আমলায় আশা’র মতবিনিময় ও গাছের চারা বিতরণ

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরের আমলায় আশা এনজিও এর অনিয়মিত সদস্যদের সাথে মতবিনিময় ও বিনামূল্যে ফলজ গাছের চারা বিতরণ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার সকালে আশা’র আমলা ব্রাঞ্চের উদ্যোগে আমলা ব্রাঞ্চের সভাকক্ষে এ অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। এতে আশা’র আমলা ব্রাঞ্চের ম্যানেজার শাহারুল ইসলামের সভাপেিতত্বে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন আশা কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের জেডিডি আলী আজগর ভূঁইয়া। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন আশা’র মিরপুর জোনাল অফিসের আরএম তাজ উদ্দিন শেখ, সহকারী ব্রাঞ্চ ম্যানেজার মাসুদ রানা, শিক্ষা সুপারভাইজার আব্দুল হাকিম প্রমুখ। অনুষ্ঠান শেষে অর্ধশত অনিয়মিত সদস্যদের মাঝে বিনামূল্যে দুইটি করে ফলজ গাছের চারা বিরতণ করা হয়। অনুষ্ঠানে আশা’র সকল কর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন। সেই সাথে অনিয়মিত সদস্যদের বিনামূল্যে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা হয়।

দৌলতপুরে ২২৪ বোতল ফেনসিডিলসহ আটক-৪

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে বিজিবি’র পৃথক অভিযানে ২২৪ বোতল ফেনসিডিলসহ ৪জন মাদক ব্যবসায়ী আটক হয়েছে। গতকাল সোমবার সকাল ৮টার দিকে মহিষকুন্ডি বিজিবি’র টহল দল বাঁধের বাজার মাঠপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১০০ বোতল ফেনসিডিলসহ ইকবাল হোসেন (২২) নামে এক মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে। সে পাবনা সদরের মৃত ইসমাইল হোসেনের ছেলে। অপরদিকে রবিবার দিবাগত রাত ১.৩০টার দিকে মহিষকুন্ডি বিজিবি’র টহল দল হাতিশালামোড়ে অভিযান চালিয়ে ১২৪ বোতল ফেনসিডিল ও দু’টি মোটরসাইকেলসহ ৩জন মাদক ব্যবসায়ীকে আটক করেছে। আটক মাদক ব্যবসায়ীরা উপজেলার চিলমারী এলাকার গফুর মোল্লার ছেলে জাহিদুল ইসলাম (২৫) ও রাজা স্বর্নকারের ছেলে সবুজ মিয়া (২২) এবং রাজশাহী জেলার নওদাপাড়া এলাকার বাবুল হোসেনের ছেলে রাজু আহমেদ (২৬)। এসময় তাদের কাছ থেকে নগদ ২৫২০০ টাকা উদ্ধার করেছে বিজিবি। পরে আটক মাদক ব্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে দৌলতপুর থানায় মামলা দিয়ে তাদের থানায় সোপর্দ করা হয়েছে।

ঝিনাইদহে ‘বৈদেশিক কর্মসংস্থানের জন্য দক্ষতা ও সচেতনতা’ শীর্ষক সেমিনার

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ অভিবাসন প্রক্রিয়া সহজ, নিরাপদ ও সুশৃঙ্খল করতে ঝিনাইদহে ‘বৈদেশিক কর্মসংস্থানের জন্য দক্ষতা ও সচেতনতা’ শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। সদর উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে সোমবার সকালে সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এ সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।  সেমিনারে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাম্মী ইসলাম, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আরতী দত্ত, ঝিনাইদহ  প্রেসক্লাবের সভাপতি এম রায়হান, সাধারন সম্পাদক মাহমুদ হাসান টিপু, জেলা জনশক্তি ও কর্মসংস্থান অফিসের সহকারী পরিচালক সবিতা রানী মজুমদার, সদর উপজেলা সমাজ সেবা কর্মকর্তা রুবেল হাওলাদার, সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা গোলাম সরওয়ার, কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা রোকনুজ্জামানসহ বিভিন্ন ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও উদ্যোক্তাগণ উপস্থিত ছিলেন। এসময় বক্তারা, কারিগরি প্রশিক্ষণ গ্রহণ করে বৈধভাবে বিদেশে যাওয়ার প্রক্রিয়া ও পদ্ধতি সম্পর্কে আলোচনা করেন। সেই সাথে মন্ত্রনালয়ের বিভিন্ন ওয়েবসাইট সম্পর্কে সকলকে ধারণা প্রদাণ করেন।

আলমডাঙ্গার ডাউকি ইউনিয়নে ১০ টাকা কেজি দরে চাল বিক্রি কার্যক্রমের উদ্বোধন

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ আলমডাঙ্গা উপজেলায় খাদ্য বান্ধব কর্মসুচীর আওতায় ১০টাকা কেজি দরে মাথাপিচু ৩০ কেজি হারে চাল বিক্রি কার্যক্রম শুরু হয়েছে। “শেখ হাসিনার বাংলাদেশ, ক্ষুধা হবে নিরুদ্দেশ” এই শ্লোগানকে সামনে রেখে সারা দেশের ন্যায় রোববার সকাল ১০টায় আলমডাঙ্গা উপজেলার ডাউকি ইউনিয়নের হাউসপুর এলাকায় এ চাল বিক্রি কার্যক্রম উদ্বোধন করেন আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ লিটন আলী।  এ সময় উপস্থিত ছিলেন ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান খন্দকার সালমুন আহম্মেদ ডন, ডাউকি ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান লুৎফর রহমান, উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মোফাখারুল ইসলাম, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিয়ারাজ হোসাইন খাদ্য পরিদর্শক রাকিবুল ইসলাম, ডিলার  আতিয়ার রহমান। উল্লেখ্য আলমডাঙ্গা উপজেলায় ২২টি ডিলারের মাধ্যমে ৫হাজার, ২শ’ ৪৪জন উপকার ভোগী হতদরিদ্রের মাঝে এ চাল বিক্রি করা হবে।

ড. কালাম ‘এক্সিলেন্স এওয়ার্ড’ গ্রহণ করেই দেশবাসীকে উৎসর্গ করলেন প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ‘ড. কালাম স্মৃতি ইন্টারন্যাশনাল এক্সেলেন্স এওয়ার্ডস-২০১৯’ গ্রহণ করেই তা দেশবাসীর উদ্দেশে উৎসর্গ করেছেন। গতকাল সোমবার বিকেলে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের করবী হলে এক অনুষ্ঠানে ড. কালাম স্মৃতি আন্তর্জাতিক এডভাইজরি কমিটির পক্ষ থেকে ড. কালাম স্মৃতি ইন্টারন্যাশনালের প্রধান উপদেষ্টা টি পি শ্রীনিবাসন ও সংস্থাটির চেয়ারপারসন দীনা দাস শেখ হাসিনার হাতে এই পুরস্কার তুলে দেন। প্রধানমন্ত্রী পুরস্কার গ্রহণের সময় দেশের জনগণের প্রতি কর্তব্য পালনে তাঁর দায়বদ্ধতার প্রতি প্রশংসার নিদর্শন হিসেবে এই পুরস্কার গ্রহণ করছেন বলে উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, ‘জনগণের প্রতি এই কর্তব্য পালনই আমার জীবনের মূলমন্ত্র, যেমনটি ছিল আমার পিতা, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের। আমি এই পুরস্কার দেশের জনগণের উদ্দেশে উৎসর্গ করছি।’ অনুষ্ঠানে জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী, মন্ত্রি পরিষদ সদস্যবৃন্দ, প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টাগণ, সংসদ সদস্যবৃন্দ, পদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাবৃন্দ, আওয়ামীলীগের সিনিয়র নেতৃবৃন্দ, রাজনীতিবিদ, কবি, সাহিত্যিক, শিল্পি, বুদ্ধিজীবীসহ ভারত ও বাংলাদেশের বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ, বিদেশী কূটনিতিক এবং আমন্ত্রিত অতিথিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন। বাংলাদেশ ও ভারতের মধ্যে ঐতিহাসিক সম্পর্ক গড়ে তোলার জন্য তাঁর অসামান্য অবদান, জনকল্যাণ বিশেষত নারী ও শিশুদের কল্যাণে বিশেষ অবদান রাখা এবং আন্তর্জাতিক শান্তি ও সহযোগিতার জন্য শেখ হাসিনাকে এই স্বীকৃতি প্রদান করা হয়। ভারতের একাদশ রাষ্ট্রপতি এবং বিশিষ্ট বিজ্ঞানী তামিল নাড়–র সন্তান এপিজে আব্দুল কালামের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে তামিল নাড়–ু সরকার এই পুরস্কার প্রবর্তন করে। ২০১৫ সালের ২৭ জুলাই এপিজে আব্দুল কালামের মৃত্যুর পর সে বছরই ৩১ জুলাই তামিল নাড়–ুর সে সময়কার মুখ্যমন্ত্রী জয় ললিতা ভারতরতœ এপিজে আব্দুল কালামের নামে এই পুরস্কার চালুর আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন।

 

কাশ্মীরে স্বাভাবিক অবস্থা ফেরান ভারত সরকারকে সুপ্রিম কোর্ট

ঢাকা অফিস ॥ জম্মু ও কাশ্মীরে স্বাভাবিক অবস্থা ফেরাতে ভারতের কেন্দ্রীয় সরকারকে সব ধরনের প্রচেষ্টা নিতে বলেছে দেশটির সর্বোচ্চ আদালত। একইসঙ্গে ওই অঞ্চলের জন্য গ্রহণ করা সব পদক্ষেপের ক্ষেত্রে ভারতের জাতীয় স্বার্থ বিবেচনায় নিতেও সুপ্রিম কোর্ট নির্দেশনা দিয়েছে বলে জানিয়েছে এনডিটিভি। “আমরা জম্মু ও কাশ্মীরে স্বাভাবিক অবস্থা ফেরাতে সম্ভাব্য সব ধরনের প্রচেষ্টা নিতে নির্দেশনা দিচ্ছি। জাতীয় স্বার্থ বিবেচনায় নিয়ে সুনির্দিষ্ট উপায়ে পরিস্থিতি আগের অবস্থায় ফেরানো হোক, এমনটাই চাইছি আমরা,” সোমবার বলেছেন প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ নেতৃত্বাধীন তিন সদস্যের একটি বেঞ্চ। বেঞ্চের বাকি দুই বিচারক হচ্ছেন এসএ ববডে ও এসএ নাজির। কাশ্মীরের নিষেধাজ্ঞাগুলোর নিষ্পত্তি সেখানকার হাই কোর্টের মাধ্যমে করা যেতে পারে বলেও বিচারকরা মন্তব্য করেছেন। বিধিনিষেধ চলাকালে উপত্যকাটিতে কোনো প্রাণহানি হয়নি বলে দিলি¬ সরকারের পক্ষ থেকে আদালতকে জানানো হয়। আগস্টে সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদে জম্মু ও কাশ্মীরকে দেওয়া বিশেষ মর্যাদা বাতিল ও এলাকাটিকে দুটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে রূপান্তরিত করার পর ‘সহিংসতা এড়াতে’ সেসব নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছিল জানিয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের আইনজীবী সলিসিটর জেনারেল তুষার মেহতা বলেন, “একটি বুলেটও খরচ হয়নি, কোনো প্রাণহানি ঘটেনি।” জম্মু ও কাশ্মীরের ৯৩টি থানা এলাকা থেকে নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা হয়েছে এবং লাদাখে কোনো নিষেধাজ্ঞা নেই উলে¬খ করে উপত্যকাজুড়ে ওষুধের দোকান ও নায্যমূল্যের দোকানগুলো পুরোদমে চালু আছে বলে সাক্ষ্যে জানিয়েছেন তিনি। সুপ্রিম কোর্ট জম্মু ও কাশ্মীরের রাজ্য সরকারকে সেখানকার জনগণের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে সব ধরনের পদক্ষেপ নেওয়ার নির্দেশনা দিয়েছে। কাশ্মীরভিত্তিক সকল খবরের কাগজ চালু আছে এবং সরকার সব ধরনের সহায়তা দিয়ে আসছে বলে নয়া দিল্লি সরকারের পক্ষ থেকে বিচারকদের জানানো হয়েছে।

 

রাব্বানী-সাদ্দামের ফোনালাপ সাজানো – জাবি কর্তৃপক্ষ

ঢাকা অফিস ॥ জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন প্রকল্পের ‘টাকা ভাগাভাগি’ নিয়ে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদকের পদ হারানো গোলাম রাব্বানীর সঙ্গে জাহাঙ্গীরনগরের দুই নেতার ফোনালাপের যে অডিও বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে এসেছে, তাকে ‘অসত্য, উদ্দেশ্যমূলক ও সাজানো’ বলছে বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, “উপাচার্য মহোদয়ের সঙ্গে টাকা ভাগের কোনো আলাপ হয়নি। তিনি কাউকে অর্থ প্রদান করেননি। জনাব গোলাম রাব্বানী উপাচার্য মহোদয়কে বিতর্কিত করার ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে এই ফোনালাপের গল্প তৈরি করেছেন। এ ধরনের পরিকল্পিত মিথ্যা গল্পের তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাচ্ছে কর্তৃপক্ষ।” জাহাঙ্গীরনগরে প্রায় দেড় হাজার কোটি টাকার উন্নয়ন কাজ থেকে কয়েক শতাংশ চাঁদা দাবির অভিযোগ নিয়ে সমালোচনার মধ্যে ছাত্রলীগ সভাপতি পদ থেকে রেজাওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন এবং সাধারণ সম্পাদক পদ থেকে গোলাম রাব্বানীকে গত শনিবার সরিয়ে দেওয়া হয়। তবে ওই অভিযোগ অস্বীকার করে শোভন ও রাব্বানী বলে আসছেন, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি টেন্ডারের ভাগ হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগকে আর্থিক সুবিধা দেওয়া হয়েছে জানতে পেরে তারা উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলামের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন। ওই চাঁদাবাজির সঙ্গে তাদের কোনো ধরনের সংশ্লিষ্টতা ছিল না। অপসারিত হওয়ার আগে নিজেদের নির্দোষ দাবি করে প্রধানমন্ত্রীর কাছে লেখা এক চিঠিতে রাব্বানী বলেন, “জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে অভিযোগ আপনার (প্রধানমন্ত্রী) কাছে ভিন্নভাবে উপস্থাপন করা হয়েছে। উপাচার্য ম্যামের স্বামী ও ছেলে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগকে ব্যবহার করে কাজের ডিলিংস করে মোটা অংকের কমিশন বাণিজ্য করেছে। যার পরিপ্রেক্ষিতে ঈদুল আজহার পূর্বে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগকে ১ কোটি ৬০ লাখ টাকা দেওয়া হয়। “এ খবর জানাজানি হলে বিশ্ববিদ্যালয়ে অস্থিতিশীল পরিস্থিতি শুরু হয় এবং এরই পরিপ্রেক্ষিতে উপাচার্য ম্যাম আমাদের স্মরণ করেন। আমরা দেখা করে আমাদের অজ্ঞাতসারে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগকে টাকা দেওয়ার বিষয়ে প্রশ্ন তোলায় তিনি বিব্রতবোধ করেন। নেত্রী, ওই পরিস্থিতিতে আমরা কিছু কথা বলি, যা সমীচীন হয়নি। এজন্য আমরা ক্ষমাপ্রার্থী।” অন্যদিকে অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম শনিবার সাংবাদিকদের বলেন, “তাদের মূল উদ্দেশ্য ছিল যে, তারা ঠিকাদারের কাছ থেকে কিছু শতাংশ (টাকা) নিবে। তারা এ বিষয়ে আমাকে ইঙ্গিতও দিয়েছে। কিন্তু আমার কাছে এসে তারা হতাশ হয়েছে। তারা প্রধানমন্ত্রীর কাছে খোলা চিঠিতে এ বিষয়ে যা লিখেছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা।” ওইদিন রাতেই শোভন ও রাব্বানীকে ছাত্রলীগের নেতৃত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত আসে। এরপর রোববার বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের উন্নয়ন প্রকল্পের টাকা ভাগাভাগি নিয়ে একটি অডিও ফাঁস হওয়ার খবর আসে। সেখানে বলা হয়, ওই ওডিও ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক রাব্বানীর সঙ্গে জাহাঙ্গীরনগর শাখা ছাত্রলীগের সহসভাপতি হামজা রহমান অন্তর ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইনের ফোনালাপের। উপাচার্যের কাছ থেকে জাহাঙ্গীরনগর ছাত্রলীগের কে কত টাকা নিয়েছে, উপাচার্য কেন ওই টাকা দিয়েছেন, উন্নয়ন প্রকল্পের টেন্ডার কীভাবে হয়েছে, সেখানে উপাচার্যের স্বামী ও ছেলের ভূমিকা কি- এসব বিষয়ে কথা বলতে শোনা যায় তাদের।  এর প্রতিবাদ জানিয়ে সোমবার বিশ্ববিদ্যালয়ের এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ওই ফোনালাপ ‘অসত্য ও উদ্দেশ্যমূলক’। ‘এই মিথ্যে গল্পের সত্যাসত্য প্রমাণ করার দায়িত্ব উপাচার্য মহোদয়ের নয়। প্রসঙ্গক্রমে উল্লেখ করা যায় যে, জনাব গোলাম রাব্বানী ও সাদ্দাম হোসাইনের কথোপকথনের শেষ পর্যায়ে ‘তিনি (রাব্বানী) সেন্ট্রাল ছাত্রলীগের সেক্রেটারি ছিলেন। আমি তার রাজনীতি করতাম। অনেক কথাই তার সাথে হয়েছে। সে যা বলতে বলেছে তাই বলেছি, যা করতে বলেছে তাই করেছি’- ইত্যাদি কথার মাধ্যমে তাদের মধ্যকার কথোপকথন যে পূর্ব পরিকল্পিত এবং সাজানো ছিল, তা স্পষ্ট হয়েছে।”   ‘মিথ্যা অপপ্রচারে’ বিভ্রান্ত না হয়ে সবাইকে ‘সত্য ও ন্যায়ের পক্ষে’ অবস্থান নিতে আহ্বান জানানো হয়েছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে।

 

সভাপতি হাসিবুর রহমান রিজু ॥ সম্পাদক আলমগীর আলী

বাংলাদেশ আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরাম কুষ্টিয়া শাখার কমিটি গঠন

বাংলাদেশ আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরাম (আসাফো)’র কুষ্টিয়া শাখার কমিটি গঠন করা হয়েছে। ৭১ সদস্য বিশিষ্ঠ এই কমিটিকে আগামী ২ বছরের জন্য অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। গত ১ সেপ্টেম্বর বাংলাদেশ আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরাম (আসাফো)’র কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি সাইদুর রহমান সজল ও সাধারণ সম্পাদক শাহাদৎ হোসেন লিটন স্বাক্ষরিত এই কমিটিতে হাসিবুর রহমান রিজুকে সভাপতি ও আলমগীর হোসেনকে সাধারণ সম্পাদক মনোনীত করা হয়েছে। কমিটির অন্যান্যরা হলেন, সহ-সভাপতি আব্দুল মজিদ, হাসানুর খান তাপস, শাহাবুল আলম বাবু, মিজানুর রহমান, আব্দুল জলিল, সাইদুর রহমান ও তোফাজ্জেল হোসেন। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এম সোহাগ হাসান, শহিদুল ইসলাম ব্রিটিশ ও নজরুল ইসলাম প্রধান। সাংগঠনিক সম্পাদক জিল্লুর রহমান, শিশির আহামেদ ও এস এস রুজদী। দপ্তর সম্পাদক মাহামুদ আল হাফিজ অভি, অর্থ পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক শরিফ উদ্দিন প্রিন্স, সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক মিজানুর রহমান, যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক মাসুদ হোসেন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক মনির আহমেদ, সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক জহুরুল ইসলাম, শিক্ষা ও ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক ইশরাত জাহান, ত্রাণ ও পুনর্বাসন বিষয়ক সম্পাদক সাদিয়া ইসলাম তিশা, স্বাস্থ্য ও জনসংখ্যা বিষয়ক সম্পাদক ডাঃ হোসেন ইমাম, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক নুরজাহান খাতুন মোমেনা, বিদ্যুৎ ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক সুমাইয়া ইসলাম সিনথিয়া, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক মৌসুমী আক্তার, নাট্য বিষয়ক সম্পাদক সুনীল কুমার, শ্রম ও জনশক্তি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল মুনসুর নোমান, আইন বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড. টপি বিশ্বাস, মহিলা বিষয়ক সম্পাদক নিলুফা ইয়াসমিন চায়না, উপ-আইন বিষয়ক সম্পাদক শফিকুল ইসলাম সবুজ, উপ-দপ্তর সম্পাদক শরিফুল ইসলাম শরিফ, উপ-অর্থ ও পরিকল্পনা বিষয়ক সম্পাদক উজ্জল হোসেন, উপ-সাংস্কৃতিক বিষয়ক সম্পাদক মনোয়ারা খাতুন মিনু, উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আল-আমিন খান রাব্বী, উপ-সমাজ কল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক ফিরোজা খাতুন, উপ-যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক ফজলুর রহমান, উপ-শিক্ষা ও ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল মান্নান, উপ-ত্রাণ ও পুনর্বাসন বিষয়ক সম্পাদক জুয়েল হোসেন। এছাড়া সদস্য হিসেবে যারা এই কমিটিতে রয়েছেন, জায়েদুল হক মতিন, ওস্তাদ মোঃ মোতালেব হোসেন, মারুফা ইয়াসমিন সুরভী, শম্পা আক্তার, এ্যাড. শিলা বসু, জাফর আহমেদ, খন্দকার কানিজ ফাতেমা মানি, কামাল বাউল, অনুপ কুমার প্রামাণিক, লিটন হোসেন, সাইদুল ইসলাম রিপন, সুপ্রিয়া মহন্ত তাপ্তি, মোঃ রকি, লিখন আহমেদ, নুরুল ইসলাম, প্রদীপ অধিকারী, তরিকুজ্জামান সিমবা, শুভ শেখ, সোনিয়া আক্তার, আব্দুল হালিম স্বপন, নাসির বিশ্বাস, মোঃ আব্দুল্লাহ, কবির হাসান বকুল, অধ্যক্ষ রেজাউল করিম, আক্তারুজ্জামান, রজব আলী ও হানিফ শেখ। উল্লেখ্য, যখন বাংলাদেশ সরকারের প্রধান উপদেষ্টা লতিফুর রহমান, প্রধান নির্বাচন কমিশনার এম এ সাঈদ, রাষ্ট্রপতি সাহাবুদ্দিন আহম্মেদ ও ৭১ এর রাজাকারদের চারদলীয় জোটের যোগসাজসে পূর্বপরিকল্পনা অনুযায়ী ভোট কারচুপির মাধ্যমে নির্বাচনে পরিকল্পিতভাবে আওয়ামীলীগকে হারানো হয়। ক্ষমতায় বসেন খালেদা জিয়া ও গোলাম আজমের চারদলীয় জোট। ক্ষমতায় গিয়ে রাজনৈতিক ও সাম্প্রদায়িক ও আওয়ামীলীগকে নিশ্চিহ্ন করার গভীর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়। সাংস্কৃতিক কর্মী, ছাত্রলীগ, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের কর্মকান্ড বন্ধ করা এবং সংখ্যালঘুদের দেশ ছাড়া করার জন্য মধ্যযুগীয় বর্বর নির্যাতন চালাতে থাকে। ঠিক তখনই জননেত্রী শেখ হাসিনার অনুমতি স্বাপেক্ষে সাংবাদিক, বুদ্ধিজীবী, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিরা কবিতা নাটকের মাধ্যমে প্রতিবাদ জানায় আসাফো’র ব্যানারে। ২০০১ সালের ১২ ডিসেম্বর বাঙালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু কন্যা দেশরতœ  শেখ হাসিনার পৃষ্ঠপোষকতায় যাত্রা শুরু করে বাংলাদেশ আওয়ামী সাংস্কৃতিক ফোরাম (আসাফো)। আসাফোর মূলনীতি শিক্ষা, শান্তি ও সংস্কৃতি। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

 

২২

 

দৌলতপুরে গরু পারাপার নিয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় যুবক আহত

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে গরু পারাপার নিয়ে প্রতিপক্ষের হামলায় লিটন খা (৩৫) নামে এক যুবক আহত হয়েছেন। গতকাল সোমবার দুপুর ২টার দিকে উপজেলার বোয়ালিয়া ইউনিয়নের নাটনাপাড়া বাজারে হামলার এ ঘটনা ঘটে। আহত লিটন খা একই ইউনিয়নের গোয়ালগ্রামের বুদু খা’র ছেলে। প্রত্যক্ষদর্শী স্থানীয়রা জানায়, বিক্রয়ের উদ্দেশ্যে দৌলতপুরের গরু মাথাভাঙ্গা নদী পার করে পাশর্^বর্তী মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলার পশু হাটে নিয়ে যাওয়ার সময় লিটন খা’র সাথে গরু পারাপারে বাঁধাদানকারী রিপন খা’র কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে রিপন খা সংঘবদ্ধ হয়ে লিটন খা’র ওপর হামলা চালিয়ে তাকে বেধড়ক মারপিট করে আহত করে। পরে স্থানীয়রা রক্তাক্ত জখম অবস্থায় লিটন খাকে উদ্ধার করে দৌলতপুর হাসপাতালে ভর্তি করে।

আলমডাঙ্গায় দলীয় নেতাকর্মিদের সাথে মতবিনিময়কালে এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার 

তৃণমুল পর্যায়ে দলকে সুসংগঠিত করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সংসদ সদস্য জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন আলমডাঙ্গায় দলীয় নেতা কর্মিদের সাথে মতবিনিময় করেছেন। তিনি গতকাল বিকেলে বধ্যভূমি এলাকায় এ মতবিনিময় সভা করেন। মত বিনিময়কালে এমপি ছেলুন জোয়ার্দ্দার বলেন, একটি দলের প্রাণ হলো নেতা কর্মি। যে দলের কর্মি নেই সে দল কোন দল না। আজকে আওয়ামী লীগের হাজার হাজার নেতা কর্মি আছে বলেই কোন অপশক্তিই আওয়ামীলীগকে দাবিয়ে রাখতে পারেনা। তাই সকলকে বলি তৃণমুল পর্যায়ে দলকে সুসংগঠিত করতে সবাইকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। আজকে আওয়ামীলীগের মুল শক্তি তৃণমুল পর্যায়ে সংগঠন। নেতা কর্মিরা ভেদাভেদ ভুলে ঐক্যবদ্ধভাবে এক জায়গায় থেকে সকল অপশক্তির মোকাবেলা করার জন্য প্রস্তুত থাকতে হবে।  মত বিনিময়কালে উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামীলীগের সহসভাপতি খুস্তার জামিল, ভারপ্রাপ্ত উপজেলা চেয়ারম্যান খন্দকার সালমুন আহম্মেদ ডন, আলমডাঙ্গা থানার অফিসার্স ইনচার্জ আসাদুজ্জান মুন্সি,জেলা আওমীলীগের সদস্য ও হারদী ইউ পি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম, কালিদাসপুর ইউপি চেয়ারম্যান নুরুল ইসলাম নুরু ,উপজেলা আওয়ালীগের সহসভাপতি বিশিষ্ট ব্যবসাযী লিয়াকত আলি লিপু মোল্লা, কালিদাসপুর ইউনিয়ন আওমীলীগের আহবায়ক জালাল উদ্দিন, কুমারী ইউপি চেয়ারম্যান আবু সাঈদ পিন্টু, জেলা যুবলীগের সদস্য ও পৌর কাউন্সিলর মতিয়ার রহমান ফারুক, আলমডাঙ্গা সরকারী কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি আশরাফুল হক, পৌর আওমীলীগের প্রচার সম্পাদক রেজাউল হক তবা, পরিমল কুমার ঘোষ, আওমীলীগ নেতা আইনাল মেম্বার, ইকলাচ, দেলোয়ার হোসেন  বেল্টু, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা মিজানুর রহমান মিজান, তামিম, হাসানুজ্জামান, রকি, সুরুজ প্রমূখ।

ভ্রাম্যমান আদালতে সরকারী নির্দেশনা অমান্য করায় গাংনী সনো ডায়াগনষ্টিক সেন্টার এন্ড মেডিকেল সার্ভিসেসে তালা

গাংনী প্রতিনিধি ॥ গাংনীতে সিভিল সার্জন কর্তৃক ডায়াগনষ্টিক সেন্টার বন্ধ করার নির্দেশ উপেক্ষা করে চালু রাখার অপরাধে বৈধ কাগজপত্র না হওয়া পর্যন্ত গাংনী সনো ডায়াগনষ্টিক সেন্টার ও মেডিকেল সার্ভিসেস- ক্লিনিক বন্ধ  রাখার নির্দেশ ও ৫ হাজার টাকা  জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়েছে গাংনী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সুখময় সরকার । গতকাল সোমবার দুপুরে উপজেলা পোষ্ট অফিসপাড়ায় সোনালী ব্যাংকএর নিচতলায় অবস্থিত গাংনী সনো ডায়াগনষ্টিক সেন্টার ও মেডিকেল সার্ভিসেসে মোবাইল কোর্টে তার স্বীকারোক্তিনুযায়ী ডায়াগনষ্টিকের সত্বাধিকারী ও ম্যানেজার হাফিজুর রহমান ও মনিরুজ্জামান বিজয়ের নিকট থেকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়। গাংনী উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সুখময় সরকার সাংবাদিকদেক জানান মেডিকেল প্রাকটিস ও বেসরকারী ক্লিনিক অধ্যাদেশের ১৯৮২ সালের ৮ ও ৯ ধারা মোতাবেক ক্লিনিক বন্ধ করা হয়েছে। অন্যদিকে সিভিল সার্জন কর্তৃক ক্লিনিক বন্ধ রাখার নির্দেশ অমান্য করায় ১৩(২) ধারায় ৫ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৬ মাসের কারাদন্ড দেয়া হয়। ডায়াগনষ্টিক মালিকগণ দোষী সাব্যস্ত হলে  গাংনী থানা পুলিশ এসআই রেজোয়ান আহমেদ ও স্ঙ্গীয় ফোর্সের সহায়তায় ৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট সুখময় সরকার। এসময় তিনি বলেন, ডায়াগনষ্টিক সেন্টারের সনদপত্র ছাড়া মেডিকেল অফিসার, রোগীদের ভূয়া ব্যবস্থাপত্র দিয়ে প্রতারণা, সনদপত্রবিহীন  প্যাথোলজিষ্ট (টেকনোলজিষ্ট) দিয়ে রিপোর্ট করানোসহ একাধিক অনিয়ম প্রমাণিত হওয়ায়  উক্ত নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। পরে পাশ্ববর্তী রবিউল ইসলাম মেমোরিয়াল ক্লিনিক ও তাহের ক্লিনিক-২ অভিযান চালানো হয়। এসময় তিনি আরও বলেন, অন্য কোন ক্লিনিক  বা ডায়াগনষ্টিক সেন্টার এরকম অপরাধ করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হবে।

বিআরটিসিতে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে হবে

ঢাকা অফিস ॥ আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বিআরটিসি কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, বিআরটিসিতে স্বচ্ছতা নিশ্চিত করা গেলে উক্ত প্রতিষ্ঠানে লাভ হবে। হেলপার নয়, দক্ষ ড্রাইভার দিয়ে গাড়ি চালানোর ব্যবস্থা করতে হবে। ড্রাইভারদের নিয়োগ দেয়ার বিষয়ে সতর্ক থাকতে হবে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বিআরটিসিকে নিয়ে স্বপ্ন দেখেন। খোজ-খবর রাখেন। এ প্রতিষ্ঠানকে আধুনিক রূপে সাজাতে হবে। জনগণের সেবা নিশ্চিত করতে যারা বাধা হয়ে দাঁড়াবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

গতকাল রাজধানীর মতিঝিলে বিআরটিসি ভবনের সম্মেলন কক্ষে কর্মকর্তাদের সঙ্গে মতবিনিময়কালে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। এ সময় বিআরটিসির চেয়ারম্যান মো. এহছানে এলাহীসহ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে সেতুমন্ত্রী বলেন, ছাত্রলীগের বিষয়টি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেখছেন। যুবলীগ নিজেরাই সংগঠনে সুদ্ধি অভিযান চালাচ্ছে। সমস্যা থাকলে সমাধানের চেষ্টা করছে। আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, দলের ভেতরে কোনো অপরাধী থাকলে ছাড় দেয়া হবে না। শুধু সাংগঠনিক ব্যবস্থা নয়, আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে। রংপুর-৩ উপনির্বাচনে প্রার্থী চুড়ান্ত করতে জাতীয় পার্টি চাইলে আলোচনা হতে পারে বলেও জানান তিনি। বিআরটিসি চেয়ারম্যানকে প্রতিষ্ঠানের ওপর নজরদারি করার আহবান জানিয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, নিষেধ করার পরেও এবার ঈদে কিছু কিছু যায়গায় গাড়ির ভাড়া বেশি নেয়া হয়েছে। সঠিকভাবে দায়িত্ব পালন না করলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। বিআরটিসি গাড়ি ইজারা দেয়া যাবে না। তিনি বলেন, উক্ত প্রতিষ্ঠানের কর্মচারিদের অভিযোগ রয়েছে তারা বেতন পাচ্ছে না। তাদের বেতন দিতে হবে। বিভিন্ন সময়ে নাশকতা এবং অগ্নী সন্ত্রাসীদের হাতে কিছু গাড়ি নষ্ট হয়েছে। বেশকিছু গাড়ির গ¬াস ভাঙ্গা, ছিট অপরিস্কার রয়েছে। এসি গাড়িতে এসি চলে না। এসব সমস্যা সমাধান করতে হবে। গাড়িতে পোস্টার লাগানো যাবে না। গাড়িগুলো রক্ষনাবেক্ষনে যতœবান হতে হবে। গাড়ি আমদানিতে দুর্নীতি হয়ে থাকলে তা খতিয়ে দেখা হবে। সর্ষের মধ্যে ভুত থাকলে তা তাড়াতে হবে। জনবল কম থাকলে বাড়াতে হবে। কোনো দুর্নীতিবাজকে পদে রাখা যাবে না। যেসব কর্মচারি বিআরটিসির উন্নয়ন না করে পকেট ভারি করে তাদের এই প্রতিষ্ঠানে থাকার প্রয়োজন নেই।

কুষ্টিয়ায় ব্যক্তি মালিকানা সম্পত্তি জবর দখল মামলায় শিল্পপতিসহ ৪জনের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ায় জেলা পরিষদের সহায়তায় শিল্পপতি কর্তৃক মার্কেট ভেঙ্গে ব্যক্তি মালিকানা জমি দখল মামলায় অভিযুক্ত শিল্পপতিসহ জেলা পরিষদের তিন কর্মকর্তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা ইস্যু করেছে আদালত। গতকাল সোমবার দুপুর সাড়ে ১১টায় অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক রেজাউল করীম এই আদেশ দিয়েছেন। মামলার বাদিপক্ষের আইনজীবী এ্যাড. মাহাতাব উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, গত ৬ আগষ্ট আদালতের দেয়া আদেশ মতে, সোমবার স্বশরীরে আদালতের হাজির হওয়া কথা থাকলেও আসামীরা উপস্থিত না ও হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে এই গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত। কুষ্টিয়া ‘কেএনবি এগ্রো ইন্ডা: লি:’ এর মালিক শিল্পপতি কামরুজ্জামানসহ জেলা পরিষদের ৪ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে গত ১০জুন কুষ্টিয়া-ঝিনাইদাহ মহাসড়কের পশ্চিম পাশর্^স্ত বটতৈল এলাকায় ২২টি দোকান বিশিষ্ট প্রামানিক সুপার মার্কেট গুড়িয়ে দিয়ে জমি দখলের অভিযোগে মামলা করেন ক্ষতিগ্রস্ত রাকিবুল ইসলাম। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে কুষ্টিয়া পুলিশ সুপারকে তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের আদেশ দেন আদালত। তদন্ত শেষে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন ও অপরাধ) এ, কে, এম জহিরুল ইসলাম প্রতিবেদন দাখিল করেন আদালত। প্রতিবেদনে ঘটনার সত্যতা আছে মর্মে পুলিশের নেয়া স্বাক্ষীদের বক্তব্যে উঠে আসলেও প্রতিবেদন সারমর্মে অভিযুক্ত বিবাদিদের সম্পৃক্ততা নেই উল্লেখ করে অভিযোগ থেকে তাদের অব্যহতি চেয়ে সুপারিশ করেন এই পুলিশ কর্মকর্তা। এতে পক্ষপাতদুষ্টের অভিযোগ এনে এমন তদন্ত প্রতিবেদনে নারাজি দরখাস্ত দাখিল করেন বাদির কৌশুলী। গত ৬ আগষ্ট আদালত উভয়পক্ষের শুনানী শেষে বাদিপক্ষের দাখিলকৃত নারাজি পিটিশন আমলে নেন এবং অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে সমন জারি করেন। যাদের বিরুদ্ধে আদালত গ্রেফতারি পরোয়ানা আদেশ দিয়েছেন তারা হলেন-বটতৈল বিসিক কুষ্টিয়ার কেএনবি কঘই এগ্রো ইন্ডাস্ট্রিজ লি:র ব্যবস্থাপনা পরিচালক শিল্পপতি কামরুজ্জামান, কুষ্টিয়া জেলা পরিষদের সহকারী প্রকৌশলী শফিকুল আজম, সার্ভেয়ার মো: মনিরুজ্জামান এবং প্রশাসনিক কর্মকর্তা শাহিনুজ্জামান ওরফে শাহীন।

উল্লেখ্য, গত ১০ জুন বিকাল ৪টায় সদর উপজেলার কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ মহাসড়কের পশ্চিম পাশর্^স্থ বটতৈল এলাকার রাকিবুল ইসলাম নামের এক ব্যক্তির মামলিকানা স্বত্ত্ব দখলীয় ও রেকর্ডভুক্ত জমির উপর নির্মিত ২২টি দোকান বিশিষ্ট ‘প্রমানিক সুপার মার্কেট’ নামের দ্বি-তল ভবনটি গুড়িয়ে দিয়ে জবর দখলের অভিযোগ উঠে ঘটনাস্থলেরই ‘কেএনবি এগ্রো ইন্ডা: লি:’ নামক একটি পোল্ট্রি, মৎস্য ও পশুখাদ্য প্রস্তুতকারী কারখানা মালিক কামরুজ্জামানের বিরুদ্ধে। তবে তিনি দাবি করেন জমিটি কুষ্টিয়া জেলা পরিষদ থেকে ইজারা সূত্রে প্রাপ্ত। এঘটনায় ক্ষতিগ্রস্ত রাকিবুল ইসলাম বাদি হয়ে আড়াই কোটি টাকা ক্ষতিসাধনের দাবি করে কুষ্টিয়া জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, শিল্পপতি কামরুজ্জামানসহ  জেলা পরিষদের আরও তিন কর্মকর্তার নামোল্লেখসহ ১২-১৫জন অজ্ঞাতদের বিরুদ্ধে দ:বি: ১২০(খ)/১৪৩/৪৪৭/ /৪৪৮/৪০৩/১০৯ ও ৪২৭ ধারায় অভিযোগ এনে কুষ্টিয়া মডেল থানায় মামলা করতে গেলে পুলিশ মামলা না নেয়ায় অতিরিক্ত চীফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালতের বিজ্ঞ বিচারক রেজাউল করীম এর আদালতে মামলা করেন। অভিযোগ আমলে নিয়ে বিজ্ঞ আদালত ঘটনার তদন্তসহ প্রতিবেদন দাখিলের নির্দেশ দিয়েছিলেন কুষ্টিয়া পুলিশ সুপারকে।

গাংনীতে ডেঙ্গুর প্রকোপ বেড়েই চলেছে

গাংনী প্রতিনিধি ॥ মেহেরপুরের গাংনীতে ডেঙ্গুর প্রকোপ বেড়েই চলেছে। প্রতিদিনই ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে  রোগীরা। তবে জায়গা না থাকায় অনেক ডেঙ্গু রোগীকে বাড়িতে রেখে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে বলে জানিয়েছেন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আবাসিক মেডিকেল অফিসার। গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের তথ্যেমতে এ পর্যন্ত ২০৬ জন ডেঙ্গু রোগী সনাক্ত হয়েছে। গাংনী পৌর এলাকায় শুধু মশা নিধনের কার্যক্রম চললেও ইউনিয়ন পর্যায়ের গ্রামগুলোতে এখন পর্যন্ত মশা নিধনে কোন কার্যকর ব্যবস্থা চোখে পড়েনি। যার ফলে শহরে নই এখন গ্রামের মানুষও ডেঙ্গু আক্রান্ত হচ্ছে। গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে রক্তের প্লাটিলেট কাউন্ট পরীক্ষা করার যন্ত্র না থাকায় ভর্তিকৃত রোগীদের প্রতিদিনই বেসরকারী ক্লিনিক কিংবা ডায়াগনষ্টিক সেন্টার পরীক্ষা করতে হচ্ছে। এর ফলে বাড়িত ব্যায়ের মুখে পড়েছে রোগীর স্বজনরা। গত ১০ সেপ্টেম্বর গাংনী থানা পাড়ার হাজি মোঃ নুরুল ইসলামের মেয়ে ডাঃ উম্মে হাবীবা (৩০) এর জ¦র অনুভূত হলে রক্ত পরীক্ষা করে ডেঙ্গু পজেটিভ সনাক্ত হয়। চিকিৎসা নেওয়ার জন্য উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যান। হাসপাতালের অবস্থা দেখে তিনি বাড়িতেই চিকিৎসা নিচ্ছেন। হাসপাতালে রক্তের প্লাটিলেট পরীক্ষার ব্যবস্থা না থাকায় প্রতিদিনই বাহিরে থেকে পরীক্ষা করাচ্ছেন। গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাঃ বুধাদিপ্ত দাস জানান, হাসাপাতলে শুধু মাত্র ডেঙ্গু পজেটিভ সনাক্ত করা হয় যার ফলে অন্য পরীক্ষাগুলো বাহিরে থেকে করার জন্য রোগীদের পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। প্লাটিলেট কাউন্ট মেশিন সরবরাহের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরে জানানো হয়েছে। সেটি সরবরাহ করা হলে রোগীদের আর বাহিরে থেকে পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে হবে না। তাছাড়া আস্তে আস্তে ডেঙ্গুর প্রকোপ কমার কথা কিন্তুু এখন ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা বাড়ছে এভাবে বাড়তে থাকলে রোগীদের চিকিৎসা দেওয়া অসম্ভব হয়ে পড়বে।

ঝিনাইদহে মানব পাচারকারী দলের সদস্য আটক

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহ সদর উপজেলার আঠারো মাইল এলাকা থেকে মানব পাচারকারী চক্রের সক্রিয় সদস্য আক্তার হোসেন পিকুল (৪০)কে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব-৬। গতকাল সোমবার সকালে তাকে আটক করা হয়। আটককৃত আক্তার হোসেন সদর উপজেলার রাধাকান্তপুর গ্রামের মৃত জালাল মালিথার ছেলে। র‌্যাব-৬, সিপিসি-২ ঝিনাইদহ ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদ আলম জানান, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সদর উপজেলার আঠারো মাইল এলাকায় অভিযান চালিয়ে আক্তার হোসেনকে গ্রেফতার করে। সে দীর্ঘদিন ধরে অবৈধভাবে পানি পথে মানব পাচার করে আসছে। সে এলাকার যুবকদের কম খরচে মালয়েশিয়া, লিবিয়া, ইতালিসহ বিভিন্ন দেশে নিয়ে যাওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে অনেকের কাছ থেকে অর্থ হাতিয়ে নিয়েছে। তার নেতৃত্বে একটি সংঘবদ্ধ চক্র ঝিনাইদহের সদর উপজেলার হলিধানী, সাধুহাটি ও কুমড়াবাড়িয়া ইউনিয়নের বিভিন্ন গ্রামের ১৯ জন যুবক বিদেশ গিয়ে ৫/৬ বছর ধরে নিখোঁজ রয়েছে।

 

ডেঙ্গু প্রতিরোধে কুষ্টিয়া পৌরসভার কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে

পূনরায় কিট “বেনটাসিড ২৫০ ইসি” পৌর এলাকায় ছিটানো হচ্ছে

কুষ্টিয়া পৌরসভার মেয়র আনোয়ার আলী বলেন, গতকাল ১৬  সেপ্টেম্বর ৩নং ওয়াডের্র প্রতিটি স্থানে পূনরায় ফগার মেশিন দিয়ে এই কার্যক্রম পরিচালনার মাধ্যমে শেষ  হলো পৌর এলাকার সকল ওয়ার্ডে ক্যাশ প্রগাম। তিনি আরোও বলেন, এডিস মশার লাভা নিধনে সিঙ্গাপুর থেকে সংগৃহীত এই কিট “বেনটাসিড ২৫০ ইসি” স্প্রে মেশিন দিয়ে গতকাল (১৭ই সেপ্টেম্বর) হতে পূনরায় পৌর এলাকার বিভিন্ন শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান, ডোবা-নালা, ড্রেন, কালভার্ট সহ পৌর বাসিন্দাদের বসতবাড়ী ও তাদের আঙ্গিনায় স্প্রে করা হবে। উলে¬খ্য, গত জুলাই ২৫ তারিখ থেকে কুষ্টিয়া পৌরসভার আয়োজনে আনুষ্ঠানিকভাবে এই কার্যক্রম শুরু হয়। এরপর হতে পৌরসভার মেয়রের নির্দেশনা পর্যায়ক্রমে পৌর এলাকার পুনরায় ২১ টি ওয়ার্ডে স্বস্ব কাউন্সিলরের নেতৃত্বে কীটনাশকসহ ফগার মেশিন দিয়ে ছিটানো হচ্ছে। এছাড়াও পৌরসভার পরিচ্ছন্ন কর্মীরা  পৌর এলাকায় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অব্যাহত রেখেছে । সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

 

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে ব্রিটিশ এমপিদের সহায়তা চেয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন মিয়ানমারের উত্তরাঞ্চলের রাখাইন রাজ্যে নিজ বাসভূমিতে রোহিঙ্গাদের নিরাপদ ও স্থায়ী প্রত্যাবাসন নিশ্চিত করতে ব্রিটিশ সংসদ সদস্যদের সহায়তা কামনা করেছেন। সংসদ সদস্য অ্যান মেটি জারবাই’র নেতৃত্বে রোববার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ঢাকায় সফররত ব্রিটিশ সংসদ সদস্যদের জনসংখ্যা, উন্নয়ন এবং প্রজনন স্বাস্থ্য বিষয়ক সর্বদলীয় ১৪ সদস্যের একটি সংসদীয় দলের সঙ্গে তার এক বৈঠকে তিনি এ আহ্বান জানান। আজ এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ খবর জানানো হয়। পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন মিয়ানমার থেকে জীবন বাচাতে পালিয়ে আসা গৃহহারা রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেয়ায় বাংলাদেশে অর্থনৈতিক ও পরিবেশগত বিরূপ প্রভাবের কথা তুলে ধরেন। মোমেন গৃহহারা এ সকল রোহিঙ্গাদের নিরাপদে তাদের নিজ দেশে প্রত্যাবাসন নিশ্চিত করতে মিয়ানমারের ওপর চাপ সৃষ্টির জন্য আন্তর্জাতিক ফোরামে বিশেষ করে জাতিসঙ্গে বাংলাদেশের প্রতি সমর্থন অব্যাহত রাখবে বলে আশা প্রকাশ করেন। তিনি বৈঠকে বিভিন্ন আর্থ-সামাজিক সেক্টরে বিশেষ করে শিশু ও মাতৃ মৃত্যুহার হ্রাস এবং জনসংখ্যা বৃদ্ধির হারে বাংলাদেশের অগ্রগতি সম্পর্কে তাদেরকে অবহিত করেন। তিনি বাংলাদেশ এবং তাদের স্বাগতিক দেশের উন্নয়নে বাংলাদেশী ব্রিটিশদের ভূমিকার কথা উল্লেখ করেন। পররাষ্ট্রমন্ত্রী টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্য (এসডিজি) এবং ডেল্টা প্লান ২১০০ বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে বাংলাদেশ ও যুক্তরাজ্যের মধ্যকার সহযোগিতা আগামী দিনগুলোতে অব্যাহত থাকবে বলে আশা প্রকাশ করেন। বৈঠকে ব্রিটিশ সংসদ সদস্যগন মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবাসন নিশ্চিত করার জন্য ঢাকার সঙ্গে লন্ডন অব্যাহত কাজ করার আশ্বার প্রদান করেন। তারা ১১ লাখ রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেয়া এবং সকল প্রকার মানবিক সহায়তা প্রদানে বাংলাদেশের ভূমিকার প্রশংসা করেন। ব্রিটিশ সংসদ সদস্যগন বাংলাদেশের শিশু ও মাতৃ স্বাস্থ্য, দারিদ্র্য বিমোচন, নারীর ক্ষমতায়ন, প্রযুক্তি ও সক্ষমতার ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য অগ্রগতির প্রশংসা করেন। তারা যৌন ও প্রজনন স্বাস্থ্যের ওপর একটি শিক্ষা সফরে বাংলাদেশে এসেছেন।

দৌলতপুরে চোরাচালান নিরোধ ও আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা

দৌলতপর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে চোরাচালান নিরোধ, নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ এবং আইন-শৃঙ্খলা কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার বেলা ১১টায় দৌলতপুর ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও দৌলতপুর সহকারী কমিশনার (ভূমি) আজগর আলীর সভাপতিত্বে উপজেলা পরিষদ কনফারেন্স রুমে এসব সভা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তব্য রাখেন, দৌলতপুর উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড. এজাজ আহমেদ মামুন, দৌলতপুর থানার নবাগত অফিসার ইনচার্জ এস এম আরিফুর রহমান, দৌলতপুর দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম, মহিষকুন্ডি বিজিবি কোম্পানী কমান্ডার সুবেদার জাহাঙ্গীর আলম, ফিলিপনগর ইউপি চেয়ারম্যান একেএম ফজলুল হক কবিরাজ, মরিচা ইউপি চেয়ারম্যান শাহ আলমগীর, বাবু দুলাল দেবনাথ ও প্রভাষক শরীফুল ইসলাম। সভায় উপস্থিত ছিলেন, দৌলতপুর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান সাক্কির আহমেদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সোনালী খাতুন, আদাবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান মকবুল হোসেন, প্রাগপুর ইউপি চেয়ারম্যান আশরাফুজ্জামান মুকুল মাষ্টার, রিফায়েতপুর ইউপি চেয়ারম্যান জামিরুল ইসলাম বাবু, দৌলতপুর ইউপি চেয়ারম্যান মহিউল ইসলাম মহিসহ উপজেলা পরিষদের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও আমন্ত্রিত সুধীজন। সভায় অধিকাংশ বক্তা আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি ভাল হলেও বাল্যবিবাহ ও বিভিন্ন কৌশলে মাদক চোরাচালান অব্যাহত রয়েছে বলে মন্তব্য করেন। এছাড়াও সভায় বাবু দুলাল দেবনাথ দৌলতপুর সাব-রেজিষ্ট্রারের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন, আল্লারদর্গায় দু’টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠার জন্য কমিশনে জমি রেজিষ্ট্রি বাবদ ৩ লক্ষ টাকা ঘুষ চেয়েছেন। বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানান তিনি। শেষে সভার সভাপতি ও ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও দৌলতপুর সহকারী কমিশনার (ভূমি) আজগর আলী দৌলতপুরের আইন-শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখা, চোরাচালান ও মাদক প্রতিরোধে সীমান্তে কড়া নজরদারি ও বাল্যবিবাহ প্রতিরোধে জনসচেতনতা সৃষ্টির পাশাপাশি সকলকে সচেতন হওয়ার আহ্বান জানান।

পতন হইলে বউ ছাড়া কেউ নাই – যুবলীগ সভাপতি

ঢাকা অফিস ॥ পতন হলে স্ত্রী ছাড়া কেউ পাশে থাকে না বলে মন্তব্য করেছেন যুবলীগ সভাপতি ওমর ফারুক চৌধুরী। তিনি বলেছেন, জমিনে উত্থান দেখেছি পতনও দেখেছি। পতন হইলে কেউ নাই, বউ ছাড়া কেউ নাই। রোববার ঢাকা মহানগর যুবলীগের চারটি ওয়ার্ডের ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি। রাজধানীর গ্রিনরোড স্টাফ কোয়ার্টার মাঠে ওই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনে যুবলীগ সভাপতির বক্তৃতাকালে যুবলীগের একটি মিছিল আসে। এসময় তিনি কিছুটা বিরক্ত হয়ে বলেন, ‘ওই দেখেন তালি পার্টি। এই তালি পার্টিটা কি? আমি একটা কিছু। হনু আসছে; মনে হয় রাজা বাদশা আসছে। যুবলীগে হনুরে দরকার নাই। নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, রাজনীতিকে কঠিন বানাবেন না। যুবলীগে হোন্ডালীগ সেলফিলীগের দরকার নাই। শ্রেষ্ঠত্বের বড়াই করবেন না। তবে আয়োজনের স্থান নিয়ে বিরক্তি প্রকাশ করে যুবলীগের প্রধান বলেন, আমরা আর কোনো জায়গা পেলাম না; এটা কমনসেন্সের ব্যাপার। তবে আমার কাছে খুব অপমান মনে হচ্ছে আপনাদের সাইট সিলেকশন। একটা স্টাফ কোয়ার্টারের ভেতরে কেউ সম্মেলন করে? মাঠ আর নাই? মেইন রোডটা ব¬ক হয়ে গেছে। হোন্ডায় ভরে গেছে। এই মোড় থেকে ঘুরে আমার আসতে একঘন্টা লাগছে। এই যে যানজটটি তৈরি করলাম, আমার কাছে এটা খারাপ লাগল। ছাত্রলীগের ইস্যুতে ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, ইতিহাসে এই প্রথম ছাত্রলীগের দুই নেতাকে চাঁদাবাজির অভিযোগে অব্যাহতি দিয়েছে যা ছাত্রলীগের ইতিহাসেও প্রথম। বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর সমালোচনা করে ওমর ফারুক চৌধুরী বলেন, বিএনপির কাজ কি খালি আন্দোলন? তীব্র আন্দোলন? রিজভী না কি নাম আছে না? এটা নাকি আবাসিক নেতা। ইতিহাসে আছে কোনো পার্টির নেতা অফিসে থাকে? হেতের বউ পোলা নাই, হেতের সংসার নাই, হেতেরে কখনো আপনে দেখছেন হাসতে? শীত মানেনা ,বর্ষা মানেনা রোজা মানে না, ইফতার মানে না। রোজার মাসে সেহেরির সময় টেলিভিশনে আন্দোলন, তীব্র আন্দোলন।’

