যত সমালোচনা শুধু পাঁচজনের – ইসি রফিকুল

ঢাকা অফিস \ নির্বাচনে যা কিছুই হোক, যত গালিগালাজ ও সমালোচনা পাঁচ নির্বাচন কমিশনারের ওপর বলে মন্তব্য করেছেন নির্বাচন কমিশনার মো. রফিকুল ইসলাম। তিনি বলেছেন, ‘নির্বাচন এমন একটা জিনিস যে, পত্রপত্রিকা দেখলে মনে হবে, সব শুধুমাত্র পাঁচজন নির্বাচন কমিশনার করেন। তাই মানুষের পক্ষ থেকে যত গালিগালাজ, সমালোচনা আছে, সবকিছু এই পাঁচজন ব্যক্তির ওপর।’ গতকাল রোববার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচনী প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট (ইটিআই) ভবনে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের সঙ্গে বৈঠক বসে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। সেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে নির্দেশনামূলক মন্তব্য করার সময় তিনি এসব কথা বলেন। ইসির পাঁচ কমিশনার হলেন- প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা, কমিশনার মাহবুব তালুকদার, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী, মো. রফিকুল ইসলাম ও কবিতা খানম। রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘নির্বাচনের শিডিউল ঘোষণা করার পর থেকে আসল দায়িত্বটা পালন করেন আপনারা (নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী)। আচরণবিধি বা¯Íবায়নের কাজটাও আপনারাই করেন। আপনাদের ব্যর্থতাই আমাদের ব্যর্থতা। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাহেবরা আচরণ বিধিমালাকে বা¯Íবায়ন করার জন্য আইনের দিকটা বা¯Íবায়ন করেন। আপনাদের ব্যর্থতা সম্পূর্ণভাবে আমাদের ওপর দিয়ে যায়। কমিশনকেই অভিযুক্ত করা হয়। আপনাদের সাহায্য-সহযোগিতা ছাড়া আইনানুগ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করা সম্ভব না।’ তিনি বলেন, ‘আচরণ বিধিমালা প্রয়োগ করার জন্য শা¯িÍ, জরিমানা করার চাইতে প্রিভেন্টিভ মেজারটা (প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা) নেন।’ অর্থাৎ নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও পুলিশ কর্মকর্তা যদি একটু এক সঙ্গে মুভ (চলেন) করেন, তাইলেই আচরণবিধি ভঙ্গের বিষয়টি থাকবে না বলেও মনে করেন এ কমিশনার। রফিকুল ইসলাম বলেন, ‘এতে নির্বাচনে আচরণবিধির ভঙ্গের পরিমাণ অনেকখানি কমে যাবে। শুধু এ জন্য আপনাদের কাছে চাই আন্তরিকতা, আপনাদের ভিজিল্যান্স (দৃশ্যমান)। দেখতেছে কেউ একজন, এই বিষয়টা প্রার্থীদের মাথার মধ্যে ঢুকিয়ে দিতে পারলে অনেক সমস্যা কমে যাবে। অবস্থান দৃশ্যমান করতে পারলে ৫০ শতাংশ আচরণবিধি প্রতিপালনের কাজ হয়ে যাবে। তারপরও কিছু লোক আচরণবিধি ভঙ্গ করবে। আর তাদেরকে নির্বাচনী আচরণ বিধিমালা দিয়েই শা¯িÍর ব্যবস্থা করবেন।’ এ কমিশনার বলেন, ‘আমরা যখন আইন করি, তখন একটা আদর্শ, পরিস্থিতিকে মাথায় রেখে আইনের খসড়া তৈরি করি। কিন্তু বাংলাদেশের সব জায়গায় সবসময় আইনের পরিবেশ থাকবে, এটা আপনারা বিশ্বাস করেন? আমি বিশ্বাস করি, আইনের সিচুয়েশন (পরিবেশ) সব জায়গায় সমান পাওয়া যাবে না।’ এসব ক্ষেত্রে জুডিশিয়াল মাইন্ড (বিচারিক মানসিকতা) প্রয়োগের আহŸান জানান তিনি।

প্রমাণ হয়েছে, এই ইসি অযোগ্য – ফখরুল

ঢাকা অফিস \ নির্বাচন কমিশনের (ইসি) অযোগ্যতার কারণেই ঢাকা সিটি করপোরেশন নির্বাচনে ভোটগ্রহণের তারিখ নিয়ে সমস্যা তৈরি হয়েছে বলে মনে করেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়ারউর রহমানের ৮৪তম জন্মবার্ষিকীতে গতকাল রোববার সকালে নেতাকর্মীদের নিয়ে তার সমাধিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছিলেন ফখরুল। এ সময় ঢাকায় বিএনপি মনোনীত দুই মেয়রপ্রার্থী ইশরাক হোসেন ও তাবিথ আউয়ালও ছিলেন। ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনে আগামী ৩০ জানুয়ারি ভোটগ্রহণের দিন রেখেছিল নির্বাচন কমিশন। কিন্তু ওইদিন সরস্বতী পূজা থাকায় জোরালো দাবির মুখে সূচি পিছিয়ে ১ ফেব্র“য়ারি ভোটের দিন ঠিক করা হয়েছে। মির্জা ফখরুল বলেন, “নির্বাচন কমিশন যে অযোগ্য, ব্যর্থ এবং তারা যে আসলেও একটি নির্বাচন পরিচালনা করার যোগ্যতা রাখে না, তার প্রমাণ হচ্ছে তারা এমন একটা দিনে নির্বাচনের তারিখ নির্ধারণ করেছিল সেদিন হিন্দু স¤প্রদায়ের একটি বড় পূজা ছিল। সবচেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে যে, যেখানে পূজোগুলো হয় সেখানেই নির্বাচনের কেন্দ্রগুলো। ফলে সেখানে অবশ্যই একটা সমস্যা তৈরি হয়েছিলো। “নির্বাচন কমিশনের অযোগ্যতার কারণেই এই সমস্যা সৃষ্টি হয়েছে।” ঢাকা সিটি নির্বাচনে ক্ষমতাসীনরা বেশি সুযোগ পাচ্ছে অভিযোগ করে তিনি বলেন, “এই নির্বাচনেও একটি দলই প্রাধান্য পাচ্ছে এবং যে অযোগ্য নির্বাচন কমিশন, তারা কোনো রকম ব্যবস্থা নিতে সক্ষম নয়, কারণ তাদের সেই যোগ্যতা নেই।” “তারা যে ইভিএমে নির্বাচনের ব্যবস্থা করতে চাচ্ছে সেটা হচ্ছে আরেকটি অপকৌশল। বাংলাদেশের নির্বাচন ব্যবস্থাকে পুরোপুরিভাবে ধ্বংস করে ফেলার কৌশল মাত্র। জনগণের রায় কখনোই ইভিএমের মাধ্যমে প্রকাশিত হয়ে জনগণের সামনে আসবে না।” প্রতিষ্ঠাতার জন্মবার্ষিকীতে দলের লক্ষ্য প্রসঙ্গে ফখরুল বলেন, “আজকে আমরা শ্রদ্ধা নিবেদন করে শপথ নিয়েছি যেকোনো ত্যাগের বিনিময় হলেও আমরা গণতন্ত্রকে মুক্ত করব, আমরা দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করব এবং বাংলাদেশে শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের আদর্শ অনুযায়ী একটি সত্যিকার অর্থে বহুদলীয় গণতান্ত্রিক দেশ হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করব, তার ১৯ দফাকে বা¯Íবায়িত করব। বাংলাদেশি জাতীয়তাবাদের দর্শনের ভিত্তিতে বাংলাদেশ সামনের দিকে এগিয়ে যাবে বলে আমরা বিশ্বাস করি।” ১৯৩৬ সালের ১৯ জানুয়ারি বগুড়ার গাবতলীতে জন্মগ্রহণ করেন জিয়াউর রহমান। ১৯৭৫ সালে পট-পরিবর্তনের পর জিয়া সেনাবাহিনী প্রধান এবং পরবর্তিতে রাষ্ট্রপতি হন। ১৯৮১ সালের ৩০ মে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউজে কিছু সেনাসদস্যদের হাতে নিহত হন জিয়াউর রহমান। রাষ্ট্র ক্ষমতায় অধিষ্ঠিত হওয়ার পর জিয়া ১৯৭৮ সালের ১ সেপ্টেম্বর জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপি প্রতিষ্ঠা করেন। সকাল ১০টায় বিএনপি মহাসচিব দলের স্থায়ী কমিটির সদস্যদের নিয়ে শেরেবাংলা নগরে জিয়ার সমাধিস্থলে আসেন শ্রদ্ধা জানাতে। কবরে পুষ্পমাল্য অর্পণের পরে ফাতেহা পাঠ করে শ্রদ্ধা নিবেদন এবং প্রয়াত নেতার আত্মার মাগফেরাত কামনায় বিশেষ মোনাজাত করেন। বিএনপি ছাড়াও বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের পক্ষ থেকেও জিয়ার কবরে শ্রদ্ধা জানানো হয়। জিয়ার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে ডক্টরস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ-ড্যাব নয়া পল্টনে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচতলা দিনব্যাপী বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছে। বিকালে ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে আলোচনা সভা হওয়ার কথা রয়েছে। দিনটি উপলক্ষে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ভোরে দলীয় পতাকা উত্তোলন এবং সংবাদপত্রে বিশেষ ক্রোড়পত্র প্রকাশ করা হয়েছে।

