কুমারখালীতে যুবদলের উদ্যোগে এতিমদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরন

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল কুমারখালী উপজেলা শাখার উদ্যেগে প্রায় অর্ধশত এতিম শিশুদের মাঝে শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। গতকাল সকাল ১১টায় কুমারখালী আল ফালাহ এতিমখানায় শীতবস্ত্র বিতরণ করা হয়। প্রধান অতিথি ছিলেন বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার  উপদেষ্টা, কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য ও বীর মুক্তিযোদ্ধ সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমী। এ সময় উপস্থিত ছিলেন কুমারখালী পৌর বিএনপির সভাপতি কে এম আলম টমে, কুষ্টিয়া জেলা যুবদলের সিনিয়র সহ-সভাপতি মেজবাউর রহমান পিন্টু, কুমারখালী উপজেলা বিএনপির সভাপতি এ্যাড. শাতিল মাহমুদসহ বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠন সমূহের নেতৃবৃন্দ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

যুবসমাজকে মাদক থেকে দূরে রাখতে কুষ্টিয়ায় মউকের সংবাদ সম্মেলন

কুষ্টিয়ায় যুব সমাজকে মাদক থেকে দূরে রাখতে প্রচার অভিযানে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। মেহেরপুর মানব উন্নয়ন কেন্দ্র (মউক)এর  আয়োজনে বুধবার বেলা ১১টার দিকে কুষ্টিয়া জেলা পরিষদ মিলনায়তনে যুব সমাজকে মাদক  থেকে দূরে রাখতে প্রচার অভিযানে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া মাদকমুক্ত প্রচারণা কমিটির সভাপতি মোঃ নজরুল ইসলাম। তিনি বলেন- বাংলাদেশের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে ধ্বংসের হাত থেকে রক্ষা করতে হলে মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিক আন্দোলন গড়ে  তোলার বিকল্প নেই। এতে একজন সচেতন অভিভাবকের দায়িত্ব সব থেকে বেশি। যুব সমাজকে মাদক থেকে দূরে রাখতে তাই সামাজিক আন্দোলনের মাধ্যমে সকল শ্রেণী- পেশার মানুষ রুখে দাঁড়ালেই মাদকমুক্ত হবে বাংলাদেশ। তিনি আরো বলেন এ ক্ষেত্রে প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ায় মাদক ব্যবসায়ী ও মাদকের বিরুদ্ধে বেশি বেশি খবর প্রকাশের আহবান জানান তিনি। এসময় উপস্থিত ছিলেন,  মেহেরপুর মানব উন্নয়ন কেন্দ্র (মউক)এর প্রোগ্রাম ম্যানেজার সাদ আহমেদ, এনজিও সংস্থা রূপান্তরের খুলনা প্রতিনিধি আসিম আনন্দ দাস, দৈনিক হাওয়া পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আব্দুর রাজ্জার বাচ্চু, দৈনিক কুষ্টিয়া বার্তা পত্রিকার সম্পাদক খাদিমুল ইসলাম, দৈনিক মাতৃভাষা পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি ইব্রাহিম খলিল, সমন্বয়কারী মুরাদ হোসেন, আলমগীর হোসেন প্রমুখসহ জেলায় প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ায় কর্মরত সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

আমেরিকার গালে চড় মেরেছি – খামেনি

ঢাকা অফিস ॥ ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে হামলার পর এক প্রতিক্রিয়ায় ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি বলেছেন, এ হামলার মাধ্যমে আমরা আমেরিকার ‘গালে চপেটাঘাত’ করেছি। ১৯৭৮ সালের কোম বিক্ষোভের স্মরণে আয়োজিত রাজধানী তেহরানে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বুধবার আয়াতুল্লাহ খামেনি এ কথা বলেন। এ সময় উপস্থিত জনতা ‘আমেরিকা নিপাত যাক বলে শ্লোগান’ দেন। খবর বিবিসির। বাগদাদে মার্কিন ড্রোন হামলায় কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার প্রতিক্রিয়ায় বুধবার ভোরে ইরাকে দুটি মার্কিন ঘাঁটিতে ক্ষেপনাস্ত্র ছুঁড়েছে ইরান। এ বিষয়ে দেশটির সর্বোচ্চ নেতা বলেন, এখন আমাদের কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে, মধ্যপ্রাচ্যে আমেরিকার উপস্থিতির দিন শেষ করে দেয়া। ইরানকে শান্তিকামী দেশ হিসেবে আখ্যা দিরয় খামেনি বলেন, কেউ যদি ইরানের ক্ষতি করতে চায় তাহলে তার জবাব দেয়ার ক্ষমতা রয়েছে আমাদের। আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি বলেছেন, কাসেম সোলেইমানির শহীদ হওয়ার ঘটনা বিশ্বকে দেখিয়ে দিয়েছে যে ইরানের বিপ্লব কতটা জীবন্ত। মার্কিন ঘাঁটিতে হামলাকে ‘সফল’ হিসেবে দাবি করেন খামেনি। উল্লেখ্য, গত শুক্রবার সকালে বাগদাদে মার্কিন ড্রোন হামলায় নিহত হন ইরানের শীর্ষ জেনারেল কাসেম সোলাইমানি। ইরানের এই শীর্ষ জেনারেলের গুপ্তহত্যায় ফুঁসে উঠেছে দেশটির জনগণ। গোটা মধ্যপ্রাচ্য এখন টালমাটাল। এই হত্যার বদলা নেয়ার শপথ নিয়েছে ইরান ও লেবাননের হিজবুল্লাহ।

ইরানের হামলার আশঙ্কায় আগেই হুংকার নেতানিয়াহুর

ঢাকা অফিস ॥ ইরানের হামলার আশঙ্কায় আগেই থেকেই কঠোর প্রতিশোধের সতর্কতা জানিয়ে হুংকার দিয়েছেন ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। কেউ তার দেশে হামলা চালালে তার বিরুদ্ধে কঠিন ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও তিনি জানান। খবর তুর্কি গণমাধ্যম ইয়েনি শাফাকের। বুধবার ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে ইরানের হামলার পরেই জেরুজালেমে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় তিনি মার্কিন হামলায় নিহত ইরানি কমান্ডার জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যার ঘটনায় যুক্তরাষ্ট্রের পক্ষে অবস্থান করছেন বলেও পুর্নব্যক্ত করেন। নেতানিয়াহু বলেন, যে কেউ আমাদের আক্রমণ করার চেষ্টা করলে তাকে সবচেয়ে প্রবল আঘাত করা হবে।

এ সময় নেতানিয়াহু মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের পাশে রয়েছেন জানিয়ে বলেন, ট্রাম্পের দ্রুত, সাহসী ও অটল মনোভাবের জন্য তাকে অভিনন্দন জানানো উচিত। ইসরাইল সম্পূর্ণভাবে তার পাশে রয়েছে। প্রসঙ্গত, শুক্রবার মার্কিন ড্রোন হামলায় ইরানের কমান্ডার জেনারেল কাসেম সোলেইমানির হত্যার প্রতিশোধ নিতে বুধবার ভোররাতে ইরাকে অবস্থিত মার্কিন বিমানঘাঁটি ‘আইন আল-আসাদ’দে হামলা চালায় ইরান। একের পর এক ভূমি থেকে ভূমিতে নিক্ষেপণযোগ্য অসংখ্য ক্ষেপণাস্ত্র হামলা করে ঘাঁটিটিকে গুঁড়িয়ে দেয় ইরানি সামরিক বাহিনী।

প্রধানমন্ত্রীর ভাষণে জাতি হতাশ ও ক্ষুব্ধ- ফখরুল

হাই কোর্ট। সরকারের এক বছরপূর্তি উপলক্ষে জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেয়া ভাষণে জাতি হতাশ ও ক্ষুব্ধ হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গতকাল বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ মন্তব্য করেন। মঙ্গলবার জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া ভাষণের প্রতিক্রিয়ায় মির্জা ফখরুল আরও বলেন, এ সরকার একটি অনির্বাচিত সরকার। তারা অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে বসে আছে। এমন একটি নির্বাচন হয়েছে, যেটা ৩০ তারিখে হয়নি, ২৯ ডিসেম্বর রাতেই ভোট ডাকাতি হয়েছে। তিনি বলেন, দেশের বর্তমান রাজনীতিতে অর্থনীতি হচ্ছে প্রধান সংকট। এ রাজনৈতিক সংকট নিরসনে জাতির প্রত্যাশা ছিল যে, একটি পথ তার (প্রধানমন্ত্রী) বক্তব্যের মধ্যে থাকবে। এ নির্বাচন বাতিল করে নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে একটি নির্বাচন দেয়ার কথা তিনি বলবেন কিংবা এমন ইঙ্গিত দেবেন অথবা কোনো একটা সংলাপের কথা বলবেন। কিন্তু কোনোটাই তিনি করেননি। এ সংকট নিরসনে তিনি কোনো পথ দেখাননি। তার (প্রধানমন্ত্রী) বক্তব্যে জাতি হতাশ ও ক্ষুব্ধ হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী যে বক্তব্যগুলো রেখেছেন তা সত্য নয় মন্তব্য করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, তিনি (প্রধানমন্ত্রী) বলেছেন, পঁচাত্তর পরবর্তী বছরগুলোতে মানুষ জরাজীর্ণ ছিল, মানুষের কঙ্কাল দেহ ছিল- একথাগুলো চরম উল্টো। তার আগে ‘৭২ থেকে ‘৭৫ সাল তৎকালীন আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে এ দেশে একটি চরম দুর্ভিক্ষ হয়েছিল। এটি হয়েছিল তাদের দুঃশাসনের কারণে।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিবের সাথে বাংলাদেশ মাদক প্রতিরোধ কমিটির নেতৃবৃন্দের সৌজন্য সাক্ষা

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব শহিদুজ্জামান এর সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন বাংলাদেশ মাদক প্রতিরোধ কমিটির নেতৃবৃন্দরা। মঙ্গলবার বিকেলে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রালয়ের কার্যালয়ে সাক্ষাতকালে সচিব মোঃ শহিদুজ্জামানকে বাংলাদেশ মাদক প্রতিরোধ কমিটির কার্যক্রম সম্পর্কে অবহিত করা হয়। এসময় তিনি কমিটির নেতৃবৃন্দদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন এবং এই কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে সকল সাহায্য সহযোগিতার আশ্বাস দেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মাদক প্রতিরোধ কমিটির প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি সাংবাদিক হাসিবুর রহমান রিজু, সাধারণ সম্পাদক মুরাদ হোসেন, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক ও কুষ্টিয়া জেলা মাদক প্রতিরোধ কমিটির সাধারণ সম্পাদক এম সোহাগ হাসান, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক টপি বিশ্বাস প্রমুখ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

তাবিথ-ইশরাককে সমর্থন ঐক্যফ্রন্টের

ঢাকা অফিস ॥ ঢাকার দুই সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপির দুই মেয়র প্রার্থীকে আনুষ্ঠানিক সমর্থনের কথা জানিয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। ফ্রন্টের শরিক দলগুলোর নেতাকর্মীদের নির্বাচনে দুই প্রার্থীর পক্ষে মাঠে কাজ করতে বলা হয়েছে। গতকাল বুধবার সিটি নির্বাচনে ঢাকা উত্তর সিটিতে (ডিএনসিসি) বিএনপির প্রার্থী তাবিথ আউয়াল ও দক্ষিণের (ডিএনসিসি) প্রার্থী ইশরাক হোসেন মতিঝিলে ড. কামাল হোসেনের কাছে দোয়া চাইতে যান। এসময় জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ এই নেতা তাদের প্রতি জোটের আনুষ্ঠানিক সমর্থনের ঘোষণা দেন। গণফোরাম সভাপতি কামাল বলেন, সিটি নির্বাচনে আমরা বিএপির দুই প্রার্থী তাবিথ আউয়াল ও ইশরাক হোসেনকে সমর্থন জানাচ্ছি। তবে আমরা সরকারকে বলতে চাই, জাতীয় নির্বাচনের মত এই নির্বাচনেও নির্লজ্জভাবে ভোট ম্যানিপুলেট (কারচুরি) করার চেষ্টা কররে আমাদের সামনে আন্দোলন ছাড়া আর কোনো পথ থাকবে না। তিনি ঐক্যফ্রন্টের সব শরিক দলগুলোর নেতাকর্মদেরকে এই দুই প্রার্থীর পক্ষে কাজ করার আহ্বান জানান। পাশাপাশি নির্বাচনে কারচুপি করার চেষ্টা করলে কঠোর অবস্থান নেয়ার হুঁশিয়ারি দেন। এসময় ঐক্যফ্রন্টের শরিক দল নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, আমরা বিএনপির প্রার্থীদের সমর্থন দিচ্ছি। আমরা তাদের পক্ষে মাঠে থাকব। তবে সিটি করপোরেশনেও যদি জাতীয় নির্বাচনের মতো করে ভোটচুরির চেষ্টা করা হয়, তাহলে আমরা আন্দোলনের দ্বিতীয় ধাপে যাব। সরকারের প্রতি হুঁশিয়ারি দিয়ে মান্না বলেন, আপনারা একবার পার পেয়েছেন, কিন্তু এবার আর পার পাবেন না। এসময় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. মঈন খান, গণফোরামের নির্বাহী সভাপতি অ্যাডভোকেট সুব্রত চৌধুরীসহ ঐক্যফ্রন্টের শরিক দলগুলোর শীর্ষ নেতারা উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য, আগামী ৩০ জানুয়ারি ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

ইভিএমে প্রত্যেকের ভোটাধিকার নিশ্চিত হয় – সিইসি

ঢাকা অফিস ॥ প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা বলেছেন, ইভিএমে প্রত্যেক ভোটারের ভোটাধিকার নিশ্চিত হয়, কেউ কারো ভোট দিতে পারেন না। চট্টগ্রাম-৮ সংসদীয় আসনের আসন্ন উপ-নির্বাচন উপলক্ষে গতকাল বুধবার দুপুরে সার্কিট হাউজে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সঙ্গে বৈঠক শেষে সিইসি সাংবাদিকদের এ কথা বলেন। বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন নির্বাচন কমিশনের অতিরিক্ত সচিব মো. মোখলেছুর রহমান, চট্টগ্রামের বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান, জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াছ হোসেন, আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা হাসানুজ্জামান প্রমুখ। উপ-নির্বাচনের পরিবেশ নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে সিইসি বলেন, আমি গতকাল মঙ্গলবার নির্বাচনী এলাকা ঘুরে দেখেছি, লোকজনের সঙ্গে কথা বলেছি। তারা বলেছেন, পরিবেশ বেশ ভালো আছে। প্রার্থীদের মধ্যে কোনো সংঘাত নেই। সুতরাং নির্বাচন অবাধ সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্পন্ন করতে পারবো বলে আমি দৃঢ় আশাবাদী। বিএনপির অভিযোগ প্রসঙ্গে সিইসি বলেন, নির্বাচনে যে কেউ অভিযোগ করতে পারেন। এসব অভিযোগের ভিত্তি খুঁজে দেখতে হবে। রিপোর্ট নির্বাচন কমিশনে পাঠানো হবে। রিপোর্টের ভিত্তিতে আমরা সিদ্ধান্ত নেবো। ভোটের দিন নির্বাচনী এলাকার পরিবেশ প্রসঙ্গে নুরুল হুদা বলেন, ভোটারদের ভীত হওয়ার কোনো কারণ নেই। পর্যাপ্ত সংখ্যক ফোর্স থাকবে। কেউ কোথাও বল প্রয়োগের সুযোগ পাবে না।

গাংনীর বাদিয়াপাড়া গ্রামদল গঠন

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনী উপজেলার বামন্দী ইউনিয়নের বাদিয়াপাড়া গ্রামদল (ভিলেজ টিম) গঠন করা হয়েছে। এলাকায় গরু, মাঠের সেচ পাম্প চুরি, মাদকসহ অন্যান্য অপরাধমূলক কর্মকান্ড রোধে এলাকাবাসীর নিরাপত্তার লক্ষ্য নিয়ে গ্রামদল গঠন করা হয়। গতকাল বুধবার বিকেলে বাদিয়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় চত্বরে আলোচনা সভা শেষে গ্রামদল গঠন অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন বামন্দী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম বিশ্বাস। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন গাংনী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) ওবাইদুর রহমান। বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন গাংনী থানার ওসি (তদন্ত) সাজেদুল ইসলাম। এ সময় বক্তব্য রাখেন থানার এসআই হাবিবুর রহমান, এসআই আব্দুল হক, বরকত আলীসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বাদিয়াপাড়া ও মুন্দা গ্রামের সকল শ্রেণী-পেশার মানুষ।

মহেশপুরে পুলিশের হাতে ফেন্সিডিলসহ ব্যবসায়ী আটক

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহের মহেশপুর থানা পুলিশ মঙ্গলবার রাতে অভিযান চালিয়ে ১০৭ বোতল ফেন্সিডিলসহ ব্যবসায়ী সজিব আহাম্মেদকে (২২) আটক করেছে। আটককৃত সজিব আহাম্মেদ মহেশপুর উপজেলার পদ্মপুকুর স্কুল পাড়ার আবু বক্করের ছেলে। মহেশপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্মদ মোর্শেদ হোসেন খান জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে মঙ্গলবার রাতে মহেশপুর থানার এসআই আলাল হোসেন ও এএসআই সালাহউদ্দীন আহম্মেদ ঘুগরী-উজ্জ্বলপুর রাস্তার ওপর থেকে একটি মটর সাইকেলসহ ১০৭ বোতল ফেন্সিডিল আটক করা হয়। এসময় মালের মালিক সজিব আহম্মেদকে আটক করা হয়েছে। এঘটনায় মহেশপুর থানায় মামলা হয়েছে।

আওয়ামী লীগ প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচন চায় না – মোহাম্মদ নাসিম

ঢাকা অফিস ॥ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এবং কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখাপত্র মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, নির্বাচন কমিশন আসন্ন ঢাকার দুই সিটি নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করবে। আওয়ামী লীগ কোন ধরনের প্রশ্নবিদ্ধ নির্বাচন চায় না। গতকাল বুধবার জাতীয় প্রেসক্লাবের মাওলানা মুহাম্মদ আকরম খাঁ হলে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে এই আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। নির্বাচনের মাঠ থেকে সরে না যেতে বিএনপির প্রতি আহ্বান জানিয়ে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, আসন্ন ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার হবে। সেখানে কোন ধরেনর কারচুপির সুযোগ নেই। কারণ এখানে যন্ত্র কথা বলবে। তাই বিএনপিকে বলবো আপনারা নির্বাচনের মাঠ থেকে সরে যাবেন না। তিনি বলেন, ঢাকা সিটি নির্বাচন ইসি সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করবে। ঢাকাবাসী স্বতর্স্ফূতভাবে নির্বাচনে অংশ নিয়ে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে নির্বাচিত করবে। আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য বলেন, ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন হবে আওয়ামী লীগের গত এক বছরে জনগণের মূল্যায়নের বছর। ঢাকাবাসী আগামীতে মশক ও ডেঙ্গু এবং মাদকমুক্ত পরিচ্ছন্ন ঢাকা দেখতে চায়। বিনয়ের সাথে জনগণের কাছে গিয়ে নিজেদের ক্লিন ইমেজের যোগ্য প্রার্থীদের জন্য ভোটে সমর্থনের জন্য নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানান তিনি। বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সহ-সভাপতি ও স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের কন্ঠশিল্পী মো. রফিকুল আলমের সভাপতিত্বে সভায় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতা এডভোকেট কামরুল ইসলাম, আওয়ামী লীগ নেতা এডভোকেট বলরাম পোদ্দার এবং বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা বক্তব্য রাখেন।

ইবি ধর্মতত্ব অনুষদের নতুন ডিনের দায়িত্ব গ্রহণ

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের তথ্য, প্রকাশনা ও জনসংযোগ অফিসের সহকারী রেজিস্ট্রার মোঃ রাশিদুজ্জামান খান টুটুল স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে ধর্মতত্ব ও ইসলামী শিক্ষা অনুষদের নতুন ডিন হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন দাওয়াহ্ এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের প্রফেসর ড. মুহাম্মদ সোলায়মান। গতকাল বুধবার  দুপুরে অনুষদের অফিস কক্ষে এক আনুষ্ঠানিকতার মধ্যদিয়ে তিনি এ দায়িত্ব গ্রহণ করেন। ডিন হিসেবে আল-কুরআন এন্ড ইসলামিক স্টাডিজ বিভাগের প্রফেসর ড. আ,ফ,ম আকবর হোসাইনের মেয়াদ শেষ হওয়ায় আগামী দুই বছরের জন্য তাঁর স্থলাভিষিক্ত হন প্রফেসর ড. মুহাম্মদ সোলায়মান। দায়িত্ব হস্তান্তর অনুষ্ঠানে বিভিন্ন অনুষদীয় ডিন, বিভাগীয় সভাপতিসহ  বিভিন্ন পর্যায়ের শিক্ষকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

 

ঝিনাইদহে মাদক বিরোধী র‌্যালী ও আলোচনা সভা

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ‘মাদককে রুখবো, বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়বো’ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে ঝিনাইদহে মাদক বিরোধী র‌্যালী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের ৩০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী ও মাদকবিরোধী প্রচারণা সপ্তাহ উপলক্ষে জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন অধিদপ্তরের আয়োজনে বুধবার সকালে শহরের পুরাতন ডিসি কোর্ট চত্বর থেকে একটি র‌্যালী বের করা হয়। র‌্যালিটি শহরের বিভিন্ন সড়ক ঘুরে একই স্থানে এসে শেষ হয়। পরে পুরাতন ডিসি কোর্ট মুক্তমঞ্চে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সংরক্ষিত নারী আসনের সংসদ সদস্য খালেদা খানম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র আলহাজ সাইদুল করিম মিন্টু, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (সদর) তারেক আল মেহেদী, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) রবিউল ইসলাম। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন জেলা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক আজিজুল হক। বক্তারা, সমাজ থেকে মাদক নির্মুল করতে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান। আলোচনা সভা শেষে মাদক বিরোধী শপথবাক্য পাঠ করা হয়।

কালুখালীতে ট্রেনের ধাক্কায় দিনমজুর নিহত

কালুখালী প্রতিনিধি ॥ রাজবাড়ী জেলাধীন কালুখালীতে গতকাল বুধবার ট্রেনের ধাক্কায় দিনমজুর আকুব্বার (৫৫) নিহত হয়েছেন। নিহত আকুব্বার কালুখালী উপজেলার রতনদিয়া ইউপির মালিয়াট গ্রামের মৃত কুটি মিয়ার পুত্র। ঘটনার বিবরণে স্থানীয়ভাবে জানাযায়, ঐ দিন বিকেলে ৪ টার দিকে আকুব্বার আশা অফিস থেকে লোনের টাকা নিয়ে বাড়ী ফেরার সময় ভাটিয়াপাড়া থেকে ছেড়ে আসা কালুখালীগামী ভাটিয়াপাড়া এক্সপ্রেস ট্রেনটি স্টেশন সংলগ্ন ঝন্টু টেলিকমের সামনে এসে পৌছালে তাকে পিছন থেকে ধাক্কা দিলে ছিটকে পড়ে গিয়ে মাথায় আঘাতপ্রাপ্ত হয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসার জন্য ডাক্তারের কাছে নিলে ডাক্তার তাকে মৃত বলে ঘোষণা করে। এ ঘটনায় এলাকার মানুষের মাঝে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে। আকুব্বার তার অবর্তমানে  স্ত্রী, ৩ ছেলে ও ১ কন্যা সন্তান অসংখ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন।

আহমদ শফী ও আজহারীকে নিয়ে কটূক্তি, সেই নূরে বাংলা গ্রেফতার

ঢাকা অফিস ॥ হেফাজতে ইসলামের আমির শাহ আহমদ শফী, মাওলানা মিজানুর রহমান আজহারীসহ বেশ কয়েকজন আলেমকে নিয়ে কটূক্তি করার অভিযোগে মাওলানা মাহবুবুল হক আল কাদেরী ওরফে নূরে বাংলাকে (৪০) গ্রেফতার করেছে পুলিশ। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে চট্টগ্রামের সাতকানিয়া উপজেলার মৌলভীর দোকান এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। সাতকানিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শফিউল কবির বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। সাতকানিয়া উপজেলার খাগরিয়া ইউনিয়নে একটি মাহফিলে মাওলানা মাহবুবুল হক আল কাদেরী শাহ আহমদ শফী, মাওলানা মিজানুর রহমান আজহারীসহ দেশের কয়েকজন প্রখ্যাত আলেমকে কটূক্তি করে আক্রমণাত্মক বক্তব্য দেন। এ বক্তব্য সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন নূরে বাংলা। এ নিয়ে সর্বত্র ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। এ ঘটনায় হেফাজতে ইসলামের সাতকানিয়ার উপজেলা আমির মাওলানা আবদুল মোবিন মঙ্গলবার মাওলানা মাহবুবুল হক আল কাদেরী ওরফে নূরে বাংলার বিরুদ্ধে সাতকানিয়া থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেন। ওই মামলায় নূরে বাংলাকে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন সাতকানিয়া থানার ওসি শফিউল কবির।

 

সংসদের শীতকালীন অধিবেশন বসছে আজ, ভাষণ দেবেন রাষ্ট্রপতি

ঢাকা অফিস ॥ জাতীয় সংসদের শীতকালীন অধিবেশন আজ বৃহস্পতিবার বসছে। এদিন বিকাল ৪টায় স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশনের কার্যক্রম শুরু হবে। এটি চলতি একাদশ জাতীয় সংসদের ষষ্ট ও দ্বিতীয় বছরের প্রথম অধিবেশন। অধিবেশনের প্রথম দিনেই সরকারের এক বছরের কর্মকান্ড তুলে ধরে ও আগামী দিনের কর্মপরিকল্পনা নিয়ে দিক-নির্দেশনামূলক ভাষণ দেবেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। রাষ্ট্রপতির ভাষণকে ঘিরে ব্যাপক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছে সংসদ সচিবালয়। জানা গেছে, বছরের প্রথম অধিবেশনে ভাষণ দেন রাষ্ট্রপতি। এবারও সেই প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। ইতিমধ্যে মন্ত্রিসভার বৈঠকে রাষ্ট্রপতির ভাষণ অনুমোদন হয়েছে। সংসদ সচিবালয়ও ভাষণের বিষয়ে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নিয়েছে। রাষ্ট্রপতির আগমনকে সামনে রেখে সংসদ ভবনস্থ রাষ্ট্রপতির দফতর ও অধিবেশন কক্ষ সাজানোর পাশাপাশি সংসদ ভবন এলাকায় নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করা হয়েছে। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদকে বরণে প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। রাষ্ট্রপতির জন্য নির্ধারিত প্রেসিডেন্ট প্লাজা দিয়ে সংসদ ভবনে প্রবেশ করবেন আবদুল হামিদ। এ কারণে প্রেসিডেন্ট প্লাজা প্রস্তুত রাখা হয়েছে। সংসদ সচিবালয়ের একাধিক কর্মকর্তা জানান, অধিবেশনের প্রথম দিনে গাইবান্ধা-৩ আসন থেকে নির্বাচিত চলতি সংসদের সদস্য ডা. ইউনুস আলী সরকারের মৃত্যুতে আনীত শোক প্রস্তাব নিয়ে আলোচনা ও শোক প্রস্তাব গ্রহণ করা হবে। শোক প্রস্তাব গ্রহণের পর অধিবেশন মুলতবির রেওয়াজ থাকলেও বছরের প্রথম অধিবেশনের প্রথম দিনে রাষ্ট্রপতির ভাষণের বিধান থাকায় অধিবেশন কিছু সময়ের জন্য মুলতবি দিয়ে আবারও শুরু হবে। এরপর রাষ্ট্রপতি সংসদে ভাষণ দেবেন। ওই ভাষণের উপর আনীত ধন্যবাদ প্রস্তাব নিয়ে সরকার ও বিরোধী দলের সদস্যরা আলোচনা করবেন। এ দিকে বৃহস্পতিবার অধিবেশন শুরুর আগে বেলা ৩টায় সংসদের কার্যউপদেষ্টা কমিটির বৈঠকে অধিবেশনের মেয়াদ ও কার্যসূচি চূড়ান্ত হবে। গত ২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনের পর ৩০ জানুয়ারি একাদশ জাতীয় সংসদের যাত্রা শুরু হয়। চলতি সংসদের দ্বিতীয় বছরের প্রথম অধিবেশন ফেব্র“য়ারির মধ্যে শেষ হবে। এরপর বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্ম শতবার্ষিকী ‘মুজিবর্ষ’ উপলক্ষে আগামী ২২ ও ২৩ মার্চ সংসদের বিশেষ অধিবেশন আহ্বান করা হবে। যে অধিবেশনে বিভিন্ন দেশের স্পিকারসহ সংসদ সদস্যরা অংশ নেবেন।

অধিবেশনের জন্য সাতটি বিল : এবারের অধিবেশনে সাতটি বিল নিয়ে আলোচনা ও পাস হওয়ার কথা রয়েছে। এগুলো হচ্ছে- কাস্টমস বিল-২০১৯, বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বিল-২০১৯, বাংলাদেশ ট্যারিফ কমিশন (সংশোধন) বিল-২০১৯, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্পোরেশন বিল-২০১৯, বাংলাদেশ প্রকৌশল গবেষণা কাউন্সিল বিল-২০১৯, বাংলাদেশ বাতিঘর বিল-২০২০ এবং স্বায়ত্তশাসিত, আধা-স্বায়ত্তশাসিত, সংবিধিবদ্ধ সরকারি কর্তৃপক্ষ, পাবলিক নন-ফাইনান্সশিয়াল কর্পোরেশনসহ স্বশাসিত সংস্থাসমূহের উদ্বৃত্ত অর্থ সরকারি কোষাগারে জমা প্রদান বিল-২০২০।

শৈলকুপায় বাস চাপায় কলেজ ছাত্র নিহত

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার গাড়াগঞ্জ এলাকায় বাস চাপায় সোহাগ হোসেন (১৭) নামের এক কলেজ ছাত্র নিহত হয়েছে। বুধবার সকালে ঝিনাইদহ-কুষ্টিয়া মহাসড়েকর গাড়াগঞ্জ ব্রীজ এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত সোহাগ হোসেন ওই উপজেলার রানী নগর গ্রামের ইসাহাক মন্ডলের ছেলে। সে শৈলকুপার মিয়া জিন্নাহ আলম ডিগ্রি কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর ছাত্র ছিলো। শৈলকুপা থানার ওসি বজলুর রহমান জানান, সকালে মোটর সাইকেল যোগে গাড়াগঞ্জ থেকে বাড়ী ফিরছিল। পথে ঘটনাস্থলে পৌঁছালে পিছন দিক থেকে আসা একটি যাত্রীবাহী বাস তাকে চাপা দিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলে সোহাগ’র মৃত্যু হয়। পরে পুলিশ তার লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।

পাঁচ হাজার টাকার মেশিনে ৩০ হাজার টাকার ভাউচার

খোকসায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সংস্কার কাজে হরিলুট

খোকসা প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার খোকসা উপজেলায় সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মেরামত প্রকল্পে ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। ৫ হাজার টাকার ডিজিটাল হাজিরা মেশিন ক্রয় করে বিল ভাউচার করা হয়েছে ৩০ হাজার টাকার। এছাড়া বরাদ্দের টাকা থেকে নিয়ম বহিভূর্তভাবে ৫ শতাংশ আয়কর সরকারি কোষাগারে জমা না দিয়ে নিজের হেফাজতে রেখেছেন। এসব অনিয়মের সাথে উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তার সম্পৃক্ততার অভিযোগ উঠেছে। সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ৮৭টি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে রাজস্ব ও পিইডিপি ৪ এর অধিনে স্কুলের রুটিন মেরামত, প্রাক প্রাথমিক শ্রেণির জন্য শিক্ষা উপকরণ ক্রয়, বিদ্যালয় সজ্জিতকরণ ও পয়নিষ্কাশন ব্যবস্থার উন্নয়নে ১ কোটি ৬০ লাখ ৭০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়। বরাদ্দ থেকে ২০ শতাংশ টাকা হাতিয়ে নিতে মরিয়া হয়ে ওঠে উপজেলা শিক্ষা অফিসার ও শিক্ষক সমিতির নেতারা। এসব অনিয়মে বাধা দেন উপজেলা চেয়ারম্যান। তিনি প্রধান শিক্ষকদের সাথে বৈঠক করে স্পষ্ট জানিয়ে দেন, শতভাগ কাজ নিশ্চিত করতে হবে। শিক্ষকদের অভিযোগ, নিয়ম বহিভুর্তভাবে সংস্কার ও স্লিপের টাকা থেকে প্রতিটি বিদ্যালয়ে ডিজিটাল হাজিরা মেশিন লাগাতে নির্দেশ দেন। শিক্ষক সমিতির মনোনীত লোকের মাধ্যমে তড়িঘরি করে বিদ্যালয়গুলোতে ৫ হাজার টাকা দামের নিন্মমানের (ভারতীয়) ডিজিটাল হাজিরা মেশিন লাগিয়ে দেন। এর জন্য প্রকল্প বাস্তবায়নকারী প্রধান শিক্ষকদের কাছ থেকে ৩০ হাজার টাকার ভাউটার স্বাক্ষর করিয়ে  নেয়া হয় বলে অভিযোগ উঠেছে। পাতিলডাঙ্গী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ বেশ কয়েকটি বিদ্যালয়ে দুই ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের লোকেরা পৃথক দুটি হাজিরা মেশিন লাগিয়ে দিয়ে শিক্ষকের কাছ থেকে টাকা আদায় করে নিয়েছে। বরাদ্দের টাকা থেকে আয়কর কাটার নির্দেশনা না থাকলেও নিয়ম বহিভূতভাবে প্রতিটি বিল থেকে ৫শতাংশ হারে আয়কর কেটে নিজের হাতে রাখেন এই শিক্ষা অফিসার। শিক্ষকরা বলছেন, অনৈতিক স্বার্থ হাসিলের উদ্দেশ্যে কাজ শেষ করার কয়েক মাস পর তিন কিস্তিতে তাদের বিল পরিশোধ করা হয়েছে। এই বরাদ্দ থেকে ভ্যাট বাবদ ৭ শতাংশ টাকা কেটে রাখা হয়েছে। শিক্ষকদের দাবি, নিয়ম অনুয়ায়ী ভ্যাটের ৭ শতাংশ টাকা বিল উত্তোলনের সময় শিক্ষকদের মাধ্যমে সরকারী কোষাগারে জমা দেওয়ার কথা। কিন্তু শিক্ষা অফিসার মির্জা গোলাম মহম্মদ বেগ ক্ষমতার অপপ্রয়োগ করে আইকর ও ভ্যাটের প্রায় ১২ লাখ টাকা নিজের হাতে রেখেছেন। বিদ্যালয়ের রুটিন মেরামতসহ অন্যান্য কাজের জন্য বরাদ্দ দেড় কোটি টাকার প্রকল্প বাস্তবায়নের অনিয়মের ঘটনাটি সরেজমিন খোজ নিতে উপজেলার বিভিন্ন স্কুলে গিয়ে শিক্ষকদের সাথে কথা বলা হয়। নিজেদের পরিচয় গোপন রাখার শর্তে বরাদ্দের টাকা তছরূপের বর্ননা দেন প্রকল্পের সাথে জড়িত শিক্ষকরা। তারা বলছেন শিক্ষকদের হাত পা বাধা। প্রাক প্রাথমিকের শিশুদের শিক্ষা উপকরণ, ডিজিটাল হাজিরা, ভুলে ভরা মুক্তিযোদ্ধা কর্ণারের ব্যানার থেকে শুরু করে অধিকাংশ কেনাকাটা করেছে উপজেলা শিক্ষা অফিসার ও সমিতির নেতা সভাপতি ও মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু হানিফ। তারা আরো জানান, শিক্ষকরা শুধু বিদ্যালয়ের কিছু কাজ করেছেন। অনেক শিক্ষক বেতনের টাকা দিয়ে প্রকল্পের কাজ শেষ করেছেন বলেও দাবি করেন।  শিক্ষক সমিতির সভাপতি ও সরকারী মডেল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবু হানিফ বলেন, এসব অভিযোগের কোন সত্যতা নেই। যারা অবৈধ সুবিধা নিতে পারেননি তারা এসব অপপ্রচার চালাচ্ছেন। এখানকার শিক্ষা কর্মকর্তা অত্যন্ত ভাল মানুষ। তার দিয়ে কোন অনিয়ম করানো সম্ভব না। এ ব্যাপারে উপজেলা শিক্ষা অফিসার মির্জা গোলাম মহঃ বেগ জানান, প্রকল্প বাস্তবায়নের দায়িত্ব স্ব-স্ব বিদ্যালয়ে স্লিপ কমিটির। ওই কমিটির সভাপতি বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি। আমি শুধু প্রকল্প দেখভাল করেছি। তবে যে সব অনিয়মের কথা বলা হচ্ছে সেটা সঠিক নয়। প্রকল্পের বাড়তি টাকা আমরা ভাল কাজে ব্যায় করেছি। এখানে অনেক শিক্ষক বেতনের টাকা দিয়েও সহযোগীতা করছেন।

জনস্বার্থে উচ্ছেদ দাবী

অবৈধ গণি মার্কেটের কারণে কুমারখালী বাসস্ট্যান্ড মোড় প্রসস্থকরণে প্রতিবন্ধকতা

কুমারখালী প্রতিনিধি ॥ কাগজপত্রে সড়ক ও জনপথ বিভাগের জমি। কিন্তু দখল করে নির্মাণ করা হয়েছে গণি মার্কেট। আর ওই অবৈধ মার্কেটের কারণে কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী সড়কের কুমারখালী বাসস্ট্যান্ড মোড় প্রসস্থকরণে প্রতিবন্ধকতা দেখা দিয়েছে। তাই অনতিবিলম্বে অবৈধ এই মার্কেট উচ্ছেদের জন্য স্থানীয় জনপ্রতিনিধি সহ সাধারন মানুষ সড়ক ও জনপথ বিভাগের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। সরেজমিন পরিদর্শনকালে কুমারখালী বাসস্ট্যান্ডের ব্যবসায়ী ও যানবাহনের চালকেরা অভিযোগ করে বলেন- গণি মার্কেট নামের এই স্থাপনাটি সম্পূর্ণ সড়ক ও জনপথ বিভাগের জায়গায় নির্মাণ করা হয়েছে। আর অবৈধ এই মার্কেটের কারণে কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী সড়কের কুমারখালী বাসস্ট্যান্ড মোড় প্রসস্থকরণে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হচ্ছে। কাগজপত্র অনুযায়ী বুজরুক দুর্গাপুর মৌজার (দাগ নং- এস এ ৯২০, আর এস- ১০৮০) ১৫ শতাংশ জমির সম্পূর্ণ অধিগ্রহণ করা হয়েছে। আর এই জমির (কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী সড়কের উত্তরে) অংশ বিশেষ দখল করে গড়ে তোলা হয়েছে গণি মার্কেট। এ ব্যাপারে কুমারখালী পৌরসভার মেয়র মো: সামছুজ্জামান অরুণ জানান, গণি মার্কেটের কারণে বাসস্ট্যান্ড মোড় প্রসস্থকরণে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি হচ্ছে। এ জন্য সড়ক ও জনপথ বিভাগ ওই মার্কেটের অংশ বিশেষ হলেও উচ্ছেদে পদক্ষেপ নেবে। গণি মার্কেটের পিছনের (দাগ নং- ৯০৮) জমির মালিক খাইরুল ইসলাম সবুজ অভিযোগ করেন, তাদের ১ শতাংশ জমি কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী সড়কের জন্য অধিগ্রহণ করা হয়েছে। তাহলে সামনে অবস্থিত গণি মার্কেট কি করে বৈধ হয় ? তিনিও জনস্বার্থে এই অবৈধ এই মার্কেটের উচ্ছেদ দাবী করেছেন। এ ছাড়াও স্থানীয় সচেতন মহলের দাবী, কুষ্টিয়া-রাজবাড়ী সড়কের গা ঘেঁষে থাকা এই মার্কেট থাকলে সাধারন পথচারীদের যাতায়াতের কোন জায়গা থাকবে না। আর ছোট  বাহনগুলোকে (সিএনজি, অটোরিক্সা ও ভ্যান-রিক্সা) দাঁড়াতে এবং যাত্রীদের ওঠানামা করতে হবে সড়কের উপর। এ জন্য গণি মার্কেট উচ্ছেদ করা না হলে বাসস্ট্যান্ড মোড়ে সারাক্ষণ যানজট সহ দুর্ঘটনা ঘটবে। অন্যদিকে, কুমারখালী পৌরসভার সার্ভেয়ার ফিরোজুল ইসলাম বলেন, জানামতে গণি মার্কেট সম্পূর্ণই সড়ক ও জনপথ বিভাগের জায়গার উপরে নির্মিত। কেননা ওই মাকের্টের পিছন পর্যন্ত সড়ক ও জনপথ বিভাগের জমির সীমানা।  এ ব্যাপারে গণি মার্কেটের মালিকের সাথে যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও তাকে পাওয়া যায়নি।

কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির উদ্যোগে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ

শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ করেছে কুষ্টিয়া জেলা বিএনপি। বুধবার সন্ধ্যায় কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির কার্যালয়ে এ কম্বল বিতরণ করা হয়। কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার উপদেষ্টা ও কুষ্টিয়া জেলা বিএনপি’র সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমী, বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির স্থানীয় সরকার বিষয়ক সম্পাদক জেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক সাবেক সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিন। এসময় মেহেদী রুমী বলেন, এই সরকারের আর একদিনও ক্ষমতায় থাকার অধিকার নেই। দেশের জনগণের মনে  কোনো শান্তি নেই। বলেন, বাংলাদেশ আজ খুন ও গুমের রাজত্বে পরিণত হয়েছে। ভোটের আগে শুনিয়েছিলেন ডিজিটাল গল্প। ওয়াদা করেছিলেন, দশ টাকা কেজি দরে চাল, ফ্রি সার ও ঘরে ঘরে চাকরি  দেবেন। তার ডিজিটাল স্টোরি এখন ভয়ংকর দুর্নীতি, অযোগ্যতা ও ব্যর্থতায় পরিণত হয়েছে নির্মম পরিহাসে। সারাদেশের চলছে নীরব দুর্ভিক্ষ। দেশের মানুষ এখন আর কোনো কল্পকাহিনী কিংবা রূপকথা শুনতে চান না। তারা ক্ষুধার অন্ন চান, শীত নিবারণের বস্ত্র চান। তারা গ্যাস চান, বিদ্যুৎ চান, তৃষ্ণা নিবারণের বিশুদ্ধ পানি চান, চাকরি চান, সুস্থ ও নিরাপদ জীবন চান। সোহরাব উদ্দিন বলেন, বর্তমান সরকারের আমলে জিনিসপত্রের দাম এখন বেড়ে কয়েক গুণ হয়ে গেছে। জিনিসপত্রের দাম বাড়ছে ক্ষমতাসীনদের লাগামহীন দুর্নীতি, চাঁদাবাজি,  টেন্ডারবাজি, সিন্ডিকেটবাজি, অব্যবস্থাপনা এবং আইন-শৃঙ্খলার চরম অবনতির কারণে। তিনি বলেন, কেবল অসত্য কথার ফুলঝুরি দিয়ে সত্যকে আড়াল করার চেষ্টা করলে তো কোনো লাভ হবে না। তিনি বলেন, এখন দেশ চলছে এক ব্যক্তির ভয়ঙ্কর কর্তৃত্ববাদী শাসন। যেখানে দেশের জনগণ এবং গণতন্ত্রে বিশ্বাসী বিরোধী পক্ষকে বন্দি করার চেষ্টা চালানো হচ্ছে। আর সেই কারণেই বিরোধী দল ও মতের ওপর চলছে অবর্ণনীয় নানামুখী নির্যাতন। এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সহ-সভাপতি বশিরুল আলম চাদ, যুগ্ম সম্পাদক মিরাজুল ইসলাম রিন্টু, আব্দুর রাজ্জাক বাচ্চু, সাংগঠনিক সম্পাদক খন্দকার শাসসুজ্জাহিদ, যুব বিষয়ক সম্পাদক মেজবাউর রহমান পিন্টু, তথ্য ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মীর আল আরেফীন বাবু প্রমুখ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

ইরানের টার্গেটে ইসরাইল ও আরব আমিরাত

ঢাকা অফিস ॥ ইরাকে মার্কিন ঘাঁটিতে ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পর এবার ইসরাইল ও সংযুক্ত আরব আমিরাতে হামলার হুমকি দিয়েছে ইরান। ক্ষেপণাস্ত্র হামলার পরিপ্রেক্ষিতে মার্কিন বাহিনী যদি ইরানের বিরুদ্ধে কোনও প্রতিশোধমূলক হামলা চালায় তাহলে মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রের ঘনিষ্ঠ মিত্র ওই দুই দেশে পাল্টা হামলা চালানো হবে বলে সতর্ক করেছে দেশটি। বুধবার ইরানের সেনাবাহিনীর বরাতে আল জাজিরার এক প্রতিবেদনে এ খবর জানা গেছে। যুক্তরাষ্ট্র যদি কোনো ধরণের হামলার পরিকল্পনা করে তাহলে লেবাননের হিজবুল্লাহ আন্দোলন ইসরাইলে আক্রমণ করবে বলে আগেই হুমকি দিয়েছিল। রয়টার্স জানিয়েছে, ইরাকের মার্কিন ঘাঁটিতে হামলার মাধ্যমে প্রতিশোধের প্রথম ধাপ শুরু করেছে ইরান। যুক্তরাষ্ট্রের অন্যান্য অঞ্চলও তেহরানের হামলার হুমকিতে রয়েছে। ইরানের সেনাবাহিনি আইআরজিসি-র টেলিগ্রাম চ্যানেলে সতর্ক করে বলা হয়েছে, ইরানের মাটিতে বোমা বর্ষণ করা হলে সংযুক্ত আরব আমিরাতের দুবাই এবং ইসরাইলের হাইফায় হামলা চালাবে তেহরান। সেনাবাহিনীর অন্য একটি সূত্র জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্র যদি বেশী বাড়াবাড়ি করে তাহলে সরাসরি তাদের মাটিতেই হামলার পরিকল্পনাও ইরানের রয়েছে। বিষয়টি নিয়ে তাদের টার্গেট ঠিক করা রয়েছে বলে জানিয়েছে সূত্রটি। বুধবার রাতে জেনারেল কাসেম সোলাইমানি হত্যার বদলা নিতে ইরাকের পশ্চিমাঞ্চলের ইরবিল ও আইন আল আসাদে দুটি মার্কিন সামরিক ঘাঁটিতে ডজনখানেক মিসাইল ছুঁড়ে তেহরান। মার্কিন সেনাঘাঁটিতে মিসাইল হামলায় ৮০ জন নিহত হয়েছে বলে দাবি করেছে ইরান। ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আলী খোমেনি বলেছেন, ‘মিসাইল হামলা ছিল আমেরিকার সৈন্যদের জন্য একটি চপেটাঘাত’। তিনি এ অঞ্চল (মধ্যপ্রাচ্য) থেকে মার্কিন সেনাদের সরে যাওয়ার আহ্বান জানান। মার্কিন প্রতিরক্ষা সদর দফতর পেন্টাগন এ হামলার কথা স্বীকার করলেও কোনো প্রাণহানির কথা জানায়নি।