম পালনের অধিকার রক্ষা করা রাষ্ট্র এবং সরকারের দায়িত্ব। এক্ষেত্রে কার কোন ধর্ম তা বিবেচ্য নয়। শুক্রবার দেশটির বেশ কয়েকটি রাজ্যে অভিযান চালিয়ে এ ১২ জনকে গ্রেফতার করা হয়। তদন্ত চলাকালীন তাদের জেলে রাখার নির্দেশ দিয়েছে জার্মানির ফেডারেল কোর্ট অব জাস্টিস।

দৌলতপুর প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের সাথে মুক্তির মতবিনিময় সভা

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের সাথে মুক্তি নারী ও শিশু উন্নয়ন সংস্থার মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার বেলা সাড়ে ১১টায় দৌলতপুর প্রেসক্লাব মিলনায়তনে এ মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। মুক্তি নারী ও শিশু উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে নারীর প্রতি সহিংসতা কমিয়ে এনে নারী অধিকার প্রতিষ্ঠা করা প্রকল্প সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভার আয়োজন করে। দৌলতপুরে প্রেসক্লাবের সভাপতি এ্যাড. এমজি মাহমুদ মন্টুর সভাপতিত্বে মুক্তির মতবিনিময় সভায় বক্তব্য রাখেন, দৌলতপুর কলেজের বাংলা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক সরকার আমিরুল ইসলাম ও দৌলতপুর প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক শরীফুল ইসলাম। এ সময় দৌলতপুর প্রেসক্লাবের সকল সদস্যবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সভায় মুক্তির পক্ষে সংস্থার পরিচিতি তুলে ধরেন সহঃ সমন্বয়কারী (অর্থ ও প্রশাসন) মো. ফরহাদ আলী খান এবং প্রকল্প পরিচিতি উপস্থাপন করেন প্রকল্প সমন্বয়কারী উম্মে সালমা। উপস্থিত সাংবাদিকবৃন্দ দৌলতপুরে নারীর প্রতি সহিংসতা, বাল্য বিবাহ, যৌতুক, হয়রানি, ইভটিজিং, কন্যা শিশুর প্রতি অসম আচরণ বে-আইনীতালাক সহ বিভিন্ন বিষয়ে বর্তমান অবস্থা এবং তা থেকে উত্তোরণের উপায় বা কৌশল নিয়ে আলোচনায় অংশ নেন। এর পাশাপাশি কিশোরীদের প্রজনন স্বাস্থ্য, মাদকের ক্ষতিকর প্রভাবসহ সমাজের নানা নেতিবাচক সমস্যা দূরীকরণে বিভিন্ন সুপারিশ উপস্থাপন করেন। তারা মুক্তির কার্যক্রমের ভূয়সী প্রংশসা করেন এবং এ রকম সামাজিক উন্নয়নমূলক কার্যক্রমে তাদের সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান। সভাটি সঞ্চালনা করেন প্রকল্প অফিসার আব্দুর রাজ্জাক। সহযোগিতা করেন প্রকল্প সহায়ক শবনম মোস্তারী ও সহকারী হিসাব রক্ষক রোজী অরেফিন ।

ডাকঘর সঞ্চয় স্কিমের সুদের হার পুনর্বিবেচনা হবে – অর্থমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ ডাকঘর সঞ্চয় স্কিমের সুদের হারের বিষয় পুনর্বিবেচনা করার আশ্বাস দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। বুধবার সচিবালয়ে অর্থনীতি ও সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নে এ কথা বলেন। গত ১৩ ফেব্রুয়ারি অর্থমন্ত্রণালয়ের অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের এক পরিপত্রে ডাকঘরে যে সঞ্চয় ব্যাংক রয়েছে সেই ব্যাংকের সুদের হার সরকারি ব্যাংকের সুদের হারের সমপর্যায়ে নিয়ে আসা হয়। অর্থমন্ত্রণালয় বলেছে, ডাকঘরে চারভাবে টাকা রাখা যায়। ডাকঘর থেকে জাতীয় সঞ্চয় অধিদপ্তরে সঞ্চয়পত্র কেনা যায়, ডাকঘর সঞ্চয় ব্যাংকে মেয়াদি হিসাব ও সাধারণ হিসাব খোলা যায়। আবার ডাক জীবন বিমাও করা যায়। এবার সুদের হার কমেছে ডাকঘরের সঞ্চয় স্কিমের মেয়াদি হিসাব ও সাধারণ হিসাবে। সাধারণ হিসাবের ক্ষেত্রে সুদের হার সাড়ে ৭ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৫ শতাংশ করা হয়েছে।

 

ছাত্রীকে মারধর

গাংনীতে ভ্রাম্যমাণ আদালতে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার তেঁতুলবাড়ীয়া ইউনিয়নের করমদী গ্রামে এক স্কুল ছাত্রীকে মারধরের ঘটনা ঘটেছে। ওই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ভ্রাম্যমাণ আদালতে সাইদুর রহমান সাঈদ (২০) নামের এক কলেজ ছাত্রকে ৪০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। সাঈদ উপজেলার কল্যাণপুর গ্রামের সাহাজুল ইসলামের ছেলে ও গাংনী পাইলট মাধ্যমিক স্কুল এন্ড কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র। গতকাল বুধবার বিকেলে পৌনে ৩টার দিকে উপজেলার করমদী মাধ্যমিক বিদ্যালয় এলাকায় ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে সাঈদকে জরিমানা করা হয়। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিলারা রহমান।

