অনন্যা ৭৯ নাট্যদলের প্রতিষ্ঠার চার দশক উদযাপিত

নিজ সংবাদ ॥ অনন্যা ৭৯ নাট্যদলের প্রতিষ্ঠার চার দশক পূর্তি উদযাপিত হয়েছে। গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় অনন্যা৭৯ নাট্যদলের কার্যালয়ে এক আলোচনা সভা ও মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ গ্র“প থিয়েটার ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় পরিষদ সদস্য অধ্যাপক স্বপন মাহমুদ। এ ছাড়াও সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অনন্যা ৭৯ নাট্যদলের সহ সভাপতি জায়েদুল হক মতিন, রকিবুল ইসলাম কর্নেল, আরিফুল হক শফি, সমির হোসেন, সৈয়দ রফিকুল ইসলাম মুন্না, সালমা বেগম, কল্যানী শরমা, কলিন্স আহমেদসহ আরো অনেকে। সভায় সভাপতিত্ব করেন অনন্যা ৭৯ নাট্যদলের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মনোজ মজুমদার এবং সভা পরিচালনা করেন সাধারন সম্পাদক বিপুল রহমান।

ঝিনাইদহে ফেন্সিডিলসহ দুই নারী আটক

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহ শহরের কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল এলাকা থেকে ফেন্সিডিলসহ দুই নারীকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার সকালে তাদেরকে আটক করা হয়। আটককৃতরা হলো-চুয়াডাঙ্গার আকুন্দবাড়িয়া গ্রামের রেজাউল ইসলামের স্ত্রী শিউলি খাতুন ও একই এলাকার হাসমত আলীর স্ত্রী জহুরা খাতুন। ঝিনাইদহ সদর থানার ওসি মঈন উদ্দিন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে তারা জানতে পারে চুয়াডাঙ্গা থেকে ফেন্সিডিল ঝিনাইদহে পাচার হচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালায় পুলিশ। এসময় কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনালে অভিযান চালিয়ে সন্দেহ হলে ওই দুই নারীকে আটক করা হয়। পরে তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ৭০ বোতল ফেন্সিডিল। এ ঘটনায় ঝিনাইদহ সদর থানায় মামলা হয়েছে।

সানআপ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজের বিজ্ঞান মেলা অনুষ্ঠিত

সানআপ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজের বিজ্ঞান মেলা গতকাল সোমবার অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি ছিলেন কুষ্টিয়া সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুবায়ের হোসেন চৌধুরী। উপস্থিত ছিলেন অধ্যক্ষ কাজী সামছুন নাহার আলো, পরিচালক এ্যাডঃ মোসাদ্দেক আলী মনি, ভাইস প্রিন্সিপ্যাল ফয়জুর রহমান, শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও অভিভাবকগণ উপস্থিত ছিলেন।

প্রধান অতিথি কলেজ চত্বরে এসে পৌঁছলে প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থী তাকে ফুল দিয়ে অভ্যর্থনা জানান। পরে প্রধান অতিথি বিজ্ঞান  মেলা ও সততা স্টোর ফিতা কেটে শুভ উদ্বোধন করেন। নতুন প্রজন্মরা দেশকে এগিয়ে নিতে বিভিন্ন পরিকল্পনা তরুণ প্রাণের। চমকপ্রদ সব উদ্ভাবন নিয়ে হাজির সানআপ ইন্টারন্যাশনাল স্কুল এন্ড কলেজের শিক্ষার্থীরা। প্রধান অতিথি মেলার বিভিন্ন প্রজেক্ট ঘুরে ঘুরে দেখেন এবং প্রজেক্ট উদ্ভাবনকারী শিক্ষার্থীদের সাথে সে বিষয়ে কথাবার্তা বলেন। তরুণ চোখগুলোতে স্বপ্নের আনাগোনা। বিদ্যমান বিভিন্ন সংকট কাটিয়ে সম্ভাবনার পথে দেশকে এগিয়ে নিতে নানা পরিকল্পনা তৈরি করেছে এই তরুণ প্রাণ। আর এসব নিয়েই ক্ষুদে বিজ্ঞানীরা হাজির হয়েছে বিজ্ঞান মেলায়। ক্লাসরুমকে ডিজিটালাইজড করার প্রজেক্ট সাজিয়ে এনেছে কেউ। কেউবা,  রেলওয়ের লেভেল ক্রসিং নিয়ন্ত্রণে স্বয়ংক্রিয় প্রক্রিয়া উদ্ভাবন করেছে। প্রধান অতিথি সানআপের বিজ্ঞান মেলা দেখে অভিভুত হয়েছেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