ঝিনাইদহে অভিনব কায়দায় ফেন্সিডিল পাচারের সময় প্রতিবন্ধীসহ ২ জন আটক

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি \ ৫ বছর আগে গাছ থেকে পড়ে গিয়ে  কোমরের হাড় ভেঙ্গে যায় চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার হরিহরনগর গ্রামের রবিউল হোসেনের ছেলে জালাল হোসেন (৩৫)। এরপর থেকে চলার শক্তি হারিয়ে ফেলেন তিনি। চলেন হুইল চেয়ারে। এই প্রতিবন্ধীতাকে পুঁজি করে শুরু করেন মাদক ব্যবসা। কেউ দেখলে বোঝার উপায় নেই তার শরীরে অভিনব কায়দায় রাখা হয় ফেন্সিডিল। রোববার জীবননগর থেকে ইজিবাইক যোগে শরীরের সাথে অভিনব কায়দায় ফেন্সিডিল পাচারের সময় কোটচাঁদপুরের কাগমারী এলাকা থেকে ১৪০ বোতল ফেন্সিডিলসহ জালাল হোসেন ও ইজিবাইক চালক রাজু মন্ডলকে আটক করে ডিবি। ঝিনাইদহ ডিবি পুলিশের ওসি আনোয়ার হোসেন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তারা জানতে পারে জীবননগর থেকে কোটচাঁদপুরের কাগমারী এলাকা দিয়ে ফেন্সিডিল পাচার হচ্ছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে এস আই আব্দুল আলীম, এএসআই ওবাইদুর রহমান, রবিউল ইসলাম কাগমারী এলাকায় চেকপোস্ট বসায় পুলিশ। এসময় একটি ইজিবাইকে তল্লাসী করে প্রতিবন্ধী চাদর ও পোশাকের নিচ থেকে ১৪০ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়।

ইরাকে ২৫০ কেজি ওজনের আইএস ইমাম গ্রেপ্তার

ঢাকা অফিস \ স¤প্রতি মসুল শহর থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ‘জাব্বা দ্য জিহাদি’ নামে পরিচিত ইসলামিক স্টেটের (আইএস) স্থূলকায় জঙ্গি ইমামকে গ্রেপ্তার করেছে ইরাকি বাহিনীর সোয়াত টিম। প্রায় ২৫০ কেজি ওজনের এই ইমামকে গ্রেপ্তার করার পর পুলিশের গাড়িতে ঢোকানো যায়নি, পরে তাকে একটি পিকআপ ট্রাকে করে নিয়ে যায় সোয়াত টিম; জানিয়েছে নিউ ইয়র্ক পোস্ট। ধরা পড়া মুফতি আবু আবদুল বারি ‘নিরাপত্তা বাহিনীর বিরুদ্ধে উস্কানিমূলক বয়ান’ দেওয়ার কারণে পরিচিত ছিলেন এবং তিনি ‘আইএস দলের’ একজন গুরুত্বপূর্ণ নেতা বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে ইরাকি বাহিনী। আইএসের প্রতি আনুগত্য জানাতে অস্বীকার করা মুসলিম ইমামদের হত্যা করার জন্য বারি ‘ফতোয়া’ দিতেন বলেও বিবৃতিতে জানানো হয়েছে।

 

আমেরিকার বিরুদ্ধে ‘বাজে’ কথা বলায় সোলাইমানিকে হত্যা করেছি – ট্রাম্প

ঢাকা অফিস \ ইরানের ক্ষমতাধর শীর্ষ জেনারেল কাসেম সোলাইমানি হত্যাকান্ড নিয়ে এবার নতুন অজুহাত দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তিনি বলেছেন, আমেরিকার বিরুদ্ধে ‘বাজে’ কথা বলায় সোলাইমানিকে হত্যা করা হয়েছে। শুক্রবার ফ্লোরিডায় নির্বাচনের তহবিল সংগ্রহের এক অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তৃতায় ট্রাম্প এ কথা বলেন। খবর হাফপোস্ট। ওয়াশিংটন পোস্ট ও সিএনএনের বরাতে খবরে বলা হয়, ‘তিনি (সোলাইমানি) আমাদের দেশ সম্পর্কে খারাপ কথা বলছিলেন। যেমন, আমরা আক্রমণ করতে যাচ্ছি, আমরা আপনার লোকদের হত্যা করব’। তবে ইরানের নিহত সেনা কমান্ডারের পরিকল্পনায় কোনো ‘আসন্ন আক্রমণের’ কথা উলে।লখ করেননি প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প। এর আগে তিনি দাবি করেছিলেন, জেনারেল সোলাইমানি মার্কিন স্বার্থের ওপর বড় ধরনের হামলার পরিকল্পনা করেছিলেন। কিন্তু শুক্রবার তহবিল সংগ্রহের অনুষ্ঠানে দেয়া বক্তৃতায় ট্রাম্প সে কথা আর বলেননি তিনি। এর আগে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প এবং তার প্রশাসনের অন্য কিছু কর্মকর্তা জেনারেল সোলাইমানির পক্ষ থেকে হামলা আসন্ন ছিল বলে যে মন্তব্য করেছিলেন সে ব্যাপারে তারা কিন্তু কোনো তথ্য-প্রমাণ দিতে পারেননি। সোমবার মার্কিন টেলিভিশন চ্যানেল এনবিসি জানিয়েছে, জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার জন্য প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প কয়েকমাস আগে মার্কিন সামরিক বাহিনীকে কর্তৃত্ব দিয়েছিলেন। গত ৩ জানুয়ারি বাগদাদ আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হন ইরানের প্রভাবশালী জেনারেল কাসেম সোলাইমানি। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশে তাকে হত্যা করা হয়।  হামলায় ইরাকের পপুলার মোবিলাইজেশন ইউনিটের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড আবু মাহদি আল-মুহান্দিস নিহত হন। এর জবাবে ৮ জানুয়ারি ইরানের সামরিক বাহিনী মার্কিন দুটি সামরিক ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালায়। এতে ৮০ মার্কিন সেনা নিহত ও ২০০ জন আহত হয়ে বলে দাবি করে তেহরান। তবে হামলায় কোনো হতাহত হয়নি দাবি করে প্রেসিডন্ট ট্রাম্প বলেন, ইরানের হামলায় সামান্য ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

সাবেক পৌর চেয়ারম্যান আফু’র ১৬ তম মৃত্যু বার্ষিকী আজ

কুষ্টিয়া পৌরসভার সাবেক চেয়ারম্যান খন্দকার ইসরাইল হোসেন আফু’র ১৬তম মৃত্যু বার্ষিকী আজ। তিনি কুষ্টিয়া পৌরসভার চেয়ারম্যানের দায়িত্বে থাকাকালীন ২০০৪ সালের আজকের এই দিনে ঢাকার সমরিতা হাসপাতালে ইন্তেকাল করেন। তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনায় আজ সোমবার বাদ আসর কুষ্টিয়া পৌর গোরস্থান জামে মসজিদে এক মিলাদ মাহ্্ফিলের আয়োজন করা হয়েছে। উক্ত মিলাদ মাহ্্ফিলে মরহুমের আত্মীয়-স্বজন ও শুভাকাঙ্খীদের উপস্থিত থাকার জন্য তার  পরিবারের  পক্ষ থেকে বিশেষভাবে অনুরোধ করা হয়েছে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

