আমির খান মিটু আন্দোলনটাই দুর্বল করে দিলেন – তনুশ্রী

বিনোদন বাজার ॥ কেন #মিটু অভিযুক্তর সঙ্গে কাজ করছেন? প্রশ্ন তুলে আমির খানকে কটাক্ষ করলেন তনুশ্রী দত্ত। এমনকি #মিটু অভিযুক্তর সঙ্গে কাজ করে আমির যে গত এক বছর ধরে চলা আন্দোলনটাকেই আরো দুর্বল করে দিলেন এমনটাও বলেছেন তনুশ্রী।২০১৮ সালে বহুল সমালোচিত প্রজেক্ট গুলশন কুমারের বায়োপিক ‘মোগল’ থেকে অক্টোবর মাসে বেরিয়ে গিয়েছিলেন আমির খান। কারণ, সেই ছবির পরিচালক সুভাষ কাপুর #মিটু অভিযুক্ত। তবে এবার নানা টালবাহানার পর ফের সেই ছবির কাজে ফিরেছেন আমির খান। আর সেখানেই আপত্তি তুলেছেন তনুশ্রী দত্ত। কেন আমির নিজের সিদ্ধান্তে অনড় থাকেননি, সেই প্রশ্নও তোলেন এই অভিনেত্রী।কয়েকদিন আগেই এক সাক্ষাৎকারে আমির খান জানিয়েছিলেন, সুভাষ কাপুরের দোষ এখনো প্রমাণিত হয়নি। মামলা এখনো চলছে। কিন্তু তিনি যখন জানতে পারেন, ‘মোগল’ এর কাজ থেকে বের হওয়ার পর সুভাষ আর কোথাও কাজ পাননি, হারিয়েছেন বহু কাজের প্রস্তাব, আমির অপরাধ বোধে ভুগতে থাকেন। এমনকি, ইন্ডিয়ান ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন ডিরেক্টরস অ্যাসোসিয়েশনের তরফে মে মাসে আমির একটি চিঠি পান, তাতেও সুভাষের সঙ্গে তার কাজ না করার সিদ্ধান্ত নিয়ে আরেকবার পর্যালোচনা করার প্রস্তাব জানানো হয় অভিনেতাকে। সেই জন্যই ‘মোগল’ এ ফিরছেন আমির খান। গুলশন কুমারের বায়োপিকে ভূষণ কুমারের সঙ্গে সহ-প্রযোজনা করবেন আমির এবং তার স্ত্রী কিরণও।আমিরের এই নতুন সিদ্ধান্তেই বেজায় চটেছেন তনুশ্রী দত্ত। যার হাত ধরে বলিউডে প্রথমবারের জন্য #মিটু আন্দোলন শুরু হয়েছিল। তনুশ্রী বলেন, ‘নিজের সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসে আমির এই #মিটু মুভমেন্টটাকেই দুর্বল করে দিলেন। আমির যদি জীবিকা এবং আয় নিয়ে স্বচ্ছভাবে ভাবতেন তাহলে হয়তো নির্যাতিতা মেয়েটিকে কাজের সুযোগ দিতেন।’ পাশাপাশি তনুশ্রী প্রশ্ন তোলেন, নির্যাতিতা মেয়েটিকেও হয়তো নানা সামাজিক চাপের সম্মুখীন হতে হয়েছে। সমবেদনা কি শুধুই পুরুষদেরই প্রাপ্য? কোনও একজন মহিলা যদি হেনস্তার শিকার হন, ট্রমার মধ্যে দিয়ে দিন কাটান, তখনো বলিউড ইন্ডাস্ট্রির একজনও কি তার চিন্তায় বিনিদ্র রজনী কাটিয়েছেন? যদি আপনি অপরাধবোধে ভুগে সুভাষ কাপুরকে কাজে নেওয়ার কথা ভাবতে পারেন, তাহলে তিনি ওই মহিলাকে কেন কাজ দেওয়ার কথা ভাবলেন না?’

কালেক্টরেট স্কুলের প্রধান শিক্ষকের পিতার মৃত্যু বার্ষিকী পালিত

নিজ সংবাদ ॥ কালেক্টরেট স্কুল এন্ড কলেজ, কুষ্টিয়ার প্রধান শিক্ষক মৃনাল কান্তি সাহা’র পিতা মণিন্দ্রনাথ সাহা’র মৃত্যু বার্ষিকী পালন করা হয়েছে। এ উপলক্ষে গতকাল বুধবার রাতে কুষ্টিয়া শহরস্থ নিজ বাড়ীতে কীর্ত্তণ পরিবেশিত হয়েছে। কীর্ত্তণ পরিবেশন করেন স্বপন দে ও তার দল। এ সময় আত্মীয়-স্বজন ও শুভাকাঙ্খিরা উপস্থিত ছিলেন। শেষে প্রসাদ বিতরণ করা হয়।

হযরত বাবা নফর শাহ্ মাজার কমিটির পক্ষ থেকে তাজিয়া মিছিল

নিজ সংবাদ ॥ প্রতিবারের ন্যায় এবারও হযরত বাবা নফর শাহ্ (রহঃ) এর মাজার কমিটির আয়োজনে, পবিত্র মহররম-এ- আশুরা উপলক্ষে এক তাজিয়া মিছিলের আয়োজন করা হয়। ১০ সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার সকাল ১০টায়  হযরত বাবা নফর শাহ্ (রহঃ) এর মাজার প্রাঙ্গন হতে এ তাজিয়া মিছিল বের করা হয়। এর সার্বিক ব্যাবস্থাপনায় ছিলেন হযরত বাবা নফর শাহ্ (রহঃ) এর মাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক মোঃ রেজাউল হক। তাজিয়া মিছিল পরিচালনা করেন হযরত বাবা নফর শাহ্ (রহঃ) মাজার এর খাদেম ওসমান গণি। তাজিয়া মিছিলটি মীর মশাররফ হোসেন সড়ক হয়ে পৌর ১নং গোরস্থানে জিয়ারত শেষে আর সি আর সি স্ট্রীটে বার শরীফ দরবারে জিয়ারত শেষে বক চত্বর থানার মোড় হয়ে এনএস রোড দিয়ে বড় বাজার রেল গেট হয়ে মাজার প্রাঙ্গনে ফিরে আসে। তাজিয়া মিছিলে র‌্যাব-পুলিশের পাশাপাশি সাদা পোষাকে প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয়।

ভেড়ামারায় দৈনিক খোলা কাগজের পাঠক ফোরাম এগারজন’র যাত্রা শুরু

আল-মাহাদী ॥ “মানুষ মানুষের জন্য” এই শ্লোগানকে ধারণ করে গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় মোঃ আব্দুর রশীদ এ্যাডভোকেটের চেম্বারে আনন্দঘন পরিবেশে খোলাকাগজের পাঠক  ফোরাম এগারজন’র যাত্রা শুরু হয়। এ সময় এ্যাডঃ মোঃ আব্দুর রশীদ ও ভেড়ামারা উপজেলা জাতীয় মহিলা সংস্থার সমন্বয়কারী মোহাঃ আসমান আলীকে উপদেষ্টা করে খোলাকাগজের পাঠক  ফোরাম এগারজন’র কমিটি গঠন করা হয়। তাহের মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ রফিকুল ইসলামকে সভাপতি ও প্রাইম এক্সেসরিজ এর প্রোঃ মোঃ আরিফুর রহমানকে সাধারণ সম্পাদক করে ১১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি’র অন্য সদস্যরা হলেন, সহ-সভাপতি ধুবইল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ সামসুল হক, সহ-সম্পাদক মোঃ ছালামত হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আমজাদ হোসেন, কোষাধ্যক্ষ মোঃ আতিয়ার রহমান, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক বঙ্গবন্ধু জাতীয় কৃষি পদকপ্রাপ্ত মোঃ শাহিনুর রহমান শাহিন, কর্মসূচি বিষয়ক সম্পাদক এম.এস. জামিল রাসেল, স্বাস্থ্যবিষয়ক সম্পাদক ডাঃ মোঃ মোনায়েমুর রহমান ও নির্বাহী সদস্য হিসেবে মোঃ আব্দুর রহমান সোহাগ, মোঃ জাহিদ হাসান মনোনীত হয়েছেন। কমিটির প্রধান সমন্বয়কারী ভেড়ামারা প্রেসক্লাবের যুগ্ন আহবায়ক ও খোলা কাগজের ভেড়ামারা উপজেলা প্রতিনিধি মোঃ আবু ওবাইদা-আল-মাহাদী জানান, বিপদে-আপদে মানুষের পাশে থাকার জন্য খোলা কাগজ সব সময় এগিয়ে রয়েছে। খোলা কাগজ পত্রিকা দ্রুত পাঠকের মন জয় করে নিয়েছে।  খোলা কাগজ পাঠক ফোরামের ১১ জন সব সময় মানব কল্যাণে কাজ করে যাবে। নারী নির্যাতন, বাল্যবিবাহ রোধ, হতদরিদ্র মানুষের পাশে দাঁড়ানো, প্রতিবন্ধীদের সহায়তা করা, বন্যার্তদের পাশে দাঁড়ানো, দুর্নীতি প্রতিরোধে সহায়তা করা, অসহায়দের আইনি সহায়তা করা, ইভটিজিং রোধে আইনি সহায়তা করা, পরিবেশ দূষণ ও ভারসাম্য আনয়নে সচেতনতা সৃষ্টি, বৃক্ষরোপণ ও এর উপকারিতা তুলে ধরা এবং চিকিৎসা সেবা নিশ্চিত করাসহ সমাজের বিভিন্ন উন্নয়নে ভূমিকা রাখাই হলো কমিটির মূল কাজ। সামাজিক বিভিন্ন কাজে মানুষকে সচেতন করে গড়ে তোলার জন্য এ কমিটি কাজ করবে। কমিটি গঠনের বিষয়ে এ্যাডঃ মোঃ আব্দুর রশীদ বলেন, দৈনিক খোলা কাগজের পাঠক  ফোরাম এগারজন যাত্রা শুরু করায় আমরা আনন্দিত।

রোহিঙ্গাদের আমরা জোর করে ফেরত পাঠাব না – পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন সম্পর্কে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আবদুল মোমেন বলেছেন, আমরা কাউকে জোর করে ফেরত পাঠাব না, তারা (রোহিঙ্গা) স্বেচ্ছায় ফেরত যাবে। রোহিঙ্গারা যাতে স্বেচ্ছায় ফিরে যেতে পারে, সেই পরিবেশ তৈরি করার দায়িত্ব মিয়ানমারের। তারা তাদের লোকগুলোকে কনভিন্স করতে পারেনি। বুধবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের পিকেএসএফ ভবনে এক সেমিনার শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন । মিয়ানমার সরকারের উদ্দেশে পরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গাদের আশ্রয়কেন্দ্র বানানোর জন্য সময়ক্ষেপণ করবেন না। আগে রোহিঙ্গাদের দেশে ফেরান, তারাই তাদের ঘরবাড়ি বানিয়ে নেবে। পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘রোহিঙ্গাদের জন্য ঘরবাড়ি বানানোর দরকার নেই, আগে তাদের দেশে ফিরিয়ে নিন। রোহিঙ্গাদের জন্য কিছু বাড়িঘর মিয়ানমার সরকার তৈরি করেছে, সেখানে আসলে কী অবস্থা হয়েছে- তা দেখাতে আমাদের রাষ্ট্রদূতসহ বিদেশি কূটনীতিকদের নিয়ে যাবে। মিয়ানমার সরকার আগে কোনো দিন রাজি ছিল না, এখন রাজি হয়েছে।’একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধের সময়কার কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘যখন ভারত থেকে আসি, আমরা চিন্তা করি নাই আমাদের ঘরবাড়ি আছে কিনা। পাকিস্তানি আর্মি আমাদের ঘরবাড়ি ভেঙে ফেলেছিল, আমরা এসে ঘরবাড়ি তৈরি করেছি। ’তিনি বলেন, ‘রোহিঙ্গারাও যখন আমাদের এখানে এল, তারাও কিন্তু ঘরবাড়ির কথা চিন্তা করে নাই। পালাই পালাই করে চলে আসছে। যখন তাদের যাওয়া শুরু হবে, গিয়ে সেখানে ঘরবাড়ি তৈরি করে নেবে, না গেলে কীভাবে হবে?’ এ সময় রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তরের বিষয়ে এখনো কোনো চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হয়নি বলে জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

পরিবারে আ.লীগ-বিএনপি থাকলে ছাত্র সমাজে জায়গা নয় – রাঙ্গাঁ

ঢাকা অফিস ॥ কারও পরিবারের কেউ আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে সক্রিয় থাকলে তাকে জাতীয় পার্টির ছাত্র সংগঠনের সদস্য করা হবে না বলে ঘোষণা দিয়েছেন ক্ষমতাসীন দলের নেতৃত্বে মহাজোটের শরিক দলটির মহাসচিব মসিউর রহমান রাঙ্গাঁ। শুধু আওয়ামী লীগই নয় কারো পরিবারের সদস্যদের মধ্যে কেউ বিএনপি করলে তিনিও জাতীয় ছাত্র সমাজে জায়গা পাবেন না বলে গতকাল বুধবার রাজধানীতে এক অনুষ্ঠানে বলে তিনি। কাকরাইলে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট অব বাংলাদেশ (আইবি) মিলনায়তনে ছাত্র সংগঠনটির সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন রাঙ্গাঁ।তিনি বলেন, “কারও পরিবারে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির সদস্য থাকার প্রমাণ পেলে তাদের কোনোভাবেই ছাত্র সমাজের সদস্যপদ দেওয়া হবে না।” সামরিক শাসক থেকে রাষ্ট্রক্ষমতা দখলের পর এইচএম এরশাদ সহায়ক বাহিনী হিসেবে ছাত্র সমাজ গড়ে তোলেন। নব্বইয়ের গণঅভ্যুত্থানে এরশাদ ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার পর জাতীয় পার্টির নির্বাচনী রাজনীতিতে ভূমিকা রাখলেও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে জায়গা পায়নি ছাত্র সমাজ। এরশাদ পতনের আন্দোলনের সঙ্গে সম্পৃক্ত প্রায় সব ছাত্র সংগঠন জাতীয় সমাজকে ক্যাম্পাসের রাজনীতিতে প্রবেশ করতে না দেওয়ার বিষয়ে মোটামুটি ঐক্যবদ্ধ ছিল। কিন্তু ১৯৯৭ সালের নির্বাচনে আওয়ামী লীগ জাতীয় পার্টিকে সঙ্গে নেওয়ার পর সেই চিত্র পাল্টাতে থাকে। গত দুই মেয়াদে জাতীয় পার্টি সরকারের শরিক ছিল। গত সংসদে তারা একইসঙ্গে বিরোধী দলের ভূমিকায় এবং সরকারেও ছিলেন, রাঙ্গাঁ ছিলেন সমবায় প্রতিমন্ত্রী। এবারই প্রথম সরকারে জায়গা হয়নি তাদের। দ-িত যুদ্ধাপরাধীদের দল জামায়াতে ইসলামীর পরিবারের কাউকে আওয়ামী লীগের সদস্য এবং তাদের ছাত্র সংগঠন ইসলামী ছাত্র শিবির থেকে আসা কাউকে ছাত্রলীগের সদস্য করা নিয়ে বিতর্ক আছে। তবে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেছেন, সদস্য করার ক্ষেত্রে ব্যক্তিগত কর্মকা- বিচার করা হবে, পরিবারের নয়।এছাড়া পরিবারের কোনো সদস্যের রাজনৈতিক মতাদর্শের জন্য কেউ কোনো সংগঠনের সদস্য হতে পারবে না এমন আনুষ্ঠানিক ঘোষণা এর আগে শোনা যায়নি। ছাত্র সমাজের সভায় সংসদ নির্বাচন ও পরে ডাকসু নির্বাচনে দলের প্রশ্ন উঠলে রাঙ্গাঁ বলেন, “আমাদের জবাব দেওয়ার আছে, সময়মতো জবাব দেওয়া হবে। তবে এর জন্য উপযুক্ত প্রস্তুতি নিতে হবে। দল যদি সঠিক পথে থাকে, তাহলে বিজয়ী হব আমরা। চার বছর পর যে নির্বাচন আসছে, আমাদের তার প্রস্তুতি নিতে হবে। “২০২৩ সালের নির্বাচনে আমাদের চেয়ারম্যান জি এম কাদেরকে প্রধানমন্ত্রী বানিয়েই ছাড়ব।”ডিসেম্বরে অনুষ্ঠেয় কাউন্সিলের আগে কোনো প্রেসিডিয়াম সদস্য অকার্যকর থাকলে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুশিয়ারি দেন জাতীয় পার্টির মহাসচিব।তিনি বলেন, “আজকে অনেকে অনেক কথা বলেন। নানা তামাশা দেখছি। ফেইসবুক খুললে দেখি, নানা জনের নানা পরামর্শ। তবে আমি এদের ঠিক করে যাব, ঠিক করতে এসেছি আমি।”সভায় ভ্যেনু না পাওয়ায় জাতীয় পার্টির কেন্দ্রীয় কাউন্সিল পিছিয়ে ২১ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা জানান দলের চেয়ারম্যান জিএম কাদের।জাতীয় ছাত্র সমাজ কেন্দ্রীয় সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক মো. জামাল উদ্দিনের সভাপতিত্বে সভায় জাতীয় পার্টির প্রেসিডিয়াম সদস্য জিয়াউদ্দিন আহমেদ বাবলু, আদেলুর রহমান আদেল ও রেজাউল ইসলাম বক্তব্য দেন।

কমিউনিটি ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড’র বাণিজ্যিক কার্যক্রম উদ্বোধন

কমিউনিটি পুলিশিং-এ গুরুত্ব দিতে উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের প্রতি নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

ঢাকা অফিস ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কমিউনিটি পুলিশিং-এর ওপর গুরুত্ব দিতে পুুলিশের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের প্রতি নির্দেশ দিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘এই বিষয়টার ওপর আমরা জোর দেব যাতে করে ভবিষ্যতে মানুষের সেবা করা এবং মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস অর্জন করা যায়।’ প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কমিউনিটি পুলিশিং-এ আমরা জোর দিচ্ছি এবং আমি বলবো প্রায় সব ক্ষেত্রেই কমিউনিটি পুলিশিং-এ আরো জোর দেয়া উচিত।’ ‘কারণ হচ্ছে- কমিউনিটির লোকজন যদি এর সঙ্গে সম্পৃক্ত থাকে তাহলে ঐ অঞ্চলে অপরাধের হার (ক্রাইম) এমনি কমে যাবে।’তিনি এ সময় দেশে চলমান মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান অব্যাহত রাখার পাশাপাশি পুলিশ ও থানাগুলোর ওপর মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস অর্জনে আন্তরিকতা ও নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালনের আহবান জানান।শেখ হাসিনা গতকাল বুধবার সকালে পুলিশের দীর্ঘদিনের দাবি ‘কমিউনিটি ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেড’র বাণিজ্যিক কার্যক্রম উদ্বোধনকালে একথা বলেন।গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী ব্যাংকটির উদ্বোধন করেন।বাংলাদেশ পুলিশ ওয়েলফেয়ার ট্রাস্টের মালিকানাধীন এই ব্যাংকটির লক্ষ্য বিভিন্ন কমিউনিটির সদস্যদের কাছে পৌঁছানো এবং উদ্ভাবনী ব্যাংকিং সেবা প্রদান করা।সরকার প্রধান বলেন, অত্যন্ত ঘনবসতিপূর্ণ দেশ হওয়ায় জন প্রতি পুলিশের অনুপাত বাড়াতে কমিউনিটি পুলিশিংকে যদি জোরদার করতে পারি তাহলে আরো বেশি মানুষের শান্তি ও নিরাপত্তা আমরা নিশ্চিত করতে সক্ষম হব।তিনি বলেন, রাষ্ট্র পরিচালনার ক্ষেত্রে কিছু বাধা আসে। সেক্ষেত্রে প্রাকৃতিক দুর্যোগ যেমন আসে মনুষ্য সৃষ্ট দুর্যোগ ও আসে। আর এসব দুর্যোগ আমরা মোকাবেলা করি, যেখানে পুলিশ বাহিনী বিশেষ ভূমিকা পালন করে।প্রধানমন্ত্রী উদাহারণ দেন, এই দুর্যোগ মাঝে মাঝে এমন আত্মঘাতী হয়, যা দেশের জন্য ক্ষতির সৃষ্টি করে। এছাড়া সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদতো রয়েছেই যেখানে আমাদের পুলিশ বাহিনী বিশেষ ভূমিকা নিচ্ছে এবং মানুষের জীবনের শান্তি-নিরাপত্তা নিশ্চিত করছে।তিনি এ সময় আন্দোলনের নামে ২০১৩-১৪ এবং ১৫ সালে বিএপিজামায়াতের সন্ত্রাস এবং গুলশানের হলি আর্টিজান বেকারিসহ বিভিন্ন স্থানে সন্ত্রাস ও জঙ্গি দমনে পুলিশ এবং গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর ভূমিকার প্রশংসা করেন।শেখ হাসিনা বলেন, সন্ত্রাস এবং জঙ্গিবাদ দমনে পুলিশকে আরো দক্ষভাবে গড়ে তোলার জন্য তাঁর সরকার এন্টি টেরোরিজম ইউনিট এবং সাইবার ক্রাইম দমনে সাইবার পুলিশ সেন্টার গঠন করেছে এবং যেগুলো অত্যন্ত দক্ষতার পরিচয় দিচ্ছে। গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর উন্নয়নসহ শিল্প পুলিশ, পিবিআই, টুরিষ্ট পুলিশ, নৌ পুলিশ এবং বিভিন্ন স্পেশাল পুলিশ ব্যাটালিয়ন গঠন করেছে।এদের বিরুদ্ধ অভিযান অব্যাহত রাখার পাশাপাশি তাকে আরো জোরদার করার ওপর গুরুত্বারোপ করে সরকার প্রধান বলেন, মাদকের বিররুদ্ধে অভিযান চলছে এবং চলবে।তিনি বলেন, একে আরো বাড়াতে হবে এই কারণে যে, মাদক এক একটা পরিবার ও সমাজকে ধ্বংস করে দেয়। এমনকি মাদকের জন্য ছেলে মাকে মেরে ফেলে, ভাই ভাইকে মেরে ফেলে, বাবাকে মেরে ফেলে। কাজেই এই ধরনের ঘটনা যেন না ঘটে সেজন্য আরো বেশি করে মাদক বিরোধী অভিযান করতে হবে।পুলিশের তাৎক্ষণিক সেবা প্রাপ্তির জন্য তাঁর সরকারের টোল ফ্রি ‘৯৯৯’ এ কল সার্ভিস চালুর প্রসঙ্গ তুলে প্রধানমন্ত্রী বলেন, এক্ষেত্রে পুলিশ খুব দক্ষতার সঙ্গে কাজ করছে। পুলিশ বাহিনীর সদস্যদের ধন্যবাদ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এইজন্য মানুষের মাঝে আত্মবিশ্বাসের সৃষ্টি হয়েছে।’তিনি এ সময় পুলিশের জন্য ঝুঁকি ভাতা চালু, প্রয়োজনীয় যানবাহনের ব্যবস্থা, চাকরি ক্ষেত্রে পদোন্নতি, বেতন বৃদ্ধিসহ অন্যান্য সুবিধা তুলে ধরেন।স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান, অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব ড. মুস্তফা কামাল অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন।প্রধানমন্ত্রীর মুখ্যসচিব মো. নজিবুর রহমান অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন এবং পুলিশের মহাপরিদর্শক ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারি বাংলাদেশ কমিউনিটি ব্যাংকের বিষয় ভিডিও প্রেজেন্টেশন উপস্থাপনা করেন।প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচটি ইমাম, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এসডিজি বিষয়ক মুখ্য সমন্বয়কারী মো. আবুল কালাম আজাদ, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব সাজ্জাদুল হাসান, প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম, এনবিআর চেয়ারম্যান মো. মোশাররফ হোসেন ভুইয়া, ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) বিদায়ী কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া, র‌্যাবের মহাপরিচালক বেনজীর আহমেদ এবং পুলিশের উর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।প্রধানমন্ত্রী পরে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রাজারবাগ পুলিশ অডিটোরিয়ামে উপস্থিত পুলিশ সদস্যদের সঙ্গে এবং কমিউনিটি ব্যাংকের গুলশান শাখার সঙ্গে মতবিনিময় করেন।প্রধানমন্ত্রী তাঁর ভাষণে পুলিশে জনবল নিয়োগের ক্ষেত্রে অতীতের মত ঘুষ দুর্নীতি এবার না হওয়ায় পুলিশ কর্মকর্তাদের প্রশংসা করে এই দৃষ্টান্ত অন্যদেরও অনুসরণের আহবান জানান।তিনি বলেন, সাধারণত পুলিশে লোক নিয়োগের ক্ষেত্রে চিরদিনই, শুধু পুলিশ কেন সর্বক্ষেত্রেই নিয়োগের ক্ষেত্রে একটা ঘুষ-দুর্নীতির বদনাম রয়েছে। সেখানে এবার পুলিশ ক্ষেত্রে একটা দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে। ঘুষ-দুর্নীতিমুক্তভাবে এবার যেভাবে পুলিশে নিয়োগ হয়েছে তাতে অতি সাধারণ ঘরের ছেলে-মেয়েরাও চাকরি পেয়েছে। সেজন্য তিনি বিশেষভাবে পুলিশবাহিনীকে ধন্যবাদ জানান।প্রধানমন্ত্রী বলেন, প্রতিটি জেলা এবং উপজেলা পর্যায়ে যারা এজন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত ছিলেন তারা প্রত্যেকেই অত্যন্ত সততার সঙ্গে, দক্ষতার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করে একটা বিশেষ দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। আমার মনে হয়, এটা সকলকেই অনুসরণ করতে হবে।তিনি বলেন, ‘আমি এটা বলবো অন্যরাও এক্ষেত্রে বিষয়টি অনুসরণ করে একটি দৃষ্টান্ত স্থাপন করতে পারে। তাহলে সাধারণ মানুষগুলো কাজের সুযোগ পাবে।’তাঁর সরকার প্রশিক্ষণকে গুরত্ব প্রদান করে উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, আমরা বিভিন্ন ক্ষেত্রে ট্রেনিংয়ের ব্যবস্থা করেছি এবং এই ট্রেনিংটা আরো বাড়াতে চাই।তিনি কিছু সময় পর পরই পিরিয়ডিক্যালি এই ট্রেনিং অনুষ্ঠানের ওপর গুরুত্বারোপ করেন।প্রধানমন্ত্রী বলেন, অপরাধের যেহেতু প্রতি নিয়ত ধরণ বদলাচ্ছে সেকারণে যুগোপযোগী প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা থাকলে তাৎক্ষণিক ভাবে কখন কি করা দরকার সে বিষয়ে পুলিশ বুঝতে পারবে।তিনি আমর্ড পুলিশ ব্যাটালিয়ন বিশেষায়িত ট্রেনিং সেন্টারসহ সারাদেশে ৩০টি ইন সার্ভিস সেন্টার স্থাপনেও সরকারের পদক্ষেপ তুলে ধরে বলেন, আরো চারটি ট্রেনিং সেন্টার স্থাপনের কাজ চলছে। প্রত্যেক জেলায় পুরনো যে থানাগুলো রয়েছে সেগুলোসহ এবং উপজেলা এবং ইউনিয়ন পর্যায় পর্যন্ত সব থানার উন্নতির জন্য অনেকগুলো প্রকল্প আমরা ইতোমধ্যেই পাশ করেছি।প্রধানমন্ত্রী বলেন, থানাগুলোর অবস্থা এমন হওয়া উচিত, যার মাধ্যমে মানুষের আস্থা ও বিশ্বাস যেন পুলিশ অর্জন করতে পারে। কারণ, মানুষের সেবা নিশ্চিত করার সঙ্গে সঙ্গে প্রত্যেকটি থানাকে দর্শনীয় ও সুন্দর হতে হবে এবং এগুলো মানুষের আস্থা ও বিশ্বাসের জায়গা হিসেবে তৈরী হবে।তিনি এ সময় দেশের বিভিন্ন জেলা-উপজেলা পর্যায়ে থানাগুলোর দুরাবস্থার প্রসঙ্গ উল্লেখ করে পুলিশের উর্ধ্বতন কতৃর্পক্ষকে নির্দেশ দেন-কোথায় কোথায় থানার দুরবাবস্থা রয়েছে সেগুলো খুঁজে বের করে তাঁর কাছে নিয়ে আসার জন্য। যাতে তিনি এই প্রকল্পগুলো দ্রুত পাশ করে দিতে পারেন।প্রধানমন্ত্রী বলেন, যারা কাজ করবেন তাঁদের বিশ্রামের, থাকার, নিরাপত্তার, অস্ত্র ও গাড়ি রাখার ব্যবস্থা যথাযথ ভাবে থাকতে হবে। তাহলে আপনারা অরো দক্ষতার সঙ্গে কাজ করতে পারবেন।তাঁর সরকারের সময়ে দেশের অর্থনীতি যথেষ্ট শক্তিশালী উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা যে আকাঙ্খা নিয়ে দেশ স্বাধীন করেছিলেন সেই আকাঙ্খা পুরণের লক্ষ্য নিয়েই আমরা এগিয়ে যাচ্ছি। আমাদের প্রবৃদ্ধি ৮ দশমিক ১ ভাগে উন্নীত হয়েছে।দেশের এই অগ্রযাত্রাকে অব্যাহত রাখার ওপর গুরুত্বারোপ করে শেখ হাসিনা বলেন, আমরা উন্নয়নশীল দেশের স্বীকৃতি পেয়েছি ২০২৪ সাল পর্যন্ত এটা যদি আমরা ধরে রাখতে পারি তাহলে উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা পাব এবং আন্তর্জাতিক ভাবে আমাদের মর্যাদা বৃদ্ধি পাবে।তিনি বলেন, আমরা ২০৪১ সাল নাগাদ বাংলাদেশকে দক্ষিণ এশিয়ার একটি উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ হিসেবে গড়ে তোলার ঘোষণা দিয়েছি। ইনশাল্লাহ আমরা তা করতে পারবো।এসময় তাঁর সরকারের ২১০০ নাগাদ গৃহীত ডেল্টা পরিকল্পনারও উল্লেখ করেন প্রধানমন্ত্রী।তিনি বলেন, বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা যেন পরিকল্পিতভাবে হয় সেজন্য সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে, অর্থনতিক উন্নতি জন্য দেশে শান্তি শৃঙ্খলা বজায় রাখা। আর এই শান্তি শৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব খুব স্বাভাবিক ভাবেই পুলিশের ওপরই বর্তায়। তিনি আশা প্রকাশ করে বলেন, পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা যেভাবে দায়িত্ব পালন করে যাচ্ছেন সেভাবেই পালন করে যাবেন। যাতে দেশকে আমরা এগিয়ে নিয়ে যেতে পারি এবং আগামী প্রজন্ম একটা সুন্দর জীবন পায়।

খোকসায় জাতীয় মহিলা দলের ক্রিকেটারকে সংবর্ধনা

খোকসা প্রতিনিধি ॥ জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের কৃতি খেলোয়াড় মুরশিদা খাতুন হ্যাপীকে একটি পত্রিকার পক্ষ থেকে সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। নারী বিশ্বকাপ বাছায় পর্বে অপরাজিত চাম্পিয়ন বাংলাদেশের জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দলের কৃতি খেলোয়াড় মুরশিদা খাতুন হ্যাপী গতকাল বুধবার রাতে ঢাকা থেকে খোকসায় গ্রামের বাড়িতে অবকাশ জাপনে আসে। এ সময় সাপ্তাহিক দ্রোহ পত্রিকার পক্ষ থেকে তাকে সংবর্ধনা জানানো হয়। গতকাল বুধবার রাতে খোকসা বাসস্ট্যান্ডে অনানুষ্ঠানিক পথ সংবর্ধনায় এই কৃতি খেলোয়াড় বাংলাদেশ জাতীয় মহিলা ক্রিকেট দল ও তার জন্য উপস্থিত জনতার কাছে দোয়া কামনা করেন। আগামী নারী বিশ্বকাপে তার দল খুবই ভালো ফল করবে বলেও তিনি আশাবাদি। এ সময় দ্রোহ পত্রিকার সম্পাদক তমা মুনসী, খোকসা প্রেসক্লাবের সাংগঠনিক সম্পাদক সুমন কুমার মন্ডল, উপস্থাপক রফিকুল ইসলাম রফিক, আনিসুজ্জামান আনিস, খন্দকার দুলাল, মিলন হোসেন, ডালিম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কিছু দানবরূপী চালকদের রুখতেই হবে ঃ তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ তথ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ‘কিছু দানবরূপী চালকদের রুখতেই হবে।’গতকাল বুধবার দুপুরে রাজধানীর শ্যামলীতে ট্রমা সেন্টারে বাসচাপায় গুরুতর আহত কিশোর আলভীকে দেখার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে মন্ত্রী এ কথা বলেন। গত বৃহস্পতিবার যে পরিবহনের বাসচাপায় উত্তরায় সংগীতশিল্পী পারভেজ রব নিহত হন, সেই একই পরিবহনের বাস চাপায় শনিবার (৮ সেপ্টেম্বর) তার কনিষ্ঠ পুত্র আলভী গুরুতর আহত ও তার বন্ধু মেহেদী নিহত হন। ড. হাছান বলেন, প্রথমত শিল্পী পারভেজ রবকে যেভাবে চাপা দেওয়া হয়েছে, তার ছেলে একই কোম্পানির গাড়িতে সেভাবে দুর্ঘটনার শিকার হয়েছেন। দুটিই দুর্ঘটনা কিনা, বিশেষ করে পরবর্তীটির তদন্তের দাবি রাখে। আমি মনে করি, অসচেতনভাবে গাড়ি চালানোর কারণে মানুষের মৃত্যুবরণ, পঙ্গুত্ববরণ -এগুলো সব দুর্ঘটনা নয়, কিছু খুনের ঘটনা। সুতরাং এগুলোর লাগাম টেনে ধরতেই হবে। ‘ভুয়া লাইসেন্স বা রোড পারমিট ছাড়া গাড়ি চালানোর ক্ষেত্রে দায়ি সবার বিরূদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা প্রয়োজন, সরকার এ বিষয়ে কাজ করছে’ উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, যাদের এভাবে বেপরোয়া গাড়ি চালানো, মানুষের ওপর গাড়ি তুলে দেওয়ার কারণে প্রাণ ঝরে পড়ছে, সেই দানবদের বিরূদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে, রুখতেই হবে। এজন্য প্রয়োজন জোরালো প্রচার ও ক্যাম্পেইন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, সিংহভাগ অর্থাৎ বেশিরভাগ ড্রাইভার ভালোভাবে গাড়ি চালানোর চেষ্টা করে, ইচ্ছাকৃতভাবে দুর্ঘটনা ঘটায় না। কিন্তু কিছু চালক বেপরোয়া গাড়ি চালায়, একে অপরের সঙ্গে প্রতিযোগিতায় নামে, অনেক ক্ষেত্রে ইচ্ছাকৃতভাবে চাপা দেয়। এরা দুর্বৃত্ত। অসচেতনভাবে, ড্রাইভিং লাইসেন্স ছাড়া গাড়ি চালানো এই সমস্ত চালকের ট্রাফিক আইন সম্পর্কে কোনো ধারণা নেই। এদের কারণেই দুর্ঘটনা ঘটছে। এদেরকে অবশ্যই নিয়ন্ত্রণে আনতে হবে। ‘সড়ক দুর্ঘটনা একটি মারাত্মক সমস্যা হিসেবে দেখা দিয়েছে, যা রোধে জোরালো ক্যাম্পেইন প্রয়োজন’ উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, সড়ক দুর্ঘটনা পৃথিবীর সব দেশেই আছে কম বেশি। সরকার ইতোমধ্যে ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে এবং ১১১টি সুপারিশ সেখানে নেওয়া হয়েছে। আমি আশা করি, এই সুপারিশগুলো যদি বাস্তবায়িত হয় তাহলে সড়ক দুর্ঘটনা অনেকাংশেই কমে যাবে।আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক বলেন, দেশে সড়ক বাড়ছে, গাড়ি বাড়ছে, মানুষ বাড়ছে এর সাথে সাথে সড়কের নিরাপত্তায় মালিক সমিতি, শ্রমিক ও চালক ভাইদের সমিতি, জনগণ ও প্রশাসন ঐক্যবদ্ধভাবে একটা ক্যাম্পেইন হাতে নিতে পারি। আশা করি তাহলে আমরা এটি নিয়ন্ত্রণ করতে পারবো।‘আমি মালিক, শ্রমিক ও চালক ভাইদের সমিতিসহ বিভিন্ন সমিতিগুলোকে অনুরোধ জানাবো, যাতে করে কেউ ভুয়া লাইসেন্স দিয়ে গাড়ি চালাতে না পারে এবং অসুস্থ গতি প্রতিযোগিতায় না নামে, এজন্য সবার সচেতনতা দরকার’ বলেন ড. হাছান।ট্রমা সেন্টারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. আ ফ ম রুহুল হক, বিশিষ্ট সংগীতশিল্পী রফিকুল আলম, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুণ সরকার রানা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।তথ্যমন্ত্রী বিনা খরচে আলভীর চিকিৎসার জন্য অধ্যাপক ডা. আ ফ ম রুহুল হককে অনুরোধ জানালে তিনি সে ব্যবস্থা করবেন বলে জানান। পাশাপাশি তথ্যমন্ত্রী আলভীর

কাপ্তাইয়ে ৭.৪ মেগাওয়াটের সৌরবিদ্যু প্রকল্প উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ কাপ্তাইয়ে নবনির্মিত সৌর শক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে ৭.৪ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনকেন্দ্র উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বুধবার গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে তিনি সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্পটি উদ্বোধন করেন। এ সময় ভিডিও কনফারেন্সে ৪টি বিদ্যুৎ কেন্দ্র, ৮টি উপকেন্দ্র এবং ১০ উপজেলায় শতভাগ বিদ্যুতায়ন কার্যক্রম উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী। জানা যায়, এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক এবং বাংলাদেশ সরকারের অর্থায়নে এই সৌর বিদ্যুৎ প্রকল্প নির্মিত হয়েছে। কাপ্তাই প্রজেক্টের ভেতরে কর্ণফুলী পানি বিদ্যুৎ কেন্দ্রের প্রধান বাঁধ সংলগ্ন দুই একর খালি জায়গায় সৌর বিদ্যুৎ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হয়। পুরো প্রকল্প এলাকা সুউচ্চ সীমানা প্রাচীর দিয়ে ঘেরাও করা হয়েছে। পাশাপাশি পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থাও রাখা হয়েছে। ১১০ কোটি টাকা ব্যয়ে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হয়। সৌর শক্তির সাহায্যে এই প্রকল্প থেকে দৈনিক ৭.৪ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ পাওয়া যাবে। এর মধ্যে ২ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ কাপ্তাই প্রজেক্টে ব্যয় করা হবে। বাকী ৫.৪ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ জাতীয় গ্রিডে সঞ্চালন করা হবে। কাপ্তাইয়ে ৭.৪ মেগাওয়াটের সৌরবিদ্যুৎ প্রকল্প উদ্বোধনের পাশাপাশি গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বাংলাদেশ পুলিশ কল্যাণ ট্রাস্টের অধীন অনুমোদনপ্রাপ্ত কমিউনিটি ব্যাংক বাংলাদেশ লিমিটেডের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন তিনি। এ সময় দক্ষতার সঙ্গে জঙ্গিবাদ দমনে ভূমিকা রাখা ও রাষ্ট্রীয় বিভিন্ন আচার অনুষ্ঠানসহ বিভিন্ন সময়ে নিজেদের জীবনের ঝুঁকি নিয়ে সবার নিরাপত্তা নিশ্চিতে পুলিশ বাহিনী নিয়োজিত থাকায় তাদের সাধুবাদ জানান প্রধানমন্ত্রী।

ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের উদ্দ্যোগে মহররম মাস আশুরা শীর্ষক গুরুত্বপূর্ন আলোচনা অনুষ্ঠিত

গত ১০ সেপ্টেম্বর ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের উদ্দ্যোগে জেলা সভাপতি ডাঃ মাওঃ দেওয়ান আঃ খালেকের সভাপতিত্বে জেলা কার্যলায়ে মহররম মাস আশুরা শীর্ষক গুরুত্বপূর্ন আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনায় অংশ গ্রহন করেন সংগঠনের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোঃ আমিনুল ইনলাস সুলতান, সাংগঠনিক সম্পাদক হফেজ মাওঃ তাওহিদুল ইসলাম। বর্তমান সময়ে মহররমকে উদ্দেশ্য করে ইসলামের নামে যে সকল বিদ-আত চালু হয়েছে এখন আমাদের প্রকৃত মহররমমের ঘটনাবলি বেশি বেশি আলোচনা হওয়া একান্ত প্রয়োজন। সভাপতি তার বক্তেব্যে বলেন মহররমের সাথে সৃষ্টির সুচনা পৃথিবী সৃষ্টি এবং কেয়ামতসহ প্রথম মানব হযরত আদম (আঃ) কে পৃথিবীতে প্রেরণের পরে তাদের রিযিকের জন্য আল্লাহ তায়ালা শ্রমের মধ্যেদিয়ে রিযিক অর্জনের শিক্ষা দিয়েছেন। কৃষিকাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেছেন। মহররম মাস আমাদের প্রথম যে শিক্ষা দিয়েছেন সেটা শ্রমের বিনিময়ে রিযিক অন্মেষশ করা। আজকে আমাদের দেশ সহ গোটা বিশ্বে সেই শ্রমিক শ্রেণীকে কাজের মর্যদা সহ যথা অধিকার থেকে বঞ্চিত করা হচ্ছে। আসুন আজকের এই ১০ই মহররমকে সামনে রেখে আমরা শপথ গ্রহণ করি শ্রমিকের অধিকার আদয়ে ইসলামী শ্রমিক আন্দোলন সংগ্রাম চালিয়ে যাবে সেই সাথে সকল শ্রমিক পেশাজীবী মানুষের কাছে ইসলামী শ্রমিক আন্দোলনের দাওয়াত পৌছানোর আহবান জানান । সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

অসুস্থ্য যুবদল নেতা ইসমাইলের বাড়ীতে সাবেক এমপি সোহরাব উদ্দিন

কুষ্টিয়া সদর আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও কুষ্টিয়া জেলা বিএনপির সাধারন সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা অধ্যক্ষ সোহরাব উদ্দিন গত পরশু দুপুরে ইবি থানার হরিনারায়নপুর ইউনিয়নের পদ্মনগর গ্রামের অসুস্থ্য যুবদল নেতা ইসমাইল হোসেন সিরাজীকে দেখতে স্থানীয় দলীয় নেতা কর্মিদের নিয়ে ছুটে যান তার বাড়ীতে। এ সময় তিনি ইসমাইল হোসেন সিরাজীর চিকিৎসার ব্যাপারে খোঁজ খবর নেন। এবং চিকিৎসা বাবদ তার হাতে কিছু টাকা তুলে দেন ও দলীয়ভাবে আরো সাহায্য সহযোগীতার আশ্বাস দেন। উল্লেখ্য কিছু দিন পুর্বে হঠাৎ অসুস্থ্য হয়ে সে বাকশক্তি ও চলাফেরার শক্তি হারিয়ে নিজ বাড়ীতে অবস্থান  করছে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

রাজা স্মৃতি স্পোর্টিং ক্লাবের উদ্যোগে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল

নিজ সংবাদ ॥ পবিত্র আশুরা উপলক্ষে কুষ্টিয়া শহরের আমলাপাড়াস্থ ‘রাজা স্মৃতি স্পোর্টিং ক্লাব’র উদ্যোগে দোয়া ও মিলাদ এর আয়োজন করা হয়। বাদ আছর ক্লাব প্রাঙ্গনে উপস্থিত ছিলেন পৌর ৩নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও ৩নং ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি বদরুল ইসলাম বাদল। মিলাদ শেষে তবারক বিতরণ করেন রাজা স্মৃতি স্পোর্টিং ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া বড় বাজার ব্যবসায়ি সমিতির সাংগঠনিক সম্পাদক নুরুজ্জামান বিশ^াস জনি।

ভেড়ামারার ডাঃ শামসুদ্দিন আহমেদের ৬ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী আজ

ভেড়ামারা প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা উপজেলার মরহুম আলহাজ্ব ডাঃ শামসুদ্দিন আহমেদের ৬ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী আজ। ২০১৩ সালের এই দিনে তিনি মৃত্যুবরন করেন। মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে ভেড়ামারায় পানি উন্নয়ন বোর্ডের পরিদর্শন বাংলো সংলগ্ন জি.কে. রোডস্থ মরহুমের বাসভবনে পরিবারের পক্ষ থেকে আজ সকালে দোয়া অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। এছাড়া আগামীকাল শুক্রবার জুম্মার নামাজ শেষে ভেড়ামারার জি.কে. ২নং কলোনী জামে মসজিদ এবং কুষ্টিয়ার শহরতলী ছেঁউড়িয়ায় দবির মোল্লা গেট জামে মসজিদে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। ডাঃ শামসুদ্দিন আহমেদ বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের সাবেক চিকিৎসক ছিলেন। অবসর গ্রহনের পর তিনি সোনালী ব্যাংক ভেড়ামারা পাওয়ার ষ্টেশন শাখার চিকিৎসকের দায়িত্ব পালন করেন। গরীব-অসহায়দের ডাক্তার হিসেবে এলাকায় তিনি পরিচিত ছিলেন।

ভেড়ামারায় ডেঙ্গুতে গৃহবধুর মৃত্যু

আল-মাহাদী ॥ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে মিনা খাতুন (২৫) নামে এক গৃহবধুর মৃত্যু হয়েছে। সে ভেড়ামারা উপজেলার ধরমপুর ইউনিয়নের কাজিহাটা গ্রামের রায়হান আলীর স্ত্রী। মঙ্গলবার ভোর ৬টার দিকে ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। হাসপাতালের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ নুরুল আমীন মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। গত শুক্রবার স্থানীয়ভাবে ডেঙ্গুজ্বরে আক্রান্ত হলে হাসপাতালে ভর্তি হন তিনি। ধরমপুর ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বার জাকির হোসাইন জানিয়েছেন, নিজ বাড়িতেই ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে মিনা খাতুন ভেড়ামারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে¬ক্সে  ভর্তি হয়। সেখানেই ৩ দিন চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। ৬/৭ বছর আগে সে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হলেও  তিনি নিঃসন্তান ছিলেন। সূত্র জানায়, ডেঙ্গু জ¦রে আক্রান্ত হয়ে এর আগে কুষ্টিয়ার  দৌলতপুরে জোসনা খাতুন নামে এক নারী আক্রান্ত হয়ে রাজধানীর বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। গত ২৪ ঘন্টায় কুষ্টিয়ার বিভিন্ন হাসপাতালে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে ভর্তি হয়েছেন ২০ জন। চিকিৎসাধীন রয়েছেন ৬৮জন। আর এপর্যন্ত ডেঙ্গু রোগী শনাক্ত হয়েছে ৮০৫ জন।

দৌলতপুরে মাদক সেবীর কারাদন্ড

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে মোমিন মন্ডল (৩০) নামে এক মাদক সেবীর ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও অর্থদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালত। মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার পিয়ারপুর ইউনিয়নের নতুন আমদহ গ্রামে অভিযান চালিয়ে ভ্রাম্যমান আদালত ওই মাদক সেবীর বিনাশ্রম কারাদন্ড ও অর্থদন্ডে দন্ডিত করেন। ভ্রাম্যমান আদালত সূত্র জানায়, মাদক সেবনের উদ্দেশ্যে মাদক সংরক্ষন করার গোপন সংবাদ পেয়ে দৌলতপুর সহকারী কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আজগর আলীর নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত নতুন আমদহ গ্রামে অভিযান চালিয়ে ৫০ গ্রাম গাঁজাসহ মাদক সেবী মেমিন মন্ডলকে আটক করে। পরে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইন ২০১৮ এর ৩৬ ধারার (১) উপ-ধারার সারণি ২১ মতে তাকে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড ও ৫ হাজার টাকা অর্থদন্ড দেন ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক। অপরদিকে গতকাল বুধবার রাত সাড়ে ৭টার দিকে একই ভ্রাম্যমান আদালত উপজেলার শালিমপুর গ্রামে অভিযান চালিয়ে মুদি দোকানে মাদক জাতীয় ট্যাবলেট রাখার অপরাধে আলফাজ উদ্দিনকে ২০ হাজার টাকা অর্থদন্ডে দন্ডিত করেন ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও নির্বাহী ম্যজিষ্ট্রেট আজগর আলী।

কুষ্টিয়া জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী মুন্সী হাচানুজ্জামানের বিদায় অনুষ্ঠান

নিজ সংবাদ ॥ জনস্বাস্থ্য প্রকৌশলী অধিদপ্তর কুষ্টিয়ার নির্বাহী প্রকৌশলী মুন্সী মোঃ হাচানুজ্জামানের বদলী জনিত বিদায় অনুষ্ঠান মঙ্গলবার দুপুরে নিজ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। কর্মচারী ইউনিয়নের উদ্যোগে আয়োজিত বিদায়ী অনুষ্ঠানে ঠিকাদার মুক্তিযোদ্ধা হযরত আলীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন পানি উন্নয়ন বোর্ড কুষ্টিয়ার তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী  মনিরুজ্জামান। স্বাগত বক্তব্য রাখেন জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল কর্মচারী ইউনিয়নের সিনিয়র সহ-সভাপতি সোহেল রানা। বক্তব্য রাখেন জনস্বাস্থ্য কর্মচারী ইউনিয়নের সভাপতি কবিরুল ইসলাম, অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের মধ্যে রিপন মিয়া, ওবায়দুর রহমান, কর্মচারী আজাদুর রহমান, জাফর আলী, নজরুল ইসলাম, মুরাদ হোসেন, আব্দুল আলিম, আয়ুব আলী, মোতালেব হোসেন, ঠিকাদারদের মধ্যে থেকে বক্তব্য রাখেন রফিকুল ইসলাম। প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে পানি উন্নয়ন বোর্ড কুষ্টিয়ার তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী  মনিরুজ্জামান বলেন, সরকারী কর্মচারী-কর্মকর্তাদের বদলী একটি রুটিন ওয়ার্ক। এটাকে স্বাভাবিকভাবেই নিতে হবে। তিনি বলেন, জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তর কুষ্টিয়ার নির্বাহী প্রকৌশলী হাচানুজ্জামান আমার অত্যন্ত স্নেহস্পদ, তাঁর সাথে একই জেলায় একাধিকবার কাজ করার সুযোগ হয়েছে। বিচক্ষন ও বুদ্ধিমত্বায় সে তাঁর দপ্তরকে সাজিয়ে রেখেছে। সৃজনশীল ও গঠনমুলক কর্মকান্ডের মাধ্যমে কুষ্টিয়ার উন্নয়নের সাথে নিজেকে সম্পৃক্ত রেখে প্রশংসা কুঁড়িয়েছেন। বিদায়ী নির্বাহী প্রকৌশলী মুন্সী হাচানুজ্জামান বলেন, কুষ্টিয়ায় দীর্ঘ ১০ বছর অতিক্রম করেছি আপনাদের ভালবাসা ও সহযোগিতার মাধ্যমে। তিনি বলেন, আমি চেষ্টা করেছি সকলের সাথে সু-সম্পর্ক বজায় রেখে কাজ করার। আপনারা আমাকে সব সময় সহযোগিতা করেছেন। আমি মনে করি সকলের সহযোগিতায় কাজ করলে যে কোন সমস্যা মোকাবিলা সম্ভব। তিনি সকলের দোয়া কামনা করেন। জনস্বাস্থ্য অধিদপ্তর কুষ্টিয়ার নির্বাহী প্রকৌশলী মুন্সী হাচানুজ্জামান ১০বছর যাবত কুষ্টিয়ায় কর্মরত ছিলেন। তিনি সম্প্রতি মেহেরপুর জেলায় নির্বাহী প্রকৌশলী অধিদপ্তরে বদলী হয়েছেন। খুব শীঘ্রই তিনি বিভাগীয় পদোন্নতি লাভ করে গুরুত্বপুর্ন দপ্তরের দায়িত্ব পাবেন বলে আশা করা যায়।

মোবাইলে কথা বলার সময় ছাদ থেকে পড়ে শিক্ষার্থী নিহত

ঢাকা অফিস ॥ রাজধানী মুগদায় ছয়তলার ছাদে মোবাইলে কথা বলার সময় উপর থেকে পড়ে আশরাফুল ইসলাম খাঁ (১৮) নামে এক শিক্ষার্থী নিহত হয়েছেন। মঙ্গলবার রাতে ঘটনাটি ঘটে।নিহতের মামা বাদশা জানান, রাত আনুমানিক সাড়ে ৯টায় ৬তলার ছাদে মোবাইলে কথা বলার সময় উপর থেকে পা পিছলে নিচে পড়ে গুরুতর আহত হন। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের জরুরী বিভাগে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রাত পৌনে ১১টার সময় তাকে মৃত ঘোষণা করেন।এ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন হাসপাতাল ক্যাম্প পুলিশ ইনচার্জ পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া। তিনি জানান, মৃতদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে রাখা আছে। জানা যায়, নিহত আশরাফুল ইসলাম খাঁ শরিয়তপুর জেলা পালং উপজেলা চড়কান্দি গ্রামের মনির খাঁ’র ছেলে। তিন ভাইয়ের মধ্যে সাইফুল মেজো। বর্তমানে পরিবারের সঙ্গে ১/১ দক্ষিণ মুগদা ওয়াপদা গলিতে আমিরের বাড়িতে ভাড়া থাকতেন।

 

কুষ্টিয়ায় একই নম্বর প্লেটে সিরাজুল মটরস’র দুটি ট্রাক আটক

নিজ সংবাদ ॥ দীর্ঘদিন ধরে কুষ্টিয়া সিরাজুল মটরসের একই নম্বরে ব্যবহৃত দুটি গাড়ি দেশ জুড়ে দাপিয়ে বেড়াচ্ছিলো।  সেই দুটি গাড়ি আটক করলো কুষ্টিয়া মডেল থানার ওসি নাসির উদ্দিন। সিরাজুল মটরসের একই নম্বরে ব্যবহৃত (চট্টো মেট্রো ১১-০৪৪৯) দুটি ট্রাক আটক করেছে পুলিশ। ঘটনা সুত্রে জানা গেছে ১০ সেপ্টেম্বর বিকেলে কুষ্টিয়া ব্রিটিশ আমেরিকা ট্যোবাকো কারখানায় মালবাহীত অবস্থায় সিরাজুল মটরসের একই নম্বরের দুটি ট্রাক প্রবেশ করে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে মডেল থানার ওসি নাসির উদ্দিনের নেতৃত্ব পুলিশ ব্রিটিশ আমেরিকা ট্যোবাকোর গেটে প্রবেশ করে মাল  বোঝায়কৃত দুটি ট্রাক আটক করতে সক্ষম হয়। ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে ওসি বলেন, সিরাজুল মটরসের দুটি ট্রাক পুলিশ হেফাজতে রয়েছে। বিষয়টি পুলিশ খতিয়ে দেখছে। সিরাজুল মটরসের ব্যবহৃত সকল গাড়ির কাগজপত্র চেক করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। এদিকে বিষয়টি নিয়ে সচেতন মহল মন্তব্য করেন, এমন কিছু মটর মালিকের জন্য সরকার রাজস্ব আয় থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। দেশের অনেকেই একই নম্বরে গাড়ি ব্যবহার করে বলে সচেতন মহল ধারনা করেন। এছাড়াও কুষ্টিয়ার মানুষ পুলিশ সুপার এস এম তানভীর আরাফাত পিপিএম(বার) এর দৃষ্টি আকর্ষন করে বলেন, কুষ্টিয়ায় যে সকল গাড়ি চলাচল করে সকল মালিকদের গাড়িগুলো খতিয়ে দেখা দরকার।

ডেঙ্গু প্রতিরোধে কুষ্টিয়া পৌরসভার কার্যক্রম অব্যাহত

আবারো কিট “বেনটাসিড ২৫০ ইসি” পৌর এলাকায় ছেটানো হচ্ছে

দেশব্যাপী এডিস মশা ও ডেঙ্গুর প্রকোপ দেখা দেওয়ার কারনে কুষ্টিয়া পৌর এলাকার এডিস মশার লাভা নিধনে নতুন উদ্দ্যোমে কর্মসূচি গ্রহন করেছে কুষ্টিয়া পৌরসভার মেয়র আনোয়ার আলী। এডিস মশার লাভা নিধনে সিঙ্গাপুর থেকে সংগৃহীত এই কিট “বেনটাসিড ২৫০ ইসি” বড় ও ছোট ফগার মেশিন দিয়ে পৌর এলাকার বিভিন্ন শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান, ডোবা-নালা, ড্রেন, কালভার্টসহ পৌর বাসিন্দাদের বসতবাড়ী ও তাদের আঙ্গিনায় ছেটানো হচ্ছে। সেই সাথে চলমান কার্যক্রমের সাথে আরোও নতুন ১৩ টি ফগার  ও স্প্রে মেশিন যুক্ত হয়েছে। গত ৭ সেপ্টেম্বর হতে ১১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পৌর এলাকার ৪ ও ৮ নং ওয়াডের্র প্রতিটি স্থানে পূনরায় এই কার্যক্রম পরিচালিত হয়েছে। উলে¬খ্য, গত জুলাই ২৫ তারিখ থেকে কুষ্টিয়া পৌরসভার আয়োজনে আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়। এরপর হতে পৌরসভার মেয়রের নির্দেশনা পর্যায়ক্রমে পৌর এলাকার পূনরায় ২১টি ওয়ার্ডে স্ব স্ব কাউন্সিলরের নেতৃত্বে কীটনাশকসহ ফগার মেশিন দিয়ে স্প্রে করা হয়েছিল। এছাড়াও পৌরসভার পরিচ্ছন্ন কর্মীরা পৌর এলাকায় পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা অব্যাহত রেখেছে । সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

প্রবীণ হিতৈষী সংঘ কুষ্টিয়া শাখার নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী পরিষদের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত

নিজ সংবাদ ॥ বাংলাদেশ প্রবীণ হিতৈষী সংঘ কুষ্টিয়া জেলা শাখার নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী পরিষদ’র প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বুধবার সন্ধ্যায় প্রবীণ হিতৈষী সংঘের অস্থায়ী কার্যালয় বোধদয়ে সংঘের সভাপতি খন্দকার শামসুজ্জামান দুদু’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভার শুরুতে সংগঠনের যেসব সদস্য মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের আত্মার মাগফেরতা কামনা করে একমিনিট নিরবতা পালন ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়। পরে সংগঠনের নবনির্বাচিত সদস্যদের পরিচিতি পর্ব একই সাথে আগামী ১ অক্টোবর আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবস যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন,ব্যাংকের হিসাব পরিচালনা বিষয়সহ সংঘের সার্বিক উন্নয়ন ও অগ্রগতি বিষয়ে উন্মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। সভায় উপস্থিত সকল সদস্য সংঘের সার্বিক মঙ্গল কামনা করে বক্তব্য রাখেন সংঘের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও বর্তমান কার্যনির্বাহী পরিষদ’র সহ-সভাপতি নজরুল ইসলাম, সহ-সভাপতি অধ্যাপক আসাদুর রহমান, ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আতিয়ার রহমান মন্ডল, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সাত্তার, কোষাধ্যক্ষ খাদেমুল ইসলাম, প্রচার ও যোগাযোগ বিষয়ক সম্পাদক হাজী আব্দুল মালেক রানা, স্বাস্থ্য সচেতনতা সম্পাদক মোকারম হোসেন মোয়াজ্জেম, দপ্তর সম্পাদক নিত্যগোপাল বিশ^াস, প্রকাশনা ও গবেষণা সম্পাদক হাজী আবুল কাশেম, ক্রীড়া সম্পাদক জহুরুল হক চৌধুরী রঞ্জু, নির্বাহী সদস্য বেগম নুরজাহান মিনা, অ্যাড. আব্দুল জলিল, চৌধুরী মুরশেদ আলম মধু, মিজানুর রহমান মির্জা, আবু বকর সিদ্দিক রন্টু, মো: হাবিবুল্লাহ প্রমুখ। সভাপতির বক্তব্যে খন্দকার শামসুজ্জামান দুদু বলেন সমাজকে প্রবীণদের প্রতি শ্রদ্ধাশীল করে গড়ে তুলতে হবে। অথচ বর্তমান সমাজে প্রবীণরা নানাভাবে অবহেলিত। যদিও সেই দায়বদ্ধতা থেকে বাংলাদেশ প্রবীণ হিতৈষী সংঘ কুষ্টিয়া জেলা শাখা গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করে আসছে। ইতোমধ্যে  একটি মডেল সংগঠন হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে। প্রবীণদের স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে এই সংগঠন গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রেখে চলেছে। সংঘের সকল সদস্যের সার্বিক সহযোগিতায় আন্তর্জাতিক প্রবীণ দিবসসহ জাতীয় ও আন্তর্জাতিক দিবসগুলো যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপন করে থেকে। একই সাথে প্রবীণ হিতৈষী সংঘ কুষ্টিয়া জেলা শাখার কিছু সংকটের কথাও তিনি উল্লেখ করেন। বিশেষ করে সংঘের নিজস্ব কোন ঠিকানা না থাকার বিষয়টি গুরুত্বের সাথে তুলে ধরেন। তবে অচিরেই সেই সমস্যা সমাধান হয়ে যাবে বলেও মনে করেন তিনি। একই সাথে নবনির্বাচিত কার্যনির্বাহী পরিষদ’র সকল নেতৃবৃন্দকে নবউদ্যমে সংগঠনকে সামনের দিকে এগিয়ে নিয়ে যাবার বিষয়টিও তুলে ধরেন। সভা পরিচালনা করেন সংগঠনের সহ-সভাপতি নজরুল ইসলাম।