ভ্রাম্যমাণ আদালত সূত্রে জানা যায় বুধবার সকালের দিকে করমদী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এক ছাত্রী সহপাঠীদের সাথে রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিল। এ সুযোগে সাইদুর রহমান সাঈদ শারীরিকভাবে তাকে নির্যাতন করেন (চড়-থাপ্পড় মারেন)। এসময় বিক্ষুদ্ধ হয়ে পথচারী ও করমদী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা সাঈদকে বিদ্যালয়ের একটি কক্ষে আটকে রেখে প্রধান শিক্ষককে অবগত করে এবং নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রী বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে বিষয়টি জানায়। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুহাম্মদ আলম হুসাইন বিষয়টি তাৎক্ষনিকভাবে উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে অবগত করেন। খবর শুনে উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিলারা রহমান ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। এসময় পুলিশের একটিদল উপস্থিত ছিল। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসানো হয় । এসময়  সাঈদ তার নিজের (দোষ) অপরাধ স্বীকার করলে ৪০ হাজার জরিমানা করা হয়। নির্যাতনের শিকার ওই ছাত্রী জানায়, সাঈদ কয়েক বছর যাবত ধরে আমাকে নানাভাবে উত্যক্ত করে আসছিলেন। আমি তাকে গুরুত্ব না দেয়ায় রাস্তায় পেয়ে আমাকে মারধর করেন। ভ্রাম্যমাণ আদালতের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিলারা রহমান জানান, অভিযুক্তের বয়স এবং ছাত্রত্বের বিষয়টি বিবেচনা করে ৪০ হাজার টাকা অর্থদন্ড দেওয়া হয়েছে।

গাংনীর মহাম্মদপুরে ডাচবাংলা এজেন্ট ব্যাংকের উদ্বোধন

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার মটমুড়া ইউনিয়নের মহাম্মদপুর বাজারে ডাচবাংলা এজেন্ট ব্যাংকের উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে এ ব্যাংকের শাখা উদ্বোধন করা হয়। প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত থেকে ব্যাংকের উদ্বোধন করেন মটমুড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোহেল আহমেদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও মেহেরপুর জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম সেলিম। এসময় ডাচবাংলা এজেন্ট ব্যাংকের কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ এলাকার বিভিন্ন শ্রেণী-পেশার মানুষ উপস্থিত ছিলেন।

ভেড়ামারায় জিকে’র প্রধান সেচ খালের উপর অবৈধ দখলমুক্ত করতে উচ্ছেদ অভিযান

ভেড়ামারা প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় জিকে প্রধান সেচ খালের উপর অবৈধ দখলমুক্ত করতে উচ্ছেদ অভিযান চালিয়েছে জেলা প্রশাসন ও বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড। গতকাল বুধবার দুপুর ১২টা থেকে বিকেল ৩টা পর্যন্ত উপজেলার চন্ডিপুর এলাকাস্থ খালের ৪নং ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় চলা এই উচ্ছেদ অভিযানে ২০টি স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়। বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড কুষ্টিয়ার নির্বাহী প্রকৌশলী পিযুষ কৃষ্ণ কুন্ডু জানান, দীর্ঘদিন ধরে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের গুরুত্বপূর্ন সেচ প্রকল্প গঙ্গা-কপোতাক্ষ (জিকে)’র প্রধান সেচ খালসহ শাখা খালগুলির উপর অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ করায় সেচ সরবরাহে বিঘেœর সৃষ্টি হচ্ছিল। এসময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন, জেলা প্রশাসনের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোসাব্বির হোসেন, ভেড়ামারা উপজেলা নির্বাহী অফিসার, বাপাউবো’র নির্বাহী প্রকৌশলী ও উর্দ্ধতন প্রশাসনিক কর্মকর্তাবৃন্দসহ র‌্যাব, পুলিশ ও আনসার সদস্যদের সমন্বিত আইন শৃংখলা বাহিনী।

কুষ্টিয়া জেলা আইনজীবী সমিতিতে আইন গবেষক সিরাজ প্রামাণিক’র ৩১তম আইনগ্রন্থের মোড়ক উন্মোচন

বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের তরুণ আইনজীবী, গবেষক ও আইনগ্রন্থ প্রণেতা সিরাজ প্রামাণিক এর ৩১তম আইনগ্রন্থ ‘আইনী ভাষ্য’ বইয়ের মোড়ক উন্মোচিত হয়েছে। গতকাল বুধবার কুষ্টিয়া জেলা আইনজীবী সমিতি প্রাঙ্গনে আইনজীবী সমিতির আয়োজনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বইটির মোড়ক উন্মোচন করেন কুষ্টিয়া আইনজীবী সমিতির সভাপতি ও পাবলিক প্রসিকিউটর এ্যাড. অনুপ কুমার নন্দী। প্রধান আলোচক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞ জিপি আ.স.ম আক্তারুজ্জামান মাসুম। বিশেষ অতিথি ছিলেন কুষ্টিয়া জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. মোঃ আবু সাঈদ। আইনজীবী এনামুল হকের সঞ্চালনায় বইটির উপর আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন এ্যাডভোকেট হাসানুল আসকার হাসু সহ একাধিক সিনিয়র আইনজীবী। এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক জহিরুল ইসলাম, স্পেশাল পিপি রফিকুল ইসলাম লালন, নারী ও শিশু আদালতের পিপি অঃ হালিম, অতিরিক্ত পিপি জাহাঙ্গীর আলম গালিব, এ্যাড. আঃ মান্নাফ, এ্যাডভোকেট সুধীর কুমার শর্মা, এ্যাড. গোলাম মওলা, এ্যাড. সুভাষ চন্দ্র বিশ্বাস প্রমুখ। বইটি প্রকাশ করেছেন বিখ্যাত প্রকাশনী সংস্থা বটেশ্বর বর্ণন। বইটি পাওয়া যাচ্ছে বটেশ্বর বর্ণন এর ৫৯৬ ও ৫৯৭ নং ষ্টলে। প্রতিটি মানুষেরই নিজস্ব একটা জীবন থাকে, যে জীবনের অভিজ্ঞতায় ব্যক্তি হিসেবে তিনি অনন্য। এ বইয়ের লেখক খুঁটে খুঁটে জানতে চেষ্টা করেছেন আইনাঙ্গনে আসা মানুষের জীবনচিত্র, তাদের ভোগান্তির কথা, কষ্টের কথা, অজ্ঞতার কথা। মানুষের জীবনে ঘটে যাওয়া প্রেম, ভালবাসা, বিয়ে, তালাক, দেনমোহর,  যৌতুক, নারী ও শিশু নির্যাতন, মানবাধিকার, পারিবারিক, হত্যা, জমি বিষয়গুলো নানা অনুষঙ্গ হয়ে লেখকের হৃদয়ে ধরা দিয়েছে। বইটিতে রয়েছে আইনের সহজ পাঠ, বাস্তব কেইস ষ্টাডি, উচ্চ আদালতের সিদ্ধান্ত, সকল শ্রেণী-পেশার মানুষের পাঠ উপযোগী। ফলে এ বই সাধারণ পাঠক থেকে শুরু করে আইনের শিক্ষার্থী, আইনজীবী, বিচারক ও গবেষকদেরও প্রয়োজন মেটাবে। প্রতিটি অধ্যায় আইনের গৎবাঁধা মারপ্যাঁচের শব্দ পরিহার করে সহজবোধ্য করে রচিত হয়েছে। প্রতিটি বিষয়ে দেখানো হয়েছে উদাহরণ। এতে আইনের বিষয়গুলো আর তাত্ত্বিক থাকেনি, হয়ে উঠেছে ব্যবহারিক। ফলে পাঠক সহজেই তাঁর সমস্যার সহজ সমাধান খুঁজে পাবেন। প্রতিটি বিষয়ে সর্বশেষ সংশোধনী থেকে তথ্য  দেওয়া হয়েছে। সুবিন্যস্তভাবে সাজানোর কারণে বিষয়গুলো হয়ে উঠেছে সাবলীল। আইনের ভাষা কঠিন, পড়ে বোঝা কষ্টকর এ ধারণা পাল্টে যাবে বইটি পড়লে। নিত্য প্রয়োজনীয় আইনগুলো নিয়ে কোনো আইনি ঝামেলায় পড়লে কী করতে হবে, নিয়মকানুন কী,  কোথায় যেতে হবে, কত খরচ হবে পাঠক খুব সহজেই এ বই  থেকে পাবেন। একটি দেশে, একটি সমাজে সুশাসন প্রতিষ্ঠার জন্য প্রয়োজন ব্যাপক জনগোষ্ঠীর আইন সম্পর্কে সচেতনতা। এ বাস্তবতার নিরিখে লেখকের এ বইখানি অপরাধ সচেতন একটি জনগোষ্ঠী সৃষ্টি করতে অবদান রাখবে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

সিটি ইউনিভার্সিটিকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা

ঢাকা অফিস ॥ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) নির্দেশনা না মেনে আইন বিভাগে ৫০ জনের বেশি শিক্ষার্থী ভর্তি করায় সিটি ইউনিভার্সিটিকে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করেছে সর্বোচ্চ আদালত। সিটি ইউনিভার্সিটির উপাচার্য  অধ্যাপক  শাহ-ই- আলম আদালতের তলবে গতকাল বুধবার সুপ্রিম কোর্টে হাজির হলে তার উপস্থিতিতে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার বিচারকের আপিল বেঞ্চ এই আদেশ দেয়। আদালত বলেছে, জরিমানার ওই অর্থ বাংলাদেশ বার কাউন্সিলে জমা দিতে হবে। সেই রশিদ দেখালে সিটি ইউনিভার্সিটির ২৫ শিক্ষার্থী আগামী ২৮ ফেব্র“য়ারি বার কাউন্সিল পরীক্ষায় অংশ নেওয়া সুযোগ দেওয়া হবে। আদালতে বার কাউন্সিলের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী এ ওয়াই মশিউজ্জামান। আর শিক্ষার্থীদের পক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী এ এম আমিন উদ্দিন। মশিউজ্জামান পরে বলেন, জরিমানার অর্থ কোনোভাবেই শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে নেওয়া যাবে না, বিশ্ববিদ্যালয়ের তহবিল থেকেই তা পরিশোধ করতে হবে বলে নির্দেশ দিয়েছে আদালত।

২০১৪ সালের ২৩ এপ্রিল ইউজিসির জারি করা এক নির্দেশনায় বলা হয়, কোনো বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় আইন বিভাগে প্রতি সেমিস্টারে ৫০ জনের বেশি শিক্ষার্থী ভর্তি নিতে পারবে না। ইউজিসির নির্দেশনার বিষয়টি জানিয়ে ২০১৯ সালের ১ অক্টোবর বার কাউন্সিল এক নোটিসে জানায়, কোনো বেসরকারি বিশ্বাবদ্যালয় প্রতি সেমিস্টারে ৫০ জনের বেশি শিক্ষার্থী ভর্তি নিলে নিবন্ধন দেওয়া হবে না। এরপর ১১টি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই হাজার শিক্ষার্থী বিভিন্ন সময়ে বার কাউন্সিলের সিদ্ধান্ত চ্যালেঞ্জ করে রিট আবেদন করেন। সেসব আবেদনে হাই কোর্ট বিভিন্ন সময়ে রুল জারি করে এবং তাদের পরীক্ষা দেওয়ার অনুমতি দেয়। সিটি ইউনিভার্সিটির ২৫ শিক্ষার্থীর করা রিটে গত বছর ২৪ অক্টোবর হাই কোর্ট আইনজীবী হিসেবে তাদের তালিকাভুক্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য নিবন্ধন ও ফরম পূরণের সুযোগ দিতে বার কাউন্সিলকে নির্দেশ দেয়। এর বিরুদ্ধে বার কাউন্সিল আপিল বিভাগে আবেদন করলে গত ১৮ ফেব্রুয়ারি আদালত সিটি ইউনিভার্সিটির উপাচার্যকে তলব করে এবং বুধবার সকালে উপস্থিত হয়ে এ বিষয়ে ব্যাখ্যা দিতে বলে। এর ধারাবাহিকতায় উপাচার্য  অধ্যাপক  শাহ-ই- আলম বুধবার হাজির হলে শুনানি শেষে আদালত জরিমানার আদেশ দেয়।

