ঝিনাইদহে সা’দ বিরোধীদের প্রতিবাদ সভা ও বিক্ষোভ মিছিল

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ মাওলানা সা’দ পন্থীদের জেলায় জেলায় ইজতেমা আয়োজনের প্রতিবাদে ঝিনাইদহে সমাবেশ ও বিক্ষোভ করেছে সা’দ বিরোধীরা। মঙ্গলবার সকালে শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার চত্বরে জেলা ওলামা মাশায়েখ ও তৌহিদী জনতা এ প্রতিবাদ সভার আয়োজন করে। প্রতিবাদ সভায় জেলার ৬ উপজেলা থেকে আসা ওলামায়ে কেরাম ও তৌহিদ জনতার নেতারা উপস্থিত ছিলেন। এসময় বক্তরা বলেন, সা’দ পন্থীরা জেলায় জেলায় ইজতেমা করার ঘোষনা দিয়েছেন, এতে তাবলীগের মেহনতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করবে, ফেতনা সৃষ্টি করবে। যা সঠিক আকিদায় বিশ্বাসি মুসল্লিগণ ও ওলামায়ে কেরামগণ মেনে নিবেন না। তারা জেলায় জেলায় ইতজেমা বন্ধ করার আহ্বান জানান। সেখান থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে ডিসি অফিসের সামনে গিয়ে শেষ হয়। পরে তারা তাদের দাবি সম্বলিত স্বারকলিপি জেলা প্রশাসকের নিকট হস্তান্তর করে।

গাংনীতে ২৭২ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার সীমান্তবর্তি গ্রাম তেঁতুলবাড়ীয়া এলাকা থেকে ২৭২ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে বিজিবি সদস্যরা। গতকাল মঙ্গলবার ভোররাতে ৪৭ বর্ডারগার্ড তেঁতুলবাড়ীয়া (বিওপি) সদস্যরা তেঁতুলবাড়ীয়া গ্রামের মোল্লাপাড়ার একটি আমবাগান থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় ফেনসিডিলগুলো উদ্ধার করে।

গাংনীতে উপজেলা পর্যায়ে  শুদ্ধসুরে জাতীয় সঙ্গীত  প্রতিযোগিতা

গাংনী প্রতিনিধি ॥ শুদ্ধভাবে ও শুদ্ধসুরে জাতীয় সঙ্গীত  পরিবেশন প্রতিযোগিতা ও পুরস্কার বিতরণী ও সমাপনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার সময় মেহেরপুরের গাংনী উপজেলা অডিটোরিয়ামে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা প্রশাসন প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। উপজেলার ১টি পৌরসভা ও ৯টি ইউনিয়ন পর্যায় থেকে মোট ১০ টি করে দল প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। ইউনিয়ন পর্যায়ে ১ম স্থান অধিকার করে উপজেলা পর্যায়ে অংশগ্রহণ করে। কলেজ, মাধ্যমিক ও প্রাইমারী পর্যায় থেকে বিচারকদের বিবেচনায় ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান নির্ধারণ করা হয়েছে। জাতীয় সঙ্গীত প্রতিযোগিতায় কলেজ পর্যায় থেকে বিগত বছরের ন্যায় সন্ধানী স্কুল এন্ড কলেজ ১ম, গাংনী সরকারী ডিগ্রী কলেজ ২য় এবং করমদি কলেজ দল ৩য় স্থান অধিকার করে। একই ভাবে মাধ্যমিক বিদ্যালয় পর্যায়ে সাহারবাটি ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহি জোড়পুকুরিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় ১ম, গাংনী পৌর এলাকার গাংনী প্রি-ক্যাডেট এন্ড হাই স্কুল ২য় এবং ষোলটাকা ইউনিয়নের মিকুশিস মাধ্যমিক বিদ্যালয় ৩য় স্থান লাভ করে। এদিকে প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যায়ে সাহারবাটি ইউনিয়নের সাহারবাটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ১ম, গাংনী পৌর এলাকার গাংনী মডেল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় ২য়, ধানখোলা ইউনিয়নের গাঁড়াডোব সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় দল ৩য় স্থান অধিকার  করে। প্রতিযোগিতায় বিচারক প্যানেলে ছিলেন বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বেতারের কণ্ঠ শিল্পী গোলাম আম্বিয়া, খুলনা বেতারের কণ্ঠ শিল্পী লাবনী সাহা,সঙ্গীত শিল্পী মাহবুবা আক্তার বিউটি। প্রতিযোগিদের  হারমোনিয়াম ও ঢুগী-তবলায় সহযোগিতা করেন গাংনী উপজেলা শিল্পকলা একাডেমির সঙ্গীত শিক্ষক ও জোড়পুকুরিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সঙ্গীত শিক্ষক এসএম সেলিম রেজা, সন্ধানী স্কুল এন্ড কলেজের সঙ্গীত শিক্ষক বাবু সুকেশ চন্দ্র বিশ্বাস, সঙ্গীত শিল্পী হামিদুল ইসলাম প্রমুখ।  এসময় সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয়ের প্রতিনিধিত্বকারী শিক্ষকবৃন্দ ও প্রতিযোগি শিকষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠানে সঞ্চালনায় ছিলেন  উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসের একাডেমিক সুপারভাইজার আব্দুল্লাহ আল মাসুম। জাতীয় সঙ্গীত প্রতিযোগিতা  শেষে বিজয়ী দলের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।  এসময় উপস্থিত ছিলেন,  গাংনী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মীর হাবিবুল বাসার, সহকারী মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মনিরুল ইসলাম, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসের সহকারী শিক্ষা অফিসার ওবাইদুর রহমান প্রমুখ।

ভেঙে পড়ল ফারাক্কা ব্রিজের একাংশ, নিহত ৩

ঢাকা অফিস ॥ ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ফারাক্কা ব্রিজের গার্ডার ভেঙে ভয়াবহ দুর্ঘটনা ঘটেছে। নির্মাণ কাজ চলাকালীন ব্রিজটির গার্ডার ভেঙে তিন শ্রমিক নিহত ও ৫ জন আহত হয়েছেন। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে বলা হয়, গঙ্গা নদীর উপরে মালদাহ-ফারাক্কা সংযোগকারী একটি দ্বিতীয় সেতু নির্মাণের কাজ চলছিল। দেড় বছর আগে সেতুটির কাজ শুরু হয়। রোববার সন্ধ্যায় ফারাক্কা ব্রিজের কাজ চলছিল। এ সময় কিছু বুঝে ওঠার আগেই হুড়মুড়িয়ে ভেঙে পড়ে ওই ব্রিজের একটি গার্ডার। ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়েন বেশ কয়েকজন শ্রমিক। স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আচমকা প্রথম ও দ্বিতীয় স্তম্ভের উপরের অংশটি ভেঙে পড়ে। তার উপরে থাকা ক্রেনটিও ভেঙে পড়ে। তখনই ইট, বালির স্তূপের নীচে চাপা পড়ে যান বেশ কয়েক জন শ্রমিক ও ইঞ্জিনিয়ার। গ্যাসকাটার যন্ত্রের সাহায্য তাঁদের উদ্ধার করা হয়। পুলিশ জানিয়েছে, এ ঘটনায় মোট ৭ জন শ্রমিক আহত হয়েছেন। যাদের সবার আঘাত গুরুতর। এদের মধ্যে একজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। সেতুটির কাজে নিয়ম মানা হয়নি বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয়রা।

২য় শেখ শাহ্ জামাল সাজু স্মৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট

চ্যাম্পিয়ন চাউলের বর্ডার ক্রিকেট একাদশ এবং রানারআপ বি ফ্যাশন ক্রিকেট একাদশ

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া শহরের আড়–য়াপাড়া তরুন সংঘ যুব সমাজের উদ্যোগে আয়োজিত ২য় শেখ শাহ্ জামাল সাজু স্মৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের ফাইনাল খেলায় চ্যাম্পিয়ন হয়েছে চাউলের বর্ডার ক্রিকেট একাদশ এবং রানারআপ হয়েছে বি ফ্যাশন ক্রিকেট একাদশ। খেলা শেষে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে কুষ্টিয়া পৌর মেয়র আনোয়ার আলী পুরস্কার বিতরন করেন। হাউজিং এফ ব্লক তরুন সংঘ ক্লাব মাঠে অনুষ্ঠিত ফাইনাল খেলায় প্রথমে ব্যাট করতে নেমে বি ফ্যাশন ক্রিকেট একাদশ ১৪ওভারে ৮ উইকেট হারিয়ে ১০২রান করে। জবাবে চাউলের বর্ডার ক্রিকেট একাদশ ৮ওভারে ৩উইকেট হারিয়ে ১০৩ রান করে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে। দলের জয়ের নায়ক ছিল ইমরান। ইমরানের চৌকস ব্যাটিং থেকে আসে ৬৯রান। খেলা শেষে পুরস্কার বিতরন করেন পৌর মেয়র আনোয়ার আলী। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া পৌরসভার কাউন্সিলর সাবাউদ্দিন সওদাগর সাবা, আড়–য়াপাড়া তরুন সংঘের সাধারন সম্পাদক আমানউল্লাহ আমান। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন কুষ্টিয়া জেলা ক্রীড়া সংস্থার যুগ্ম সম্পাদক পারভেজ আনোয়ার তনু।

কুষ্টিয়া সাংবাদিক ইউনিয়নের নব-নির্বাচিত পরিষদের দায়িত্ব গ্রহন

কুষ্টিয়া সাংবাদিক ইউনিয়ন, রেজিঃ নং খুলনা ২০৬৯ এর ২০২০ ত্রি-বার্ষিক নব-নির্বাচিত পরিষদ দায়িত্ব গ্রহন করেছেন। মঙ্গলবার চিলিস ফুড পার্ক হল রুমে এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে পূর্বের কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নব-নির্বাচিত কমিটিকে দায়িত্ব বুঝে দেন। নব-নির্বাচিত কমিটির সভাপতি আব্দুর রাজ্জাক বাচ্চু, সহ-সভাপতি লুৎফর রহমান কুমার, সাধারণ সম্পাদক নজরুল ইসলাম মুকুল, যুগ্ম সম্পাদক এম এ জিহাদ, সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ হাসান সিপাই, কোষাধ্যক্ষ এনামুল হক, প্রচার সম্পাদক নূরুন্নবী বাবু, দপ্তর সম্পাদক আব্দুম মুনিব ও নির্বাহী সদস্য হায়দার আলী দায়িত্ব বুঝে নেন। এসময় জেলার সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ ও গন্যমান্য ব্যাক্তিগর্ব উপস্থিত ছিলেন। এসময় নব-নির্বাচিত নেতৃবৃন্দ বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশে সাংবাদিকদের অধিকার আদায়ের লড়াইটা খুব বেশি কঠিন। নানা কারণে সাংবাদিকরা নিজেদের দাবিটা তুলে ধরতে পারে না। নেতৃবৃন্দ বলেন, নতুন কমিটি সাংবাদিকদের অধিকার আদায়ের সংগ্রামে সব সময় সোচ্চার থাকবে। কুষ্টিয়া সাংবাদিক ইউনিয়নের মধ্যে কোন ভেদাভেদ নেই। সকল সমস্যার অবসান ঘটিয়ে আজ কুষ্টিয়া সাংবাদিক ইউনিয়ন আগের চেয়ে বহু গুনে শক্তিশালী সংগঠন হিসেবে গড়ে উঠবে। এই নব-নির্বাচিত কমিটি তাদের যোগ্যতা দিয়ে সংগঠনকে এগিয়ে নিয়ে যাবে। উল্লেখ্য ১৫ই ফেব্র“য়ারী নির্বাচন পরিচালনা কমিটি ৯জন প্রার্থীকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় চুড়ান্ত নির্বাচিত ঘোষনা করেন।  সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে মারামারিতে নারী নিহত

ঢাকা অফিস ॥ কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে ‘শিশুদের’ দ্বন্দ্বের জেরে দুই পক্ষের মারামারিতে এক নারী নিহত হয়েছেন; আহত হয়েছে আরও পাঁচজন। জেলার টেকনাফ উপজেলার নয়াপাড়া রোহিঙ্গা পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই মোহাম্মদ মনির জানান, মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে হ্নীলা ইউনিয়নের লেদা রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরের বিব্লকে মারামারির এ ঘটনা ঘটে। নিহত নূর নাহার বেগম (৪০) ওই ব¬কের বাসিন্দা নূর আলমের স্ত্রী। এসআই মনির স্থানীয়দের বরাতে বলেন, সকালে ওই ব¬কের একদল শিশু খেলতে গিয়ে দ্বন্দ্বে জড়ায়। এ নিয়ে তাদের অভিভাবকরা বাগবিতন্ডায় জড়ান। একপর্যায়ে দুই পক্ষ মারামারি শুরু করলে লাঠির আঘাতে ছয়জন আহত হন। “স্থানীয়রা আহতদের লেদা স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক নূর নাহারকে মৃত ঘোষণা করেন।” আহতদের ওই হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে বলে তিনি জানান। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

সব কারখানায় ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার করতে দুই মাস সময়

