সাংবাদিক হাবিবুরের মামার মৃত্যু, দাফন সম্পন্ন

আমলা অফিস ॥ দৈনিক আন্দোলনের বাজার পত্রিকার ষ্টাফ রিপোর্টার ও আমলা প্রেসক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হাবিবুর রহমানের মামা আবুল কাশেম (৫৮) আর নেই। তিনি কিডনী রোগে মঙ্গলবার সন্ধ্যা ৬টায় নিজ বাসভবনে ইন্তেকাল করেন (ইন্নালিল্লাহী…….রাজিউন)। গতকাল বুধবার সকাল ৯টায় মিরপুর উপজেলার সদরপুর বাগানপাড়াস্থ কবরস্থানে তার নামাজে জানাযা শেষে তাকে দাফন করা হয়। আবুল কাশেম মিরপুর উপজেলার সদরপুর ইউনিয়নের সদরপুর বাগানপাড়া এলাকার হাজ্বী জসিম উদ্দিনের ছেলে। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, এক ছেলে ও এক কণ্যাসহ অসঙ্খ্য গুনগ্রাহী রেখে গেছেন। কর্মজীবনে তিনি ছিলেন এক প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ী। সকালে তার জানা নামাজে অনান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন মিরপুর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আলহাজ্ব আব্দুল গফুর, সদরপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান রবিউল হক রবি, সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল হক, আমলা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি আমিরুল ইসলাম, সাধারন সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া মাসুম, সদরপুর সিদ্দিকীয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার শেখ মহিউদ্দিন আহম্মেদ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য সামসুল আরেফিন অমূল্য, জেলা কৃষকলীগের যুগ্ম-সাধারন সম্পাদক রমজান আলী সাহেব, উপজেলা যুবলীগের সহ-সভাপতি খাইরুল আলমসহ স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ। এর আগে আবুল কাশেম এর আত্মার মাগফিরাত কামনা ও পরিবারের পক্ষ থেকে দোয়া চান সদরপুর সিদ্দিকীয়া দাখিল মাদ্রাসার ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও আবুল কাশেমের ভাই মাজেদুল আলম বাচ্চু। পরে আবুল কাশেমের ছোট ভাই বড়বাড়ীয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোজাম্মেল হক।

আমলা প্রেসক্লাবকে ওয়েষ্টার্ন ইঞ্জিনিয়ারিং লিমিটেডের এসি প্রদান

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার আমলা প্রেসক্লাবকে একটি দেড় টনের এসি প্রদান করেছেন ওয়েষ্টার্ন ইঞ্জিনিয়ারিং প্রাইভেট লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক বশির আহম্মেদ। গতকাল বুধবার বিকেলে ওয়েষ্টার্ন ইঞ্জিনিয়ারিং প্রাইভেট লিমিটেড আমলা প্রেসক্লাবের  নেতৃবৃন্দদের কাছে এ এসি হস্তান্তর করেন ওয়েষ্টার্ন ইঞ্জিনিয়ারিং প্রাইভেট লিমিটেড এর সিনিয়র প্রশাসন কর্মকর্তা মোঃ সাজু উদ্দিন সুজন। এসময় উপস্থিত ছিলেন আমলা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি কাঞ্চন কুমার, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মিল্টন মালিথা, আমলা প্রেসক্লাবের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হাবিবুর রহমান, সাধারন সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া মাসুম, সাংবাদিক রুবেল আহম্মেদ নান্নু, জাহিদ হাসান প্রমুখ। আমলা প্রেসক্লাবের নেতৃবৃন্দরা ওয়েষ্টার্ন ইঞ্জিনিয়ারিং প্রাইভেট লিমিটেড এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক বশির আহম্মেদ এবং এসি প্রাপ্তির জন্য সার্বিক তত্ত্বাবধায়ক সিনিয়র প্রশাসন কর্মকর্তা মোঃ সাজু উদ্দিন সুজনের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। ওয়েষ্টার্ন ইঞ্জিনিয়ারিং প্রাইভেট লিমিটেড এলাকার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষা সামগ্রী, আর্থিক অনুদান প্রদান করে আসছে। সেই সাথে ওয়েষ্টার্ন ইঞ্জিনিয়ারিং প্রাইভেট লিমিটেড এর পক্ষ থেকে হাজী বেলায়েত হোসেন শিক্ষাবৃত্তির মাধ্যমে জেলার মেধাবী শিক্ষার্থীদের শিক্ষাবৃত্তির মাধ্যমে উচ্চ শিক্ষায় উদ্বুদ্ধ করে আসছে।

আলমডাঙ্গায় ছাত্রী উত্ত্যক্তকারিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতে জরিমানা

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ আলমডাঙ্গায় ছাত্রী উত্ত্যক্তকারি লাটাহাম্বার  হেলপারকে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার মাধ্যমে ১হাজার টাকা জরিমানা করেছেন। গতকাল দুপুরে আলমডাঙ্গা এমসবেদ আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয় এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করেন। জানা গেছে, আলমডাঙ্গা উপজেলার মধুপুর গ্রামের মুকুল আলীর ছেলে সবুজ আলী (২০) বালি টানা গাড়ির হেলপার। সকালে সবুজ লাটাহাম্বার ভর্তি বালি নিয়ে আসে ফরিদপুর গ্রামের মসজিদে। সে সময় সবুজ আলী আলমডাঙ্গা এম সবেদ আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ৪ ছাত্রীর শরীরে সিগারেটের প্যাকেটে নিজের মোবাইলফোন নাম্বার লিখে ছুড়ে মারে। এ ঘটনার পর সংশ্লিষ্ট বিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ ছাত্রী উত্ত্যক্তকারিকে আটক করে উপজেলা নির্বাহী অফিসার লিটন আলীকে অবহিত করেন। পরে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ঘটনাস্থলে পৌছে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করে অভিযুক্ত সবুজকে ১ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৩ দিনে বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।

মেঘালয়ের গভর্নরের সঙ্গে তথ্যমন্ত্রীর সাক্ষাৎ

ঢাকা অফিস ॥ তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ ভারতের শিলংয়ে মেঘালয়ের গভর্নর তথাগত রায়ের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। এসময় বাংলাদেশের তথ্যমন্ত্রী ও মেঘালয়ের গভর্নর দু’দেশের মানুষের বন্ধুত্ব ও অর্থনৈতিক উন্নয়নকে এগিয়ে নিতে পর্যটন শিল্পের বিকাশের ওপর জোর দেন। কলকাতা-আগরতলা-শিলং সফরের শেষদিন গতকাল বুধবার সকালে হাছান মাহমুদ মেঘালয় রাজ্যের রাজধানী শিলংয়ে রাজ্য গভর্নরের আমন্ত্রণে তার সাথে প্রাতরাশ বৈঠকে মিলিত হন। মন্ত্রীর সহধর্মিনী নূরান ফাতেমা ও গভর্নরের সহধর্মিনী অনুরাধা রায় এ সময় উপস্থিত ছিলেন। গভর্নর বলেন, পাহাড় ঘেরা মেঘালয় বাংলাদেশিদের জন্য আকর্ষণীয় পর্যটন অঞ্চল। আবার যোগাযোগ সুবিধা ভালো হলে এখানকার মানুষও সিলেট সীমান্ত দিয়ে বাংলাদেশের বিভিন্ন অংশে বেড়াতে যেতে আগ্রহী। তথ্যমন্ত্রী তার সঙ্গে একমত পোষণ করেন ও পর্যটন বিকাশের জন্য বাংলাদেশ সরকারের আন্তরিকতার কথা জানান। তথ্যমন্ত্রী এ সময় আগামি বছরের মার্চে বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ উদযাপনের রাষ্ট্রীয় অনুষ্ঠানে অংশ নিতে তাকে বাংলাদেশে আমন্ত্রণ জানান। ঘন্টাব্যাপী আন্তরিক এ বৈঠকে হাছান মুক্তিযুদ্ধের সময় আন্তরিক সহযোগিতার জন্য গভর্নরকে মেঘালয়ের প্রতি বাংলাদেশের অকুন্ঠ ধন্যবাদ জানান। তথাগত রায় তথ্যমন্ত্রী হাছান মাহমুদকে তার নিজের লেখা ‘যে দেশ আমাদের ছিল’ গ্রন্থটি উপহার দেন। তথ্যমন্ত্রীও তাকে নৌকা স্মারক, ঐতিহ্যবাহী নকশীকাঁথা ও জামদানি উপহার দেন। এর আগে গত মঙ্গলবার সন্ধ্যায় শিলংয়ের এশিয়ান কনফ্লুয়েন্স সেন্টারে বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশন, গৌহাটি আয়োজিত আলোচনা সভায় মানবিক, সামাজিক ও অর্থনৈতিক ক্ষেত্রে বাংলাদেশের অগ্রগতি তুলে ধরে বক্তৃতা করেন তথ্যমন্ত্রী। বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন মেঘালয় রাজ্যসভার স্পিকার মেতবাহ লিংডহ। এ সময় ‘আমাদের বঙ্গবন্ধু’ প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শিত হয়। তথ্যমন্ত্রীর সাথে গৌহাটিতে বাংলাদেশ সহকারী হাইকমিশনার এস এম তানভীর মনসুরসহ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। বাসস।

আলমডাঙ্গা পৌরসভার ডেঙ্গু প্রতিরোধে এ্যারোসল ও কিটনাশক ঔষধ প্রকরণ

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ আলমডাঙ্গা পৌরসভার উদ্যোগে নতুন বেষ্ট ফগার মেশিন দিয়ে ডেঙ্গু  প্রতিরোধে এ্যারোসল ও কিটনাশক ঔষধ ছিটান হয়েছে। গতকাল সকাল সাড়ে ১০টার দিকে আলমডাঙ্গা পৌর মেয়র ও উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি হাসান কাদীর গনু আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেন। জানাগেছে, আলমডাঙ্গা পৌরসভা নতুন ২ টি উন্নত মানের বেষ্ট ফকার মেশিন ক্রয় করে। গতকাল নতুন মেশিন দিয়ে আলমডাঙ্গা চারতলার মোড়ে ফকার মেশিন দিয়ে ঝোড়, ঝাপে, ময়লা, আবর্জনার মধ্যে এ্যারোসল ও কিটনাশ ছিটান, এখান থেকে আলমডাঙ্গা সত্যনারায়ন মন্দির, বড় মসজিদ, সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়, আদর্শ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, সরকারি কলেজ, ব্রাইট স্কুল, বালিকা বিদ্যালয়, মহিলা ডিগ্রী কলেজ, উপজেলা পরিষদ চত্তর, থানা চত্তর সহ বিভিন্ন জায়গায় মশানিধন কল্পে কিটনাশক ছিটানো হয়েছে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন, পৌর কাউন্সিলর সদরউদ্দিন ভোলা, জহুরুল ইসলাম, আলাল উদ্দিন, কাজী আলী আজগার সাচ্চু, মামুনর রশিদ হাসান, ফারুক হোসেন, আব্দুল গাফ্ফার, মহিলা কাউন্সিলর কল্পনা খাতুন, নুর জাহান বেগম, কনজারভেন্সি ইনেন্সেপেক্টর আসাদুল ইসলাম, সহকারি পরিদর্শক মামুন আক্তার, জয় বিশ্বাস, মোস্তাক আলী, পরিমল কুমার কালু, উপজেলা যুবলীগের আহবায়ক আহসান উল্লাহ প্রমুখ।

কালুখালীতে নবাগত অফিসার ইনচার্জের সাথে সাংবাদিকদের মতবিনিময়

কালুখালী প্রতিনিধি ॥ রাজবাড়ীর কালুখালী থানার নবাগত অফিসার ইনচার্জ মো. কামরুল হাসানের সাথে কালুখালী প্রেসক্লাবের সাংবাদিকদের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সন্ধ্যায় থানা অফিসার ইনচার্জের অফিস কক্ষে অনুষ্ঠিত মতবিনিময়কালে ওসি (তদন্ত) মোঃ সহিদুল ইসলাম, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান শেখ এনায়েত হোসেন, প্রেসক্লাবের সভাপতি মুহাম্মদ ফজলুল হক, সাধারণ সম্পাদক মোখলেছুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম এছাড়াও প্রেসক্লাবের রাশেদুল হক রুমি, হাসমত মোল্লা, মনিরুল ইসলাম (টিটু) সহ অন্যান্য সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। এসময় সাংবাদিকদের সাথে আলাপকালে অফিসার ইনচার্জ মো. কামরুল হাসান বলেন, সমাজ থেকে সন্ত্রাস, দূর্নীতি, মাদক, চাঁদাবাজি ও বাল্য বিবাহ মুক্ত করতে সবসময় পুলিশের অগ্রণী ভূমিকা থাকবে। দেশ উন্নয়নের সাথে সাধারণ মানুষের মাঝে পুলিশের সাথে সম্পর্ক নিবিড় হবে এবং সাধারণ মানুষের শেষ আশ্রয়স্থল হবে। যাতে করে তারা থানায় এসে কোনো ধরনের প্রতারিত না হয়। কেউ মিথ্যা অভিযোগ দিলে সেটা খতিয়ে দেখে সুষ্ঠু সমাধান দেওয়া হবে। কোনো অন্যায়কারীকে রেহাই দেওয়া হবে না। ইতিপূর্বে তিনি বিভিন্ন থানায় দক্ষতা এবং নিষ্ঠার সাথে অফিসার ইনচার্জের দায়িত্ব পালন করে সুনাম অর্জন করেছেন।

কালুখালীতে স্বল্পমূল্যে চাউল বিতরণের বিভিন্ন ইউনিয়ন পরিদর্শন করলেন এ্যাসিল্যান্ড

ফজলুল হক ॥  খাদ্য বান্ধব কর্মসূচীর আওতায় স্বল্পমূল্যে খাদ্য শস্য বিতরণের রাজবাড়ীর কালুখালী উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে বিক্রয়কেন্দ্র পরিদর্শন করলেন উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) শেখ নুরুল আলম। গতকাল পরিদর্শনকালে তিনি উপজেলার সাওরাইল ইউপির বাহের মোড় ডিলার অজিত বিশ্বাসের বিক্রয়কেন্দ্র, বিকয়া আবু সায়েম এর বিক্রয়কেন্দ্র, মৃগী নিয়ামতপুর আব্দুল হাই এর বিক্রয়কেন্দ্র, বড়কলকলিয়া বাজার আলিউজ্জামান চৌধুরী আলম এর বিক্রয়কেন্দ্র, একই বাজারের মিজানুর রহমান এর বিক্রয়কেন্দ্র এবং পাতুরিয়া নাদের হোসেন খান এর বিক্রয়কেন্দ্রসহ বিভিন্ন কেন্দ্র পরিদর্শন করেন। এসময় উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা মহব্বতুন্নেছা উপস্থিত ছিলেন। পরিদর্শনকালে তিনি নির্ধারিত দিনে প্রাপ্ত কার্ডধারীদের মাঝে সঠিক ওজনে ৩০ কেজি করে চাউল বিতরণের দিক নির্দেশনা প্রদান করেন। এছাড়াও তিনি বলেন কোনো ডিলার এই চাউল বিতরণে অনিয়ম করলে তার বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ঝিনাইদহে তথ্য সংগ্রহকালে সাংবাদিকদের উপর হামলা, থানায় অভিযোগ

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে তথ্য সংগ্রহ কালে সাংবাদিকদের উপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। এ ব্যাপারে কোটচাঁদপুর থানায় আমাদের অর্থনীতি ও প্রতিদিনের কথা পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি সুলতান আল একরাম বাদী হয়ে অভিয়োগ দায়ের করেছেন। বুধবার সাকালে উপজেলার নওয়দা গ্রামে এঘটনাটি ঘটে। ঘটনা সূত্রে যানাযায়, মঙ্গলবার দুপুরে ঝিনাইদহ প্রেসক্লাবে কোটচাঁদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের অফিস সহায়ক রীনা পারভীন হয়রানী মূলক মিথ্যা মামলা ও নির্যাতনের প্রতিবাদে সাংবাদিক সম্মেলন করেন। সেই ঘটনার সত্যতা জানার জন্য বুধবার সকালে আমাদের অর্থনীতি, প্রতিদিনের কথা পত্রিকার জেলা প্রতিনিধি সুলতান আল একরাম, বাংলা টিভির জেলা প্রতিনিধি ও নবচিত্র পত্রিকার স্টাফ রিপোর্টার আব্দুল্লাহ আল মামুন এবং সাংবাদিক হাবিব চৌধুরী মিলে কোটচাঁদপুর উপজেলার নওয়দা গ্রামে যায়। সেখানে মামলার বাদীর স্ত্রী ভিকটিমকে মামলা সর্ম্পকিত বিভিন্ন তথ্য জানতে চাই। এক পর্যায়ে বাদী আক্তারুজ্জামান আক্কাসের চাচাতো দুই ভাই সাংবাদিকদের উপর চড়াও হয়ে হামলা করতে গেলে এলাকাবাসী প্রতিহত করে। এসময় সাংবাদিক সুলতান আল একরাম কোটচাঁদপুর থানার ইনচার্জ মাহাবুবুল আলমকে ফোন দিলেও তাক্ষণিক কোন ব্যবস্থা গ্রহণ করেনি। তখন সাংবাদিকগণ তথ্য সংগ্রহ করতে বাধাপ্রাপ্ত হয়ে কোটচাঁদপুর থানায় ফিরে এসে আক্কাসের চাচাতো দুই ভায়ের নামে একটি অভিযোগ দায়ের করে। কোটচাঁদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মাহাবুবুল আলম জানান, সাংবাদিকদের অভিযোগটি গ্রহণ করা হয়েছে। ঘটনার তদন্ত করে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আলোচনার মাধ্যমে জিপি-রবির কাছে পাওনার নিষ্পত্তি – অর্থমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ আলোচনার মাধ্যমে মোবাইল ফোন অপারেটর গ্রামীণফোন (জিপি) ও রবির কাছে সরকারের রাজস্ব ও বিটিআরসির পাওনার বিষয়টি নিষ্পত্তি করা হবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। তিনি বলেন, পাওনার বিষয়ে কোনও ছাড় দেওয়া হবে না। তবে এই পাওনা আদায়ের বিষয়টি আলাপ-আলোচনার মাধ্যমেই নিষ্পত্তি করা হবে। আগামি তিন সপ্তাহের মধ্যেই একটি সুন্দর সমাধান হবে। আমরা নিজেরা হারবো না, কাউকে হারাবো না। গতকাল বুধবার সচিবালয়ে অর্থ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত এক প্রেস কনফারেন্সে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। অর্থমন্ত্রী বলেন, গ্রামীণ ও রবি গত ২২ বছর ধরে নিয়মিতভাবে ভ্যাট, ট্যাক্স ও বিটিআরসির পাওনা পরিশোধ করে আসছিল। এরমধ্যে, বিভিন্নভাবে গ্রামীণের কাছে চার থেকে সাড়ে চার হাজার ও রবির কাছে আটশ’ থেকে সাড়ে আটশ’ কোটি টাকার দাবি আছে। এ দুটি অপারেটরের কাছে আবার বিটিআরসির পাওনা সুদসহ আট হাজার কোটি টাকা। তিনি বলেন, রাজস্ব বাবদ গ্রামীণের কাছে যে চার হাজার কোটি টাকা পাওনা, তা এডিআরের মাধ্যমে নিষ্পত্তির অপেক্ষা আছে। আর বিটিআরসির যে পাওনা, তা আলোচনার ভিত্তিতে নিষ্পত্তি হবে। আমরা মনে করেছি, আলোচনার মাধ্যমে সমাধানে আসা উচিত। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে অর্থমন্ত্রী বলেন, কিছু ভুল বোঝাবুঝির কারণে দুই অপারেটরের সঙ্গে সরকারের সম্পর্কের অবনতি ঘটতে যাচ্ছিল। এ অবস্থা চলমান থাকলে আমাদের ক্ষতি হতো, আমরা রাজস্ব হারাতাম। তারা ব্যবসা করবে, আমরা নিজেদের পাওনা বুঝে নেবো। তারা (দুই অপারেটর) যে মামলা করেছে, সে মামলা তারা প্রত্যাহার করে নেবে। অপরদিকে সরকারের তরফ থেকে যে নোটিশ দেওয়া হয়েছিল, তা প্রত্যাহার করা হবে। অর্থমন্ত্রী দৃঢ়তার সঙ্গে বলেন, আলাপ-আলোচনার ভিত্তিতে আমরা যে সিদ্ধান্ত নেবো, তা কখনোই দেশের স্বার্থের বিপক্ষে যাবে না। ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, গতকাল থেকে দৃশ্যপট বদলে গেছে, বিটিআরসির সঙ্গে দেনা-পাওনার বিরোধ আমরা খুব অল্প সময়ের মধ্যে আলোচনার ভিত্তিতে মিটিয়ে নেবো। মোবাইল কোম্পানিগুলো জাতীয় অর্থনীতিতে এবং যোগাযোগের ক্ষেত্রে বিশাল ভূমিকা রাখছে। গত ২২ বছরে এ দুটি অপারেটরের সঙ্গে এই পাওনা ছাড়া আর কোনও বিষয় নিয়ে বিরোধ হয়নি। আমরা ব্যবসার সুস্থ পরিবেশ নিশ্চিত করতে চাই, তবে জাতীয় স্বার্থ উপেক্ষিত হতে পারে না। পারস্পরিক আলোচনার মধ্য দিয়ে আমরা বিষয়টি নিশ্চিত করবো। এনবিআরের চেয়ারম্যান জানান, গ্রামীণফোন চেয়েছিল আরবিট্রেশনের মাধ্যমে বিরোধ মীমাংসা করতে। তবে বিটিআরসির আইনে আরবিট্রেশনের কোনও সুযোগ না থাকায়, তাদের প্রস্তাব গ্রহণ করা হয়নি। আমরা তাদের পরামর্শ দিয়েছি, বিরোধ নিষ্পত্তির জন্য অতিদ্রুত টেলিনরের সঙ্গে কথা বলতে। তারা আমাদের পরামর্শ গ্রহণ করেছে। এসময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন বিটিআরসির চেয়ারম্যান মো. জহুরুল হক, ডাক ও টেলিযোগাযোগ সচিব অশোক কুমার বিশ্বাস, গ্রামীণফোনের সিইও মাইকেল ফোলি এবং রবির সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ।

কুষ্টিয়ায় শনিবার বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মতবিনিময় সভা  

আসছে ২১ সেপ্টেম্বর শনিবার সকাল ১০ টায় বঙ্গবন্ধু সুপার মার্কেটে কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের কার্যালয়ের সভা কক্ষে এ মুক্তিযোদ্ধা মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়েছে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার সদয় সম্মতি জ্ঞাপন করেছেন সাবেক সচিব, সংসদীয় কমিটির সদস্য, বাংলাদেশে আওয়ামীলীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক উপ-কমিটির সভাপতি ও জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের খুলনা বিভাগীয় প্রধান যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা রশিদুল আলম। সভাপতিত্ব করবেন মুক্তিযোদ্ধা মত বিনিময় সভার আহবায়ক ও কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মানিক কুমার ঘোষ।  বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব সদর উদ্দিন খাঁন, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা আজগর আলী এবং জেলা আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী রবিউল ইসলাম। উক্ত মত বিনিময় সভায় বীর মুক্তিযোদ্ধাদের উপস্থিত থাকার জন্য অনুরোধ জানিয়েছেন কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক ও বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ জেলা সাংগঠনিক কমান্ডের কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মানিক কুমার ঘোষ। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

পরিকল্পনা মন্ত্রীর সাথে অভিনেত্রী অপ্সরা সুহির স্বাক্ষাত

গতকাল বুধবার পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী এম.এ মান্নানের সাথে সৌজন্য স্বাক্ষাত করলেন কুষ্টিয়ার মেয়ে মানবতার কল্যাণ ফাউন্ডেশনের মহাসচিব, অভিনেত্রী অপ্সরা সুহি। মানবতার কল্যাণ ফাউন্ডেশনের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য মন্ত্রীকে অবগত করলে সংগঠনের পাশে থেকে সার্বিক সহযোগিতার আশ্বাস দেন তিনি। পরে ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে মন্ত্রীকে ফুল দিয়ে শুভেচ্ছা জানানো হয়। অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান জি.এম সৈকত, কণ্ঠশিল্পী ডলি সায়ন্তনী, কণ্ঠশিল্পী পলি সায়ন্তনী, অভিনেতা সুজন রাজা, অভিনেত্রী আজরা জেবিন তুলি প্রমূখ।

কুষ্টিয়া জেলা জাসদের সাংগঠনিক সভা অনুষ্ঠিত

কুষ্টিয়া জেলা জাসদের সাংগঠনিক সাধারণ সভা গতকাল বুধবার দুপুর ১২টায় শহরের পালকি রেষ্টুরেন্ট মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। জেলা জাসদের সভাপতি হাজি গোলাম মহসিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন কেন্দ্রীয় জাসদের সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আলীম স্বপন, সদস্য মোহম্মাদ আব্দুল্লাহ, বীর মুক্তিযোদ্ধা সাহাবুব আলী, জেলা জাসদের সাংগঠনিক সম্পাদক শ্রী শ্রী অসিত সিংহ রায়, প্রচার সম্পাদক কারশেদ আলম, ভেড়ামারা উপজেলা জাসদের সভাপতি ইমদাদুল ইসলাম আতা, সাধারন সম্পাদক আনসার আলী, মিরপুর উপজেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক আহাম্মদ আলী, কুষ্টিয়া সদর উপজেলা জাসদের সভাপতি আমিরুল ইসলাম মকলু, দৌলতপুর উপজেলা জাসদের সভাপতি ছহির উদ্দিন প্রমুখ। এসময় বক্তারা সাম্প্রতিক রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটে করনীয় আন্দোলন সংগ্রামের বিভিন্ন বিষয় ভিত্তিক আলোচনা, দলীয় সাংগঠনিক দিক নির্দেশনার আলোকে জেলা উপজেলাসহ সহযোগী অংগ সংগঠনের কাউন্সিল বিষয়ক মতামত ব্যক্ত করেন।  সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

কাকিলাদহের স্কুল শিক্ষকের অভিনব প্রতারনা!

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার সদরপুর ইউনিয়নের কাকিলাদহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক সহকারী শিক্ষক (গনিত) হিসাবে চাকুরী করেন মনিরুল ইসলাম। জানা যায়, গত সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) ভারতে চিকিৎসার জন্য দুই দিনের ছুটি চাই প্রধান শিক্ষকের কাছে। প্রধান শিক্ষক দুই দিনের ছুটি দিলে মনিরুল ইসলাম যায় ঝিনাইদহের শৈলকুপা উপজেলার শেখপাড়া রাহাতন নেছা গার্লস স্কুল এন্ড কলেজে। সেখানে নিজেকে শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের উর্দ্ধতন কর্মকর্তা পরিচয় দেন। শেখপাড়া রাহাতন নেছা গার্লস স্কুল এন্ড কলেজ সুত্রে জানা যায়, প্রতারক মনিরুল ইসলাম নিজের নাম পরিবতর্ন করে এম এ তারিক আজিজ পরিচয়ে শিক্ষা মন্ত্রনালয়ের উপ-পরিদর্শক পরিচয় দিয়ে গত বৃহস্পতিবার (১২ সেপ্টেম্বর) কলেজে যান। ওই দিন তিনি কলেজে অডিটের নামে বিভিন্ন কাগজপত্র যাচাই বাছাই করেন। বৃহস্পতিবার রাতে কলেজের অধ্যক্ষকে কল করতে বলেন। রাতে কল করলে শনিবার আরও কাগজপত্রের কথা ও টাকা দাবী করে। সেই মোতাবেক শনিবার  সে প্রতিষ্ঠানে আসেন। এসময় তার আচরণ সন্দেহজনক হলে বিভিন্ন স্থানে খোঁজ খবর নিয়ে দেখা যায় তিনি একজন প্রতারক। পরে তাকে পুলিশের হাতে সোপর্দ করা হয়। শেলকুপা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) বজলুর রহমান জানান, মনিরুল ইসলাম নামের এক প্রতারককে পুলিশের হাতে তুলে দিয়েছে রাহাতন নেছা গার্লস স্কুল এন্ড কলেজ কর্তৃপক্ষ। প্রাথমিকভাবে জিজ্ঞাসাবাদে সে স্বীকার করেন যে সে প্রতারক। তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। এ ব্যাপারে মিরপুর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার জুলফিকার হায়দার জানান, শিক্ষক মনিরুল ইসলামের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করতে কাকিলাদহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষককে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। এদিকে সরেজমিনে স্কুলে গিয়ে দেখা যায়, প্রতারক শিক্ষক যে ছুটির দরখাস্ত দিয়েছে তাতে দেখা যায় সে বাড়ীতে কাজ এর কারণে ছুটি চেয়ে আবেদন করেছেন। এছাড়াও আবেদনপত্রে কোন স্বাক্ষরও নেই। তারপরেও ছুটির আবেদন মঞ্জুর করেছে প্রধান শিক্ষক। এ ব্যাপারে কাকিলাদহ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আজিজুল হক জানান, আমি না দেখেই ছুটির মঞ্জুর করেছি। আমাকে বলেছিলো ভারতে যাবো। কিন্তু সে ভারতে না গিয়ে প্রতারণা করতে গিয়েছিলো। আমরা তাকে স্কুল থেকে বহিষ্কার করেছি। তবে শিক্ষককে বহিষ্কার বিষয়টি কোন অফিসিয়ালভাবে কোন পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি।

দৌলতপুরে অডিটোরিয়াম ভবনের নির্মান কাজের উদ্বোধন

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ৫০০ আসনের দ্বিতল আধুনিক অডিটোরিয়াম ভবনের নির্মান কাজের উদ্বোধন করা হয়েছে। গতকাল বুধবার দুপুর ১২টায় উপজেলা পরিষদ চত্বরে দৌলতপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাড. এজাজ আহমেদ মামুন এ কাজের উদ্বোধন করেন। এসময় দৌলতপুর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সাক্কির আহমেদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সোনালী খাতুন, দৌলতপুর প্রকৌশলী জিল¬ুর রহমান, উপ-সহকারী প্রকৌশলী পুলক আহমেদ, দৌলতপুর সদর ইউপি চেয়ারম্যান মহিউল ইসলাম মহি, হোগলবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান সেলিম চৌধুরী, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক হোসেনসহ উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন দপ্তরে কর্মকর্তা ও স্থানীয় সুধীজন উপস্থিত ছিলেন। দৌলতপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এ্যাড. এজাজ আহমেদ মামুনের সার্বিক তত্বাবধানে অডিটোরিমান ভবনের স্থান নির্ধারন সমস্যার সমাধান শেষে গতকাল নির্মান কাজের উদ্বোধন করা হয়।

অস্ত্রসহ যুবলীগ নেতা খালেদ মাহমুদ আটক, ক্যাসিনোতে অভিযান

ঢাকা অফিস ॥ ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে অস্ত্রসহ আটক করেছে র‌্যাব। গতকাল বুধবার রাতে তাকে তার গুলশানের বাসা থেকে আটক করা হয়। এর আগে সন্ধ্যায় খালেদের গুলশান-২ এর ৫৯ নম্বর রোডের ৫ নম্বর বাসায় শুরু হয় এ অভিযান। দুপুর থেকেই বাড়িটি ঘিরে রাখেন র‌্যাবের প্রায় শতাধিক সদস্য। একই সময় ফকিরাপুলের ইয়ংমেন্স ক্লাবে ক্যাসিনোতে অভিযান চালায় র‌্যাব। এ সময় ওই ক্যাসিনোর ভেতর থেকে ১৪২ জন নারী-পুরুষকে আটক করা হয়। অভিযান শেষ করার পরই খালেদের বাড়িতে ঢুকে র‌্যাব। র‌্যাবের লিগ্যাল ও মিডিয়া উইংয়ের উপ-পরিচালক মিজানুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেন। ঢাকা দক্ষিণ যুবলীগ নেতা খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগের শেষ নেই। মতিঝিল-ফকিরাপুল ক্লাবপাড়ায় ক্যাসিনো থেকে শুরু করে কমপক্ষে সাতটি সরকারি ভবনে ঠিকাদারি নিয়ন্ত্রণ ও সরকারি জমি দখলের মতো নানা অভিযোগ এ নেতার বিরুদ্ধে। তার বিরুদ্ধে রয়েছে একাধিক মামলাও। রিয়াজ মিল্কি ও তারেক হত্যার পর পুরো এলাকা নিয়ন্ত্রণে নেন খালিদ মাহমুদ ভূঁইয়া। ২০১২ সালের পর মহানগর যুবলীগ দক্ষিণের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী স¤্রাটের ছত্রচ্ছায়ায় ঢাকার এক অংশের নিয়ন্ত্রণ আসে খালেদের হাতে। নিজের নিয়ন্ত্রণ ধরে রাখতে সর্বোচ্চ শক্তি ব্যবহার করেন তিনি। এছাড়া রাজধানীর মতিঝিল, ফকিরাপুল এলাকায় কমপক্ষে ১৭টি ক্লাব নিয়ন্ত্রণ করেন এ যুবলীগ নেতা। এর মধ্যে ১৬টি ক্লাব নিজের লোকজন দিয়ে আর ফকিরাপুল ইয়াং ম্যানস নামের ক্লাবটি সরাসরি তিনি পরিচালনা করেন। প্রতিটি ক্লাব থেকে প্রতিদিন কমপক্ষে এক লাখ টাকা নেন তিনি। এসব ক্লাবে সকাল ১০টা থেকে ভোর পর্যন্ত ক্যাসিনো বসে। রাজধানীর ৬০টি স্পটে এমন অবৈধ ক্যাসিনো (জুয়ার আসর) ব্যবসা চলছে। কেন্দ্রীয় ও মহানগর উত্তর-দক্ষিণ যুবলীগের একশ্রেণির নেতা এ ব্যবসায় জড়িত বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গণমাধ্যমের খবর, ইতিমধ্যেই জুয়ার আড্ডাগুলো সম্পর্কে সম্প্রতি প্রমাণসহ গোয়েন্দা রিপোর্ট প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে জমা দেয়া হয়েছে। এতে চরম ক্ষুব্ধ হয়ে প্রধানমন্ত্রী জড়িতদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ও প্রশাসনিক কঠোর ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্ধৃতি দিয়ে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় নেতারা জানান, সম্প্রতি কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে শেখ হাসিনা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন- আমার কাছে আরও তথ্য আছে রাজধানীর সব সুউচ্চ ভবনের ছাদ দখল নিয়েছে যুবলীগের নেতারা। সেখানে ক্যাসিনো খোলা হয়েছে। যুবলীগের সবার আমলনামা আমার হাতে এসেছে। আমি সবার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে বলে দিয়েছি। প্রসঙ্গত, গত ১৪ সেপ্টেম্বর আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের বৈঠকে অনির্ধারিত আলোচনায় যুবলীগ নিয়ে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বৈঠক সূত্র জানায়, যুবলীগ প্রসঙ্গে বৈঠকে আলোচনার সূত্রপাত ঘটান আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং যুবলীগের সাবেক চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর কবির নানক। বৈঠকের এজেন্ডায় উলে¬খ থাকা শেখ হাসিনার জন্মদিন পালনের আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি বলেন, দল সাড়ম্বরে দলীয় সভাপতি শেখ হাসিনার জন্মদিন উদযাপন করতে চায়। কিন্তু শেখ হাসিনা জন্মদিন পালন নিয়ে অনীহা প্রকাশ করলে নানক যুবলীগের শেখ হাসিনার জন্মদিন পালন উপলক্ষে মাসব্যাপী কর্মসূচির কথা উলে¬খ করেন। পরে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরও এ কথা উলে¬খ করে বলেন, শনিবার যুবলীগ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল এবং আলোচনাসভা করেছে। তিনি সেখানে উপস্থিত ছিলেন। পরিপ্রেক্ষিতে শেখ হাসিনা বলেন, চাঁদাবাজির টাকা বৈধ করতে মিলাদ মাহফিল করা হয়েছে। নিজের জন্য এমন মিলাদ মাহফিল তিনি চান না। এরপর যুবলীগ নিয়ে তার কাছে আসা নানা অভিযোগ তুলে ধরেন শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রী বলেন, যুবলীগের ঢাকা মহানগরের একজন নেতা (ঢাকা মহানগর যুবলীগের একটি অংশের সভাপতি) ক্রসফায়ার থেকে বেঁচে গেছেন। আরেকজন এখন দিনের বেলায় প্রকাশ্যে অস্ত্র উঁচিয়ে চলেন। সদলবলে অস্ত্র নিয়ে ঘোরেন। এসব বন্ধ করতে হবে। যখন বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছে, তখন কেউ অস্ত্র নিয়ে বের হয়নি, অস্ত্র উঁচিয়ে প্রতিবাদ করেনি। যখন দলের দুঃসময় ছিল, তখন কেউ অস্ত্র নিয়ে দলের পক্ষে অবস্থান নেয়নি। প্রধানমন্ত্রী বলেন, টানা তিন বার সরকারে আছি। অনেকের অনেক কিছু হয়েছে। কিন্তু আমার সেই দুর্দিনের কর্মীদের অবস্থা একই আছে। যারা অস্ত্রবাজি করেন, যারা ক্যাডার পোষেন, তারা সাবধান হয়ে যান- এসব বন্ধ করুন। দলীয় পদ ও সরকারের দায়িত্বশীল পদে আসীন ব্যক্তিদের আত্ম-অহমিকা ও ক্ষমতার জোরে অর্থ ও দুর্নীতির সঙ্গে সম্পৃক্ত না হওয়ার জন্য আহ্বান জানান তিনি। অস্ত্রবাজ-চাঁদাবাজদের হুশিয়ার করে শেখ হাসিনা বলেন, যারা অস্ত্রবাজি করেন, যারা ক্যাডার পোষেণ, তারা সাবধান হয়ে যান- এসব বন্ধ করুন। তা না হলে যেভাবে জঙ্গি দমন করা হয়েছে, একইভাবে তাদেরকেও দমন করা হবে।

কুষ্টিয়ার কোহিনুর ভিলায় শহীদদের প্রতি মুক্তিযোদ্ধা সাংগঠনিক কমান্ডের শ্রদ্ধা নিবেদন

সুজন কর্মকার ॥ কুষ্টিয়ার কোহিনুর ভিলায় শহীদদের প্রতি ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছে মুক্তিযোদ্ধা সাংগঠনিক কমান্ডের নেতৃবৃন্দ। গতকাল বুধবার সকাল ১০টায় কুষ্টিয়া জেলা আওয়ামীলীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক সম্পাদক, সাংগঠনিক কমান্ডের কমান্ডার ও মুক্তিযোদ্ধা ইউনিট কমান্ডের সাবেক জেলা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মানিক কুমার ঘোষের নেতৃত্বে কুষ্টিয়ার বীর মুক্তিযোদ্ধারা এ শ্রদ্ধাঞ্জলি প্রদান করেন। কোহিনুর ভিলার শহীদ বেদিতে ফুলদিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন ও সকল শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া  অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সাংগঠনিক কমান্ডের ডেপুটি কমান্ডার যুদ্ধাহত বীর মুক্তিযোদ্ধা ইকবাল মাসুদ, ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মকবুল হোসেন, সদর উপজেলা কমান্ডের সাবেক উপজেলা কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার লিয়াকত আলী নীলা, সাবেক সহকারী কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইদুর রহমান, বীর মুক্তিযোদ্ধা জাহিদ হোসেন, রিয়াজ মাস্টার, আকমল মাস্টার, মনির উদ্দিন, নজরুল ইসলাম, খোয়াজ আলী, মুক্তিযোদ্ধার সন্তান সিরাজুল ইসলামসহ অন্যান্য বীর মুক্তিযোদ্ধাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। উল্লেখ্য যে, ১৯৭১ সালের ১৮ সেপ্টেম্বর। সেদিন রাতে দেশওয়ালীপাড়ার কোহিনুর ভিলার এই বাড়ির ভেতরে ঢুকে শিশু-নারী-পুরুষ হত্যাযজ্ঞ চালানো হয়। মহান মুক্তিযুদ্ধে স্বাধীনতা বিরোধীদের নৃশংস হত্যাকান্ডে রক্তে ভাসে কোহিনুর ভিলা। বাড়িটির মালিক রবিউল হক। তিনি বেকারির ব্যবসা করতেন। তাঁর স্ত্রী, ছেলেমেয়ে, ভাই-বোন, ভাইয়ের স্ত্রী, নাতিসহ থাকত ওই বাড়িতে। ওই দিন কাজ শেষে সন্ধ্যায় বাড়ি ফিরেছিলেন তিনি। কিন্তু ওই রাতে কোহিনুর ভিলায় নেমে আসে অবর্ণনীয় বিভীষিকা। রাত বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে বাড়িটি ঘিরে ফেলে মহান মুক্তিযুদ্ধে স্বাধীনতা বিরোধীরা। স্বাধীনতা বিরোধীরা কোহিনুর ভিলায় অপারেশন চালায়। একে একে সবাইকে জবাই করা হয়। বর্বর এই হত্যাকান্ডের মধ্যদিয়ে রবিউলের বংশের সবাই শহীদ হয়। কোহিনুর ভিলার ওই রাতের শহীদরা হলো গৃহকর্তা রবিউল হক (৬০), তাঁর দুই স্ত্রী, ভাই আরশাদ আলী (৫০), তাঁর স্ত্রী বেগম আরশাদ (৩৮), ছেলে মান্নান (২২), হান্নান (২০), মেয়ে রিজিয়া (২৮), ভাইয়ের মেয়ে বাতাসী (১৮), জরিনা (১৪), ভাই আনু (১৮), বোন আফরোজা (৪০), ভাই আশরাফ (৩০), আসাদ (২৫), এ ছাড়া দুই নাতি রেজাউল (১০) ও রাজু (৮) সহ মোট ১৮ জন।

সরকার ২০৩০ সালের মধ্যে এসডিজি লক্ষ্য অর্জনে প্রতিশ্র“তিবদ্ধ –  স্পিকার

ঢাকা অফিস ॥ স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, ২০৩০ সালের মধ্যে এসডিজি লক্ষ্য অর্জনে সরকার প্রতিশ্র“তিবদ্ধ। তিনি গতকাল বুধবার সংসদ ভবনের শপথ কক্ষে বাংলদেশ সংসদ সচিবালয় ও জাতিসংঘ জনসংখ্যা তহবিল (ইউএনএফপিএ) আয়োজিত ‘কনসাল্টেশন মিটিং অন দ্য নাইরোবি সামিট অন আইসিপিডি-২৫ অ্যাক্সেলারেটিং দ্য প্রোমিজ’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ দ্রুত এগিয়ে যাচ্ছে। তিনি বলেন, জনসংখ্যার উন্নয়ন নারী উন্নয়ন থেকে পৃথক কোনো বিষয় নয়। এ সময় তিনি নারীদেরকে উন্নয়নের দূত বলে উলে¬খ করে নারী উন্নয়নে বিশেষ গুরুত্ব দেয়ার জন্য সংসদ সদস্যদের প্রতি আহবান জানান। স্পিকার বলেন, জনসংখ্যা ও উন্নয়ন পরস্পর সম্পর্কযুক্ত। জনগণের কল্যাণ নিশ্চিত হলে উন্নয়ন ফলপ্রসূ হয়। তিনি জনগণের অধিক কল্যাণ নিশ্চিত করতে সংসদ সদস্যদের জোরালো ভূমিকা রাখার আহবান জানান। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চীফ হুইপ নূর -ই- আলম চৌধুরী ও ইউএনএফপিএ এর এশিয়া প্যাসেফিক অঞ্চলের পরিচালক বোর্জেন অ্যান্ডারসন স্পিকার বলেন, সংসদ সদস্যগণ জনসংখ্যার উন্নয়নে কাজ করছেন। প্রত্যেক নির্বাচনী এলাকায় এমপিদের মাধ্যমে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব পার্লামেন্টরিয়ান অন পপুলেশন অ্যান্ড ডেভলোপমেন্টের (বিএপিপিডি) আওতায় বাল্যবিবাহ রোধ, মাতৃমৃত্যু হ্রাস ও যুব উন্নয়নে জাতীয় সংসদ অগ্রণী ভূমিকা পালন করছে। স্বাস্থ্য খাতে বাংলাদেশের সফলতার উদাহরণ বিশ্বব্যাপী সমাদৃত বলে তিনি উলে¬খ করেন। তিনি বলেন, মিশরে ২৫ বছর পূর্বে ১৭৯টি দেশের সম্মতিতে ইন্টারন্যাশনাল কনফারেন্স অন পপুলেশন এ- ডেভোলপেমন্ট (আইসিপিডি) প্রোগ্রাম অন অ্যাকশন গ্রহণ করা হয়। আগামি নভেম্বরে নাইরোবিতে আইসিপিডি’র ২৫ বছর পূর্তি অনুষ্ঠিত হবে। তিনি বলেন, এসডিজি এবং আইসিপিডি’র লক্ষ্যসমূহ এক ও অভিন্ন, মানব কল্যাণই যার মূল লক্ষ্য। তিনি এলক্ষ্য অর্জনে সকলকে এক সাথে কাজ করার আহবান জানান। এ সময় তিনি বিএপিপিডি’র কার্যক্রম নাইরোবি সামিটে উপস্থাপনের আশাবাদ ব্যক্ত করে বলেন, এ ক্ষেত্রে বাংলাদেশ পার্লামেন্ট রোল মডেল হতে পারে। সংসদ সচিবালয়ের সিনিয়র সচিব ড. জাফর আহমেদ খানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইউএনএফপিএ’র বাংলাদেশ প্রতিনিধি ড. আশা টরকেলসন। বাংলদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব পার্লামেন্টারিয়ান্স অন পপুলেশন এ- ডেভেলপমেন্ট (বিএপিপিডি) কার্যক্রম উপস্থাপন করেন এসপিসিপিডি’র প্রকল্প পরিচালক এম এ কামাল বিল্লাহ। অনুষ্ঠানে হুইপ ইকবালুর রহিম, হুইপ মাহবুব আরা বেগম গিনি, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, সরকারী প্রতিষ্ঠান সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি আ স ম ফিরোজ এমপি, অনুমিত হিসাব সম্পর্কিত কমিটির সভাপতি উপাধ্যক্ষ ড. আবদুস শহীদ উপস্থিত ছিলেন।

 

নিউইয়র্ক সফরে দুটি সম্মাননা পাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশন উপলক্ষে আসন্ন যুক্তরাষ্ট্র সফরে দুটি সম্মাননা পাচ্ছেন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশে টিকাদান কর্মসূচির সাফল্যের জন্য গে¬াবাল অ্যালায়েন্স ফর ভ্যাক্সিনস অ্যান্ড ইমিউনাইজেশন (জিএভিআই) তাকে ‘ভ্যাকসিন হিরো’ সম্মাননায় ভূষিত করবে। আর জাতিসংঘ শিশু তহবিল-ইউনিসেফ ২৬ সেপ্টেম্বর ‘অ্যান ইভনিং টু অনার হার এক্সিলেন্সি প্রাইম মিনিস্টার শেখ হাসিনা’ শীর্ষক একটি অনুষ্ঠানের আয়োজন করবে, যেখানে প্রধানমন্ত্রী ‘চ্যাম্পিয়ন অব স্কিল ডেভেলপমেন্ট ফর ইয়ুথ অ্যাওয়ার্ড’ গ্রহণ করবেন বলে পররাষ্ট্রমন্ত্রী একে আবদুল মোমেন জানিয়েছেন। জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪তম অধিবেশনে যোগ দিতে ২২ সেপ্টেম্বর নিউ ইয়র্কে পৌঁছাবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই সফরে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ছাড়াও কয়েকটি দেশের সরকারপ্রধানের সঙ্গে তার বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন গতকাল বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর এবারের সফরের বিভিন্ন দিক সাংবাদিকদের সামনে তুলে ধরেন। তিনি বলেন, আগামি ২৭ সেপ্টেম্বর জাতিসংঘ সাধারণ অধিবেশনে ভাষণ দেবেন প্রধানমন্ত্রী। বাংলাদেশের আর্থসামাজিক উন্নয়নের পাশাপাশি রোহিঙ্গা সঙ্কটের অবসানে এর আগে জাতিসংঘে দেওয়া প্রস্তাবের ভিত্তিতে নতুন কিছু প্রস্তাব তিনি তুলে ধরবেন। এ বছর অধিবেশনের প্রতিপাদ্য ঠিক হয়েছে ‘দারিদ্র্য বিমোচন, মানসম্মত শিক্ষা, জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব মেকাবিলা ও অনর্ভুক্তিমূল উন্নয়নে বহুপক্ষীয় চেষ্টা জোরদারকরণ’। জাতিসংঘ অধিবেশনের পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী ইউনিভার্সাল হেলথ কভারেজ, ক্লাইমেট অ্যাকশন সামিট ২০১৯, গে¬াবাল কমিশন অন অ্যাডাপ্টেশন, রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে ওআইসির সেমিনার, সমকালীন বিশ্বে মহাত্মা গান্ধীর প্রাসঙ্গিকতা নিয়ে একটি উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক এবং টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য নিয়ে একটি উচ্চ পর্যায়ের পলিটিক্যাল ফোরামে অংশ নেবেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, প্রতিবন্ধিতা ও মানসিক স্বাস্থ্য জটিলতার ক্ষেত্রে প্রাথমিক সেবা বিষয়ে একটি অনুষ্ঠানেও প্রধানমন্ত্রী যোগ দেবেন। এক প্রশ্নের জবাবে মোমেন জানান, রোহিঙ্গা সঙ্কট নিয়ে চীনের মধ্যস্থতায় মিয়ানমারের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে এক বৈঠকে বসার কথা রয়েছে তার। এই সফর চলাকালে ওয়াল স্ট্রিট জার্নাল ও ওয়াশিংটন পোস্টকে সাক্ষাৎকার দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

কারও কথা শোনে না মিয়ানমার – পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেছেন, মিয়ানমার অত্যন্ত রক্ষণশীল। তারা কারও কথা শোনে না। তবে আশার কথা হলো তারা বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের ফেরত নিতে রাজি হয়েছে। বুধবার জাতীয় প্রেস ক্লাবে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনবিষয়ক এক সেমিনারে তিনি একথা বলেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ১৯৭৮ কিংবা ১৯৯২ সালেও তারা আলোচনার মাধ্যমে তাদের লোকদের ফেরত নিয়েছিল। তবে এবার সংখ্যাটা অনেক বেশি। ১৯৯২ সালে ২ লাখ ৫৩ হাজার ছিল। তারমধ্যে ২ লাখ ৩০ হাজার চলে যায়। এবার ১৩ লাখ। আমরা তাদের সঙ্গে আলোচনা করছি। তিনি বলেন, মিয়ানমার যাদের উপর নির্ভর করে সেই চীন বা রাশিয়া এখন অনেকটাই আমাদের পক্ষে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার চীন সফরে দেশটির প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী একবাক্যে স্বীকার করেছেন রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন অত্যাবশ্যক। তারাও আমাদের সঙ্গে একমত, রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন বিলম্বিত হলে এই অঞ্চলে অনিশ্চয়তা দেখা দেবে।

রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট দেয়ায় পুলিশ জড়িত থাকলে ব্যবস্থা ঃ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট দেয়ায় যারা জড়িত থাকবে, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে। কৌশলে যারা রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট দেয়ার কাজ করছেন, তাদের আইনের আওতায় নেয়া হয়েছে। এতে যদি পুলিশ জড়িত থাকে তাদেরও আইনের আওতায় আনা হবে। বুধবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে আসন্ন শারদীয় দুর্গাপূজা উপলক্ষে সার্বিক নিরাপত্তা সংক্রান্ত সভা শেষে তিনি একথা বলেন। পাসপোর্টের সঙ্গে শুধু পুলিশ জড়িত থাকে না উল্লেখ করে তিনি বলেন, পাসপোর্ট দেয়ার সঙ্গে জন্মনিবন্ধন, জাতীয় পরিচয়পত্র, চেয়ারম্যান সার্টিফিকেটসহ অন্যরাও জড়িত থাকে। তাদের বিষয়টিও বিবেচনায় নেয়া হবে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গাদের পাসপোর্ট তৈরিতে স্থানীয় চেয়ারম্যান, জন্মনিবন্ধন সনদ যিনি দেন, ওয়ার্ড কমিশনার, জাতীয় পরিচয়পত্র তৈরির পর পুলিশ ভেরিফিকেশনের দায়িত্বরতদেরও দায়িত্ব আছে। যারা এসব কাজে জড়িত থাকে, আমরা তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছি। তিনি বলেন, বাংলাদেশে প্রবেশের সময় আট লাখ রোহিঙ্গার বায়োমেট্রিক করা হয়েছে। এর পর আরও তিন লাখ রোহিঙ্গা এসেছে। মোট ১১ লাখ রোহিঙ্গা বর্তমানে বাংলাদেশে আছে। তাদের আইডেন্টিফাই করা হয়েছে। ফলে তারা পাসপোর্ট করতে গেলে সফটওয়্যারে ধরা পড়ছে।

ইবিতে বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি স্বাক্ষরিত

সরকারী কর্মব্যবস্থাপনা পদ্ধতির আওতায় বার্ষিক কর্মসম্পাদন চুক্তি স্বাক্ষর ও মতবিনিময় সভা বুধবার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবনের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের এপিএ টিমের আহবায়ক প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ শাহিনুর রহমান-এর সভাপতিত্বে সভায় ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ হারুন-উর-রশিদ আসকারী বলেন, আমাদের দক্ষ শিক্ষক-শিক্ষার্থী রয়েছেন। এখন দরকার সুন্দর ব্যবস্থাপনা। বিভিন্ন বিভাগ, হল, দপ্তরগুলো কর্মপরিকল্পনা উল্লেখ করে আমাদের সঙ্গে যে চুক্তি সম্পাদন করল, মাস শেষে সেগুলোর মূল্যায়ন করা হবে। তিনি বলেন, দেশের লক্ষ্য রূপকল্প-২০২১ আর আমাদের লক্ষ্য ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিকীকরণ। এজন্য আমাদের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে হবে। তিনি আরো বলেন, এ্যানুয়েল পারফরমেন্স এগ্রিমেন্ট (এপিএ) হলো, একুশ শতকে জাতির কাছে, মানুষের কাছে, পৃথিবীর কাছে আমাদের যে দায়বদ্ধতা রয়েছে, তার একটি দলিল। এখন সংখ্যাসূচকের ভিত্তিতে দেখাতে হবে আমরা এক বছরে কী উন্নয়ন করেছি। তিনি বলেন, উন্নয়ন এই নয় যে, হঠাৎ করে একটা আলোর ঝলক, পরে আবার অন্ধকার। উন্নয়ন হতে হবে টেকসই উন্নয়ন।  তিনি আরো বলেন, জগতের সবচাইতে  জরুরী  বিষয় হলো ব্যবস্থাপনা। আমরা সুশাসন, স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা এবং সম্পদের যথাযথ ব্যবহার নিশ্চিত করতে চাই। চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানের সভাপতি ও বিশ্ববিদ্যালয়ের এপিএ টিমের আহবায়ক প্রো-ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ শাহিনুর রহমান বলেন, আমরা যে যে জায়গায় আছি, সে জায়গার কাজটা ঠিকমতো করার কমিটমেন্ট আমাদের থাকতে হবে। স্ব-স্ব অবস্থানে আমরা যদি দায়িত্বশীল থাকি তাহলে কোন ক্ষেত্রেই ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় আর পিছিয়ে থাকবে না। তিনি বলেন, আমরা যেন কাজ ফাঁকি না দিই, এ ব্যাপারে সকলকে সচেতন থাকতে হবে। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম তোহা বলেন, রাষ্ট্র আমাদেরকে অর্থ দিচ্ছে কিন্তু বিনিময়ে আমরা কী দিচ্ছি সে বিষয়ে নিজেকে পরীক্ষায় নেবার সুযোগ আমাদের এসেছে। তিনি আরও বলেন, মাননীয় ভাইস চ্যান্সেলর প্রায়ই বলে থাকেন, লিডারশীপ এবং টিমওয়ার্ক-এর সুন্দর সমন্বয়েই কেবল সফলতা সম্ভব। আমরা সেদিকেই এগিয়ে যাচ্ছি। বর্তমান প্রশাসন বিশ্ববিদ্যালয়কে নিয়ে যে স্বপ্ন দেখছেন তা বাস্তবায়নের জন্য আমাদের এই বার্ষিক কর্ম সম্পাদন চুক্তি স্বাক্ষর খুবই গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আমি বিশ্বাস করি। বার্ষিক কর্মসম্পদন চুক্তি স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে উন্মুক্ত আলোচনায় অংশ নেন কলা অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোঃ সরওয়ার মুর্শেদ, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. নাসিম বানু, প্রফেসর ড. এম. এয়াকুব আলী, প্রফেসর ড. মোঃ আতিকুর রহমান প্রমুখ। সভায় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) এস. এম. আব্দুল লতিফ, ডিনবৃন্দ, সভাপতিবৃন্দ, হল প্রভোস্টবৃন্দ এবং অফিস প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন। উপ-রেজিস্ট্রার (প্রশাসন) ও এপিএ’র ফোকাল পয়েন্ট ড. নওয়াব আলী খান চুক্তি স্বাক্ষর সংক্রান্ত নির্দেশনা উপস্থাপন এবং সভাটি সঞ্চালনা করেন। অনুষ্ঠান শেষে সরকারী নির্দেশনা মোতাবেক জাতীয় শুদ্ধাচার বাস্তবায়ন ও কর্ম ব্যবস্থাপনার আওতায় মাঠ পর্যায়ে চুক্তির অংশ হিসাবে ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের সাথে আভ্যন্তরীন ৬৮টি একাডেমিক ও প্রশাসনিক বিভাগ/ অফিসের  আনুষ্ঠানিক চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি