ব্যারস্টিার মইনুলরে জামনি বাতলিকারী ম্যাজস্ট্রিটেরে বচিারকি ক্ষমতা প্রত্যাহাররে দাবি

ঢাকা অফসি ॥ সাবকে তত্ত্বাবধায়ক সরকাররে উপদষ্টো ব্যারস্টিার মইনুল হোসনেরে মুক্তরি দাবি জানয়িছেনে সুপ্রমি র্কোট আইনজীবী সমতিরি সম্পাদক ব্যারস্টিার মাহবুব উদ্দনি খোকন। তনিি বলছেনে, ব্যারস্টিার মইনুল হোসনেকে সর্ম্পূণ ব-েআইনভিাবে জামনি বাতলি করে কারাগারে পাঠানো হয়ছে।ে সব আইনজীবীর জন্য এটা লজ্জার ব্যাপার। আমরা অবলিম্বে ব্যারস্টিার মইনুল হোসনেরে জামনি বাতলিকারী ম্যাজস্ট্রিটে তফাজ্জল হোসনেরে বচিারকি ক্ষমতা প্রত্যাহার এবং তার বরিুদ্ধে শাস্তমিূলক ব্যবস্থা গ্রহণরে জোর দাবি জানাচ্ছ।ি পরে ভারপ্রাপ্ত প্রধান বচিারপতি হাসান ফয়জে সদ্দিকিী বরাবরে একটি স্মারকলপিি দনে সমতিরি নতোরা। গতকাল বৃহস্পতবিার দুপুরে সুপ্রমি র্কোট আইনজীবী সমতিরি অডটিোরয়িামে আয়োজতি এক সংবাদ সম্মলেনে মাহবুব উদ্দনি খোকন এ দাবি করনে। সংবাদ সম্মলেনে উপস্থতি ছলিনে সুপ্রমি র্কোট বাররে সাবকে সভাপতি অ্যাডভোকটে জয়নুল আবদেীন, অ্যাডভোকটে সুব্রত চৌধুরী, জগলুল হায়দার আফ্রকি, সুপ্রমি র্কোট বাররে সাবকে সম্পাদক ব্যারস্টিার বদরুদ্দোজা বাদল প্রমুখ। এতে লখিতি বক্তব্যে ব্যারস্টিার মাহবুব উদ্দনি খোকন বলনে, সুপ্রমি র্কোট আইনজীবী সমতিরি সাবকে সভাপতি ও সাবকে তত্ত্বাবধায়ক সরকাররে উপদষ্টো ব্যারস্টিার মইনুল হোসনেকে জামনিযোগ্য মামলায় জামনি না দয়িে কারাগারে পাঠানোর তীব্র নন্দিা জ্ঞাপন করছি এবং অবলিম্বে তার মুক্তরি দাবি জানাচ্ছ।ি খোকন বলনে, তনিি (ব্যারস্টিার মইনুল হোসনে) আইনরে প্রতি শ্রদ্ধা দখেয়িে সুপ্রমি র্কোটরে নর্দিশে অনুযায়ী আদালতে হাজরি হয়ে জামনিরে আবদেন করনে। জামনিযোগ্য মামলায় তাকে জামনি না দয়িে কারাগারে পাঠানো হয়ছে।ে যা খুবই দুঃখজনক। আমরা মনে কর,ি ফরমায়শেি আদশেরে কারণে এটি করা হয়ছে।ে গত ৩ সপ্টেম্বের মানহানরি মামলায় মইনুল হোসনেরে জামনি আবদেন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদশে দনে আদালত। ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকমি আদালত এ আদশে দনে। এর আগে মইনুল হোসনে ঢাকার আদালতে আত্মসর্মপণ করে জামনিরে আবদেন করনে। এরও আগে এই মামলায় হাইর্কোট থকেে জামনি ননে মইনুল হোসনে। হাইর্কোটরে নর্দিশেনা অনুযায়ী জামনিনামা বচিারকি আদালতে জমা দয়ো হয়। নয়িমতি তনিি হাজরিা দয়িে আসছলিনে। আপলি বভিাগরে নর্দিশেনা অনুসারে মইনুল হোসনে আদালতে হাজরি হয়ে জামনিরে আবদেন করনে। শুনানরি সময় আদালতকে তনিি বলনে, আসামি বয়স্ক, অসুস্থ মানুষ। যে অভযিোগে মামলা তা জামনিযোগ্য। তবে আদালত শুনানি নয়িে মইনুল হোসনেরে জামনিরে আবদেন নাকচ করে কারাগারে পাঠানোর আদশে দনে। এর আগে গত বছররে ২১ অক্টোবর মইনুল হোসনেরে বরিুদ্ধে আদালতে মানহানরি মামলা করনে সাংবাদকি মাসুদা ভাট্ট।ি দবধিরি ৫০০, ৫০৬ ও ৫০৯ ধারায় মইনুলরে বরিুদ্ধে মামলা করনে মাসুদা ভাট্ট।ি আদালত মাসুদা ভাট্টরি মামলাটি আমলে নয়িে মইনুল হোসনেরে বরিুদ্ধে গ্রফেতারি পরোয়ানা জারি করনে। গত বছররে ১৬ অক্টোবর একাত্তর টলেভিশিনরে টকশোতে আলোচকদরে একজন ছলিনে মাসুদা ভাট্ট।ি একর্পযায়ে লাইভে যুক্ত হন আইনজীবী মইনুল হোসনে। এ সময় মইনুলরে কাছে মাসুদা ভাট্টরি প্রশ্ন ছলি, ‘সামাজকি যোগাযোগমাধ্যমে একটি আলোচনা চলছ,ে আপনি সদ্য গঠতি জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে এসে জামায়াতরে প্রতনিধিত্বি করছনে কনিা?’ মইনুল হোসনে এ প্রশ্নরে জবাব দয়োর একর্পযায়ে মাসুদা ভাট্টকিে ‘চরত্রিহীন’ বলে মন্তব্য করনে।

 

ঝিনাইদহে বিদ্যু বিতরণ ব্যবস্থার সম্প্রসারণ ও পরিবর্ধন প্রকল্পের উদ্বোধন

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহে বিদ্যুৎ বিতরণ ব্যবস্থার সম্প্রসারণ ও পরিবর্ধন প্রকল্পের উদ্বোধন করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার সকালে শহরে হামদহ খোন্দকার পাড়ায় এ কর্মসূচীর উদ্বোধন করেন সংরক্ষিত মহিলা আসনের সংসদ সদস্য ও বিদ্যুৎ জ্বালানী ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের স্থায়ী কমিটির সদস্য খালেদা খানম। এসময় ঝিনাইদহ ওজোপাডিকোর নির্বাহী প্রকৌশলী পরিতোষ চন্দ্র সরকার, প্রকৌশলী মিজানুর রহমান, অনুপম চক্রবর্তীসহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন। এসময় জানানো হয়, বিক্রয় ও বিতরণ বিভাগ ওজোপাডিকো ঝিনাইদহের আওতাধীন বিভিন্ন এলাকায় এ কর্মসূচী চলমান থাকবে। আগামী ৫ মাস বিভিন্ন এলাকায় বিদ্যুতের লাইন সম্প্রসারণ, বিদ্যুৎ সংযোগ, পুরাতন লাইন খুলে নিরাপদ ও নতুন লাইন সংযোযনসহ নানা কর্মকান্ড করা হবে। এতে মানুষের নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ আরও সহজতর হবে।

ঝিনাইদহে সদর উপজেলা শিল্পকলা একাডেমীর যাত্রা শুরু

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহ সদর উপজেলা শিল্পকলা একাডেমীর আনুষ্ঠানিক কর্মকান্ডের যাত্রা শুরু হয়েছে। এ উপলক্ষে বুধবার রাতে সদর উপজেলা মিলনায়তনে আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। এতে সদর উপজেলা শিল্পকলা একাডেমীর সভাপতি ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাম্মী ইসলাম এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক সরোজ কুমার নাথ। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড আব্দুর রশিদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আরতি দত্ত, উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা গোলাম সরোয়ার, পাগলা কানাই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কেএম নজরুল ইসলাম, উপজেলা শিল্পকলা একাডেমীর সাধারণ সম্পাদক নাজিম উদ্দিন জুলিয়াস। অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন উপজেলা শিল্পকলা একাডেমীর যুগ্ম-সম্পাদক আশরাফুল আলম। পরে জেলা প্রশাসক সদর উপজেলা শিল্পকলা একাডেমীর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষনা করেন। এছাড়াও চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতায় বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন। রাতে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে সাংস্কৃতিক কর্মী, সাংবাদিক, সুশিল সমাজের নেতৃবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন ।

মশা মারার ব্যয় ৩ গুণ বাড়য়িে ডএিনসসিরি বাজটে

ঢাকা অফসি ॥ মশা নয়িন্ত্রণ র্কাযক্রমে বরাদ্দ তনি গুণ বাড়য়িে র্বাষকি বাজটে ঘোষণা করছেে ঢাকা উত্তর সটিি করপোরশেন। গতকাল বৃহস্পতবিার গুলশানে ঢাকা উত্তর সটিি করপোরশেন নগর ভবনে ২০১৯-২০ র্অথবছররে জন্য ৩ হাজার ৫৭ কোটি ২৪ লাখ টাকার বাজটে ঘোষণা করনে ময়ের আতকিুল ইসলাম। ঘোষতি বাজটেে মশা নয়িন্ত্রণে ৪৯ কোটি ৩০ লাখ টাকা বরাদ্দ রাখা হয়ছে।ে গত র্অথবছররে সংশোধতি বাজটেে এই খাতে বরাদ্দ ছলি ১৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা। র্অথাৎ গত র্অথবছররে চয়েে বরাদ্দ ৩০ কোটি ৮০ লাখ টাকা বড়েছে।ে এবার এডসি মশাবাহতি ডঙ্গেু জ্বর ছড়য়িে পড়লে ব্যাপক সমালোচনায় পড়নে ঢাকার দুই ময়েরই। নগরবাসী অভযিোগ তোলনে, সটিি করপোরশেনরে মশা মারার র্কাযক্রম গতহিীন ছলি বলইে ডঙ্গেু মারাত্মক আকার ধারণ কর।ে এর মধ্যইে সটিি করপোরশেনরে মশা মারার ওষুধরে র্কাযকারতিা হারানোর বষিয়টওি উঠে আস।ে পরে তড়ঘিড়ি করে র্কাযকর কীটনাশক আনতে হয় মশা নয়িন্ত্রণ।ে ময়ের নর্বিাচতি হওয়ার পর আতকিরে প্রথম বাজটেরে প্রায় র্অধকে র্অথ ১ হাজার ৫৬৪ কোটি ৬৪ লাখ টাকা সরকারি ও বদৈশেকি সাহায্য হসিবেে পাওয়ার আশা করা হয়ছে।ে এছাড়া রাজস্ব আয় ধরা হয়ছেে ১ হাজার ১০৬ কোটি ৪০ লাখ টাকা। সরকারি অনুদান (থোক) ১০০ কোটি এবং সরকারি বশিষে অনুদান ৫০ কোটি টাকা ধরছেে ডএিনসসি।ি এবার রাজস্ব ব্যয় ধরা হয়ছেে ৫৫১ কোটি ৪০ লাখ টাকা। উন্নয়ন ব্যয় (নজিস্ব উৎস, সরকারি অনুদান) ধরা হয়ছেে ৭৭১ কোটি ১০ লাখ টাকা। আর সরকারি ও বদৈশেকি সাহায্যপুষ্ট প্রকল্পে ১ হাজার ৫৬৪ কোটি ৬৪ লাখ টাকা ব্যয় হবে বলে জানয়িছেে ডএিনসসি।ি বাজটে উপস্থাপন নয়িে আয়োজতি সংবাদ সম্মলেনে ময়ের আতকি তার নানা উন্নয়ন পরকিল্পনা তুলে ধরনে।তনিি বলনে, নর্বিাচনরে আগে মশক নয়িন্ত্রণ, র্বজ্য ব্যবস্থাপনা, জলাবদ্ধতা নরিসনসহ বশেকছিু প্রতশ্রিুতি দয়িছেলিনে। তবে দায়ত্বি নওেয়ার পরই কছিু চ্যালঞ্জে তার সামনে এসছে।ে“আমি দায়ত্বি নওেয়ার পর অনাকাঙ্ক্ষতি ঘটনা ঘটছে।ে সড়ক র্দুঘটনায় মধোবী ছাত্র আবরাররে মৃত্যু, পরর্বতীতে নরিাপদ সড়করে দাবতিে ছাত্র আন্দোলন, এ আন্দোলন চলার সময় বনানীর এফ আর টাওয়ারে ভয়াবহ অগ্নকিা-ে ২৬ জনরে র্মমান্তকি মৃত্যু, ডএিনসসিরি গুলশান-১ কাঁচা বাজাররে ভয়াবহ অগ্নকিা-ে ব্যবসায়ীদরে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি এবং ডঙ্গেু রোগরে প্রকোপ আমাদরেকে ব্যাপকভাবে নাড়া দয়িছে।ে”ময়ের বলনে, ২০৪১ সালরে মধ্যে একটি উন্নত দশেরে রাজধানী হসিাবে ঢাকাকে একটি টকেসই ও নরিাপদ শহর নর্মিাণে তনিি বদ্ধপরকির।“নরিাপদ সড়ক, অগ্নি নরিাপত্তা, জলাবদ্ধতা নরিসন, মশক নয়িন্ত্রণ, র্বজ্য ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন, নাগরকি সবো নশ্চিতিকরণে আমরা নরিলস চষ্টো চালয়িে যাচ্ছ।ি ডএিনসসিরি ফুটপাত ও সড়ক থকেে অবধৈ স্থাপনা উচ্ছদে অব্যাহত রয়ছে।ে” ২০ সপ্টেম্বের থকেে ঢাকা উত্তর সটিি করপোরশেনরে সব এলাকায় ফুটপাত দখলমুক্ত করতে একসঙ্গে অভযিান চালানো হবে বলে ঘোষণা দনে আতকি।

 

ঝিনাইদহে ভূয়া ডাক্তারের ভুল চিকিসায় মৃত্যু পথযাত্রী ফজিলা খাতুন

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহে ভূয়া ডাক্তারের ভুল অপারেশনে ফজিলা খাতুন নামে এক মহিলা মৃত্যু পথযাত্রী বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘটনাটি ঘটেছে সদর উপজেলার নলডাঙ্গা বাজারে তপু মেডিকেল হলে। ভুক্তভোগি ফজিলা খাতুন সদর উপজেলার খেদাপাড়া গ্রামের ফজর আলী ওরফে ফজো’র কন্যা। তিনি জানান গত শনিবারে নলডাঙ্গা বাজারের তপু মেডিক্যাল হলে পল্লী চিকিৎসক মনোজিৎ কুমার বিশ্বাসের নিকট হাতের অপারেশন করেন। পল্লী চিকিৎসকে ডায়াবেটিসের ২৭ পয়েন্টের কথা জানানোর পরও সে অপারেশন করে। তার ডায়াবেটিস থাকায় অপারেশনের পর থেকেই অবস্থার অবনতি হলে ফজিলা খাতুন কে ঝিনাইদহ ডায়াবেটিস হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। তিনি মূমুর্ষ অবস্থায় গত মঙ্গলবার থেকে ঝিনাইদহ ডায়াবেটিস হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এব্যাপারে পল্লী চিকিৎসক মনোজিৎ কুমারের কাছে তার সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমার কোন সার্টিফিকেট নাই তবে দীর্ঘদিন ধরে গ্রামে চিকিৎসা দিয়ে থাকি এবং ওষুধ বিক্রয় করি। এই অপারেশন সম্পর্কে তিনি বলেন আমি রোগিকে অপারেশন করে পুজ রক্ত বের করে তার জ্বালা যন্ত্রনা নিবারণের চেষ্টা করেছি। তার লিখিত প্যাডে পল্লী চিকিৎসক লেখা আছে, এবং তার ফার্মেসীর দেওয়ালে কাগজ দিয়ে লেখা আছে ডাঃ মনোজ বিশ্বাস এস,এম,এফ(ঢাকা) অপারেশন সহকারী সার্জন। বাস্তবে সে কোন সার্টিফিকেট দেখাতে পারে নাই। দোকানের একটি ওষুধের লাইসেন্স আছে যার ইস্যুর তারিখ এবং মেয়াদ উত্তীর্ণের তারিখের কোন মিল নাই। গ্রামের সাধারণ মানুষের সাথে সরল বিশ্বাসে দীর্ঘদিন ধরে প্রতারণা করে আসছে। এলাকাবাসী এই ভূয়া ডাক্তারের শাস্তির দাবি জানিয়েছেন।

দশেরে মানুষরে ওপর বএিনপরি আস্থা নইে – তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা অফসি ॥ তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলছেনে, বএিনপি নতোরা বারবার নালশি করতে বদিশেদিরে কাছে যাওয়ার কারণে প্রমাণ হয়ছেে বএিনপরি জনগণরে ওপর আস্থা নইে। তনিি গতকাল বৃহস্পতবিার তার মন্ত্রণালয়ে সংবাদ সম্মলেনে বলনে ‘বএিনপি এবং জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট র্সবদা বদিশেদিরে কাছে নালশি দয়িে আসছ।ে তাই অনকেইে তাদরে বাংলাদশে নালশি র্পাটি বলে ডাক।ে’ মন্ত্রী বলনে, যে রাজনতৈকি দলরে দশেরে মানুষরে ওপর আস্থা নাই তারাই কবেল বদিশেদিরে দ্বারে দ্বারে যতেে পার।ে এজন্যই বএিনপি র্সবদা বদিশেদিরে দ্বারে যায়। এটি বএিনপরি জন্য লজ্জাজনক। ড. হাছান এ সময় বএিনপরি মহাসচবি মর্জিা ফখরুল ইসলাম আলমগীররে আগামী অক্টোবর থকেে আন্দোলন শুরুর সমালোচনা করে বলনে, দশেরে মানুষ জানে না কোন বছররে অক্টোবর থকেে বএিনপি আন্দোলন শুরু করব।ে তনিি বলনে, বএিনপি গত সাড়ে ১০ বছরে কোন আন্দোলন করতে পারনে,ি তারা সব সময় ঘোষণা দয়ে ঈদরে পর, রোজার পর বা স্কুলরে র্বাষকি পরীক্ষার পর তারা আন্দোলনে নামব।ে এ সময় মর্জিা ফখরুলকে একজন র্ব্যথ নতো উল্লখে করে মন্ত্রী বলনে, আন্দোলনরে ডাক দয়ো নতেৃবৃন্দরে ওপর বএিনপরি র্কমীদরে আস্থা নইে। এ সময় তনিি প্রশ্ন করে বলনে, ‘যে নতেৃবৃন্দ উচ্চ আদালতে হজিাব পড়ে যায়, সে নতেৃবৃন্দরে ওপর র্কমীরা কভিাবে আস্থা রাখব?ে’দশেরে ব্যাংকংি খাত নয়িে বএিনপরি অভযিোগ বষিয়ে এক প্রশ্নে জাবাবে তথ্যমন্ত্রী বলনে, বএিনপি বারবার ব্যাংকংি খাতে র্দুনীতি নয়িে অভযিোগ তুলছ,ে কন্তিু সত্য হলো দশেরে ব্যাংক খাতে ঋণ খলোপী শুরু হয়ছেলি জয়িাউর রহমানরে আমল।ের্বতমান সরকাররে গত সাড়ে দশ বছরে দশেরে র্অথনীতি শক্তশিালী অবস্থানে পৌঁছছেে উল্লখে করে ড. হাছান মাহমুদ বলনে, দশেরে র্অথনীতরি পরধিি এখন তনি গুন বৃদ্ধি পয়েছে।ে তথ্যমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগরে প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলনে, বাংলাদশে বশ্বিে জডিপিি প্রবৃদ্ধি হার র্অজনরে দকি থকেে তৃতীয়। প্রধানমন্ত্রী শখে হাসনিা দায়ত্বি নয়োর পর দশেরে ব্যাংকংি খাতরে খলোপী ঋণ হ্রাস পয়েছে।ে

 

মিরপুরে দিনব্যাপি সাপের ঝাপন খেলা অনুষ্ঠিত

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে দিনব্যাপি সাপের ঝাপন খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দিনব্যপী উপজেলার ফুলবাড়ীয়া ইউনিয়নের শিমুলিয়া গ্রামে এ খেলা অনুষ্ঠিত হয়। দিনব্যাপি এ খেলা উপভোগ করে র্শকরা। খেলায় প্রায় ২০টি সাপুড়ে দল নিয়ে অংশগ্রহণ করে। সাপ খেলা প্রতিযোগীতার তত্ত্বাবধায়ক সাপুড়ে সবুজ আলী জানান, কুষ্টিয়া জেলায় এবারই প্রথম কোন সাপখেলা প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়। এমন প্রতিযোগিতার আয়োজন করতে পেরে আমরা খুব খুশি। এ প্রতিযোগিতায় কুষ্টিয়া ছাড়াও পাশ্ববর্তী ঝিনাইদহ, রাজবাড়ি, চুয়াডাঙ্গা থেকে প্রায় ২০টি সাপুড়ে দল এসেছে। প্রতি দলেই চার থেকে পাঁচজন সদস্য রয়েছে। এখানে সাপের মধ্যে রয়েছে আজগর, কুলিম, মাছি আওলাদ, লাউডগা, দাঁড়াস, বিঝুড়ি, কাটাধনদন, কিংকোবরা ইত্যাদি। সাপ খেলার নিয়ম সম্পর্কে সাপুড়ে সবুজ জানান, সাপুড়ে দল একটি টেবিলের ওপর তার সাপ খেলা  দেখাবেন। প্রতিটি দল ২০ মিনিট করে সময় পাবেন। খেলা দেখানোর সময় ওই সাপ যতবার ছোবল দেবে এক পয়েন্ট করে বিয়োগ হবে। আর যদি ২০ মিনিটের মধ্যে তার সাপ একটাও ছোবল না দেয় তবে সে পুর্ণ পয়েন্ট পাবেন। ভেড়ামারা থেকে আসা সাপুড়ে মুনজিল জানান, আমরা প্রতিবছর দেশের বিভিন্ন জায়গায় এভাবে সাপখেলা দেখায়। বর্তমানে আমার কাছে বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় ১০টি সাপ রয়েছে। এখানে সাপ খেলা দেখাতে পেরে আমি আনন্দিত। মিরপুর উপজেলার কুরিপোল গ্রামের সাপুড়ে দারুল মল্লিক জানান, প্রায় ৫৭ বছর ধরে সাপ খেলা দেখাচ্ছি। সাপের খেলা দেখিয়ে এবং সাপ ধরেই জীবন-জীবিকা নির্বাহ করি। বর্তমানে আমার কাছে বিভিন্ন প্রজাতির প্রায় ৮টি সাপ রয়েছে। তিনি আরও জানান, সাপ খেলার এমন আয়োজন যশোর, ফরিদপুর, চুয়াডাঙ্গা এলাকায় হলেও কুষ্টিয়া জেলায় এই প্রথম। তবে প্রথমবার আয়োজন হলেও মানুষের উপস্থিতি বেশ সন্তষজনক। এখানে সাপের খেলা দেখতে নারী-পুরুষ মিলে প্রায় ৩হাজার মানুষের সমাগম হয়েছে। এটি খুবিই আনন্দের। আগামীতে আবারো এমন আয়োজনের পরিকল্পনা রয়েছে। একই উপজেলার খন্দকবাড়িয়া গ্রামের সাপুড়ে লিটন জানান, আমরা দেশের বিভিন্ন গ্রামীণ মেলায় সাপের খেলা দেখায়। সাপের খেলাটি গ্রাম বাংলার একটি ঐতিহ্যবাহি খেলা। আমরা চাই বাংলার ঐতিহ্য ধরে রাখতে। কারণ আগে বিভিন্ন হাট-বাজার মেলায় সাপের খেলা দেখানো হলেও এখন এটি একেবারেই কম। এই ঐতিহ্য প্রতি সুনজর দেয়া প্রয়োজন। এ ছাড়াও বিভিন্ন স্থান থেকে সব সাপুড়েদেরকে এনে এমন মিলনমেলা আগে কখনো হয়নি। সবাই একত্র হয়ে তাদের সাপখেলা দেখানোটাও অনেক আনন্দের। আগামীতেও এমন আয়োজন করার পরিকল্পনা আছে। ফুলবাড়ীয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাজ্বী আব্দুস সালাম জানান, এই প্রথম এই অঞ্চলে সাপের ঝাপন খেলা অনুষ্ঠিত হলো। এটি একটি গ্রামীন ঐতিহ্য। ঝাপন খেলার মাধ্যমে সাপ সম্পর্কে সাধারন মানুষদের সচেতন হওয়ার আহবান জানানো হয়।

কালুখালী সাব-রেজিষ্ট্রি অফিস দলিল লেখক কমিটি গঠন

কালুখালী প্রতিনিধি ॥ রাজবাড়ী জেলার কালুখালী সাব-রেজিষ্ট্রি অফিস দলিল লেখক কমিটি গঠন করা হয়েছে। গৃহায়ন ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সদস্য ও রাজবাড়ী-২ আসনের সংসদ সদস্য বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ জিল্লুল হাকিম ও কালুখালী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলিউজ্জামান চৌধুরী (টিটো) স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ কমিটি অনুমোদন দেওয়া হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার বেলা ১২ টায় কালুখালী সাব-রেজিষ্ট্রি অফিস মিলনায়তনে এ কমিটি পরিচিতি অনুষ্ঠান উপলক্ষ্যে নবনির্বাচিত কমিটির সভাপতি মোঃ বাহারুল আলম এর সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলিউজ্জামান চৌধুরী (টিটো)। তিনি তার বক্তব্যে নবগঠিত কমিটির সকলকে নিষ্ঠার সাথে সাব-রেজিষ্ট্রি অফিসের নিয়ম কানুন মেনে কাজ করার দিক নির্দেশনা প্রদান করেন। এবং তিনি বলেন খুব তাড়াতাড়ি জনগণের স্বার্থে স্থায়ীভাবে সাব-রেজিষ্ট্রি অফিস নির্মাণ করা হবে। বিশেষ অতিথি হিসেবে অফিসার ইনচার্জ সহিদুল ইসলাম, রতনদিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মেহেদী হাচিনা পারভীন নিলুফা সহ অন্যান্যরা উপস্থিত ছিলেন। পরে নবনির্বাচিত সভাপতি মোঃ বাহারুল আলম, সহ-সভাপতি নুরুল ইসলাম (বকু), মোঃ শহিদুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক মোঃ রাসেল আহম্মেদ, মোঃ জালাল উদ্দিন (মোনাক্কা), কোষাধ্যক্ষ শ্রী নির্মল ভৌমিক, সহ-কোষাধ্যক্ষ শ্রী শত্রাজিৎ দেব শর্মা (বাপ্পি), সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ আব্দুল জব্বার (জুলু), সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোঃ মজিবর রহমান, প্রচার সম্পাদক মোঃ আব্দুল সামাদ, সদস্য  মোঃ জালাল ফকির, মোঃ আবুল বাসার, মোঃ আকরাম হোসেন, মোঃ মোশারফ হোসেন, মোঃ আশরাফুল ইসলাম (আলতাব), মোঃ ফরিদ হোসেন, মোঃ আনোয়ার হোসেন, মোঃ হাবিবুর রহমান এছাড়াও উপষ্টোমন্ডলী বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ হেকমত আলী, মোঃ আব্দুর রহমান, মোঃ আসাদুজ্জামান (ঠান্টু)’র নাম ঘোষণা করা হয়। পরিচিতি পরবর্তী এ কমিটির সভাপতি  মোঃ বাহারুলআলম বলেন, আগামী দিনে দায়িত্ব পালনে সকলের সহযোগীতা কামনা করছি।

কুমারখালীতে নারীদের মাঝে হাঁস-মুরগী বিতরণ

কুমারখালী প্রতিনিধি ॥ নারীদের কর্মসংস্থান সৃষ্টির লক্ষ্যে স্বনির্ভর নারী-স্বনির্ভর গ্রাম প্রকল্প কর্মসূচীর আওতায় কুমারখালীতে হাঁস-মুরগী বিতরণ করা হয়েছে।  গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে উপজেলার সদকী ইউনিয়ন পরিষদের আয়োজনে চরআগ্রাকুন্ডা গ্রামের ১৮ জন দরিদ্র নারীকে হাঁস-মুরগী প্রদান করা হয়। সদকী ইউনিয়ন পরিষদ চত্বরে অনুষ্ঠিত হাঁস-মুরগী বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান মো. আব্দুল মান্নান খান। সদকী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. আব্দুল মজিদের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মেরিনা পরভীন মিনা। এ সময় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য, ইউনিয়ন পরিষদের সচিব ও স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

 

দৌলতপুরে ফুটবল খেলা নিয়ে সংঘর্ষে জেএমজি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আহত

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে ফুটবল খেলা নিয়ে সংঘর্ষে জেএমজি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আশরাফুল ইসলাম নান্নু আহত হয়েছেন। বর্তমানে তিনি দৌলতপুর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১০টার দিকে উপজেলার জয়পুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মাঠে তিনি হামলার শিকার হয়ে আহত হোন। স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, আন্ত:স্কুল ফুটবল প্রতিযোগিতায় নবগ্রাম মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও পাকুড়িয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রদের মধ্যে গোলশুন্য খেলা শেষ হয়। পরে টাইব্রেকারে গোল নিয়ে দুই দল গ্রামবাসীর মধ্যে সংঘর্ষ বাঁধলে জয়পুর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ও কেন্দ্র সচিব আশরাফুল ইসলাম নান্নু সংঘর্ষ ঠেকাতে গেলে তার উপর পাকুড়িয়া গ্রামের লোকজন হামলা চালিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। পরে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে দৌলতপুর উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করে। এ ঘটনায় আশরাফুল ইসলাম নান্নু বাদী হয়ে দৌলতপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করলে দৌলতপুর পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত ৫জনকে আটক করেছে।

কুষ্টিয়া জেলা মুক্তিযোদ্ধা সাংগঠনিক কমান্ডের উদ্দোগে দূর্বাচারা শহীদ বেদিতে শ্রদ্ধা নিবেদন

নিজ সংবাদ ॥ পাঁচ সেপ্টেম্বর  কুষ্টিয়ার বংশীতলা ও দূর্বাচারা সম্মুখ যুদ্ধো দিবস। ১৯৭১ সালে এই দিনে পাকবাহিনীর সাথে সম্মুখ যুদ্ধে ১৩ জন মুক্তিযোদ্ধা শহীদ হন। দিবসটি পালন উপলক্ষে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কুষ্টিয়া জেলা সাংগঠনিক কমান্ডের উদ্দোগে শ্রদ্ধা নিবেদন, কবর জিয়ারত ও স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার কুষ্টিয়া সদর উপজেলার দূর্বাচারা শহীদ বেদিতে ফুলদিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন ও সকল শহীদদের আত্মার মাগফিরাত কামনা করে দোয়া মোনাজত করা হয়। পরে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কুষ্টিয়া জেলা সাংগঠনিক কমান্ডের কমান্ডার, মুক্তিযোদ্ধা ইফনিট কমান্ডের সাবেক জেলা কমান্ডার ও জেলা আওয়ামীলীগের মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক সম্পাদক বীর মুক্তিযোদ্ধা মানিক কুমার ঘোষ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত স্মরণ সভায় বক্তব্য রাখেন কুষ্টিয়া জেলা পরিষদের সাবেক প্রশাসক বীর মুক্তিযোদ্ধা জাহিদ হোসেন জাফর, বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ কুষ্টিয়া জেলা সাংগঠনিক কমান্ডের ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মোঃ মকবুল হোসেন, সদর উপজেলা কমান্ডের সাবেক সহকারী কমান্ডার যুদ্ধহত বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মহাসীন আলী মন্ডল, সাবেক সহকারী কমান্ডার মোঃ সাইদুর রহমান। এ সময় সাবেক সহকারী কমান্ডার শেখ আবু হানিফ, বীর মুক্তিযোদ্ধা জাহিদ হোসেন, সার্জেন্ট (অব:) রিয়াজুল ইসলাম, সামছুদ্দিন, আবু সাঈদ, দুঃখী মন্ডল, শাকের আলী, নুরুজ্জামান, ইফসুফ আলী, হাকিম লোকমান হোসেন, আব্দুল হাকিম, শহিদুল ইসলাম মণি, ডা. মতিয়ার রহমানসহ অণ্যাণ্য মুক্তিযোদ্ধাগণ উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও বংশীতলা, কমলাপুর, জিয়ারখী ও হররা বিভিন্ন স্থানে ১৯৭১ সালের পাঁচ সেপ্টেম্বর সম্মুখ যুদ্ধে শহীদ মুক্তিযুদ্ধাদের কবর জিয়ারত ও ফুলদিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।

 কুষ্টিয়ায় র‌্যাবের অভিযানে ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ০৩ জন আসামী গ্রেফতার।

গতকাল গোপন সংবাদের ভিত্তিতে র‌্যাব-১২, সিপিসি-১, কুষ্টিয়া ক্যাম্পের একটি অভিযানিক দল কুষ্টিয়া জেলার কুষ্টিয়া মডেল থানাধীন জগতি সুগার মিল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় এর সামনে হতে আসামী ১। মোঃ আসাদুল (৪৫), পিতা-মোঃ আজিম, সাং-মোল্লাতেঘরিয়া, ২। মোঃ বিপুল হোসেন (৩৫), পিতা-মৃত রবু, সাং-চৌড়হাস মতি মিয়া রেলগেট, ৩। মোঃ রাহিম শেখ (২১), পিতা-মৃত জহুরুল শেখ, সাং-চৌড়হাস উপজেলা রোড, সর্ব থানা ও জেলা-কুষ্টিয়াদের নিকট হতে ইয়াবা ট্যাবলেট -৫৫০ পিস,  মোটরসাইকেল -০১ টি,  মোবাইল ফোন-০৪ টি, সিমকার্ড -০৬ টি ও নগদ-৪২২৫/-টাকাসহ গ্রেফতার করেন। পরর্বতীতে উদ্ধারকৃত আলামতসহ ধৃত আসামীদের বিরুদ্ধে কুষ্টিয়া জেলার সদর থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে।

দুদক এখন আরব্য রজনীর একচোখা দত্যৈ – রজিভী

ঢাকা অফসি ॥ নশিরিাতরে নর্বিাচনে ক্ষমতা নয়ো সরকাররে আশ্রয়-প্রশ্রয় ও ছত্রছায়ায় দশেে র্দুনীতরি মচ্ছব চলছে বলে মন্তব্য করছেনে বএিনপরি সনিয়ির যুগ্ম মহাসচবি রুহুল কবরি রজিভী। এসব র্দুনীতরি বরিুদ্ধে ব্যবস্থা না নয়োয় র্দুনীতি দমন কমশিনরে (দুদক) কড়া সমালোচনা করছেনে তনি।ি

রাজধানীর নয়াপল্টনে দলরে কন্দ্রেীয় র্কাযালয়ে গতকাল বৃহস্পতবিার দুপুরে এক সংবাদ সম্মলেনে তনিি এসব কথা বলনে। দুদকরে সমালোচনা করে রজিভী বলনে, দশেরে প্রতটিি সক্টেরে যখন র্দুনীতি মহামারী আকার ধারণ করছে,ে তখন দুদক নীরব ভূমকিা পালন করছ।ে কারণ ক্ষমতাসীনদরে দকিে তাকানো যাবে না।‘এই দুনীতি দমন কমশিন এমন আরব্য রজনীর একচোখা দত্যৈ, যে তার এক চোখ দয়িে বরিোধী দলকে দখে।ে সখোনে অন্যায় না থাকলওে জোর করে সরকার যটেি বলনে- এই আরব্য রজনীর সইে দত্যৈরে মতো একদকিে দখে।ে অন্যদকিে তারা কছিুই দখেতে পায় না।’তনিি বলনে, ‘আমরা মনে কর-ি এই দুদকরে চোখটি তরৈি করে দয়িছেে র্বতমান শাসকগোষ্ঠী। তার হাত-পা শাসক দলরে কাছে বাঁধা রয়ছে।ে এই দুদক কী করছে আজকে জাতি জানতে চায়।’সরকার ও ক্ষমতাসীন দলরে নতোদরে বরিুদ্ধে র্দুনীতরি অভযিোগ তুলে রজিভী বলনে, র্বতমানে র্দুনীতি আর লুটপাটরে রাজত্বে পরণিত হয়ছেে বাংলাদশে। র্দুনীতি এখন মহামারী রূপ ধারণ করছে।ে দশেরে র্আথকি খাত আজ ধ্বংসরে দ্বারপ্রান্ত।ে ব্যাংকগুলো তারল্য সংকটে ধুঁকছ।ে বাংলাদশে ব্যাংক খলোপি ঋণরে ব্যাপারে দক্ষণি এশয়িায় র্শীষ,ে যা ১২ শতাংশে এসে দাঁড়য়িছে।ে ধানরে ন্যায্যমূল্য না পয়েে শোক-েদুঃখে কৃষক ধান পুড়য়িে দয়ে, কোরবানরি চামড়ার ন্যায্যমূল্য না পয়েে মানুষ চামড়া মাটরি নচিে পুঁতে রাখ,ে অথচ দশেরে সরকার-িবসেরকারি ব্যাংকগুলোতে চলছে হরলিুট। ব্যাংকগুলো পরণিত হয়ছেে লুটরোদরে মানব্যিাগ।ে দশেে র্বতমানে খলোপি ঋণরে পরমিাণ প্রায় এক লাখ ১২ হাজার ৪২৫ কোটি টাকা। ক্ষমতাসীন দলরে প্রভাবশালী ব্যবসায়ীরা এই ঋণখলোপি হওয়ায় তাদরে পক্ষে সাফাই গাইছনে স্বয়ং মধ্যরাতরে নর্বিাচনরে প্রধানমন্ত্রী শখে হাসনিা। র্দুনীতরি ফলে ব্যাংকংি খাতে দূরাবস্থা চলছে মন্তব্য করে রজিভী বলনে, ব্যাংকগুলোতে এখন মূলধন সংকট দখো দয়িছে।ে টাকা পাচারকারী, ব্যাংক ডাকাত আর ঋণখলোপদিরে বপেরোয়া লুটপাটে দশেরে ব্যাংকগুলো প্রায় দউেলয়িা। শয়োরবাজাররে লুটপাট ক্ষুদ্র বনিয়িোগকারীদরে নঃিস্ব করে দচ্ছি,ে অথচ সরকার নর্বিকিার। লুটপাটরে কারণে গত কয়কে মাসে শয়োরবাজার থকেে বদিশেরিা ৬০০ কোটি টাকা পুঁজি প্রত্যাহার করে নয়িছে।ে কবেল ব্যাংক আর শয়োরবাজার নয়, র্দুনীতরি দুরন্তগতি চলছে সরকাররে সব প্রকল্প এবং প্রতষ্ঠিানজুড়।ে চারদকিে শুধু ‘উল্ট-েপাল্টে দে মা, লুটপেুটে খাই’ অবস্থার বস্তিার ঘটছে।ে সাবকে রাষ্ট্রপতি শখে মুজবিুর রহমান একবার তার দলরে লোকজনরে র্সবগ্রাসী র্দুনীতি দখেে দুঃখ করে বলছেলিনে- পাকস্তিান সব নয়িে গছে,ে চোরগুলো সব রখেে গছে;ে সইে চোর আর চাটার দল একত্রতি হয়ে সোনার বাংলা লুটে নচ্ছি।ে আজও সইে আওয়ামী লীগরে লোকজন লুটপাট আর র্দুনীতকিে তাদরে নীতি করে নয়িছে।ে বভিন্নি প্রকল্পে র্দুনীতরি বষিয়ে তনিি বলনে, গত মে মাসে রূপপুর পারমাণবকি বদ্যিুৎকন্দ্রেরে ফ্ল্যাটরে জন্য ৬ হাজার ৭১৭ টাকায় এককেটি বালশি ক্রয়রে মহার্দুনীতসিহ ৩৬ কোটি টাকার বশেি লুটপাটরে ঘটনা ফাঁস হওয়ার পর এবার র্দুনীতরি বশ্বিরর্কেড গড়ছেে স্বাস্থ্য অধদিফতর আর ফরদিপুর মডেকিলে কলজে হাসপাতাল র্কতৃপক্ষ। হাসপাতাল র্কতৃপক্ষ রোগীকে আড়াল করাতে একটি র্পদা কনিতে দাম দখেয়িছেে সাড়ে ৩৭ লাখ টাকা। ইতমিধ্যে হাসপাতালটরি যন্ত্র ও সরঞ্জাম কনোকাটাতইে অন্তত ৪১ কোটি টাকার র্দুনীতরি প্রাথমকি প্রমাণ পয়েছেে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। এখন অভযিুক্তদরে বরিুদ্ধে তদন্ত করতে দুদককে নর্দিশে দয়িছেনে হাইর্কোট। সম্প্রতি বসেরকারি টলেভিশিন চ্যানলে নাগরকি টভিরি অনুসন্ধানী প্রতবিদেনে আপনারা দখেছেনে, হাসপাতালরে একটি অক্সজিনে জনোরটেংি প্ল্যান্ট কনোর খরচ দখোনো হয়ছেে ৫ কোটি ২৭ লাখ টাকা। একটি ভ্যাকুয়াম প্ল্যান্ট ৮৭ লাখ ৫০ হাজার, একটি বএিইইস মনটিরংি প্ল্যান্ট ২৩ লাখ ৭৫ হাজার, তনিটি ডজিটিাল ব্লাড প্রসোর মশেনি ৩০ লাখ ৭৫ হাজার, আর একটি হডে র্কাডয়িাক স্টথেসেকোপরে দাম ১ লাখ ১২ হাজার টাকা। এমন অবশ্বিাস্য দামে ১৬৬টি যন্ত্র ও সরঞ্জাম কনিছেে হাসপাতাল র্কতৃপক্ষ। হাসপাতালটরি ১১ কোটি ৫৩ লাখ ৪৬৫ টাকার মডেকিলে যন্ত্রপাতি ও সরঞ্জাম কনোকাটায় বলি দখোনো হয়ছেে ৫২ কোটি ৬৬ লাখ ৭১ হাজার ২০০ টাকা। হাসপাতালরে র্শীষ র্কমর্কতারাও এই র্দুনীতরি সঙ্গে জড়তি। বই ক্রয়ে রীতমিতো পলিে চমকানো র্দুনীতি করছেে স্বাস্থ্য অধদিফতর। সাড়ে ৫ হাজার টাকা দামরে একটি বই স্বাস্থ্য অধদিফতর কনিছেে সাড়ে ৮৫ হাজার টাকায়! গোপালগঞ্জরে শখে সায়রো খাতুন মডেক্যিাল কলজেরে জন্য ‘প্রন্সিপিাল অ্যান্ড প্র্যাকটসি অব র্সাজার’ি নামক র্সাজাররি পাঠ্যবইয়রে ১০টি কপি কনিছেে স্বাস্থ্য অধদিফতর। ১০ কপি বইয়রে মোট দাম পরশিোধ করা হয়ছেে ৮ লাখ ৫৫ হাজার টাকায়। শুধু এই একটি আইটমেরে বই-ই নয়, দুটি টন্ডোরে ৪৭৯টি আইটমেরে ৭ হাজার ৯৫০টি বই কনিছেে স্বাস্থ্য অধদিফতর। এসব বইয়রে মূল্য বাবদ পরশিোধ করা হয়ছেে ৬ কোটি ৮৯ লাখ ৩৪ হাজার ২৪৩ টাকা। বএিনপরি এই নতো বলনে, নানা প্রকল্পরে নামে ক্ষমতাসীন দলরে লুটরোদরে র্কমকা-ে উৎসাহতি হয়ে এখন প্রশাসনরে লোকজনও জড়য়িে পড়ছেে স্বচ্ছোচারতিা আর র্দুনীততি।ে হারয়িে গছেে জবাবদহিি আর শৃঙ্খলার সব রীতনিীত।ি পুকুর কাটা শখিতে রাজশাহীর বরন্দ্রে বহুমুখী উন্নয়ন র্কতৃপক্ষরে ১৬ র্কমর্কতা রাষ্ট্ররে ১ কোটি ২৮ লাখ টাকা ব্যয় করে ইউরোপ সফরে যাচ্ছনে। আবহমানকাল ধরে এ দশেরে সাধারণ মানুষ পুকুর কাটার যে দৃষ্টান্ত রখেে গছে,ে এটইি তো সারাবশ্বিরে কাছে শক্ষিণীয়। দশেব্যাপী যে বখ্যিাত দীঘগিুলো এখনও অস্তত্বিমান, তার জন্য কি এই পুকুর কাটার সঙ্গে জড়তিরা বদিশে থকেে প্রশক্ষিণ নয়িে এসছেলি? শত শত বছর ধরইে তো দশেীয় লোকরো মসজদি, মন্দরি, মাজার, শক্ষিাপ্রতষ্ঠিানরে সামনে অথবা র্আথকিভাবে সচ্ছলতাসম্পন্ন মানুষরা নজিদেরে বাড়রি সামনে পুকুর-দীঘি তরৈি করছেনে তাদরে তো বদিশে থকেে প্রশক্ষিণরে প্রয়োজন হয়ন।ি তনিি প্রশ্ন রখেে বলনে, তা হলে রাজশাহী বরন্দ্রে বহুমুখী উন্নয়ন র্কতৃপক্ষরে র্কমর্কতাদরে এটি কী আসলে অভজ্ঞিতা সফর নাকি ২০১৮ সালরে ২৯ ডসিম্বেররে মধ্যরাতে প্রশাসনরে র্কমর্কতাদরে ব্যালটবাক্স র্পূণ করে ক্ষমতায় বসানোর পুরস্কার? তাই এসব দখেশেুনে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুররে একটি উদ্ধৃতি মনে পড়ে গলে- ‘আমাদরে রাজা গুণীর পালক/মানুষ হইয়া গলে কত লোক। আসে এক বুড়ো গণ্যমান্য/করপুটে লয়ে র্দুবাধান্য/রাজা তার প্রতি অতি বদান্য/ভরয়িা দলিনে থল।ি’ সংবাদ সম্মলেনে বএিনপি চয়োরপারসনরে উপদষ্টো কাউন্সলিরে সদস্য আবুল খায়রে ভুঁইয়া, যুগ্ম মহাসচবি খায়রুল কবরি খোকন, কন্দ্রেীয় নতো আবদুস সালাম আজাদ, মুনরি হোসনে, আবদুল আউয়াল খান, আমনিুল ইসলাম, মীর হলোল প্রমুখ উপস্থতি ছলিনে।

রওশনকে পাল্টা চয়োরম্যান ঘোষণা জাতীয় র্পাটরি একাংশরে

ঢাকা অফসি ॥ সংসদে বরিোধীদলীয় নতোর পদ নয়িে দবের-ভাবরি ববিাদরে মধ্যে এরশাদপতœী রওশনকে জাতীয় র্পাটরি চয়োরম্যান ঘোষণা করছেনে তার অনুসারীরা।রওশনরে উপস্থতিতিে গতকাল বৃহস্পতবিার তার বাসভবনে এক সংবাদ সম্মলেনে দলরে সভাপতমিন্ডলীর সদস্য আনসিুল ইসলাম মাহমুদ এ ঘোষণা দনে।তনিি বলনে, “রওশন এরশাদ র্পাটরি চয়োরম্যানরে দায়ত্বি পালন করবনে। আগামী ছয় মাসরে মধ্যে কাউন্সলি করে গণতান্ত্রকি উপায়ে স্থায়ী চয়োরম্যান ঠকি করব।”এরশাদরে ভাই জএিম কাদরে জাতীয় র্পাটরি ‘গঠনতন্ত্র ভঙে’ে চয়োরম্যান হয়ছেনে অভযিোগ করে আনসিুল বলনে, “জি এম কাদরেকে কো-চয়োরম্যানরে সম্মান দবেনে রওশন এরশাদ।”দলে বভিাজনরে বষিয়টি স্বীকার করে সংবাদ সম্মলেনরে শুরুতইে সাবকে বরিোধী দলীয় নতো রওশন বলনে, “র্পাটি এখন উদ্বগ্নি আছ।ে র্পাটতিে কী হচ্ছ?ে জাপা অতীতওে ভাগ হয়ছে,ে এবারও কি সটেি হচ্ছে নাক?ি“হুসইেন মুহাম্মদ এরশাদ এত কষ্ট করে র্পাটি গড়ে তুলছেনে, এখন সইে র্পাটটিা ভালভোবে চলুক, মান অভমিান ভুলে যারা চলে গছে,ে তারা ফরিে আসুক। আমি চাই র্পাটরি সবাই মলিমেশিে জনগণরে সবো করব।”অবশ্য রওশনরে সঙ্গে মহাসচবি পদে মসউির রহমান রাঙ্গাঁই থাকছনে বলে জানান আনসিুল। তবে রওশনরে বাসায় এই সংবাদ সম্মলেনে রাঙ্গাঁ উপস্থতি ছলিনে না। আনসিুল ইসলাম মাহমুদ ছাড়াও জাতীয় র্পাটরি প্রসেডিয়িাম সদস্য গোলাম কবিরয়িা টপিু, মজবিুল হক চুন্নু, ফখরুল ইমাম, মাসুদ পারভজে সোহলে রানা, এসএম ফয়সল চশিতী, মীর আবদুস সবুর আসুদ, খালদে আখতার, শফকিুল ইসলাম সন্টেু, ভাইস চয়োরম্যান লয়িাকত হোসনে খোকা ও নাসমি ওসমান উপস্থতি ছলিনে সংবাদ সম্মলেন।েগত ১৪ জুলাই হাসপাতালে চকিৎিসাধীন অবস্থায় মারা যান সংসদরে বরিোধী দলীয় নতো জাতীয় র্পাটরি চয়োরম্যান এরশাদ।তার চার দনিরে মাথায় এক সংবাদ সম্মলেনে র্পাটরি চয়োরম্যান হসিবেে জি এম কাদরেরে নাম ঘোষণা করা হয়। এরশাদরে স্ত্রী রওশন ওই সংবাদ সম্মলেনওে উপস্থতি ছলিনে না।১৮ জুলাই ওই সংবাদ সম্মলেনে দলরে মহাসচবি মসউির রহমান রাঙ্গাঁ বলনে, জাতীয় র্পাটরি গঠনতন্ত্ররে ২০/১ (ক) ধারা অনুযায়ী হুসইেন মুহম্মদ এরশাদ মৃত্যুর আগে বলে গছেনে, তার অর্বতমানে জি এম কাদরে দলরে চয়োরম্যান হবনে।“আজ থকেে আমরা সদ্ধিান্ত নয়িছে,ি জি এম কাদরেই আজ থকেে দলরে চয়োরম্যান হবনে।”এর পর থকেে ভাবি রওশনরে সঙ্গে কাদরেরে দ্বন্দ্ব নতুন মাত্রা পায়। রওশন অভযিোগ করনে, জি এম কাদরেকে চয়োরম্যান ঘোষণা করার আগে দলরে প্রসেডিয়িাম সদস্যদরে মতামত নওেয়া হয়ন।িঅন্যদকিে জি এম কাদরে বলছেলিনে, দলে কোনো সমস্যা থাকলে আলোচনার মাধ্যমে তার সমধান করবনে তারা।চয়োরম্যান পদ নয়িে দ্বন্দ্বরে মধ্যে মঙ্গলবার জি এম কাদরেকে সংসদে বরিোধী দলীয় নতো ঘোষণার জন্য স্পকিার শরিীন শারমনি চৌধুরীর কাছে চঠিি পাঠান হয় জাতীয় র্পাটরি নাম।েএর পাল্টায় বুধবার স্পকিাররে কাছে চঠিি পাঠয়িে রওশন বলনে, দলীয় ফোরামে কোনো সদ্ধিান্ত ছাড়াই জি এম কাদরে নজিকেে বরিোধীদলীয় নতো ঘোষণা করতে বলছেনে। এর জববে জি এম কাদরে বুধবার সাংবাদকিদরে বলনে, দলরে চয়োরম্যান হসিবেে তার ভাই এরশাদ ‘যভোব’ে সদ্ধিান্ত নতিনে, তনিওি ‘সভোবইে’ নয়িছেনে।

রওশনপন্থদিরে বরিুদ্ধে ব্যবস্থা নওেয়ার হুঁশয়িারি জি এম কাদরেরে

ঢাকা অফসি ॥ জাতীয় র্পাটরি একাংশ রওশন এরশাদকে দলরে চয়োরম্যান ঘোষণা করায় ‘গঠনতন্ত্র অনুযায়ী ব্যবস্থা নওেয়ার’ হুমকি দয়িছেনে হুসইেন মুহম্মদ এরশাদরে মৃত্যুর পর দলরে নতেৃত্ব পাওয়া জএিম কাদরে। তনিি বলছেনে, দলরে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী হুসইেন মুহম্মদ এরশাদ তাকে চয়োরম্যানরে দায়ত্বি দয়িে গছেনে। দলরে প্রসেডিয়িামও তাতে সর্মথন দয়িছে।ে ঢাকার বনানীতে গতকাল বৃহস্পতবিার জাতীয় র্পাটরি চয়োরম্যানরে র্কাযালয়ে এক সংবাদ সম্মলেনে এ কথা বলনে এরশাদরে ভাই কাদরে। এরশাদপতœী রওশনকে ‘মায়রে মত’ সম্মান করনে মন্তব্য করে কাদরে বলনে, সইে সম্মান রওশন রাখবনে বলইে তনিি আশা করছনে। এর ঘণ্টাখানকে আগইে রওশনরে উপস্থতিতিে তার বাসভবনে একটি সংবাদ সম্মলেন করে জাতীয় র্পাটরি আরকে অংশ। দলরে সভাপতমিন্ডলীর সদস্য আনসিুল ইসলাম মাহমুদ সখোনে বলনে, “রওশন এরশাদ পাটরি চয়োরম্যানরে দায়ত্বি পালন করবনে। আগামী ছয় মাসরে মধ্যে কাউন্সলি করে গণতান্ত্রকি উপায়ে স্থায়ী চয়োরম্যান ঠকি করব।” এরশাদরে ভাই জএিম কাদরে জাতীয় র্পাটরি ‘গঠনতন্ত্র ভঙে’ে চয়োরম্যান হয়ছেনে অভযিোগ করে আনসিুল বলনে, “জি এম কাদরেকে কো-চয়োরম্যানরে সম্মান দবেনে রওশন এরশাদ।” আর রওশন দলে বভিাজনরে বষিয়টি স্বীকার করে সংবাদ সম্মলেনরে শুরুতইে বলনে, “র্পাটি এখন উদ্বগ্নি আছ।ে র্পাটতিে কী হচ্ছ?ে জাপা অতীতওে ভাগ হয়ছে,ে এবারও কি সটেি হচ্ছে নাক?ি “হুসইেন মুহাম্মদ এরশাদ এত কষ্ট করে র্পাটি গড়ে তুলছেনে, এখন সইে র্পাটটিা ভালভোবে চলুক, মান অভমিান ভুলে যারা চলে গছে,ে তারা ফরিে আসুক। আমি চাই র্পাটরি সবাই মলিমেশিে জনগণরে সবো করব।” পরে বনানীতে জাতীয় র্পাটরি চয়োরম্যানরে র্কাযালয়ে সংবাদ সম্মলেনে এসে রওশনরে দবের কাদরে বলনে, “রওশন এরশাদ আমার মায়রে মত। তনিি নজি মুখে তো আর বলনে নাই যে তনিি চয়োরম্যান। তাকে সম্মান কর।ি আশা কর,ি তনিি এমন কছিু করবনে না, যাতে তার সম্মান নষ্ট হয়।” দল ভাঙনরে মুখে পড়নেি দাবি করে কাদরে বলনে, “যে কোনো লোক যে কোনো জায়গায় বলে দলি, তনিি রাজা। রাজার তো রাজত্ব থাকতে হব,ে প্রজা থাকতে হব।ে” প্রসেডিয়িামরে সদস্যদরে অধকিাংশদরে সর্মথন নয়িইে তাকে দলরে চয়োরম্যান ঘোষণা করা হয়ছেে এবং দলীয় এমপদিরে অধকিাংশরে সর্মথন নয়িইে সংসদে বরিোধী দলীয় নতো হসিবেে নাম ঘোষণার জন্য স্পকিারকে চঠিি পাঠানো হয়ছেে বলে দাবি করনে জি এম কাদরে। তনিি বলনে, “যারা শৃঙ্খলা নষ্ট করছে,ে দলরে গঠনতন্ত্র অনুযায়ী তাদরে বরিুদ্ধে ব্যবস্থা নওেয়া হব।ে” তার সঙ্গে এই সংবাদ সম্মলেনে দলরে প্রসেডিয়িাম সদস্য জয়িাউদ্দনি আহমদে বাবলু, সয়ৈদ আবু হোসনে বাবলা, মাসুদ উদ্দনি চৌধুরী, সালমা ইসলাম, এস এম ফখর-উজ-জামান জাহাঙ্গীর, মোস্তাফজিার রহমান মোস্তাফা, রানা মোহাম্মদ সোহলে উপস্থতি ছলিনে।

সড়কে শৃঙ্খলা ফরোতে টাস্কর্ফোস গঠন করা হবে -ওবায়দুল কাদরে

ঢাকা অফসি ॥ সড়কে শৃঙ্খলা ফরোতে ও র্দুঘটনা কমাতে টাস্কর্ফোস গঠনরে সদ্ধিান্ত গ্রহণ করা হয়ছে।ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামালকে প্রধান করে গঠতি এই টাস্কর্ফোস আগামী এক সপ্তাহরে মধ্যে কাজ শুরু করব।েগতকাল বৃহস্পতবিার দুপুরে রাজধানীর বনানীতে বাংলাদশে সড়ক পরবিহন র্কতৃপক্ষরে (বআিরটএি) র্কাযালয়ে জাতীয় সড়ক নরিাপত্তা কাউন্সলিরে সভা শষেে সাংবাদকিদরে এই সদ্ধিান্তরে কথা জানান জাতীয় সড়ক নরিাপত্তা কাউন্সলিরে সভাপতি এবং সড়ক পরবিহন ও সতেুমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগরে সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদরে। তনিি বলনে, ‘সড়কে শৃঙ্খলা ফরিয়িে আনা ও র্দুঘটনা কমাতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামালরে নতেৃত্বে একটি টাস্কর্ফোস গঠনরে সদ্ধিান্ত নওেয়া হয়ছে।ে এই টাস্কর্ফোসে সরকাররে বভিন্নি মন্ত্রণালয়রে প্রতনিধিি ছাড়াও মালকি-শ্রমকি সংগঠনরে নতো ও নাগরকি সমাজরে প্রতনিধিি থাকবনে। আগামী এক সপ্তাহরে মধ্যে এই টাস্কর্ফোস কাজ শুরু করব।ে’ ওবায়দুল কাদরে বলনে, টাস্কর্ফোসে সড়ক পরবিহন-মহাসড়ক বভিাগরে সচবি সাচবিকি দায়ত্বি পালন করবনে। সংশ্লষ্টি মন্ত্রণালয় এবং যে সমস্ত প্রয়োজনীয় সংস্থা রয়ছে,ে তাদরেকে নয়িে আমরা শক্তশিালী টাস্কর্ফোস গঠন করছে।ি বঠৈক শষেে জানানো হয়, পুলশিরে আইজপি,ি সংশ্লষ্টি মন্ত্রণালয়গুলোর সচবি, ডএিমপি কমশিনার, ঢাকার দুই সটিি করপোরশেনরে প্রধান নর্বিাহীগণ, সড়ক ও জনপথ বভিাগরে প্রধান প্রকৌশলী, বআিরটএি ও বআিরটসিরি চয়োরম্যান, ডটিসিএির নর্বিাহী পরচিালক, পরবিহন মালকি সমতিরি প্রতনিধি,ি পরবিহন শ্রমকি ফডোরশেনরে প্রতনিধি,ি ট্রাক-কার্ভাড ভ্যান মালকি সমতিরি প্রতনিধি,ি প্রাইম মুভারস অ্যাসোসয়িশেনরে প্রতনিধি,ি মন্ত্রপিরষিদ বভিাগরে প্রতনিধিি ও হাইওয়ে পুলশিরে ডআিইজি টাস্কর্ফোসরে সদস্য হবনে। এছাড়াও গণপরবিহন বশিষেজ্ঞ বুয়টেরে পুরকৌশল বভিাগরে অধ্যাপক শামসুল হক, কলামস্টি সয়ৈদ আবুল মকসুদ, নরিাপদ সড়ক চাই-এর চয়োরম্যান ইলয়িাস কাঞ্চন ও ব্র্যাকরে প্রতনিধিকিওে সদস্য রাখা হয়ছে।ে জাতীয় সড়ক নরিাপত্তা কাউন্সলিরে ১১১ দফা সুপারশি বাস্তবায়নে টাস্কর্ফোস গঠন করার সদ্ধিান্ত হয়ছেে জানয়িে ওবায়দুল কাদরে বলনে, শুধু উদ্যোগ নলিইে হবে না, বাস্তবায়ন করতে হব।ে মহাসড়কে চালকরে জন্য বশ্রিামাগার তরৈরি প্রকল্প একনকেে পাস হয়ছে।ে এছাড়া বহুলপ্রতক্ষিীত ঢাকা-সলিটে মহাসড়ক চারলনেে উন্নীত করতে এডবিি র্অথ দবে।ে সড়ক পরবিহন মন্ত্রী বলনে, ঢাকা-চট্টগ্রাম ও ঢাকা-ময়মনসংিহ মহাসড়কে আলাদা র্সাভসি লনে তরৈি করতে প্রকল্প হাতে নওেয়া হব।ে ঢাকা-সলিটে মহাসড়কসহ অন্য মহাসড়ক যহেতেু চারলনে নয়, তাই চারলনে করার সময় র্সাভসি লনেরে পরকিল্পনা করইে তরৈি করা হব।ে ওবায়দুল কাদরে বলনে, আমরা সড়কে শৃঙ্খলা ফরিয়িে আনতে পারবো না, একথা ঠকি নয়। আমরা ইতোমধ্যে বহুক্ষত্রেে শৃঙ্খলা ও আইন বাস্তবায়ন করছে।ি তাই, আমরা সড়কে শৃঙ্খলা ফরোবোই।

ওবায়দুল কাদরেরে সভাপতত্বিে সভায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল, রলেপথমন্ত্রী মো. নূরুল ইসলাম সুজন, সড়ক পরবিহন ও সতেু মন্ত্রণালয় সর্ম্পকতি স্থায়ী কমটিরি সভাপতি একাব্বর হোসনে, বাংলাদশে শ্রমকি ফডোরশেনরে র্কাযকরী সভাপতি শাজাহান খান, বাংলাদশে সড়ক পরবিহন মালকি সমতিরি সভাপতি মসউির রহমান রাঙ্গা, পুলশিরে মহাপরর্দিশক (আইজপি)ি জাবদে পাটোয়ারী, সড়ক পরবিহন মন্ত্রণালয়রে সচবি নজরুল ইসলাম, বাংলাদশে প্রকৌশল বশ্বিবদ্যিালয়রে (বুয়টে) অধ্যাপক শামসুল হক, নাগরকি সমাজরে প্রতনিধিি কলামস্টি সয়ৈদ আবুল মকসুদ, ঢাকা মহানগর পুলশি কমশিনার (ডএিমপ)ি মো. আছাদুজ্জামান ময়িা প্রমুখ উপস্থতি ছলিনে।

আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলনে, পরবিহন মালকি ও শ্রমকি এবং সংশ্লষ্টি কমটিরি সবার মতামতরে ভত্তিতিে সড়ক পরবিহন আইন বষিয়ে সদ্ধিান্ত হয়ছে।ে আগামী সপ্তাহে এ ব্যাপারে সবাইকে জানানো হব।ে জাবদে পাটোয়ারী বলনে, ঢাকা মট্রেোপলটিন পুলশিরে ডাম্পংি স্টশেন নইে। গাড়ি জব্দ করে রাখারই জায়গা নইে। এটা নর্মিাণ করলে নয়িম না মানা গাড়কিে জব্দ করা গলেে বশিৃঙ্খলা কমে আসব।ে ঢাকা শহরে বশিাল বশিাল ভবন, অথচ র্পাকংিয়রে জায়গা নইে। র্পাকংি ছাড়া ভবন নর্মিাণরে অনুমতি দওেয়া উচতি হবে না। তনিি বলনে, ট্রাফকি আইন না মানার সংস্কৃতি পুলশি দয়িে কন্ট্রোল সম্ভব নয়। আইন মানতে হব।ে মানুষকে আইন মানতে সচতেন করতে হব।ে তাহলইে সব সমস্যা সমাধান হব।ে

 

শাহজালালে ১০ কজেি সোনাসহ কবেনি ক্রু আটক

ঢাকা অফসি ॥ রাজধানীর হযরত শাহজালাল আর্ন্তজাতকি বমিানবন্দরে ১০ কজেি সোনাসহ একটি বসেরকারি এয়ারলাইনসরে একজন কবেনি ক্রুকে আটক করা হয়ছে।ে আটক ওই ক্রুর নাম রোকয়ো শখে মৌসুমী। গতকাল বৃহস্পতবিার বলো ১১টার দকিে ওমানরে মাসকাট বমিানবন্দর থকেে শাহজালাল বমিানবন্দরে আসা একটি বসেরকারি এয়ারলাইনসরে ফ্লাইটে ওই ক্রুর কাছ থকেে এই সোনা পাওয়া যায়। এ তথ্য নশ্চিতি করছেনে বমিানবন্দর র্আমড পুলশিরে অতরিক্তি পুলশি সুপার (অপারশেনস অ্যান্ড মডিয়িা) আলমগীর হোসনে। তনিি বলনে, বলো ১১টার দকিে মাসকাট থকেে একটি ফ্লাইট ঢাকায় আস।ে সইে ফ্লাইটরে ক্রুরা গ্রনি চ্যানলে পার হয়ে বরে হয়ে আসনে। গোপন সংবাদরে ভত্তিতিে বমিানবন্দর র্আমড পুলশিরে সদস্যরা কবেনি ক্রু মৌসুমীকে চ্যালঞ্জে করনে। তাকে কাস্টম জোনে এনে তল্লাশি করা হলে ১০ কজেি সোনা পাওয়া যায়। প্রসঙ্গত শাহজালালে এর আগওে একাধকি নারী ক্রুর সোনা চোরাচালানরে অভযিোগ পাওয়া গছে।ে নারী ক্রুদরে মধ্যে কউে কউে র্দীঘদনি ধরে সোনা চোরাচালানরে ক্যারয়িার হসিবেে ব্যবহার হয়ে আসছনে।

ডেঙ্গু প্রতিরোধে কুষ্টিয়া পৌরসভা কার্যক্রম অব্যাহত 

প্রতিটি ওয়ার্ডে ফগার মেশিনের মাধ্যমে কিট “বেনটাসিড ২৫০ ইসি” ছেটানো  হচ্ছে

নিজ সংবাদ ॥ ডঙ্গু প্রতিরোধে কুষ্টিয়া পৌরসভার কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।  প্রতিটি ওয়ার্ডে ড্রেন, ঝোপঝাড়, ডোবা-নালা, স্কুল, কলেজ-বিশ^বিদ্যালয় সহ পৌর নাগরিকের বসবাসরত স্থানে ও বাড়ির আঙ্গিনায় এডিস মশার লাভা নিধনে  ফগার ও স্প্রে মেশিন দিয়ে কিট “বেনটাসিড ২৫০ ইসি” ছেটানো  হচ্ছে। গত জুলাই ২৫ তারিখ থেকে কুষ্টিয়া পৌরসভার আয়োজনে আনুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু হয়। এর পর হতে পৌরসভার মেয়রের নির্দেশনা পর্যায়ক্রমে পৌর এলাকার ২১ টি ওয়ার্ডে স্বস্ব কাউন্সিলরের নেতৃত্বে কীটনাশক সহ ফগার মেশিন দিয়ে স্প্রে করা হচ্ছে। এছাড়াও পৌরসভার পরিচ্ছন্ন কর্মীরা পৌর এলাকায় পরিষ্কার-পরিচ্ছনতা অব্যাহত রেখেছে। কুষ্টিয়া পৌরসভার জননন্দিত মেয়র আনোয়ার আলী এ বিষয়ে বলেন, দেশব্যাপী এডিস মশা ও ডেঙ্গুর প্রকোপ দেখা দেওয়ার কারনে কুষ্টিয়া পৌর এলাকার এডিস মশার লাভা নিধনে নতুন উদ্দ্যোমে আরোও কর্মসূচি গ্রহন করা হয়েছে। তিনি আরো বলেন, গত মাসের ২৯ তারিখে গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র জনাব মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম দেশব্যাপী ডেঙ্গু প্রতিরোধ অভিযানকে সাফল্যমন্ডিত ও বেগবান করার লক্ষে স্ব-উদ্যোগে এডিশ মশার লার্ভা নিধনে সিঙ্গাপুর থেকে সংগৃহীত কিট বিনামূল্যে কুষ্টিয়া পৌরসভারকে প্রদান করেছে। এডিশ মশার লার্ভা নিধনে সিঙ্গাপুর থেকে সংগৃহীত এই কিট “বেনটাসিড ২৫০ ইসি” ১০০০ লিঃ তৈরি ঔষধ এবং ৫.৫ লিঃ মূল ঔষধ (১১০০ লিঃ তৈরি ঔষধ প্রস্তুত করা যাবে)। সেই সাথে চলমান কার্যক্রমের সাথে আরোও নতুন ১৩  টি ফগার ও স্প্রে মেশিন যুক্ত হয়েছে। উল্লেখ্য থাকে যে, ২৬ আগষ্ট হতে ৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত পৌর এলাকার ১৩,১৪, ১৫,১৬,১৭,১৮,১৯ ,২০ ও ২১ নং ওয়ার্ডে প্রতিটি স্থানে পূনরায় এই কার্যক্রম পরিচালিত হয়েছে। এই মশক নিধন অভিযান কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে তিনি জানান। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

জপি-িরবরি লাইসন্সে কনে বাতলি হবে না – বটিআিরসরি নোটসি

ঢাকা অফসি ॥ দুই দফা চাপ দয়িওে নরিীক্ষা আপত্তরি ‘পাওনা’ টাকা আদায় করতে না পরেে দশেরে দুই র্শীষ মোবাইল ফোন অপারটের গ্রামীণফোন ও রবরি বরিুদ্ধে ‘চূড়ান্ত’ পদক্ষপে গ্রহণ করছেে সরকার। টাকা না দওেয়ায় গ্রামীণফোন ও রবরি লাইসন্সে কনে বাতলি করা হবে না- তা জানতে চয়েে গতকাল বৃহস্পতবিার দুই অপারটেরকে ‘কারণ র্দশাও’ নোটসি পাঠয়িছেে টলেযিোগাযোগ খাতরে নয়িন্ত্রক সংস্থা বটিআিরস।ি কমশিনরে চয়োরম্যান জহুরুল হক গণমাধ্যমকে বলনে, “বাংলাদশে টলেযিোগাযোগ নয়িন্ত্রণ আইন ২০০১ এর ৪৬(২) ধারা মোতাবকে মোবাইল অপারটের গ্রামীণফোন ও রবরি লাইসন্সে কনে বাতলি করা হবে না, আগামী ৩০ দনিরে মধ্যে তা জানাতে বলা হয়ছেে নোটসি।ে” নর্ধিারতি সময়রে মধ্যে নোটসিরে জবাব না দলিে বা পাওনা টাকা পরশিোধ না করলে পরর্বতী পদক্ষপে বষিয়ে সোয়া ১২ লাখ গ্রাহকরে এই দুই অপারটেরে প্রশাসক নয়িোগরে মত পদক্ষপে নওেয়া হতে পারে বলে জানান বটিআিরসি প্রধান। তাৎক্ষণকি প্রতক্রিয়িায় বটিআিরসরি ওই নোটসিকে ‘অযৌক্তকি’ আখ্যায়তি করে গ্রামীণফোন বলছে,ে নয়িন্ত্রক সংস্থার এই ‘অন্যায্য’ পদক্ষপেরে বরিুদ্ধে প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা তারা নবে।ে

বটিআিরসরি দাব,ি গ্রামীণফোনরে কাছে নরিীক্ষা আপত্তরি দাবরি ১২ হাজার ৫৭৯ কোটি ৯৫ লাখ টাকা এবং রবরি কাছে ৮৬৭ কোটি ২৩ লাখ টাকা পাওনা রয়ছেে তাদরে। প্রথম ধাপে ব্যান্ডউইথ কময়িে দয়িে এবং দ্বতিীয় ধাপে বভিন্নি ধরনরে সবোর অনুমোদন ও অনাপত্তপিত্র দওেয়া বন্ধ রখেওে কাজ না হওয়ায় সরকার এমন পদক্ষপেে যতেে বাধ্য হয়ছেে বলে বটিআিরসি র্কমর্কতাদরে ভাষ্য। বটিআিরসি নোটসি পাঠানোর পর এক ববিৃততিে গ্রামীণফোন ক্ষোভ প্রকাশ করছে,ে তবে রবরি আনুষ্ঠানকি কোনো প্রতক্রিয়িা পাওয়া যায়ন।ি ববিৃততিে গ্রামীণফোন বলছে,ে “বটিআিরসরি নোটসিটি অযৌক্তকি। সইে সঙ্গে একটি বর্তিকতি অডটি দাবরি বষিয়ে আমাদরে গঠনমূলক সমাধান প্রস্তাবরে বপিরীতে তাদরে অনীহার আরকেটি বহঃিপ্রকাশ। নোটসিটি র্পযালোচনা করার পর গ্রামীণফোন এ বষিয়ে উত্তর দওেয়ার বষিয়ে সদ্ধিান্ত নবে।ে “আমাদরে প্রতষ্ঠিান, শয়োরহোল্ডার ও সম্মানতি গ্রাহকদরে অধকিার রক্ষায় নয়িন্ত্রক সংস্থার অন্যায্য যে কোনো পদক্ষপেরে বরিুদ্ধে আমরা প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা গ্রহণ করব।”বটিআিরসরি দাবি নয়িে আপত্তি জানয়িে সালশিরে মাধ্যমে বষিয়টরি মীমাংসা করার প্রস্তাব দয়িছেলি রবি আর জপি।ি কন্তিু তাতে সাড়া না দয়িে বটিআিরসরি পক্ষ থকেে বলা হয়, তাদরে আইনে এ ধরনরে ক্ষত্রেে সালশিরে কোনো সুযোগ নইে। তাগাদা দওেয়ার পরও ওই টাকা পরশিোধ না করার যুক্তি দখেয়িে গত ৪ জুলাই গ্রামীণফোনরে ব্যান্ডউইথ ক্যাপাসটিি ৩০ শতাংশ এবং রবরি ১৫ শতাংশ সীমতি করতে আইআইজগিুলোকে নর্দিশে দয়ে বটিআিরস।িকন্তিু তাতে গ্রাহকরে সমস্যা হওয়ায় ১৩ দনিরে মাথায় ওই নর্দিশেনা প্রত্যাহার করে নয়ে বটিআিরস।ি এরপর ২২ জুলাই গ্রামীণফোন ও রবকিে বভিন্নি প্রকার সবোর অনুমোদন ও অনাপত্তপিত্র (এনওস)ি দওেয়া স্থগতি রাখার ঘোষণা দয়ে নয়িন্ত্রক সংস্থা।বটিআিরসি ‘এনওস’ি দওেয়া বন্ধ রাখায় গ্রামীণফোন ও রবি র্বতমান সবো চালয়িে নতিে কোনো সমস্যায় পড়ছে না। তবে তারা নটেওর্য়াক সম্প্রসারণ বা বটিএিস স্থাপন করতে পারছে না, যন্ত্রাংশ আমদানরি অনুমতি পাবে না, নতুন কোনো প্যাকজে তারা বাজারে ছাড়তে পারছে না, চলতি প্যাকজেে কোনো পরর্বিতনও আনতে পারছে না।দশেে গ্রাহকরে হাতে থাকা ১৬ কোটি ৮২ হাজার নবিন্ধতি মোবাইল সমিরে মধ্যে ৭ কোটি ৪৭ লাখ সমি গ্রামীণফোনরে। আর রবরি ৪ কোটি ৭৬ লাখ সমি রয়ছেে গ্রাহকরে হাত।ে এই হসিাবে মোট গ্রাহকরে ৪৬.৪৯ শতাংশ গ্রামীণফোন এবং ২৯.৬৫ শতাংশ রবরি সবো নয়িে থাকনে। দশেরে ৯ কোটি ৪৪ লাখ ইন্টারনটে গ্রাহকরে মধ্যে ৮ কোটি ৮৬ লাখই মোবাইল ফোনরে ইন্টারনটে ব্যবহার করনে, যা মোট গ্রাহকরে ৯৩.৮৭ শতাশংশ।

কাবুলে আত্মঘাতী হামলা তালবোনরে দায় স্বীকার

ঢাকা অফসি ॥ আফগানস্তিানরে রাজধানী কাবুলে বভিন্নি দশেরে দূতাবাস ও গুরুত্বর্পূণ সরকারি র্কাযালয়রে কাছাকাছি একটি এলাকায় আত্মঘাতী বোমা হামলা চালয়িছেে তালবোন বদ্রিোহীরা।বৃহস্পতবিার এক আত্মঘাতী হামলাকারী নজিকেে উড়য়িে দয়োর পর বস্ফিোরণে এলাকাটরি বভিন্নি ভবনরে জানালা-দরজা কঁেপে ওঠে বলে সরকারি র্কমর্কতারা জানয়িছেনে।র্মাকনি দূতাবাস ও আফগানস্তিানে নটেো বাহনিীর সদরদপ্তররে কাছে প্রধান সড়করে চকেপয়ন্টেে এ হামলায় কউে হতাহত হয়ছেে কনিা, র্বাতা সংস্থা রয়র্টাস তাৎক্ষণকিভাবে তা নশ্চিতি হতে পারনে।ি যুক্তরাষ্ট্ররে সঙ্গে একটি চুক্তি নয়িে দরকষাকষতিে থাকা তালবোন বদ্রিোহীরা পরে এ হামলার দায় স্বীকার করে নয়ে।“বশে কয়কেটি অ্যাম্বুলন্সে ও উদ্ধার দল বস্ফিোরণস্থলরে দকিে রওনা হয়ছে,ে” বলছেনে আফগান স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়রে মুখপাত্র নাসরাত রাহমি।িসামাজকি যোগাযোগমাধ্যমে ছড়য়িে পড়া ছবি ও ভডিওি ফুটজেে বশে কয়কেটি গাড়ি ও দোকানরে ছন্নিভন্নি অবস্থা এবং পুলশিরে ঘটনাস্থল ঘরিে রাখার চত্রি মলিছে।েরয়র্টাস বলছ,ে তালবোনদরে নরিাপত্তা প্রতশ্রিুতরি বনিমিয়ে র্মাকনি সনো প্রত্যাহার নয়িে দুই পক্ষরে মধ্যে চুক্তরি আলোচনা পরণিতরি দকিে এগয়িে গলেওে আফগানস্তিানে সহংিসতা থামার কোনো লক্ষণই দখো যাচ্ছে না।সোমবারও কাবুলে আর্ন্তজাতকি একটি সংস্থার ব্যবহৃত একটি স্থাপনায় তালবোনদরে আত্মঘাদী ট্রাক বোমা হামলায় অন্তত ১৬ জন নহিত ও শতাধকি আহত হয়ছেলি। এদকিে চলতি সপ্তাহইে আফগান ও র্মাকনি র্কমর্কতারা চুক্তি স্বাক্ষরতি হওয়ার ১৩৫ দনিরে মধ্যে আফগানস্তিানরে ৫টি সনোঘাঁটি থকেে র্মাকনি সন্যৈ প্রত্যাহাররে একটি খসড়া কাঠামো নয়িে সমঝোতায় পৌঁছছেে বলে জানয়িছেনে যুক্তরাষ্ট্ররে র্শীষ মধ্যস্থতাকারী জালমে খললিজাদ।দক্ষণি এশয়িার দশেটতিে এখনও ছড়য়িে ছটিয়িে প্রায় ১৪ হাজার র্মাকনি সনো মোতায়নে আছে বলে জানয়িছেে রয়র্টাস।খসড়া সমঝোতার বষিয়টি ব্যাখ্যা করতে খললিজাদ শগিগরিইি আফগান ও নটেো র্কমর্কতাদরে সঙ্গে দখো করবনে বলে ধারণা করা হচ্ছ।ে চুক্তি স্বাক্ষররে আগে এই খসড়া অবশ্যই র্মাকনি প্রসেডিন্টে ডনাল্ড ট্রাম্পরে অনুমোদতি হতে হব।ে ভটেরোন আফগান-আমরেকিান কূটনীতকি খললিজাদ খসড়ার বস্তিারতি এরই মধ্যে আফগানস্তিানরে প্রসেডিন্টে আশরাফ ঘানকিে জানয়িে তার মতামত চয়েছেনে বলওে জানা গছে।ে এদকিে আফগানস্তিানরে পশ্চমিা সর্মথতি সরকার খসড়া চুক্তি বষিয়ে যুক্তরাষ্ট্ররে ব্যাখ্যা জানতে চয়েছেে বলে রয়র্টাস জানয়িছে।ে

মানুষের কল্যাণে দিশার এমন উদ্যোগ প্রশংসার দাবি রাখে ঃ আতাউর রহমান আতা - দিশা দেশের যে কোন ক্লান্তি কালে জনগনের পাশে থেকে কাজ করে যাবে ঃ রবিউল ইসলাম

কুষ্টিয়ায় ডেঙ্গু আক্রান্তদের পাশে দিশা

নিজ সংবাদ॥ এবার কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি ডেঙ্গু আক্রান্তদের মাঝে নানা উপকরণ বিতরনের পাশাপাশি দৌলতপুরে দাঁড়াপাড়ায় ডেঙ্গু আক্রান্তদের সেবায় এগিয়ে আসল বেসরকারি সংস্থা দিশা। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে দিশার নির্বাহী পরিচালক রবিউল ইসলাম সদর উপজেলা চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতাকে সাথে নিয়ে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে অস্থায়ী ডেঙ্গু ওয়ার্ডে যান। সেখানে ডেঙ্গু রোগীদের খোঁজখবর নেন তারা। এরপর রোগীদের মাঝে দুধ, জুস ও দেড় লিটার করে পানি বিতরণ করেন। এরপর দৌলতপুর উপজেলার দাঁড়াপাড়ায় যান দিশার একটি দল। এদিকে কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার আড়িয়া ইউনিয়নের দাঁড়পাড়ায় ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের সেবা দিয়ে গিয়ে এবার নিজেই ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়েছে এক স্বাস্থ্যকর্মি। স্থানীয় ছাতারপাড়া গ্রামের কমিউনিটি ক্লিনিকের স্বাস্থ্যকর্মি ওলিউর রহমান গত ২০ দিন ধরে দাড়পাড়া এলাকায় প্রতিদিন কাজ করছিলেন। গত বুধবার কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে রক্ত পরীক্ষা করালে তার দেহে ডেঙ্গু রোগ সনাক্ত হয়। একই হাসপাতালে তাকে ভর্তি করা হয়। গতকাল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত স্বাস্থ্য বিভাগের তথ্যমতে, দাঁড়পাড়াতে ৫১ জন রোগী সনাক্ত হয়েছে। আর আড়িয়া ইউনিয়নে সনাক্ত হয়েছে অন্তত ৮০জন। এদিকে দাঁড়পাড়া এলাকায় এডিস মশা নিধন ও নিয়ন্ত্রনে সেখানে অবস্থান করা পরিবারগুলোর মাঝে ওষুধসহ বিভিন্ন উপকরণ বিতরণ করা হয়েছে। কুষ্টিয়ার বেসরকারি উন্নয়ণ সংস্থা দিশার আয়োজনে বিতরণ অনুষ্ঠানে ছিলেন দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শারমিন আক্তার, সহকারি কমিশনার (ভূমি) আজগর আলী,দিশার নির্বাহী পরিচালক রবিউল ইসলাম, উপ-নির্বাহী পরিচালক নাসির উদ্দিন কায়সার, প্রকৌশলী নজরুল ইসলাম, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা সাইদুর রহমান, সহকারি পরিচালক মেহেদী হাসানসহ গনমাধ্যমকর্মিরা এ সময় উপস্থিত ছিলেণ।  দাঁড়পাড়া এলাকায় ৫০ জন রোগীসহ আড়িয়া ইউনিয়নে আক্রান্ত রোগীদের মাঝে এসব উপকরণ বিতরণ করা হয়। ইউএনও শারমিন আক্তার তার বক্তব্যে বলেন, পুরো দৌলতপুর উপজেলায় ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী জেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশি। দাড়পাড়াতে উপজেলার মধ্যে সবচেয়ে বেশি। প্রথম আলোতে সংবাদ প্রকাশের পর এই এলাকাটা সরকার বেশি নজর দিয়েছে। পাশাপাশি বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ও ব্যক্তি উদ্যোগেও এখানে এডিস মশা নিধনে কাজ করছে। দিশা তার অন্যতম। দিশা এগিয়ে আসায় এর নির্বাহী পরিচালক রবিউল ইসলামকে ধন্যবাদও জানান। দিশার পরিচালনা পর্যদের সদস্য ও সাবেক প্রকৌশলী নজরুল ইসলাম বলেন, বেসরকারি সংস্থাগুলো তাদের প্রতিষ্ঠানের কাজের বাইরেও সামাজিক কর্মকান্ডে এগিয়ে আসে। ঠিক তেমনি ডেঙ্গু প্রতিরোধেও দিশা এসেছে। প্রথম আলোর কুষ্টিয়া প্রতিনিধি তৌহিদী হাসানের সঞ্চালনয় স্থানীয় পূর্ব ছাতারপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত ডেঙ্গু প্রতিরোধে সচেতনমূলক সভায় চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের প্রতিনিধি শরীফ বিশ^াস,সমকাল ও ডিবিসি নিউজের প্রতিনিধি সাজ্জাদ রানা,সময় টিভির প্রতিনিধি এসএম রাশেদসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মিরা উপস্থিত ছিলেন। এরআগে সকালে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে দিশার পক্ষ থেকে চিকিৎসাধীণ ডেঙ্গু রোগীদের মাঝে বোতলজাত পানি ও জুস বিতরণ করা হয়। চিকিৎসাধীন ৪২ জন রোগীদের মাঝে এসব উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান আতা,হাসপাতালের তত্বাবধায়ক নুরুন্নাহার,চিকিৎসক আবদুল মান্নান,এএসএম মুসা কবির,রতন পাল,সাবেক উপজেলা প্রকৌশলী নজরুল ইসলাম। এসব উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠানে দিশার নির্বাহী পরিচালক রবিউল ইসলাম বলেন, জেনারেল হাসপাতালে আগামী ১০ দিন যত ডেঙ্গু রোগী ভর্তি হবে তাদের প্রত্যেককে প্রতিদিন পাচ লিটার করে বিশুদ্ধ বোতলজাত পানি ও দেড় লিটার করে ফলে জুস দেওয়া হবে। সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউর রহমান বলেন, সরকারের পাশাপাশি সকল পর্যায়ের বেসরকারি প্রতিষ্ঠানগুলোও ডেঙ্গু প্রতিরোধে এগিয়ে আসা উচিত। যেমনটি আজ দিশা করছে। এটা মহৎ উদ্যোগ। দিশার মতো এমন উদ্যোগে সবাই শামিল হলে ডেঙ্গু প্রতিরোধ করা সময়ের ব্যাপার। দাঁড়পাড়ার ডেঙ্গু পরিস্থিতি নিয়ে ‘ছোট্ট গ্রামে ডেঙ্গুর বড় আক্রমণ’ শিরোনামে অনুসন্ধানী প্রতিবেদন সম্প্রতি একটি জাতীয় দৈনিকে ছাপা হয়। এর পরপরই ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণে স্থানীয় প্রশাসন জোরালো কাজ করে যাচ্ছে। একটি নির্দিষ্ট ছোট্ট পাড়ায় ডেঙ্গু রোগের প্রাদুর্ভাবের বিষয়ে সংবাদ ছাপা হলে সরকারের রোগতত্ত্ব, রোগনিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) প্রতিনিধি সরেজমিন তথ্য সংগ্রহ করেছে। সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্র বলছে, উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স’র তত্বাবধায়নে দাঁড়পাড়াতে অস্থায়ী ক্যাম্প করা হয়েছে। সেখানে বিনামূল্যে প্রয়োজনীয় ওধুধ ও মশা নিধন করা হচ্ছে। জেলায় এপর্যন্ত ৭০৭ জন ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়েছে। এরমধ্যে গত ২৪ ঘন্টায় ভর্তি হয়েছে ১১ জন। হাসপাতালে চিকিৎসাধীন ৪৫ জন রোগী।