কুষ্টিয়ায় আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবসে আসলাম হোসেন

ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে সবার আগে অনগ্রসর জনগনের মাঝে অবাধ তথ্য প্রবাহ নিশ্চিত করতে হবে

আরিফ মেহমুদ ॥ কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক মোঃ আসলাম হোসেন বলেছেন, দেশে সুশাসনকে প্রতিষ্ঠা করতে সবার আগে জনগণের তথ্য অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। তথ্য প্রযুক্তি দেশের দুর্নীতিকে অনেকটাই প্রতিরোধ করেছে। তথ্যের অবাধ আদান প্রদান দেশের মানুষের অধিকার নিশ্চিত করছে এবং সকলকে সচেতন করে তুলছে। দেশের প্রতিটি নাগরিকের তথ্য পাওয়ার অধিকার আছে। তথ্য প্রদানে কোনভাবেই গড়িমসি করা কিংবা আজ-কাল করে হয়রানি ও কালক্ষেপন করা যাবেনা। সর্বক্ষেত্রে সুশাসন প্রতিষ্ঠা, স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা ও জনগণের তথ্য অধিকার নিশ্চিত করতে বর্তমান সরকার তথ্য অধিকার আইন প্রণয়ন করেছে। এটি যে  কোন প্রতিষ্ঠানের দোষ-গুণ, সফলতা-ব্যর্থতা সবকিছুকেই পরিস্কার করে দিচ্ছে। ফলে দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠিত হলে দুর্নীতি থাকবে না। এক্ষেত্রে সবার আগে দুর্নীতি বন্ধে জনগণের তথ্য অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। আর এটাই তথ্য অধিকার আইনের মূল লক্ষ্য। গতকাল রবিবার সকালে জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসনের আয়োজনে আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস উপলক্ষে আয়োজিত প্রশিক্ষণ ও আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, তথ্য অধিকার আইনটি প্রত্যেককে ভাল করে জানতে হবে। এ আইনের প্রয়োগ নিশ্চিত করতে বর্তমান সরকার নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে সবার আগে অনগ্রসর জনগনের মাঝে অবাধ তথ্য প্রবাহ নিশ্চিত করতে হবে। তৃণমূল পর্যায়ের জনগোষ্ঠির মাঝে তথ্য প্রবাহ নিশ্চিত করতে পারলেই তাদের জীবনযাত্রায় ইতিবাচক পরিবর্তন আনা সম্ভম। তিনি বলেন, প্রযুক্তির যুগে অবাধ তথ্য প্রবাহ জনগনের ক্ষমতায়নের অন্যতম পূর্বশর্ত। একটি সুখী সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়তে জনগনের দোরগোড়ায় তথ্য সেবা পৌছে দিয়ে হবে। যে কোন তথ্য পেতে বর্র্তমানে ৩৩৩ নম্বরে কল করলেই পেয়ে যাবেন আপনার কাঙ্খিত তথ্যটি। তথ্য প্রদানে খুলনা বিভাগ দেশের অন্যান্য বিভাগের চেয়ে অনেক এগিয়ে রয়েছে। তথ্য প্রদানে খুলনা বিভাগ প্রথম হয়েছে।

“তথ্যের অধিকার, সুশাসনের হাতিয়ার তথ্যই শক্তি, দুর্নীতি থেকে মুক্তি” তথ্য সবার অধিকার, থাকবে না কেউ পেছনে আর-এই  শ্লোগানকে সামনে রেখে আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবসের অনুষ্ঠানকে সার্থক ও সুন্দর করতে আলোচনা অনুষ্ঠানের আগে  জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী  বের করা হয়। র‌্যালীটি কার্যালয় চত্বর প্রদক্ষিণ শেষে সম্মেলন কক্ষে এসে আলোচনা সভায় মিলিত হয়। র‌্যালী শেষে প্রধান অতিথিসহ অন্যান্য অতিথিবৃন্দ দিনব্যাপী তথ্যমেলার বিভিন্ন স্টল পরিদর্শন করেন। জেলা প্রশাসন, সনাক, টিআইবি, স্বাস্থ্য বিভাগ,  জেলা শিক্ষা অফিস, কৃষি বিভাগ, পুলিশ প্রশাসন, ফায়ার সার্ভিস,  বেসরকারি সংস্থা দিশা, প্রাথমিক শিক্ষা অফিসসহ মেলায় ১১টি স্টল অংশগ্রহণ করেন। কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক, শিক্ষাও আইসিটি) আজাদ জাহানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বিশেষ ও সম্মানিত অতিথির বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া জেলা সিভিল সার্জন ডাঃ রওশন আরা বেগম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার নূরানী ফেরদৌস দিশা, জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক ডেপুটি কমান্ডার আলহাজ¦ রফিকুল আলম টুকু, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক, দৈনিক আন্দোলনের বাজার পত্রিকার সম্পাদক ও চ্যানেল আই প্রতিনিধি আনিসুজ্জামান ডাবলু, বাসস জেলা প্রতিনিধি ও দৈনিক কুষ্টিয়ার কাগজ পত্রিকার সম্পাদক ভোরের কাগজের জেলা প্রতিনিধি নূর আলম দুলাল। শুভেচ্ছা বক্তব্য ও আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস সম্পর্কে প্রেজেন্টেশন করেন জেলার সিনিয়র তথ্য কর্মকর্তা তৌহিদুজ্জামান।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে কুষ্টিয়ার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) ওবাইদুর রহমান, মহিলা কলেজের অধ্যক্ষ সফিকুর রহমান খান, স্থানীয় সরকার উপ-পরিচালক মৃণাল কান্তি দে, কুষ্টিয়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জুবায়ের হোসেন চৌধুরী, জেল সুপার জাকের হোসেন, শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী এটিএম মারুফ আল ফারুকী, জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা জায়েদুর রহমান, জেলা আনসার ভিডিপি কমান্ডার তরফদার আলমগীর হোসেন, কুষ্টিয়া জিলা স্কুলে প্রধান শিক্ষক এফতে খাইরুল ইসলাম, বাজার মনিটরিং অফিসার রবিউল ইসলাম, জেলা শিশু কর্মকর্তা মখলেছুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

২০৩০ সালের পর টেলিস্কোপ দিয়ে খুঁজেও গরিব মিলবে না – অর্থমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ বাংলাদেশে আর্থ-সামাজিক অগ্রগতি যেভাবে হচ্ছে তাতে ২০৩০ সালের পর টেলিস্কোপ দিয়ে খুঁজলেও দরিদ্র মানুষ পাওয়া যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। আগামী পাঁচ বছরে বাংলাদেশের জিডিপি প্রবৃদ্ধি ১০ শতাংশ ছাড়াবে বলেও আশাবাদী তিনি। রোববার বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ‘ব্লকচেইন’ প্রযুক্তি নিয়ে এক কর্মশালায় অর্থমন্ত্রী বলেন, “গত দশ বছরে আমাদের জিডিপি প্রবৃদ্ধি অবিশ্বাস্যভাবে বেড়েছে। ২০১৯ সালে বাংলাদেশ এশীয় প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রবৃদ্ধি অর্জন করেছে। এই ধারা অব্যাহত থাকলে আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি ১০ শতাংশ ছাড়িয়ে যাবে।” পদ্মাসেতু চালু হলেই জিডিপি প্রবৃদ্ধি ১ শতাংশ বাড়বে বলে আশা করছেন মুস্তফা কামাল। তিনি বলেন, ক্রয় ক্ষমতার ভিত্তিতে বাংলাদেশ এখন পৃথিবীর ৩০তম অর্থনীতির দেশ। আগামী ২০৩০ সালের মধ্যে বাংলাদেশ ‘ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত দেশ হবে’। “২০৩০ সালের পর দেশে টেলিস্কোপ দিয়ে খুঁজলেও দরিদ্র মানুষ পাওয়া যাবে না। ২০৪১ সালে বাংলাদেশ পৃথিবীর সেরা ২০ অর্থনীতির মধ্যে ঢুকে পড়বে।” দাতা সংস্থা এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) আয়োজনে ‘হার্নেস ব¬কচেইন টেকনোলজি ফর বাংলাদেশ’ নিয়ে দুই দিনব্যাপী সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন অর্থমন্ত্রী। এই অনুষ্ঠানে এডিবির আবাসিক প্রতিনিধি মনমোহন পারকাশও বাংলাদেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতির উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেন। বাংলাদেশের উন্নয়ন এখন বিশ্ববাসীর কাছে ‘রোল মডেল’ বলেও মন্তব্য করেন তিনি। বাংলাদেশেও ব্লকচেইন প্রযুক্তি বাস্তবায়ন এখন সময়ের প্রয়োজন বলে মনে করেন অর্থমন্ত্রী মুস্তফা কামাল। তিনি বলেন, পৃথিবীতে চতুর্থ শিল্প বিপ্লব শুরু হয়েছে। এখন অর্থনীতিতে রোবোটিকস, আর্টিফিসিয়াল ইন্টেলিজেন্স, বায়োটেকনোলজি, ন্যানো টেকনোলজির মতো ব্লকচেইনও ভূমিকা রাখবে।

“এই প্রক্রিয়ার মধ্যে প্রথাগত চাকরির সুযোগ সুবিধা বিলুপ্ত হওয়ার পাশাপাশি নতুন চাকরির সুযোগ সৃষ্টি হবে। তাই আমাদের জনমিতিক সুবিধা গ্রহণ করতে হলে প্রযুক্তি ভিত্তিতে শিক্ষার উন্নয়ন ঘটিয়ে এই শিল্প বিপ্লবের সুযোগ নিতে হবে। কারণ চলমান চতুর্থ শিল্প বিপ্লব অবিশ্বাস্য গতিতে প্রবৃদ্ধি হচ্ছে। এর সুবিধা নিতে হলে দ্রুত উন্নতি করতে হবে।” এর জন্য প্রযুক্তির উদ্ভাবন ও মানবসম্পদ উন্নয়নের ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন তিনি। অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা তৌফিক-ই- ইলাহী চৌধুরী ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’র সুবিধা নিয়ে ব¬কচেইন প্রযুক্তিতে অন্তর্ভুক্ত হওয়ার কথা বলেন। “যাতে সকল কার্যক্রম সম্পূর্ণভাবে স্বচ্ছ ও দ্রুত এবং অধিক টেকসই প্রক্রিয়া নিশ্চিত হয়।” তথ্য সংরক্ষণের একটি নিরাপদ ও উন্মুক্ত পদ্ধতি (এএফপি) হল ব্লকচেইন। এ পদ্ধতিতে তথ্য বিভিন্ন ব্লকে একটির পর একটি চেইন আকারে সংরক্ষণ করা হয়। এ প্রযুক্তি ব্যবহার করে যে কোনো কর্মকা- রেকর্ড করা যেতে পারে। ব্লকচেইন প্রতিটি একক লেনদেনের যাচাইযোগ্য রেকর্ড নিয়ে গঠিত হয়। কোনো তথ্য একবার লেজারে গেলে তা স্থায়ীভাবে থেকে যায় এবং কখনও মুছে ফেলা যায় না। এই প্রযুক্তি ব্যবহারের পক্ষে যুক্তি দিয়ে প্রধানমন্ত্রীর এই উপদেষ্টা বলেন, “দশ বছর আগে যখন আমাদের প্রধানমন্ত্রী ডিজিটাল বাংলাদেশের ইশতেহার দিয়েছিলেন তখন দেশের অনেকে এ নিয়ে হাসাহাসি করছিল। অনেক মানুষ বলাবলি করছিল, অযথা টাকা নষ্ট করা হচ্ছে। “অথচ তার কী দূরদর্শিতা- ডিজিটাল বাংলাদেশই আজ বাস্তবতা এবং মানুষ এটা গ্রহণ করেছে।”

 

দৌলতপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় দ্বিতীয় শ্রেণীর স্কুলছাত্রী নিহত

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে সড়ক দূর্ঘটনায় লিজা (৭) নামে দ্বিতীয় শ্রেণীর এক স্কুলছাত্রী নিহত হয়েছে। নিহত শিশু লিজা উপজেলার আড়িয়া ইউনিয়নের ঘোড়ামারা গ্রামের নিজামুল হকের মেয়ে এবং সে ভেড়ামারা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রী। গতকাল রবিবার দুপুরে বাবার সাথে অটোরিক্সা যোগে নিজ বাড়ি ফেরার সময় দৌলতপুর-কাতলামারী সড়কের বড়গাংদিয়া এলাকায় নিয়ন্ত্রন হারিয়ে অটোরিক্সা উল্টে তলে চাপা পড়ে লিজা গুরুতর আহত হয়। পরে তাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া হাসপাতালে নেওয়া হলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে সে মারা যায়। দৌলতপুর থানার সেকেন্ড অফিসার এস আই রাজিব সড়ক দূর্ঘটনায় শিশু লিজা নিহত হওয়ার ঘটনাটি নিশ্চিত করেছেন। তবে এ সংক্রান্ত থানায় কোন অভিযোগ হয়নি বলে তিনি জানান।

এক বছর পুর্তিতে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে এসপি তানভীর আরাফাত

পুলিশ বাহিনীকে দুর্নীতি ও মাদকমুক্ত করতে বদ্ধপরিকর

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ার পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত এর দায়িত্ব গ্রহনের এক বছর পূর্তি ও আসন্ন শারদীয় দূর্গোৎসব উপলক্ষে জেলা পুলিশের তরফ থেকে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়ের আয়োজন করা হয়। গতকাল রবিবার বেলা ১১টায় পুলিশ সুপারের সম্মেলন কক্ষে এই মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। মতবিনিময় সভায় পুলিশ সুপার তার বিগত এক বছরের কর্মকান্ডের সফলতা ও ব্যর্থতার কথা মিডিয়ার সামনে তুলে ধরেন। এ সময় পুলিশ সুপার এস এম তারভীর আরাফাত বলেন, আমি গত বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর কুষ্টিয়াতে যোগদান করি। কুষ্টিয়াতে মাদকের ভয়াবহতা হ্রাস, কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনৈতিক সংকট, সামাজিক দ্বন্দ্ব নিরসন, কিশোর অপরাধ দমনসহ ঝুলিতে যেমন সফলতা ধরা পড়েছে তেমনি আমার কিছু ব্যর্থতাও রয়েছে যা আমি অকপটে স্বীকার করি। পুলিশ প্রশাসনকে এড়িয়ে যাওয়া বা তাদের কাজে শতভাগ সন্তুষ্ট নন এমন অভিযোগ দুরিকরণের চেষ্টা, জেলায় বদলি বাণিজ্য বন্ধ, জুয়া বা লটারি পরিচালনা বন্ধ এবং পুলিশ সদস্যদের মাদক ব্যবহার বন্ধ করার কথা উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা পুলিশ বাহিনীকে দুর্নীতি এবং মাদকমুক্ত করতেও বদ্ধ পরিকর। সেজন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে। কুষ্টিয়াবাসী সুযোগদিলে আমরা অবশ্যই সফল হব। তিনি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে আরো বলেন, এ ব্যাপারে আমাকে সার্বিক সহায়তা ও সাহস যোগাচ্ছেন কুষ্টিয়া সদর আসনের সাংসদ ও আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ ও কুষ্টিয়ার জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন। আর সাংবাদিকদের সহযোগিতায় আমি এতটা সাফল্য অর্জন করতে পেরেছি। এরপরে পুলিশ সুপার তানভীর আরাফাত হিন্দু ধর্মালম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব দূর্গাপুজাকে সামনে রেখে আইনশৃঙ্খলা বাহিনির প্রস্তুতির বিশদ তুলে ধরে বলেন, এবারে কুষ্টিয়াতে ২৪৬ টি পুজা মন্ডপে আইন শৃংখলা বাহিনির সদস্যদের সাথে রাতে অতিরিক্ত প্রহরার ব্যবস্থা করা হয়েছে, পূজা মন্ডপ এলাকায় মাদক দ্রব্য সেবন করে কেউ উপস্থিত হতে পারবে না, নামাজের সময় এবং রাত ১০টার পর সাউন্ডবক্স ব্যবহার করা যাবে না, সর্বপরি পুজাকে উদ্দেশ্য করে কোন আইন বিরোধী কাজে কাউকে পাওয়া গেলে তাকে আইনের আওতায় আনা হবে। রাস্তা বন্ধ করে কোন প্রকার তোরণ নির্মাণ করা যাবে না। তিনি বলেন এই এক বছরে সকল ব্যর্থতা আমার সফলতা আপনাদের। এছাড়া এবারে মরমী সাধক লালন শাহ্ এর ১২৯ তম তিরোধান দিবসকে কেন্দ্র করে ছেউরিয়ার আখরা বাড়ির আশে পাশে মাদক সেবন ও বেচাকেনার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে । কুষ্টিয়ায় কিশোর গ্যাং বন্ধে তিনি বলেন, আমাদের শহরে কিশোর গ্যাং নিয়ে যে সমস্যা আছে তা নিরসনে ইতিমধ্যে পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। কিশোর গ্যাং ঠেকাতে আমাদের ভবিষ্যতে আরো কঠোর হতে হলেও আমরা হব। বক্তব্যের আগে কুষ্টিয়াতে তার এক বছর কর্ম দিবস পার করায় জেলা পুলিশের তরফ থেকে তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানানো হয়। সভায় জেলার আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে বক্তব্য রাখেন মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা(ওসি) নাসির উদ্দিন, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক, দৈনিক আন্দোলনের বাজার পত্রিকার সম্পাদক ও চ্যানেল আই প্রতিনিধি আনিসুজ্জামান ডাবলু, বাসসের কুষ্টিয়া প্রতিনিধি নূর আলম দুলাল, চ্যানেল টোয়েন্টিফোর এর স্টাফ রিপোর্টার শরিফ বিশ্বাস, প্রথম আলো কুষ্টিয়া প্রতিনিধি তৌহিদ হাসান শিপলু। এছাড়া মতবিনিময় সভায় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(ডিএসবি) মুস্তাফিজুর রহমান,অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(সার্কেল) নূরানী ফেরদৌস দিশা, কুষ্টিয়া প্রেস ক্লাবের সভাপতি মাহাবুব রহমান,কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সহ সভাপতি লুৎফর রহমান কুমার, ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক নুরুল কাদের, প্রেস ক্লাবের নির্বাহী সদস্য এম,এ জিহাদ, দেবাশীষ দত্ত, মোকাদ্দেস হোসেন সেলিম, ডালিয়া পারভীন, নিজাম উদ্দিন, দৈনিক দিনের খবর সম্পাদক ফেরদৌস রিয়াজ জিল্লু, নতুন সময় টিভির কুষ্টিয়া রির্পোটার সানি আজিম সনি প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। মত বিনিময় শেষে উপস্থিত সকলে পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাতের হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেন।

 

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে ‘সেইফ জোন’ সম্ভব নয় – মিয়ানমার

ঢাকা অফিস ॥ রোহিঙ্গাদের দেশে ফিরিয়ে নেওয়ার ক্ষেত্রে ‘সেইফ জোন’ বা নিরাপদ অঞ্চল গঠনের প্রস্তাব নাকচ করে দিয়ে মিয়ানমার বলেছে, দুই বছর আগে সম্পাদিত দ্বিপক্ষীয় প্রত্যাবাসন চুক্তির বাইরে গিয়ে কিছু করার নেই। জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনের পঞ্চম দিনের বিতর্কে নিউ ইয়র্কের স্থানীয় সময় শনিবার রাতে মিয়ানমারের স্টেট কাউন্সিলর কার্যালয়ের মন্ত্রী কোয়ে তিন্ত সোয়ে একথা বলেন। তবে আন্তর্জাতিক মহলের উদ্বেগের মুখে তালিকাভুক্ত রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনের জন্য ‘আরও উপযোগী পরিবেশ’ তৈরিতে মিয়ানমার এখন অগ্রাধিকার দেবে বলে প্রতিশ্রুতি দেন দেশটির জ্যেষ্ঠ এ কর্মকর্তা। তিনি বলেন, এক্ষেত্রে অন্যান্য বিষয়ের মধ্যে বাংলাদেশ, জাতিসংঘ ও দক্ষিণ পূর্ব এশিয়ার দেশগুলির জোটে আসিয়ানের মধ্য সহযোগিতা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। ২০১৭ সালের আগস্টে সেনা অভিযানের পর প্রায় ৯ লাখ রোহিঙ্গা শরণার্থী সীমান্তবর্তী বাংলাদেশের কক্সবাজারে আশ্রয় নিয়েছে। ওই বছরের নভেম্বরে বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পাদিত চুক্তি অনুযায়ী প্রত্যাবাসন হবে জানিয়ে কোয়ে তিন্ত সোয়ে বলেন, “মিয়ানমারের ভেতরে ‘সেইফ জোন’ বা নিরাপদ অঞ্চল তৈরির চাপ রয়েছে। কিন্তু এটি নিশ্চিত করা যাবে না, বাস্তবসম্মতও নয়।” বাংলাদেশকে দ্বিপক্ষীয় চুক্তি বিশ্বস্ততার সঙ্গে বাস্তবায়নের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, এটাই বাস্তুচ্যুত ব্যক্তিদের সমস্যা সমাধানের একমাত্র সম্ভাব্য উপায়। এর আগে এই অধিবেশনে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, রাখাইনে সুরক্ষা, নিরাপত্তা ও চলাফেরার স্বাধীনতাসহ সামগ্রিক অনুকূল পরিবেশ সৃষ্টি না হওয়ায় রোহিঙ্গারা মিয়ানমারে ফিরতে রাজি নয়। বর্তমানে ১১ লাখের বেশি রোহিঙ্গা বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়ে আছেন, যাদের মধ্যে প্রায় ৯ লাখ রোহিঙ্গা এসেছেন ২০১৭ সালের আগস্টে রাখাইনে নতুন করে মিয়ানমারের সেনাবাহিনীর দমন-পীড়ন শুরু হওয়ার পর। জাতিসংঘ ওই অভিযানকে ‘জাতিগত নির্মূল’ অভিযান হিসেবে বর্ণনা করে আসছে। যাচাই-বাছাই করে মিয়ানমার প্রত্যাবাসনের ৩ হাজার ৪৫০ জন রোহিঙ্গার তালিকা চূড়ান্ত করলেও দেশটি উপযুক্ত পরিবেশ তৈরিতে ব্যর্থ হওয়ায় দুদফা চেষ্টার পরও তাদের কাউকে ভিটেমাটিতে ফেরত পাঠানো যায়নি। রোহিঙ্গা সঙ্কট বড় আকার ধারণ করার পর ২০১৭ সালে জাতিসংঘের ৭২তম সাধারণ অধিবেশনে এ সমস্যার সমাধানে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী পাঁচটি প্রস্তাব তুলে ধরেছিলেন, যার মধ্যে রাখাইন রাজ্যে আলাদা ‘বেসামরিক পর্যবেক্ষক সেইফ জোন’ প্রতিষ্ঠাসহ কফি আনান কমিশনের সুপারিশগুলোর সম্পূর্ণ বাস্তবায়নের কথা ছিল। তবে এবারের অধিবেশনে রোহিঙ্গাদের স্ব-ভূমে ফিরে যাওয়া নিশ্চিত করতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘে যে চারটি প্রস্তাব দিয়েছেন, তাতে সেইফ জোনের কথা নেই। তবে সেখানে ‘রোহিঙ্গাদের নিরাপত্তার ও সুরক্ষার নিশ্চয়তায় আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় থেকে বেসামরিক পর্যবেক্ষক মোতায়েনের’ কথা বলা হয়েছে। তিন্ত সোয়ে বলেন, এখন মিয়ানমার প্রত্যাবাসনের জন্য আরও অনুকূল পরিবেশ তৈরিকে অগ্রাধিকার দেবে। রাখাইন রাজ্যে বসবাসরত এসব বাস্তুচ্যুতদের ‘পৃথক আইনি মর্যাদা’ আছে। তালিকাভুক্ত এসব প্রত্যাবর্তনকারীদের মধ্যে যারা নাগরিকত্ব পাওয়ার যোগ্য তাদের ‘নাগরিকত্ব কার্ড’ দেওয়া। বাকিদের দেওয়া হবে ‘ন্যাশনাল ভেরিকেশন কার্ড’ (এনভিসি), যাকে যুক্তরাষ্ট্রে অভিবাসীদের জন্য দেওয়া ‘গ্রিন কার্ড’ এর সঙ্গে তুলনা করেন এই কর্মকর্তা। সোয়ে দাবি করেন, বর্তমান মানবিক সংকট তৈরি হয়েছে ২০১৬ ও ২০১৭ সালে, যখন চরমপন্থী গোষ্ঠী আরাকান রোহিঙ্গা স্যালভেশন আর্মির (আরএসএ) সশস্ত্র হামলা চালায়। তার আগে রাখাইন রাজ্যে শান্তি ও স্থিতিশীলতা আনতে সরকার সচেষ্ট ছিল।

কুষ্টিয়া প্রেসক্লাব আয়োজিত তথ্য অধিকার দিবসের আলোচনা সভায় ডিসি আসলাম হোসেন

স্বচ্ছতা ও দুর্নীতি রোধে অবাধ তথ্য প্রবাহ নিশ্চিত করতে হবে

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের আয়োজনে আর্ন্তজাতিক তথ্য অধিকার দিবস উপলক্ষ্যে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ তারিখ রবিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টায় কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের এম এ রাজ্জাক মিলনায়তনে এ আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া জেলা প্রশাসক আসলাম হোসেন। তিনি বলেন স্বচ্ছতা ও দুর্নীতি রোধে অবাধ তথ্য প্রবাহ নিশ্চিত করতে হবে। জনগণের তথ্য অধিকার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে দিবসটি পালন করা হয়। তথ্যের সর্বজনীন অধিকারে আন্তর্জাতিক দিবস সাধারণত আন্তর্জাতিক তথ্য অধিকার দিবস হিসেবে পরিচিত। ইউনেস্কোর স্বীকৃতি পাওয়ার পর থেকে প্রতিবছর দিবসটি পালিত হয়। দিনটি আন্তর্জাতিক জানা অধিকার দিবস হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছিল। কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সভাপতি ও দৈনিক আজকের আলো পত্রিকার সম্পাদক গাজী মাহবুব রহমান এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক, দৈনিক আন্দোলনের বাজার পত্রিকার সম্পাদক-প্রকাশক ও চ্যানেল আই প্রতিনিধি আনিসুজ্জামান ডাবলু, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও চ্যানেল ২৪’র স্টাফ করেসপনডেন্ট শরিফ বিশ্বাস,  দৈনিক সমকাল পত্রিকা ও ডিবিসি নিউজ চ্যানেলের জেলা প্রতিনিধি সাজ্জাদ রানা, সময় টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি ও টিভি জার্নালিস্ট এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক এস এম রাসেদ, যমুনা টেলিভিশনের জেলা প্রতিনিধি মাহাতাব উদ্দিন লালন প্রমুখ।

এ সময় কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের যুগ্ম-সম্পাদক ও সময়ের কাগজ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক নুরুন্নবী বাবু, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের কোষাধ্যক্ষ ও যুগান্তর পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি আবু মনি জুবায়েদ রিপন, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের দপ্তর সম্পাদক ও বাংলা টিভি’র জেলা প্রতিনিধি এম.লিটন-উজ-জামান, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের নির্বাহী সদস্য ও আজকের সূত্রপাত পত্রিকার সম্পাদক আক্তার হোসেন ফিরোজ, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের নির্বাহী সদস্য ও দৈনিক মাটির পৃথিবী পত্রিকার সম্পাদক এম.এ জিহাদ, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের নির্বাহী সদস্য ও দৈনিক আজকের আলো পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক দেবাশীষ দত্ত, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের নির্বাহী সদস্য ও দৈনিক সূত্রপাত পত্রিকার সম্পাদক মোকাদ্দেস হোসেন সেলিম, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের নির্বাহী সদস্য ও দেশ টিভি’র প্রতিনিধি নিজাম উদ্দিন, দৈনিক দিনের খবর পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক ফেরদৌস রিয়াজ জিল্লু, আলোকিত বাংলাদেশ পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি এ.এইচ.এম আরিফ, দিপ্ত টিভি’র প্রতিনিধি দেবেশ সরকার,  দৈনিক মানবজমিন ও বেতার’র প্রতিনিধি দেলায়ার মানিকসহ প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।  আলোচনা সভা পরিচালনা করেন কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের প্রচার প্রকাশনা ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক এবং প্রথম আলোর কুষ্টিয়া প্রতিনিধি তৌহিদী হাসান।

শুরুতে পবিত্র কোরআন থেকে তেলাওয়াত করেন কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের ক্রীড়া ও সমাজ কল্যাণ সম্পাদক ও নয়াদিগন্ত’র জেলা প্রতিনিধি আ.ফ.ম নুরুল কাদের। পবিত্র শ্রী শ্রী গীতা থেকে পাঠ করেন কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের নির্বাহী সদস্য ও দৈনিক আন্দোলনের বাজার পত্রিকার সিনিয়র স্টাফ রিপোর্টার সুজন কুমার কর্মকার।

 

যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ আয়োজিত নাগরিক সংবর্ধনায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

দুর্নীতিবাজ-অসৎ ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ অব্যাহত থাকবে 

ঢাকা অফিস ॥  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে কড়া হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে সুস্পষ্টভাবে বলেছেন, দুর্নীতিবাজ এবং অসৎ ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে তাঁর সরকারের কঠোর পদক্ষেপ অব্যাহত থাকবে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমরা সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ, দুর্নীতি এবং মাদকের বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছি। একটা কথা পরিষ্কারভাবে বলতে চাই, যদি কেউ অসৎ পথে অর্থ উপার্জন করে, তার এই অনিয়ম, উচ্ছৃঙ্খলতা বা অসৎ উপায় ধরা পড়লে তার বিরুদ্ধে কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হবে। সে যেই হোক না কেন, আমার দলের হলেও তাকে ছাড় দেয়া হবে না।’ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শনিবার বিকেলে নিউ ইয়র্কে ম্যারিয়ট মারকুইজ হোটেলে তাঁর সম্মানে যুক্তরাষ্ট্র আওয়ামী লীগ আয়োজিত এক নাগরিক সংবর্ধনায় একথা বলেন। শেখ হাসিনা বলেন, সমাজে অসৎ পথে অর্থ উপার্জনের হার বেড়ে গেলে যেসব ব্যক্তি বা তাঁদের সন্তানেরা সৎ পথে জীবন নির্বাহ করতে চায়, তাঁদের জন্য সেটা কঠিন হয়ে পড়ে। তিনি বলেন, ‘একজন সৎভাবে চলতে গেলে তাকে বেশ কিছু সীমাবদ্ধতা নিয়ে চলতে হয়, আর অসৎ উপায়ে উপার্জিত অর্থ দিয়ে এই ব্র্যান্ড, ওই ব্র্যান্ড, এটা সেটা হৈ চৈ, খুব দেখাতে পারে।’ ‘ফলাফলটা এই দাঁড়ায় একজন অসৎ মানুষের দৌরাত্মে যারা সৎ জীবন-যাপন করতে চায় তাদের জীবনযাত্রাটাই কঠিন হয়ে পড়ে,’ যোগ করেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সৎ মানুষের ছেলে-মেয়েদের মনে সহসাই একটা প্রশ্ন আসতে পারে যে, কেন তাঁদের পরিবার বিলাসবহুল জীবন-যাপন করতে পারে না। বাস্তবিকভাবেই এই চিন্তা লোকজনকে অসৎ পথে ঠেলে দেয়।’ উন্নয়ন প্রকল্পসমূহে অনিয়মের প্রসঙ্গ টেনে শেখ হাসিনা বলেন, সরকার উন্নয়নের জন্য ব্যাপক পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। বাংলাদেশ আরো বেশি উন্নত হতে পারতো যদি প্রকল্পের প্রত্যেকটি টাকা যথাযথভাবে ব্যয় করা হতো। ‘এখন আমাদের খুঁজে বের করতে হবে কোথায় ফাঁক-ফোকর ও ঘাটতি রয়েছে, কারা এই কাজগুলো করছে এবং কিভাবে,’ বলেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘আরেকটা জিনিস আমি দেখতে বলে দিয়েছি-সেটা হলো কার আয়-উপার্জন কত? কীভাবে জীবন-যাপন করে? সেগুলো আমাদের বের করতে হবে।’ তিনি বলেন, ’তাহলে আমরা সমাজ থেকে এই ব্যাধিটা, একটা অসম প্রতিযোগিতার হাত থেকে আমাদের সমাজকে রক্ষা করতে পারবো, আগামী প্রজন্মকে রক্ষা করতে পারবো।’ শেখ হাসিনা বলেন, মাদকের বিরুদ্ধেও অভিযান অব্যাহত থাকবে। এটি পরিবার ও দেশকে ধ্বংস করে। মাদকের সঙ্গে জড়িত কারবারীদের আমরা খুঁজে বের করবোই। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমরা জাতীয় বাজেট সাত গুণ বাড়িয়েছি। বিএনপি-জামায়াতের শাসনামলে এই বাজেটে অর্থের পরিমাণ ছিল ৬১ হাজার কোটি টাকা। কিন্তু আমরা চলতি বছর ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকার বাজেট দিয়েছি। সব সময় সরকারের নিন্দাকারী কিছু মানুষের তীব্র সমালোচনা করে শেখ হাসিনা বলেন, যখন দেশের উন্নয়ন হয়, তখন এই মানুষগুলো অস্বস্তি বোধ করে। তারা তখন প্রতিহিংসায় সব সময় বিদেশীদের কাছে সরকারের বিরুদ্ধে নালিশ করে। গত নির্বাচনে বিএনপি’র বিপর্যয় সম্পর্কে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিএনপি নির্বাচনে আন্তরিক ছিল না। বরং তারা মনোনয়ন বাণিজ্যে ব্যস্ত ছিল। প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বলেন, দেশের মানুষ তাঁর দলের ওপর আস্থা রেখেছে এ কারণে যে তারা জানে, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকলে দেশের উন্নয়ন ও তাদের ভাগ্যের পরিবর্তন হবে। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন যে, দলের চেয়ারম্যান একজন অপরাধী সেই দলকে মানুষ কেন ভোট দেবে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, খালেদা জিয়ার এক ছেলে অর্থ পাচারের দায়ে দন্ডিত এবং অপর ছেলে সিঙ্গাপুরে ক্যাসিনো খেলতে গিয়ে ধরা খেয়েছে। তিনি বলেন, জনগণের শক্তিই সবচেয়ে বড় শক্তি। আওয়ামী লীগ জনগণের শক্তিতে বিশ্বাস করে। আওয়ামী লীগ জনগণের শক্তিতে ক্ষমতায় এসেছে। দেশের বিভিন্ন খাতে ব্যাপক উন্নয়নের কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, এই উন্নয়নে তৃণমূলের মানুষ অধিকাংশ ক্ষেত্রে উপকৃত হচ্ছে। বিদেশী ঋণগ্রহণ প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এই ব্যাপারে তাঁর সরকার সতর্কভাবে পদক্ষেপ নিচ্ছে যেন ঋণের কারণে দেশ ক্ষতিগ্রস্ত না হয়। প্রবাসীদের কল্যাণে নেয়া পদক্ষেপ সম্পর্কে শেখ হাসিনা বলেন, তাঁর সরকার তিনটি এনআরবি ব্যাংক প্রতিষ্ঠার অনুমতি দিয়েছে। প্রবাসীরা যেন দেশে বিনিয়োগে আকৃষ্ট হয় সে ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে ব্যাংক কর্তৃপক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, প্রবাসীরা যেন বৈধ প্রক্রিয়ায় দেশে টাকা পাঠাতে পারে। সে পদক্ষেপও নেয়া হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, বোয়িং কোম্পানির কাছ থেকে ইতোমধ্যে ১০টি বিমান কেনা হয়েছে। ঢাকা-নিউইয়র্ক রুট পুনরায় চালুর আলোচনা চলছে এবং আমরা আমাদের বিমান বন্দরের নিরাপত্তারও উন্নয়ন করেছি। বিভিন্ন স্থানে দূতাবাস ও কনস্যুলেট অফিস স্থাপনের কথা উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ফ্লোরিডায় একটি কনস্যুলেট অফিস খোলা হবে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, তাঁর সরকার সন্ত্রাসবাদ, জঙ্গিবাদ, দুর্নীতি ও মাদক নির্মূল করে মানুষকে উন্নত ও সুন্দর জীবন উপহার দিতে চায়-যা ছিল জাতির পিতার স্বপ্ন। তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের অনুসরণে বাংলাদেশ হবে বিশ্বে সমৃদ্ধ, উন্নত দেশ এবং ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলা। অনুষ্ঠানে জাতিসংঘে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত মাসুদ বিন মোমেন স্বাগত বক্তৃতা করেন। এ সময় মঞ্চে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন উপস্থিত ছিলেন। বক্তৃতার প্রারম্ভে ভাষা আন্দোলন, মুক্তিযুদ্ধ, ১৫ আগস্টের হত্যাযজ্ঞে বঙ্গবন্ধু ও অন্যান্য শহীদদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধার নিদর্শন হিসেবে এক মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।

মৌসুমী আপার সম্মানে শাকিব খান এবার নির্বাচন করছেন না – তায়েব

বিনোদন বাজার ॥ এফডিসি প্রাঙ্গণে বইছে নির্বাচনী হাওয়া। আগামী ১৮ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্রশিল্পী সমিতির নির্বাচন। নির্বাচনে আবারো অংশ নেবে মিশা সওদাগর ও জায়েদ খান প্যানেল। অন্যদিকে প্রথমবারের মতো সভাপতি পদে নির্বাচন করবেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী। নির্বাচনের ঘোষণা আগে দিলেও জানা যায়নি তার প্যানেলে সাধারণ সম্পাদক পদের প্রার্থী। মৌসুমীর সঙ্গে নির্বাচন করবেন ডি এ তায়েব। শুরুতে জানা যায়, শাকিব খান সভাপতি পদে নির্বাচন করবেন এবার এবং সাধারণ সম্পাদক পদে প্রার্থী হবেন তায়েব।তবে জানা গেছে, মৌসুমী নির্বাচন করছেন বলে এবার নির্বাচনে অংশ নেবেন না তিনি। মৌসুমী-তায়েব প্যানেলের জন্য শুভেচ্ছা জানান শাকিব খান।এ প্রসঙ্গে তায়েব বলেন, ‘মৌসুমী আপার সম্মানে শাকিব খান এবার নির্বাচন করছেন না। শাকিব ভাই আমাদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। অন্যদিকে মৌসুমী আপার সঙ্গে নির্বাচন করাটা আমার জন্য ভালো একটি অভিজ্ঞতা হবে আশা করি। আশা করছি সুষ্ঠু একটি নির্বাচন হতে যাচ্ছে।’নির্বাচনে অংশ নিতে আজ সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৫টার মধ্যে মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করতে পারবেন। আগামী ২ অক্টোবর দুপুর ১২টা থেকে বিকেল ৫টার মধ্যে নির্বাচন কমিশনারের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া যাবে।

৩ অক্টোবর বিকেল ৫টায় প্রার্থীদের খসড়া তালিকা প্রকাশ করা হবে। ৫ অক্টোবর মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষদিন। একইদিন চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা প্রকাশিত হবে।

বারোমাসি তরমুজ ‘ব্ল্যাকবেরি’ চাষে সফলতা

কৃষি প্রতিবেদক ॥ প্রথমবারের মতো মাচায় বারোমাসি তরমুজের চাষ করে সফলতা অর্জন করেছেন জয়পুরহাটের কৃষকরা। জেলার পাঁচবিবি উপজেলার ভারাহুত গ্রামে প্রায় ২ হেক্টর জমিতে এবার কালচে রঙের তাইওয়ান ব্ল্যাকবেরি ও হলুদ রঙের মধুমালা জাতের বারোমাসি তরমুজসহ পরীক্ষামূলক ভাবে চাষ হচ্ছে ভারতীয় জেসমিন-১ ও ২ জাতের তরমুজ।

সরেজমিন ঘুরে জানা যায়, ভারাহুত গ্রামের মুছা মিয়া ২০১৮ সালে আড়াই শতাংশ জমিতে ৪ হাজার ৭শ টাকা খরচ করে পরীক্ষামূলক ভাবে চাষ করেণ ব্ল্যাকবেরি জাতের ওই তরমুজ। ২ মাসেই তিনি ২৪ হাজার টাকার তরমুজ বিক্রি করেণ। এ সাফল্য দেখে পাশবর্তী এলাকার অনেকেই তাইওয়ান জাতের এ ব্ল্যাকবেরি তরমুজ চাষে এগিয়ে আসেন। এখন চাষ হচ্ছে প্রায় ২  হেক্টর জমিতে। ভারাহুত, কয়তাহার, কুসুমসারা, দাউসারা, মাহমুদপুর গ্রামের জমি তরমুজ চাষের উপযোগী হওয়ায় ওই এলাকা তরমুজ চাষের জন্য বেছে  নেয়া হয় বলে জানান বে-সরকারি উন্নয়ন সংস্থা ’এসো’র কৃষিবিদ  মোজাফফর রহমান। ব্ল্যাকবেরি ও মধুমালা জাতের তরমুজ শীতকাল ছাড়া বছরের সব সময় চাষ করা যায়। মাচা পদ্ধতিতে এ তরমুজের চাষ হওয়ায় উৎপাদন খরচ কম, বাজারে দামও ভালো। মালচিং পেপার বেডে সেটিং ও  নেটিংয়ের ফলে বৃষ্টি, পোকামাকড়, ইঁদুরের আক্রমণ থেকে রক্ষা পাওয়া যায়। মাচা ও মালচিং পেপার তিনবার ব্যবহার করতে পারায় ২য় ও ৩য় ধাপে তরমুজের উৎপাদন খরচ কম হয়। কীটনাশক ছাড়া বিষমুক্তভাবে কেঁচো সার, কম্পোষ্ট, বায়োনিম, ফেরোম্যান ফাঁদ ব্যবহারের কারণে রোগবালাইয়ের প্রকোপও কম। ভারাহুত গামের কৃষক রেজুয়ান এবার ৪৭ হাজার টাকা খরচ করে ৫৫ শতাংশ জমিতে তরমুজ চাষ করে খরচ বাদে লাভ করেন ১ লাখ ৬৮ হাজার টাকা। পার্শ্ববর্তী বাবু নামে অপর কৃষক ৪২ হাজার টাকা খরচ করে ৩০ শতাংশ জমিতে তরমুজ চাষ করে লাভ করেছেন ১ লাখ ২৮ হাজার টাকা। ২২ হাজার টাকা খরচ করে ১৫ শতাংশ জমিতে তরমুজ চাষ করে ১ লাখ ৩ হাজার টাকা লাভ করেছেন বলে জানান পাশের চাষী রবিউল ইসলাম। কৃষকদের উন্নত জাতের বারোমাসি ওই তরমুজ চাষে উদ্বুদ্ধ করাসহ আর্থিক ভাবে সহযোগিতা করছেন স্থানীয় বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা এ্যাহেড  স্যোশাল অর্গানাইজেশন (এসো)। তরমুজ চাষ করা কৃষকদের সঙ্গে আলাপ কালে জানা যায়, প্রতিবিঘা জমিতে তরমুজ চাষ করতে খরচ পড়ে ৩৫/৪০ হাজার টাকা। প্রতি বিঘায় তরমুজের উৎপাদন হয়ে থাকে ৪ থেকে ৫ হাজার  কেজি। বীজ লাগানোর দিন থেকে ৬৫/৭০ দিনের মধ্যে বিক্রি উপযোগী হয়। বাজারে দাম বেশি হওয়ায় এক বিঘা জমিতে উন্নত জাতের ওই তরমুজ চাষ করে খরচ বাদে লাভ থাকছে ১ লাখ থেকে দেড় লাখ টাকা পর্যন্ত। বর্তমান বাজারে ৬০ থেকে ৭০ টাকা কেজি বিক্রি হচ্ছে এ তরমুজ। একদিকে যেমন ফলন ভালো অন্যদিকে উৎপাদন খরচও কম সবমিলে ভালো লাভ থাকার কারণে আশ পাশের কৃষকরাও উদ্বুদ্ধ হচ্ছেন তাইওয়ান জাতের এ তরমুজ চাষে। ফলন কিভাবে আরও বৃদ্ধি করা যায় এ ব্যপারে প্রয়োজনীয় পরামর্শ  দেয়া হচ্ছে বলে জানান জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক কৃষিবিদ সুধেন্দ্র নাথ রায়।

রিয়ালের জয় প্রাপ্য ছিল- জিদান

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ লা লিগায় মৌসুমের প্রথম ‘মাদ্রিদ ডার্বি’তে রিয়াল মাদ্রিদ জয় পাওয়ার যোগ্য ছিল বলে মনে করেন দলটির কোচ জিনেদিন জিদান। দলের আক্রমণভাগে কিছুটা ঘাটতি দেখলেও খেলোয়াড়দের পারফরম্যান্সে সন্তুষ্ট এই ফরাসি। ওয়ান্দা মেত্রোপলিতানোয় শনিবার গোলশূন্য ড্র হয় আতলেতিকো ও রিয়ালের লড়াই। করিম বেনজেমা, টনি ক্রুসদের বেশ কয়েকটি ভালো প্রচেষ্টা রুখে দেন আতলেতিকোর গোলরক্ষক ইয়ান ওবলাক। ম্যাচের পর সংবাদ সম্মেলনে জিদান বলেন, “এটা শুধু দৃঢ়তার বিষয় নয়। গুরুত্বপূর্ণ হলো আমাদের শক্তি। আমরা একটা শক্তিশালী মাদ্রিদকে দেখলাম কারণ আমরা তাদের কোনো সুযোগ দেইনি।” “আমাদের সৃজনশীলতার অভাব ছিল। কিন্তু যা করেছি তাতে আমরা খুশি।” নগর প্রতিদ্বন্দ্বীদের মাঠ থেকে এক পয়েন্ট নিয়ে ফেরায় দলের সবাই হতাশ বলে জানিয়েছেন রিয়ালের অধিনায়ক সের্হিও রামোস। তার সঙ্গে একমত জিদানও। “আমি রামোসের সঙ্গে একমত। আমাদের আরও ভালো ফল প্রাপ্য ছিল। কিন্তু খেলোয়াড়দেরকে আমার অভিনন্দন জানাতে হবে।” “আক্রমণে আমাদের কিছুটা ঘাটতি ছিল। কিন্তু আমরা উন্নতি করতে চাই।” মৌসুমে এখনও সেরা ছন্দে দেখা যায়নি এ বছরের গ্রীষ্মকালীন দল-বদলে চেলসি থেকে রিয়ালে আসা এদেন আজারকে। তবে তা নিয়ে ভাবছেন না জিদান। “আমাদের প্রত্যেকের কাজকে মূল্যায়ন করতে হবে। আমরা চাই সে গোল করুক কারণ এটা তাকে স্বস্তি দেবে। কিন্তু এ নিয়ে কোনো সমস্যা নেই। আমরা নিশ্চিত যে সে গোল পাবে।” একমাত্র দল হিসেবে লিগে এখন পর্যন্ত অপরাজিত রিয়াল সাত ম্যাচে চার জয় ও তিন ড্রয়ে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে আছে।

 

বন্ধু হিসেবেও আমির পারফেকশনিস্ট – কারিনা

বিনোদন বাজার ॥ আমির খানের সঙ্গে জুটি বেঁধে সবগুলো সিনেমাই হিট করেছে কারিনা কাপুরের। আবারো তাদের জুটি হিসেবে দেখা যাবে নতুন সিনেমায়। সম্প্রতি ‘লাল সিং চাড্ডা’ শিরোনামে একটি সিনেমার শুটিং শুরু করেছেন আমির খান। এই সিনেমায় প্রথমে আমির খানের ছোটবেলার বন্ধু এবং পরে প্রেমিকা হিসেবে অভিনয় করবেন কারিনা কাপুর খান। আমির, কারিনার ছোটবেলার ভূমিকায় ছোট কাউকে দিয়ে অভিনয় করানো হবে। কলেজে যাওয়ার পর আমির, কারিনাকে স্ক্রিনে রোমান্স করতে দেখা যাবে।‘লাল সিং চাড্ডা’র প্রথম অংশের শুটিং পাঞ্জাবে এরইমধ্যে শুরু করে দিয়েছেন আমির খান। কয়েকদিনের মধ্যেই আমিরের সঙ্গে শুটিংয়ের সেটে যোগ দেবেন কারিনা কাপুর। এই সিনেমার জন্য আমির এরইমধ্যেই ২০ কেজি ওজন কমিয়েছেন।১০০টি জায়গায় অর্থাৎ ভারতজুড়ে ‘লাল সিং চাড্ডা’র শুটিং করা হবে। বাস্তব জীবনেও আমিরের সঙ্গে ভালো সম্পর্ক কারিনার। বন্ধু আমির প্রসঙ্গে কারিনা বলেন, ‘বন্ধু হিসেবে আমির আমার বেশ কাছের। সিনেমার পর্দায় তিনি যেমন পারফেশনিস্ট তেমনি বন্ধু হিসেবেও পারফেকশনিস্ট। যেকোনো পরামর্শের বিষয়ে আমার কাছে নির্ভরযোগ্য এজকন বন্ধু তিনি।’

পিএসজির জন্য ‘জীবন’ দিবেন নেইমার

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ মাঠের দারুণ পারফরম্যান্স দিয়ে পিএসজি সমর্থকদের মন জিততে চান ক্লাবটির ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ড নেইমার। দলের জন্য মাঠে জীবন দিতে প্রস্তুত বলেও জানিয়েছেন এই তারকা। লিগ ওয়ানে বোর্দোর মাঠে শনিবার নেইমারের একমাত্র গোলে জেতে পিএসজি। এর আগে লিগে স্ত্রাসবুর ও অলিম্পিক লিওঁর বিপক্ষেও শেষ মুহূর্তে গোল করে দলকে এনে দেন মূল্যবান দুটি জয়। গত মৌসুম শেষে নিজেই ক্লাব ছাড়তে চেয়েছিলেন ২৭ বছর বয়সী নেইমার। গ্রীষ্মকালীন দল-বদলের সময়ে বার্সেলোনার সঙ্গে পিএসজির সমঝোতা না হওয়ায় ফরাসি ক্লাবটিতেই থেকে গেছেন তিনি। তবে তাকে আর আপন করে নেয়নি ক্লাব সমর্থকরা। মাঠের দারুণ পারফরম্যান্সের পরও দুয়ো শুনতে হয়েছে বিশ্বের সবচেয়ে দামি ফুটবলারকে। ভবিষ্যৎ নিয়ে অনিশ্চয়তা থাকায় লিগে দলের প্রথম চার ম্যাচে ছিলেন না নেইমার। মাঠে ফিরে দারুণ খেলার পাশাপাশি ক্লাব সমর্থকদের মন জিততে মরিয়া তিনি। “ব্যাপারটা আপনার গার্লফ্রেন্ডের সঙ্গে সম্পর্কের মতো। যখন সবকিছু ঠিকঠাক এগোয় না, আপনি তার সঙ্গে কথা বলেন না। অনেক ভালোবাসা দিয়ে সবকিছু আবার স্বাভাবিক হয়ে উঠবে। পিএসজির জন্য আমি মাঠে আমার জীবন দিয়ে দেব।”

চার দশকে ইত্যাদি এবারের পর্ব চিত্রায়িত হয়েছে কিশোরগঞ্জের হাওর অঞ্চলে

বিনোদন বাজার ॥ চার দশকে পদার্পণ করেছে জনপ্রিয় ম্যাগাজিন অনুষ্ঠান ইত্যাদি। অনুষ্ঠানটির প্রত্যেকটি পর্ব দেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য, সভ্যতা, সংস্কৃতি, পর্যটন ও প্রতœতাত্ত্বিক জনগুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে ধারণ করা হয়। এবারের পর্ব ধারণ করা হয়েছে নৈসর্গিক সৌন্দর্যের নান্দনিক দৃশ্যাবলীতে সাজানো কিশোরগঞ্জের হাওরের মাঝে দ্বীপের মতো ভেসে থাকা মিঠামইনের হামিদ পল্লীতে। আয়োজকরা জানিয়েছেন, দুর্গম অঞ্চলে অনুষ্ঠান হওয়া সত্ত্বেও অনুষ্ঠানস্থলে প্রায় লক্ষাধিক দর্শক সমাগম হয়েছিল। এবারের পর্বের জন্য হাওর অঞ্চলের জীবন-জীবিকা, প্রাকৃতিক সৌন্দর্য তুলে ধরে জলে ও ডাঙ্গায় শতাধিক নৌকা রেখে নির্মাণ করা হয় নান্দনিক মঞ্চ।সব সময় রাতের আলোকিত মঞ্চে ইত্যাদি ধারণ করা হলেও এ স্থানের নৈসর্গিক রূপ রাতের বেলায় দেখানো সম্ভব নয় বলে এবার দিনের আলোর পড়ন্ত আভায় ইত্যাদির ধারণ শুরু হয়। বরাবরের মতো অনুষ্ঠানটি রচনা, পরিচালনা ও উপস্থাপনা করেছেন হানিফ সংকেত।এবারের অনুষ্ঠান প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘তিন দশক পেরিয়ে চার দশকে পদার্পণ করেছে ইত্যাদি। সাধারণ মানুষের সমর্থন, সহযোগিতা, ভালোবাসার কারণেই অনুষ্ঠানটি এ দীর্ঘ পথ পাড়ি দিতে পেরেছে। আমরাও সব সময় বলি ইত্যাদি সব বয়সের, সব শ্রেণি পেশার মানুষের প্রিয় অনুষ্ঠান।কারণ একটি শিশুও যেমন এটি দেখে, তেমনি তার দাদুও দেখেন। এ অনুষ্ঠানে আমরা সবার কথা বলতে চেষ্টা করি। কারণ দেশ গড়ায় সবার অবদান রয়েছে। দর্শকরা সময় বের করে আমাদের অনুষ্ঠান দেখতে বসেন। আমরাও তাদের সেই সময়ের মূল্য দিতে চেষ্টা করি।’ ইত্যাদির এ পর্বটি একযোগে বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে প্রচার হবে ৪ অক্টোবর রাত ৮টার বাংলা সংবাদের পর। নির্মাণ করেছে ফাগুন অডিও ভিশন।

নিউ জিল্যান্ডকে উড়িয়ে শুরু বাংলাদেশের যুবাদের

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ নিউ জিল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ দলকে কম রানে থামালেন দুই বাঁহাতি পেসার মৃত্যুঞ্জয় চৌধুরী ও শরিফুল ইসলাম। ব্যাটিংয়ে দলকে পথ দেখালেন আকবর আলী। অধিনায়কের ফিফটিতে সহজ জয় দিয়ে সিরিজ শুরু করল বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল। প্রথম যুব ওয়ানডেতে ৬ উইকেটে জিতেছে বাংলাদেশ। ১৭৭ রানের লক্ষ্য পেরিয়ে গেছে ৬৮ বল বাকি থাকতে। লিঙ্কনের বার্ট সাটক্লিফ ওভালে রোববার টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি নিউ জিল্যান্ডের। প্রথম ওভারে রাইস মারিউকে দারুণ এক ডেলিভারিতে বোল্ড করে দেন শরিফুল। লেগ স্টাম্পে পরে সুইং করে বেরিয়ে যাওয়া বল উড়িয়ে দেয় ব্যাটসম্যানের অফ স্টাম্প। কনর আনসেলকে বোল্ড করে শিকার শুরু করেন মৃত্যুঞ্জয়ও। সফরকারীদের দারুণ বোলিংয়ে রানের জন্য সংগ্রাম করতে হয়েছে কিউই ব্যাটসম্যানদের। ৩০ ছুঁতে পেরেছেন কেবল দুইজন। ওলি হোয়াইট করেন ৩০, কিপার বেন পোমার ফিরেন ৪০ রান করে। ২১ রানে ৩ উইকেট নেন মৃত্যুঞ্জয়। শরিফুল ৩ উইকেট নেন ৪৪ রানে। রান তাড়ায় শুরুটা ভালো হয়নি বাংলাদেশের। দুই ব্যাটসম্যানের ভুল বোঝাবুঝিতে রান আউট হয়ে ফিরেন পারভেজ হোসেন। বাঁহাতি স্পিনার জেসে টাসকফের বলে ক্যাচ দিয়ে ফিরেন আরেক ওপেনার তানজিদ হাসান। মাহমুদুল হাসান ও তৌহিদ ফিরেন থিতু হয়ে। আরডি জ্যাকসনের অফ স্টাম্পের বাইরের সাদামাটা এক ডেলিভারিতে কাট করতে গিয়ে শেষ হয় মাহমুদুলের ২৮ রানের ইনিংস। টাসকফকে বেরিয়ে এসে ওড়ানোর চেষ্টায় সীমানায় ধরা পড়েন হৃদয়। ৯৯ রানে প্রথম চার উইকেট হারানো বাংলাদেশকে জয়ের ঠিকানায় পৌঁছে দেন আকবর ও শাহাদাত। বোলারদের ওপর চড়াও হয়ে দ্রুত রান তোলেন বাংলাদেশ অধিনায়ক। শাহাদাতের সঙ্গে ৮১ রানের জুটিতে তার অবদান ৬৫। এই রান করতে ৬১ বলে হাঁকান ১১ চার। সাবধানী ব্যাটিংয়ে এক চারে ২৪ রানে অপরাজিত থাকেন শাহাদাত। একই ভেন্যুতে আগামী বুধবার হবে দ্বিতীয় ওয়ানডে। সংক্ষিপ্ত স্কোর: নিউ জিল্যান্ড অনূর্ধ্ব-১৯ দল: ৪৮ ওভারে ১৭৬ (মারিউ ২, জোহরাব ১৮, আনসেল ২৪, হোয়াইট ৩০, টাসকফ ১, লেলম্যান ২১, পোমারে ৪০, অশোক ১৪, ফিল্ড ১৭, ডিকসন ২*, জ্যাকসন ০; শরিফুল ৯-০৪৪-৩, তানজিম ১০-১-৪১-১, মৃত্যুঞ্জয় ৯-০-২১-৩, রকিবুল ১০-১-২৫-১, শামিম ১০-০-৪২-২)। বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল: ৩৮.৪ ওভারে ১৮০/৪ (তানজিদ ২৮, পারভেজ ২, মাহমুদুল ২৮, হৃদয় ২৬, শাহাদাত ২৪*, আকবর ৬৫*; টাসকফ ১০-০-৩৭-২, জ্যাকসন ৭-০-৪০-১)। ফল: বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল ৬ উইকেটে জয়ী।

মাসুদ রানা বিজয়ী হলেন রাসেল রানা

বিনোদন বাজার ॥ মাসুদ রানা সিরিজের ছবি নির্মাণের জন্য ‘মাসুদ রানা’ চরিত্রে প্রতিভা খোঁজের প্রতিযোগিতা ‘কে হবে মাসুদ রানা’ নির্বাচিত হয়েছেন রাসেল রানা।সম্প্রতি চ্যানেল আইতে প্রচারিত এ প্রতিযোগিতার গ্র্যান্ড ফিনালে অনুষ্ঠিত হয়। এতে বিজয়ী হন রাসেল রানা।যদিও তাকে দিয়ে মাসুদ রানা চরিত্রটিতে অভিনয় করানো হবে কি না, তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়ে গেছে। কারণ প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া এরই মধ্যে এ প্রতিযোগিতার সঙ্গে তাদের কোনো সম্পর্ক নেই বলে জানিয়েছে। তবে বিজয়ী রাসেল রানা পুরস্কার হিসেবে পেয়েছেন ইউনিলিভার বাংলাদেশ লিমিটেড ও চ্যানেল আইয়ের পক্ষ থেকে একটি নতুন টয়োটা গাড়ি।এদিকে মাসুদ রানার চরিত্রে অভিনয় করার সুযোগ না মিললেও বিজয়ীকে নিয়ে চ্যানেল আইয়ের পক্ষ থেকে একটি ছবি নির্মাণ করা হবে বলে জানা গেছে।

সেই মডেল প্রিয়াঙ্কা লাইফ সাপোর্টে

বিনোদন বাজার ॥ রক্তে মারাত্মক সংক্রমণ হওয়ায় অবস্থার অবনতি হয়েছে অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা জামানের। তাকে লাইফ সাপোর্ট রাখা হয়েছে।

রোববার এ তথ্য জানিয়েছে স্কয়ার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।স্কয়ার হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, প্রিয়াঙ্কার অবস্থার ক্রমেই অবনতি হচ্ছে। তাকে এখন নিবিড় পরিচর্যা কেন্দ্রে (আইসিইউ) রাখা হয়েছে। তাকে লাইফ সাপোর্ট দেয়া হয়েছে। হার্ট মাত্র ৩০ ভাগ কাজ করছে ও শরীরের অন্যান্য অঙ্গ মোটামুটি কাজ করছে।হাসপাতালের চিকিৎসকদের মতে, এটা খুবই জটিল অবস্থা। যেহেতু তার বয়স কম, তাই কিছুটা আশা রয়েছে। তবে পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে বলেও জানা গেছে।রোববার সকালে প্রিয়াঙ্কা জামানের বড় বোন জেরিন জামান বলেন, প্রিয়াঙ্কার অবস্থার ক্রমেই অবনতি হচ্ছে। তাকে লাইফ সাপোর্ট দেয়া হয়েছে। সবাই প্রিয়াঙ্কার জন্য দোয়া করবেন।‘আমার কী হয়েছে আমি নিজেও জানি না। বাট কিছু একটা তো হয়েছে।’ গত ২৪ সেপ্টেম্বর রাতে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে টিভি নাটকের শুটিংয়ের একটি ছবি দিয়ে এই পোস্ট দেন প্রিয়াঙ্কা।এরপর ২৬ সেপ্টেম্বর গুরুতর অবস্থায় তাকে রাজধানীর ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তখন জানানো হয়, প্রিয়াঙ্কা জামানের রক্তে মারাত্মক সংক্রমণ হয়েছে।এরপর অবস্থার অনবতি হলে তাকে স্কয়ার হাসপাতাল নিয়ে যাওয়া হয়।অনেক নাটকে অভিনয় করেছেন প্রিয়াঙ্কা । বিভিন্ন পণ্যের বিজ্ঞাপনচিত্র ও জনপ্রিয় সংগীতশিল্পীদের গানের মিউজিক ভিডিওতে মডেল হয়েছেন।

‘সুতোয় বাঁধা সুখের পায়রা’

বিনোদন বাজার ॥ নাট্যনির্মাতা রুলীন রহমান এবার পারিবারিক গল্পনির্ভর একটি ধারাবাহিক নাটক নির্মাণ করছেন। নাটকের নাম ‘সুতোয় বাঁধা সুখের পায়রা’। এরই মধ্যে রাজধানীর উত্তরার বিভিন্ন শুটিং হাউসে এবং বিভিন্ন লোকেশনে ধারাবাহিকটির দৃশ্য ধারণের কাজ শুরু হয়েছে। নাটকের গল্পে ওয়াহিদা মল্লিক জলিকে মায়ের চরিত্রে, মোশাররফ করিম, মুকুল সিরাজ, সাজ্জাদ রেজা ও নবাগত শাহেদকে চার ভাইয়ের চরিত্রে, রোবেনা রেজা জুঁই ও মুনিয়াকে দুই বোনের চরিত্রে, তাদের দুই স্বামীর চরিত্রে ওবিদ রেহান ও সুজাত শিমুলকে এবং মুকুরের বিপরীতে স্ত্রী দীপা, সাজ্জাদের বিপরীতে তাহমিনা সুলতানা মৌ ও শাহেদের বিপরীতে অভিনয় করছেন নাবিলা বিনতে ইসলাম। মোশাররফ করিমকে নির্মাণের এই পর্যায়ে অবিবাহিতই দেখানো হচ্ছে।এই ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় প্রসঙ্গে ওয়াহিদা মল্লিক জলি বলেন, অনেকদিন পর কোনো স্ক্রিপ্ট পেয়ে এক বসাতেই পড়ে ফেলেছিলাম আমি। এই ধারাবাহিকের গল্পটা আমার মনকে এতটাই স্পর্শ করেছিল যে স্ক্রিপ্ট এক বসাতে টানা পড়তে কোনো ক্লান্তি বা অনীহা লাগেনি আমার। রুলীন খুব ভালো একজন নির্মাতা। বেশ ধরে ধরে কাজ করে। আমি কাজটি বেশ আনন্দ নিয়ে, ভালোলাগা নিয়ে করছি। রোবেনা রেজা জুঁই বলেন, মাত্র তো কয়েকদিন হলো কাজ শুরু হয়েছে। কিন্তু এরই মধ্যে যতটুকু কাজ করেছি তাতে করে আমার কাছে মনে হচ্ছে যে দীর্ঘদিন পর একটি মনেরমতো পারিবারিক গল্পের নাটকে কাজ করছি। যে গল্পে মা আছে, ভাই বোনের গল্প আছে। আছে পরিবারের সুখ-দুঃখের গল্প, ভাঙা-গড়ার গল্প। যে কারণে কাজটি নিয়ে আমি খুবই আশাবাদী।সাজ্জাদ রেজা বলেন, যে ধরনের গল্পের নাটক দেখে আমরা বড় হয়ে উঠেছি, বেড়ে উঠেছি সেই ধরনের গল্পের নাটক এখন আর হয় না বললেই চলে। দীর্ঘদিন পর সুতোয় বাঁধা পায়রা ধারাবাহিকটির মধ্য দিয়ে সেই আশির দশকের টিভি নাটকে পরিবারের উপস্থিতিটা পাচ্ছি আমি। আমাদের দেশের টিভিতে এই ধরনের ধারাবাহিক নির্মাণই জরুরি বলে আমি মনে করি। আপাতত ধারাবাহিকটির ৫২ পর্ব নির্মিত হচ্ছে। মেলা প্রতিবেদক

শেষ সময়ের গোলে স্বপ্নভঙ্গ বাংলাদেশের

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ উত্তেজনায় ঠাসা প্রথমার্ধ শেষ হয়েছিল ১-১ সমতায়। কিন্তু শেষ দিকে গোল খেয়ে সাফ অনূর্ধ্ব-১৮ চ্যাম্পিয়নশিপের শিরোপা জয়ের স্বপ্ন গুঁড়িয়ে গেলো বাংলাদেশের। নেপালের কাঠমান্ডুর এপিএফ স্টেডিয়ামে রোববার ভারতের কাছে ২-১ গোলে হারে বাংলাদেশ। গতবারের মতো এবারও রানার্সআপ হলো দল। গোল, ধাক্কাধাক্কি, লালকার্ড-প্রথমার্ধ ছিল উত্তেজনায় ঠাসা। দ্বিতীয় মিনিটেই পিছিয়ে পড়ে বাংলাদেশ। থৈবা সিংয়ের লম্বা করে বাড়ানো বলে গুরকিরাত সিংয়ের হেড পেয়ে যান বিক্রম প্রতাপ সিং। ডি-বক্সে ঢুকে দুই ডিফেন্ডারকে ছিটকে দিয়ে কাছের পোস্ট দিয়ে লক্ষ্যভেদ করেন এই মিডফিল্ডার। ২১তম মিনিটে একটি ফাউলকে কেন্দ্র করে দুই পক্ষের খেলোয়াড়রা হাতাহাতি, ধাক্কাধাক্কিতে জড়িয়ে পড়ে। রেফারি ভারতের গুরকিরাত সিংকে সরাসরি লালকার্ড দেখান। দ্বিতীয় হলুদ কার্ড পেয়ে মাঠ ছাড়েন বাংলাদেশের মিডফিল্ডার মোহাম্মদ হৃদয়। ৪০তম মিনিটে সমতার স্বস্তি ফেরে বাংলাদেশ শিবিরে। বাঁ দিক থেকে ফয়সাল আহমেদ ফাহিমের কর্নারে আমির হাকিম বাপ্পীর ব্যাকহিলের পর দুরের পোস্টে থাকা ইয়াসিন আরাফাত মাপা শটে জাল খুঁজে নেন। গোল উদযাপন করতে গিয়ে জার্সি দিয়ে মুখ ঢেকে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন ইয়াসিন। বাংলাদেশ পরিণত হয় নয় জনের দলে। প্রথমার্ধের যোগ করা সময়ে বিক্রমের শট ফিরিয়ে বাংলাদেশের ত্রাতা গোলরক্ষক শান্ত কুমার রায়। দ্বিতীয়ার্ধে রক্ষণ জমাট রাখার দিকেই দলের মনোযোগ ছিল বেশি। কিন্তু একেবারে শেষ সময় স্বপ্ন ভেঙে যায় বাংলাদেশের। থ্রো ইনের পর বল নিয়ে একটু এগিয়ে ডি-বক্সের বাইরে থেকে রবি রানার শট লাফিয়ে ওঠা গোলরক্ষকের মাথার ওপর দিয়ে জালে জড়ালে এগিয়ে যায় ভারত। প্রথমবারের মতো বয়সভিত্তিক এই প্রতিযোগিতায় শিরোপার স্বাদ পায় তারা। অপরাজিত থেকে দুই দল ফাইনালের মঞ্চে উঠেছিল। গ্র“প পর্বে শ্রীলঙ্কাকে ৩-০ গোলে হারানোর পর ভারতের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করেছিল বাংলাদেশ। সেমি-ফাইনালে ভুটানকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল বাংলাদেশ। কিন্তু ফাইনালে পেরে উঠল না পিটার টার্নারের দল। বয়সভিত্তিক এই প্রতিযোগিতার দুই দলের মুখোমুখি লড়াইয়ে এগিয়ে গেলো ভারত। আগের তিন ম্যাচে ২০১৫ সালে সেমি-ফাইনালে টাইব্রেকারে জিতেছিল ভারত। ২০১৭ সালে রানার্সআপ হওয়ার পথে ভারতকে ৪-৩ গোলে হারিয়ে ছিল বাংলাদেশ। এবার গ্র“প পর্বে ড্র হয়েছিল দুই দলের ম্যাচ।

এটা শিল্পীস্বত্ত্বার অপমান বলে মনে করছি – ফিরোজ শাহী

বনিোদন বাজার ॥ একসঙ্গে দুটি চলচ্চত্রিরে কাজ শুরু করলনে ফরিোজ শাহী। এর বাইরে সম্প্রতি মুম্বাইতে একটি ফ্যাশন ফস্টেভ্যিালওে অংশ নলিনে। যৌথ প্রযোজনার একটি চলচ্চত্রিরে ব্যাপাওে টলউিডরে দুজন নর্মিাতার সঙ্গে এরই ভতেরে আলোচনা করছেনে। র্দীঘ দুই যুগরেও বশেি সময় ধরে অভনিয়রে সঙ্গে সম্পৃক্ত ফরিোজ শাহী। গত কয়কেবছর ধরে চলচ্চত্রিে তার সফল পদচারণা শুরু হয়ছে।ে এছাড়া শল্পিী সমতিরি সদস্য হসিবেওে সক্রয়ি তনি।ির্বতমানে চলচ্চত্রি শল্পিী সমতিরি নর্বিাচনী হাওয়া প্রসঙ্গে ফরিোজ শাহী বলনে,‘এটা তো একটা উৎসব। যখোনে আমরা সকলে মলিে একটি দনি মলিতি হই। কন্তিু দুঃখরে সাথে জানাতে চাই যে আমি সহ কয়কেজনরে ভোটাধকিার হরণ করা হয়ছেে আমাদরে সমতিরি কছিু নর্দিষ্টি নীতমিালার দোহাই দয়ি।ে এর একটি র্শত ছলিো টানা ২ বছর চলচ্চত্রি মুক্তি না পলেে তার সদস্যপদ থাকলওে ভোটাধকিার প্রয়োগরে ক্ষমতা থাকবে না। আমি অবাক ও বষ্মিতি হই। কারণ নীতমিালা মনেে চলতে আমার কোনো অসুবধিা নইে। কন্তিু এই র্শত বশিষে বশিষে কারো জন্য প্রয়োগ করা হয়ছে।ে কারণ একসময়রে অনকে ব্যস্ত কয়কেজন অভনিতোদরেও গত ২ বছরে নতুন কোনো চলচ্চত্রি মুক্তি পায়ন।ি আমি তাদরে নাম উল্লখে করতে চাই না। কন্তিু তাদরে ভোটাধকিারে কোনো সমস্যা নইে। কন্তিু সমতিরি বদিায়ী সভাপত-িসাধারণ সম্পাদক তাদরে বষিয়ে নীতমিালা শথিলি রাখলওে আমাদরে ভোটাধকিার হরণ করছেনে। এক সমতিতিে দুই নীতি কোন কারণে সটেইি আমি জানতে চাই। আর চলচ্চত্রি শল্পিরে এই খরায় কছিুটা অনয়িমতি হতইে পার।েএ ব্যাপাওে সরাসরি সমতিরি র্বতমান কমটিরি সাথে যোগাযোগ করছেনে কনিা জানতে চাইলে ফরিোজ বলনে,‘আমি সরাসরি র্বতমান সভাপতি মশিা সওদাগর ভাইকে জজ্ঞিসে করছে।ি এই উদাহরণ টনেইে বলছেি তাক।ে তনিি আমার প্রশ্নরে সদুত্তর দতিে পারনেন।ি আমি প্রযোজক সমতি,ি পরচিালক সমতিরি নতেৃবৃন্দরে কাছওে বষিয়টি জানয়িছে।ি কারণ এটাকে একজন শল্পিীস্বত্তার অপমান বলে আমি মনে কর।ি’উল্লখ্যে, ফরিোজ শাহী চলতি বছরে তার নজিস্ব প্রযোজনায় নতুন চলচ্চত্রিরে ঘোষণা দবেনে বলে জানান তনি।ি

কুষ্টিয়ায় হিন্দু বিবাহ নিবন্ধন আইন বাস্তবায়ন বিষয়ক সমন্বয় সভা

মুক্তি নারী ও শিশু উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে মানুষের জন্য ফাউন্ডেশনের  সহযোগিতায় নারী ও কন্যাদের অধিকার ও নিরাপত্তা শক্তিশালীকরণ প্রকল্পের অধীনে উপজেলা পর্যায়ে কুষ্টিয়া সদর উপজেলায় হিন্দু বিবাহ নিবন্ধন আইন বিষয়ক সমন্বয় সভা সকাল সাড়ে ১০টায় চিলিস ফুড পার্কে অনুষ্ঠিত হয়। সমন্বয় সভায় সভাপতিত্ব করেন মুক্তির প্রতিষ্ঠাতা নির্বাহী পরিচালক বীরমুক্তিযোদ্ধা মমতাজ আরা বেগম। প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া জেলাবারের সভাপতি ও পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এ্যাড: অনুপ কুমার নন্দী। অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কুষ্টিয়া জেলা শাখার মহিলা বিষয়ক সম্পাদক এবং কুষ্টিয়া জেলা বারের এজিপি এ্যাড: শীলা বসু, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ দৌলতপুর উপজেলা শাখার সভাপতি শ্রী দুলাল দেবনাথ, সদর উপজেলার হিন্দু বিবাহ রেজিষ্টার রাখী নন্দী। সভার শুরুতেই গীতা পাঠ করেন থানাপাড়া সার্বজনীন পূঁজা মন্দিরের পুরোহিত বাবলু কুমার বাগচী। স্বাগত বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কুষ্টিয়া জেলা শাখার মহিলা বিষয়ক সম্পাদক এবং কুষ্টিয়া জেলা বারের এজিপি এ্যাড: শীলা বসু। মাল্টিমিডিয়ার মাধ্যমে কার্যক্রমের লক্ষ্য উদ্দেশ্য নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন তামজীদা জান্নাতী, ট্রেনিং এন্ড ডকুমেন্টশন অফিসার, মুক্তি, কুষ্টিয়া। উন্মুক্ত আলোচনায় অংশগ্রহন করেন বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ মিরপুর উপজেলা শাখার সভাপতি বিশ্বজিত বিশ্বাস, কৃষ্ণকমল বিশ্বাস, গোপা সরকার, বিশ্বনাথ, এ্যাড: প্রদীপ কুমার সান্ন্যাল, বাপ্পী বাগচি, সুনীল কুমার চক্রবর্তী, খোকসা উপজেলার হিন্দু বিবাহ রেজিষ্ট্রার বিশ্বনাথ দাস, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ ভেড়ামারা উপজেলা শাখার সাধারন সম্পাদক কার্তিক কুন্ডু। সমন্বয় সভাটি সঞ্চালনা করেন জায়েদুল হক মতিন প্রকল্প সমন্বয়কারী, মুক্তি নারী ও শিশু উন্নয়ন সংস্থা, কুষ্টিয়া। সার্বিক সহযোগিতা করেন প্রকল্পের তাপিকুল ইসলাম, কামরুন্নাহার, রেহানা খাতুন ও ওয়াহিদুজ্জামান। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

ঝিনাইদহে স্কুল ব্যাংকিং কনফারেন্স অনুষ্ঠিত

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহে শিক্ষার্থীদের সঞ্চয়মুখী ও ব্যাংকিং সেবার প্রতি আগ্রহী করতে স্কুল ব্যাংকিং কনফারেন্স অনুষ্ঠিত হয়েছে। ব্যাংক এশিয়ার আয়োজনে শনিবার সকালে সরকারি উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গণ থেকে একটি র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিটি শহরের বিভিন্ন সড়ক ঘুরে শিশু একাডেমীতে গিয়ে শেষ হয়। পরে সেখানে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। ব্যাংক এশিয়া ঝিনাইদহ ব্রাঞ্চের প্রধান ফান্স এ্যাসিসটেন্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট তৌহিদুল ইসলাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ব্যাংক খুলনার নির্বাহী পরিচালক মোশাররফ হোসেন খান, উপ-মহাব্যবস্থাপক আমজাদ হোসেন খান, জেলা শিক্ষা অফিসার সুশান্ত কুমার দেব, সরকারি বালক উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মিজানুজ্জামান, জনতা ব্যাংকের ডিজিএম শাহাজাহান মোল্লা, ইসলামী ব্যাংকের ভিপি নজরুল ইসলাম জোয়ার্দ্দার, ফাস্ট সিকিউরিটি ইসলামী ব্যাংকের ভিপি আব্দুর রউফ ব্যাংকের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাসহ শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা বক্তব্য রাখেন। কনফারেন্সে জেলা শহরের ২৩ টি ব্যাংকের প্রধান ও ২৩টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষক, শিক্ষক ও শিক্ষার্থীরা অংশগ্রহণ করে।