ঢাকা অফিস ॥ গার্মেন্টসহ দেশের সকল কল-কারখানায় দুই মাসের মধ্যে ব্রেস্ট ফিডিং বা বেবি কেয়ার কর্নার করার নির্দেশ দিয়েছে হাই কোর্ট। শ্রম সচিব ও শ্রম অধিদপ্তরের চেয়ারম্যানকে এ আদেশ বাস্তবায়ন করে ৬০ দিনের মধ্যে আদালতে প্রতিবেদন দিতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। এক রিট মামলায় সম্পূরক এক আবেদনের শুনানি করে বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাই কোর্ট বেঞ্চ মঙ্গলবার এ আদেশ দেয়। আবেদনকারী পক্ষের আইনজীবী ইশরাত হাসান পরে বলেন, সরকার পরিচালিত-নিয়ন্ত্রিত বা স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান, কর্মস্থল, হাসপাতাল, শপিং মল, বিমানবন্দর, বাস স্ট্যান্ড, রেলওয়ে স্টেশনের মত জনসমাগমস্থলে ‘ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার’ স্থাপনের পদক্ষেপ নিতে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না- তা জানতে চেয়ে গতবছর একটি রুল জারি করেছিল হাই কোর্ট। “রুল জারির পর সম্প্রতি রেলওয়ে স্টেশন, বাস স্টেশন, বিমানবন্দরে ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপনের কাজ চলছে। কিন্তু গার্মেন্টসহ দেশের কলকারখানাগুলোতে এ ব্যপারে তেমন কোনো অগ্রগতি আমরা দেখছি না। অথচ গার্মেন্ট সেক্টরে কাজ করা নারী কর্মীদের অধিকাংশের বয়স ১৭ থেকে ৩১ বছর। তাদের বেশির ভাগেরই শিশু সন্তান রয়েছে। “তাছাড়া গার্মন্টস, কলকারখানায় ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার বা বেবি কেয়ার স্থাপনের বিষয়ে নীতিমালাও রয়েছে, আইনি বাধ্যবাধকতা আছে। এ নিয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তারপরও কাজ হচ্ছে না। ফলে সম্পূরক আবেদন করে নির্দশনা চেয়েছিলাম।” সেই আবেদনের শুনানি করে হাই কোর্ট গার্মেন্টসহ দেশের সব কল-কারখানায় দুই মাসের মধ্যে ব্রেস্ট ফিডিং ও বেবি কেয়ার কর্নার করার নির্দেশ দিয়েছে বলে ইশরাত হাসান জানান। নয় মাস বয়সী এক শিশু ও তার মায়ের করা রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে গত বছর ২৭ অক্টোবর ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপন প্রশ্নে ওই রুল জারি করেছিল হাই কোর্ট। সরকারি, স্বায়ত্তশাসিত প্রতিষ্ঠান, কর্মস্থল, হাসপাতাল, শপিং মল, বিমানবন্দর, বাস ও রেলওয়ে স্টেশনের মতো জনসমাগমস্থলে ব্রেস্ট ফিডিং কর্নার স্থাপনের পদক্ষেপ নিতে বিবাদিদের ব্যর্থতা কেন অবৈধ হবে না এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠান, শপিংমলে ব্রেস্ট ফিডিং ও বেবি কেয়ার কর্নার স্থাপনে একটি প্রস্তাব তৈরি করতে মহিলা ও শিশু বিষয়ক সচিবকে কেন নির্দেশ দেওয়া হবে না, তাও জানতে চেয়েছিল আদালত। এর চার মাসের মাথায় বাংলাদেশ শ্রম আইনের (২০০৬) শিশু কক্ষ সংক্রান্ত ৯৪ (৭) ধারা উল্লেখ করে মঙ্গলবার সম্পূরক আবেদনটি করা হয়। ওই ধারায় বলা হয়েছে, “উক্তরূপ কোনো কক্ষ যথেষ্ট আসবাবপত্র দ্বারা সজ্জিত থাকিবে এবং বিশেষ করিয়া প্রত্যেক শিশুর জন্য বিছানাসহ একটি খাট বা দোলনা থাকিবে, এবং প্রত্যেক মা যখন শিশুকে দুধ পান করাইবেন বা পরিচর্যা করিবেন, তখন তাহার ব্যবহারের জন্য অন্তত একটি চেয়ার বা এই প্রকারের কোনো আসন থাকিতে হইবে এবং তুলনামূলকভাবে বয়স্ক শিশুদের জন্য যথেষ্ট ও উপযুক্ত খেলনার সরবরাহ থাকিতে হইবে।”

কুষ্টিয়া পৌর বাজারের দুই ব্যবসায়ীকে জরিমানা

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়া পৌর বাজারে “পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন-২০১০” নিশ্চিতে অভিযান চালায় ভ্রাম্যমান আদালত। এসময় দুই ব্যবসায়ীকে অর্থদন্ড প্রদান করা হয়। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে পৌর বাজারে এ ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ইসাহক আলী, সবুজ হাসান, মুনিরা সুলতানা এবং খাদিজা খাতুন। ভ্রাম্যমান আদালত সুত্রে জানা যায়, “পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন-২০১০” নিশ্চিতে অভিযান চালায় ভ্রাম্যমান আদালত। এসময় প্লাস্টিকের মোড়কে চাউল রাখার অপরাধে পৌর বাজারের ব্যবসায়ী নিশি কুমার পালকে পাচ হাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান করেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ইসাহাক আলী। অপরদিকে একই অপরাধে শরীফ নামের একজনকে তিন হাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান করেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মুনিরা সুলতানা। কুষ্টিয়া জেলার মুখ্য পাট পরিদর্শক সোহরাব উদ্দিন বিশ্বাস উপস্থিত সকলকে উক্ত আইনটি মেনে চলার আহবান জানান। সেই সাথে জেলাব্যাপি এ অভিযান অব্যাহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

ঝিনাইদহে কসাসের বসন্ত ও পিঠা উৎসব

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ‘নবপুষ্পের কলরবে জাগিবো মোরা, বসন্তের কলতানে মাতিবে ধরা’ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে ঝিনাইদহে বসন্ত ও পিঠা উৎসব করেছে জয়বাংলা ইয়ুথ এ্যাওয়ার্ড প্রাপ্ত সংগঠন কথন সাংস্কৃতিক সংসদ (কসাস)। মঙ্গলবার দিনব্যাপি সরকারি কে সি কলেজ চত্বরে এ ব্যতিক্রমী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানের শুরুতে পরিচ্ছন্ন কর্মীদের ৩০ জন সন্তানকে ফুল উপহার দেন অতিথিবৃন্দ। এসময় অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় কসাসের সভাপতি হাসানুজ্জামান এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর ড. বিএম রেজাউল করিম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কলেজের উপাধ্যক্ষ অশোক কুমার মৌলিক, কেসি কলেজ শিক্ষক পরিষদের ভারপ্রাপ্ত সাধাণ সম্পাদক আব্দুর রশিদ, কসাস সাংস্কৃতিক সংসদের প্রধান উপদেষ্টা মিজানুর রহমান, কসাসের সাবেক সভাপতি উম্মে সায়মা জয়া, সাধারণ সম্পাদক প্রতাপ আদিত্য বিশ্বাসসহ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও আয়োজন করা হয় পিঠা উৎসবের। এতে নানা প্রকার পিঠার পসরা সাজিয়ে স্টল প্রদর্শণ করেন শিক্ষার্থীরা। পরে অনুষ্ঠিত হয় মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। দুপুরে সুবিধা বঞ্চিত শিশুদের সাথে মধ্যহ্নভোজনে অংশ নেন অতিথি ও কসাসের নেতৃবৃন্দ। সমাজের পিছিয়ে পড়া জনগোষ্টি পরিচ্ছন্ন কর্মীদের সন্তানদের সাথে আনন্দ ভাগাভাগি করে নিতেই এ আয়োজন বলে জানান আয়োজকরা।

পাহাড়পুর-লক্ষিপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের কমিটি গঠন

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার পাহাড়পুর-লক্ষিপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের পরিচালনা পরিষদের নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে। এতে হাফেজ মোস্তাক আহম্মেদ সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে এ নতুন কমিটি ঘোষণা করেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার ও বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি নির্বাচনের রির্টার্নিং কর্মকর্তা জুলফিকার হায়দার। বিদ্যালয়ে অভিভাবকদের ভোটে নির্বাচিত সদস্যদের সর্বসম্মতিক্রমে হাফেজ মোস্তাক আহম্মেদকে সভাপতি নির্বাচিত করা হয়। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার জুলফিকার হায়দার, অভিভাবক সদস্য রাজা, শরিফুল ইসলাম, আনারুল ইসলাম, সুমন আহম্মেদ, শিক্ষক সদস্য সোলাইমান হোসেন ও সংরক্ষিত মহিলা শিক্ষক সদস্য মালেকাভান, আড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য খাজা মইদ্দিনসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ।

দৌলতপুরে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারদের মাঝে চাল ও টিন প্রদান

শরীফুল ইসলাম ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারদের মাঝে চাল ও টিন প্রদান করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেল ৫টায় দৌলতপুর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এ্যাড. শরীফ উদ্দিন রিমন ১৪ পরিবারের মাঝে ২৫ কেজি করে চাল প্রদান করেছেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সাক্কির আহমেদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সোনালী খাতুন আলেয়া, জেলা পরিষদের সদস্য নাসির উদ্দিন মাষ্টার, আব্দুল্লাহেল বাকী, আওয়ামী লীগ নেতা সরদার আতিয়ার রহমান আতিক, এ্্যাড. নজরুল ইসলাম, দৌলতপুর ইউপি চেয়ারম্যান মহিউল ইসলাম মহি ও রামকৃষ্ণপুর ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজ মন্ডলসহ স্থানীয় সুধীজন। এছাড়াও প্রকৌশলী রফিকুল ইসলাম অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থ ১৪ পরিবারকে আড়াই বান্ডিল করে টিন প্রদান করেছেন বলে জানিয়েছেন রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সিরাজ মন্ডল। ব্যক্তি উদ্যোগে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবার প্রতি ১০ কেজি করে চাল প্রদান করেছেন স্থানীয় এক সুধী। উল্লেখ্য, রবিবার দুপুর সোয়া ১টার দিকে উপজেলার রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের পদ্মারচর লোকনাথপুর গ্রামের জিন্নাত সর্দারের পাড়ায় অগ্নিকান্ড ঘটে ৩০টি ঘর ভষ্মিভূত হয়েছে। আগুনে পুড়ে মারা গেছে ৭টি ছাগল। এতে ১৪টি পরিবারের অর্ধকোটির টাকার সম্পদ ভষ্মিভূত হয়েছে। অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্থরা বর্তমানে খোলা আকাশের নীচে থাকলেও মানবিক সাহায্য ও সহযোগিতা হিসেবে তাদের মাঝে বিভিন্ন সংগঠন ও সুধীজনের ত্রান সহায়তা প্রদান অব্যাহত রয়েছে।

শাজাহান খানের বিরুদ্ধে মামলা করার প্রতিবাদে কুষ্টিয়ায় মটর শ্রমিকদের বিক্ষোভ সমাবেশ

নিজ সংবাদ ॥ বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফোরেশনের কার্যকরি সভাপতি সাবেক মন্ত্রী শাজাহান খান এমপি’র বিরুদ্ধে ইলিয়াস কাঞ্চনের করা মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবীতে গতকাল মঙ্গলবার সকালে কুষ্টিয়া  জেলা মটর শ্রমিক ইউনিয়নের উদ্যোগে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে শ্রমিকেরা শহরের মজমপুরগেট বাসষ্ট্যান্ডে বিক্ষোভ মিছিল করে। পরে মজমপুরগেট শ্রমিক ইউনিয়ন অফিস সংলগ্ন প্রধান সড়কে প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। এসময় জেলা ট্রাক, ট্রাক্টর, কার্ভাড ভ্যান ও ট্যাংকলরী শ্রমিক ইউনিয়নের নেতাকর্মীরা এই সমাবেশে যোগদান করেন।  কুষ্টিয়া জেলা মটর শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মাহাবুবুল আলমের সভাপতিত্বে সমাবেশে বক্তব্য রাখেন মটর শ্রমিক ইউনিয়ন -১১১৮ সভাপতি মাহাবুব হোসেন রানা, সহ-সম্পাদক ফারুক হোসেন, প্রচার সম্পাদক আজাদুর রহমান তারেক, মটর শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক আফজাল হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক নজরুল ইসলাম ডাবলু, কোষাধ্যক্ষ নুরুজ্জামান, প্রচার সম্পাদক আনিসুর রহমান, খলিসাকুন্ডির শ্রমিক নেতা আনোয়ার হোসেন প্রমুখ। সভাপতির বক্তব্যে কুষ্টিয়া জেলা মটর শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মাহাবুবুল আলম বলেন, দেশে পরিবহন সেক্টরের সাথে ৭০লক্ষ পরিবার জড়িত। এদের প্রানের নেতা শাজাহান খানের বিরুদ্ধে মানহানিকর মামলা করে ইলিয়াস কাঞ্চন নতুন করে নায়ক হওয়ার অভিনয় করছেন। দেশের পরিবহন শ্রমিকেরা এটা কখন মেনে নেবে না। তিনি ইলিয়াস কাঞ্চনকে নিঃশর্ত ক্ষমা চেয়ে মামলা প্রত্যাহারের দাবী জানান অন্যাথায় পরিবহন শ্রমিকেরা বৃহত্তর আন্দোরনের কর্মসুচী ঘোষনা দেবে।

অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

মোংলা বন্দরের উন্নয়নে ৬ হাজার কোটি টাকা

ঢাকা অফিস ॥ মোংলা বন্দরের সক্ষমতা বাড়াতে ৬ হাজার ১৪ কোটি ৬২ লাখ টাকার প্রকল্প চূড়ান্ত অনুমোদন পেয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায় এই প্রকল্পের পাশাপাশি আরও আটটি প্রকল্পে সায় দেওয়া হয়েছে। রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে  বৈঠকের পর পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান জানান, ‘মোংলা বন্দরের সক্ষমতা বৃদ্ধিকরণ’ শিরোনামের প্রকল্পের জন্য মোট ৬ হাজার ১৪ কোটি ৬২ লাখ টাকা ব্যয় ধরা হয়েছে। এর মধ্যে ভারতীয় তৃতীয় লাইন অব ক্রেডিট (এলওসি) থেকে ৪ হাজার ৪৫৯ কোটি ৪১ লাখ টাকা এবং সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে ১ হাজার ৫৫৫ কোটি ২১ লাখ টাকা যোগান দেওয়া হবে। ২০২৪ সালের জুন মাসের মধ্যে প্রকল্পের কাজ শেষ হবে। দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম এই বন্দর উন্নয়ন নিয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী বলেন, “বন্দরটি আমাদের প্রতিবেশী দেশগুলোর মালামাল পরিবহনের প্রস্তাব রয়েছে সরকারের কাছে। ইতোমধ্যে নেপাল ও ভারতের প্রতিনিধিগণ এই বন্দর পরিদর্শনও করে গেছেন।” এরমধ্যেই বন্দরটির সক্ষমতা কিছুটা বাড়ানো হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন,  “সার্বিকভাবে এই বন্দরের আরও সক্ষমতা বৃদ্ধির মাধ্যমে আধুনিকায়নের সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার।” প্রকল্প প্রস্তাবনা অনুযায়ী, মোংলা বন্দরের সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য ১ ও ২ নম্বর জেটিতে কন্টেইনার টার্মিনাল নির্মাণ করা হবে। সব সুবিধাসহ কন্টেইনার হ্যান্ডলিং ও ডেলিভারি ইয়ার্ড নির্মাণ করা হবে। এছাড়াও নির্মাণ করা হবে সার্ভিস ভেসেল জেটি, শেড, কার্যালয়, এমপিএ টাওয়ার, পোর্ট রেসিডেন্সিয়াল কমপ্লেক্স। কমিউনিটি সুবিধা প্রদানেরও ব্যবস্থা করা হবে। এই প্রকল্পের মাধ্যমে বন্দর ভবন সম্প্রসারণ, মেকানিক্যাল ওয়ার্কশপ, সরঞ্জাম ইয়ার্ড, সরঞ্জাম শেড এবং সব যন্ত্রপাতিসহ পুল ও স্লিপওয়ে এবং অন্যান্য যন্ত্রপাতিসহ মেরিন ওয়ার্কশপ কমপ্লেক্স নির্মাণসহ সিকিউরিটি সিস্টেম, রাস্তা, ইয়ার্ড, শেড, নিরাপত্তা প্রাচীর, অটোমেশন ও অন্যান্য অবকাঠামোসহ বন্দরের সংরক্ষিত এলাকা সম্প্রসারণ করা হবে। মন্ত্রী জানান, বৈঠকে মোংলা বন্দর উন্নয়নসহ মোট ৯টি উন্নয়ন প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে, যেগুলোতে মোট ১৩ হাজার ৬৩৯ কোটি টাকা ব্যয় হবে। এই বিপুল ব্যয়ের মধ্যে সরকারের নিজস্ব তহবিল থেকে ৮ হাজার ৮৮৬ কোটি ৪৪ লাখ টাকা, ভারতীয় ঋণ হিসেবে ৪ হাজার ৪৫৯ কোটি ৪১ লাখ টাকা এবং সংস্থার নিজস্ব অর্থায়ন থেকে ২৯৩ কোটি ১৬ লাখ টাকা যোগান দেওয়া হবে। বৈঠকে অনুমোদন পাওয়া অন্য প্রকল্পগুলো হল- ‘নোয়াখালী জেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা মরহুম হাজী কামাল উদ্দিন সড়ক (বেগমগঞ্জের গে¬াব ফ্যাক্টরি হতে কবিরহাটের ফলাহারি পর্যন্ত ) (জেড-১৪৫৩) উন্নয়ন’ প্রকল্প। এর ব্যয় ধরা হয়েছে ২৮২ কোটি ১১ লাখ টাকা। ‘আনোয়ারা উপজেলা সংযোগ সড়কসহ কর্ণফুলী টানেল সংযোগ সড়ককে চার লেনে উন্নীতকরণ (শিকলবাহা-আনোয়ারা সড়ক)’ প্রকল্প। এতে ব্যয় হবে ৪০৭ কোটি টাকা। ‘শরীয়তপুর-জাজিরা-নাওডোবা (পদ্মা ব্রীজ এপ্রোচ) সড়ক উন্নয়ন’ প্রকল্প। এর ব্যয় এক হাজার ৬৮২ কোটি ৫৫ লাখ টাকা। ‘পাটুরিয়া এবং দৌলতদিয়ায় আনুসঙ্গিক সুবিধাদিসহ নদী বন্দর আধুনিকায়ন’ প্রকল্প। এর ব্যয় প্রায় এক হাজার ৩৫২ কোটি টাকা। ‘রাজশাহী জেলার চারঘাট ও বাঘা উপজেলায় পদ্মা নদীর বাম তীরের স্থাপনাসমূহ নদী ভাঙ্গন হতে রক্ষা’ প্রকল্প। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে ৭২২ কোটি ২৪৫ লাখ টাকা। ‘বিলুপ্ত ছিটমহল ও নদী বিধৌত চরাঞ্চলে সমন্বিত প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন’ প্রকল্প। এর ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ১২৯ কোটি টাকা।

‘হাওর অঞ্চলে সমন্বিত প্রাণিসম্পদ উন্নয়ন’ প্রকল্প। এর ব্যয় ১১৮ কোটি টাকা। ‘রাজশাহী মহানগরীর সমন্বিত নগর অবকঠামো উন্নয়ন’ প্রকল্প। এতে ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ২ হাজার ৯৩২ কোটি টাকা।