মরিচা ইউপি চেয়ারম্যানসহ আহত-১০

দৌলতপুরে বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন নিয়ে সংঘর্ষ

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে মরিচা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে। সংঘর্ষে মরিচা ইউপি চেয়ারম্যানসহ অন্তত ১০জন আহত হয়েছে। আহতদের মধ্যে ৩জন রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। মঙ্গলবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার মরিচা ইউনিয়নের বালিরদিয়াড় বাজারে সংঘর্ষের এ ঘটনা ঘটেছে। স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, মরিচা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাকের কর্মী সমর্থকরা বালিরদিয়াড় বাজারে ভোট চাইতে গেলে মরিচা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ আলমগীরের লোকজনের সাথে তাদের বাকবিতন্ডা বাঁধে। বাকবিতন্ডার একপর্যায়ে চেয়ারম্যান শাহ আলমগীরের লোকজনের আব্দুর রাজ্জাক প্যানেলের সমর্থক ছাব্বির, বাবলু ও শরিফুলকে বেধড়ক মারপিট করে গুরুতর আহত করে। পরে আব্দুর রাজ্জাক পক্ষের লোকজন সংঘবদ্ধ হয়ে মরিচা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহ আলমগীরের অফিসে হামলা চালায়। এসময় উভয় পক্ষের লোকজনের মধ্যে সংঘর্ষে বাঁধে। সংঘর্ষে উভয় পক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে একে অপরের ওপর হামলা ও ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। খবর পেয়ে দৌলতপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে। সংঘর্ষে মরিচা ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলমগীর, রশিদ, রাব্বি, কামাল, সামিউল, ফিরোজ, ছাব্বির, বাবলু ও শরিফুলসহ ১০জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে রাজ্জাক পক্ষের ৩জনকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বাঁকীরা স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা নিয়েছে। সংঘর্ষের বিষয়ে মরিচা ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলমগীর বলেন, রাজ্জা মিস্ত্রির লোকজন আমার অফিসে অতর্কিত হামলা চালিয়ে আমাকেসহ আমার লোকজনকে বেধড়ক মারপিট করে আহত করেছে। এসময় হামলাকারীরা আমার মোটরসাইকেলটিও ভাংচুর করে। সংঘর্ষের বিষয়ে দৌলতপুর থানার ওসি এস এম আরিফুর রহমান বলেন, বর্তমানে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে রয়েছে। মরিচা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন নিয়ে মঙ্গলবার রাতে দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ ও উত্তেজনা দেখা দিয়ে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করা হয়েছে। উলে¬খ্য, গতকাল বুধবার মরিচা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

মাদক হিসেবে ঔষধ বিক্রি

ভেড়ামারায় ফার্মেসী মালিক ও ক্রেতার কারাদন্ড

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় পেসক্রিপশন ছাড়া ট্যাপেন্টা, পেন্টাডল ও সমজাতীয় ঔষধ মাদক হিসেবে বিক্রির দায়ে ফার্মেসী মালিক আনিছুর রহমান (৪২) ও ক্রেতা মাদকসেবী রবিউল (৪০) কে কারাদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালত। গতকাল বুধবার দুপুরে  ভেড়ামারা উপজেলার ক্ষেমিড়দিয়াড় গ্রামের পরিচালিত এ ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ছিলেন ইউএও ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সোহেল মারুফ। উপজেলা নির্বাহী অফিসার সোহেল মারুফ জানান, ভেড়ামারা শহরের ফারাকপুর রেলগেটের ফার্মেসী মালিক আনিছুর রহমানের  ক্ষেমিড়দিয়াড় গ্রামস্থ বাড়ি থেকে বিপুল পরিমাণ ট্যাপেন্টা, পেন্টাডল ও সমজাতীয় ঔষধ উদ্ধার করা হয়। এসময় তার কাছ থেকে কিনে নেশা হিসেবে  সেবনকারী রবিউলকে আটক করা হয়। এবং উদ্ধারকৃত ঔষধ জব্দ করা হয়। পরে ঔষধ মাদক হিসেবে বিক্রি করার অপরাধে ক্ষেমিড়দিয়াড় গ্রামের ইয়াকুব আলী শেখ’র ছেলে আনিছুর রহমান কে ৯ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ১ হাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান করা হয়। এবং একই গ্রামের মৃত ছমির উদ্দিন’র ছেলে মাদকসেবী রবিউলকে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ১ হাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান করা হয়। এসময় মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তাসহ আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন।

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ছাত্রলীগের কমিটি বাতিলের দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ

কুমারখালী প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ছাত্রলীগের নবগঠিত কমিটি বাতিলের দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ করেছে পদবঞ্চিত উপজেলা ছাত্রলীগের একাংশ। গতকাল বুধবার বেলা ১১ টায় কুমারখালী বাসস্ট্যান্ডে এ মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক রাসেলের নেতৃত্বে এসময় পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আক্তারুজ্জামান নিপুন সহ বিভিন্ন নেতা কর্মী উপস্থিত ছিলেন। বিক্ষোভের সময় কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী আঞ্চলিক মহাসড়ক অবরোধ করার কারনে যোগাযোগ ব্যবস্থা সাময়িকভাবে স্থবির হয়ে পড়ে। পরে কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ও স্থানীয় নেতাদের হস্তক্ষেপে বিক্ষোভ সমাবেশ ও অবরোধ প্রত্যাহার করে নেয় পদবঞ্চিত নেতা-কর্মীরা। নবগঠিত কমিটি বিলুপ্তির দাবীতে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ সমাবেশ কেন? এমন প্রশ্নের জবাবে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি ইয়াসির আরাফাত তুষার জানান ছাত্রত্ব না থাকার কারনে পূর্বের কমিটি ভেঙে নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে। উল্লেখ্য, গত এক মাস আগে কুমারখালী উপজেলা ছাত্রলীগের কমিটি বাতিল করে জাহাঙ্গীর আলমকে সভাপতি ও  সোহেল হোসেন জীবনকে সাধারণ সম্পাদক করে কমিটি দেয় জেলা ছাত্রলীগ।

বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (বিকেএসপি) তে

তৃণমূল পর্যায়ে ক্রীড়া প্রতিভা অন্বেষণে বৃহত্তর কুষ্টিয়া জেলা পর্যায়ে খেলোয়াড় বাছাই ১ মার্চ

নিজ সংবাদ ॥ তৃণমূল পর্যায়ে ক্রীড়া প্রতিভা অন্বেষণ ও নিবিড় প্রশিক্ষণ কার্যক্রম-২০২০ জেলা পর্যায়ে খেলোয়াড় বাছাই কর্মসূচি শুরু করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (বিকেএসপি)। এ জন্য দেশের ৬৪টি জেলাকে বিভিন্ন জোনে ভাগ করা হয়েছে। জানাগেছে, তৃণমূল পর্যায়ে ক্রীড়া প্রতিভা অম্বেষণ এবং প্রশিক্ষণের মাধ্যমে ক্রীড়া মেধার পরিশীলন, পরিস্ফুটন ও উন্নয়ন এবং বাছাইকৃতদের ৬-৮ বছর দীর্ঘমেয়াদী প্রশিক্ষণ প্রদান করে সামগ্রিকভাবে দেশের ক্রীড়ার মান উন্নয়ন এ কার্যক্রমের মূল উদ্দেশ্য।

এ কার্যক্রমের অধীনে ১৮টি ক্রীড়া বিভাগ, যথা: আরচ্যারি, অ্যাথলেটিক্স, বাস্কেটবল, ক্রিকেট, ফুটবল, হকি, জুডো, কারাতে, শুটিং, তায়কোয়ানডো, টেবিল টেনিস, ভলিবল, উশু ও কাবাডি খেলায় ১২-১৩ বৎসর এবং বক্সিং, জিমন্যাস্টিক্স, সাঁতার ও টেনিস  খেলায় অনুর্ধ্ব-৮ থেকে ১২ বছর বয়সের ছেলে-মেয়ে খেলোয়াড় নির্বাচন করা হবে।

আগামী ১ মার্চ ২০২০ তারিখে কুষ্টিয়া জেলা স্টেডিয়ামে (বৃহত্তর কুষ্টিয়া জেলার ৩ জেলা) কুষ্টিয়া, মেহেরপুর ও চুয়াডাঙ্গা জেলার বাছাই কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হবে। বাছাই পরীক্ষার সময় ২ (দুই) কপি পাসপোর্ট সাইজ ছবি এবং পিইসি সার্টিফিকেট সঙ্গে আনতে হবে। সকাল ৯টা হতে বিকাল ৪টা পর্যন্ত কুষ্টিয়া জেলা স্টেডিয়ামে কুষ্টিয়া, মেহেরপুর ও চুয়াডাঙ্গা জেলার আগ্রহী খেলোয়াড়দের বাছাই পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে। অনলাইনে আবেদন ফরম পূরণ করতে হবে। ঙহষরহব জবমরংঃৎধঃরড়হ:- িি.িনশংঢ়.মড়া.নফ – লগইন – ছাত্র/ছাত্রী – ঙহষরহব জবমরংঃৎধঃরড়হ – ফরম পূরণের পর –  ঝঁনসরঃ – পূরণকৃত ফরমের প্রিন্ট কপি। প্রয়োজনীয় তথ্যের জন্য ফোন:- ০২-৭৭৮৯২১৫, মোবাইল:-০১৯৮৯-৪০৬৯৬৪, ০১৭১২-৬১৭৯৫৫, ০১৭০৯-৩৩০০৭০ ফ্যাক্স:-০২-৭৭৮৯৫১৩ যোগাযোগ করতে হবে।

বাংলাদেশের বিমানবন্দর ও সমুদ্রবন্দর সুবিধা গ্রহণে নেপালের প্রতি আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর

ঢাকা অফিস ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের বিমানবন্দর ও সমুদ্রবন্দর সুবিধা গ্রহণের জন্য নেপালের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। সফররত নেপালের পররাষ্ট্রমন্ত্রী প্রদীপ কুমার গেওয়ালী গতকাল বুধবার সকালে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে (পিএমও) সৌজন্য সাক্ষাৎকালে তিনি এই আহ্বান জানান। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশ সবসময়ই প্রতিবেশী রাষ্ট্রের সঙ্গে সহযোগিতাকে অগ্রাধিকার দিয়ে থাকে।’ বৈঠকের পর প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। বৈঠকে তাঁরা দু’দেশের মধ্যে কানেক্টিভিটি, বিদ্যুৎখাতে সহযোগিতা এবং ব্যবসা-বাণিজ্যের সম্প্রসারণসহ বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আলোচনা করেন। এই অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে সংযোগ স্থাপনের ওপর গুরুত্বারোপ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাঁর সরকার সৈয়দপুর আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরকে আঞ্চলিক কেন্দ্র হিসেবে গড়ে তুলছে। ‘নেপাল এবং ভূটান সৈয়দপুর বিমানবন্দর এবং চট্টগ্রাম ও মোংলা সমুদ্রবন্দরকে পারস্পরিক সুবধার স্বার্থে ব্যবহার করতে পারে,’ যোগ করেন তিনি। এই অঞ্চলের দেশগুলোর মধ্যে সংযোগ স্থাপন এবং বিবিআইএন সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী বলেন, তিনি সর্বদা নেপালকে ট্রানজিট দেওয়ার পক্ষে ছিলেন। বিদ্যুৎ খাতে সহযোগিতার বিষয়ে তিনি বলেন, বাংলাদেশ,ভারত ও নেপালের ত্রিপক্ষীয় উদ্যোগে নেপালে জলবিদ্যুৎ উৎপাদনের প্রকল্প গ্রহণ করা যেতে পারে। এ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ইতোমধ্যেই ভারত থেকে বিদ্যুৎ ক্রয় করছে। বাংলাদেশ শীতকালে নেপালে তরিতরকারি এবং মাছও রপ্তানি করতে পারে বলেও তিনি উল্লেখ করেন। প্রধানমন্ত্রী ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধের সময় নেপালের সমর্থনের কথাও স্মরণ করেন। বৈঠকে প্রদীপ কুমার গেওয়ালী বলেন, নেপাল বাংলাদেশের সঙ্গেও দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ককে একটি নতুন মাত্রা দিতে চায়। নেপালের পররাষ্ট্রমন্ত্রী¡ বাংলাদেশের দ্রুত আর্থসামাজিক উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার গতিশীল নেতৃত্বের ভূয়শী প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, নেপালও উন্নতি করছে কেননা এবছর দেশটি ৭ দশমিক ১ শতাংশ জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে। জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব সম্পর্কে তিনি বলেন, বাংলাদেশ এবং নেপাল জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে সবথেকে ঝুঁকির মুখে রয়েছে। সফররত নেপালী মন্ত্রী তাঁর সঙ্গে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড.একে আব্দুল মোমেন এবং বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির সঙ্গে বিস্তারিত এবং ফলপ্রসু বৈঠক সম্পর্কেও প্রধানমন্ত্রীকে অবহিত করেন। প্রধানমন্ত্রীর মূখ্যসচিব ড.আহমদ কায়কাউস, নেপালে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মাশাফি বিনতে শামসএবং বাংলাদেশে নেপালের রাষ্ট্রদূত ড. বংশীধর মিশ্র এসময় উপস্থিত ছিলেন।

