নাটকীয় জয়ে সিরিজে ফিরল ‘এ’ দল

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ মোহাম্মদ নাঈম শেখ ও মোহাম্মদ মিঠুনের দৃঢ়তায় অপেক্ষা ছিল সহজ জয়ের। শেষ দিকে দ্রুত উইকেট হারিয়ে হঠাৎই জেঁকে বসে হারের শঙ্কা। বারবার রঙ পাল্টানো ম্যাচে শেষ পর্যন্ত দলকে জয়ের ঠিকানায় পৌঁছে দিয়েছেন সানজামুল ইসলাম। শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দলের বিপক্ষে নাটকীয় জয় পেয়েছে বাংলাদেশ ‘এ’ দল। কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় আনঅফিসিয়াল ওয়ানডেতে ১ উইকেটে জিতেছে সফরকারীরা। শেষ বলে ২২৭ রানের লক্ষ্যে পৌঁছে তিন ম্যাচের সিরিজে এনেছে সমতা। জয়ের জন্য শেষ ওভারে বাংলাদেশের প্রয়োজন ছিল ৯ রান। প্রথম তিন বলে ৬ রান নিয়ে জয়ের কাছে চলে যায় বাংলাদেশ। পঞ্চম বলে ইবাদত হোসেন ফিরে গেলে কাজটা হয়ে যান কঠিন। তবে রমেশ সিলভার করা ম্যাচের শেষ বলে সিঙ্গেল নিয়ে রোমাঞ্চকর ম্যাচে সানজামুল দলকে এনে দেন দারুণ এক জয়। টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি শ্রীলঙ্কার। পাথুম নিসানকাকে ফিরিয়ে প্রথম আঘাত হানেন আবু হায়দার। আরেক ওপেনার লাহিরু উদারাকে বিদায় করেন ইবাদত। আনঅফিসিয়াল টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশকে ভোগানো কুসল মেন্ডিসের ব্যাটে প্রতিরোধ গড়ে শ্রীলঙ্কা। টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানকে দারুণ সঙ্গ দেন প্রিয়ামল পেরেরা। ৬৭ বলে ৬১ রান করা কামিন্দুকে ফিরিয়ে ৭৮ রানের জুটি ভাঙেন আফিফ হোসেন। প্রিয়ামল দলকে দাঁড় করান ৪ উইকেটে ১৭২ রানের দৃঢ় ভিতের ওপর। সেখান থেকে আড়াইশ ছাড়ানোর লক্ষ্য দেওয়া খুব কঠিন ছিল না। ৬২ বলে ৫২ রান করা প্রিয়ামলকে ফিরিয়ে সানজামুল পাল্টে দেন চিত্রটা। এরপর নিয়মিত উইকেট তুলে নিয়ে লক্ষ্যটা নাগালে রাখে বাংলাদেশ। সফরকারীদের আবু হায়দার, ইবাদত ও সানজামুল নেন দুটি করে উইকেট। রান তাড়ায় শুরুতেই সাইফ হাসানকে হারায় বাংলাদেশ। অন্য প্রান্তে ঝড় তুলেন নাঈম। ৩৪ বলে ৪৪ রান করে চোট পেয়ে এই ওপেনার মাঠ ছাড়লে ভাটা পড়ে রানের গতিতে। রানের জন্য সংগ্রাম করা নাজমুল হোসেন শান্ত হাতছাড়া করেন সুযোগ। ১ চারে ফিরেন ২১ রান করে। থিতু হয়ে বিদায় নেন আফিফ ও নুরুল হাসান সোহানও। দলীয় ১৭৮ রানে চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে সোহানের বিদায়ের পর ক্রিজে ফিরেন নাঈম। মিঠুনের সঙ্গে দলকে রাখেন সহজ জয়ের পথে। ৮৭ বলে ৩ চার ও ১ ছক্কায় মিঠুন ৫২ রান করে ফিরলে বড় একটা ধাক্কা খায় বাংলাদেশ। নাঈম ছিলেন বলে ম্যাচ ঝুঁকে ছিল সফরকারীদের দিকেই। দলীয় ২১১ রানে সপ্তম ব্যাটসম্যান হিসেবে তিনি বিদায় নিলে হারের শঙ্কায় পড়ে যায় বাংলাদেশ। ৫৯ বলে ৯ চারে ৬৮ রান করেন নাঈম। ম্যাচ মুঠো থেকে ছুটে যায়নি সানজামুলের দৃঢ়তায়। মাথা ঠান্ডা রেখে দলকে নিয়ে যান লক্ষ্যে। আগামীকাল শনিবার কলম্বোয় হবে সিরিজ নির্ধারণী তৃতীয় ও শেষ আনঅফিসিয়াল ওয়ানডে। সংক্ষিপ্ত স্কোর: শ্রীলঙ্কা ‘এ’ দল: ৫০ ওভারে ওভারে ২২৬/৯ (নিসানকা ১৫, উদারা ২৩, কামিন্দু ৬১, প্রিয়াঞ্জন ৭, পেরেরা ৫২, বান্দারা ১৮, রমেশ ২, জয়ারতেœ ৬, করুনারতেœ ২৫*, আমিলা ৩, ফার্নান্দো ১*; আবু জায়েদ ৮-০-৩৯-১ আবু হায়দার ১০-১-৪২-২, ইবাদত ১০-০-৪৬-২, সাইফ ১০-০-৩৯-১, সানজামুল ১০-০-৪৩-২, আফিফ ২-০-১৩-১)। বাংলাদেশ ‘এ’ দল: ৫০ ওভারে ২২৭/৯ (সাইফ ৫, নাঈম ৬৮, শান্ত ২১, মিঠুন ৫২, আফিফ ২৪, সোহান ২৫, আরিফুল ৭, সানজামুল ১১*, আবু হায়দার ২, ইবাদত ১, আবু জায়েদ ০*; জয়ারতেœ ৮-০-৪১-০, ফার্নান্দো ৬-০-৩৮-২, রমেশ ৯-০-৪০-৩, করুনারতেœ ৭-০-৩৫-২, আমিলা ১০-২-৩২-০, প্রিয়াঞ্জন ৭-০-২৯-২, কামিন্দু ৩-০-১০-০)। ফল: বাংলাদেশ ‘এ’ দল ১ উইকেটে জয়ী।

 

ভোগান্তীতে ৫ ইউনিয়নের মানুষ

মহেশপুর-দত্তনগর ১৮ কিলোমিটার আঞ্চলিক মহাসড়কের বেহাল দশা

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ সংস্কারের অভাবে চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে ঝিনাইদহের মহেশপুর উপজেলার ১৮ কিলোমিটার আঞ্চলিক মহাসড়ক। সড়কটির প্রায় ১৮ কিলোমিটার জুড়েই সৃষ্টি হয়েছে বড় বড় গর্ত আর খানাখন্দে। এতে প্রতিনিয়ত ঘটছে দুর্ঘটনা আর দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে যাত্রী ও চালকদের। সড়ক বিভাগ বলছে, রাস্তা সংস্কারে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে, দ্রুতই এ সমস্যার সমাধান করা হবে। জেলার ভারত সীমান্তবর্তী উপজেলা মহেশপুর। জেলা সদর থেকে প্রায় ৫০ কিলোমিটার দুরে অবস্থিত। গত কয়েক বছরে দত্তনগর বাজার থেকে জিন্নাহনগর পর্যন্ত ১৮ কিলোমিটার সড়কের এ দশার কোন পরিবর্তন হয়নি। এতে ভোগান্তীতে পড়েছে রাস্তায় চলাচলকারী মানুষেরা। উপজেলা ও জেলা সদর যাওয়ার একমাত্র রাস্তা চলাচলের অযোগ্য হয়ে যাওয়ায় প্রতিনিয়ত দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে তাদের। তাই দ্রুত এ সড়ক সংস্কার করার দাবী চালাচলকারী মানুষ,বিভিন্ন যানবাহনের চালক ও এলাকাবাসীর। এক পথচারী জানালেন, রাস্তাটি দীর্ঘদিন ধরে অবহেলিত। প্রতিদিন প্রায় লাখো মানুষ এই রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করে অথচ কারো ছোঁখে পড়েনা। আপনাদের মাধ্যমে আমরা প্রশাসন ও স্থানীয় সংসদ সদস্যের কাছে আবেদন যানাচ্ছি, আমাদের এই কষ্ট লাঘবের জন্য আল্লাহর ওয়াস্তে শান্তিতে চলাচলের জন্য অতি দ্রুত রাস্তাটি সংস্কার করে দেয়। বাসের চালক বলেন, রাস্তাটি চলাচলের আর কোন উপায় না থাকায় আমারা এ রাস্তায় বাস চলাচল সম্পুর্ণ ভাবে বন্ধ করে দিয়েছি। ঝিনাইদহ সড়ক ও জনপথ নির্বাহী প্রকৌশলী নজরুল ইসলাম জানান, মহেশপুরের কয়েকটি রাস্তা উন্নয়নের জন্য ৪টি প্যাকেজে টেন্ডার হয়।  ৩ নম্বর ও ৪ নম্বর প্যাকেজ দুটির কাজ শেষ হয়েছে। ওই ১৮ কিলোমিটার রাস্তার নেচার (টেন্ডারের সময় ভাঙ্গা কম ছিল, আর এখন খানাখন্দ বেশি) পরিবর্তন হওয়ার কারণে মেরামত করা যাচ্ছে না। তাই নতুন করে টেন্ডার করা হবে। পুনঃ দরপত্রের আহবান করা হবে। অনুমোদন পেলেই কাজ শুরু করা হবে বলে আশ্বাস দিলেন সড়ক বিভাগের এই কর্মকর্তা। আশার বানী শোনালেন স্থানীয় সংসদ সদস্য এ্যাডঃ শফিকুল আজম খান চঞ্চল। তিনি বললেন রাস্তাটি রিভাইস করার জন্য আমরা আবেদন করেছিলাম বেশ কয়েকটা মিটিং হয়ে অনুমোদন হয়েছে। বর্তমানে এটা টেন্ডার ও অন্যান্য যা কাজ আছে তা এক সাথে শুরু হয়েছে। আমার মনে হয় এ মাসের ভিতরে টেন্ডার প্রক্রিয়া শেষ হবে এবং আগামী মাসেই আমরা এ রাস্তার কাজ শুরু করতে পারবো।  প্রতিদিন আঞ্চলিক ওই মহাসড়ক দিয়ে মহেশপুর উপজেলার বাঁশবাড়িয়া, নেপা, শ্যামকুড়, কাজীরবেড় ও স্বরূপপুর ইউনিয়নের প্রায় ৫০ হাজার মানুষের চলাচল।

আলমডাঙ্গায় ভ্রাম্যমাণ আদালতে দু’জনের ৭দিনের জেল

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ চিকিৎসকের অব্যবস্থাপনায় যৌন-উত্তেজক এ্যালকোল জাতীয় স্পিট বিক্রির দায়ে ২ জনকে ৭ দিন করে বিনাশ্রম কারান্ডাদেশ দেয়া হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা ৬টার আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার লিটন আলী ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন।

জানাগেছে, পৌর এলাকার গোবিন্দপুর গ্রামের মৃত আ: বারীর ছেলে মজিবর রহমান (৫২) দীর্ঘদিন যাবৎ উপজেলা পরিষদের সামনে চায়ের ব্যবসা চালিয়ে আসছে। ইতোমধ্যে প্রশাসনের মাদক বিরোধী অভিযান অব্যাহত থাকায় চায়ের ব্যবসার পাশাপাশি গোপনে যৌন উত্তেজক এ্যালকোহল (স্পিট) বিক্রয় করে আসছিলো। এমন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশের সহযোগিতায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে। ভ্রাম্যমাণ আদালত মজিবরের দোকান তল¬াশি করে যৌন উত্তেজোক এ্যালকোহল (স্পিট) উদ্ধার করে। এসময় আটককৃত মজিবরের স্বীকারোক্তির ভিত্তিতে ভ্রাম্যমাণ আদালত আলমডাঙ্গার ফরিদপুর বাজারের সালেহিন হোমিও হলে অভিযান চালায়। অভিযান পরিচালনার সময় দোকানে মাত্রাতিরিক্ত যৌন উত্তেজক এ্যালকোহল (স্পিট) উদ্ধার করে এবং দোকান মালিক আজিবর রহমানের ছেলে তৌমুর সালেহিন (পল¬ব) কে আটক করে। সন্ধ্যা ৭টার দিকে পৃথক স্থানে ভ্রাম্যমাণ আদালতে মাধ্যমে আটককৃত দুইজনকে চিকিৎসকের অব্যবস্থাপনায় যৌন উত্তেজক এ্যালকোল জাতীয় স্পিট বিক্রয়ের দায়ের ৭ দিনে বিনাশ্রম কারান্ডাদেশ প্রদান করেন।

৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সম্মেলন প্রস্তুতিমূলক সভা

নিজ সংবাদ ॥ আগামী ১৩ অক্টোবর কুষ্টিয়া শহর ৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সম্মেলন। এ উপলক্ষ্যে ১০ অক্টোবর বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায় কুষ্টিয়া শহরের আমলাপাড়াস্থ ৪নং স্কুল প্রাঙ্গনে সম্মেলন প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের যুব ও ক্রীড়া সম্পাদক খন্দকার ইকবাল মাহমুদ। সভাপতিত্ব করেন ৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি পৌর কাউন্সিলর বদরুল ইসলাম বাদল। সার্বিক ব্যাবস্থাপনায় ছিলেন ৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক মতিউর রহমান মতি। এ সময় ৩ নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি সাদেক হোসেন মন্টু, নিশিত রঞ্জন পাল, আব্দুস সামাদ সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ বক্তব্য রাখেন।

মিরপুরে হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে হিফজুল কুরআন প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দিনব্যাপী খন্দকবাড়ীয়া মারকাজুল কুরআন ওয়াস সুন্নাহ মাদ্রাসা’র হলরুমে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়। খন্দকবাড়ীয়া মারকাজুল কুরআন ওয়াস সুন্নাহ মাদ্রাসা’র প্রতিষ্ঠাতা অধ্যাপক আব্দুস সালামের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন খুলনা বিভাগীয় হিফজুল ফাউন্ডেশনের শিক্ষা সচিব হাফেজ মাওঃ বরকতুল্লাহ। বিচারক ছিলেন কুষ্টিয়া মাদারসা মাদ্রাসার মুহতামিম হাফেজ মাওঃ আশিকুল্লাহ, যশোর মারকাজুল কুরআন ওয়াস সুন্নাহ মাদ্রাসা’র মুহতামিম হাফেজ মাওঃ বিল্লাল হোসেন, উপাধ্যক্ষ হাফেজ মাওঃ এমদাদুল হক। এতে বিশেষ অতিথি ছিলেন প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রাশেদুজ্জামান রিমন, উপজেলা শ্রমিকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আশরাফুল আলম হীরা, খন্দকবাড়ীয়া মারকাজুল কুরআন ওয়াস সুন্নাহ মাদ্রাসা’র শিক্ষক হাফেজ মাওঃ মাসুম বিল্লাহ, হাফেজ মাওঃ কামাল উদ্দিন, ক্বারী সোহেল আহমেদ প্রমুখ। প্রতিযোগিতায় আমপারা গ্র“পে নাঈম হাসান প্রথম, সাবিব হাসান দ্বিতীয় ও মুসা বড় তৃতীয় স্থান অধিকার করেন। ৫ পারা গ্র“পে নাসরুল্লাহ প্রথম, গোলাম মোস্তফা দ্বিতীয় ও মাহমুদ আলী তৃতীয় স্থান অধিকার করেন। ১০ পারা গ্র“পে নাঈম হাসান প্রথম, খালিদ হাসান দ্বিতীয় ও আবির হাসান তৃতীয় স্থান অধিকার করেন। ১৫ পারা গ্র“পে তাকিব হাসান প্রথম, উমায়ে তাওসিফ দ্বিতীয় ও রিয়াদ হোসেন তৃতীয় স্থান অধিকার করেন।

জাতীয় মানবাধিকার সমিতি কুষ্টিয়া জেলা শাখার কার্যনির্বাহী পরিষদের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত

গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেলে কুষ্টিয়া পরিমল শপিং কমপ্লেক্সের ৪র্থ তলায় বাংলাদেশ জাতীয় মানবাধিকার সমিতি কুষ্টিয়া জেলা শাখার প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে।জেলা শাখার সভাপতি জান্নাতুল ফেরদৌস জিনিয়া সভাপতিত্বে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক শাহারিয়া ইমন রুবেল। সাংগঠনিক সম্পাদক অঞ্জন কৃষ্ণ শীল এর সঞ্চালনায় দিকনির্দেশনা মূলক বক্তব্য রাখেন সিনিয়র সহ-সভাপতি অর্পণ মাহমুদ, কুমারখালী উপজেলা কাঙাল হরিনাথ  প্রেসক্লাবের সভাপতি ও বাংলাদেশ জাতীয় মানবাধিকার সমিতির নির্বাহী সদস্য কে এম শাহীন, সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাব্বি আলামিন, উৎপল বিশ্বাস,  সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ মশফিকুর রহমান প্রদীপ, অর্থ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম শরিফ, দপ্তর সম্পাদক জুলিয়া পারভীন। সংগঠনকে আরো গতিশীল করতে আমাদের করনীয় শীর্ষক উম্মুক্ত আলোচনা করা হয়। পরে বেশকিছু সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। শেষে কুষ্টিয়ার সন্তান বুয়েট ছাত্র নিহত আবরার ফাহাদের স্মরণে ১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের যুব বিষয়ক সম্পাদক সঞ্জয় কুমার ঘোষ, নির্বাহী সদস্য আশিকুর রহমান, মামুন, শরিফুল ইসলাম, রাকিবুল ইসলাম, কনক প্রমুখ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

ভারতের সঙ্গে সম্পাদিত চুক্তিকে কেন্দ্র করে মিথ্যা রিপোর্টের জন্য দুঃখ করলেন তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দিল্লী সফরকালে ভারতের সঙ্গে সম্পাদিত কয়েকটি চুক্তির বিষয়ে এক শ্রেণীর গণমাধ্যমে কিছু মিথ্যা ও বানোয়াট রিপোর্টের ব্যাপারে দুঃখ প্রকাশ করেছেন। তিনি গতকাল জাতীয় প্রেসক্লাবে চট্টগ্রাম বিভাগ সংবাদিক ফোরামের (সিবিএসএফ) দ্বিবার্ষিক সম্মেলনে বক্তৃতাকালে বলেন, ‘আমরা ভারতের ত্রিপুরায় অতিরিক্ত এলপিজি গ্যাস রফতানি করবো-তাছাড়া বঙ্গোপসাগরে আমাদের কোস্টগার্ডের জন্য মঞ্জুরি হিসেবে ২০টি রাডার স্থাপনের জন্য দিচ্ছে ভারত।’ তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ তার বক্তব্যে গণমাধ্যমকে রাষ্ট্রের চতুর্থ স্তম্ভ এবং সমাজের বিবেক তৈরির অন্যতম কান্ডারি হিসেবে উল্লেখ করার পাশাপাশি দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর সাম্প্রতিক ভারত সফরে সম্পাদিক চুক্তির বিষয়ে বিবিসি বাংলা অনলাইনসহ কয়েকটি সংবাদ মাধ্যম অসত্য রিপোর্ট প্রকাশ করেছিল।’ মন্ত্রী বলেন, ‘বিদেশ থেকে আমদানিকৃত এবং চট্টগ্রামের ইস্টার্ন রিফাইনারিতে অশোধিত পেট্রোলিয়াম পরিশোধনের সময় উপজাত হিসেবে প্রাপ্ত এলপিজি বা তরল গ্যাস আমাদের ব্যবহারের পর উদ্বৃত্ত অংশ ভারতে রফতানি করবো, আর তারা লিখেছিল প্রাকৃতিক গ্যাস রফতানির কল্পিত সংবাদ। আবার, ভারত আমাদের নৌবাহিনীকে গ্রান্ট হিসেবে ২০টি রাডার দিচ্ছে, আর কিছু সংবাদ মাধ্যম লিখেছিল, ভারত রাডার বসিয়ে চীনের ওপর নজরদারি করবে। এগুলো অসত্য সংবাদ, যা হলুদ সাংবাদিকতার পর্যায়ে পড়ে।’তিনি বলেন, ‘মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোনো অন্যায়কে প্রশ্রয় দিচ্ছেন না। সমস্ত অন্যায়ের বিরুদ্ধে তিনি দল-মত নির্বিশেষে ব্যবস্থা নিচ্ছেন, যা অতীতে অন্য কেউ নেয়নি। দাবি তোলার আগেই বুয়েটের ন্যাক্কারজনক ঘটনায় সন্দেহভাজন সকলকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে সমস্ত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান তল্লাশী চালিয়ে অপরাধের সাথে যুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। ১১ বছরের সরকারে অনুপ্রবেশকারী ঢুকেছে। এই আবর্জনা পরিষ্কার করতে আমরা বদ্ধপরিকর। ঠিক এ অবস্থাতেই বিএনপি’র কেউ কেউ ঘোলা পানিতে মাছ শিকারের অপচেষ্টা করছে, যা সফল হবে না।’ বিএনপি’র উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, ‘বুয়েটে সনি হত্যা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রীদের শ্লীলতাহানির বিরুদ্ধে বিএনপি কি কোনো ব্যবস্থা নিয়েছিল? না, নেয়নি। অতীতটা একটু দেখুন, নিজেদের দিকে তাকান। তারপর কথা বলুন।’ তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেন, আবরার হত্যার ঘটনায় কূটনীতিকদের মন্তব্য অনভিপ্রেত। তিনি বলেন, ‘মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিবছর অসংখ্য ছাত্র-ছাত্রী গুলিবিদ্ধ হয়ে হতাহত হয়, গত মাসেও এ ঘটনা ঘটেছে। যুক্তরাষ্ট্রে যখন স্কুলে গুলিবর্ষণে ছাত্র-ছাত্রীরা হতাহত হয়, পাকিস্তানে শিয়া মসজিদ পুড়িয়ে দেয়া হয়, তখন কি তারা সবসময় উদ্বেগ প্রকাশ করেন? বুয়েটে ছাত্র নিহত হবার ঘটনা আমাদের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এ বিষয়ে বিদেশি কূটনীতিকদের মন্তব্য অনভিপ্রেত। তিনি আরো বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে প্রতিবছর শতশত ছাত্র-ছাত্রী হতাহত হবার ঘটনায় আমি উদ্বিগ্ন।’ তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘কয়েকটি বিদেশি মিশন আবরার হত্যাকান্ডের পর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, জাপানসহ আমাদের সকল উন্নয়ন সহযোগী রাষ্ট্রকে তাদের ধারাবাহিক সহযোগিতার জন্য ধন্যবাদ জানিয়েই বলতে চাই, এ বিষয়ে তাদের মন্তব্য অনভিপ্রেত। অনুষ্ঠানে শিক্ষা উপমন্ত্রী মুহিবুল হাসান বলেন, ‘আমার-আপনার হারানো সন্তানকে পুঁজি করে কোনো সুবিধাবাদী নোংরা রাজনীতি করবেন না, ক্ষমতায় যাওয়ার স্বপ্ন দেখবেন না, তাতে সফল হবেন না।’ চট্টগ্রাম বিভাগের ১১ টি জেলার সাংবাদিকদের এই সংগঠনের সভাপতি দৈনিক করতোয়ার বার্তা সম্পাদক মাহমুদুর রহমান খোকনের সভাপতিত্বে সভায় আরো বক্তব্য রাখেন ডিবিসি টিভি’র চেয়ারম্যান ইকবাল সোবহান চৌধুরী, ফোরামের মহাসচিব শাহীন উল ইসলাম চৌধুরী প্রমুখ।

কুষ্টিয়া পৌরসভার ১১নং ওয়ার্ডের রাস্তার নির্মান কাজ উদ্বোধন করলেন কাউন্সিলর আনিছ কোরাইশী

গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে কুষ্টিয়া পৌরসভার ১১নং ওয়ার্ডের রাস্তার নির্মান কাজ উদ্বোধন করা হয়েছে। গুরুত্বপূর্ণ শহর অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্পের আওতায় দ্বিতীয় পর্যায়ে এ উন্নয়ন কাজের উদ্বোধন করেন কাউন্সিল আনিছ কোরাইশী। এই প্রকল্পের আওতায় ১১নং ওয়ার্ডের রবীন্দ্র স্মরণী রাস্তা হতে কালী নদী, কম্ভু মৌঝি রাস্তা হতে এমএমসি রোড, বিশ^নাথ নন্দির বাড়ি হতে রবীন্দ্র স্বরণীর আরব মার্কেট, অর্পন মিত্রর বাড়ি হতে মিঃ হাসমত এর বাড়ি , চৌধুরী বাহাবন হতে নিলিমা বাহাবন, প্রফেসর নারায়ন চন্দ্র বাড়ি হতে রেল বাজার, রবির বাড়ি হতে ফটিকের বাড়ি ও খোকার বাড়ি হতে তৌহিদ এর বাড়ি পর্যন্ত । উদ্বোধনকালে আনিছ কোরাইশী বলেন- এই নির্মান কাজ শেষ হলে অত্র এলাকার  মানুষের ভোগান্তি কমে যাবে ও যানবাহন চলাচলে সমস্যা হবে না। তিনি নির্মাণ কাজে এলাকাবাসীর সহযোগীতায় কামনা করেন। এসময় উপস্থিত ছিলেন পৌরসভার কাউন্সিলর গোলাম মোস্তফা লাবলু, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান জিয়া এন্টারপ্রাইজ এর প্রতিনিধিসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

আজ বাংলাদেশ আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরাম কুষ্টিয়ার ৬ উপজেলার  সম্মেলন

বাংলাদেশ আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরাম (আসাফো) কুষ্টিয়া জেলা শাখার ৬ উপজেলার সম্মেলন আজ শুক্রবার। কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের সভাকক্ষে বিকেল ৩টায় অনুষ্ঠিত হবে এ সম্মেলন। সম্মেলনে প্রধান অতিথি থাকবেন কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আলহাজ্ব সদর উদ্দিন খান। সম্মেলনটি উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশ আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরাম (আসাফো) এর সভাপতি সাইদুর রহমান সজল। বাংলাদেশ আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরাম (আসাফো)  কুষ্টিয়া জেলা শাখার সভাপতি সাংবাদিক হাসিবুর রহমান রিজুর সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি থাকবেন কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আজগর আলী, কুষ্টিয়া সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও কুষ্টিয়া শহর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আতাউর রহমান আতা, বাংলাদেশ আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরাম (আসাফো) এর সাধারণ সম্পাদক শাহাদৎ হোসেন লিটন, কুষ্টিয়া জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সভাপতি জেব উন নিসা সবুজ, বাংলাদেশ আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরাম (আসাফো) এর প্রেসিডিয়াম সদস্য প্রফেসর মোঃ আকমল হোসেন, বাংলাদেশ আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরাম (আসাফো) এর সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম ইকবাল হোসেন। সম্মেলনটি পরিচালনা করবেন বাংলাদেশ আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরাম (আসাফো) কুষ্টিয়া জেলার সাধারণ সম্পাদক আলমগীর হোসেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

ওলগা তোকারচুক ও পিটার হান্দকে পেলেন সাহিত্যের নোবেল

ঢাকা অফিস ॥ পোলিশ লেখক ওলগা তোকারচুক ও অস্ট্রিয়ার পিটার হান্দকে পেয়েছেন সাহিত্যের নোবেল পুরস্কার। রয়্যাল সুইডিশ অ্যাকাডেমি বৃহস্পতিবার ২০১৮ ও ২০১৯ সালের নোবেল পুরস্কারের জন্য এ দুই সাহিত্যিকের নাম ঘোষণা করে। যৌন অসদাচরণের এক অভিযোগের তদন্ত নিয়ে জটিলতায় গতবছর সাহিত্যের সবচেয়ে সম্মানজনক এ পুরস্কার ঘোষণা করা হয়নি। ২০১৮ সালের নোবেল পুরস্কার জয়ী ওলগা তোকারচুক গতবছর বুকার পুরস্কারও পেয়েছিলেন। আর গত কয়েক বছর ধরেই মনোনয়নে নাম আসা পিটার হান্দকে পেয়েছেন ২০১৯ সালের নোবেল। আগামী ১০ ডিসেম্বর স্টকহোমে এ দুই সাহিত্যিকের হাতে আনুষ্ঠানিকভাবে তুলে দেওয়া হবে নোবেল পুরস্কারের ৮০ লাখ ক্রোনার। এর আগে ২০১৭ সালে জাপানি বংশোদ্ভূত ব্রিটিশ লেখক কাজুও ইশিগুরো সাহিত্যে নোবেল পুরস্কার পান।

দৌলতপুর সীমান্তে মাদক উদ্ধার

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সীমান্তে বিজিবি’র পৃথক অভিযানে মাদক উদ্ধার হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার ভোররাত সাড়ে ৪টার দিকে জামালপুর বিওপি’র টহল দল জামালপুর উত্তর মাঠে অভিযান চালিয়ে ৬৫ বোতল ফেনসিডিল উদ্ধার করেছে। বুধবার দিবাগত রাত  পৌনে ১টার দিকে প্রাগপুর বিওপি’র টহল দল চকবিলগাথুয়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে ২০ বোতল ভারতীয় জেডি মদ উদ্ধার করেছে। এছাড়াও বুধবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে চিলমারী বিওপি’র টহল দল আকন্দপাড়া মাঠে অভিযান চালিয়ে ৩৯ বোতল জেডি মদ উদ্ধার করেছে। তবে উদ্ধার হওয়া মাদকের সাথে জড়িত কেউ আটক হয়নি বলে বিজিবি সূত্র জানিয়েছে।

দৌলতপুরে ফেনসিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ফেনসিডিলসহ ফারক (২৬) নামে এক মাদক ব্যবসায়ী আটক হয়েছে। বুধবার রাত পৌনে ১০টার দিকে উপজেলার হোসেনাবাদ সরদারপাড়া চাররাস্তার মোড়ে অভিযান চালিয়ে ২৫ বোতল ফেনসিডিলসহ তাকে আটক করে পুলিশ। সে ময়রামপুর কান্দিরপাড়া এলাকার ইমারুল মোল্লার ছেলে। দৌলতপুর থানার ওসি এস এম আরিফুর রহমানের নির্দেশে দৌলতপুর থানা পুলিশ হোসেনাবাদ সরদারপাড়া চাররাস্তার মোড়ে অভিযান চালিয়ে ফেনসিডিলসহ মাদক ব্যবসায়ী ফারুককে আটক করে। পরে তাকে গতকাল বৃহস্পতিবার আদালতে সোপর্দ করা হয়।

কালুখালীর রতনদিয়া ইউপিতে সদস্য পদে উপ-নির্বাচনে সঞ্জয় হালদারের গণসংযোগ

কালুখালী অফিস ॥ আসন্ন ১৪ অক্টোবর রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলার রতনদিয়া ইউপির ১নং ওয়ার্ডে সদস্য পদে উপ-নির্বাচনে সঞ্জয় হালদার গণসংযোগে ব্যস্ত সময় পার করছেন। সঞ্জয় ওয়ার্ডের রতনদিয়া গ্রামের সর্গীয় অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক বাবু সুধির কুমার হালদারের সুযোগ্য পুত্র। বাবার নামের ঐতিহ্য হিসেবে সঞ্জয় হালদার ওয়ার্ডের ২২৮৩ জন সাধারণ ভোটারদের পাশে গিয়ে নিজের ফুটবল মার্কা প্রতিকে ভোট প্রার্থনা করছেন। গতকাল তিনি তার সমর্থকদের নিয়ে জনবহুল রতনদিয়া অরুণগঞ্জ বাজারের ব্যবসায়ীদের সাথে গণসংযোগ করেন  এবং তার নিজের প্রতিক ফুটবলে ভোট দেওয়ার জন্য মতবিনিময় করেন। প্রচারণা শেষে নির্বাচনের ব্যাপারে সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে তিনি বলেন বিজয় অর্জন করতে পারলে প্রপার ওয়ার্ড হিসেবে জনসাধারন এবং ওয়ার্ড উন্নয়নের জন্য নিরলসভাবে কাজ করে যাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেন। উল্লেখ্য গত ১৮ জুন উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে এই ওয়ার্ড থেকে নির্বাচিত ইউপি সদস্য তনয় চক্রবর্তী শম্ভু উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী হওয়ায় তার এ পদটি শূণ্য হয়।

দুদক মহাপরিচালককে সাংবাদিক অধিকার ফোরাম কুষ্টিয়ার ফুলেল শুভেচ্ছা

দুর্নীতি দমন কমিশনের মহাপরিচালক (প্রশাসন) কুষ্টিয়ার সাবেক জেলা প্রশাসক মোঃ জহির রায়হানকে বাংলাদেশ সাংবাদিক অধিকার ফোরাম কুষ্টিয়া শাখার পক্ষ থেকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। গতকাল সন্ধায় কুষ্টিয়া সার্কিট হাউসে সাংবাদিক অধিকার ফোরাম কুষ্টিয়ার সভাপতি নুর আলম দুলাল ফোরামের পক্ষ থেকে মহাপরিচালক মোঃ জহির রায়হানকে এ শুভেচ্ছা জানান। এ সময় অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক, শিক্ষা, আইসিটি) আজাদ জাহান, এনডিসি এবিএম আরিফুল ইসলাম উপস্থিত ছিলেন। এর আগে ফোরামের সভাপতি নুর আলম দুলালের সাথে দুদক মহাপরিচালক মোঃ জহির রায়হান কুষ্টিয়ার বিভিন্ন প্রেক্ষাপট নিয়ে মতবিনিময় করেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

টাকার পেছনে ছোটায় আইনজীবীদের প্রতি আস্থা হারাচ্ছে মানুষ – রাষ্ট্রপতি

ঢাকা অফিস ॥ রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বলেছেন, আমার মনে হয়ে আইনজীবীদের ওপর থেকে মানুষ আস্থা হারিয়ে ফেলেছে। তাদের কাছে আইনি সেবা নিতে গিয়ে হয়রানি হয়। কেবল টাকার পেছনে ছোটার যে কালচার তৈরি হয়েছে, তা থেকে বের হয়ে আসতে হবে। তবেই মানুষ আইনজীবীদের আগের মতো শ্রদ্ধা করবে। বৃহস্পতিবার দুপুরে কিশোরগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতির দেয়া সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন। রাষ্ট্রপতি বলেন, অতীতে রাজনৈতিক ও সামাজিক ক্ষেত্রে আইনজীবীদের যে গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকা ও ঐতিহ্য ছিল তা আজ অনেকটাই ম্লান হয়ে গেছে। আগে যারা সংসদে এমপি হতেন তাদের একটা বড় অংশই ছিল আইনজীবী। তারা সমাজ ও রাষ্ট্রে নেতৃত্ব দিতেন কিন্তু; বর্তমান সময়ে নানা অবক্ষয়ের কারণে সেটা আর দেখা যায় না। তিনি পরিসংখ্যান দিয়ে বলেন, ১৯৭০ সালের পার্লামেন্টে আইনজীবীর সংখ্যা ছিল ৫১ ভাগ। অষ্টম সংসদে ছিল মাত্র ৩৩ জন। এখন হয়ত তা আরও কম। রাষ্ট্রপতি আইনজীবীদের সমালোচনা করে বলেন, আমার মনে হয় কেবল টাকার পেছনে ছোটার কারণে আইনজীবীদের ওপর থেকে মানুষ আস্থা হারিয়ে ফেলেছে। তাদের কাছে আইনি সেবা নিতে গিয়ে হয়রানি হয়। তবে এই মানসিকতা থেকে বেরিয়ে আসতে হবে। তবেই মানুষ আইনজীবীদের আগের মতো শ্রদ্ধা করবে।

ফাহাদের পরিবারকে সমবেদনা জানালেন কুষ্টিয়া বিএনপির নেতৃবন্দ

বাংলাদেশ প্রকৌশলী বিশ্ববিদ্যালয়ে ছাত্রলীগের নির্যাতনে নিহত আবরার ফাহাদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানাতে ও খোঁজ খবর নিতে তার গ্রামের বাড়ী কুমারখালীর রায়ডাঙ্গা গ্রামে যান কুষ্টিয়া জেলা বিএনপি’র নেতৃবন্দ। বৃহস্পতিবার দুপুর ৩টায় বিএনপি’র চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা জেলা বিএনপি’র সভাপতি সাবেক সংসদ সদস্য বীরমুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ মেহেদী আহমেদ রুমী এবং বিএনপির স্থানীয় সরকার বিষয়ক সম্পাদক জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক সাবেক সংসদ সদস্য বীরমুক্তিযোদ্ধা সোহরাব উদ্দিনের নেতৃত্বে ১০ সদস্যের একটি উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি দল নিহত আবরারের বাড়ীতে যান। সেখানে তারা আবরারের দাদা, পিতা বরকতউল্লাহসহ শোকাহত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান এবং কিছু সময় অবস্থান করেন। এসময় নেতৃবন্দ আবরার হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করেন। এরপর গোরস্থানে নিহত আবরারের কবর জিয়ারত করেন নেতৃবৃন্দ। এসময় জেলা বিএনপির যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রাজ্জাক বাচ্চু, সাংগাঠনিক সম্পাদক এ্যাড. শামীম উল হাসান অপু, যুব বিষয়ক সম্পাদক মেজবাউর রহমান পিন্টু সহ কুমারখালী কয়া ইউনিয়ন বিএনপি ও অঙ্গ সংগঠন সমূহের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

ভেড়ামারায় আবরার ফাহাদের খুনিদের ফাঁসির দাবিতে মিছিল ও মানববন্ধন

আল-মাহাদী ॥ বুয়েটের ছাত্র কুষ্টিয়ার সন্তান আবরার ফাহাদ হত্যার প্রতিবাদে খুনিদের ফাঁসির দাবিতে গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে সম্মিলিত ছাত্র সমাজের উদ্যোগে কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা ডাকবাংলোর সামনে বিক্ষোভ মিছিল, সমাবেশ ও মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। কর্মসূচিতে ছাত্রলীগ নেতা আশরাফ হোসেন আলো, কুষ্টিয়া পলিটেকনিকের ছাত্র ফাহিম ও আবতাহি, কুষ্টিয়া সরকারী কলেজের ছাত্র আদনান, ভেড়ামারা কলেজের ছাত্র ইমরান, মাগুরা পলিটেকনিকের ছাত্র মাহফুজ, ঢাকা মাইলস্টোন কলেজের ছাত্র কাব্য, ড্যাফোডিল বিশ^বিদ্যালয়ের ছাত্র রুদ্র, জগন্নাথ বিশ^বিদ্যালয়ের ছাত্র শৈশব ও এআইইউবি এর ছাত্র শান্ত সহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা অংশ নেন। এসময় শিক্ষার্থীদের হাতে নানা রং বেরং এর ফেস্টুন এবং ষ্টীকার লেখা কাগজ দেখা গেছে।

কুষ্টিয়ার ওয়াদী জুট মিলে ভয়াবহ আগুন, পৌনে দুই কোটি টাকার ক্ষতি

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া সদর উপজেলার স্বর্গপুরে ওয়াদী জুটমিলে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। এতে মিলের প্রায় পৌনে দুই কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ওয়াদী জুট মিলস্ লি:এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাজী ওমর ফারুক জানান বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ৩টার দিকে মিলের পাটের গোডাউনে আগুন লাগে। তাৎক্ষনিকভাবে কুষ্টিয়া ও মিরপুর ফায়ার সার্ভিস স্টেশনে খবর দেয়া হলে তাদের ৫টি ইউনিট ঘটনাস্থলে এসে আগুন নেভানোর চেষ্টা করে। স্থানীয় এলাকাবাসীর সহায়তায় টানা ৫ঘন্টা পর আগুন নিয়ন্ত্রনে আসে। তবে এরই মধ্যে প্রায় ১কোটি ৪৫ লাখ টাকার পাট পুড়ে ও পানিতে ভিজে বিনষ্ট হয়। তাছাড়া অগ্নিকান্ডের ক্ষতি হয় স্থাপনারও। যার অর্থমূল্য প্রায় ৫৫লাখ টাকা। কুষ্টিয়া ফায়ার স্টেশনের সিনিয়র স্টেশন অফিসার আলী সাজ্জাদ জানান ওয়াদী জুট মিলে ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটে। এতে গুদামে থাকা বিপুল পরিমান পাট ও স্থাপনার ক্ষতি হয়েছে। তবে কী কারনে অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে তা নিশ্চিত করে বলতে পারেননি তিনি।

উল্লেখ্য সম্প্রতি স্থানীয়ভাবে কুষ্টিয়ার খাজানগরে পাটের ব্যবহার নিশ্চিত করনে ওয়াদী জুট মিল প্রতিষ্ঠা করেন ওয়াদী জুট মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাজী ওমর ফারুক। মিল প্রতিষ্ঠার পর থেকেই বিপুল পরিমান পাটের বস্তা উৎপাদন শুরু করে। বিপুল সংখ্যক বেকার মানুষের কর্মসংস্থানের পাশাপাশি পরিবেশ বান্ধব পাটের বস্তার কদরও বাড়তে থাকে। কিন্তু এরই মধ্যে অগ্নিকান্ডের কারনে উৎপাদন ব্যহতের পাশাপাশি বিপুল পরিমান আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হলো প্রতিষ্ঠানটি। তবে সবার সহযোগিতায় প্রতিষ্ঠানটি পুনরায় মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে সক্ষম হবে বলে মনে করেন প্রতিষ্ঠানের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাজী ওমর ফারুক। এজন্য তিনি সকলের দোয়া কামনা করেন। এ ব্যাপারে কুষ্টিয়া মডেল থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী করা হয়েছে।

সাভার ও রূপগঞ্জে ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্টের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

ইউনিয়ন পর্যন্ত নিরাপদ খাবার পানি সরবরাহে কাজ করছে সরকার

ঢাকা অফিস ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, তাঁর সরকার জেলা ও উপজেলা থেকে ইউনিয়ন পর্যন্ত নিরাপদ খাবার পানি সরবরাহ নিশ্চিত করতে কাজ করে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে জেলা ও উপজেলা থেকে ইউনিয়ন পর্যায়ের মানুষের কাছে নিরাপদ খাবার পানি পৌঁছে দেয়া। তিনি বলেন, আমরা বর্তমানে কেবল ঢাকা নয়, বিভাগীয় শহরগুলোতেও নিরাপদ খাবার পানি সরবরাহ করছি। প্রধানমন্ত্রী গতকাল বৃহস্পতিবার মুন্সিগঞ্জের লৌহজংয়ের জশলদিয়ায় পদ্মা ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্ট (ফেজ-১) ঢাকার সাভারের তেতুলঝরায় ওয়েল ফিল্ড কনস্ট্রাকশন প্রজেক্ট (ফেজ-১) এবং নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জের গান্ধাপুর ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্লান্টের উদ্বোধন ও ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপনকালে পানি ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে সবার প্রতি আহ্বান জানান। প্রথম ২টি প্রকল্পের যথাক্রমে ৪৫ কোটি ও ১৫ কোটি লিটার পানি সরবরাহ এবং শেষের প্রকল্পটির ৫০ কোটি লিটার পানি শোধনের সক্ষমতা রয়েছে।এলজিআরডি মন্ত্রী তাজুল ইসলাম, স্থানীয় সরবরাহ বিভাগের সচিব হেলাল উদ্দীন আহমেদ, বাংলাদেশে চীনের রাষ্ট্রদূত লি-জিমিং, দক্ষিণ কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত হু কাং-ইল, এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাংকের (এডিবি) কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশ ও ঢাকা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক তাকসিম এ খান অনুষ্ঠানে বক্তৃতা করেন। এতে রাজধানীর ক্রম বর্ধমান পানি চাহিদা মেটাতে এই ৩ প্রকল্প এবং বিগত ১০ বছরে ঢাকা ওয়াসার গৃহীত বিভিন্ন প্রকল্প ভিডিও উপস্থাপনার মাধ্যমে দেখানো হয়। শেখ হাসিনা বলেন, ‘সবার জন্য নিরাপদ পানি’ সরকারের এই স্লোগানকে ধারণ করে ঢাকা ওয়াসা রাজধানীর বস্তিগুলোতে আইনসম্মত ও নিরাপদ পানি সংযোগের প্রক্রিয়া ইতোমধ্যে নিশ্চিত করেছে। পর্যায়ক্রমে সব বস্তি পানি সরবরাহের আওতায় আনা হবে। তিনি বলেন, ২০২১ সালের মধ্যে সব বিভাগীয় শহরে ভূ-উপরিস্থ পানির উৎসের মাধ্যমে নিরাপদ পানি নিশ্চিত করার লক্ষ্যে কাজ চলছে। প্রধানমন্ত্রী ভূ-গর্ভস্থ পানির ওপর চাপ কমাতে বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ ও ব্যবহারের ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, ভূ-গর্ভস্থ পানির ওপর নির্ভরতা না কমালে আমাদেরকে গুরুতর পরিণতির মোকাবেলা করতে হবে। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বৃষ্টির পানি সংরক্ষণ ব্যবস্থার জন্য শিল্পাঞ্চল ও আবাসিক এলাকায় জলাধার নির্মাণ এবং বর্জ্য ও দূষিত পানি নিষ্কাশনের পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী সেচ কাজে বৃষ্টি ও ভূ-উপরিস্থ পানি ব্যবহারের জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, বৃষ্টির পানি সংরক্ষণে ৪ হাজার ৭শ’ জলাধার নির্মাণ করা হয়েছে এবং গুরুত্বপূর্ণ সব নদীর নাব্যতা বজায় রাখা ও তা জলাধার হিসেবে ব্যবহার করতে নদী খননের কাজ চলছে। তিনি বলেন, পরি¯্রবনের মাধ্যমে ৭ হাজার পুকুর লবণাক্ততামুক্ত হয়েছে। এছাড়া লবণাক্ত অঞ্চলে ৩২ হাজার ৬শ’ গভীর নলকূপ স্থাপন করা হয়েছে। তিনি বলেন, মানুষের নগরমুখী প্রবণতা বন্ধ করতে গ্রামের জনগণের কাছে নাগরিক সকল সুযোগ-সুবিধা পৌঁছে দিতে তাঁর সরকার কাজ করছে। সবার জন্য বিশুদ্ধ খাবার পানি নিশ্চিত করতে সরকারের উদ্যোগ তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, পানি সরবরাহ, স্যুয়ারেজ এবং ড্রেনেজ সিস্টেম নিয়ে আমাদের সরকার তিনটি মাস্টার প্লান তৈরি করেছে পাশাপাশি ঢাকা ওয়াটার সাপ্লাই এন্ড স্যুয়ারেজ এ্যাক্ট, ন্যাশনাল ওয়াটার সাপ্লাই এন্ড স্যানিটেশন এ্যাক্ট ২০১৪ পাস এবং ১৯৯৯ সালে জাতীয় পানি নীতি এবং ন্যাশনাল পলিসি ফর আর্সেনিক মিটিগেশন এন্ড ইমপ্লিমেন্টেশন প্লান গ্রহণ করা হয়। এমডিজি’র সফল বাস্তবায়নের কথা তুলে ধরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতিসংঘের ঘোষিত এসডিজি-২০৩০ এর ১৭টি লক্ষ্যের মধ্যে ৬ নম্বর হচ্ছে ‘সবার জন্য স্যানিটেশনের টেকসই ব্যবস্থাপনা ও পর্যাপ্ত সুযোগ নিশ্চিত করা। আমরা সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনায় এসডিজি সমন্বিত করেছি এবং এটি বাস্তবায়ন হচ্ছে।

 

হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ কুষ্টিয়া সদর উপজেলার পক্ষ থেকে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারকে বিজয়া’র শুভেচ্ছা

নিজ সংবাদ ॥ হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ কুষ্টিয়া সদর উপজেলা শাখার পক্ষ থেকে, কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মোঃ আসলাম হোসেন ও পুলিশ সুপার এস.এম.তানভীর আরাফাত পি.পি.এম (বার) কে শারদীয় দুর্গোৎসব পরবর্তী বিজয়া’র শুভেচ্ছা জানানো হয়েছে। হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ কুষ্টিয়া সদর উপজেলা শাখার সভাপতি ব্যারিস্টার গৌরব চাকীর নেতৃত্বে ১০ অক্টোবর বৃহস্পতিবার দুপুরে জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে জলা প্রশাসক মোঃ আসলাম হোসেন ও পুলিশ সুপার’র কার্যালয়ে পুলিশ সুপার এস.এম.তানভীর আরাফাত পি.পি.এম (বার) কে শারদীয় দুর্গোৎসব পরবর্তী বিজয়া’র শুভেচ্ছা জানানো হয়। এ সময় উপস্থিত থেকে জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপার’র সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ কুষ্টিয়া সদর উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক কিশোর কুমার ঘোষ জগত, উপদেষ্টা উত্তম সাহা, সভাপতি মন্ডলী সাংবাদিক সুজন কুমার কর্মকার, গণেষ জোয়ার্দ্দার, সাংগঠনিক সম্পাদক অসিম পাল, আইন সম্পাদক এ্যাডঃ আশুতোষ কুমার পাল দেবাশিষ, যুব সম্পাদক এ্যাডঃ কৌশিক রঞ্জন পাল, যুব ঐক্য পরিষদ জেলা শাখার আহবায়ক মিহির চক্রবর্তী, ছাত্র ঐক্য পরিষদ জেলা শাখার আহবায়ক আহবায়ক পরিতোষ দাস, সদস্য সচিব মানব চাকী, বাংলাদেশ ব্রাম্মন সংসদ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক অমিত বাগচী সহ অন্যান্য নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

আবরার হত্যার অভিযোগপত্র শিগগিরই – স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ হত্যা মামলার অভিযোগপত্র ‘শিগগিরই’ দাখিল করা হবে বলে আশ্বস্ত করেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল। তিনি বলেছেন, “আমরা আশা করি খুব শিগগির, খুব স্বল্পতম সময়ে মধ্যে এই মামলার পূর্ণাঙ্গ চার্জশিট প্রদান করতে পারব। আমাদের পুলিশ এ কাজটি করছে, যাতে চার্জশিট নিখুঁত হয়, সমস্ত কিছু যেন নির্ভুল হয়।” আবরারের হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তিসহ দশ দফা দাবিতে বুয়েট শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মধ্যে বৃহস্পতিবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এ মামলার অভিযোগপত্র আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করার দাবিও রয়েছে শিক্ষার্থীদের ১০ দফার মধ্যে।স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “কেন এই হত্যাকা-, সবগুলোরই এখন তদন্ত হবে। আপনারা ইতোমধ্যে শুনেছেন, যারা এই হত্যাকান্ডের সাথে সংশ্লিষ্ট ছিল, কিংবা যারা এই হত্যাকান্ডের…. আমরা ভিডিও ফুটেজ দেখে তাদের শনাক্ত করেছি। “তারপরও আরও যদি কেউ জড়িত থাকেন, সবাইকে আমরা ধরব। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত শক্ত ভাষায় এ বিষয়ে কথা বলেছেন।” তড়িৎ কৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আবরার ফাহাদ ছিলেন শেরে বাংলা হলের ১০১১ নম্বর কক্ষের আবাসিক ছাত্র। গত রোববার রাতে তাকে সেখান থেকে ডেকে নিয়ে যায় বুয়েট ছাত্রলীগের কয়েকজন। ফেইসবুকে মন্তব্যের সূত্র ধরে শিবির সন্দেহে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে আবরারকে লাঠি ও ক্রিকেট স্টাম্প দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করা হয় বলে ইতোমধ্যে পুলিশের তদন্তে উঠে এসেছে। বুয়েট ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরাই যে মাতাল অবস্থায় আবরারকে পিটিয়ে হত্যা করেছে, তা উঠে এসেছে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের এই ভাতৃপ্রতীম সংগঠনের নিজস্ব তদন্তেও। এই প্রেক্ষাপটে বুয়েট ছাত্রলীগের ১১ জনকে ইতোমধ্যে সংগঠন থেকে বহিষ্কার করা হয়েছে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ‘মাস্তানিতে’ জড়িতদের ধরতে ‘কে কোন দলের তা না দেখে’ সারা দেশের সব কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ের হলগুলোতে তল্লাশি চালানোর নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সেই প্রসঙ্গ টেনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “তিনি (প্রধানমন্ত্রী) বলেছেন, যারা দুষ্কৃতকারী, যারা এই সমস্ত কা-কারখানা ঘটায়, রাজনীতির সঙ্গে তাদের কোনো সম্পৃক্ততা নেই, সে বিষয়ে আমরা কঠিন এবং কঠোরতম। “পাশাপাশি তিনি এ কথাও বলেছেন, কোনো ইনফরমেশন কিংবা কোনো কিছু যদি থাকে কিংবা নাও থাকে। তাহলেও যেন প্রত্যেক ছাত্রাবাস তল্লাশির আওতায় নিয়ে আসা হয়। আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুসারেই কাজ করছি।” আবরার হত্যায় জড়িতদের পুলিশ ‘যথাসময়ে’ গ্রেপ্তার করতে পেরেছে মন্তব্য করে মন্ত্রী বলেন, “আমরা আশা করি, বিচারের কাজটা যাতে দ্রুততার সঙ্গে শেষ হয়। একটা নিখুঁত চার্জশিট দিয়ে সেটা আমরা সহজতর করে দিচ্ছি।” প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী হলগুলোতে কবে থেকে তল্লাশি চালানো হবে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, “আমরা আলোচনার মাধ্যমে ঠিক করে নেব, কোথায় কীভাবে…। “আরো কিছু ফর্মালিটিজ পালন করতে হয়, আপনারা জানেনৃ ইউনিভার্সিটি কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করে…। তবে আমরা কলেজগুলোতেও দেখব। “কলেজগুলোর ছাত্রাবাসগুলোতে যদি এরকম উচ্ছৃঙ্খল আচরণ করে, কিংবা আইন ভঙ্গ করে, কিংবা …। এ বিষয়ে আমাদের গোয়েন্দারা কাজ করছেন।”

বিশ্ববিদ্যালয়ের হলে ‘টর্চার সেল’ ও ‘র‌্যাগিং’ নিয়ে এক পশ্নে আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, “আমার মনে হয় বেশি রকম এ কালচারটা রয়েছে বুয়েটে। বুয়েটে আমরা এটা বেশি দেখেছি। কিছুটা দেখেছি জাহাঙ্গীরনগর ইউনিভার্সিটিতে, ঢাকা ইউনিভার্সিটিতে বেশি নেই আমার মনে হয়।… এ কালচার থেকে  কীভাবে বেরিয়ে আসবেন, বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের এ নিয়ে চিন্তাভাবনা করা উচিত বলে আমি মনে করি।” দুর্নীতির বিরুদ্ধে সরকারের ‘শুদ্ধি অভিযানে’ ভাটা পড়েছে কিনা- এমন প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, “কোনো ভাটা পড়েনি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী গতকাল সুন্দরভাবে এক্সপ্লেইন করে দিয়েছেন। আমার মনে হয় এরপর আমার আর কিছু বলার নেই।”

শুদ্ধি অভিযান সব সময়ই চালাতে হয় মন্তব্য করে তিনি বলেন, “ইদানিংকালে যেগুলো হচ্ছে, তারা মাত্রার বাইরে চলে গিয়েছে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী সে ব্যাপারে অ্যাকশন নিচ্ছেন এবং নির্দেশনা দিচ্ছেন।”