কাশ্মীর নিয়ে সমালোচনা

ভারতে ঢুকতে দেওয়া হল না ব্রিটিশ সাংসদকে

ঢাকা অফিস ॥ কাশ্মীর ইস্যুতে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী সরকারের সমালোচক ব্রিটিশ সাংসদ ডেবি আব্রাহামকে ভারতে ঢুকতে দেওয়া হয়নি। সোমবার সকালে দিল্লি বিমানবন্দরে নামার সঙ্গে সঙ্গে তাকে আটকানো হয়। তার ই-ভিসা নাকচ হয়েছে বলে জানিয়ে দেন ভারতীয় অভিবাসন দপ্তরের কর্মকর্তারা। ফলে দিল্লি বিমানবন্দর থেকেই ডেবি আব্রাহামকে দুবাইয়ের ফিরতি বিমানে তুলে দেয় ভারত কর্তৃপক্ষ। কাশ্মীর সংক্রান্ত একটি ব্রিটিশ সংসদীয় গোষ্ঠীর চেয়ারপার্সন পদে আছেন ডেবি আব্রাহাম। গত ৫ অগাস্ট কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা তুলে নেয় ভারত সরকার। সে সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে লন্ডনের ভারতীয় দূতাবাসে কড়া ভাষায় চিঠি পাঠিয়েছিলেন আব্রাহাম। এমনকী তার ফেইসবুক পেজেও জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে ভারত সরকার গৃহীত একাধিক নীতির কড়া সমালোচনা করে পোস্ট আছে। এনডিটিভি জানায়, জম্মু-কাশ্মীর নিয়ে ভারত সরকারের নীতির সমালোচক এ ব্রিটিশ সাংসদকে ভারতে ঢুকতে না দেওয়ার এমন হেনস্থা খানিকটা আন্তর্জাতিক অঙ্গনকে বার্তা দেওয়ার সামিল। একজন অপরাধীর সঙ্গে যেমন আচরণ করা হয় তার সঙ্গে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ ঠিক তেমনই আচরণ করেছে বলে পরে এক বিবৃতিতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন লেবার পার্টির এ বর্ষীয়ান সাংসদ। সরকারি কর্মকর্তারা বলছেন, প্রবেশের বৈধ ভিসা ছিল না ডেবি আব্রাহামের। ওদিকে, ব্রিটিশ হাইকমিশন জানিয়েছে, তাদের দেশের সাংসদকে কেন ভারতে ঢুকতে দেওয়া হল না তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে এবং ভারতীয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা চলছে।

ওয়াসার পানির মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাব অযৌক্তিক – টিআইবি

ঢাকা অফিস ॥ পরিচালন ব্যয়, ঘাটতি ও ঋণ পরিশোধের অজুহাতে আবাসিক এবং বাণিজ্যিক খাতে ঢাকা ওয়াসার ৮০ শতাংশ পর্যন্ত পানির মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাব অযৌক্তিক, গ্রাহকের ওপর নির্যাতনমূলক ও অগ্রহণযোগ্য বলে জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)। স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের কাছে পাঠানো মূল্যবৃদ্ধির এ প্রস্তাব অগ্রাহ্য করে সংশ্লিষ্ট খাতে বিশেষজ্ঞসহ গণশুনানির মাধ্যমে ওয়াসা আইন ও সেবার মান, বিশেষ করে পানির পর্যাপ্ত সরবরাহ ও গুণগত মান নিশ্চিত সাপেক্ষে যৌক্তিক এবং সহনীয় মাত্রায় মূল্যবৃদ্ধির আহ্বান জানায় সংস্থাটি। মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ‘গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ অনুযায়ী, ঢাকা ওয়াসার আবাসিক গ্রাহক পর্যায়ে প্রতি ইউনিট পানির দাম ১১.৫৭ টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ২০ টাকা এবং বাণিজ্যিক পর্যায়ে ৩৭.০৪ টাকা থেকে বাড়িয়ে ৬৫ টাকা (সার্বিকভাবে ৮০ শতাংশ পর্যন্ত বৃদ্ধি) নির্ধারণের প্রস্তাব করেছে, যা সম্পূর্ণ অযৌক্তিক ও অগ্রহণযোগ্য। ওয়াসা আইন ১৯৯৬ অনুযায়ী বাৎসরিক সর্বোচ্চ ৫ শতাংশ পর্যন্ত মূল্যবৃদ্ধির বিধানের সঙ্গে এ প্রস্তাব সাংঘর্ষিক।’ ‘প্রস্তাব অনুযায়ী মূল্যবৃদ্ধি করলে তা ইতিমধ্যে ওয়াসা কর্তৃক ন্যায্য পরিমাণে পানি সরবরাহ- বিশেষ করে পানির গুণগত মান নিশ্চিতে ব্যর্থতার কারণে হতাশ নগরবাসীর জন্য অধিকতর নির্যাতন ও বিড়ম্বনার কারণ হবে। বিশেষ করে নিম্ন আয়ের মানুষের ওপর অন্যায্য চাপ আরও বাড়বে। উন্নয়ন ব্যয় বহনের নামে সেবার মান উন্নত ও পানির বিশুদ্ধতা নিশ্চিত না করে মূল্যবৃদ্ধির এ অন্যায্য প্রস্তাব ঢাকা ওয়াসার একগুঁয়েমি ও স্বেচ্ছাচারিতার বহিঃপ্রকাশ। যে পানি ওয়াসার শীর্ষ কর্মকর্তারা নিজেরাই পান করতে নিরাপদ বোধ করেন না, তার মূল্যবৃদ্ধির এ প্রস্তাব সম্পূর্ণরূপে অগ্রাহ্য করে ওয়াসার সুশাসন, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে।’

আসামিদের পক্ষ থেকে বাদীকে নানাভাবে হুমকি

থানায় মামলা, গ্রেফতার-২

কুষ্টিয়ার সুলতানপুর মাহতাবিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের স্কুল ছাত্রীকে প্রকাশ্যে যৌনপীড়ন

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে স্কুলে যাওয়ার পথে যৌনপীড়নের শিকার হয়েছেন দশম শ্রেণীর এক স্কুল ছাত্রী। ঘটনাটি ঘটেছে গত বুধবার (১২ ফেব্র“য়ারি) সকাল পৌনে ১০টার দিকে উপজেলার কয়া ইউনিয়নের সুলতানপুর গ্রামে এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় ওই স্কুল ছাত্রীর বাবা বাদি হয়ে কুমারখালী থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে তিনজনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছেন। মামলার আসামিরা হলেন কয়া ইউনিয়নের বাড়াদি গ্রামের আবু বক্করের ছেলে তুষার (১৯), একই এলাকার মৃত: তোরাবের ছেলে আব্দুস সালাম ও মোকাদ্দেস হোসেনের ছেলে সিজান ওরফে খোকন। ওই মামলায় পুলিশ দুইজনকে আটক করলেও ঘটনার মূলহোতা পলাতক রয়েছে।

মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়, কুমারখালী উপজেলার সুলতানপুর গ্রামের সুলতানপুর মাহতাবিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী ওই স্কুলে যাওয়ার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হয়। পথিমধ্যে বাড়াদি গ্রামস্থ ডা: রইচের বাড়ির সামনে পৌছালে রাস্তার ওপর বখাটে সালাম ও সিজানের সহযোগিতায় তুষার নামে এক যুবক ওই স্কুল ছাত্রীকে জোরপূর্বক জড়িয়ে ধরে এবং গালে চুমু খেয়ে যৌনপীড়ন করেন।

ওই স্কুল ছাত্রী জানান, ওরা রাস্তার মধ্যে আমাকে দীর্ঘদিন যাবত আজে-বাজে কথা বলে আসছে। ঘটনার দিন আমি স্কুলে যেয়ে জানতে পারি তিন বন্ধু মিলে যুক্ত করে এই ঘটনা ঘটিয়েছে। তুষার আমাকে জড়িয়ে ধরে চুমু খাই। এসময় সালাম ও সিজান দাঁড়িয়ে হাসছিল।

যৌনপীড়নের শিকার ওই স্কুল ছাত্রীর বাবা ও মামলার বাদি আতিয়ার রহমান জানান, দীর্ঘদিন ধরে আসামিরা আমার মেয়েকে স্কুলে যাওয়া-আসার পথে উত্ত্যক্ত করতো। নানাভাবে নিষেধ করলেও তারা শুনত না। তিনি জানান, মামলা করার পর আসামিরা আমাকে নানাভাবে হুমকি দিয়ে যাচ্ছে। তবে সিজানের পরিবারের দাবি, ঘটনার সময় সিজান সেখানে উপস্থিত ছিলেন না। সেসময় সিজান স্কুলেই ছিল। ষড়যন্ত্রমূলকভাবে তাকে মামলায় আসামি করা হয়েছে।

আসামি সিজানের বাবা মোকাদ্দেস হোসেন জানান, আমার ছেলে এঘটনার সাথে কোনভাবেই জড়িত না। কারণ সে সময় আমার ছেলে ঘটনাস্থলে উপস্থিতই ছিল না। স্কুলের প্রধান শিক্ষকও প্রত্যয়নপত্র দিয়েছেন ওই ঘটনার সময় সিজার স্কুলেই উপস্থিত ছিল। সামাজিক ষড়যন্ত্রে আমার ছেলের নামে মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে।

সুলতানপুর মাহতাবিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আব্দুর রশীদ বিশ^াস জানান, ছাত্রীর সাথে যৌনপীড়নের ঘটনাটি আমি স্কুলে এসে জানতে পারি। তুষার নামে আমার এক ছাত্র স্কুলের এক ছাত্রীর সাথে আপত্তিকর কিছু করেছে। তবে এ ঘটনার সাথে তুষার বাদে অন্য কেউ ছিল বলে আমার মনে হয়।

কুমারখালী থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর আলম বলেন, এ ঘটনায় মেয়ের বাবা বাদি হয়ে থানায় মামলা দায়ের করেছে। ইতিমধ্যে দুইজন আসামিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাঁকি একজনকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।

ড. কামাল-রব-মান্নার সমালোচনায় যা বললেন ইনু

ঢাকা অফিস ॥ বিএনপির সঙ্গে মিলে রাজনৈতিক মোর্চা জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট করায় ড. কামাল হোসেনের কড়া সমালোচনা করেছেন জাসদ সভাপতি হাসানুল হক ইনু। তিনি এই ঐক্য দেশের জন্য অশনিসংকেত বলে মন্তব্য করেন। মঙ্গলবার রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘ভাষা আন্দোলন ও কমরেড মোহাম্মদ তোয়াহার ভূমিকা’ শীর্ষক আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন। ড. কামাল হোসেন ও আ স ম আবদুর রবের সমালোচনা করে সাবেক এই তথ্যমন্ত্রী বলেন, আ স ম আবদুর রব, মান্না, কাদের সিদ্দিকী এবং ড. কামাল হোসেনের মতো লোক যখন বিএনপির কাফেলায় যুক্ত হয়, তখন আমি অশনিসংকেত দেখি। বিএনপিকে রাজনীতির জন্য কেউটে সাপ বলেও মন্তব্য করেন ইনু। বলেন, এত কিছুর পরও খালেদা জিয়া, তারেক রহমান, বিএনপি যুদ্ধাপরাধীদের দল থেকে বের করেনি। জামায়াত ত্যাগ করেনি। সুতরাং রাজনীতিতে বিএনপি বিষবৃক্ষ এবং কেউটে সাপ। বিষধর সাপের সঙ্গে মানবকূলের সহাবস্থান হয় না। আলোচনাসভায় আরও উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক কমরেড দিলীপ বড়ুয়া, বিশিষ্ট লেখক ও কলামিস্ট সৈয়দ আবুল মকসুদ প্রমুখ।

চলচ্চিত্র অভিনেতা তাপস পাল আর নেই

ভারতীয় বাংলা সিনেমার জনপ্রিয় অভিনেতা তাপস পাল আর নেই। মঙ্গলবার ভোররাত ৩টা ৩৫ মিনিটে মুম্বাইয়ে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন বাংলা চলচ্চিত্রের এই অভিনেতা। তার বয়স হয়েছিল ৬১ বছর। খবর আনন্দবাজার পত্রিকা ও হিন্দুস্তান টাইমসের। জানা যায়, গত ২৮ জানুয়ারি মেয়ে সোহিনী পালের কাছে মুম্বাইয়ে গিয়েছিলেন অভিনেতা তাপস পাল। কিডনির চিকিৎসার জন্য ১ ফেব্র“য়ারি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার কথা ছিল তাপল পালের। কিন্তু বিমান ধরার আগে অসুস্থ হয়ে পড়লে মুম্বাইয়ের বান্দ্রার একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল অভিনেতাকে। অবস্থার অবনতি ঘটলে এর পর ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছিল। কিন্তু শেষরক্ষা হলো না। অনেক দিন ধরেই স্নায়ুজনিত সমস্যায় ভুগছিলেন তিনি। ১৯৫৮ সালের ২৯ সেপ্টেম্বর হুগলির চন্দননগরে জন্মেছিলেন তাপস পাল। ছোটবেলা থেকেই অভিনয়ের প্রতি তার প্রবল আগ্রহ ছিল। পরিচালক তরুণ মজুমদারের হাত ধরে মাত্র ২২ বছর বয়েসে বাংলা ছবির দুনিয়ায় পা রাখেন তাপস পাল। প্রথম ছবি ‘দাদার কীতির্র’ সঙ্গেই দর্শক-সমালোচকদের মন জিতে নেন তিনি। এর পর আর পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তাপস পালকে। তার অভিনীত উল্লেখযোগ্য ছবিগুলোর মধ্যে অন্যতম ‘সাহেব’, ‘অনুরাগের ছোঁয়া, ‘পারাবত প্রিয়া, ‘উত্তরা’, ‘ভালোবাসা ভালোবসা’। ১৯৮১ সালে ‘সাহেব’ ছবিতে দুর্দান্ত অভিনয়ের জন্য ফিল্মফেয়ার পুরস্কার পান তাপস পাল। বাংলার পাশাপাশি বেশ কিছু হিন্দি ছবিতেও তিনি অভিনয় করেছেন। ২০০৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে কৃষ্ণনগর থেকে তৃণমূলের টিকিটে সাংসদ নির্বাচিত হয়েছিলেন তাপস পাল। ২০১৯ পর্যন্ত কৃষ্ণনগরের সাংসদ ছিলেন তিনি। ২০১৬ সালে রোজভ্যালি চিটফাণ্ড যুক্ত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার হন তিনি। ১৩ মাস সিবিআই হেফাজতে থাকার পর ২০১৮ সালের  ফেব্র“য়ারী মাসে জামিনে মুক্তি পান তিনি। পরিবার সূত্রের খবর, মঙ্গলবার বিকালে তাপস পালের দেহ কলকাতায় নিয়ে আসা হবে। তার মৃত্যুতে শোকের ছায়া নেমে আসে টালিউডে।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের রায়

কুষ্টিয়ায় পালিত ছেলের স্ত্রীকে ধর্ষণের দায়ে শ্বশুরের যাবজ্জীবন

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা থানায় গৃহবধু ধর্ষণের অভিযোগে দায়ের করা ধর্ষণ মামলায় স্বামীর পালক পিতা বিপ্লব দাসকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে আসামীকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে আরো এক বছরের সশ্রম কারাদন্ড দেওয়া হয়েছে। মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২টায় কুষ্টিয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের বিচারক মুন্সী মো. মশিউর রহমান আসামীর উপস্থিতিতে এক জনাকীর্ণ আদালতে এ রায় ঘোষণা করেন। মামলার বিবরণে জানা গেছে, ২০১৯ সালের ২১ মে রাত ১১টার দিকে ভেড়ামারা উপজেলার কারিগর পাড়ার মনোরঞ্জন দাসের ছেলে কুমারের পালক পিতা বিপ্লব দাস প্রতিবেশী কুমারের বাড়ীতে প্রবেশ করে তার স্ত্রীকে ধর্ষণ করে। স্বামীর পালক পিতা সম্পর্কে শ^শুর হওয়ায় লোক লজ্জার ভয়ে প্রথমে সে কাউকে কিছু বলেনি। পরবর্তিতে প্রলোভন দেখিয়ে বিপ্লব দাস ওই গৃহবধুকে ঢাকায় তার বোনের বাসায় নিজের স্ত্রী পরিচয় দিয়ে কয়েকদিন অবস্থান করে এবং গৃহবধুর ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর করে একাধিকবার ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে গৃহবধুকে নিয়ে ৭ জুন ঝিনাইদহ জেলার শৈলকুপার ভাটই বাজারে আসলে গৃহবধুর স্বর-চিতকারে স্থানীয়রা টের পেয়ে বিপ্লকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। এ ঘটনার পরের দিন গৃহবধুর মা বাদী হয়ে ভেড়ামারা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন ২০০০ এর ৯ (১) ধারায় একটি মামলা দায়ের করে। থানার মামলা নং-৪, তারিখ-০৮-০৬-২০১৯ইং। যা পরে নারী ও শিশু ১০২/২০১৯ নং মামলায় নথিভূক্ত হয়ে বিচার কাজ শুরু হয়। নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের স্পেশাল পিপি এ্যাড. মেহেদী হাসান সিদ্দিকী জানান, মামলার দীর্ঘ স্বাক্ষী শুনানী শেষে আসামী বিপ্লব দাসের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতিতভাবে প্রমানিত হওয়ায় আদালত তাকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড ও এক বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড অনাদায়ে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা দন্ড প্রদান করেন। রায় ঘোষনার পর আসামীকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। আসামী পক্ষে মামলাটি পরিচালনা করেন এ্যাড.মিস সানোয়ারা খাতুন।

করোনাভাইরাসে মৃত্যু বেড়ে ১৮৭৩

ঢাকা অফিস ॥ চীনে আরও ৯৮ জনের মৃত্যুর মধ্য দিয়ে নতুন করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ১৮৭৩ জনে। তবে জানুয়ারির পর থেকে সোমবারই প্রথম চীনের মূল ভূখন্ডে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা নেমে এসেছে দুই হাজারের নিচে। চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, দেশটির মূল ভূখন্ডে আরও ১ হাজার ৮৮৬ জনের শরীরে নতুন করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। আগের দিন নতুন রোগীর সংখ্যা ছিল ২ হাজার ৪৮ জন। সব মিলিয়ে চীনে আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭২ হাজার ৪৩৬ জনে। আর অন্তত ২৬টি দেশে এ ভাইরাস ছড়িয়ে পড়ায় বিশ্বে আক্রান্তের সংখ্যা ৭৩ হাজার ছাড়িয়ে গেছে। সোমবার চীনে মোট ৯৮ জনের মৃত্যু হয়েছে নতুন এ করোনাভাইরাসে, এর মধ্যে হুবেই প্রদেশেই মারা গেছেন ৯৩ জন। তাতে চীনের মূল ভূখন্ডে নতুন করোনাভাইরাসে মৃত্যুর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াচ্ছে ১৮৬৮ জনে। চীনের মূল ভূখন্ডের বাইরে নভেল করোনাভাইরাসে এ পর্যন্ত তাইওয়ান, ফ্রান্স, হংকং, ফিলিপিন্স ও জাপানে পাঁচজনের প্রাণ গেছে। সব মিলিয়ে বিশ্বে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াচ্ছে ১৮৭৩ জনে। চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশনের তথ্য অনুযায়ী, নভেল করোনাভাইরাসে আক্রান্তদের মধ্যে এ পর্যন্ত প্রায় ১১ হাজার মানুষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরে গেছেন। ভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে উহানসহ কয়েকটি শহর গত জানুয়ারি থেকেই কার্যত অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে। রোববার থেকে পুরো হুবেই প্রদেশে যানবাহন চলাচলের ওপর নতুন করে কড়াকড়ি আরোপ করা হয়েছে। জরুরি সেবার গাড়ি ছাড়া অন্য কোনো ধরনের যানবাহন বরে না করতে বলা হয়েছে বাসিন্দাদের। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত কলকারাখানা বন্ধ রাখতে বলা হয়েছে। এই হুবেই প্রদেশের উহান শহর থেকেই গতবছরের শেষে নভেল করোনাভাইরাস ছড়াতে শুরু করে। দেড় মাস পেরিয়ে গেলেও এ ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণে আসার কোনো লক্ষণ এখনও দেখা যাচ্ছে না। চীনে বিপুল সংখ্যক শিল্প কারখানা বন্ধ থাকায় বিশ্ব অর্থনীতিতেও অস্থিরতা বাড়ছে, জাপান আর সিঙ্গাপুর পড়েছে মন্দার ঝুঁকিতে। অ্যাপল জানিয়েছে, উৎপাদন কমে যাওয়ায় এবং চীনের বাজারে চাহিদা কমে যাওয়ায় বছরের প্রথম প্রান্তিকে তারা লক্ষ্য পূরণ করতে পারবে না। মার্চের শুরুতে চীনের পার্লামেন্ট অধিবেশন বসার কথা থাকলেও ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের মধ্যে তা স্থগিত করা হয়েছে বলে সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে।