ঝিনাইদহে সাজাপ্রাপ্ত আসামী গ্রেফতার

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহ সদর থানার শ্রীরামপুর গ্রাম থেকে সাজাপ্রাপ্ত এক আসামীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শুক্রবার সকালে তাকে ওই এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়। ঝিনাইদহ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মঈন উদ্দিন জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে ৫ বছরের সাজাপ্রাপ্ত আসামী ফকরুল ইসলাম ওরফে মাসুদ নিজ বাড়িতে অবস্থান করছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে হাটগোপালপুর পুলিশ ক্যাম্পের এ এস আই মোজলেম হোসেন ও প্রশান্ত কুমার শ্রীরামপুর মাদ্রাসার সামনে থেকে শুক্রবার সকালে তাকে গ্রেফতার করে। তিনি আরও জানান, তার বিরুদ্ধে মাগুরা সদর আদালতে সিআর মামলা রয়েছে। পরে তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে।

ঝিনাইদহে গান্না ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের জনসভা

ঝিনাইদহ  প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহে সদর উপজেলা গান্না ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের জনসভা অনুষ্ঠিত হয়েছে, শুক্রবার বিকালে গান্না বাজারে জনসভায় সভাপতিত্ব করেন গান্না ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দীন মালিতা। প্রধান অতিথি ছিলেন ঝিনাইদহ সদর উপজেলা চেয়ারম্যান ও সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি এ্যাডঃ আব্দুর রশিদ। বিশেষ অতিথি ছিলেন সদর উপজেলা সাধারণ সম্পাদক ও পোড়াহাটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শহিদুল ইসলাম হিরণ, ঝিনাইদহ জেলা কৃষক লীগের সভাপতি সাজেদুল ইসলাম সোম, মধুহাটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ফারুক আহমেদ জুয়েল, পাগলা কানাই ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসেম আলী, ইউনিয়ন যুবলীগের নেতা জাহাঙ্গীর আলম, ইউনিয়ান ছাত্রলীগের সভাপতি রাজু আহম্মেদসহ বিভিন্ন ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ, যুবলীগ, কৃষকলীগ, সেচ্ছাসেবকলীগ, ছাত্রলীগসহ নেত্রীবৃন্দ। এই সময় বক্তারা বলেন আওয়ামী লীগকে সুসংগঠিত এবং দেশনেত্রী শেখ হাসিনার হাতকে আরো শক্তিশালী করতে হবে।

 

গোটা দেশের মানুষ অসুস্থ  হয়ে পড়েছে – মির্জা ফখরুল

এনএনবি : বিগত এক দশকে ক্ষমতাসীন সরকারের নিপীড়নে গোটা দেশের মানুষ অসুস্থ হয়ে পড়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। শুক্রবার বাদ আসর এক সভায় তিনি এ কথা বলেন। বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান গুরুতর অসুস্থ সাদেক হোসেন খোকার সুস্থতা কামনায় নয়া পল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের নিচে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির উদ্যোগে এই আলোচনা সভা, দোয়া মাহফিল ও কুরআন খতমের আয়োজন করা হয়। দোয়া মাহফিলে শরিক হন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, মির্জা আব্বাস, সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী, বিএনপির চেয়ারপারসনের বিশেষ সহকারী শামসুর রহমান শিমুল বিশ্বাস, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, কেন্দ্রীয় নেতা ফজলুল হক মিলন, এহছানুল হক মিলন, মীর সরফত আলী সপু, মীর নেওয়াজ আলী নেওয়াজ, আমিনুল হক, তাইফুল ইসলাম টিপু, শামসুজ্জামান সুরুজ, আমিরুজ্জামান খান শিমুল, তাঁতী দলের আহ্বায়ক আবুল কালাম আজাদ প্রমুখ। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি হাবিব উন নবী খান সোহেলের সভাপতিত্বে সভা পরিচালনা করেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সাধারণ সম্পাদক কাজী আবুল বাশার। এছাড়া ঢাকা মহানগর দক্ষিণের বিভিন্ন মসজিদে খোকার রোগমুক্তি কামনায় দোয়া মাহফিল হয়েছে। দোয়া পরিচালনা করেন ওলামা দলের আহ্বায়ক শাহ মোহাম্মদ নেছারুল হক। মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আমরা কায়মনো বাক্যে অন্তর থেকে দোয়া করি মহান আল্লাহ তায়ালা সাদেক হোসেন খোকাকে সুস্থ করে দিন। আজকে সারা দেশের সব মানুষই অসুস্থ হয়ে পড়েছে। দশ বছর ধরে নিপীড়ন চালাচ্ছে সরকার। বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে ২০ কারাগারে বন্দি করে রেখেছে। এখন তিনি পিজি হাসপাতালে আছেন। সাদেক হোসেন খোকার বিরুদ্ধেও মামলা দায়ের করেছে। তার পরিবারের সদস্যদের নামেও মামলা হয়েছে। বিএনপির এমন কোনো নেতা নেই যার নামে মিথ্যা মামলা নেই। পরিবারের সদস্যদের নামেও মিথ্যা মামলা হয়েছে। এই অত্যাচার নিপীড়নে মানুষ কিন্তু কখনো মাথা নোয়ায়নি। মানুষ দাঁড়িয়ে আছে। বিশেষ করে বিএনপির নেতাকর্মীরা প্রস্তুতি নিচ্ছে আন্দোলনের মধ্য দিয়ে এই দানবীয় সরকারকে হটিয়ে জনগণের সরকার প্রতিষ্ঠা করার জন্যে। তিনি বলেন, খোকা ভাইসহ তার পরিবারের সবার বিরুদ্ধে মামলা দিয়েছে। তিনি আজ গুরুতর অসুস্থ। গত ২৯ অক্টোবর তার সাথে আমার কথা হয়েছে। যখন কথা বলি- তিনি কথা বলতে পারছিলেন না। শুধু আমাকে বললেন, সবাইকে বলবেন আমার জন্য দোয়া করবেন। আমি সেইদিন ৩০ তারিখে এখানে মিটিং ছিলো সেখানে বলেছি যে, খোকা ভাইয়ের আশু আরোগ্যলাভের জন্য দোয়া করবেন। আল্লাহ আমাদেরকে এই সরকারের আযাব ও নিপীড়ন থেকে মুক্ত করে দিন আজকে এই দোয়া করি। একইসাথে বেগম জিয়ার মুক্তি ও সাদেক হোসেন খোকার সুস্থতা কামনা করছি। গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, সাদেক হোসেন খোকা দূরারোগ্য ব্যাধির সাথে লড়াই করছেন। তিনি নির্যাতিত জননেতা। আমরা তার জন্য দোয়া করবো। সৃষ্টিকর্তাই সবকিছুর মালিক। বেগম খালেদা জিয়াসহ সবার জন্য দোয়া করবেন। নেত্রী যেখানে জেলখানায় সেখানে আমাদের লড়াই চালিয়ে যেতে হবে। বীরের বেশে রাজপথ দখল করে আমাদের নেতা তারেক রহমানকে বীরের বেশে ফিরিয়ে আনতে হবে। মির্জা আব্বাস বলেন, সাদেক হোসেন খোকাসহ বেগম খালেদা জিয়ার রোগমুক্তি কামনা করছি। আমার বন্ধু খোকা দীর্ঘদিন ধরে অসুস্থ। তার সঙ্গে কথাবার্তা বলেছি। তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে বলে জানি। আসুন আমরা সবাই নফল নামাজ পড়ে তার জন্য বিশেষভাবে দোয়া করি। হয়তো আল্লাহ তাকে সুস্থ করে তুলতে পারেন। কারণ সবকিছুই আল্লাহর হাতে। একজন রাজনীতিবিদ হিসেবে তার জন্য এটা যথেষ্ট নয়। রাজনীতিবিদদের চাওয়া তার পরিচিত লোকজনের সান্নিধ্যে থাকা। কিন্তু খোকা অনেক দূরে অবস্থান করছেন। আমরা যেতে পারছি না। হাবিব উন নবী খান সোহেল বলেন, সাদেক হোসেন খোকা ভাইয়ের অসুস্থতার খবরে আমরা সবাই মর্মাহত হয়ে পড়েছি। তিনি জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান। যিনি বীর মুক্তিযোদ্ধা। আল্লাহর কাছে দোয়া করি তিনি সুস্থ হয়ে আমাদের মাঝে ফিরে আসবেন। তার মতো রাজনীতিবিদ আমাদের ভীষণ প্রয়োজন।

খালেদা জিয়ার চিকিৎসার নামে বিএনপি রাজনীতি করছে – কৃষিমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ও কৃষিমন্ত্রী ড. মো. আব্দুর রাজ্জাক বলেছেন, ‘কারাবন্দী বেগম খালেদা জিয়ার চিকিৎসার নামে বিএনপি বর্তমানে রাজনীতি করছে। চিকিৎসার নামে রাজনীতি করে বিএনপি আবার ক্ষমতায় আসতে চাচ্ছে। আপনাদের সেই সুযোগ দেয়া হবে না। বাংলার জনগণ সেই সুযোগ দিবে না।’ শুক্রবার দুপুরে টাঙ্গাইলের ভুঞাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। দীর্ঘ ১৬ বছর পর ভুঞাপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হলো। ভূঞাপুর পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের আহবায়ক মাসুদুল হক মাসুদ। সম্মেলনের উদ্বোধন করেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুর রহমান খান ফারুক। এ সময় আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় যুগ্ম সম্পাদক আব্দুর রহমান, শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক শামসুন্নাহার চাপা, বন ও পরিবেশ সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, মির্জা আজম এমপি, জোয়াহেরুল ইসলাম এমপি, স্থানীয় এমপি তারভীর হাসান ছোট মনির প্রমুখ বক্তব্য দেন। সম্মেলনের প্রথম অধিবেশন শেষে সর্বসম্মতিক্রমে মাসুদুল হক মাসুদকে সভাপতি ও আব্দুল হামিদ ভোলাকে সাধারণ সম্পাদক হিসাবে ঘোষণা করেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক জোয়াহেরুল ইসলাম জোয়াহের এমপি। কৃষিমন্ত্রী বিএনপির উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা খালেদা জিয়ার চিকিৎসার নামে রাজনীতি করার চেষ্টা করবেন না। তাতে আপনারা সফল হবেন না। খালেদা জিয়ার সুচিকিৎসার কোন কমতি নেই। তাকে দেশের বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দিয়ে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। আওয়ামী লীগ নেতা ড. রাজ্জাক বলেন, বেগম খালেদা জিয়া জামিন পাবেন কি পাবেন না, এ দায়িত্ব আমাদের না, এটা আদালতের বিষয়। আদালত যদি খালেদা জিয়াকে জামিনে মুক্ত করে দেন। তাহলে আমাদের কোন আপত্তি নেই। তিনি আরও বলেন, বিএনপির পায়ের নিচে এখন মাটি নেই। জনবিছিন্ন হয়ে গেছে দলটি। যদি জনগণ আপনাদের পাশে থাকতো তাহলে আপনাদের আন্দোলন সফল হতো। আপনাদের আন্দোলনে এখন আর জনগণ আসে না। আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর এই সদস্য আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশকে পৃথিবীর অন্যতম উচ্চতায় নিয়ে গেছেন। সারা পৃথিবী বাংলাদেশের উন্নয়নে বিষ্ময় প্রকাশ করেছে। কৃষিক্ষেত্রে ব্যাপক সাফল্য এসেছে। দেশে এখন খাদ্যে কোন ঘাটতি নেই। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নেতৃত্ব দিয়ে বাংলাদেশকে উন্নয়নের মহাসড়কে নিয়ে গেছেন। অপরদিকে, খালেদা জিয়া দেশ শাসনের নামে এতিমের টাকা চুরি করে খেয়েছে। বাংলাদেশকে দুর্নীতিতে চ্যাম্পিয়ন করেছে। এছাড়া সম্মেলনে জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগ ও সকল সহযোগী সংঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

কাউন্সিলর মঞ্জুর বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদকের মামলা

ঢাকা অফিস ॥ চাঁদাবাজির অভিযোগে গ্রেপ্তার ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩৯ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর ময়নুল হক মঞ্জুর বিরুদ্ধে অস্ত্র ও মাদক আইনে আলাদা দুটো মামলা করেছে র‌্যাব। র‌্যাব-৩ এর নায়েব সুবেদার ইব্রাহিম হোসেন বৃহস্পতিবার রাতে রাজধানীর ওয়ারি থানার মামলা দুটি দায়ের করেন। র‌্যাব রাতেই কাউন্সিলর মঞ্জুকে থানায় হস্তান্তর করেছে বলে ওয়ারি থানার এসআই মিলন কুমার চ্যাটার্জি জানান। তিনি বলেন, অস্ত্র মামলায় আসামি করা হয়েছে কেবল মঞ্জুকে। আর মাদক মামলায় মঞ্জুর সঙ্গে তার গাড়িচালক সাজ্জাদও আসামি। ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মঞ্জু ওয়ারি থানা আওয়ামী লীগের একজন ‘সম্মানীয় সদস্য। ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের গত কমিটিতেও সদস্য হিসেবে ছিলেন তিনি। টিকাটুলীর রাজধানী সুপার মার্কেট ও নিউ রাজধানী সুপার মার্কেটে চাঁদাবাজি, অবৈধ দখলদারির পাশাপাশি মাদকের কারবারের অভিযোগে বিভিন্ন সময়ে খবরের শিরোনাম হয়েছেন তিনি। অবশ্য তিনি নিজে বরাবরই তা অস্বীকার করেছেন। সম্প্রতি ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনগুলোর মধ্যে দুর্নীতিবিরোধী শুদ্ধি অভিযান শুরু হলে নতুন করে তার নাম সামনে আসে। সিটি করপোরেশনের সভায় অনুপস্থিতির কারণে এ সপ্তাহের শুরুতে দক্ষিণ সিটির যে ২১ কাউন্সিলরকে কারণ দর্শাও নোটিস পাঠানো হয়েছে, তাদের মধ্যে মঞ্জু একজন। কাজী মো. রনি নামে রাজধানী সুপার মার্কেটের একজন ব্যবসায়ী গত বুধবার ওয়ারী থানায় একটি মামলা করেন। তার অভিযোগ, কাউন্সিলর মঞ্জু তার কাছে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন এবং ওই টাকা না দেওয়ায় বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়েছেন। র‌্যাব কর্মকর্তারা বলছেন, মামলার বিষয়ে জানার পর  অনুসন্ধান চালিয়ে ওই কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে আরও অনেক অভিযোগ পান তারা। এরপর বৃহস্পতিবার দুপুরে টিকাটুলিতে তার অফিস ও বাসায় অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করা হয় দুটি পিস্তল, মদ, গাঁজা, ইয়াবা, ফেনসিডিল ও যৌন উত্তেজনা বর্ধক ওষুধ। অভিযানে কাউন্সিলর মঞ্জুর বাড়ি থেকে তার গাড়িচালক সাজ্জাদকে গ্রেপ্তার করা হয়।

প্রবাসে নারী কর্মীদের নিরাপত্তার দাবি সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরামের

ঢাকা অফিস ॥ কাজ নিয়ে সৌদি আরবে গিয়ে নারী কর্মীদের নির্যাতনের শিকার হওয়ার ঘটনায় সরকার কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না বলে অভিযোগ করেছে সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরাম। শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে সমাবেশ ও মিছিল করে ফোরামের নেতারা প্রবাসী নারী শ্রমিকদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে উদ্যোগী হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন। সংবাদপত্রে আসা তথ্যের বরাত দিয়ে ফোরামের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সৌদি আরবে কাজ করতে গিয়ে নির্যাতনের শিকার হয়ে এ বছর জানুয়ারি থেকে অগাস্ট পর্যন্ত আট মাসে দেশে ফিরেছেন ৮৫০ জন নারী। এর মধ্যে অগাস্ট মাসে একদিনেই ফিরেছেন ১০৯ জন। তাদের অনেকে সেখানে শারীরিক-মানসিক ও যৌন নিপীড়নের শিকার হয়েছেন জানিয়ে ফোরাম বলছে, চলতি বছর দশ মাসে সৌদি আরবসহ অন্যান্য দেশ থেকে লাশ হয়ে দেশে ফিরেছেন ১১৯ গৃহকর্মী। সংগঠনের কেন্দ্রীয় সভাপতি রওশন আরা রুশোর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক শম্পা বসুর পরিচালনায় ফোরামের ঢাকা নগর শাখার সদস্য রুখসানা আফরোজ আশা, সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট ঢাকা নগর শাখার সভাপতি মুক্তা বাড়ৈ সমাবেশে বক্তব্য দেন। এছাড়া সমাজতান্ত্রিক শ্রমিক ফ্রন্টের ঢাকা নগর শাখার সভাপতি জুলফিকার আলী ও সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় সভাপতি আল কাদেরী জয়ও বক্তব্য দেন সমাবেশে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “প্রবাসী শ্রমিকরা নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন, তারা বিদেশে কাজ করতে গিয়ে লাশ হয়ে ফিরছেন, নির্যাতন সইতে না পেরে সব খুইয়ে দেশে ফিরে আসছেন। দেশে রেমিটেন্স পাঠানো এই শ্রমিকদের নিরাপত্তায় সরকার কেন পদক্ষেপ নিচ্ছে না?” প্রবাসী কল্যাণ সংস্থা ও প্রবাসে দূতাবাসগুলো তাদের দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করেছে না বলেও অভিযোগ করেন সমাজতান্ত্রিক মহিলা ফোরামের নেতারা।

মিরপুরে বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়া মিরপুরে বিনামূল্যে বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের সমন্বয়ে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার বিকেলে “ইয়াসিন-মাহমুদা” স্মতি পরিষদের উদ্যোগে ও প্রেসক্লাব এবং উপজেলার তালবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদের যৌথ সহযোগিতায় ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্সে ভবনে এ স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা হয়। কুষ্টিয়া মেডিকেল কলেজের প্রতিষ্ঠাকালীন অধ্যক্ষ অধ্যাপক ইফতেখার মাহমুদ’র নেতৃত্বে হৃদরোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ সিরাজুম মুনির, শিশু রোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ জমির উদ্দিন, মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডাঃ চৌধুরী সরওয়ার জাহান, কিডনী বিশেষজ্ঞ ডাঃ ওবাইদুর রহমান শফি, স্ত্রী রোগ বিশেষজ্ঞ ডাঃ ইসমত আরা পারভীন মালা, এর্ন্টানী চিকিৎসক ডাঃ রেজাউল করিম, ডাঃ আসিফ হাসান, ডাঃ আসহাব শাহরিয়ার, ডাঃ তামিম হোসেন, ডাঃ আমীমুল  এহসান, ডাঃ নিটোল আক্তার সিথী, ডাঃ মাহবুব সুমন, ডাঃ শাম্মী প্রায় ৭শতাধিক রোগীর ব্যবস্থাপত্র প্রদান করেন। এ সময়ে জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ এ এফ এম আমিনুল হক রতন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অ্যাডঃ আব্দুল হালিম, জেলা আওয়ামীলীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক খন্দকার ইকবাল মাহমুদ, জেলা পরিষদের সদস্য আলহাজ্ব মহাম্মদ আলী জোয়ার্দ্দার, তালবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান মন্ডল, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ডেপুটি রেজিস্ট্রার শামসুর রহমান বাবু, সাংবাদিক আ ফ ম নূরুল কাদের প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

 

সুন্দরম ললিতকলা একাডেমি কুষ্টিয়া’র গৌরবের ১৫ বছর পূর্তি

তিন দিনব্যাপি আলোচনা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে স্বর্ণালী দিনের গান

নিজ সংবাদ ॥ সুন্দরম ললিতকলা একাডেমি তার অগ্রয়াত্রায় গৌরবের ১৫ বছর পূর্ণ করেছে। ১৫ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যে ৩০ ও ৩১ অক্টোবর এবং ১ নভেম্বর কুষ্টিয়া পৌরসভার বিজয় উল্লাস চত্তরে প্রতিদিন বিকেল থেকে ৩ দিনব্যাপি আলোচনা ও সাংস্কৃতিক (স্বর্ণালী দিনের গান) অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।  “আমরা সত্য ও সুন্দরের আরাধনা করি” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে “সুন্দরম ললিতকলা একাডেমি কুষ্টিয়া” এর গৌরবের ১৫ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানের সার্বিক ব্যাবস্থাপনা ও পরিচালনায় ছিলেন সুন্দরম ললিতকলা একাডেমি, কুষ্টিয়ার পরিচালক ও ১৫ বছর পূর্তি উদ্যাপন পর্ষদের আহ্বায়ক সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব শিল্পী কনক চৌধুরী। ৩দিন ব্যাপি সোনালী দিনের স্বর্ণালী গানের উৎসবে সভাপতিত্ব করেন সুন্দরম ললিতকলা একাডেমি, কুষ্টিয়ার প্রধান পৃষ্ঠপোষক ও দৈনিক মুক্তমঞ্চ পত্রিকার সম্পাদক চৌধুরী মুরশেদ আলম মধু। ১ নভেম্বর শুক্রবার সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন কুষ্টিয়া জজ কোর্টের জিপি ও সুন্দরম ললিতকলা একাডেমির উপদেষ্টা এ্যাডঃ আক্তারুজ্জামান মাসুম। সম্মানীত অতিথি ছিলেন রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের কলা ও সমাজ বিজ্ঞান অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. শহিদুর রহমান, সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলন জাতীয় পরিষদের সদস্য কারশেদ আলম, ইবি’র সহকারী অধ্যাপক শাহেদ আহমেদ। এর আগে ৩০ অক্টোবর প্রথম দিনে প্রধান অতিথি ছিলেন রবীন্দ্র মৈত্রী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. শাহজাহান আলী। সম্মানীত অতিথি ছিলেন জেলা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক আমিরুল ইসলাম, বোধদয়ের সভাপতি কবি, লেখক ও গবেষক এ্যাডঃ লালিম হক, ইবি’র বাংলা বিভাগের প্রফেসর ড.শ.ম. রেজাউল করিম, কুষ্টিয়া সরকারি কলেজের রাষ্ট্র বিজ্ঞান বিভাগের বিভাগীয় প্রধান প্রফেসর ড. নুরুন নাহান, কুষ্টিয়া সরকারি মহিলা কলেজের ইংরেজি বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক অজয় মৈত্র, জেলা কালচারাল অফিসার সুজন রহমান। ৩১ অক্টোবর অনুষ্ঠানের দ্বিতীয় দিনে প্রধান অতিথি ছিলেন ইবি’র কলা অনুষদ’র ডীন প্রফেসর ড. সরওয়ার মুর্শেদ। সম্মানীত অতিথি ছিলেন জেলা শিল্পকলা একাডেমির যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শাহিন সরকার, বেতার ও টেলিভিশন শিল্পী রীনা বিশ্বাস। ৩ দিনব্যাপি অনুষ্ঠানের সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন সুন্দরম ললিতকলা একাডেমি, কুষ্টিয়ার ১৫ বছর পূর্তি উদ্যাপন পর্ষদের সদস্য সচিব শিল্পী আকাশ চক্রবর্তী। সহযোগিতায় ছিলেন শিল্পী শফিক জুয়েল, জুয়েল আহম্মেদ ও খাইরুল ইসলাম। ৩ দিন ব্যাপি অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন শিল্পী কনক চৌধুরী, সোহানী কণা, তসলিমা পারুল, মৌসুসী মৌ, চন্দ্রিমা বসু দৃষ্টি, মিতু জোয়ার্দ্দার, অনু বিশ্বাস, নেহা, হাবিস আহমেদ, শফিক জুয়েল, শুকলা মজুমদার, স্বপন দত্ত, সীমান্ত, রোহান, সমর রায়, খায়রুল, নুরে ইয়াসমিন জলীক, লীমা, মেধাসহ অন্যান্য শিল্পীবৃন্দ।

মিরপুরে যুব দিবস উপলক্ষে বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান

হাবিবুর রহমান ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে জাতীয় যুব দিবস উপলক্ষে বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা হয়েছে। উৎসাহ সংস্থার উদ্যোগে গতকাল শুক্রবার সকালে খন্দকবাড়ীয়াস্থ সংস্থার কার্যালয়ে এ স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা হয়। মিরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সের চিকিৎসক মরিয়ম বেগম বিভিন্ন রোগীদের ব্যবস্থাপত্র প্রদান করেন। সংস্থার সভাপতি মিজানুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা নূরুল ইসলাম নান্নু। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রাশেদুজ্জামান রিমন, সাবেক সভাপতি আছাদুর রহমান বাবু, আলো সংস্থার নির্বাহী পরিচালক ফিরোজ আহাম্মেদ, দ্বীপ সংস্থার সভাপতি মোতালেব হোসেন, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের ক্রেডিট সুপারভাইজার গোলাম মোস্তফা, উপজেলা শ্রমিকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আশরাফুল আলম হীরা। সংস্থার নির্বাহী পরিচালক জাহিদুল ইসলাম জাহিদের পরিচালনায় এ সময়ে সংস্থার সহ-সভাপতি তৌহিদুল ইসলাম, কোষাধ্যক্ষ জুয়েল রানা, নির্বাহী সদস্য জেলিনা খাতুন, কণিকা খাতুন, রাজু আহমেদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

দৌলতপুর সীমান্তে ১৯৯ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সীমান্তে সীমান্তরক্ষী বিজিবি’র পৃথক অভিযানে ১৯৯ বোতল ফেনসিডিল ও ১৮ বোতল মদ উদ্ধার হয়েছে। ৪৭ বিজিবি অধিনস্থ তেতুুলবাড়িয়া বিওপি’র টহল দল বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত সোয়া ২টার দিকে মথুরাপুর মালিপাড়ায় অভিযান চালিয়ে ১৯৯ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে। অপরদিকে আশ্রয়ন বিওপি’র টহল দল একইদিন রাত ২টার দিকে মুন্সিগঞ্জে অভিযান চালিয়ে ১৮ বোতল ভারতীয় মদ উদ্ধার করেছে। তবে উদ্ধার করা মাদকের সাথে জড়িত কেউ আটক হয়নি।

দৌলতপুরে জাতীয় যুব দিবস পালন

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ ‘দক্ষ যুব গড়ছে দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে সারা দেশের ন্যায় কুষ্টিয়ার দৌলতপুরেও জাতীয় যুব দিবস পালিত হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল শুক্রবার সকাল সাড়ে ১০টায় একটি র‌্যালি বের হয়। র‌্যালিটি উপজেলা পরিষদ চত্বরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে। পরে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন, কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের সংসদ সদস্য আ, কা, ম সরওয়ার জাহান বাদশা। বিশেষ অতিথি ছিলেন, দৌলতপুর উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড. এজাজ আহমেদ মামুন ও দৌলতপুর সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. আজগর আলী। বক্তব্য রাখেন, মরিচা ইউপি চেয়ারম্যান মো. শাহ আলমগীর। যুব দিবসের আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন, দৌলতপুর যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. শাহজাহান আলী। উপজেলা প্রশাসন ও যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর দৌলতপুরের আয়োজনে যুব দিবসের আলোচনা শেষে যুবকদের মাঝে যুব ঋণের চেক বিতরণ করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথিসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ।

হানিফ-ইনু মারামারি করতে  করতে ক্লান্ত আলাল

ঢাকা অফিস ॥ আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ ও জাসদ সভাপতি রাশেদ খান মেননের কড়া সমালোচনা করেছেন বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল। শুক্রবার জাতীয় প্রেসক্লাবে জাতীয়তাবাদী নবীন দল আয়োজিত এক প্রতিবাদসভায় তিনি এসব কথা বলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশে আলাল বলেন, ‘মাহবুবউল আলম হানিফ ও হাসানুল হক ইনু মারামারি করতে করতে ক্লান্ত। হানিফ বসে বসে এখন অনুপ্রবেশকারী তালিকা দিচ্ছেন। এই হানিফদের এখন দায়িত্ব দিয়ে দেন। অথবা এইচটি ইমামকে দায়িত্ব দেন। আওয়ামী লীগে হানিফরা অনুপ্রেবেশ ঘটিয়েছে মন্তব্য করে আলাল বলেন, ‘এই হানিফ সাহেব প্রথম, আমি আপনাদের মনে করিয়ে দিই, ২০১৫ সালে লাইন ধরে তার নির্বাচনী এলাকায় জামায়াতের লোকজনদের আওয়ামী লীগে ফুলের মালা দিয়ে যোগদান করিয়েছেন। শরীয়তপুরে আওয়ামী লীগের এমপি এবং সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক ফুল দিয়ে ওখানে উপজেলা চেয়ারম্যানসহ জামায়াতের প্রায় ২১-২২ নেতাকে সাদরে বরণ করে নিয়েছেন। জাহাঙ্গীর কবির নানক নিয়েছেন। আরও অনেক নেতা নিয়েছেন। (অনুপ্রবেশকারীদের) ঢুকিয়েছেন আপনাদের মন্ত্রীরা, আপনাদের এমপিরা।’ তিনি বলেন, ‘আজকে পত্রিকায় এসেছে দেখবেন, পাঁচ হাজার অনুপ্রবেশকারীর তালিকা দিয়েছে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর হাতে। দিয়েছেন কারা? ওবায়দুল কাদের সাহেব বলেছেন- এটি গোয়েন্দা এবং প্রধানমন্ত্রী নিজস্ব সূত্রে পেয়েছেন। অর্থাৎ আওয়ামী লীগ এখন গোয়েন্দা সংস্থার দল। এটি সাধারণ মানুষের দল না। কারণ দেখবেন, এই ক্যাসিনো অভিযান যখন শুরু হয়েছে, তখনও ওবায়দুল কাদের বলেছিলেন- গোয়েন্দাদের সূত্রে এবং প্রধানমন্ত্রী নিজস্ব সূত্রে সব তথ্য পেয়েছেন। সবই এখন গোয়েন্দারা পরিচালিত করে। এটির নাম বাংলাদেশ গোয়েন্দা লীগ দিলে ভালো হয়। আওয়ামী লীগ তো নিজের চরিত্র হারিয়ে ফেলেছে।’ আয়োজক সংগঠনের সভাপতি হুমায়ুন আহমেদ তালুকদারের সভাপতিত্বে ও সোহেল রানার পরিচালনায় অন্যদের মধ্যে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জয়নুল আবদিন ফারুক, খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ, নির্বাহী কমিটির সদস্য নিপুন রায় প্রমুখ বক্তৃতা করেন।

মিরপুরে জাতীয় যুব দিবস পালিত

মিরপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে জাতীয় যুব দিবস পালিত হয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন ও যুব উন্নয়ন অফিসের যৌথ উদ্যোগে বিভিন্ন কর্মসূচী পালিত হয়। গতকাল শুক্রবার সকালে উপজেলা চত্বর থেকে এক বর্নাঢ্য র‌্যালী বের হয়ে শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করেন। পরে উপজেলা চত্বরে “দক্ষ যুব গড়ছে দেশ, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ” শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। উপজেলা যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা নূরুল ইসলাম নান্নু’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) রকিবুল হাসান। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রাশেদুজ্জামান রিমন, সাবেক সভাপতি আছাদুর রহমান বাবু, আলো সংস্থার নির্বাহী পরিচালক ফিরোজ আহাম্মেদ, জনসেবা সংস্থার নির্বাহী পরিচালক আতিয়ার রহমান, উৎসাহ সংস্থার নির্বাহী পরিচালক জাহিদুল ইসলাম জাহিদ, দ্বীপ সংস্থার সভাপতি মোতালেব হোসেন, নির্বাহী পরিচালক আব্দুল আলিম, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তরের ক্রেডিট সুপারভাইজার গোলাম মোস্তফা, উপজেলা শ্রমিকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আশরাফুল আলম হীরা, সোনারতরী যুব সংগঠনের সভাপতি ছাতিয়ান ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য এম এ মোমিন মলি¬ক প্রমুখ।

দুর্নীতির ভারে পতন হবে সরকারের – মওদুদ

ঢাকা অফিস ॥ ক্ষমতাসীনদের সর্বস্তর দুর্নীতিতে এমনভাবে ছেয়ে গেছে যে এই দুর্নীতির ভারেই সরকারের পতন হবে বলে মন্তব্য করেছেন মওদুদ আহমদ। গতকাল শুক্রবার দুপুরে রাজধানীতে দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আয়োজিত এক সভায় নেতা-কর্মীদের আশ্বস্ত করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য একথা বলেন। মওদুদ বলেন, হতাশ হওয়ার কোনো কারণ নেই। কখন, কোন মুহূর্তে কি বিষয় নিয়ে বিস্ফোরণ ঘটবে তা কারো পক্ষে বলা সম্ভব না। এই সরকারের পতন এখন সময়ের ব্যাপার। নিজেদের দুর্নীতির ভারেই তাদের পতন হবে। “কারণ তাদের প্রত্যেকটি অঙ্গ-প্রত্যঙ্গে, শাখা-প্রশাখায় এমন দুর্নীতি প্রবেশ করে গেছে, এতো গভীরে যে, এখান থেকে উদ্ধার করা তাদের পক্ষে সম্ভবপর হবে না।” ‘দুর্নীতির বিরুদ্ধে’ চলমান অভিযানকে ‘আইওয়াশ’ আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন, সত্যিকার অর্থে তারা দুর্নীতি দমন করতে পারবে না। এটা নিয়ে সরকার সিরিয়াস হলে শুধু যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতৃবৃন্দ নয় সব মন্ত্রী ও এমপির সম্পদের হিসাব জনগণের সামনে প্রকাশ করত। দুর্নীতির মামলায় দন্ডিত হয়ে কারাবন্দী খালেদা জিয়া ‘সরকারের হস্তক্ষেপের কারণে জামিন পাচ্ছেন না’ বলে বরাবরের মতোই অভিযোগ করেন সাবেক আইনমন্ত্রী। নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, “হতাশ হওয়ার কারণ নাই। আমাদের নেত্রী মুক্তি পাবেন, দেশে গণতন্ত্র ফিরে আসবে, আইনের শাসন ফিরে আসবে, বিচার বিভাগের স্বাধীনতা ফিরে আসবে।” জাতীয় প্রেস ক্লাবের আবদুস সালাম হলের জাতীয়তাবাদী নবীন দলের সভাপতি হুমায়ুন আহমেদ তালুকদারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক মাসুদ রানার পরিচালনায় খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে এ সভা হয়। এতে অন্যদের মধ্যে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য জয়নুল আবদিন ফারুক, যুগ্ম মহাসচিব সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ, নির্বাহী কমিটির সদস্য নিপুন রায় চৌধুরী ও তাঁতী দলের কাজী মনিরুজ্জামান মুনির বক্তব্য দেন।

 

সভাপতি মামুন ॥ সম্পাদক মিজান

ধুবইল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন

কাঞ্চন কুমার ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার ধুবইল ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ ধুবইল ইউনিয়ন শাখার উদ্যোগে গতকাল শুক্রবার বিকেলে ধুবইল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আতর আলী সভাপতিত্বে সম্মেলনে প্রধান অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ডাঃ আমিনুল হক রতন। সম্মেলন উদ্বোধন করেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি অ্যাডঃ আব্দুল হালিম। প্রধান বক্তা ছিলেন উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামারুল আরেফিন। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক খন্দকার ইকবাল মাহমুদ, সহ-প্রচার সম্পাদক আব্দুল লতিফ দিঘা, উপজেলা আওয়ামীলীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ধুবইল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহাবুর রহমান মামুন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক বিএম জুবায়ের রিগান, সহ-দপ্তর সম্পাদক মাহাবুবুর রহমান। উপজেলা আওয়ামীলীগের দপ্তর সম্পাদক রাশেদুজ্জামান ছন্দ’র পরিচালনায় এ সময়ে  উপজেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আতাহার আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল আলম বিশ্বাস, মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক মোহাম্মদ আলী, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডঃ মর্জিনা খাতুন, উপজেলা যুবলীগের সভাপতি উপজেলা পরিষদের ভাইস-চেয়ারম্যান আবুল কাশেম জোয়ার্দ্দার, ফুলবাড়ীয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজী আব্দুস সালাম, চিথলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান গিয়াস উদ্দিন, বহলবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সোহেল রানা বিশ্বাস, চিথলিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি এনামুল হক বাবলু, বহলবাড়ীয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি নজরুল ইসলাম মানিক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সম্মেলন শেষে উপজেলা আওয়ামীলীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মাহাবুর রহমান মামুনকে সভাপতি ও মিজানুর রহমান মিজানকে পুনরায় সাধারণ সম্পাদক করে ত্রি-বার্ষিক কমিটি গঠন করা হয়।

জি কে শামীমকে দিয়াজ হত্যামামলার আসামি করতে আবেদন

ঢাকা অফিস ॥ গ্রেপ্তার বিতর্কিত ঠিকাদার জি কে শামীমকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রলীগ নেতা দিয়াজ ইরফান চৌধুরী হত্যাকান্ডের মামলার আসামি করতে আদালতে আবেদন হয়েছে। দিয়াজের মা জাহেদা আমিন চৌধুরী বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের অতিরিক্ত চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. রবিউল আলমের আদালতে এ আবেদন করেন। চার বছর আগে ক্যাম্পাসের নিজের ঘরে দিয়াজের ঝুলন্ত লাশ উদ্ধারের পর তার পরিবার দাবি করেছিল, এটি পরিকল্পিত হত্যাকান্ড এবং তা ঘটানো হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের নানা উন্নয়ন কাজ পাওয়া নিয়ে। ২০১৬ সালের নভেম্বরের শুরুর দিকে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন কলা ভবন নির্মাণে ৭৫ কোটি টাকার কাজ পায় জি কে শামীমের প্রতিষ্ঠান সার্স দ্য বিল্ডার্স ইঞ্জিনিয়ার্স-জি কে বিল্ডার্স লিমিটেড (জেভি)। ওই বছরের ২০ নভেম্বর রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই নম্বর গেইট এলাকার বাসায় শয়নকক্ষে দিয়াজের ঝুলন্ত লাশ পাওয়া যায়। ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সহ-সম্পাদক ও চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সাবেক যুগ্ম সম্পাদক দিয়াজের মা ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন কর্মচারী। জাহেদার আবেদনটি গ্রহণ করে দিয়াজ হত্যামামলায় জি কে শামীমের সম্পৃক্ততা আছে কি না, তা তদন্ত করতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছে আদালত। বাদীপক্ষের আইনজীবী আবুল মনসুর বলেন, “৭৫ কোটি টাকার ওই কাজটি পাইয়ে দিতেই দিয়াজকে হত্যা করা হয় বলে তখন এবং সম্প্রতি বিভিন্ন গণমাধ্যমে খবর প্রকাশিত হয়েছে। “ওই কাজের ওয়ার্ক অর্ডারটি (কার্যাদেশ) গোলাম কিবরিয়া (জি কে) শামীমমের নামে। তাই বাদী মনে করছেন, এই ঘটনায় তিনি জড়িত।” মনসুর বলেন, “আদালত আবেদনটি গ্রহণ করে এ বিষয়ে তার (জি কে শামীম) সম্পৃক্ততা আছে কি না, তদন্ত করতে মামলার তদন্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দিয়েছেন। এ বিষয়ে তদন্ত কর্মকর্তা পরবর্তী তদন্ত করবেন।” মামলাটি বর্তমানে তদন্ত করছেন পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগে (সিআইডি) সহকারী পুলিশ সুপার জসিম উদ্দিন। দিয়াজের বোন জুবাঈদা ছরওয়ার চৌধুরী নিপা বলেন, “৭৫ কোটি টাকার সেই ওয়ার্ক অর্ডারটি যেহেতু জি কে শামীমের নামে, তাই এই খুনের ঘটনায় তার সম্পৃক্ততা থাকতে পারে।” দিয়াজের মৃত্যুর পর তার পরিবারের পক্ষ থেকে এই নতুন কলা ভবনের নির্মাণকাজের দরপত্রসহ কয়েকটি বিষয়ে ‘ষড়যন্ত্র’ করে তাকে হত্যা করা হয়ে থাকতে পারে বলে অভিযোগ করেছিল। ওই ঠিকাদারির কাজ সংশ্লিষ্ট একটি চেক দিয়াজ পেয়েছিলেন বলে তার মৃত্যুর পর ক্যাম্পাসে গুঞ্জন ছিল। তবে সেই চেক তিনি ভাঙাতে পারেননি বলে জানিয়েছিলেন তার ভগ্নিপতি। দিয়াজের লাশের প্রথম ময়নাতদন্তের পর এটি ‘আত্মহত্যার ঘটনা’ উল্লেখ করা হয়েছিল। তা নিয়ে আপত্তি জানান দিয়াজের মা। এরপর দ্বিতীয় দফা ময়নাতদন্তে মেলে হত্যার আলামত। দিয়াজ হত্যামামলায় আসামিদের মধ্যে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আলমগীর টিপুসহ সংগঠনটির বেশ কয়েকজন নেতা রয়েছেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক সহকারী প্রক্টর আনোয়ার হোসেনও রয়েছেন আসামির তালিকায়। অন্য আসামিরা হলেন- বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাবেক নেতা জামশেদুল আলম চৌধুরী, কর্মী রাশেদুল আলম জিশান, আবু তোরোব পরশ, মনসুর আলম, আবদুল মালেক, মিজানুর রহমান, আরিফুল হক অপু ও মোহাম্মদ আরমান।

 

কারাগারে আজহারের সঙ্গে দেখা করে গেলেন আইনজীবীরা

ঢাকা অফিস ॥ মুক্তিযুদ্ধকালীন রংপুর অঞ্চলের ত্রাস এটিএম আজহারুল ইসলামের মৃত্যুদ- বহাল থাকার রায় আসার পর গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগারে এসে তার সঙ্গে দেখা করে গেলেন আইনজীবীরা। কাশিমপুর হাই সিকিউরিটি কারাগারের জেলার বিকাশ রায়হান জানান, পাঁচজন আইনজীবীর একটি দল শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে কারাগারে এসে আজহারের সঙ্গে দেখা করেন। “তারা ১৫ মিনিটের মত ছিলেন। আপিল বিভাগের রায়ের বিরুদ্ধে রিভিউ করার বিষয়ে তাদের কথা হয়েছে এবং আজহারুল ইসলাম তাতে সম্মতি দিয়েছেন বলে আইনজীবীরা জানিয়েছেন।” তবে পরিবারের কেউ রায়ের পর এই জামায়াত নেতার সঙ্গে দেখা করতে আসেননি বলে জেলার বিকাশ রায়হান জানান। অ্যডভোকেট মতিউর রহমান আকন্দের নেতৃত্বে এই আইনজীবী দলে ছিলেন গিয়াস উদ্দিন মিঠু, মোহাম্মদ ইউসুফ, এসএম কামালউদ্দিন ও আবদুর রজ্জাক। মতিউর রহমান পরে বলেন, “রায়ের পর উনার নির্দেশনা জানার জন্যই দেখা করতে এসেছিলাম। উনি বলেছেন আইনের যে পরবর্তী ধাপ আছে, অর্ধাৎ রিভিউয়ের ব্যবস্থা নিতে।” একাত্তরের যুদ্ধাপরাধের দায়ে প্রায় পাঁচ বছর আগে এটিএম আজহারকে মৃত্যুদ- দিয়েছিল আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনাল। বৃহস্পতিবার আপিলের রায়েও তার সেই সাজা বহাল থাকে। জামায়াতের সাবেক সহকারী সেক্রেটারি জেনারেল আজহার একাত্তরে ছিলেন ইসলামী ছাত্র সংঘের জেলা কমিটির সভাপতি এবং আলবদর বাহিনীর রংপুর শাখার কমান্ডার। সে সময় তার নেতৃত্বেই বৃহত্তর রংপুরে গণহত্যা চালিয়ে ১৪ শ’র বেশি মানুষকে হত্যা, অপহরণ, নির্যাতনের ঘটনা ঘটেছিল বলে এ মামলার বিচারে উঠে আসে। আজহারের প্রধান আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন বৃহস্পতিবারই জানিয়েছিলেন, রায়ের পূর্ণাঙ্গ অনুলিপি পেলে তারা রিভিউ (রায় পর্যালোচনা) আবেদন করবেন। নিয়ম অনুযায়ী আসামি এই রায় পর্যালোচনার আবেদন করতে পারবেন। তাতে সর্বোচ্চ আদালতের সিদ্ধান্ত না বদলালে আসামি রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষা চাইতে পারবেন। তাতেও তিনি বিফল হলে সরকার সাজা কার্যকরের পদক্ষেপ নেবে।

আবরার হত্যার অভিযোগপত্র একসপ্তাহের মধ্যে  

ঢাকা অফিস ॥ বুয়েট ছাত্র আবরার ফাহাদ হত্যাকান্ডে কার কতটুকু দায় ছিল তা চিহ্নিত করা হয়েছে জানিয়ে ঢাকা মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার মো. মনিরুল ইসলাম বলেছেন, মামলা তদন্তের দায়িত্বপ্রাপ্ত সংস্থা গোয়েন্দা পুলিশ এক সপ্তাহের মধ্যে চার্জশিট দিতে পারবে বলে তারা আশা করছেন। শুক্রবার এফডিসিতে এক ছায়া সংসদ বিতর্ক প্রতিযোগিতায় এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, “এখন পর্যন্ত তদন্তের যে অগ্রগতি ও প্রস্তুতি, আশাবাদী যে এক সপ্তাহের মধ্যে চার্জশিট হবে।” ‘আবরার হত্যাকা-ের জন্য ছাত্র রাজনীতি না মূল্যাবোধের অবক্ষয়- কোনটি দায়ী’ শীর্ষক এ বিতর্ক অনুষ্ঠানের সঞ্চালক হাসান আহমেদ চৌধুরী কিরণ জানতে চেয়েছিলেন, আবরারের খুনিদের সবাইকে পুলিশ ধরতে পেরেছে কি না। উত্তরে মনিরুল বলেন, পুলিশ যখন কোনো ঘটনার তদন্ত করে অভিযোগপত্র তৈরি করে, তখন সেখানে কার কী অপরাধ, কে হুমুকদাতা, পরিকল্পনাকারী কে- এসব প্রশ্নের সুনির্দিষ্ট তথ্য উল্লেখ করতে হয়। “বিবেকের দংশনে হোক অথবা যে কোনো কারণে হোক, আসামিদের অনেকে যার যা দায়, সে দায়টুকু স্বীকার করে ১৬৪ ধারা জবানবন্দি দিয়েছে। “তাদের স্বীকারোক্তির পাশাপাশি আমাদরে তথ্য প্রযুক্তি বিশ্লেষণের যে সক্ষমতা রয়েছে, তার মাধ্যমে কার কতটুকু দায়, ইতোমধ্যে আমরা নির্ধারণ করেছি এবং সেভাবে চার্জশিট দেওয়ার প্রক্রিয়া শুরু করেছি।” বুয়েটের শেরে বাংলা হলের আবাসিক ছাত্র ও তড়িৎ কৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরারকে গত ৬ অক্টোবর রাতে ছাত্রলীগের এক নেতার কক্ষে নিয়ে নির্যাতন চালিয়ে হত্যা করা হয়। পরদিন আবরারের বাবা ১৯ শিক্ষার্থীকে আসামি করে চকবাজার থানায় মামলা দায়ের করেন। তদন্তে নেমে পুলিশ এজাহারের ১৬ জনসহ মোট ২১ জনকে গ্রেপ্তার করে। গ্রেপ্তার আসামিদের মধ্যে মোট আটজন তাদের দায় স্বীকার করে আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন, যাদের সবাই বুয়েট ছাত্রলীগের নেতা-কর্মী। আবরারকে কীভাবে ক্রিকেট স্টাম্প আর স্কিপিং রোপ দিয়ে কয়েক ঘণ্টা ধরে বেধড়ক পেটানো হয়েছিল, সেই ভয়ঙ্কর বিবরণ উঠে এসেছে তাদের জবানবন্দিতে। সঞ্চালকের এক প্রশ্নের জবাবে মনিরুল বলেন, হত্যাকা-ের পর শেরেবাংলা হলে গিয়ে সঠিক তথ্যের অভাবে সমস্যায় পড়তে হয়েছিল পুলিশকে। “সেখানে আসলে কী সংগঠিত হচ্ছে- সেটি পুলিশ তখনও জানতে পারেনি। এটি ছিল পুলিশের পক্ষেৃ ঘটনাটা প্রতিহত করা বাৃ কখন আবরার প্রাণ হারিয়েছে- সেরকম কোনো তথ্য আসলে ছিল না। “শোনা যাচ্ছিল ভেতরে একটু গোলমাল হচ্ছিল, কী গোলমাল, কোন বিষয়ে, কতটুকু- তা পুলিশের জানা ছিল না। প্রধান বাধা ছিল তথ্যের অপর্যাপ্ততা। উপযুক্ত তথ্য পেলে পুলিশ ব্যবস্থা নিতে পারত।” আবরারকে সেদিন সন্ধ্যার পর ওই হলের ২০১১ নম্বর কক্ষে ডেকে নিয়ে যাওয়া হয়। কয়েক ঘণ্টা ধরে নির্যাতনের পর দোতলা ও নিচতলার সিঁড়ির মাঝামাঝি জায়গায় তাকে অচেতন অবস্থায় ফেলে যায় কয়েকজন ছাত্রলীগ কর্মী। ভোরে চিকিৎসক এসে তাকে মৃত ঘোষণা করেন। পুলিশ তখন সেখানে গিয়েছিল জানতে চাইলে মনিরুল বলেন, “সবকিছু রেকর্ডেড। সঠিক সময়টা এই মুহূর্তে প্রকাশ করতে চাই না। চার্জশিট যাবে, সেখানে সবকিছু উল্লেখ থাকবে।“

জেএসসি জেডিসি পরীক্ষা শুরু আজ

ঢাকা অফিস ॥ বাংলাদেশের দুই হাজার ৯৮২টি কেন্দ্রে আজ শনিবার একযোগে শুরু হচ্ছে জুনিয়র স্কুল সার্টিফিকেট (জেএসসি) ও জুনিয়র দাখিল সার্টিফিকেট (জেডিসি) পরীক্ষা। প্রথম দিন সকাল ১০টায় জেএসসিতে বাংলা এবং জেডিসিতে কুরআন মাজীদ ও তাজবিদ বিষয়ের পরীক্ষা দেবে ২৬ লাখ ৬১ হাজার ৬৮২ জন শিক্ষার্থী। তার আগে সকাল ৯টায় কেরানীগঞ্জের জিঞ্জিরা পিএম পাইলট উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে জেএসসি পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শনে যাবেন শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি। এবার ২৯ হাজার ২৬২ প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা জেএসসি ও জেডিসি পরীক্ষায় অংশ নিচ্ছে। পরীক্ষা চলবে ১১ নভেম্বর পর্যন্ত। আট সাধারণ বোর্ডের অধীনে এবার জেএসসিতে ২২ লাখ ৬০ হাজার ৭১৬ এবং মাদ্রাসা বোর্ডের অধীনে চার লাখ ৯৬৬ জন জেডিসি পরীক্ষা দেবে। পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ১২ লাখ ২১ হাজার ৬৯৫ জন ছাত্র ও ১৪ লাখ ৩৯ হাজার ৯৮৭ জন ছাত্রী। ২০১৮ সালে এ পরীক্ষায় অংশ নিয়েছিল মোট ২৬ লাখ ৭০ হাজার ৩৩৩ জন। সেই হিসাবে গত বারের চেয়ে এবার পরীক্ষার্থী কমেছে ৮ হাজার ৬৫১ জন। জেএসসিতে অনিয়মিত ২ লাখ ৩৩ হাজার ৩১০ জন ও জেডিসি পরীক্ষায় ৩০ হাজার ২৯১ জন পরীক্ষার্থীও এবার পরীক্ষায় বসছে। আগের বছরের পরীক্ষায় এক, দুই ও তিন বিষয়ে অকৃতকার্য দুই লাখ ১১ হাজার ৩৩২ জন রয়েছে জেএসসিতে; জেডিসিতে রয়েছে ২১ হাজার ৯৭৮ জন পরীক্ষার্থী। বিদেশের মোট ৯টি কেন্দ্রে এবার পরীক্ষায় বসছে ৪৫৪ জন শিক্ষার্থী। পরীক্ষায় মোট সাতটি বিষয়ে ৬৫০ নম্বরের পরীক্ষা দিতে হবে। ইংরেজি ছাড়া সব বিষয়ের পরীক্ষা হবে সৃজনশীল প্রশ্নে।

কাউন্সিলর মঞ্জু দশ দিনের রিমান্ডে

ঢাকা অফিস ॥ র‌্যাবের করা অস্ত্র ও মাদক আইনের দুই মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ময়নুল হক মঞ্জুকে মোট দশ দিনের রিমান্ডে পেয়েছে পুলিশ। আর মঞ্জুর গাড়িচালক সাজ্জাদকে মাদক মামলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচ দিনের রিমান্ডে পাঠিয়েছে আদালত। শুক্রবার পুলিশের রিমান্ড আবেদনের ওপর শুনানি শেষে ঢাকার মহানগর হাকিম ধীমান চন্দ্র মন্ডল শুক্রবার এ আদেশ দেন। এদিন মঞ্জু ও সাজ্জাদকে আদালতে হাজির করে রিমান্ডের আবেদন করেন ওয়ারী থানার এসআই হারুন-অর-রশীদ। অস্ত্র মামলায় মঞ্জুকে সাত দিন এবং মাদক মামলায় দুইজনকে সাত দিন করে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি চান তিনি। অন্যদিকে আসামিপক্ষের আইনজীবী ওয়াজিউল্লাহ রিমান্ডের বিরোধিতা করে জামিনের আবেদন করেন। দুই পক্ষের বক্তব্য শেষে বিচারক মঞ্জুকে দুই মামলায় পাঁচ দিন করে মোট দশ দিন এবং সাজ্জাদকে পাঁচ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। ৩৯ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মঞ্জু ওয়ারি থানা আওয়ামী লীগের একজন ‘সম্মানীয় সদস্য। ঢাকা মহানগর আওয়ামী লীগের গত কমিটিতেও সদস্য হিসেবে ছিলেন তিনি। টিকাটুলীর রাজধানী সুপার মার্কেট ও নিউ রাজধানী সুপার মার্কেটে চাঁদাবাজি, অবৈধ দখলদারির পাশাপাশি মাদকের কারবারের অভিযোগে বিভিন্ন সময়ে খবরের শিরোনাম হয়েছেন তিনি। অবশ্য তিনি নিজে বরাবরই তা অস্বীকার করেছেন। কাজী মো. রনি নামে একজন ব্যবসায়ী গত বুধবার ওয়ারী থানায় মঞ্জুর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন। তার অভিযোগ, কাউন্সিলর মঞ্জু তার কাছে দুই লাখ টাকা চাঁদা দাবি করেন এবং ওই টাকা না দেওয়ায় বিভিন্নভাবে হুমকি দিয়েছেন। এরপর বৃহস্পতিবার দুপুরে মঞ্জুকে গ্রেপ্তার করে তার টিকাটুলির অফিস ও বাসায় অভিযান চালায় র‌্যাব। দুই জায়গা থেকে দুটি পিস্তল, মদ, গাঁজা, ইয়াবা, ফেনসিডিল ও যৌন উত্তেজনা বর্ধক ওষুধ উদ্ধার করা হয়। মঞ্জুর বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করা হয় তার গাড়িচালক সাজ্জাদকে। পরে র‌্যাব বৃহস্পতিবার রাতেই কাউন্সিলর মঞ্জুকে থানায় হস্তান্তর করে দুটি মামলা দায়ের করেন র‌্যাব-৩ এর নায়েব সুবেদার ইব্রাহিম হোসেন।এর মধ্যে অস্ত্র মামলায় কেবল মঞ্জুকে এবং মাদক মামলায় দুজনকেই আসামি করা হয়।

সন্ত্রাস ও দুর্নীতি দমনে কাজ করছেন প্রধানমন্ত্রী – স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ দেশের উন্নয়ন অগ্রযাত্রার কারণে বিশ্বে আজ বাংলাদেশের সুনাম বৃদ্ধি পেয়েছে উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী মো: আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের উন্নয়নের পাশাপাশি জঙ্গী, সন্ত্রাস ও দুর্নীতি দমনে কাজ করছেন। তিনি জানেন আইন-শৃংখলার উন্নয়ন ছাড়া দেশের উন্নয়নের সুফল পাওয়া যায়না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সুন্দরবনকে দস্যুমুক্ত ঘোষণার বর্ষপূর্তি উপলক্ষে শুক্রবার সকালে বাগেরহাট স্টেডিয়ামে এলিট ফোর্স র‌্যাব-৬ আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সুন্দরবনের জেলে, বাওয়ালী ও মৌয়ালসহ পর্যটকদের জীবন বিপন্নকারী জলদস্যু দমনে যে পদক্ষেপ নিয়েছিলেন তার যথাযত বাস্তবায়ন হয়েছে। তিনি বলেন, র‌্যাব, কোষ্টগার্ড ও পুলিশ যৌথভাবে এ সফলতা ধরে রাখতে নিরলসকাজ করে যাচ্ছে। এরপরও যদি কেউ সুন্দরবনে পুনরায় দস্যুবৃত্তি করার চেষ্টা করে তার পরিনতি হবে ভয়াবহ। তিনি আরো বলেন, সরকারের প্রতি চ্যালেঞ্জ দিয়ে কেউ অপরাধীদের শেল্টার দিলে তাকেও আইনের আওয়তায় আনা হবে। এসময় মন্ত্রী আত্মসমর্পণকৃত জলদস্যু ও বনদস্যুদের নামের মামলা আইনি প্রক্রিয়ায় দ্রুত নিষ্পত্তির আশ্বাস দেন। খুলনা র‌্যাব-৬ এর অধিনায়ক লে: কর্নেল মো: নুরুস সালেহীনের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন খুলনা সিটি কর্পোরেশন মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক, সংসদ সদস্য ডা: মোজাম্মেল হোসেন, শেখ সারহান নাসের তন্ময়, মো: শামসুল আলম টুকু, কুজেন্দ্র লাল ত্রিপুরা, গ্লোরি ঝর্না সরকার, স্ব-রাষ্ট্র মন্ত্রনালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব মো: মোস্তফা কামাল প্রমুখ। নির্যাতিত জেলেদের পক্ষ থেকে জলদস্যুদের নির্যাতনের ধরন বর্ণনা করে বক্তব্য রাখেন জেলে তোফজ্জেল সরদার ও আত্মসমর্পণ করা জলদস্যু ডন বাহিনী প্রধান মেহেদী হাসান ডন। গত বছরের এই দিনে প্রধানমন্ত্রী সর্বশেষ ৬টি বনদস্যু বাহিনীর আত্মসমর্পণ অনুষ্ঠানে ভিডিও কনফারেন্সে সুন্দরবনকে দস্যুমুক্ত’র ঘোষণা দেন। সুন্দরবন জল দস্যুমুক্ত ঘোষণার বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান ২০১৯ উপলক্ষে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে র‌্যাবের দেয়া তথ্য অনুযায়ী র‌্যাব অভিযানে শুরু থেকে এ পর্যন্ত ২৪৬ টি সফল অভিযান পরিচালনা করেছে। এতে ৫৮৬ জন জলদস্যু গ্রেফতার, ১ হাজার ৭৮০ টি অস্ত্র ও ৪১ হাজার ৯৫৫ রাউন্ড গোলাবারুদ উদ্ধার করা হয়। অভিযান করতে গিয়ে দস্যুদের সাথে গোলাগুলিতে ১৬৩ জন দুস্যু নিহত হয়েছে। ২০১৬ সালের ৩১ মে থেকে ১ নভেম্বর ২০১৮ পর্যন্ত সুন্দরবন অঞ্চলের ৩২ টি বাহিনীর ৩২৮ জন জলদস্যু, ৪৬২ টি অস্ত্র ও ২২ হাজার ৫০৪ রাউন্ড গুলি দিয়ে র‌্যাবের কাছে আত্মসমর্পণ করে। এছাড়াও র‌্যাব ৯টি জীবিত রয়েল বেঙ্গল টাইগার শাবক, ২৩ টি টাইগারের চামড়া, ২৯ টি জীবিত হরিন, ১২৯ টি হরিনের চামড়া ও বিপুল পরিমান বন্যপশু ও পাখি উদ্ধার করে অবমুক্ত করা হয়। এ অনুষ্ঠানে র‌্যাবের অভিযান ও সুন্দরবন নিয়ে নির্মিত একটি চলচ্চিত্রের মোড়ক উন্মোচন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এসময় চিত্রনায়ক রিয়াজসহ শিল্পী ও কলাকুশলীরা উপস্থিত ছিলেন।