কুমারখালীতে মহেন্দ্রপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠান

কুমারখালী প্রতিনিধি \ কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে এসএসসি পরীক্ষার্থীদের বিদায় এবং ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে উত্তীর্ণদের বরণ করতে অনুষ্ঠিত হয়েছে বিদায় ও বরণ অনুষ্ঠান। গতকাল রবিবার বেলা সাড়ে ১১টায় উপজেলার মহেন্দ্রপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে। প্রাক্তণ অধ্যাপক মো. নাদের হোসেনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন, কুমারখালী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আব্দুল মান্নান খান। এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. আব্দুর রশীদ, জগন্নাথপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ফারুক আহমেদ খান, মহেন্দ্রপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রাক্তণ প্রধান শিক্ষক সুবোধ কুমার মন্ডল, আইডিয়াল কলেজের প্রভাষক নাট্যকার লিটন আব্বাস, সাবেক শিক্ষক মো. মকলেছুর রহমান। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, মহেন্দ্রপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. আব্দুর রহিম খান। এ ছাড়াও বিদ্যালয়ের বিদায়ী ও নবাগত শিক্ষার্থীরা বক্তব্য প্রদান করে। অনুষ্ঠানে বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের উদ্যোগে ২০২০ সালের এস,এসসি পরীক্ষায় অংশ নেওয়া শিক্ষার্থী ও ৬ষ্ঠ শ্রেণীতে ভর্তি হওয়া নবাগত শিক্ষার্থীসহ সকল শিক্ষার্থীদের ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। অন্যদিকে, জগন্নাথাপুর আইডিয়াল কলেজের উদ্যোগে বিদায়ী শিক্ষার্থীদের প্রত্যেককে কলম উপহার দেওয়া হয়। প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান বিদায়ী ও নবাগত শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, সব সময় মনে রাখবে, শুধু চাকুরীর যোগ্যতা অর্জনের জন্য পড়াশোনা নয়, পড়াশোনা করবে মানুষ হওয়ার জন্য। আর মনে রাখবে তোমরা বড় হয়ে যেন, দেশ ও মানুষের জন্য কিছু করতে পারো। তিনি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনার প্রচেষ্টায় আমরা গরীব দেশ থেকে এখন মধ্যম আয়ের দেশে পরিণত হয়েছি এবং আগামীতে আমারা উন্নয়নশীল দেশের কাতারে শামিল হতে যাচ্ছি। আমাদের অভাব অনটন দূর হয়েছে, মাথাপিছু  আয় বেড়েছে। মান্নান খান আরো বলেন, নতুন শ্রেণীতে উত্তীর্ণ হয়েও আমরা বড় ভাইদের পুরাতন বই পড়েছি, আর এখন তোমাদেরকে বছরের প্রথম দিনেই নতুন বই তুলে দেওয়া হচ্ছে। বিশ্বের উন্নয়নশীল দেশের সাথে তাল মিলিয়ে এই দেশের নেতৃত্ব দিতে হবে তোমাদেরকে। সেই লক্ষ্য নিয়েই পড়াশোনা করবে তোমরা।

৬ বছরে ১৭২ বাংলাদেশি ভারতের নাগরিকত্ব পেয়েছেন – সীতারমণ

ঢাকা অফিস \ গত ছয় বছরে ১৭২ বাংলাদেশিকে ভারতের নাগরিকত্ব দেয়া হয়েছে বলে দাবি করেছেন দেশটির অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ। তিনি বলেছেন, গত ছয় বছরে ২ হাজার ৮৩৮ জন পাকি¯Íানি শরণার্থী, ৯১৪ জন আফগান শরণার্থী ও ১৭২ জন বাংলাদেশি শরণার্থীকে ভারতের নাগরিকত্ব দেয়া হয়েছে, যাদের মধ্যে মুসলমানও রয়েছেন। এছাড়া ১৯৬৪ থেকে ২০০৮ সাল পর্যন্ত ৪ লাখেরও বেশি তামিলকে (শ্রীলঙ্কার জাতি) নাগরিকত্ব দেয়া হয়েছে। গতকাল রোববার নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন বিষয়ে এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়ে এ কথা বলেন বিজেপি সরকারের এ মন্ত্রী। টাইমস অব ইন্ডিয়ার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে। কথিত অনুপ্রবেশকারী শনাক্ত করতে নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) তৈরি ও ধর্মের ভিত্তিতে নাগরিকত্ব দিতে সিএএ পাসের পর তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েছে ভারতের নরেন্দ্র মোদির সরকার। এনআরসি-সিএএ’র বিষয়ে দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ বলেছেন, ধর্মীয় নিপীড়নের শিকার হয়ে যেসব সংখ্যালঘু (অমুসলিম) পাকি¯Íান, আফগানি¯Íান ও বাংলাদেশ থেকে ভারতে আশ্রয় নেবেন, তাদের নাগরিকত্ব দেয়া হবে এবং অনুপ্রবেশকারীদের শনাক্ত করা হবে। সমালোচকরা বলছেন, এই পদক্ষেপ বহুজাতি ও সংস্কৃতির ভারতে সা¤প্রদায়িক স¤প্রীতি বিনষ্ট করতে পারে। এনআরসি-সিএএ’র বিরুদ্ধে দেশজুড়ে ছড়িয়ে পড়া বিক্ষোভ রক্তপাত ঘটিয়েছে, ঘটিয়েছে প্রাণহানিও। কিন্তু এনআরসি-সিএএ’র সাফাই গেয়ে নির্মলা সীতারমণ বলেন, ২০১৪ সাল পর্যন্ত পাকি¯Íান, আফগানি¯Íান ও বাংলাদেশ থেকে আসা ৫৬৬ জন মুসলমানকে নাগরিকত্ব দিয়েছে ভারত। মোদি সরকারের অধীনে ২০১৬-১৮ মেয়াদেও প্রায় ১৫৯৫ পাকি¯Íানি এবং ৩৯১ জন আফগান মুসলমান নাগরিকত্ব পেয়েছেন। ২০১৬ সালেই আদনান সামিকে (পাকি¯Íানের) ভারতের নাগরিকত্ব দেয়া হয়েছিল। ভারতীয় অর্থমন্ত্রী বলেন, পূর্ব পাকি¯Íান (বাংলাদেশ) থেকে আসা মানুষেরা দেশের বিভিন্ন ক্যাম্পে আবাস গড়েছে। ৫০-৬০ বছর হয়েছে গেছে, তারা এখনো এখানে। যদি ওইসব ক্যাম্পে যান, আপনার হৃদয় কেঁদে উঠবে। শ্রীলঙ্কান শরণার্থীদেরও একই অবস্থা, যারা ক্যাম্পে জীবনযাপন করছে। তারা ন্যূনতম মৌলিক চাহিদা থেকেও বঞ্চিত। তিনি বলেন, নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন হয়েছে মানুষকে আরও ভালো জীবনমান দেয়ার জন্য। আমরা কারও নাগরিকত্ব কেড়ে নিচ্ছি না, আমরা সেটি দিচ্ছি। এই বিজেপি নেতা বলেন, জাতীয় জনসংখ্যা নিবন্ধন (এনপিআর) প্রতি ১০ বছর পরপর হালনাগাদ করা হবে। এর সঙ্গে জাতীয় নাগরিকপঞ্জির (এনআরসি) কোনো সম্পর্ক নেই। কিছু লোক মিথ্যা অভিযোগ করছে এবং জনতাকে অহেতুক উসকানি দিচ্ছে।

দৌলতপুরে র‌্যাবের হাতে ফেনসিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক 

দৌলতপুর প্রতিনিধি \ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ১৫৫ বোতল ফেনসিডিলসহ জালাল মালিথা (৪৫) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী আটক হয়েছে। শনিবার রাত ১২টার দিকে উপজেলার আল¬ারদর্গা চামনাই গ্রামে র‌্যাব অভিযান চালিয়ে ফেনসিডিলসহ ওই মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করে। সে একই এলাকার মৃত কাফতান মালিথার ছেলে। র‌্যাব সূত্র জানায়, মাদক ব্যবসার গোপন সংবাদ পেয়ে র‌্যাব-১২ কুষ্টিয়া ক্যাম্পের অভিযানিক দল আল¬ারদর্গা চামনাই গ্রামের জালাল মালিথার বাড়ির পিছনের গলিতে অভিযান চালিয়ে ফেনসিলিসহ মাদক ব্যবসায়ী জালাল মালিথাকে আটক করে। এ ঘটনায় দৌলতপুর থানায় মাদক আইনে মামলা হয়েছে।

আলমডাঙ্গায় উপজেলা পর্যায়ে আন্তঃ প্রাথমিক বিদ্যালয় ক্রীড়া সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরণী

আলমডাঙ্গা অফিস \ আলমডাঙ্গা উপজেলা পর্যায়ে আন্তঃ প্রাথমিক বিদ্যালয় ক্রীড়া সাংস্কৃতিক প্রতিযোগিতা ও পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সাংসদ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি। গতকাল আলমডাঙ্গা এটিম মাঠে অনুষ্ঠিত পুরস্কার বিতরনী অনুষ্ঠানে  উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ লিটন আলীর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আইয়ুব হোসেন, ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাড. সালমুন আহমেদ ডন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান কাজী মারজাহান নিতু, মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ¦ নূর মোহাম্মদ জকু, পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক কাউন্সিলর মতিয়ার রহমান ফারুক, বেলগাছী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সম্পাদক মাহামুদুল হাসান চঞ্চল, প্রেসক্লাব সভাপতি শাহ আলম মন্টু, উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রচার সম্পাদক মাসুদ রানা তুহিন, সমাজ সেবা অফিসার আফাজ উদ্দিন, কলেজ ছাত্রলীগের  সভাপতি আশরাফুল হক। স্বাগত বক্তব্য রাখেন শিক্ষা অফিসার সামসুজ্জোহা।  শিক্ষক সমিতির সভাপতি রেফাউল হক ও সম্পাদক আশরাফুল আলমের উপস্থাপনায় উপস্থিত ছিলেন সকহারী শিক্ষা অফিসার আশরাফ উল আলম, জি এম কামাল, হুমায়ন কবীর, শামীম সুলতান, রফিকুল ইসলাম, রশিদুল ইসলাম, প্রধান শিক্ষক  রকিবুস সালেহীন, হারেজ উদ্দিন, শিক্ষক মোল্লা ফেরদৌস উল আলম রিজবী, যুবলীগ নেতা সাইফুর রহমান পিন্টু,  ছাত্রলীগ নেতা হাসানুজ্জামান। পরে প্রধান অতিথি সকল প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহনকারী বিজয়িদের  হাতে পুরস্কার তুলে দেন। শিক্ষক সমিতির সভাপতি রেফাউল হক ও সম্পাদক আশরাফুল আলম বিভিন্ন স্কুল থেকে আসা সকল ছাত্রছাত্রীদের পৌর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক কাউন্সিলর মতিয়ার রহমান ফারুক ও বেলগাছী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সম্পাদক মাহামুদুল হাসান চঞ্চলের সহযোগীতায়  দুপুরে খাওয়ার ব্যবস্থা করেন।

খাজানগরে দুই অটোরাইচ মিলে জরিমানা

আমলা অফিস \ কুষ্টিয়ার খাজানগরে অভিযান চালিয়ে দুই অটো রাইচ মিলকে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। চাউলের প্যাকেটে পাটের পরিবর্তে পলিথিনের মোড়ক ব্যবহারের অপরাধে এ জরিমানা করা হয়। গতকাল রবিবার বিকেলে উপজেলার খাজানগর এলাকায় এ অভিযান পরিচালনা করেন কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সবুজ হাসান ও খাদিজা খাতুন। ভ্রাম্যামান আদালতসুত্রে জানা যায়, “পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামূলক ব্যবহার আইন-২০১০” নিশ্চিতে বিকেলে খাজানগর এলাকার বিভিন্ন অটো রাইচ মিলে অভিযান পরিচালনা করা হয়। এসময় পাটের মোড়কের পরিবর্তে পলিথিনের মোড়ক ব্যবহার করার অপরাধে মেসার্স জনি এগ্রো ফুডকে ১০ হাজার টাকা এবং একই অপরাধে বিসমিল্লাহ এগ্রো ফুডকে ১০ হাজার টাকা অর্থদন্ড প্রদান করা হয়। অভিযানকালে আইন শৃংখলা বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত ছিলেন। আইনটি যথাযথ ভাবে মেনে চলার জন্য সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি অনুরোধ জানান কুষ্টিয়া জেলার মুখ্য পাট পরিদর্শক সোহরাব উদ্দিন বিশ্বাস। সেই সাথে জেলাব্যাপী এ অভিযান অব্যহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

হুমকির মুখে পরিবেশ : প্রশাসন নীরব

দৌলতপুরে ২৬টি অবৈধ ইটভাটায় অবাধে পোড়ানো হচ্ছে জ্বালানী কাঠ

বিশেষ প্রতিনিধি \ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ২৬টি অবৈধ স্থায়ী বা অস্থায়ী চিমনির ইটভাটায় অবাধে পুড়ানো হচ্ছে জ্বালানী হিসেবে কাঠ। সরকারী ভাটা স্থাপন নিয়ন্ত্রন আইন না মেনে যত্রতত্রভাবে গড়ে ওঠা ওই সব ইটভাটায় দেদারসে পোড়ানো হচ্ছে কয়লার পরিবর্তে জ্বালানী কাঠ বা কাঠের গুড়ি। এরফলে উজাড় হচ্ছে সবুজ বৃক্ষ। উপজেলার বিভিন্ন ব্যক্তি মালিকাধীন বনাঞ্চল থেকে গাছ কিনে এসব অসাধু ভাটা মালিকরা জ্বালানী হিসেবে কাঠের ব্যবহার করছেন। আর এসব ইটভাটাগুলো থেকে নির্গত কালো ধোঁয়ায় দূষিত হয়ে পড়ছে চারপাশের পরিবেশ। এতে করে একদিকে যেমন উজাড় হচ্ছে বনাঞ্চলের সবুজ বৃক্ষ অপরদিকে পরিবেশ দূষিত হয়ে পড়ছে হুমকির মুখে। দৌলতপুর উপজেলার হাসপাতাল রোডের সরকারী শেখ ফজিলাতুনেছা মুজিব মহিলা কলেজ সংলগ্ন স্থানে গড়ে ওঠা ৪টি ইটভাটা, উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন মানিকদিয়াড় গ্রামের বিভিন্ন বাড়ির আঙিনা ও ফসলের ক্ষেতে গড়ে তোলা হয়েছে ৮টি ইটভাটাসহ উপজেলার কল্যানপুর, ডাংমড়কা, রিফায়েতপুর, চকদৌলতপুর, ঝাউদিয়া, সংগ্রামপুর, বড়গাংদিয়া, বোয়ালিয়া, স্বরূপপুর ও প্রাগপুর এলাকাসহ বিভিন্ন এলাকায় গড়ে ওঠা ২৬টি ইটভাটায় হাজার হাজার মন গাছের গুড়ির ¯ুÍপ পড়ে থাকতে দেখা গেছে। এসব ইটভাটার চুল্লিগুলোতে ১২০ ফুট উচু স্থায়ী চিমনির পরিবর্তে কোন কোন ভাটায় মাত্র ২৫ থেকে ৩০ ফুট উচু ড্রাম চিমনী ব্যবহার করে পোড়ানো হচ্ছে বনাঞ্চলের সবুজ বৃক্ষ। দৌলতপুর উপজেলার সদরের স্বরূপপুর, মানিকদিয়াড় ও সাদীপুর এলাকার বাড়ির আঙিনা ও ৩ফসলি জমিতে গড়ে উঠা ইটভাটাসহ সব ইটভাটাতে অবাঁধে কাঠ পোড়ানো হলেও প্রশাসন রয়েছেন নীরব। উপজেলা পরিষদ সংলগ্ন লতিবমোড়ে প্রতিদিন প্রকাশ্যেই শত শত ট্রাকভর্তি জ্বালানী কাঠ ওজন দেওয়া হচ্ছে। আর এসব নিষিদ্ধ ইটভাটায় ফসলী জমি থেকে মাটি কেটে সেইসব মাটি দিয়ে প্রস্তুত করা হচ্ছে ইট। প্রতিটি ইটভাটায় এক রাউন্ড ইট পোড়াতে সময় লাগে ১২-১৫ দিন। সে হিসেবে একটি মৌসুমে প্রায় ১০থেকে ১২ রাউন্ড ইট পোড়ানো সম্ভব। এক রাউন্ড ইট পোড়াতে ১০ থেকে ১২ হাজার মন জ্বালানী কাঠের প্রয়োজন হয়। সে অনুযায়ী প্রতিটি ইটভাটায় এক মৌসুমে (০১) এক লক্ষ মণ জ্বালানী হিসেবে সবুজ বৃক্ষ বা কাঠ পোড়ানো হলে ২৬টি ভাটায় ২৬লক্ষ মনেরও বেশী কাঠ পুড়ানো হয়। এছাড়াও ইটভাটাগুলো সরকারী নিয়ম নীতি না মেনে যত্রতত্র ব্যাঙের ছাতার মত উর্বর ৩ফসলী জমি, স্কুলের আঙিনা, স্বাস্থ্যকেন্দ্রের আশপাশ ও জনবসতি এলাকায় গড়ে উঠায় ইটভাটার বিষাক্ত কালো ধোঁয়ায় শিশুদের শ্বাসকষ্ট ও স্বাস্থ্যহানী ঘটছে, পরিবেশ হচ্ছে বিপর্যস্থ। সেই সাথে আবাদী জমি ক্রমাগত হ্রাস পাওয়ার পাশাপাশি জমির উর্বর শক্তি হারাচ্ছে। জেলার বিভিন্ন উপজেলায় অবৈধ এসব ইটভাটায় প্রশাসনের অভিযান চললেও দৌলতপুরে এর চিত্র উল্টো। দৌলতপুরের ইটভাটা মালিকদের দম্ভোক্তি রয়েছে তারা প্রশাসনকে ম্যানেজ করে প্রতিটি ইটভাটায় কয়লার পরিবর্তে জ¦ালানী হিসেবে কাঠ জ¦ালিয়ে ইট পেড়ানো হয় এমন কথা বিভিন্ন মহলে প্রচার রয়েছে। তবে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার বলেছেন, গত নভেম্বর মাসে কয়েকটি ইটভাটায় অভিযান চালানো হয়েছে। আগামী দু’এক দিনের মধ্যে আরো অভিযান চালানো হবে। এদিকে বিগত বছরগুলোতে জ্বালানী কাঠ পোড়ানোর দায়ে অবৈধ ইটভাটা মালিকদের অর্থদন্ডের পাশাপশি সতর্ক করা হলেও ইটভাটা মালিকরা তা না মেনে প্রশাসনকে তোয়াক্কা না করে অবাঁধ সবুজ বৃÿ উজাড় করে কাঠ পুড়িয়ে যাচ্ছেন। তাই বিষয়টি জরুরী ভিত্তিতে প্রশাসনের নজরে নেওয়া প্রয়োজন বলে ভূক্তভোগীদের দাবি। একই সাথে পরিবেশ ও আবাদী জমি রক্ষায় এসব অবৈধ স্থায়ী বা অস্থায়ী চিমনির ইটভাটা বন্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি সচেতন মহলের।

সেতু’র উদ্যোগে মিরপুর উপজেলায় আন্তঃস্কুল বিজ্ঞান মেলা-২০২০ অনুষ্ঠিত

সেতু’র উদ্যোগে এবং বাংলাদেশ ফ্রিডম ফাউন্ডেশনের সহায়তায় মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে বিজ্ঞান শিক্ষার উন্নয়ন প্রকল্পাধীনে আন্তঃস্কুল বিজ্ঞান মেলা-২০২০ অনুষ্ঠিত হয়েছে। মিরপুর উপজেলা চত্বরে অনুষ্ঠিত বিজ্ঞান মেলা উদ্বোধন করেন উপজেলা চেয়ারম্যান কামারুল আরেফিন। মেলায় উপজেলার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ক্ষুদে বিজ্ঞানীরা তাদের  নিজ নিজ স্টলে বিজ্ঞান প্রকল্প ও দেয়ালিকা প্রদর্শণ করে। এছাড়াও শিক্ষার্থীরা কুইজ প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। মেলার কার্যক্রম বা¯Íবায়নে উপজেলা পরিষদ এবং উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিস সার্বিক সহযোগিতা করে। উপজেলা পরিসংখ্যান অফিসার, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, সহকারী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার, একাডেমিক সুপারভাইজার ও সহকারী প্রোগ্রামারকে নিয়ে গঠিত মূল্যায়ন কমিটি বিজ্ঞান প্রকল্প, কুইজ প্রতিযোগিতা এবং দেয়ালিকা মূল্যায়নের মাধ্যমে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থান অধিকারী শিক্ষার্থী ও প্রতিষ্ঠানকে নির্বাচন করেন। প্রকল্পের এক বছরের সার্বিক কর্মকান্ড এবং প্রতিযোগিতা মূল্যায়নের ভিত্তিতে আজমপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় শ্রেষ্ঠ বিদ্যালয় নির্বাচিত হয়। অনুষ্ঠানের পুরষ্কার বিতরণ ও সমাপনী পর্বে সভাপতিত্ব করেন মিরপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার লিংকন বিশ্বাস। বিশেষ অতিথি ছিলেন সেতু’র নির্বাহী পরিচালক এম এ কাদের, সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ রকিবুল হাসান ও উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ জুলফিকার হায়দার। সভাপতির বক্তব্যে লিংকন বিশ্বাস বলেন শিক্ষায় সৃজনশীলতাকে জোরদার করতে হবে এবং শিক্ষার্থীদের জ্ঞান বিকশিত করতে হবে। লেখাপড়ার পাশাপাশি উদ্ভাবনী চিন্তার প্রসার ঘটাতে হবে। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে এম এ কাদের প্রকল্প বা¯Íবায়নে উপজেলা প্রশাসনের সার্বিক সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন। তিনি কারিগরী ও উদ্ভাবনী শিক্ষার গুরুত্বারোপ করে বলেন দেশকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য বিজ্ঞান শিক্ষার বিকল্প নেই। উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ জুলফিকার হায়দার বলেন উদীয়মান ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের উদ্ভাবনী প্রকল্পগুলো শিক্ষার্থীদের অধিকতর বিজ্ঞান মনস্ক করে তুলবে। অধিকাংশ অভিভাবক ও শিক্ষার্থীদের মধ্যে বিজ্ঞান শিক্ষার যে ভীতি ছিল তা এই প্রকল্পের মাধ্যমে দূর হয়েছে। শিক্ষার্থীদের উদ্ভাবিত প্রকল্পগুলো সুন্দর, বা¯Íবমুখী ও সম্ভাবনাময়। এই শিক্ষার্থীরা আগামী দিনের বিজ্ঞান নিয়ন্ত্রণ করবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। উপজেলার সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোঃ রকিবুল হাসান বলেন বিজ্ঞান আমাদেরকে এগিয়ে দিচ্ছে, আগামী দিনে বিজ্ঞান আর নতুন নতুন উদ্ভাবনী মানুষকে উপহার দিবে। পৃথিবীর ইতিবাচক পরিবর্তনে আজকের ক্ষুদে বিজ্ঞানীরা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে। অনুষ্ঠান উপস্থাপনায় ছিলেন সহকারী উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ হোসনে মোবারক। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনায় আখেরি মোনাজাতে শেষ হলো বিশ্ব ইজতেমা

ঢাকা অফিস \ দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাতের মধ্যদিয়ে গতকাল রোববার শেষ হলো তাবলিগ জামাত আয়োজিত ৫৫তম বিশ্ব ইজতেমা। বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ এই আখেরি মোনাজাতে আত্মশুদ্ধি ও গুনাহ মাফের পাশাপাশি দুনিয়ার সব বালা মুসিবত থেকে হেফাজত ও মুসলীম উম্মাহর ঐক্য, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করে মহান আল্লাহর দরবারে প্রার্থনা করা হয়। দ্বিতীয় বৃহত্তম এই মুলিম সমাবেশে ভারতের দিল্লির নিজামউদ্দিন মারকাজের শূরা সদস্য মাওলানা জামশেদ বেলা ১১টা ৫০মিনিট থেকে ১২টা ৭মিনিট পর্যন্ত মোট ১৭ মিনিট মোনাজাত পরিচালনা করেন। মাওলানা জামশেদ সমগ্র বিশ্বের মুসলিম উম্মাহর গুনা মাফ করার জন্য আল্লাহর দরবারে ফরিয়াদ জানান। দ্বিতীয় পর্বের আখেরি মোনাজাতে অংশ নিতে রবিবার সকাল থেকে ঢাকা ও আশপাশের এলাকা থেকে হাজার হাজার মুসল্ললী ইজতেমা ময়দানের দিকে ছুটে এসেছেন। সকালে মুসল্লিদের আগমন বাড়তে থাকে। ইজতেমা ময়দানের আশপাশ এবং ঢাকা-ময়মনসিংহ ও আব্দুল্লাহপুর- আশুলিয়া সড়কে মুসল্লিদের ঢল লক্ষ্য করা গেছে। বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় পর্বে মাওলানা সাদ কান্ধলভির অনুসারীরা অংশগ্রহণ করেছেন। বিশ্বের অনেক দেশ থেকেই এসেছেন বিদেশি মেহমান। ভারতের নিজামুদ্দিন মারকাজ থেকে এসেছেন ৩২ সদস্যের এক প্রতিনিধি দল। ইজতেমার আখেরি মোনাজাতের মুসল্লিদের সুবিধার্থে ১৬টি বিশেষ ট্রেন চলাচল করছে। এছাড়া সব আন্তঃনগর ট্রেন টঙ্গীতে যাত্রা বিরতি করে। বিআরটিসি’র শতাধিক বিশেষ বাস সার্ভিস চালু রয়েছে। মোনাজাত উপলক্ষে টঙ্গী ও আশপাশ এলাকায় বেসরকারি প্রতিষ্ঠান বন্ধ রাখার ঘোষণা দিয়েছে কর্তৃপক্ষ। আখেরি মোনাজাত উপলক্ষে আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে নেয়া হয় ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা। পাঁচ ¯Íরে নিরাপত্তা ব্যবস্থার পাশাপাশি অতিরিক্ত আইন শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য মোতায়েন রাখা হয় বলে জানিয়েছে জেলা ও মহানগর পুলিশ। এ বছর বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব শুরু হয় ১০ জানুয়ারি। ১২ জানুয়ারি আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে মাওলানা জুবায়ের অনুসারিদের প্রথম পর্ব শেষ হয়। প্রথম পর্বে ৬৪টি জেলার মুসল্লিরা অংশ নেন। দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমাতেও দিল্লির মাওলানা সা’দ অনুসারী ৬৪ জেলার মুসল্লিরা অংশগ্রহণ করেছেন। বিশ্ব ইজতেমায় এসে শনিবার দিবাগত রাতে আরও ২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে এবারের দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমায় অংশ নিতে এসে ১০ জন মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে। টঙ্গী হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে, বার্ধক্যজনিত কারণে ও দুর্ঘটনায় তারা মারা যান।

সংবাদ সম্মেলনে ওবায়দুল কাদের

পরাজয় জেনেই বিএনপি নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করছে

ঢাকা অফিস \ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, সিটি নির্বাচনে নিশ্চিত পরাজয় জেনেই বিএনপি নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করছে। গতকাল রোববার সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে থাইল্যান্ডের রাষ্ট্রদূতের নেতৃত্বে দেশটির প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। এর আগে ওবায়দুল কাদেরের সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত থাইল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত অরুনরাং ফতং হামফ্রেইসের নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দল। ‘সরকার নির্বাচন কমিশনকে ব্যবহার করছে’ বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘তাদের এই সকল আচরনে একটা বিষয় ক্রমেই পরিষ্কার হয়ে যাচ্ছে, তারা লোক দেখানোর অংশ হিসাবে নির্বাচনে অংশ নিয়েছে। তাদের লক্ষ্য নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করা।’ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপি জয়ী হওয়ার জন্য নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে না বরং নির্বাচনকে বিতর্কিত করার জন্য অংশ নিচ্ছে। তাই তারা পরাজয় মেনে নিয়ে নির্বাচনকে বিতর্কিত করার চেষ্টা করছে। তারা নির্বাচনকে বিতর্কিত এবং প্রশ্নবিদ্ধ করতেই নির্বাচন কমিশন, ইভিএম ও সরকারের ভূমিকা নিয়ে নানা সমালোচনা করছে।

এসএসসির নতুন সূচি প্রকাশ

ঢাকা অফিস \ ঢাকা সিটি কারপোরেশন নির্বাচনের ভোটের তারিখ পেছানোয় এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা দুদিন পিছিয়ে দিয়ে নতুন সময়সূচি প্রকাশ করেছে সরকার। আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় সাব-কমিটি রোববার ঢাকা শিক্ষা বোর্ডের ওয়েবসাইটে সংশোধিত পরীক্ষা সূচি প্রকাশ করেছে।

আগামী ১ ফেব্র“য়ারি থেকে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরুর কথা থাকলেও সিটি ভোটের কারণে এখন তা ৩ ফেব্র“য়ারি থেকে শুরু হবে। নতুন সূচি অনুযায়ী, ৩ থেকে ২৭ ফেব্র“য়ারি পর্যন্ত এসএসসির তত্ত¡ীয় বিষয়ের পরীক্ষা হবে। আর ২৯ ফেব্র“য়ারি থেকে ৫ মার্চের মধ্যে ব্যবহারিক পরীক্ষা নিতে হবে। সূচি পরিবর্তনে সব পরীক্ষায়ই পিছিয়েছে, ইংরেজি ও গণিত পরীক্ষার আগে বিরতিও থাকছে। আগের সূচিতে ইংরেজি প্রথম ও দ্বিতীয় পত্র এবং গণিত পরীক্ষার আগে একদিন করে বিরতি ছিল। নতুন সূচিতে অন্য দুটিতে একদিন হলেও ইংরেজি দ্বিতীয় পত্রের আগে দুই দিন বিরতি থাকছে। এ বছর তিন হাজার ৫১২টি কেন্দ্রে ২০ লাখ ৪৭ হাজার ৭৭৯ জন শিক্ষার্থী মাধ্যমিক পর্যায়ের চূড়ান্ত পরীক্ষায় অংশ নেবে। সারা দেশে একযোগে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরুর দুদিন আগে ৩০ জানুয়ারি ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ভোটগ্রহণের দিন ঠিক করে ইসি। কিন্তু ৩০ জানুয়ারি সরস্বতী পূজা থাকায় দেখা দেয় জটিলতা। পূজার কারণে তফসিল ঘোষণার পরপরই তার বিরোধিতা করেছিল পূজা উদযাপন পরিষদ ও হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদও ভোটের দিন পরিবর্তনের দাবি জানায়। কিন্তু তা আমলে নেয়নি ইসি। এরমধ্যে ভোটের তারিখ পরিবর্তনে হাই কোর্টে রিট আবেদন হলে তা খারিজ হয়ে যাওয়ার পর ইসি ৩০ জানুয়ারি ভোট করার বিষয়ে আরও শক্ত অবস্থান নেয়। ইসির পক্ষ থেকে যুক্তি দেখানো হয়েছিল, ৩০ জানুয়ারিই ভোটগ্রহণের জন্য ‘উপযুক্ত’ দিন। কারণ তার পরের দিন ৩১ জানুয়ারি শুক্রবার বলে সেদিন ভোটগ্রহণের নজির নেই। এরপর ১ ফেব্র“য়ারি এসএসসি পরীক্ষা শুরু হবে বলে প্রায় এক মাস আর ভোট করা যাবে না। কিন্তু ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের একদল শিক্ষার্থী অনশন শুরু করলে এবং হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ কর্মসূচি ঘোষণা করলে ভোটের দিন বদলের দাবি জোরাল হয়ে ওঠে। আওয়ামী লীগসহ অপরাপর রাজনৈতিক দলগুলো জানায়, ভোটের তারিখ পরিবর্তনে তাদের আপত্তি নেই। প্রধান প্রধান প্রার্থীরাও ভোটের তারিখ পরিবর্তনের বিষয়টি পুনর্বিবেচনা করতে ইসিকে আহŸান জানায়। শুরুতে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীদের আন্দোলনকে অযৌক্তিক বললেও তাদের পক্ষে জনমত জোরাল হয়ে ওঠার প্রেক্ষাপটে শনিবার আকস্মিকভাবে জরুরি বৈঠকে বসে ইসি। তারমধ্যেই শিক্ষা মন্ত্রণালয় পরীক্ষা পেছানোর সিদ্ধান্ত দেওয়ার পর ভোট পেছানো হয়।

প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমানসহ ৬ জনের জামিন শুনানি আজ

ঢাকা অফিস \ প্রথম আলোর সম্পাদক মতিউর রহমানসহ ৬ জনের জামিন শুনানি আজ সোমবার অনুষ্ঠিত হবে। এই সময়ে তাদের গ্রেফতার বা হয়রানি না করার নির্দেশ দিয়েছে হাইকোর্ট। বিচারপতি ওবায়দুল হাসান ও বিচারপতি একেএম জহিরুল হকের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ গতকাল রোববার এ আদেশ দেন। এর আগে সকালে তারা হাইকোর্টে হাজির হয়ে আত্মসমর্পণ করে জামিন চান তারা। বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে ঢাকা রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের শিক্ষার্থী নাইমুল আবরার রাহাতের মৃত্যুর ঘটনায় গত ১৬ জানুয়ারি প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান, কিশোর আলোর সম্পাদক আনিসুল হকসহ ১০ জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করে আদালত। ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম কায়সারুল ইসলাম এ পরোয়ানা জারি করেন। ঘটনাটি তদন্ত করে পুলিশ আদালতে চার্জশিট দাখিল করে। চার্জশিটে উল্লেখ করা হয়-কিশোর আলো কর্তৃপক্ষের দায়িত্বে অবহেলার কারণে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে নাইমুল আবরার রাহাতের মৃত্যু হয়েছে। প্রসঙ্গত, ১ নভেম্বর রাজধানীর মোহাম্মদপুরের রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজের ক্যাম্পাসে প্রথম আলোর সাময়িকী কিশোর আলোর একটি অনুষ্ঠান চলছিল। ওই অনুষ্ঠানে এসে বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মারা যায় স্কুলের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী নাইমুল আবরার। এ ঘটনায় আয়োজকদের অব্যবস্থাপনাকে দায়ী করে নাইমুলের বাবা মো. মজিবুর রহমান মামলা করেন।

বাগদি স¤প্রদায়কে উচ্ছেদের পাঁয়তারা প্রভাবশালী মহলের 

কুমারখালীতে অসহায় বাগদি স¤প্রদায়ের আবাস রক্ষায় পাশে দাঁড়ালেন স্থানীয় সাংসদ জর্জ

কুমারখালী প্রতিনিধি \ কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে সরকারি জমি থেকে বাগদি স¤প্রদায়কে উচ্ছেদের পাঁয়তারা করছে একটি প্রভাবশালী মহল। উচ্ছেদের প্রতিবাদে আন্দোলনে নেমেছে যুগের পর যুগ কুমারখালীতে বাস করা ক্ষুদ্র এ স¤প্রদায়ের মানুষ। তবে তাদের অধিকার রক্ষায় স্থাণীয় সাংসদ সেলিম আলতাফ জর্জ একাত্মতা প্রকাশ করে প্রভাবশালী গোষ্ঠির বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার হুশিয়ারি দিয়েছেন। একই সাথে বাগদি স¤প্রদায়ের জন্য আরো জমি বন্দোব¯Í দেয়ার ঘোষনা দিয়েছেন তিনি। সাংসদের সহমর্তিতা পেয়ে ঘুরে দাঁড়িয়েছে তারা। অভিযোগ ওঠে গত বুধবার কুমারখালী মহিলা কলেজের বাণিজ্য বিভাগের প্রভাষক ও স্থানীয় বাসিন্দা তুহিন বিশ^াস পৌরসভার বুজরুক দুর্গাপুর মৌজার বাগদি স¤প্রদায়ের আদি ভিটার জমি দখলের চেষ্টা করে। বাগদি স¤প্রদায় শতাধিক মানুষ প্রতিবাদ করে। তারা কুষ্টিয়া-রাজবাড়ি সড়কে মানববন্ধন শেষে প্রায় তিনঘণ্টা ধরে শহরের প্রধান প্রধান সড়কে বিক্ষোভ মিছিল করে ও উপজেলা সহকারি কমিশার (ভূমি) অফিসের সামনে ঘণ্টাব্যাপী অবস্থান নেয়। তারা ধারাবাহিক নানা কর্মসূচী পালন করে আসছে। উপজেলা ভূমি কার্যালয় ও ভুক্তোভোগি আদিবাসী পরিবার সূত্র জানায়, বছরের পর বছর ধরে কুমারখালী বাসস্ট্যান্ট সংলগ্ন বুজরুখ দুর্গাপুর মৌজায় কয়েক বিঘা জমির ওপর অন্তত ৪০০ আদিবাসী বাগদি স¤প্রদায়ের পরিবার বসবাস করে আসছে। সরকার অর্পিত সম্পত্তি হিসাবে তাদেরকে একটি নির্দিষ্ট জায়গা লীজ দিয়েছে। এদিকে আদিবাসীদের জায়গার পাশে তুহিন বিশ^াস নামে এক ব্যক্তির ব্যক্তিমালিকানা জমি রয়েছে। স¤প্রতি তিনি দাবি করেন- আদিবাসীদের জায়গাটাও তার মালিকানাধীন। এ ব্যাপারে মামলাও করেছেন তিনি। উচ্চ আদালতের দেওয়া একটি রায় উল্লেখ করে তিনি আদিবাসীদের জায়গাটি নিজের দাবি করে উচ্ছেদের জন্য উঠেপড়ে লেগেছেন। এ নিয়ে কয়েক দিন ধরে আদিবাসীদের মধ্যে উত্তেজনা দেখা দেয়। তারা বিক্ষোভে ফেটে পড়েন। গত বুুধবার সকালে তুহিন বিশ্বাস তার লোকজন নিয়ে বসতি উচ্ছেদ করতে গেলে আদিবাসী স¤প্রদায়ের লোকজন প্রতিবাদ করে। দখল করতে যাওয়াদের ধাওয়া করে। এসময় সেখানে উত্তেজনা দেখা দেয়। আদিবাসী পরিবারের ছোট থেকে বড় নারী -পুরুষ সবাই সড়কে অবস্থান নেয়। একপর্যায়ে তারা বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সভা করেন। বিক্ষোভ মিছিলে নেতৃত্ব দেওয়া আদিবাসী পরিবারের সদস্য প্রীতম সরদার অভিযোগ করে বলেন, বাসস্ট্যান্ডের পাশের (পশ্চিম) দুর্গাপুর মৌজার সরকারি জমিতে তাদের পূর্ব পুরুষেরা প্রায় শত বছর ধরে বসবাস করে আসছে। প্রায় ৩০-৩৫ বছর ধরে ওই জমি জেলা প্রশাসকের কার্যালয় থেকে তাদের নামে লীজ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে। স¤প্রতি দুর্গাপুর গ্রামের তুহিন বিশ্বাস নিজের জমি দাবি করে ওই জমিতে বিপনী বিতান নির্মাণসহ জলাশয় ভরাট শুরু করেছে। গত মঙ্গলবার তুহিন বিশ্বাস তাদের বসতভিটার মধ্যেও তার জমি রয়েছে বলে দাবি করে আদিবাসী স¤প্রদায়ের টাঙানো সাইনবোর্ড ভাঙচুর করে। অভিযোগের ব্যাপারে তুহিন বিশ্বাস বলেন,‘আদিবাসীদের বসতভিটা ও আমার নিজস্ব জমির দাগ নম্বর ও মৌজা আলাদা। সীমানা সংক্রান্ত বিরোধ নিস্পত্তির জন্য কয়েক মাস আগে পৌরসভার মেয়র ও সার্ভেয়ারের উপস্থিতে জমির সীমানা নির্ধারণ করা হয়েছে। আমি আমার নিজের কেনা জমিতেই মার্কেট নির্মাণ করেছি। জমি দখল করার অভিযোগ সত্য নয়। চলমান আন্দোলনের মধ্যেই গত শনিবার সকালে বাগদি পল্লীতে যান স্থানীয় সাংসদ ব্যারিস্টার  সেলিম আলতাফ জর্জ। এসময় তার সাথে কুমারখালী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সালাউদ্দিন খান তারেক, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক আক্তারুজ্জামান নিপুন, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি হারুন অর রশিদ, পৌরসভার ৫নং কাউন্সিলর এস এম রফিক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

সাংসদ সেলিম আলতাফ জর্জ তাদের আশ্বস্থ করে বলেন, ‘তাদের (বাগদি) পূর্বপুরুষ হতে যুগ যুগ ধরে বসবাস করে আসছে এখানে। তারা তাদের প্রাপ্য অধিকার থেকে একবিন্দু বঞ্চিত হবে না। কেউ তাদের ভূমি বেদখল করার চেষ্টা করলে আইনগত ব্যবস্থা  নেওয়া হবে।’ আদিবাসী পল্লীর বাসিন্দারা সাংসদকে কাছে পেয়ে অনেকে কান্নায় ভেঙে পড়েন। সাংসদ তাদের সাথে প্রায় ঘন্টাব্যাপী কথা বলেন। তারা জমি রক্ষাসহ নানা সমস্যার কথা তুলে ধরেন। বাগদি কল্যাণ সমিতির সভাপতি মদন সাংসদকে কাছে পেয়ে বলেন- তাদেরকে উচ্ছেদের যে পায়ঁতারা করা হচ্ছে  সেটা মোকাবেলায় যেন জোরালো পদক্ষেপ নেওয়া হয়। না হলে তারা মাথা গোজার মত কোন ব্যবস্থা থাকবে না।’ এ বিষয়ে সাংসদ সেলিম আলতাফ জর্জের সাথে কথা হলে বলেন- বাগদি স¤প্রদায়ের দাবির প্রতি পূর্ণ সমর্থন আছে। তারা যেভাবে সরকারের কাছ থেকে লীজ নিয়ে বাস করে আসছে তাদের জায়গায় কাউকে দখল করতে দেওয়া হবে না। স্থায়ী একটা ব্যবস্থা নেওয়া হবে যাতে ভবিষ্যতে কেউ আর তাদের দিকে দখলের চোখে তাকাতে না পারে। প্রয়োজনে আরও জমি দেওয়া যায় কি না সেটাও দেখা হবে। চক্রান্তকারীদের সনাক্ত করে প্রয়োজনে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

গালফ নিউজকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

নাগরিকত্ব আইন ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়, তবে প্রয়োজন ছিল না

ঢাকা অফিস \ নাগরিকত্ব আইন সংশোধন ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয় হলেও এর কোনো প্রয়োজন ছিল না বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। স¤প্রতি সংযুক্ত আরব আমিরাত সফর করে আসা শেখ হাসিনা গালফ নিউজকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এই মন্তব্য করেন। মধ্যপ্রাচ্যের সংবাদপত্রটির অনলাইন সংস্করণে শনিবার সাক্ষাৎকারটি প্রকাশিত হয়েছে। সাক্ষাৎকারে প্রধানমন্ত্রী রোহিঙ্গা সঙ্কটসহ নানা বিষয়ে কথা বলেন। ভারতের বিতর্কিত আইনটি নিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, “আমি বুঝতে পারছি না, কেন এটা করা হল। এর কোনো প্রয়োজন ছিল না।” ভারত সরকার স¤প্রতি নাগরিকত্ব আইন (সিএএন) সংশোধন করে বাংলাদেশ, পাকি¯Íান ও আফগানি¯Íানের হিন্দুসহ কয়েকটি ধর্মাবলম্বীদের তাদের দেশের নাগরিকত্ব পাওয়ার সুযোগ করে দিয়েছে। এই সংশোধনের কারণ ব্যাখ্যা করে ভারত সরকারের পক্ষ থেকে বলা হচ্ছে, হিন্দুসহ এসব ধর্মীয় গোষ্ঠীর সদস্যরা বাংলাদেশ, পাকি¯Íান ও আফগানি¯Íানে বিভিন্ন সময়ে নিপীড়নের শিকার হয়েছে। তার আগে আসামে নাগরিকপঞ্জি প্রণয়ন করা হয়, যাতে ভারতের বাংলাদেশ লাগোয়া রাজ্যটিতে নাগরিকের তালিকা থেকে বাদ পড়েন বহু মানুষ। আসামের অনেকের অভিযোগ, বাংলাদেশ থেকে গিয়ে অনেকে ওই রাজ্যে আবাস গড়েছেন। নাগরিকত্ব আইন সংশোধন ও নাগরিকপঞ্জি নিয়ে ভারতে ব্যাপক ক্ষোভ-বিক্ষোভ চলছে; বিভিন্ন রাজ্য সরকারের বিরোধিতায় বেকায়কায় রয়েছে নরেন্দ্র মোদী নেতৃত্বাধীন কেন্দ্রীয় সরকার। বাংলাদেশে ১ কোটি ৬০ লাখ হিন্দু (মোট জনসংখ্যার ১০.৭ শতাংশ) থাকার তথ্য তুলে ধরে শেখ হাসিনা ধর্মীয় নিপীড়নের শিকার হয়ে বাংলাদেশিদের ভারতে পাড়ি দেওয়ার বিষয়টি নাকচ করেন।

নাগরিকপঞ্জি প্রকাশের পর ভারত থেকেও বাংলাদেশে কেউ আসছে না জানালেও তিনি বলেন, “তবে ভারতের মধ্যেই মানুষকে অনেক সমস্যা পোহাতে হচ্ছে।” এনিয়ে  বাংলাদেশের অবস্থান ব্যাখ্যা করে শেখ হাসিনা বলেন, “বাংলাদেশ এটাই বলে আসছে যে নাগরিকত্ব সংশোধন আইন কিংবা নাগরিকপঞ্জি ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। ভারত সরকারও বলে আসছে। “গত বছরের অক্টোবরে আমার নয়া দিল্লি সফরের সময়ও নরেন্দ্র মোদী আমাকে আশ্ব¯Í করেছেন যে এটা তাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়।” বাংলাদেশ-ভারত দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক এখন সর্বোচ্চ মাত্রায় আছে জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, এটা নানা ক্ষেত্রে আরও প্রসারিত হচ্ছে। সাক্ষাৎকার রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে উদ্বেগ জানিয়ে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই সমস্যার শুরুটা যেহেতু মিয়ানমারে, সেহেতু তাদেরই সমাধান করতে হবে। মিয়ানমারে নিপীড়নের শিকার হয়ে ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গা মুসলমান বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়ে আছে। তাদের ফেরতের উদ্যোগ নেওয়া হলেও নিরাপত্তা নিয়ে আশঙ্কা থেকে তারা ফিরতে চাইছে না। প্রত্যাবাসনের উপযোগী পরিবেশ তৈরিতে মিয়ানমারের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, রোহিঙ্গা সঙ্কটের অবসান না হলে তা আঞ্চলিক নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতাকে হুমকির মুখে ঠেলে দেবে। বাংলাদেশ কয়লা বিদ্যুতের দিকে মনোযোগ বাড়ালেও এক্ষেত্রে পরিবেশের সুরক্ষার বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে বলে জানান শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, বিদ্যুৎ উৎপাদনে বাংলাদেশ এতদিন গ্যাসের উপর নির্ভর করত। কিন্তু গ্যাস ফুরিয়ে আসায় উন্নয়নের জন্য বিদ্যুৎ উৎপাদন বাড়াতে এখন কয়লাসহ অন্য উৎসের দিকে নজর দিতে হচ্ছে। বিশাল জনসংখ্যার দেশে প্রাকৃতিক সম্পদের উপর চাপ বাড়ার বিষয়টি তুলে ধরেই সেই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করে কীভাবে উন্নয়ন করে যাচ্ছেন, তাও গালফ নিউজকে তুলে ধরেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী।

সাক্ষাতকারে চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা

কুষ্টিয়া সদর উপজেলার মাইল ফলক উন্নয়ন চিত্র জনগণের কাছে তুলে ধরতে পারবো

সুজন কর্মকার \ কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও কুষ্টিয়া শহর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান আতা বলেছেন, ইতোমধ্যে গ্রাম পর্যায়ে শতশত কিলোমিটার রা¯Íা ও কালভার্ট কাজ সমাপ্ত করা হয়েছে। উপজেলার ভিতরেও উন্নয়ন কাজ চলমান রয়েছে। সদর উপজেলা এখন এগিয়ে যাওয়ার পথে। ইতোমধ্যে ৫ কোটি টাকার এডিবি নিজস্ব তহবিল থেকে কাজ হাতে নেয়া হয়েছে। কাজের টেন্ডারও হয়েছে। আন্দোলনের বাজার পত্রিকাকে দেয়া এক সাক্ষাতকারে তিনি এসব কথা বলেন। সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা আরো বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান যে সোনার বাংলা গড়ার স্বপ্ন দেখেছিলেন, তাঁরই সুযোগ্য কন্যা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে  বাংলাদেশ এখন উন্নয়নের মহাসড়কে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কুষ্টিয়ার জন্য ইতোমধ্যে একনেকে ৫৭০ কোটি টাকা ব্যায়ে কাজের অনুমোদন দিয়েছেন। কুষ্টিয়ায় ৪ লেন ও ডিভাইডারসহ শডিয়াম বাল্ব এর কাজ হবে। ৪ লেন কাজ টেন্ডার প্রক্রিয়াধীন। উপজেলা থেকে শুরু করে ভেড়ামারা বারো মাইল পর্যন্ত কাজ হবে। সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিকনির্দেশনায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া-৩ (সদর) আসনের সংসদ সদস্য মাহবুবউল আলম হানিফ কুষ্টিয়ায় অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করেছেন। এর মধ্যে কুষ্টিয়া-হরিপুর সংযোগ শেখ রাসেল সেতু, বাইপাস সড়ক, কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজ, শিল্পকলা একাডেমি, মন্দির, মসজিদসহ অশংখ্য কাজ করেছেন। সদর আসনের সংসদ সদস্য মাহবুবউল আলম হানিফ এর সূচিন্তাধারায় আমরা উন্নয়ন পরিকল্পনার লক্ষ্য নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি। আশাকরি অচিরেই কুষ্টিয়া সদর উপজেলার মাইল ফলক উন্নয়ন চিত্র জনগণের কাছে তুলে ধরতে পারবো।

বইমেলা শুরু ২ ফেব্রয়ারি

ঢাকা অফিস \ অমর একুশে গ্রন্থমেলা প্রতিবছর ১ ফেব্র“য়ারি শুরু হলেও এবার শুরু হবে ২ ফেব্র“য়ারি। এ বছরের ১ ফেব্র“য়ারি ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের নির্বাচন হবে বিধায় বইমেলার আয়োজন পিছিয়ে দেয়া হয়। গতকাল রোববার বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি ও লেখক হাবীবুল্লাহ সিরাজী বিষয়টি জানান। তিনি বলেন, নির্বাচনের কারণে ১ ফেব্র“য়ারির পরিবর্তে ২ ফেব্র“য়ারি বিকেল ৩টায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বইমেলার উদ্বোধন করবেন। বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণ ও তৎসংলগ্ন সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে প্রতিবছর বসে বইমেলা। এ মেলায় নতুন বই প্রকাশের পাশাপাশি জমে লেখক, সাহিত্যিক, পাঠক ও প্রকাশকদের মিলনমেলা।