খালেদাকে নিয়ে বারবার উত্তর দিতে চাই না – কাদের

ঢাকা অফিস ॥ খালেদা জিয়া দুর্নীতির মামলায় কারাবন্দী হওয়ায় এখানে সরকার বা আওয়ামী লীগের করার কিছু নেই বলে জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। গতকাল বুধবার আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক যৌথসভায় সাংবাদিকদের প্রশ্নে এই মন্তব্য করেন তিনি। দলের ঢাকা বিভাগের অধীন সকল সাংগঠনিক জেলা, মহানগরের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক এবং সংসদ সদস্যদের নিয়ে এই সভা হয়।  খালেদা জিয়ার জামিনের বিষয়ে এক প্রশ্নে ওবায়দুল কাদের বলেন, “আমাদের অনেক কর্মসূচি রয়েছে। অনেক কাজ রয়েছে। দেশের কাজ, দলের কাজ। একজন খালেদা জিয়াকে নিয়ে বারবার প্রশ্নের জবাব দেব সেই সময় আমাদের নেই। এ নিয়ে অনেক কথা হয়েছে। “এটা কোনো রাজনৈতিক মামলা নয়, দুর্নীতির মামলা। আদালত যেটা সিদ্ধান্ত নেওয়ার নেবে। এটা আওয়ামী লীগের হাতে, শেখ হাসিনার হাতে বা আমাদের কারও এখতিয়ারে নেই। কাজেই বারবার এটা প্রশ্ন করে বিব্রত করবেন না। আমি বারবার এই প্রশ্নের উত্তর দিতে চাই না।” করোনাভাইরাসে দেশের অর্থনীতি কোনো প্রভাব পড়ছে কিনা এবং এই বিষয়ে সরকারের ভাবনা জানতে চাইলে সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী কাদের বলেন, “বিশ্ব অর্থনীতি যদি কোনো ঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়, কোনো কারণে মন্দা দেখা দেয় তার প্রভাব সারা বিশ্বেই থাকে। করোনাভাইরাস আমাদের অর্থনীতিকে ক্ষতিগ্রস্ত করতে পারে সেই অবস্থা এখনও আসেনি। এটা যদি বেশি দিন থাকে তাহলে ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার আশঙ্কা আমরা উড়িয়ে দিচ্ছি না।” করোনাভাইরাস দীর্ঘমেয়াদী হলে পদ্মা সেতুর কাজে কিছুটা প্রভাব পড়তে পারে জানিয়ে তিনি বলেন, “পদ্ধা সেতুর আড়াইশ চীনের কর্মী, শ্রমিক স্বদেশে ছুটিতে গেছেন নববর্ষে। তারা এখনও আসেনি। করোনাভাইরাসের যে প্রতিক্রিয়া এরপরও তিনটি স্প্যান আমাদের বসে গেছে। আজও একটি স্প্যান বসার কথা। “যারা ছুটির কারণে চীনে আছেন আগামী আড়াই মাসের মধ্যে তারা ফিরে না আসলে একটু সমস্যা সৃষ্টি হতে পারে। তবে আগামী দুই মাসে কাজের কোনো ক্ষতি হচ্ছে না।” দলকে সাংগঠনিকভাবে শক্তিশালী করতে মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটিগুলোর সম্মেলনকে অগ্রাধিকার দেওয়া হচ্ছে জানিয়ে এপ্রিল থেকে পুরোদমে এই পরিক্রমা শুরু হবে বলে জানান ওবায়দুল কাদের। যৌথসভায় তিনি বলেন, “আমরা মোট ২৯টি সম্মেলন করেছি। এর মধ্যে দুটি ঢাকা সিটির। কিন্তু ঢাকা বিভাগে এ পর্যন্ত কোনো সম্মেলন হয়নি। শেখ হাসিনার বড় নির্দেশনা হচ্ছে দলকে সাজাতে হবে। সাংগঠনিকভাবে সুশৃঙ্খল এবং সময়ের চাহিদা মেটানো আমাদের অত্যাবশ্যকীয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। দল ক্ষমতায় থাকায় সাংগঠনিক দুর্বলতা টের পাচ্ছেন না। “অনেক জায়গায় দেখা যায় সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক হয়ে আছে, ৮-১০ বছর হয়ে গেছে আর কেউ নাই, পূর্ণাঙ্গ কমিটি হয়নি। আবার অনেকে পূর্ণাঙ্গ কমিটি জমা দিচ্ছে, অনুমোদন পেতে পেতে ছয় মাস। সম্মেলন করতে বললে বলেন আমাদের তো মেয়াদ শেষ হয়নি। সম্মেলন যেদিন থেকে হবে ক্ষণগণনা সেদিন থেকে হবে। কেন্দ্রীয় সম্মেলন থেকে শিক্ষা নিন।” ঘরে বসে কমিটি করার সংস্কৃতি থেকে বেরিয়ে আসতে হবে জনিয়ে তিনি বলেন, সম্মেলন ছাড়া কোনো কমিটি করা যাবে না। তিনি বলেন, “অনেক সময় জেলার নেতৃবৃন্দ উপজেলা, ইউনিয়ন কমিটি ভেঙে দিয়েছেন। এটা হবে না। কেন্দ্রর দায়িত্বপ্রাপ্ত নেতাদের সঙ্গে পরামর্শ ছাড়া কোনো কমিটি ভাঙা যাবে না। কমিটি ভাঙতে হলে কেন্দ্রের কাছে সুপারিশ করবেন। নেত্রী পর্যন্ত বিষয়টি গড়াবে। সেখানেই ফাইনাল সিদ্ধান্ত হবে যে, কমিটি ভাঙার জন্য আপনার সুপারিশ যথাযথ কিনা? “কোনো কারণে আপনার সাথে বনিবনা হল না, যে কাউকে বহিষ্কার করে দিলেন। এভাবে বহিষ্কার করা যাবে না। কমিটি নিয়ে বসতে হবে। কমিটির কাছে বহিষ্কারের জন্য সুপারিশ করতে পারেন। কিন্তু সরাসরি বহিষ্কার করতে পারবেন না” নেতাকর্মীদের সতর্ক করে দিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, “এখন সুসময়, কিন্তু দুঃসময় আসবে না, এটা কখনও ভাববেন না। কেউ কারও থাকবে না। আজকে নিজের মনে করে একজনকে নেতা বানাচ্ছেন, আপনার যখন খারাপ সময় আসবে আপনাকে সালামও দেবে না। কাজেই এসব নেতা বানিয়ে লাভ নেই।” আওয়ামী লীগের সভাপতিম-লীর সদস্য ফারুক খান, আব্দুর রহমান, শাজাহান খান, সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, প্রচার সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, কেন্দ্রীয় সদস্য মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মোহাম্মদ মন্নাফি, পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী এনামুল হক শামীম যৌথ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

দৌলতপুরে কলেজ ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করায় বাবার অভিযোগ

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে এক কলেজ ছাত্রীকে উত্ত্যক্ত করায় তার বাবা দৌলতপুর থানায় অভিযোগ দিয়েছেন। গতকাল বুধবার দুপুরে ওই কলেজ ছাত্রীর পিতা আরজান আলী এ অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগে উল্লেখ করা হয়েছে, আরজান আলীর মেয়ে মথুরাপুর কলেজের দ্বাদশ দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী। সে কলেজ যাওয়ার পথে মথুরাপুর দর্গাতলা মাজার এলাকার রবিউল ইসলামের ছেলে রাব্বী (২২) তাকে প্রেমের প্রস্তাবসহ অশালীন কথাবার্তা বলে। প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গত শনিবার বখাটে রাব্বি ওই ছাত্রীকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করে। এ ঘটনার বিচার চেয়ে আরজান আলী থানায় অভিযোগ করেন।

ছেউড়িয়া আখড়াবাড়িতে লালন মূর‌্যালের ভিত্তি স্থাপনকালে ডিসি আসলাম হোসেন

সাঁইজির সকল কৃর্তি নতুন প্রজন্মের মাঝে তুলে ধরা হবে আমাদের সকলের দায়িত্ব

নিজ সংবাদ ॥ বাউল সাধক লালন শাঁইজির কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার ছেউড়িয়াস্থ আখড়া বাড়িতে নির্মিতব্য লালন মূর‌্যালে ভিত্তি স্থাপন করলেন লালন একাডেমির সভাপতি ও কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক  মোঃ আসলাম হোসেন। গতকাল বুধবার বিকেল সাড়ে ৫টায় লালন মাজার চত্বরে জেলা প্রশাসন ও লালন একাডেমির উদ্যোগ ও বাস্তবায়নে নির্মিতব্য এই মুর‌্যালের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়। এসময়  জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন বলেন লালন একজন মানবতার ফেরিওয়ালা। তিনি জাতপাতের উর্ধ্বে থেকে সকল মানুষের সাথে বসবাস করার যে দৃষ্টান্ত সৃষ্টি করে গেছেন তা অবস্মরনীয়। সাঁইজির সকল কৃর্তি নতুন প্রজন্মের মাঝে তুলে ধরা হবে আমাদের সকলের দায়িত্ব। সাঁইজির ধামে লালনের প্রতিকৃতি আগত দর্শনাথীর মন কারবে বলে আমি মনে করি। এসময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক, শিক্ষা ও আইসিটি) আজাদ জাহান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) উবায়দুর রহমান, কুমারখালী উপজেলা নির্বাহী কমর্কতা রাজীবুল ইসলাম, ডেপুটি কালেক্টরেট নেজারত মুসাব্বেরুল ইসলাম, সহকারী কমিশনার তাইফুর রহমান, শহর আওয়ামীলীগের সভাপতি তাইজাল আলী খান, লালন একাডেমীর সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক সেলিম হক সহ একাডেমীর সকল সদস্য ও বাউল শিল্পীবৃন্দ। অনুষ্ঠান শেষে একাডেমীর উন্নয়নে সকল সদস্য জেলা প্রশাসকের সাথে আলাপ করেন এবং মাজার প্রাঙ্গন ঘুরে দেখেন।

 

ঢাবি অ্যালামনাই নিউজ অ্যাওয়ার্ড পেলেন ইবি ভাইস চ্যান্সেলর ড. রাশিদ আসকারী

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই নিউজ অ্যাওয়ার্ড ২০২০ পেয়েছেন ইসলামী বিশ^বিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ছাত্র প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ  আসকারী (ড. রাশিদ আসকারী)।  ১৮ ফেব্র“য়ারি বিকেল ৪টায় ঢাকাস্থ সরকারী বিজ্ঞান কলেজ মিলনায়তনে এক অনুষ্ঠানে সংগঠনটির পক্ষ থেকে তাঁকে এ অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়। নিজ নিজ ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখায় প্রতি বছর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় অ্যালামনাই নিউজ অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়ে থাকে। এ বছর ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. হারুন-উর-রশিদ আসকারী (ড. রাশিদ আসকারী) সহ মোট চারজনকে এ অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হয়েছে। অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্ত অন্যরা হলেনÑ পরিকল্পনা মন্ত্রী এমএ মান্নান এমপি, জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক ফরহাদ হোসেন এমপি ও অভিনেত্রী সুবর্ণা মোস্তফা এমপি। অ্যাওয়ার্ড প্রাপ্তির অনুভূতি জানিয়ে ড. রাশিদ আসকারী বলেন, যেকোন সম্মাননা একজন লেখকের জন্য আনন্দদায়ক। এই পুরস্কার আমাকে আরো অনুপ্রাণিত করেছে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

হাই কোর্টে খালেদার জামিন শুনানি রোববার

ঢাকা অফিস ॥ জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় দন্ডিত বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার জামিন আবেদনের ওপর হাই কোর্টে শুনানি হবে আগামী রোববার। বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি কেএম জহিরুল হকের হাই কোর্ট বেঞ্চ গতকাল বুধবার শুনানির জন্য এই দিন ধার্য করে দেয়। উন্নত চিকিৎসার জন্য খালেদার জামিন চেয়ে মঙ্গলবার হাই কোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় আবেদনটি জমা দেওয়া হয়। বুধবার খালেদা জিয়ার আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন আবেদনটি আদালতে উপস্থাপন করেন। এসময় বেঞ্চের জ্যেষ্ঠ বিচারক ওবায়দুল হাসান বলেন, “এর আগে তো আমরা এই আবেদনটি খারিজ করেছিলাম। পরে আপিল বিভাগও সেটি বহাল রেখেছেন।” জবাবে খন্দকার মাহবুব বলেন, “আমরা তো আবারও আসতে পারি। জামিন চাইতে বার বার আসতে তো বাধা নেই।” বিচারক তখন বলেন, “ঠিক আছে, আমারা বিষয়টি রোববার শুনব।” খন্দকার মাহবুব হোসেন ছাড়াও খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের মধ্যে মওদুদ আহমদ, জয়নুল আবেদীন, কায়সার কামাল ও সগির হোসেন লিওন এ সময় আদালতে উপস্থিত ছিলেন। অসুস্থতা ও বয়স বিবেচনায় ‘মানবিক কারণে’ খালেদা জিয়ার জামিন চেয়ে আবেদনে বলা হয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে তার উন্নত চিকিৎসা হচ্ছে না। জামিন পেলে তিনি চিকিৎসা জন্য বিদেশে যেতে চান। “আবেদনকারীর (খালেদা জিয়ার) শারীরিক অবস্থার দিন দিন অবনতি হচ্ছে। তিনি এখন গুরুতর অসুস্থ। অন্যের সাহায্য ছাড়া চলাফেরা করতে পারে না, খেতে পারছেন না। এমনকি ওষুধও নিতে পারছেন না। “তাই দ্রুত তাকে যুক্তরাজ্যের মত উন্নত দেশে নিয়ে আধুনিক, উন্নত চিকিৎসা বা থেরাপি দেওয়ার প্রয়োজন। তার এই অসুস্থতার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে আধুনিক উন্নত থেরাপি বা চিকিৎসার স্বার্থে নতুন করে এই জামিন আবেদনটি করা হয়েছে।” দুর্নীতির দুই মামলায় মোট ১৭ বছরের দ- মাথায় নিয়ে কারাবন্দি সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া গত এপ্রিল থেকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। দল ও পরিবারের সদস্যরা তাকে অন্য হাসপাতালে নিতে চাইলেও তাতে অনুমতি মেলেনি।  জিয়া দাতব্য ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় জামিনের জন্য এর আগেও হাই কোর্টে আবেদন করেছেন খালেদা জিয়া। কিন্তু অপরাধের গুরুত্ব, সংশ্লিষ্ট আইনের সর্বোচ্চ সাজা এবং বিচারিক আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে খালেদাসহ অন্য আসামিদের করা আপিল শুনানির জন্য প্রস্তুত- এ তিন বিবেচনায় হাই কোর্ট বেঞ্চ গত ৩১ জুলাই সেই আবেদন খারিজ করে দেয়। খালেদার আইনজীবীরা এরপর আপিল বিভাগে গিয়েও ফল পাননি। গত ১২ ডিসেম্বর আপিল বিভাগ কিছু পর্যবেক্ষণ দিয়ে জামিন আবেদনটি খারিজ করে দেয়। বিএনপি চেয়ারপারসনের সম্মতি থাকলে বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালের মেডিকেল বোর্ডের পরামর্শ অনুযায়ী তাকে দ্রুত ‘অ্যাডভানসড ট্রিটমেন্ট’ দেওয়ার পদক্ষেপ নিতে বলা হয় আপিল বিভাগের ওই রায়ে। সেই রায় গত ১৯ জানুয়ারি প্রকাশিত হওয়ার পর হাই কোর্টে নতুন করে জামিন আবেদন করার উদ্যোগ নেন খালেদার আইনজীবীরা।