“ভারত -বাংলাদেশ মৈত্রী এ্যাওয়ার্ড” পাচ্ছেন কুষ্টিয়ার ডাঃ আমিনুল হক রতন

নিজ সংবাদ ॥ চিকিৎসা ও মানব সেবায় অনন্য অবদান রাখার জন্য “ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী এ্যাওয়ার্ড” পাচ্ছেন কুষ্টিয়ার খ্যাতিমান চিকিৎসক ডা. এ.এফ.এম আমিনুল হক রতন। আগামী ৮ নভেম্বর শুক্রবার বিকেল ৫ টায় কোলকাতার বেহালা শরৎ সদনে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে “ভারত -বাংলাদেশ মৈত্রী এ্যাওয়ার্ড” ডাঃ আমিনুল হক রতনের হাতে তুলে দিবেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি। কোলকাতার বহুল প্রচারিত সুনামধন্য সংস্কৃতি বিষয়ক “সৃজন বার্তা” পত্রিকা “ভারত -বাংলাদেশ মৈত্রী এ্যাওয়ার্ড” প্রদান করছে। ওই পত্রিকার সম্পাদক দেবাশীষ ভট্টাচার্য ডা.আমিনুল হক রতনকে পত্রের মাধ্যমে এ্যাওয়ার্ড প্রদানের বিষয়টি অবহিত করেছেন। এ অনুষ্ঠানে পশ্চিম বঙ্গের মন্ত্রী, এমপিসহ কবি, সাহিত্যিক, সাংবাদিক ও বুদ্ধিজীবীগণ উপস্থিত থাকবেন বলে জানাগেছে। পারিবারিক সূত্রে জানাগেছে, ডাঃ এ এফ এম আমিনুর হক রতন একজন সংগ্রামী মানুষ। সমাজ সেবক দুর্নীতিমুক্ত কৃষ্টি সাংস্কৃতিক মনা মানবিক দৃষ্টিযুক্ত সময়ের সাহসী সন্তান। চিকিৎসক পরিবারের সদস্য, নিরঅহংকার, অসাম্প্রদায়িক চেতনায় উদ্বুদ্ধ এবং সর্ব মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্য ব্যক্তিত্ব। ছাত্রজীবনে একাধারে যেমন ছিলেন কৃত্তি খেলোয়াড়, এ্যাথলেট, সুবক্তা, আবৃত্তিকার তেমন ছিলেন মেধাবী ছাত্র। আবার ছিলেন রাজপথ কাপাঁনো ছাত্রনেতা। অন্যায়ের সাথে যিনি কখনো আপোষ করেননি। জেল জুলুম হামলা মামলা কোন চাপই তাকে নুন্যতম আদর্শচুত করতে পারেনি। একজন সৎ পেশাজীবী, নির্লোভ এবং সম্পূর্ন দুর্নিতীমুক্ত মানুষ হিসেবে কুষ্টিয়ার আপামর জনগণের কাছে বিশেষভাবে সমাদৃত, সম্মানিত ও গ্রহণযোগ্য নেতা। যিনি সব সময় ডাঃ আমিনুল হক রতন নন বরং রতন ডাক্তার হিসেবে সকলের কাছে সুপরিচিত। একজন মানবতাবাদী, স্পষ্টবাদী মানবিক মানুষ। মানবতার সেবায় সমস্ত জীবন সম্পৃক্ত রেখেছেন- মানব কল্যানই তার ব্রত। তিনি একটি বই লিখেছেন- নারী নির্যাতন প্রেক্ষাপট বাংলাদেশ। তার বিশাল ও বিরাট বর্ণাঢ্য, চিকিৎক, সামাজিক জীবনের কিছু অংশ তুলে ধরা হলো- তিনি কুষ্টিয়ার একটি সুপ্রতিষ্ঠিত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। জন্ম তারিখ ঃ ১২.১১.১৯৫৮ খ্রীঃ। পিতা  ঃ মৃত ডাঃ এ.এফ.এম তোফাজ্জুল হক, মাতা  ঃ রওশন আম্বিয়া বেগম, স্ত্রী  ঃ ডাঃ আসমা জাহান লিজা,   পুত্র  ঃ ১। ডাঃ মোঃ আশিক হক সাগর ও ২। মোঃ আসিফ হক ধ্র“ব -(এম.বি.বি.এস অধ্যয়নরত)। প্রতিষ্ঠাতাঃ শেখ হাসিনা ফ্রি স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র, ডাঃ তোফাজ্জুল হেলথ সেন্টার (ক্লিনিক), ডাঃ তোফাজ্জুল হেলথ সেন্টার (ডায়াগষ্টিক), ডাঃ লিজা-ডাঃ রতন ম্যাটস্, ডাঃ লিজা নার্সিং ইনষ্টিটিউট, দি কমফোর্ট ডায়াগনষ্টিক সেন্টার, ডাঃ রতন-ডাঃ লিজা ডায়াবেটিক সেন্টার (প্রস্তাবিত), ডাঃ নিত্য গোপাল পাল ফ্রি স্বাস্থ্য সেবা কেন্দ্র। বর্তমান যে সকল দ্বায়িত্ব পালন করছেন ঃ অধ্যক্ষ, ডাঃ লিজা-ডাঃ রতন ম্যাটস। সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ মেডিকেল এ্যাসোসিয়েশন, কুষ্টিয়া। সভাপতি, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ, কুষ্টিয়া। চেয়ারপার্সন, বাংলাদেশ-ভারত সম্প্রীতি পরিষদ। সাধারণ সম্পাদক, বঙ্গবন্ধু দাতব্য চিকিৎসা কেন্দ্র। সহ-সভাপতি, জাতীয় ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প সমিতি বাংলাদেশ (নাসিব)। চেয়ারম্যান, ডাঃ লিজা নার্সিংইনষ্টিটিউট। কার্যক্রমঃ ডাঃ এ এফ এম আমিনুর হক রতন ব্যক্তিগত ভাবে ও প্রাতিষ্ঠানিক ভাবে চিকিৎসা সেবার পাশাপাশি  বিভিন্ন সমাজ সেবা মূলক কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকেন। এর মধ্যে উল্লেখ যোগ্য : ফ্রি মেডিকেল ক্যাম্প, ক্লেফট প্রোগ্রাম, শীতবস্ত্র বিতরন,  বন্যা দুর্গতদের সাহায্য প্রদান, জনসচেতনতা মূলক কার্যক্রম, দরিদ্র ও মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের বৃত্তি প্রদান,  রাজনৈতিক জীবনে বর্তমানে তিনি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগে কুষ্টিয়া জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক হিসেবে দ্বায়িত্ব পালন করছেন। এছাড়াও তিনি উন্নয়ন কর্মকান্ডে বিভিন্ন সময় স্কুল, মসজিদ, মন্দির, পাঠাগার, খেলার মাঠ ইত্যাদি নির্মান সহ বিভিন্ন সামাজিক উন্নয়ন কার্যক্রমের সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখেছেন। সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে ছাত্র জীবন থেকেই তিনি কবিতা আবৃতি, অভিনয় ও সঙ্গীতের চর্চার সাথে যুক্ত ছিলেন। সাম্প্রতিক সময়ে তিনি ভারত ও বাংলাদেশের দুই বাংলার যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত “ভুবন মাঝি” সিনেমায় সংক্ষিপ্ত একটি চরিত্রে অভিনয় করেছেন।

এ্যাড. অনুপ কুমার নন্দীকে পোড়াদহ শফি স্মৃতি সংঘের ফুলেল শুভেচ্ছা বিনিময়

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া বারের পুনরায় পিপি নির্বাচিত হওয়ায় এ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দীকে ফুলেল শুভেচ্ছা দিয়েছে  পোড়াদহ শফি স্মৃতি সংঘ। গতকাল সোমবার রাত ৮টার সময় পিপির কুষ্টিয়া শহরের আমলাপাড়ার বাসভবনে এই ফুলেল শুভেচ্ছা দেয়া হয়। কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার পোড়াদহ ক্রীড়াঙ্গনের অন্যতম ক্রীড়া সংগঠন শফি স্মৃতি সংঘের নেতৃবৃন্দ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন এবং অভিনন্দন জানান। এসময় উপস্থিত ছিলেন শফি স্মৃতি সংঘের সভাপতি আরিফুল ইসলাম আরিফ, সাধারন সম্পাদক ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার নির্বাহী সদস্য জাহাঙ্গীর আলম ও প্রচার সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম। নেতৃবৃন্দ এ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দীর সাফল্য ও দীর্ঘায়ু কামনা করেন।

বিএনপি চায় না রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে ফেরত যাক – হাছান মাহমুদ

ঢাকা অফিস ॥ তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপি চায় না রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে ফেরত যাক। ‘ভাসানচরে রোহিঙ্গাদের স্থানান্তর দেশের নীতিবিরোধী’- বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন মন্তব্যের সমালোচনা করে তিনি একথা বলেন। গতকাল সোমবার সচিবালয়ে নিজ দপ্তরে সাংবাদিকদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘রোহিঙ্গাদের সকল প্রকারের সুরক্ষা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য ভাসানচরে ভালো ব্যবস্থা করা হয়েছে। মন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গা জনগণ এখানে থাকলে বিএনপি রাজনীতি করতে পারে। তাদের (বিএনপি) রাজনৈতিক স্বার্থের জন্য তারা চায় না যে রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তরিত করা হোক।

আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আপনারা সবাই জানেন, কারা রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তরিত করার বিরোধিতা করছেন। কিছু চিহ্নিত এনজিও ( বেসরকারি সংস্থা) রোহিঙ্গাদের স্থানান্তরিত করার বিরোধিতা করছে।’ এছাড়া তিনি বলেন, মির্জা ফখরুল ও তার দল চায় না যে রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে তাদের স্বদেশে ফিরে যাক। তিনি আরো বলেন, রোহিঙ্গারা তাদের দেশে ফিরে গেলে বিএনপির অসুস্থ রাজনৈতিক স্বার্থ ক্ষুন্ন হবে। হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আমি জানি না যে তারা (বিএনপি) কেন রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তরিত করার বিরোধিতা করছে। যেখানে রোহিঙ্গারা আরও বেশি সুযোগ-সুবিধা পাবে। ওখানে সেনা ও নৌবাহিনীর সহায়তায় রোহিঙ্গাদের থাকার সুব্যবস্থা করা হয়েছে।’ রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল এন্ড কলেজের নবম শ্রেনির ছাত্র নাইমুল আবরার রাহাতের অসহায়ভাবে মৃত্যু সম্পর্কে এক প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ওই শিক্ষার্থীর মৃত্যুর পরেও আয়োজকরা তাদের কর্মসূচি চালিয়ে যাওয়াটা অত্যন্ত দুঃখজনক। তিনি জানান, আজ বিষয়টি মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকে আলোচনা হয়েছে, যদিও তা এজেন্ডায় অন্তর্ভুক্ত ছিল না। তিনি বলেন, বৈঠকে আবরারের মৃত্যুর পরও কেন আয়োজকরা ওই অনুষ্ঠান অব্যাহত রাখে, কেন ময়নাতদন্ত ও অন্যান্য আইনী প্রক্রিয়া ছাড়াই তাকে দাফন করা হয়, সে ব্যাপারে আলোচনা হয়েছে। এছাড়াও কারা এই দুর্ঘটনার জন্য দায়ী এবং ঘটনাস্থলের কাছেই অনেক ক্লিনিক থাকা সত্ত্বেও কেন তাকে দূরের একটি হাসপাতালে নেয়া হয় সে ব্যাপারেও আলোচনা হয়েছে। মন্ত্রী আরো বলেন, ঘটনাটি তদন্তাধীন থাকায় তিনি কোন মন্তব্য করেননি। সম্প্রতি স্কুলের প্রাঙ্গণে প্রথম আলোর কিশোরদের জন্য মাসিক পত্রিকা কিশোর আলো আয়োজিত এক অনুষ্ঠান চলাকালে আবরার বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়। হাছান ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের সাবেক মেয়র ও বিএনপি নেতা সাদেক হোসেন খোকার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেন। তিনি খোকার রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং তার শোক-সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান। পরে, তথ্যমন্ত্রীর সঙ্গে তার মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে)’র নেতৃবৃন্দ সৌজন্য সাক্ষাত করেন। বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন তথ্য প্রতিমন্ত্রী ড. মুরাদ হাসান, তথ্য সচিব আবুল মালেক, প্রধান তথ্য কর্মকর্তা সুরথ কুমার সরকার, প্রেস ইনিস্টিটিউ অব বাংলাদেশ (পিআইবি)’র মহাপরিচালক জাফর ওয়াজেদ, বাংলাদেশ ফেডারেল ইউনিয়ন অব জার্নালিস্ট (বিএফইউজে)’র সভাপতি মোল্লা জালাল, মহাসচিব শাবান মাহমুদ, ডিইউজে’র সভাপতি আবু জাফর সুর্য ও সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরি।

৯ নভেম্বর শ্রমিকলীগের সম্মেলন

আমজাদ আলী খানকে কেন্দ্রীয় সাধারন সম্পাদক হিসেবে দেখতে চায় কুষ্টিয়াবাসী

শ্রমিকদের পাওনা সঠিকভাবে আদায়ে যার ঝুড়ি নেই সেই সময়ের ত্যাগি নেতা কুষ্টিয়া জেলা শ্রমিকলীগের সাধারন সস্পাদক আমজাদ আলী খান। ছাত্র জীবনেই সে ছিল অধিক সংগঠনের সাথে জড়িত। ১৯৭৭ সালে মহিনীমোহন বিদ্যাপীঠ হাইস্কুলে তিনি ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন, ১৯৮১ সালে কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সহ-সম্পাদক, ১৯৮৪ সালে ছাত্রলীগের নির্বাহী সদস্য, ১৯৮৫ সালে ইসলামিয়া কলেজ ছাত্রলীগের আহবায়ক,১৯৮৭ সালে শহর ছাত্রলীগের সভাপতি, ১৯৮৯ শহর আওয়ামিলীগের সদস্য , ১৯৯১ কুষ্টিয়া জেলা শ্রমিকলীগের অর্থবিষয়ক সম্পাদক, ১৯৯৩ সালে শ্রমিকলীগের আহ্বায়ক, ১৯৯৪ সালে কুষ্টিয়া জেলা শ্রমিকলীগের সাধারন সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহন করেন। ১৯৯৫ সালে জেলা বাংলাদেশ পোষ্টম্যান ও ডাক কর্মচারির সাধারন সম্পাদক,১৯৯৬ সালে খুলনা বিভাগীয় কমিটির নির্বাচিত সার্কেল সম্পাদক,  ১৯৯৭ সালে জেলা বাংলাদেশ পোষ্টম্যান ও ডাক কর্মচারি ইউনিয়নের নির্বাচিত সাধারন সম্পাদক ও এবং কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ন মহাসম্পাদক নির্বাচিত সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠনের সাথে জড়িত এই পরিশ্রমি ত্যাগি ও সমাজবান্ধব নেতা আমজাদ আলী খান। ১৯৯৯ সালে পুনরায় কুষ্টিয়া জেলা শ্রমিকলীগের সাধারন সম্পাদক, ২০০৩ সালে আবার নির্বাচিত কাউন্সিলের মাধ্যমে জেলা শ্রমিকলীগের সাধারন সম্পাদক, ২০০৫ সালে বাংলাদেশ পোষ্টম্যান ও ডাক কর্মচারি ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটির জাতীয় শ্রমিকলীগের অর্ন্তভুক্ত সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সাধারন সম্পাদক, ২০০৭ সালে বাংলাদেশ পোষ্টম্যান ও ডাক কর্মচারি ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় কমিটির জাতীয় শ্রমিকলীগের অর্ন্তভুক্ত সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা সাধারন সম্পাদক, ২০০৯ সালে বাংলাদেশ ডাক কর্মচারি সমন্বয় পরিষদের মহা-সম্পাদক, ২০০৯ সালে বাংলাদেশ পোষ্টম্যান ও ডাক কর্মচারি ইউনিট কেন্দ্রীয় কমিটির জাতীয় শ্রমিকলীগের অর্ন্তভুক্ত সংগঠনের পুনরায় সাধারন সম্পাদক, ২০১০ সালে বাংলাদেশ সরকারি কর্মচারি সংহীত পরিষদের মহাসচিব, ২০১২ সালে বাংলাদেশ পোষ্টম্যান ও ডাক কর্মচারি ইউনিট কেন্দ্রীয় কমিটির জাতীয় শ্রমিকলীগের অর্ন্তভুক্ত সংগঠনের পুনরায় সাধারন সম্পাদক, ২০১৩ সালে ইউ.এন.আই.বি.এল.সি কমিটির সভাপতি, ২০১৪ সালে ইউনিয়ন নেটওয়ার্ক ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ লিয়াজু কাউন্সিল এশিয়া প্যারাসিফিক কমিটির নির্বাচিত সদস্য, ২০১৬ সালে পোষ্টম্যান ও ডাক কর্মচারি ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত, ২০১৭ সালে কুষ্টিয়া জেলা জাতীয় শ্রমিকলীগের কাউন্সিল অধিবেশনের মাধ্যমে সাধারন সম্পাদক নির্বাচিত হয় এই ছাত্রনেতা। বিভিন্ন সময়ে রাজনৈতিক কারনে ২০০১ সালে ৯ মাসে ১৩ বার তার চাকুরী টেনেসফার হয় এবং চাকুরিচ্যুত হন তিনি। আবার ১৯৮৯ সালে মিথ্যা মামলায় কারাবরনও করেন এই বিপ্লবী নেতা। রাজনৈতিক জীবন থেকেই তিনি শ্রমিকদের পাশে থাকার চেষ্টা করেছেন সবসময়। অল্পদিনেই কুষ্টিয়াবাসীর মনে জায়গা করে নিয়েছেন এই ত্যাগী নেতা। আগামী শ্রমিকলীগের সম্মেলনে আবার আমজাদ আলী খানকেই চাই কুষ্টিয়াবাসি। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

দিল্লির বায়ুদূষণ

গাড়ি নিয়ন্ত্রণে ‘জোড়-বিজোড়’ পদ্ধতি চালু

ঢাকা অফিস ॥ বায়ুদূষণের অতি বিপজ্জনক মাত্রা মোকাবেলায় রাস্তায় চলাচলরত গাড়ি নিয়ন্ত্রণের পদ্ধতি গ্রহণ করেছে ভারতের রাজধানী দিল্লির কর্তৃপক্ষ। এই পদ্ধতি অনুযায়ী সোমবার, ৪ নভেম্বর থেকে ১৫ নভেম্বর পর্যন্ত দিল্লির সড়কগুলোতে একদিন শুধু জোর নম্বরের গাড়ি চলবে এবং অন্যদিন শুধু বিজোড় নম্বরের গাড়ি চলবে। রোববার স্থানীয় সময় সকাল ৮টা থেকেই এ নিয়ম চালু হয়েছে বলে আনন্দবাজার পত্রিকা জানিয়েছে। নিয়মের লঙ্ঘন ঠেকাতে দিল্লির বিভিন্ন অংশে ২০০ জন ট্র্যাফিক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সচেতনতা তৈরিতে কাজ করতে প্রায় পাঁচ হাজার সিভিল ডিফেন্স স্বেচ্ছাসেবককে প্রশিক্ষণ দেওয়া হয়েছে। যে সব গাড়ির নম্বরের শেষ সংখ্যাটি বিজোড়া সেগুলোকে ৪, ৬, ৮, ১২ ও ১৪ তারিখে রাস্তায় নামতে নিষেধ করা হয়েছে। অপরদিকে যে সব গাড়ির শেষ সংখ্যাটি জোড় সেগুলোকে ৫, ৭, ৯, ১১, ১৩ ও ১৫ তারিখে রাস্তায় নামতে নিষেধ করা হয়েছে। এই সময়ের মধ্যে শুধু ১০ নভেম্বর, রোববার সব নম্বরের গাড়ি রাস্তায় নামতে পারবে বলে জানিয়েছে দিল্লি রাজ্য সরকার। এ পদ্ধতি চালু করায় কয়েক লাখ গাড়ি রাস্তায় নামবে না বলে জানিয়েছেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। এ নিয়ম চলাকালে প্রতিদিনের যাত্রী চাপ সামাল দিতে অতিরিক্ত ৬১টি ট্রেন পরিচালনা করবে দিল্লি মেট্রোরেল কর্তৃপক্ষ। রাজ্য সরকার রাস্তায় অতিরিক্ত ৫০০ বাস নামিয়েছে।এর আগে ২০১৬ ও ২০১৭ সালে দিল্লির বায়ুদূষণ মোকাবেলায় এই পদ্ধতি চালু করা হয়েছিল। তবে তাতে কতটা কাজ হয়েছিল তা পরিষ্কার নয় বলে মন্তব্য বিবিসির। নিয়ম ভঙ্গকারীকে চার হাজার রুপি জরিমানা করা হবে। শুধু জরুরি যানবাহন, ট্যাক্সি ও দুই চাকার যান এ নিয়মের বাইরে থাকবে। একা গাড়ি চালানো নারীরাও ছাড় পাবেন।দিল্লির বাতাসে পিএম২.৫ বলে পরিচিত বিপজ্জনক কণার পরিমাণ সুপারিশকৃত মাত্রার চেয়ে অনেক বেশি আছে। অতিরিক্ত বায়ুদূষণের কারণে দিল্লির লাখ লাখ বাসিন্দা স্বাস্থ্য ঝুঁকিতে রয়েছেন। স্বাস্থ্য কর্মকর্তারা দিল্লির বাসিন্দাদের ঘরের ভিতরে থাকার ও সব ধরনের শারীরিক পরিশ্রম থেকে বিরত থাকার পরামর্শ দিয়েছে। স্কুলগুলো মঙ্গলবার পর্যন্ত বন্ধ রাখা হয়েছে, যা শুক্রবার পর্যন্ত বাড়ানো হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

কুষ্টিয়া জেলা মাদক প্রতিরোধ কমিটির সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

কুষ্টিয়া জেলা মাদক প্রতিরোধ কমিটির সমন্বয় সভা গতকাল সোমবার বিকেলে বঙ্গবন্ধু মার্কেটের ৩য় তলায় পার্কো পার্টি  সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সমন্বয় সভায় সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ মাদক প্রতিরোধ কমিটি কেন্দ্রীয় সংসদ ও কুষ্টিয়া জেলা শাখার সভাপতি হাসিবুর রহমান রিজু। সমন্বয় সভায় উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ মাদক প্রতিরোধ কমিটির অর্থ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক এম সোহাগ হাসান,  কেন্দ্রীয় সংসদের প্রচার সম্পাদক ও কুষ্টিয়া জেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদক শাহারিয়া ইমন রুবেল, কুষ্টিয়া জেলা পরিষদের সদস্য ও দৌলতপুর উপজেলা শাখার আহ্বায়ক আসাদুজ্জামান লোটন, কুমারখালী পৌরসভার প্যানেল মেয়র ও কুমারখালী উপজেলা মাদক প্রতিরোধ কমিটির আহ্বায়ক হারুন অর রশিদ, মিরপুর উপজেলা মাদক প্রতিরোধ কমিটির যুগ্ম আহ্বায়ক হাসানুজ্জামান খান তাপস, কুষ্টিয়া জেলা মাদক প্রতিরোধ কমিটির সহ-সভাপতি শাহাদত হোসেন, মীর আব্দুর রাজ্জাক, যুগ্ম সম্পাদক প্রকৌশলী জুয়েল রানা, দপ্তর সম্পাদক ইমদাদুল হক মিলন, প্রচার সম্পাদক আলামিন খান রাব্বী, সদর উপজেলা মাদক প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি নজরুল ইসলাম প্রধান, পৌর মাদক প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি নুরুজ্জামান বিশ্বাস জনি, সাধারণ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম শরিফ, বাংলাদেশ মাদক প্রতিরোধ কমিটি কেন্দ্রীয় সংসদের সদস্য মনির আহমেদসহ বিভিন্ন ইউনিয়ন কমিটির সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক উপস্থিত ছিলেন। সভায় সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত গৃহিত হয় যে, কুষ্টিয়া জেলাকে মাদকমুক্ত করতে ও তৃণমূল পর্যায়ে মাদক বিরোধী সচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে জেলার ৬৫টি ইউনিয়ন, পৌর ও উপজেলায় দ্রুত সময়ের মধ্যে পূর্ণাজ্ঞ কমিটি সম্পন্ন করা হবে। সম্বন্বয় সভা শেষে বাংলাদেশ মাদক প্রতিরোধ কমিটি কেন্দ্রীয় সংসদ ও কুষ্টিয়া জেলা মাদক প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি হাসিবুর রহমান রিজুর পিতা মরহুম আমজাদ হোসেন মালিথার ৩৫তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

ঝিনাইদহে অস্ত্র গুলিসহ ডাকাত সর্দার গ্রেফতার

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলার ফুলবাড়িয়া এলাকা থেকে অস্ত্র ও গুলিসহ শফিউদ্দিন শফি (৪৫) নামের এক ডাকাত সর্দারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার ভোররাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়। গ্রেফতারকৃত শফিউদ্দিন কালীগঞ্জ উপজেলার পিরোজপুর গ্রামের সামছুদ্দিনের ছেলে। কালীগঞ্জ থানার ওসি মাহফুজুর রহমান মিয়া জানান, ফুলবাড়িয়া এলাকায় একদল ডাকাত ডাকাতির প্রস্তুতি নিচ্ছে এমন সংবাদের ভিত্তিতে সেখানে অভিযান চালায় পুলিশ। পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে অন্যরা পালিয়ে গেলেও ঘটনাস্থল থেকে শফিউদ্দিনকে গ্রেফতার করা হয়। পরে তার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় একটি ওয়ান শুট্যার গান ও ও ৩ রাউন্ড গুলি। শফিউদ্দিন আন্ত:জেলা ডাকাত দলের সর্দার, তার নামে কালীগঞ্জ থানাসহ বিভিন্ন থানায় ১১টি মামলা রয়েছে বলেও জানায় পুলিশ।

অসুস্থ ও অসহায় দেশ সেরা কৃতি ভারত্তোলক রতন কুমার পালের জন্য সহযোগিতার হাত বাড়ালো কুষ্টিয়ার সুহৃদরা

নিজ সংবাদ ॥ দেশের হয়ে জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পর্যায়ে পদক অর্জনকারী এক সময়ের কৃতি ভারত্তোলক ও বডি বিল্ডার অসুস্থ রতন কুমার পালের পাশে দাঁড়ালো কুষ্টিয়া সমকাল সুহৃদ সমাবেশের সদস্যরা। রতন কুমার পাল দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ হয়ে মানবেতর জীবন-যাপন করছে। গতকাল সোমবার বিকেলে শহরের রাজারহাট  মোড়ে আড়–য়াপাড়ায় তার বাড়িতে গিয়ে দেখা করেন সমকাল সুহৃদ সমাবেশের একটি দল। তার স্বাস্থ্যের খোঁজখবর নেন তারা। পরে তার হাতে অর্থ সহযোগিতা তুলে দেন সুহৃদরা। এ সময় তিনি আবেগে কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন।

রতন কুমার পাল বলেন, দেশের হয়ে খেলা করে পদক ও সনদ অর্জন করেছি। এখন খেয়ে না খেয়ে দিন কাটে বিছানায়। কৃত্রিম হাটু সংযোজন করা হয়েছে। চলতে ফিরতে পারি না। অসুস্থ হয়ে বিছানায় পড়ে আছি কেউ খোঁজ রাখে না। ওষুধ কিনতে পারিনা। এখন মনে হয় খেলা করে ভুল করেছি। পত্রিকা ও টেলিভিশনের খবের দেখি মুদি দোকানদার থেকে কোটি কোটি টাকার মালিক। দুঃখ হয় তখন। আমাদের কি কোন অর্জন নেই? তার পাশে দাঁড়ানোর জন্য সমকাল সুহৃদদের ধন্যবাদ জানান তিনি। পাশাপাশি তিনি প্রধানমন্ত্রীর সহযোগিতা কামনা করেন।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সমকাল সুহৃদ সমাবেশের সভাপতি ড. জাহিদুজ্জামান, সাধারন সম্পাদক আবু তালহা, উপদেষ্টা রোটারিয়ান প্রকৌশলী নজরুল ইসলাম, সমকালের জেলা প্রতিনিধি ও  উপদেষ্টা সাজ্জাদ রানা, সুহৃদ সমাবেশের  যুগ্ম সম্পাদক  এম রহমান শোভন, অর্থ বিষয়ক সম্পাদক আবদুল আজিম, সাহিত্য সম্পাদক ফিরদাউস, দফতর সম্পাদক আব্দুল আজিজ, উপ-দফতর সম্পাদক জাহিদ ইকবাল রবিন।

১৯৮০ সাল থেকে শুরু করে টানা ২০০০ সাল পর্যন্ত তিনি খেলা করেন। এ সময় স্বর্ণ, রৌপ্য, ব্রোঞ্জ মিলিয়ে প্রায় ৬০টির মত পদক অর্জণ করে। মিষ্টার বাংলাদেশ উপাধী পান একবার। এছাড়া ৮টি জাতীয় রেকর্ডে আছে তার ঝুলিতে।

নেতা-কর্মীদের সন্তোষ প্রকাশ ॥ দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত

উপজেলা নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী দৌলতপুর যুবলীগ সভাপতি বুলবুল আহমেদ টোকেন চৌধুরীকে প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমা 

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ আওয়ামী লীগ দলীয় সিদ্ধান্তের বাইরে বিগত উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হওয়ায় কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার যুবলীগের সভাপতির বুলবুল আহমেদ টোকেন চৌধুরীসহ দেশের ১৯৭ জনকে কারণ দর্শানো নোটিশ করা হয়। কারণ দর্শানো নোটিশের সন্তোষজনক জবাব দেওয়ায় দৌলতপুর যুবলীগের সভাপতির বুলবুল আহমেদ টোকেন চৌধুরীসহ দেশের ১৯৭ জনকে ক্ষমা করেছেন আওয়ামী লীগ দলীয় সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। আওয়ামী লীগ দলীয় সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা দৌলতপুর যুবলীগের সভাপতির বুলবুল আহমেদ টোকেন চৌধুরীসহ দেশের ১৯৭ জনকে সাধারণ ক্ষমা করে দলীয় কর্মকান্ডে সম্পৃক্ত হয়ে দেশের কল্যানে কাজ করার আহ্বান জানিয়েছেন।

এদিকে দৌলতপুর যুবলীগের সভাপতির বুলবুল আহমেদ টোকেন চৌধুরী প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমা পাওয়ায় দৌলতপুর যুবলীগের সকল নেতা-কর্মীসহ আওয়ামী লীগ দলীয় নেতা-কর্মীরা সন্তোষ প্রকাশ করে প্রধানমন্ত্রীর প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করেছেন। কেন্দ্রীয় সিদ্ধান্তের বাইরে যেয়ে নির্বাচন করার কারনে টোকেন চৌধুরীর দলীয় কর্মকান্ডে ভাটা পড়ে। তার সমর্থিত নেতা-কর্মীরাও ঝিমিয়ে পড়ে। গতকাল প্রধানমন্ত্রীর ঘোষণার পর থেকে আবারো উজ্জীবিত হতে থাকে যুবলীগসহ তার সমর্থিত নেতা-কর্মীরা। প্রাণ ফিরে পায় দৌলতপুর উপজেলা যুবলীগ।

একইসাথে এ উপলক্ষে গতকাল সোমবার সন্ধ্যায় দৌলতপুর যুবলীগের সভাপতির বুলবুল আহমেদ টোকেন চৌধুরীর বাসভবনে বিশেষ দোয়া মাহফিলের আয়োজন করা হয়। দোয়া মাহফিলে প্রধানমন্ত্রীর দীর্ঘায়ু কামনাসহ দেশের কল্যান কামনা করা হয়। দোয়া মাহফিলে কয়েক হাজার নেতা-কর্মী অংশ নেয়।

 

কুষ্টিয়ায় চার ব্যবসায়ীকে জরিমানা

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার পৃথক অভিযানে চার ব্যবসায়ীকে জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। গতকাল সোমবার বিকেলে সদর উপজেলার মঙ্গলবাড়ী এলাকায় “পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামুলক ব্যবহার আইন-২০১০” নিশ্চিতে উক্ত এলাকায় অভিযান চালায় কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মাহেরা নাজনীন। ভ্রাম্যান আদালত সুত্রে জানা যায়, “পণ্যে পাটজাত মোড়কের বাধ্যতামুলক ব্যবহার আইন-২০১০” নিশ্চিতে উক্ত এলাকায় অভিযান পরিচালনাকালে আইন অমান্যের দায়ে ব্যবসায়ী সুলতানকে তিন হাজার টাকা, সুরুজ্জামানকে তিন হাজার টাকা, এবং রবিউল ইসলামকে এক হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। অপরদিকে রবিবার একই আইন নিশ্চিতে খাজানগর এলাকায় কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট ইসাহাক আলীর নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালায়। অভিযান কালে প্লাস্টিকের বস্তায় চাউল রাখার অপরাধে খোরশেদ আলম নামক একজন ব্যবসায়ীকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করে। পৃথক এ অভিযান কালে আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর সদস্যসহ জেলা পাট অধিদপ্তরের মুখ্য পাট পরিদর্শন সোহরাব উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন। এসময় সোহরাব উদ্দিন উক্ত আইনটি সকলকে মেনে চলার আহবান জানান। সেই সাথে জেলাব্যাপি এ অভিযান অব্যহত থাকবে বলেও জানান তিনি।

দৌলতপুরে নাসির উদ্দীন বিশ্বাস কল্যাণ ট্রাস্টের চক্ষু চিকিৎসা শিবির অনুষ্ঠিত

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরের আল্লারদর্গা আনোয়ারা বিশ্বাস মা ও শিশু হাসপাতালে নাসির উদ্দীন বিশ্বাস কল্যাণ ট্রাস্টের চক্ষু চিকিৎসা শিবির অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল ৯টা থেকে দিনব্যাপী চক্ষু চিকিৎসা শিবিরে এলাকার মানুষের চোখের চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয়। এছাড়াও চোখে ছানি পড়া রোগীদের লেন্স সংযোজনের জন্য বিনা খরচে খুলনায় নিয়ে লেন্স সংযোজোন করা হবে। দু’দিনব্যাপী চক্ষু শিবিরের প্রথম দিন বিভিন্ন এলাকা থেকে প্রায় সাড়ে ৯’শ চক্ষু রোগীর চিকিৎসা সেবা দেওয়া হয় এবং এদের মধ্যে ৪’শ রোগীর লেন্স সংযোজনের জন্য নির্ধারণ করা হয়। চক্ষু চিকিৎসা শিবিরে চিকিৎসা সেবা দেন ডাঃ শিমুল চক্রবর্তী ও ডাঃ আসিফ হাসান। নাসির গ্র“প অব ইন্ডাঃ লিঃ এর কর্মকর্তা মুকুল হোসেন জানান, প্রতি বছর দু’বার নাসির উদ্দীন বিশ্বাস কল্যাণ ট্রাস্টের উদ্যোগে ও অর্থায়নে এবং দি ফ্রেন্ড হ্যালোজ ফাউন্ডেশন ও খুলনা বি.এন.এস.বি চক্ষু হাসপাতালের যৌথ সহযোগিতায় রোগীদের বিনা খরচে চক্ষু চিকিৎসা শিবির পরিচালিত হয়ে থাকে। আজও এ শিবির অনুষ্ঠিত হবে।

কুষ্টিয়ায় ঝাউদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া সদর উপজেলার ঝাউদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন গতকাল সোমবার বিকেল ৩টায় ঝাউদিয়া বাজার মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান বকতিয়ার হোসেনের সভাপতিত্বে ও সাধারন সম্পাদক জহুরুল ইসলাম ঠান্টু’র সঞ্চালনায় সম্মেলন উদ্বোধন করেন সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাড. আক্তারুজ্জামান মাসুম।

প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শেখ হাসান মেহেদী।

অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসাবে বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও শহর আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আতাউর রহমান আতা। বিশেষ বক্তা ছিলেন সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক আক্তারুজ্জামান বিশ্বাস। অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী ফারুক-উজ-জামান, দপ্তর বিষয়ক সম্পাদক হাজী তরিকুল ইসলাম মানিক, ত্রান বিষয়ক সম্পাদক মতিয়ার রহমান, জেলা আওয়ামীলীগের কার্যনির্বাহী সদস্য ও জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি মাজহারুল আলম সুমন, কার্যনির্বাহী সদস্য এ্যাড. জিহাদুল ইসলাম, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ডা. গোলাম মওলা। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জেবুন নিছা সবুজ, সাধারন সম্পাদক সামস তানিম মুক্তি, ঝাউদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান  কেরামত আলী বিশ্বাস, জেলা সেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি আক্তারুজ্জামান লাবু, শহর আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মীর রেজাউল ইসলাম বাবু, জেলা যুবলীগের সাবেক সদস্য আনিচুর রহমান বিকাশ, সদর উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ও সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আবু তৈয়ব বাদশা, সদর উপজেলা যুবলীগের সাধারন সম্পাদক মিজানুর রহমান মিজু,  জেলা ছাত্রলীগের সাধারন সম্পাদক সাদ আহমেদ, সদর উপজেলা  স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক জাকির হোসেন, শহর যুবলীগের সাবেক যুগ্ম-আহবায়ক জেড এম সম্রাট, সদর উপজেলা ছাত্রলীগের আহবায়ক আনিচুর রহমান আনিচ, যুগ্ম আহবায়ক জয়নাল আবেদীন, আবির হোসেন আমান প্রমুখ। বক্তারা বলেন সকলে ঐক্যবদ্ধ হয়ে আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক জননেতা মাহবুবউল আলম হানিফ এমপির পতাকাতলে মিলিত হয়ে সাংগঠনিক কার্যক্রম চালিয়ে যেতে হবে। কমিটির নেতৃত্বে  যেই আসুক তাকে মেনে নিয়ে এলাকায় শান্তিপূর্ণভাবে সকলে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে দলীয় কাজ করতে হবে। নেতারা তাদের বক্তব্য আরো বলেন, কারো সাথে কারো মনোদন্দ্ব থাকলে একে অপরের সাথে মিল রেখে যে  নেতৃত্ব আসবে তাদের ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের নেতা মেনে কাজ করার আহবান জানান। অনুষ্ঠানের প্রথম অধিবেশন শেষে ২য় অধিবেশনে আগের কমিটিকে বিলুপ্তি ঘোষনা করেন এবং নতুন করে যারা নেতৃত্বে আসতে ইচ্ছুক তাদের মধ্যে থেকে ১২টি কমিটি জমা দেন। একাধিক কমিটি জমা হওয়ায় উপস্থিত নেতারা বলেন, এই কমিটির বিষয়টি শীর্ষ নেতাদের সাথে কথা বলে কমিটি ঘোষণা করবেন বলে জানা যায়। দুপুরের পর থেকে ইউনিয়নের বিভিন্ন ওয়ার্ড থেকে সভাপতি পদপ্রার্থী হাতিয়া গ্রামের ঐতিহ্যবাহী পরিবারের মরহুম চুনু উদ্দিন বিশ্বাসের পুত্র আব্দুল ওয়াহেদ ঝেনু বিশ্বাসের সমর্থনে বিভিন্ন বয়সের নারী-পুরুষের সমন্বয়ে বিশাল বিশাল মিছিল সম্মেলনস্থলে আসতে থাকে। সম্মেলন শুরুর আগেই কানায় কানায় পূর্ণ হয় সমাবেশস্থল। আগতরা নেতা-কর্মীরা ঝেনু বিশ্বাসের পক্ষ থেকে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফসহ সম্মেলনের অতিথিবৃন্দকে অভিনন্দন জানিয়ে শ্লোগান দিতে থাকে। উপস্থিত অতিথিবৃন্দ হাত নাড়িয়ে তাদের অভিনন্দন গ্রহণ করেন।

উল্লেখ্য,  ৭৫’র পরবর্তী আওয়ামী রাজনীতির চরম দুঃসময় থেকে শুরু করে অদ্যাবধি সংগঠনের সকল ক্রান্তিকালে ত্যাগী, নির্লোভ ও প্রচারবিমুখ এই প্রবীণ নেতার বরাবরই ব্যক্তিগত পদ-পদবী লাভে স্বভাবজাত অনীহার পাশাপাশি সদর উপজেলার ঐতিহ্যবাহী, অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ, এককালের ভয়ংকর চরমপন্থী অধ্যুষিত এই জনপদের পাশাপাশি কয়েকটি ইউনিয়নে আওয়ামী রাজনীতির তৎকালীন বৈরী পরিবেশে তৃণমূল নেতা-কর্মীদের রাজনৈতিক ও সামাজিকভাবে ঐক্যবদ্ধ ও শক্তিশালী করে গড়ে তুলে এতদাঞ্চলে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ বাস্তবায়নে  অন্যতম সাহসী ও অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। যে কারনে দীর্ঘদিন থেকে কুষ্টিয়া জেলায়  নেতৃত্বদানকারী আওয়ামী রাজনীতির শ্রদ্ধাভাজন প্রায় সকল  নেতৃবৃন্দের কাছেই ঝেনু বিশ্বাস তৃণমূলের পরিক্ষিত একজন সহযোদ্ধা; আস্থাভাজন একজন কর্মী।

 

সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা’র সাথে কুষ্টিয়া নাগরিক পরিষদ নেতৃবৃন্দের সৌজন্য সাক্ষাৎ

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া নাগরিক পরিষদের নব-নির্বাচিত কমিটির পক্ষ থেকে কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও শহর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান আতাকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানান ও তাঁর সাথে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন। কুষ্টিয়া নাগরিক পরিষদের সভাপতি, সাবেক ছাত্রনেতা  ও কুষ্টিয়া সদর উপজেলা বিআরডিবি’র চেয়ারম্যান সাইফুদ-দৌলা তরুন, সাধারণ সম্পাদক সাম্স তানিম মুক্তি, সহ সভাপতি মীর রেজাউল ইসলাম বাবু, সহ-সভাপতি ও হাটশ হরিপুর ইউনিয়নের চেয়াম্যান এম সম্পা মাহমুদ, এম জেড ইসলাম জাহিদ, ইমরান খান পলাশ প্রমুখ এর নেতৃত্বে এক প্রতিনিধি দল সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যানের সাথে গতকাল সোমবার বেলা ১১টার সময় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যানের কার্যালয়ে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও  ফুলেল শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।  এই সময় নাগরিক পরিষদের নেতৃবৃন্দ বলেন, ৪৮ বছরে যে উন্নয়ন কুষ্টিয়া হয়নি, গত ৮ বছরে সেই কাঙ্খিত উন্নয়ন করেছেন জননেতা মাহবুবউল আলম হানিফ। কুষ্টিয়ার সকল শ্রেনীর নাগরিকবৃন্দ জননেতা মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি মহোদয়ের উন্নয়ন কর্মকান্ডে সন্তুষ্টি প্রকাশ করছেন। নাগরিক পরিষদের নেতৃবৃন্দ আরো বলেন, হানিফ মহোদয়ের এই উন্নয়ন কর্মকান্ড অব্যাহত থাকবে। কুষ্টিয়া জেলা বাংলাদেশের মধ্যে শ্রেষ্ঠ জেলা হিসেবে পরিচিতি লাভ করবে। সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা নাগরিক পরিষদের নেতৃবৃন্দদের বলেন, আপনাদের এই কাজের গতি ও প্রকৃতি কুষ্টিয়ার সাধারণ মানুষের নিকট গ্রহনযোগ্য হয়েছে। আপনারা ও আপনাদের নাগরিক পরিষদের নিকট আমার অনুরোধ মানবতার সেবায় কাজ করুন এবং জননেতা মাহবুবউল আলম হানিফ মহোদয়ের উন্নয়ন কর্মকান্ড ও জননেত্রী শেখ হাসিনার ২০২১ সালের ভিশন বাস্তবায়নে সহযোগিতা করুন।

দৌলতপুরে পৃথক ভ্রাম্যমান আদালতে ৪ জনের কারাদন্ড ও ২ জনের অর্থদন্ড

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে পৃথক ভ্রাম্যমান আদালতে ৪ জনের কারাদন্ড ও ২ জনের অর্থদন্ড হয়েছে। গতকাল সোমবার রাত ৭টার দিকে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও দৌলতপুর সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আজগর আলী এসব দন্ড দিয়েছেন। ভ্রাম্যমান আদালত সূত্র জানায়, উপজেলার তারাগুনিয়া শালিমপুর এলাকার একটি বাঁশঝাড়ের ভেতর গতকাল সন্ধ্যায় শালিমপুর এলাকার জিয়াউল শেখ (৫০), কালু মিয়া (৪৯), শাহীন মোল্লা (৩৭) ও আয়রুল ইসলাম (৩০) মাদক সেবন করছিল। মাদক সেবনের গোপন সংবাদ পেয়ে দৌলতপুর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করে ভ্রাম্যমান আদালতে হাজির করে। পরে ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক মাদক সেবী জিয়াউল শেখকে ৫ মাস ৭দিন এবং অপর ৩জনকে ৩ মাস ৭দিন করে কারাদন্ড দেন। এছাড়াও গতকাল সকালে পাশর্^বর্তী ভেড়ামারা উপজেলার জগস্বর গ্রামের আশরাফুল আলম ও ফরিদ আলীকে বাল্য বিবাহ দেওয়ার অপরাধে ১০ হাজার টাকা অর্থদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক মো. আজগর আলী।

শোষণ ও বৈষম্যহীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠাই ছিল বঙ্গবন্ধুর লক্ষ্য – স্পিকার

ঢাকা অফিস ॥ স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি বলেছেন, শোষণ ও বৈষম্যহীন রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠাই জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজবিুর রহমানের রাজনীতির লক্ষ্য ছিল। গতকাল সোমবার বিকালে সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির মিলনায়তনে ৪৮তম সংবিধান দিবসে ‘বঙ্গবন্ধুর রাজনৈতিক দর্শন ও ১৯৭২-এর সংবিধান’ শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এসব কথা বলেন। আইন সহায়ক কমিটি-একাত্তরের ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটি এ আলোচনা সভার আয়োজন করে। তিনি বলেন, এ দেশের মানুষের উন্নত জীবন নিশ্চিত করাই ছিল বঙ্গবন্ধুর লক্ষ্য। এখন সে লক্ষ্য বাস্তবায়নে কাজ করে চলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সামাজিক নিরাপত্তা, সুদৃঢ় অর্থনীতির ওপর রাষ্ট্রকে গড়ে তুলতে শেখ হাসিনা নিরলসভাবে কাজ করে চলেছেন। উন্নয়নের অন্য মডেল হিসেবে বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠায় সক্ষম হবেন প্রধানমন্ত্রী এ আশা ব্যক্ত করেন স্পীকার। আপিল বিভাগের সাবেক বিচারপতি শামসুল হুদার সভাপতিত্বে আরো বক্তৃতা করেন বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, সুপ্রিমকোর্ট আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ এম আমিন উদ্দিন, অনুষ্ঠানে সূচনা বক্তৃতা রাখেন ঘাতক দালাল নিমূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির, আইন সহায়ক কমিটির সভাপতি খোন্দকার আবদুল মান্নান, ঢাকা আইনজীবী সমিতির সভাপতি গাজী শাহ আলম। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন আইন সহায়ক কমিটির সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট আজহার উল্লাহ ভূঁইয়া। শিরীন শারমিন চৌধুরী আরো বলেন, রাষ্ট্রের মূলনীতি সংবিধানে সন্নিবেশিত হয়। রাষ্ট্রের তিনটি স্তম্ভ তাদের ক্ষমতা প্রয়োগ করে থাকে সংবিধানের আলোকে। নির্বাহী, লেজিসলেটিভ ও বিচার বিভাগের ক্ষমতার পৃথককরণ সন্নিবেশিত থাকে যাতে পাস্পরিক সৌহার্দ্য বজায় থাকে । শুধুমাত্র মুলনীতিই সংবিধানে থাকে না আমাদের মূল্যবোধও তাতে যুক্ত থাকে।

বঙ্গবন্ধুর ছবি বিকৃতি: হাইকোর্টে ক্ষমা প্রার্থনা যবিপ্রবি ভিসির

ঢাকা অফিস ॥ বঙ্গবন্ধুর ছবি বিকৃতির ঘটনায় যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য, রেজিস্ট্রার ও জনসংযোগ কর্মকর্তা হাইকোর্টে হাজির হয়ে নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করেছেন। দায় পেলে তাদের বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানিয়েছেন আদালত। যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) ডেস্ক ক্যালেন্ডারে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি অবমাননার অভিযোগে গত ১৪ জানুয়ারি যশোর আদালতে মামলা করেন জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন বিপুল। বঙ্গবন্ধু ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ছবি যথাযথভাবে উপস্থাপন না করায় ২৯ জানুয়ারি যবিপ্রবি ভিসি প্রফেসর ড. আনোয়ার হোসেনসহ তিনজনের বিরুদ্ধে রুল জারি করেন হাইকোর্ট। আদালত যবিপ্রবির ওই ডেস্ক ক্যালেন্ডার কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না তা জানাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি আনোয়ার হোসেন, রেজিস্টার ইঞ্জিনিয়ার আহসান হাবিব এবং পাবলিক রিলেশন অফিসারকে নির্দেশ দেন।

বিতর্কিতরা আওয়ামী লীগের কোন পদে আসতে পারবেন না – ওবায়দুল কাদের

ঢাকা অফিস ॥ বিতর্কিতরা আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন গুলোর কোন পদে আসতে পারবেন না বলে জানিয়েছেন দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ‘যারা বতর্কিত, যারা অনুপ্রেবেশকারি, সাম্প্রদায়িক শক্তির সাথে সংশি¬ষ্ট এবং নানা কারনে বিতর্কিত তাদের আওয়ামী লীগের কোন কমিটিতে আনা হবে না।’ ওবায়দুল কাদের গতকাল সোমবার বিকেলে ঐতিহাসিক সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠন গুলোর সম্মেলনের জন্য নির্মানধীন সভা মঞ্চ পরিদর্শনে এসে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে এসব কথা বলেন।আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, সকল কমিটি করার ক্ষেত্রে আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নির্দেশনা দিবেন। তবে সহযোগী সংগঠনগুলোর নেতৃত্বের ক্ষেত্রে পরিবর্তন হবার সম্ভবনা বেশি। এ ক্ষেত্রে অভিজ্ঞদের বিষয়টা বিবেচনা করা হবে।ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিন আওয়ামী লীগের সম্মেলন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, আগামী দু-একদিনের মধ্যেই দুই মহানগরের সম্মেলনের তারিখ ঘোষনা করা হবে। তবে ১৫ ডিসেম্বরের আগেই এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। কারন আওয়ামী লীগের জাতীয় সম্মেলন ২০ ও ২১ ডিসেম্বর।বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান ও ঢাকা সিটি করপোরেশনের সাবেক মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা সাদেক হোসেন খোকার মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, তারা যদি সাদেক হোসেন খোকার লাশ দেশে আনতে চায় তাহলে আমাদের কোন সমস্যা নেই। এক্ষেত্রে যদি কোন সহযোগিতা প্রয়োজন হয় তা আমরা করবো।এ সময়ে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহা উদ্দিন নাছিম, দপ্তর সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, আওয়ামী লীগ নেতা মির্জা আজম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দিলীপ রায়, কৃষক লীগের সভাপতি মোতাহার হোসেন মোল্লা প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

ট্রাইব্রেকারে ৭-৬ গোলে নাইজেরিয়ার জয়

পোড়াদহ  ওয়ান্ডার্স ক্লাব ও নাইজেরিয়ার মধ্যে প্রীতি ফুটবল ম্যাচ অনুষ্ঠিত

মিলন আলী ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার ঐতিহ্যবাহী পোড়াদহ ফুটবল মাঠে নাইজেরিয়া ও বাংলাদেশের নামজাদা ক্লাবের প্রখ্যাত ফুটবলারদের সমন্বয়ে পোড়াদহ ওন্ডার ক্লাবের মধ্যে চরম প্রতিযোগিতা মুলক ফুটবল ম্যাচ গতকাল সোমবার বিকেলে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

প্রধান অতিথি হিসেবে বেলুন উড়িয়ে খেলার উদ্বোধন করেন কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এস.এম.তানভির আরাফাত। তিনি তার বক্তব্যে বলেন মাদককে সমাজ থেকে চিরতরে বিতাড়িত করতে হলে এমন বিশাল আয়োজনে ফুটবল ম্যাচের বিকল্প নেই। অতএব মাদককে না বলুন আর গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী  জনপ্রিয় ফুটবল  খেলাকে স্বাগতম জানান। তিনি বলেন ক্রীড়া দেয় সুস্থ্য দেহ সুন্দর মান, আনন্দঘন মনোরম পরিবেশ।

পোড়াদহ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, মিরপুর উপজেলা আ’লীগের সিনিয়র সহ সভাপতি, অধ্যক্ষ আনোয়ারুজ্জামান বিশ্বাস মজনুর সভাপতিত্বে বিশেষ  অতিথি ছিলেন মিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মিরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক কামারুল আরেফীন, মিরপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা লিংকন বিশ্বাস, মিরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাড: আব্দুল হালিম, মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবুল কালাম, সাবেক শ জাতীয় দলের ফুটবলার আতিকুজ্জামান বিশ্বাস  সাকিল, আ’লীগ নেতা এ্যাড: আলিমুজ্জামান বিশ্বাস রাজু, পোড়াদহ ইউনিয়ন আ’লীগের সভাপতি সবেদ আলী, সাধারন সম্পাদক তৈয়বুর রহমান মন্টু, বীর মুক্তিযোদ্ধা মোশাররফ  হোসেন, অঙ্গশোভা বস্ত্রবিতানের মালিক বাদশাহ শেঠ, ক্রীড়া সংগঠক আল আমিন সেতু, যুব লীগ নেতা মাসুদুর রহমান, মিরপুর উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি রাহাতুজ্জামান রাহাত, শ্রমিকলীগ নেতা সেলিম হাসান মেম্বর। ভাষ্যকর ছিলেন হাসানুর রহমান। খেলা শেষে বিজয়ী দল ও রানারআপ দলকে ট্রফি প্রদান করেন প্রধান  ও বিশেষ অতিথিদ্বয়। ম্যাচে সেরা ফুটবলার নির্বাচিত হন জাতীয় দলে ফুটবলার ওয়ান্ডার্স ক্লাবের রাব্বি হাসান।