ইবিতে “ডেঙ্গু বিস্তারের কারন ও করনীয়” শীর্ষক সেমিনার

কুষ্টিয়া ইসলামী  বিশ্ববিদ্যালয়ে পরমানু বিজ্ঞানী  ড. এম ওয়াজেদ মিয়া বিজ্ঞান অনুষদের নিচতলায়  বায়োমেডিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের আয়োজনে গতকাল সোমবার “ডেঙ্গু বিস্তারের কারন ও করনীয়” শীর্ষক সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়েছে। বায়োমেডিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. তপন কুমার জোয়াদ্দের এর সভাপতিত্বে সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ হারুন উর রশিদ আসকারী (ড. রাশিদ আসকারী) বলেন, মশা-মাছি মানব প্রজাতির ক্ষুদ্রতম শক্র। একটি  এডিস মশা একবারে ১৩০টি ডিম পাড়ে। তাই কিভাবে এডিস মশার ডিমটি নষ্ট করা যায় সে ব্যাপারে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মাথা ব্যাথার কারন হয়ে দাঁড়িয়েছে। এটা নিরসনে নিরন্তন গবেষনা চলছে। তিনি বলেন, বৈশিক উষ্ণতার কারনে আবহাওয়ার পরিবর্তন হচ্ছে। শীত প্রধান অঞ্চলের কোথাও কোথাও আজ মরুভুমিতে পরিণত হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, মানবজাতির এই ক্ষুদ্র  শক্রকে সমুলে নিধন করা যায় কিনা এ ব্যাপারে ব্যাপক জনসচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। বিশেষ অতিথির বক্তব্যে প্রো ভাইস-চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. মোঃ  শাহিনুর রহমান বলেন, বাড়িতে মাছ না থাকলে যেমন বিড়াল থাকে না ঠিক তেমনি এডিস মশা বিস্তারের জায়গা না থাকলে এডিস মশা বংশ বিস্তার করবে না। এজন্য প্রথমত সচেতনতার সৃষ্টি করতে হবে কোথায় কোন পরিবেশে এডিস মশা বংশ বিস্তার করে সেই জায়াগাগুলোকে আগে থেকে পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন করতে হবে। বাঁচতে হলে যার যার বাড়ির আশে পাশে নিজ দায়িত্বে পরিস্কার করতে হবে এবং ডেঙ্গু প্রতিরোধ ও নিরাময়ে জনসচেতনার সৃষ্টি করতে হবে। অপর বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ট্রেজারার প্রফেসর ড. মোঃ সেলিম তোহা বলেন, বর্তমানে বাংলাদেশের মানুষ আতঙ্কে আছে ডেঙ্গু সমস্যা নিয়ে। তাই  ডেঙ্গু প্রতিরোধ সম্পর্কে জনসম্পৃক্ততা ও জনসচেতনতা বাড়িয়ে আমরা এই বৈশিক চ্যালেঞ্জকে মোকাবেলা করতে পারবো। তিনি বলেন, আমরা অনেক বড় বড় চ্যালেঞ্জকে মোকাবেলা করে  সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছি। সেমিনারে অপর বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ইঞ্জিনিয়ারিং এন্ড টেকনোলজি অনুষদের  ডিন প্রফেসর ড. মমতাজুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন প্রক্টর প্রফেসর ড. মোঃ মাহবুবর রহমান, প্রফেসর ড. মোঃ জাকারিয়া রহমান,  প্রফেসর ড. মোঃ শাহজাহান মন্ডল, প্রফেসর ড. মোঃ মিজানুর রহমান, প্রফেসর ড. মোঃ আনোয়ারুল হক, ডাঃ নজরুল ইসলাম, মোঃ আতাউর রহমান, ড. নওয়াব আলী খান বিভাগের ছাত্র-ছাত্রীবৃন্দ। সেমিনারটি উপস্থাপনা করেন বায়োমেডিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের শিক্ষক মোঃ রবিউল ইসলাম। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

কুষ্টিয়া জেলা সমিতি ঢাকার অনন্য উদ্যোগ ডেঙ্গু প্রতিরোধে গ্রামে গ্রামে মশারি বিতরণ

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ায় ডেঙ্গু রোগী বৃদ্ধি পাওয়ায় গ্রামের মানুষের মাঝে মশারি বিতরণ করেছে কুষ্টিয়া জেলা সমিতি ঢাকা। গতকাল সোমবার দুপুরে জেলার দৌলতপুর উপজেলার খলিশাকুন্ডি ও আড়িয়া ইউনিয়নে প্রায় ৩০০ পরিবারের মাঝে এসব মশারি বিতরণ করা হয়।

খলিশাকুন্ডি ইউনিয়নের নজিবপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে আয়োজিত অনুষ্ঠানে উপস্থিত এলাকার মানুষদের ডেঙ্গু সম্পর্কে সচেতন করা হয়। স্বচ্ছ পানি জমিয়ে রাখা যাবে না জানিয়ে বাড়ির আশেপাশে পরিস্কার পরিচ্ছন্ন রাখতে বলা হয়। পরে তাদের মাঝে ২৫০টি মশারি বিতরণ করা হয়। পরবর্তীতে আড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদ পরিষদে একই ভাবে ৫০টি মশারি বিতরণসহ সেখানে একটি ডেঙ্গু কন্ট্রোল সেলের উদ্বোধন করা হয়।

মশারি বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন, দৌলতপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আজগর আলী, কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মেডিসিন বিশেষজ্ঞ এএসএম মুসা কবির, দৌলতপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আরিফুর রহমান, কুষ্টিয়া জেলা সমিতি ঢাকার মহাসচিব রবিউল ইসলাম, সহসভাপতি এমএ সালাম, নির্বাহী পরিষদ সদস্য আবদুর রউফ, আজীবন সদস্য নজরুল ইসলাম, প্রথম আলোর কুষ্টিয়া প্রতিনিধি তৌহিদী হাসান প্রমুখ।

দৌলতপুর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) আজগর আলী তার বক্তব্যে বলেন- পুরো দৌলতপুর উপজেলায় ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী জেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশি। দাড়পাড়াতে উপজেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশি। গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পর এই এলাকাটা সরকার বেশি নজর দিয়েছে। পাশাপাশি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি উদ্যোগেও এখানে এডিস মশা নিধনে কাজ করছে। কুষ্টিয়া জেলা সমিতি ঢাকা ডেঙ্গু প্রতিরোধে এগিয়ে আসায় তাদের ধন্যবাদ জানান।

কুষ্টিয়া জেলা সমিতি ঢাকার মহাসচিব ও দিশার নির্বাহী পরিচালক রবিউল ইসলাম বলেন, দেশের যেকোন দূর্যোগে কুষ্টিয়া জেলা সমিতি ঢাকা এগিয়ে আসে। তারই ধারাবাহিকতায় আজকের আয়োজন। ভবিষ্যতে আরও সহযোগিতা করা হবে।

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মেডিসিন বিশেষজ্ঞ এএসএম মুসা কবির বলেন, ডেঙ্গু থেকে পরিত্রাণ পেতে মশারির কোন বিকল্প নাই। বাড়ির আশেপাশে পরিস্কারসহ ঘুমানোর সময় অবশ্যই সবাইকে মশারি ব্যবহার করতে হবে।

সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র বলছে, জেলার মধ্যে সবচেয়ে দৌলতপুর উপজেলায় বেশি ডেঙ্গু রোগী সনাক্ত হচ্ছে। বিশেষ করে গত একসপ্তাহে রোগীর সংখ্যা আরও বেশি বৃদ্ধি পাচ্ছে। জেলায় এ পর্যন্ত  ৯৭৫জন ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়েছে। গত ২৪ ঘন্টায় ভর্তি হয়েছে ২৬ জন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৯৬ জন রোগী।