অগ্নিকান্ডে ক্ষতিগ্রস্ত বস্তিবাসীদের পুনর্বাসন করা হবে – কাদের

ঢাকা অফিস ॥ অগ্নিকান্ডে মিরপুরের চলন্তিকা বস্তির ক্ষতিগ্রস্তদের ঘরবাড়ি করে দিয়ে সরকার পুনর্বাসন করবে বলে জানিয়েছেন পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ক্ষতিগ্রস্ত বস্তিবাসীদের মধ্যে গতকাল সোমবার ত্রাণ বিতরণ করতে গিয়ে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, “অনেকে এসে এখানে নামকাওয়াস্তে রিলিফ দেওয়ার নামে লিপ সার্ভিস দিয়েছেন, বক্তৃতা করেছেন, দোষারোপ করে সরকারের ঘাড়ে দোষ চাপিয়েছেন, স্থানীয় সাংসদের ব্যাপারে বিষোদগার করেছেন। যে এখান গরিব দুঃখিদের পাশে সবসময় থাকে, তার বিরুদ্ধে কথা বলে গেছেন। “আমি আপনাদের আশ্বস্ত করছি আমরা এই ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় যতদিন সাহ্যয্যের দরকার, ত্রাণের দরকার, পুনর্বাসন পর্যন্ত…. শেখ হাসিনা সরকার আপনাদের পাশে আছে।” গত শুক্রবার রাতে তিন ঘণ্টার আগুনে পুড়ে যায় মিরপুর-৭ নম্বরের চলন্তিকা বস্তির কয়েকশ ঘর। এতে প্রায় ৩০ হাজার মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। বস্তিবাসীদের সাহস দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, “আপনারা নিজেদের অসহায় ভাববেন না, শেখ হাসিনা আপনাদের পাশে আছে। একদিকে সারাদেশে ডেঙ্গু আতঙ্ক, এর মধ্যে অগ্নিকান্ড এই এলাকার মানুষের মধ্যে অবর্ণনীয় দুঃখ-কষ্ট নিয়ে এসেছে। এই ব্যাপারে আমরা অবহিত।”

বিএনপি মহাসচিবের প্রতি ইঙ্গিত করে তিনি বলেন, “আমরা কথায় বিশ্বাস করি না, কাজে বিশ্বাস করি। এই মানুষ যারা ঘরবাড়ি, সহায়-সম্বল হারিয়েছে, তারা কথা শুনতে চায় না, ভাষণ শুনতে চায় না। তারা সাহায্য চায়, পুনর্বাসন চায়। তারা বাঁচার মতো বাঁচতে চায়। আমরা সেই ব্যবস্থা করব। মির্জা ফখরুল সাহেব এখানে এসে বিষোদগার করে গেছেন। কি নিয়ে এসেছেন, কি সাহায্য নিয়ে এসেছেন? শুধু বক্তব্য দিয়ে গেছেন।” খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে বিএনপি আন্তর্জাতিক পর্যায়ে যাওয়ার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছে সে প্রসঙ্গে কাদের বলেন, “খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে পারেনি, দেড় বছরে দেড় মিনিটও আন্দোলন করতে পারেনি। এখন দেশের জনগণকে নিয়ে আন্দোলন করতে ব্যর্থ হয়ে বিদেশিদের কাছে নালিশ করবে। আদালতে ব্যর্থ, রাজপথে ব্যর্থ। এখন বিদেশি দূতাবাসে এখানকার কুটনীতিকদের কাছে বারবার নালিশ করছে। এখন নাকি জাতিসংঘেও ধর্না দেবে। যারা দেশের জনগণের সমর্থন লাভে ব্যর্থ তাদের বিদেশে গিয়ে নালিশ করা ছাড়া আর কোনো অবলম্বন নেই। সেজন্য অসহায়ের মতো বিদেশিদের কাছে গিয়ে কান্নাকাটি করবে। শেষ পর্যন্ত জাতিসংঘের দারস্ত হচ্ছে। রাজনীতিতে বিএনপি যে কত দেউলিয়া সেটা প্রমান হয়েছে।” এবার ঈদযাত্রায় সড়ক-মহাসড়কে দুর্ঘটনার কারণ খুঁজতে বৈঠকে বসবেন বলে বলে জানিয়েছেন মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, “এ ব্যাপারে তিন-চারদিনের মধ্যে সড়ক নিয়ে আমরা যে কমিটি করেছি এই কমিটির একটা রিপোর্ট আছে, সেটা নিয়ে আমি কথা বলব। কেন এতো দুর্ঘটনা ঘটছে এরও কারণ অনুসন্ধান করতে হবে। যারা এ জন্য দায়ী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। এই ব্যাপারে পদক্ষেপ নিতে এরই মধ্যে বৈঠক ডেকেছি।” বেসরকারি সংস্থা বাংলাদেশ যাত্রী কল্যাণ সমিতির হিসাবে, গত ১২ আগস্ট অনুষ্ঠিত কোরবানির ঈদের আগে-পরের ১২ দিনে সারা দেশে সড়ক দুর্ঘটনায় ২২৪ জন নিহত এবং ৮৬৬ জন আহত হয়েছেন। দুর্ঘটনার জন্য সংগঠনটি যে নয়টি কারণ চিহ্নিত করেছে, তার শুরুতেই রয়েছে ‘বেপরোয়া গতিতে যানবাহন চালানো’। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীও একই কথা বলেছেন। তিনি বলেন, “ঈদের সময়ে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় অনেকে করে, অতিরিক্ত ভাড়া নেওয়ার জন্য বেপরোয়া গতিতে গাড়ি চালায়। অনুসন্ধান করে দেখা গেছে, এভাবে শত শত গাড়ি রাস্তায় চলাচলের কারণে দুর্ঘটনা ঘটলে মৃত্যুর হারটা বেড়ে যায়। অন্যদিকে অতিরিক্তি লাভের জন্য বেপরোয়া গতির গাড়ি সড়ক দুর্ঘটনার কারণ।”

ঝিনাইদহে ছাত্র লীগের কালোপতাকা মৌন মিছিল ও সমাবেশ

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ১৭ আগস্ট সারাদেশে সিরিজ বোমা হামলায় জড়িতদের বিচার সম্পন্ন ও এর মদদদাতাদের শাস্তির দাবিতে ঝিনাইদহে কালোপতাকা মৌন মিছিল ও সমাবেশ করেছে ছাত্রলীগ। গতকাল সোমবার সকালে সরকারি কেসি কলেজ চত্বর থেকে একটি  মৌন মিছিল বের করা হয়। মিছিলটি শহরের বিভিন্ন সড়ক ঘুরে একই স্থানে গিয়ে শেষ হয়। পরে কলেজের শহীদ মিনার চত্বরে সমাবেশের অনুষ্ঠিত হয়। এসময় জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রানা হামিদ, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল আওয়াল, সরকারি কেসি কলেজ ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক রিপন, সাধারণ সম্পাদক আবু সুমন বিশ্বাস, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি খাইরুল ইসলাম টিটন, সিটি কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক ফারুক হোসেনসহ অন্যান্যরা বক্তব্য রাখেন। বক্তারা, ২০০৫ সালের ১৭ আগস্ট সারাদেশে সিরিজ বোমা হামলায় জড়িতদের বিচার সম্পন্ন ও এর পৃষ্টপোষকদের শাস্তির দাবি জানান।

গাংনীতে ২০১৯-২০ অর্থ বছরে রাজস্ব খাতে প্রাতিষ্ঠানিক জলাশয়ে  পোনা মাছ অবমুক্তি কার্যক্রম অনুষ্ঠিত

গাংনী প্রতিনিধি ॥ ‘মাছ চাষে গড়বো দেশ ,বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ’ ‘মৎস্য  সেক্টরের সমৃদ্ধি সুনীল অর্থনীতির অগ্রগতি’এবারের প্রতিপাদ্য বিষয় নিয়ে  মেহেরপুরের গাংনীতে ২০১৯-২০২০ অর্থ বছরে রাজস্ব খাতে বর্ষা প্লাবিত ধানক্ষেত, প্লাবনভূমি, অন্যান্য জলাশয়ে এবং সরকারী খাস ও প্রাতিষ্ঠানিক জলাশয়ে পোনামাছ অবমুক্তি কার্যক্রমের আওতায় গাংনী উপজেলার আটটি জলাশয়ে সিডিউল মোতাবেক ১০-১৫ সেঃ মিঃ আকারের (প্রায় ৪০০ কেজি) পোনামাছ (যেমন-রুই, কাতলা, মৃগেল, কালিবাউস/ঘনিয়া) অবমুক্ত করা হয়েছে। গতকাল সোমবার বেলা ১১টার সময় উপজেলা পরিষদ পুকুর, গাংনী থানা পুকুর, গাংনী এতিমখানা পুকুর, গোপালনগর চাতরের বিল, জোড়পুকুরিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় পুকুর, করমদী মাধ্যমিক বিদ্যালয় পুকুর, ছেউটিয়া খাল, ভাটপাড়া ডিসি ইকো পার্ক পুকুরে মাছের পোনা অবমুক্ত করা হয়েছে। এসময় প্রধান অতিথি ছিলেন গাংনী উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মেহেরপুর জেলা আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এমএ খালেক। বিশেষ অতিথি ছিলেন এমপি’র প্রতিনিধি বিশিষ্ট আ’লীগ নেতা মনিরুজ্জামান আতু, মেহেরপুর জেলা মৎস্য অফিসার মোহাম্মদ সাইফুদ্দীন ইয়াহিয়া, গাংনী উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান ফারহানা ইয়াসমিন, গাংনী থানার অফিসার ইনচার্জ ওবাইদুর রহমান, ওসি তদন্ত  সাজেদুল ইসলাম, গাংনী উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা (অঃ দাঃ) মীর  মোঃ জাকির হোসেন, মৎস্য সম্প্রসারণ কর্মকর্তা আসিফ ইকবাল, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা সোহেল রানা, উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ মোস্তফা জামান, উপজেলা সমবায় অফিসার মিলন কুমার দাশ, অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন,গাংনী উপজেলা প্রেস ক্লাবের সভাপতি আমিরুল ইসলাম অল্ডামসহ উপজেলা মৎস্য বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ।

 

ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা কমেছে – স্বাস্থ্য অধিদপ্তর

ঢাকা অফিস ॥ দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা কমেছে। এ অবস্থা অব্যাহত থাকবে বলেই আশাবাদ ব্যক্ত করেছে স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। গতকাল সোমবার দুপুরে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ ও লাইন ডিরেক্টর (কমিউনিকেবল ডিজিজ কন্ট্রোল) বিভাগের পরিচালক অধ্যাপক ডা. সানিয়া তাহমিনা এ কথা বলেন। তিনি বলেন, গত ২৪ ঘণ্টায় ঢাকার হাসপাতালে মোট রোগীর সংখ্যা ৭ শতাংশ ও ঢাকার বাইরের রোগীর সংখ্যা ৫ শতাংশ কমেছে। আক্রান্তদের সংখ্যার সূচকে নিম্নগতি পর্যবেক্ষণ করেছি। আশা করছি এই নিম্নগতি অব্যাহত থাকবে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরসহ সংশ্লিষ্টদের সমন্বিত প্রচেষ্টা ও জনসচেতনতার কারণে এই সংখ্যা কমেছে বলে মনে করেন ডা. সানিয়া। তিনি জানান, গত রোববার (১৮ আগস্ট) সকাল ৮টা থেকে গতকাল সোমবার (১৯ আগস্ট) সকাল ৮টা পর্যন্ত সারাদেশে হাসপাতালে ভর্তি হওয়া ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা ১ হাজার ৬১৫ জন। এর মধ্যে ৭৫৭ জন ঢাকায় ও ৮৫৮ জন ঢাকার বাইরের বিভিন্ন হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন। এর আগের ২৪ ঘণ্টায় ঢাকায় ভর্তি রোগীর সংখ্যা ছিল ৭৩৪ জন এবং ঢাকার বাইরে ৯৭২ জন। সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, চলতি বছরের ১ জানুয়ারি থেকে সোমবার পর্যন্ত সারাদেশে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ৫৪ হাজার ৭৯৮ জন। এর মধ্যে ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৮৪ শতাংশ ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগী। ডা. সানিয়া তাহমিনা বলেন, সকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক দেশের সকল ডিরেক্টর ও লাইন ডিরেক্টরের উপস্থিতিতে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে সিভিল সার্জন ও ইউএইচএফপিও-দের ডেঙ্গুর প্রতিকার, প্রতিরোধ ও ব্যবস্থাপনা বিষয়ক নানা নির্দেশনা দেন।

আলমডাঙ্গার নতিডাঙ্গা আবাসনের ধর্ষিতার পাশে জেলা লোকমোর্চা

ধর্ষিতা শিশুকে আইনী সহায়তাসহ সব ধরণের সহায়তা দেওয়া হবে

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ আলমডাঙ্গার নতিডাঙ্গা আবাসনের ধর্ষিতা শিশু ও তার পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছে জেলা লোকমোর্চা। ওই শিশুকে আইনগত সহায়তা ছাড়াও সব ধরণের সহযোগিতা করবে লোকমোর্চা। গতকাল সোমবার জেলা লোকমোর্চার নেতারা সরেজমিনে নতিডাঙ্গা আবাসন, হারদি হাসপাতাল পরিদর্শন করে এবং ধর্ষণ ঘটনার ব্যাপারে বিস্তারিত খোঁজ-খবর নেয়। জেলা লোকমোর্চা আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ ও চুয়াডাঙ্গার সিভিল সার্জনের সাথেও এ বিষয়ে কথা বলে। লোকমোর্চা সদস্যরা আবাসনের প্রত্যক্ষদর্শিদের সাথে কথা বলেন। আবাসনে বসবাসকারি অনেকেই ঘটনার রাতের বর্ণনা দিয়ে ধর্ষক লাল্টুসহ অন্যদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করে। জানাগছে, ঘটনার রাতে ধর্ষকরা নাবালিকা ওই শিশুকে ধর্ষণ করা ছাড়াও তার বাবা-মাকে মারপিট করে। এতে গুরুতর আহত অবস্থায় ধর্ষিতা শিশুর মা-বাবাকে হারদী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। সেখানে বাবা-মায়ের সাথে হাসপাতালে রয়েছে ধর্ষিতা শিশুটি। শিশুটির জবানবন্দী গ্রহণ ও তার বাবা-মায়ের কাছে ঘটনা বর্ণনা শোনার জন্য লোকমোর্চা টিম সোমবার বিকেলে আলমডাঙ্গার হারদী হাসপাতালে যায়। সেখানে ধর্ষিতা শিশু, তার বাবা ও মায়ের সাথে কথা বলে লোকমোর্চা সদস্যরা। তাদের চিকিৎসার খোঁজ-খবরও নেওয়া হয়। সন্ধ্যায় লোকমোর্চা টিম আলমডাঙ্গা থানায় গিয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আসাদুজ্জামান মুন্সীর সাথে এ মামলার বিষয়ে কথা বলেন এবং বিস্তারিত খোজ-খবর নেন। রাতেই লোকমোর্চা টিম চুয়াডাঙ্গায় ফিরে চুয়াডাঙ্গার সিভিল সার্জনের সাথে জেলা লোকমোর্চা সভাপতি অ্যাডভোকেট আলমগীর হোসেন  ফোনে কথা বলেন। চুয়াডাঙ্গার সিভিল সার্জন লোকমোর্চাকে জানিয়েছেন, আজ মঙ্গলবারে মধ্যে শিশুর ডাক্তার পরীক্ষার রিপোর্ট প্রদান করবেন। সরেজমিন পরিদর্শনে ছিলেন জেলা লোকমোর্চার সভাপতি অ্যাডভোকেট আলমগীর হোসেন, সদর উপজেলা লোকমোর্চার সভাপতি অ্যাডভোকেট মানিক আকবর, আলমডাঙ্গা উপজেলা লোকমোর্চার সভাপতি এম সবেদ আলী, সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম মন্টু, জেলা লোকমোর্চার যুগ্ন সাংগঠনিক সম্পাদক তানজিলা মিনি, জেলা লোকমোর্চা সদস্য অ্যাডভোকেট হানিফ উদ্দিন, আলমডাঙ্গা লোকমোর্চার যুগ্ন সম্পাদক সিরাজুল ইসলাম, সহ-সাধারণ সম্পাদক শেখ শফিউজ্জামান, নির্বাহী সদস্য আক্কাচ আলী, ওয়েভ ফাউন্ডেশনের আকরাম হোসেন জোয়ার্দ্দার ও জেলা লোকমোর্চার সচিব কানিজ সুলতানা। উল্লেখ্য, গত শনিবার গভীর রাতে আলমডাঙ্গার নতিডাঙ্গা আবাসনের এক শিশুকে একই গ্রামের লাল্টু, রাজু ও মধু বাঙ্গাল শিশুটিকে আবাসন থেকে তুলে নিয়ে পাশের এক বাঁশবাগানে নিয়ে ধর্ষণ করে। তার আগে তারা শিশুর বাবা ও মাকে মারপিট করে গুরুতর জখম করে। এবিষয়ে ঘটনার দিনই অভিযুক্ত লাল্টুকে গ্রেফতার করেছে আলমডাঙ্গা থানা পুলিশ।

পচা, বাসি, নোংরা খাবার, অস্বাস্থ্যকর পরিবেশ

নিমতলার ঘোষ সুইটস, আমলার আরাফাত ব্রেড, লালন ডেইরী সুইটস,  মোল্লা ফার্মেসীকে জরিমানা

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে বিভিন্ন খাবার হোটেল, মিষ্টির  দোকান, বেকারি, ফার্মেসিতে অভিযান পরিচালনা করেছেন ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর এবং উপজেলা প্রশাসন। এসময় নোংরা, পচা, বাসি, অস্বাস্থ্যকর খাবার ও শিশু খাদ্য, পণ্যের মেয়াদের উপর নজর দেওয়া হয়। গতকাল সোমবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে উপজেলার নিমতলা ও আমলা বাজারে এ অভিযান পরিচালিত হয়। অভিযানটি পরিচালনার নেতৃত্ব দেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এস এম জামাল আহমেদ। অভিযানকালে ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে নিমতলা বাজারে ঘোষ সুইটস হোটেলে নোংরা, পচা, বাসি ও অস্বাস্থ্যকর খাবার বিক্রয় করার অপরাধে হোটেল মালিক অখিল ঘোষ (৪৬) কে ১৫ (পনের) দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়। এছাড়াও আমলা বাজারের মোল্লা ফার্মেসীতে শিশু খাদ্য বিক্রির বৈধ কাগজ না থাকায় এক হাজার টাকা, আরাফাত ব্রেড এন্ড বিস্কুট ফ্যাক্টরীকে পাঁচ হাজার টাকা, লালন ডেইরী সুইটসকে তিন হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এ সময়  জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক  সেলিমুজ্জামানসহ প্রশাসনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সাংবাদিক আকরামের বাবা অসুস্থ্য, রোগমুক্তির জন্য দোয়া কামনা

নিজ সংবাদ ॥ মোহনা টিভির জেলা প্রতিনিধি আকরাম হোসেনের বাবা আব্দুল করিম মাস্টার স্ট্রোকজনিত শারীরিক সমস্যা নিয়ে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে রয়েছেন। তিনি গতকাল নিজ বাড়ি কমলাপুরে হঠাৎ অসুস্থ্য হয়ে পড়লে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করেন পরিবারের সদস্যরা। প্রবীন এই শিক্ষকের রোগমুক্তি কামনা করে দোয়া প্রার্থনা করেছেন তার পরিবারের সদস্যরা। কর্মজীবনে তিনি জোতপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে প্রধানশিক্ষক হিসেবে সুনামের সাথে দায়িত্ব পালন করেছেন। এদিকে সাংবাদিক আকরাম হোসেনের বাবাকে হাসপাতালে দেখতে এবং তার শারীরিক অবস্থার খোঁজ খবর নিয়েছেন কুষ্টিয়ায় কর্মরত বিভিন্ন গণমাধ্যমের সাংবাদিকরা।

আলমডাঙ্গায় বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ও বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিব গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্ণামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত

আলমডাঙ্গা অফিস ॥ আলমডাঙ্গা উপজেলা পর্যায়ের বঙ্গবন্ধু গোল্ডকাপ ও বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেসা মুজিব গোল্ডকাপ প্রাথমিক বিদ্যালয় ফুটবল টুর্ণামেন্টের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল  বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে সরকারী উচ্চবিদ্যালয়ের বি-টিম ফুটবল মাঠে ৪ দলের ফাইনাল খেলা অনুষ্ঠিত হয়। পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে আলমডাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ লিটন আলীর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন চুয়াডাঙ্গা-১ আসনের সাংসদ জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি সোলায়মান হক জোয়ার্দ্দার ছেলুন এমপি। এসময় তিনি বলেন, “পড়াশোনার পাশাপাশি শিক্ষার্থীদের শরীরচর্চা অত্যন্ত জরুরী। বর্তমান সমাজ ব্যবস্থায় খেলাধুলা বন্ধ হয়ে গেলে ছেলে মেয়েরা খারাপ পথে চলে যেতে পারে। প্রতিটি স্কুলে শিক্ষার্থীদের মাঝে খেলাধুলা ছড়িয়ে দিতে হবে। শিক্ষার্থীরা পড়াশোনার পাশাপাশি অবসরে খেলাধুলা করবে। দেশব্যাপি এই খেলা চলছে। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন উপজেলা শিক্ষা অফিসার সামসুজ্জোহা। বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান আইয়ুব হোসেন, আলমডাঙ্গা থানার অফিসার ইনচার্জ আসাদুজ্জামান মুন্সি, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাড সালমুন আহমেদ ডন, জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য সাবেক ভাইস চেয়ারম্যান দেলোয়ার হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ইয়াকুব মাস্টার, উপজেলা ক্রীড়া সংস্থার সেক্রেটারী খন্দকার জিহাদ-ই-জুলফিকার টুটুল, আলমডাঙ্গা সরকারী কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ গোলাম সরোয়ার মিঠু। উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষক সমিতির সভাপতি রেফাউল ও সম্পাদক আলম হোসেনের উপস্থাপনায় উপস্থিত ছিলেন কুমরারী ইউপি চেয়ারম্যান  আবু সাঈদ পিন্টু, আলমডাঙ্গা পাইলট মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মনিরুজ্জামান, সহকারী শিক্ষা অফিসার আশরাফুল ইসলাম, সৈয়দ মাসুদুল ইসলাম, হুমায়ন কবীর, রফিকুল ইসলাম, রশিদুল ইসলাম, জেলা যুবলীগের সদস্য পৌর কাউন্সিলর মতিয়ার রহমান ফারুক,  প্রধান শিক্ষক রাকিবুস সালেহীন, শিক্ষক মোল্লা ফেরদৌস-উল-আলম রিজভী,  পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি নয়ন সরকার, সম্পাদক নাহিদ হাসান তমাল, কলেজ ছাত্রলীগের আশরাফুল হক, যুগ্ম সম্পাদক হাসানুজ্জামান হাসান, প্রচার সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল হোসাঈন বাদশা, ছাত্রলীগ নেতা পিয়াস, সাকিব, রকি, সুরুজসহ উপজেলার সকল প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকবৃন্দ। খেলা পরিচালনা করেন শিক্ষক তহিদুল হক, ফিরোজুল ইসলাম ও ওমর খৈয়ম, খেলায় ধারাবিবরনী দেন শিক্ষক জামাল উদ্দিন ও আহসান কবির। একই অনুষ্ঠানে প্রথমে  একীভূত শিক্ষা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে বিশেষ চাহিদা সম্পন্ন শিশুদের মাঝে ১০জন ছাত্রকে হুইল চেয়ার, ২জন ছাত্রকে হিয়ারিং এইড ও ক্র্যাচ ও ৩জনকে চশমা বিতরণ করেন।

জলবায়ু পরিবর্তনের হুমকি মোকাবেলায় অংশীদারদের জড়িত থাকা প্রয়োজন – অর্থমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, জলবায়ু পরিবর্তনজনিত হুমকি মোকাবেলায় কার্যকর ফলাফল অর্জনে প্রাথমিক পর্যায় থেকেই প্রকল্প বাস্তবায়ন প্রক্রিয়ায় অংশীদারদের জড়িত থাকা প্রয়োজন। তিনি বলেন, ‘বিশ্ব আজ প্রকৃতপক্ষেই জলবায়ু পরিবর্তনজনিত কারণে হুমকীর সম্মুখীন। জলবায়ু পরিবর্তন থেকে উদ্ভুত বহুবিধ প্রভাবের মুখোমুখি হয়ে বিশ্বের ভবিষ্যত হুমকির মধ্যে রয়েছে।’ অর্থমন্ত্রী দক্ষিণ কোরিয়ার ইনচিয়নের স্যাংডোতে গ্লোবাল ক্লাইমেট ফান্ড (জিসিএফ) ‘গ্লোবাল প্রোগ্রামিং কনফারেন্স’ এ অংশ নিয়ে এসব কথা বলেন। গতকাল ঢাকায় প্রাপ্ত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ কথা জানানো হয়। এতে বলা হয়, ১৯ থেকে ২৪ আগস্ট দক্ষিণ কোরিয়ার ইনচিয়নের স্যাংডোতে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। জলবায়ু পরিবর্তন থেকে উদ্ভুত বহুবিধ প্রভাবকে টেকসইভাবে সমাধানের জন্য অংশীদার দেশগুলিকে সমর্থন করার উপায় এবং পথ বের করাই এ সম্মেলনের উদ্দেশ্য। ‘জলবায়ুর উচ্চাকাঙ্খাকে উপলব্ধি করা’ এই সম্মেলনের এ বছরের মূল প্রতিপাদ্য। অর্থমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ থেকে একটি উচ্চ পর্যায়ের প্রতিনিধি দল সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন। সম্মেলনে অর্থমন্ত্রী জলবায়ু পরিবর্তনজনিত হুমকি মোকাবেলায় বাংলাদেশ সরকারের এ পর্যন্ত নেয়া পদক্ষেপ ও কার্যক্রম সংক্ষেপে বর্ণনা করেন। অর্থনৈতি সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি) সচিব মনোয়ার আহমেদসহ উর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও সম্মেলনে যোগ দিয়েছেন। ১০ টি দেশের মন্ত্রীরা, উচ্চ পর্যায়ের সরকারী কর্মকর্তা, থিঙ্ক ট্যাঙ্কস, সিএসও, এনজিও প্রতিনিধিবৃন্দ ৫ দিনের এই সম্মেলনে অংশ নিচ্ছেন। উচ্চ পর্যায়ের ফোরামে, বিভিন্ন দেশের মন্ত্রীরা কিভাবে তারা তাদের দেশের জলবায়ু পরিবর্তনজনিত হুমকীর সম্মূখীন হচ্ছেন এবং মোকাবেলায় কি ধরনে পদক্ষেপ নিতে চাচ্ছেন সে বিষয়গুলে তুলে ধরছেন। স্বীকৃত সংস্থাগুলির প্রধানরা তুলে ধরছেন যে, তারা কীভাবে দেশগুলিকে জিসিএফ সমর্থন দিয়ে এই উচ্চাকাঙ্খাগুলি উপলব্ধি করতে সহায়তা করবে।

অধিকতর সুশাসন নিশ্চিত করতে কাজ করছে সরকার – স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, বর্তমান সরকার দেশে অধিকতর সুশাসন নিশ্চিত করতে কাজ করছে। তিনি বলেন, টানা তৃতীয় বারের মত সরকার গঠনের পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে অধিকতর সুশাসন নিশ্চিত করবার সঙ্গে সঙ্গে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কাজও দ্রুত গতিতে এগিয়ে চলেছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী গত রোববার সন্ধ্যায় দক্ষিণ কোরিয়ার সিউলস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসে প্রবাসী বাংলাদেশীদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন। তিনি দক্ষিণ কোরিয়ায় সরকারি সফরকালে এই সভায় অংশ গ্রহণ করেন। সিউল থেকে ঢাকায় প্রাপ্ত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে গতকাল এ কথা জানানো হয়। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, জনগণের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার পাশাপাশি তাদের দোর গোড়ায় সেবা পৌছে দেয়ার লক্ষ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় কাজ করছে। বর্তমান সরকারের নানা উদ্যোগের ফলে পুলিশ বাহিনীর সক্ষমতা বৃদ্ধি পেয়েছে। তিনি বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ই-পাসপোর্ট সংক্রান্ত বিষয়ে ইতোমধ্যেই কার্যক্রম গ্রহণ করেছে যা যথাসময়ে চালু করা হবে। তিনি আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা  বৈধ পথে নিয়মিত রেমিটেন্স প্রেরণকারীদের জন্যেও অধিকতর সুযোগ সুবিধা প্রদানের বিষয়টি বিবেচনা করছেন। তিনি উপস্থিত প্রবাসীদের বাংলাদেশে আরো বিনিয়োগ করার জন্য উৎসাহিত করেন। এ সময় প্রবাসী বাংলাদেশীদের বিভিন্ন সংগঠন তাকে ফুলের তোড়া দিয়ে শুভেচ্ছা জানান। সভায় প্রবাসীরা স্বতঃস্ফূর্তভাবে এবং অত্যন্ত খোলামেলা পরিবেশে পাসপোর্টসহ বিভিন্ন বিষয়ে তাদের সমস্যার কথা তুলে ধরেন। মন্ত্রী মন দিয়ে তাদের কথা শোনেন। তিনি নতুন পাসপোর্ট তৈরি, পাসপোর্ট নবায়ন, ই-পাসর্পোট, দ্বৈত নাগরিকত্ব, পুলিশ ক্লিয়ারেন্স, প্রবাসীদের জন্য বিশেষায়িত হাসপাতাল, বিচার ব্যবস্থায় দীর্ঘসূত্রিতা, দক্ষিণ কোরিয়ার শ্রমবাজার ও রেমিটেন্স প্রেরণসহ বিভিন্ন বিষয়ে তাদের সকল প্রশ্নের উত্তর দেন। পাসপোর্ট অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. সোহেল হোসেন খানসহ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অন্যান্য উর্ধ্বতন কর্মকর্তারাও এ সময় উপস্থিত ছিলেন। এরআগে তিনি বাংলাদেশ দূতাবাসের কনস্যুলার শাখা পরিদর্শন করেন এবং দূতাবাসের কনস্যুলার কার্যক্রম সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে খোঁজখবর নেন। দূতাবাসের কনস্যুলার সেবার মানে মন্ত্রী সন্তোষ প্রকাশ করেন। এ সময় তিনি দূতাবাসে অবস্থিত ‘বঙ্গবন্ধু স্মৃতি পাঠাগার’ ও ঘুরে দেখেন।

 

মিরপুর উপজেলা যুবদলের সাংগঠনিক সম্পাদক টুটুলের আওয়ামীলীগের যোগদান

মিরপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুর উপজেলার মির্জানগর গ্রামের বাসিন্দা মৃত আব্দুর রহমান মন্ডলের ছেলে তৌহিদুল ইসলাম টুটুল বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী যুবদল মিরপুর উপজেলা শাখার সাংগঠনিক সম্পাদকসহ সাধারন সদস্য পদ থেকেও পদত্যাগ করেছেন। এ সংক্রান্ত এক পদত্যাগপত্র গত ১৫ আগষ্ট মিরপুর উপজেলা যুবদলের সভাপতি আজাদুর রহমান আজাদের কাছে জমা দিয়েছেন। ওই পদত্যাগ পত্রে টুটুল জাতীয়তাবাদী দলের সাথে তার আর কোন সম্পর্ক নেই এমনকি ভবিষ্যতেও থাকবে না। এখন থেকে আওয়ামীলীগ ও তার অঙ্গ সংগঠনের সাথে সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা করবেন বলেও উলে¬খ করেছেন।

যুবদল থেকে পদত্যাগের কারণ হিসেবে তৌহিদুল ইসলাম টুটুল বলেন- আওয়ামীলীগ স্বাধীনতার স্বপক্ষের একটি রাজনৈতিক দল। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু  শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শ, বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার  দেশ উন্নয়নের অগ্রযাত্রায় সামিল হতে এবং বিএনপি ধবংসাত্মক রাজনীতির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে আওয়ামীলীগের যোগদান করি। টুটুল বলেন-গত দেড় বছর আগে থেকেই আমি জাতীয়তাবাদী দলের সাথে সম্পর্ক ছেদ করে আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত। মিরপুর উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি এ্যাড. আব্দুল হালিমের সাথে পরামর্শক্রমে কুষ্টিয়া জেলা যুবলীগের সভাপতি রবিউল ইসলাম, তালবাড়ীয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান, বারুইপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি মন্টু ডাক্তার, মির্জানগর ওয়ার্ড আওয়ামীলীগের সভাপতি আলম মেম্বর, সাধারন সম্পাদক সম্পাদক ফরমান মেম্বর এবং বারুইপাড়া ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি মফিকুল ইসলাম মফির উপস্থিতিতে এক সভায় আনুষ্ঠানিকভাবে আওয়ামীলীগে যোগদান করি। বিগত দেড় বছর যাবত আওয়ামী রাজনীতির সাথে নীবিড়ভাবে জড়িত এবং সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছি। টুটুল বলেন-কুষ্টিয়ার উন্নয়নের রূপকার বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও সদর আসনের সংসদ সদস্য মাহবুবউল আলম হানিফের দেশ উন্নয়নের রাজনীতির সাথে একাত্মতা প্রকাশ করে জেলা, উপজেলা ও স্থানীয় আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ সংগঠনের নেতা-কর্মীদের সাথে কাধে কাধ মিলিয়ে স্বাধীনতার স্বপক্ষে এবং দেশ গড়ার কাজে নিজেকে নিয়োজিত রাখতে বদ্ধপরিকর।

ঝিনাইদহে স্ত্রী হত্যা মামলায় স্বামীসহ ২ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহের মহেশপুরে স্ত্রী হত্যা মামলায় স্বামীসহ ২ জনকে যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। গতকাল সোমবার দুপুরে ঝিনাইদহের অতিরিক্ত দায়রা জজ ১ম আদালতের বিচারক এমজি আযম এ রায় দেন। সেই সাথে প্রত্যেকের ১০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১ বছরের কারাদন্ড প্রদান করা হয়। দন্ডপ্রাপ্তরা হলো-মহেশপুর উপজেলার কানাইডাঙ্গা গ্রামের আব্দুর রাজ্জাকের ছেলে উজ্জল হোসেন ও একই গ্রামের হুজুর আলীর ছেলে শুকুর আলী। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবি সহকারী পিপি এ্যাড. আব্দুল খালেক জানান, ১৯৯৯ সালের ৩১ মে মহেশপুর উপজেলার কেশবপুর গ্রামের শহিদুল ইসলামের মেয়ে মনোয়ারা খাতুনের সাথে কানাইডাঙ্গা গ্রামের উজ্জল হোসেনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর স্বামী ও তার বাড়ির লোকজন যৌতুকের জন্য তাকে নির্যাতন করতো। তাছাড়াও তার গর্ভের সন্তান নষ্ট করে দেয়। এ ঘটনায় মনোয়ারা খাতুন স্বামী ও শ্বশুড়বাড়ীর লোকজনের বিরুদ্ধে ২ টি মামলা করে। পরবর্তীতে, ২০০১ সালের ২৯ জুন উজ্জল হোসেন তার বাড়ীতে এসে মনোয়ারা খাতুনকে ডেকে নিয়ে যায়। এরপর মনোয়ারা খাতুনের পিতা শহিদুল ইসলাম উজ্জলের বাড়িতে গিয়ে মেয়ের খোঁজ করে। কিন্তু উজ্জল হোসেন ও তার বাড়ীর লোকজন বলে, সে বাবার বাড়িতে চলে গেছে। এরপর থেকে শহিদুল ইসলাম বিভিন্ন স্থানে মেয়ের খোঁজ করতে থাকে। ওই বছরের ১ জুলাই চুয়াডাঙ্গার জীবননগর উপজেলার বলাতলা খাল থেকে এক নারীর লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। খবর পেয়ে থানায় গিয়ে মেয়ের পোষাক ও ছবি দেখে মনোয়ারার লাশ বলে সনাক্ত করে। এ ঘটনায় ৬ জুলাই নিহতের পিতা শহিদুল ইসলাম বাদী হয়ে মহেশপুর থানায় ৮ জনের নামে হত্যা মামলা দায়ের করে। পুলিশ তদন্ত শেষে ২০০২ সালের ১৫ ফেব্র“য়ারি ৫ জনের নামে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে। দীর্ঘবিচারিক প্রক্রিয়া শেষে আদালত স্বামী উজ্জল হোসেন ও প্রতিবেশী শুকুর আলীকে যাবজ্জীবন কারাদন্ডে দন্ডিত করেন। এ মামলার আসামী আব্দুর রাজ্জাক বিচার চলাকালীন সময়ে মারা গেছে। অন্য দুইজন আসামী আজিজুল হক ও মেঘা মন্ডলের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় তাদের বেকসুর খালাস দেন বিচারক।

জাতীয় শোক দিবসে কুষ্টিয়া জেলা মহিলা শ্রমিকলীগের আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিল

১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে কুষ্টিয়া জেলা মহিলা শ্রমিকলীগের উদ্দ্যোগে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদৎতে আলোচনা সভা ও দোয়া মহাফিল অনুষ্ঠিত হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন জেলা মহিলা শ্রমিকলীগের সহ-সভাপতি রুসানা আক্তার রুমা। সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন কুষ্টিয়া জেলা জাতীয় শ্রমিকলীগের সাধারন সম্পাদক আলহাজ্ব মো আমজাদ আলী খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা শ্রমিকলীগের সহ সভাপতি জিল্লুর রহমান,  যুগ-সাধারন সম্পাদক মতিউর রহমান, মো পলাশ মিয়া,  সহ-সাধারন সম্পাদক বাদশা আলমগীর, সাংগঠনিক সম্পাদক ইসমাইল হোসেন, তরিকুল হাসান মিন্টু, সহ-সমাজ কল্যান সম্পাদক খোমিনী আহমেদ।   সভা পরিচালনা করেন কুষ্টিয়া জেলা মহিলা শ্রমিকলীগের  সাধারন সম্পাদক মেহেরুন নেছা। অন্যান্যের মধ্যে আরও বক্তব্য  রাখেন হোসনে আরা, সুমিত্রা সাহা, তৃপ্তি রানী,  মিমি আক্তার, তানিয়া আক্তার, বিউটি আক্তার, সুমি হাওলাদার, টুসি মাহমুদ, শিরিনা আক্তার, রেশমা বেগম। আলোচনা শেষে দোয়া পরিচালনা করেন মিল লাইন জামে মসজিদের  পেশ ঈমাম। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

দৌলতপুর সীমান্তে ১৮৪ বোতল ফেনসিডিল ও ৩২ কেজি গাঁজা উদ্ধার

দৌলতপুর প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর সীমান্তে বিজিবি’র অভিযানে ১৮৪ বোতল ভারতীয় ফেনসিডিল ও ৩২ কেজি গাঁজা উদ্ধার হয়েছে। গতকাল সোমবার ভোররাত পৌনে ৩টার দিকে ৪৭ বিজিবি ব্যাটালিয়ন অধিনস্থ আশ্রয়ন বিওপি’র টহল দল ঠোটারপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে ১৮৪ বোতল ভারতীয় ফেনসিডিল ও ৩২ কেজি গাঁজা উদ্ধার করে। তবে উদ্ধার হওয়া মাদকের সাথে জড়িত কেউ আটক হয়নি।

কুমারখালীতে মাসিক আইন-শৃংখলা সভায় ইউএনও

রেজিষ্ট্রেশন বিহীন মোটরসাইকেল ও লাইসেন্স বিহীন চালকের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান

কুমারখালী প্রতিনিধি ॥ সড়ক দুর্ঘটনা রোধে রেজিষ্ট্রেশন বিহীন মোটরসাইকেল ও ড্রাইভিং লাইসেন্স বিহীন চালকের বিরুদ্ধে সাঁড়াশি অভিযান চালানোর ঘোষণা দিয়েছেন কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাজীবুল ইসলাম খান। গতকাল সোমবার সকালে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত মাসিক আইন-শৃংখলা বিষয়ক সভায় সভাপতির বক্তব্যে তিনি এই ঘোষনা দিয়েছেন। সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন, সহকারি কমিশনার (ভূমি) মুহাম্মদ নূর-এ আলম, থানার অফিসার ইনচার্জ (তদন্ত) শুভ্র প্রকাশ দাস, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মেরিনা পারভীন মিনা। অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা সমাজসেবা অফিসার মুহাম্মদ আলী, মুক্তিযোদ্ধা এটিএম আবুল মনছুর মজনু, মুক্তিযোদ্ধা চাঁদ আলী, নন্দলালপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নওশের আলী বিশ্বাস, সদকী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মজিদ প্রমূখ। সভায় ইউএনও আরো বলেছেন, অপ্রাপ্ত বয়স্ক শিশু-শিকোরদের কুষ্টিয়া-রাজবাড়ি (আঞ্চলিক মহাসড়ক) সড়ক সহ বিভিন্ন সড়কে বেপরোয়া গতিতে মোটর সাইকেল চালাতে দেখা যাচ্ছে। এর ফলে দুর্ঘটনার সংখ্যা বৃদ্ধি পাচ্ছে। এ জন্য তিনি মোটর সাইকেল মালিক ও অভিভাবকদের উদ্দেশ্যে বলেছেন, যাদের মোটর সাইকেলের রেজিষ্ট্রেশন নেই এবং ড্রাইভিং লাইসেন্স নেই তারা রাস্তায় বের হবেন না। খুব শিঘ্রই উপজেলা প্রশাসনের উদ্যোগে রেজিষ্ট্রেশন বিহীন মোটর সাইকেল ও ড্রাইভিং লাইসেন্স বিহীন চালকদের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করা হবে। আর এই অভিযানে কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না। সবাইকে সমান দৃষ্টিতে দেখা হবে বলে ঘোষনা দেন ইউএনও রাজীবুল ইসলাম খান। এ ছাড়াও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও মুক্তিযোদ্ধাদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে কুষ্টিয়া-রাজবাড়ি সড়কের আঞ্চলিক ও দুরপাল¬ার মালবাহি এবং যাত্রীবাহি পরিবহনের গতি নিয়ন্ত্রণের বিষয়েও ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেন তিনি। আইন-শৃংখলা বিষয়ক সভা শেষে সন্ত্রাস, জঙ্গিবাদ ও নাশকতামূলক কর্মকান্ড প্রতিরোধে সহযোগীতা করতে সকলের প্রতি আহবান জানান ইউএনও।

 

কুষ্টিয়ায় যুগান্তর স্বজন সমাবেশ’র আহবায়ক কমিটি গঠন

নিজ সংবাদ ॥ দৈনিক যুগান্তর ‘স্বজন সমাবেশ’র কুষ্টিয়া  জেলা আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়েছে। কুষ্টিয়া  প্রেসক্লারের এম এ রাজ্জাক মিলনায়তনে ১৭ আগস্ট শনিবার বিকাল ৫টায় কমিটি গঠন উপলক্ষে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। রাত ৮টা পর্যন্ত তিনঘন্টা প্রাণবন্ত আলোচনা শেষে ১৩ সদস্য বিশিষ্ট আহবায়ক কমিটি গঠন করা হয়। উক্ত আলোচনা সভায় উপস্থিত সকল সদস্যের সর্বসম্মতিক্রমে কবি ও সাহিত্যিক আসমান আলীকে আহবায়ক ও কুষ্টিয়া সরকারী কলেজের অনার্সের শিক্ষার্থী আল-আমিন হোসেনকে সদস্য সচিব করে এই কমিটি ঘোষণা করা হয়। এই কমিটিকে আগামী চার সস্তাহের মধ্যে পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন করতে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে।

কমিটির সদস্যরা হলেন, ভালবাসা কুষ্টিয়ার প্রতিষ্ঠাতা ও কবি-প্রাবন্ধিক হাসান টুটুল, পিপাসা এনজিও’র নির্বাহী পরিচালক শ্যামল কুমার চৌধুরী, সদর উপজেলা স্বাস্থ্য সহকারী সুলতানা রেবেকা নাসরীন, নারী নেত্রী শিউলী রহমান, কবি ছাদিমুল ইসলাম তিতু, ফরিদুল হক, শাহীনুর রহমান, রতন মাহমুদ, মুহা: মুকতাহিম, আরজিনা খাতুন ও ফজলুল হক।

আলোচনা সভায় দৈনিক যুগান্তরের জেলা প্রতিনিধি এ এম জুবায়েদ রিপন’র সভাপতিত্বে ও কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের নির্বাহী সদস্য লেখক ও কলামিস্ট এ্যাডভোকেট পিএম সিরাজুল ইসলামের পরিচালনায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক আনিসুজ্জামান ডাবলু। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কবি ও প্রাবন্ধিক হাসান টুটুল, কুষ্টিয়া প্রেসক্লাবের দপ্তর সম্পাদক এম লিটন-উজ-জামান প্রমুখ। সভায় বক্তারা বলেন, স্বজন সমাবেশের সদস্যরা সারাদেশে সামাজিক কর্মকান্ড পরিচালনা করে আসছে। প্রাকৃতিক দুর্যোগসহ নানা সংকটে তারা সাধারণ মানুষের পাশে দাঁড়াচ্ছেন। কুষ্টিয়াতে আজকে যারা সদস্য হলেন আগামী দিনে তারাও সাধারণ মানুষের পাশে থেকে সব সংকট মোকাবেলা করবেন বলে আশাবাদ ব্যাক্ত করেন বক্তারা।

‘আল্লাহর সরকার’ নামে তৎপরতা চালাচ্ছে ‘আল্লাহর দল’

ঢাকা অফিস ॥ ‘আল্লাহর দল’র বর্তমান শীর্ষনেতাসহ চারজনকে গ্রেপ্তারের পর র‌্যাব জানিয়েছে, সন্দেহভাজন জঙ্গি সংগঠনটি নাম বদলে ‘আল্লাহর সরকার’ নামে তৎপরতা চালাচ্ছিল। রোববার রাত থেকে সোমবার ভোর পর্যন্ত ঢাকার হাতিরঝিলের ঝিলপাড় এলাকায় অভিযান চালিয়ে ওই চারজনকে গ্রেপ্তার করা হয় বলে কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া দপ্তরে এক সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়। গ্রেপ্তার ব্যক্তিরা হলেন, ইব্রাহিম আহমেদ হিরো (৪৬), আবদুল আজিজ (৫০), মো. শফিকুল ইসলাম সুরুজ (৩৮) ও মো. রশিদুল ইসলাম (২৮)। দলটির আমির মতিন মেহেদী এক যুগ আগে গ্রেপ্তার হওয়ার পর হিরোই ভারপ্রাপ্ত আমির বা ‘তারকা’র দায়িত্ব পালন করে আসছিলেন বলে জানিয়েছেন র‌্যাব সদর দপ্তরের সহকারী পরিচালক মিজানুর রহমান ভূঁইয়া। র‌্যাব কর্মকর্তারা জানান, ১৯৯৫ সালে মতিন মেহেদী ওরফে মুমিনুল ইসলাম আল্লাহর দল সংগঠনটি গড়ে তোলেন। ২০০৪ সালের শেষের দিকে সংগঠনটি জেএমবির সঙ্গে একীভূত হয়েছিল। কিন্তু পরে মতিন মেহেদী জেএমবি ছেড়ে আবার আল্লাহর দল নিয়ে সক্রিয় হন। র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক এমরানুল হাসান সংবাদ সম্মেলনে বলেন, সশস্ত্র সংঘাত ও  নাশকতার মাধ্যমে গণতান্ত্রিক কাঠামোকে উৎখাত করে উগ্রবাদী শাসন ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠিত করাই ছিল এই সংগঠনটির লক্ষ্য। ২০০৭ সালে মতিন মেহেদী গ্রেপ্তার হলেও তাকেই আমির হিসেবে মেনে ভারপ্রাপ্ত আমির হিরোর নেতৃত্বে দলটি চলছিল বলে জানান র‌্যাব কর্মকর্তারা। এইচএসসি পাস হিরো গাড়ির যন্ত্রাংশের ব্যবসায়ী। র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক এমরানুল হাসান বলেন, “কৌশলগত কারণ ২০১৪ সালে দলটির নাম পরিবর্তন করে আল্লাহর সরকার নামকরণ করা হয়।” হিরো র‌্যাবকে জানিয়েছেন, জঙ্গি সংগঠনটির কার্যক্রম পাবনা জেলা হতে শুরু হয়েছিল এবং বর্তমানে উত্তর ও দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলসহ কয়েকটি জেলায় সদস্য সংগ্রহ অভিযানে নেমেছিলেন তারা। র‌্যাব জানিয়েছে, সদস্য সংগ্রহের জন্য এই জঙ্গিরা ইন্টারনেট বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহারের পাশাপাশি প্রত্যন্ত অঞ্চলে কাজ করার মাধ্যমে সাংগঠনিক কাঠামো মজবুত করার পরিকল্পনা করেছিল। কারাবন্দি আমির মতিন মেহদীকে প্রিজনভ্যানে হামলা চালিয়ে মুক্ত করার পরিকল্পনা তাদের ছিল বলে র‌্যাব জানিয়েছে। সংগঠনের আর্থিক বিষয়াদি সম্পর্কে নানা গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া গেছে বলে জানান র‌্যাবের মুখপাত্র এমরান। তিনি বলেন, “তারা ব্যক্তি পর্যায়ে চাঁদা প্রদান করে এবং তাদের প্রদত্ত জাকাতের অর্থ জঙ্গিবাদে ব্যবহার করে। এছাড়া তাদের কয়েকটি নামে-বেনামে ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান রয়েছে।” গ্রেপ্তারকৃতদের কাছ থেকে বেশ কিছু উগ্রবাদী বই ও প্রচারপত্র পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে র‌্যাব। এমরান বলেন, তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

কুষ্টিয়া পৌর মেয়র আনোয়ার আলী’র শোক

কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আল ফিরোজ হরলেন ও খ্যাতিনামা সাঁতারু বীর মুক্তিযোদ্ধা কানাই লাল শর্মার মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। কুষ্টিয়া জেলা ছাত্রলীগের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক আল ফিরোজ হরলেন গত ১৮ আগষ্ট সন্ধ্যায় কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন। হরলেন’র মৃত্যুতে কুষ্টিয়া পৌরসভার মেয়র আনোয়ার আলী গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন। প্রেরিত শোকবার্তায় মেয়র আনোয়ার আলী বলেন, ছোট বেলা থেকেই হরলেন ছাত্রলীগ রাজনীতির সাথে সক্রিয় ভাবে জড়িত ছিল। আট ভাইবোনদের মধ্যে হরলেন ছিল মেঝ। হরলেনের অকাল মৃত্যুতে আমরা একজন মুজিব কর্মী হারালাম। মৃত্যুকালে সে স্ত্রী, এক ছেলে ও এক মেয়েসহ অসখ্য গুনগ্রাহী রেখে যান। মেয়র মরহুমার আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোক সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। অন্যদিকে শোক বার্তায় মেয়র আনোয়ার আলী বলেন, কুষ্টিয়ার খ্যাতিনামা সাঁতারু বীর মুক্তিযোদ্ধা  কানাই লাল শর্মা গত ১৮ ই আগস্ট আনুমানিক রাত ১২ ঘটিকায় বার্ধক্য জনিত কারনে মৃত্যরবণ করেন। মেয়র তার মৃত্যুতে গভীর দুঃখ প্রকাশ করেছেন। মেয়র প্রেরিত শোক বার্তায় বলেন, ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধ চলাকলীন সময়ে সাঁতারু কানাই লাল শর্মা  ভারতে সাঁতার প্রদর্শন করে টাকা উপার্জন করেন আর সেই অর্থ মহান মুক্তিযোদ্ধাদের মাঝে ব্যায় করেছিলেন। তাঁর এই ঋন কখনই শোধ হবার নয়। মেয়র মৃত কানাই লাল শর্মার আতœার শান্তি কামনা করেন ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

রাজনীতিতে বিশাল শূন্যতা বিরাজ করছে – জিএম কাদের

ঢাকা অফিস ॥ জাতীয় পার্টির (জাপা) চেয়ারম্যান জিএম কাদের বলেছেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে এখন বিশাল শূন্যতা বিরাজ করছে। জনসাধারণের দাবি ও ভাষা বোঝে এমন একটি রাজনৈতিক শক্তি খুঁজছে সাধারণ মানুষ। ঐক্যবদ্ধ জাপা আরও শক্তিশালী হয়ে সাধারণ মানুষের প্রত্যাশা পূরণের রাজনীতি করবে। জাপা কার্যকর বিরোধী দল হিসেবে রাজনীতির মাঠে আছে। আমরা সরকারের চোখে আঙুল দিয়ে তাদের ভুল-ত্রুটি ধরিয়ে দেবো। আমরা দেশ ও জনগণের পক্ষে ইতিবাচক রাজনীতি করবো। গতকাল সোমবার রাজধানীর বনানীতে দলীয় কার্যালয়ে যোগদান অনুষ্ঠানে তিনি একথা বলেন। জিএম কাদের বলেন, বাংলাদেশের রাজনীতিতে সরকারকে বাধ্য করা যায় না। যারা কথায়-কথায় সরকারকে পদত্যাগে বাধ্য করতে চায়, সেটা বাংলাদেশের রাজনীতিতে একেবারেই অসম্ভব। তাই প্রতিটি দলেরই উচিত নির্বাচিত প্রত্যেক সরকারকে রাষ্ট্র পরিচালনার জন্য পাঁচ বছর সময় দেওয়া এবং পরবর্তী নির্বাচনের জন্য নিজ দলকে সংগঠিত করা। তিনি বলেন, বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিল তখন আওয়ামী লীগ তাদের দাবি আদায়ে সরকারকে বাধ্য করতে পারেনি। আবার আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় থাকাকালে প্রধান বিরোধী দল হিসেবে বিএনপিও সরকারকে বাধ্য করতে পারেনি। কুমিল্লা সদর দক্ষিণ উপজেলা বিএনপির সহ-সভাপতি আবদুস সাত্তার পোদ্দার ও যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেনের জাপায় যোগদান অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- জাপার প্রেসিডিয়াম সদস্য সদস্য সুনীল শুভ রায়, অ্যাডভোকেট রেজাউল ইসলাম ভূইয়া ও নাজমা আখতার এমপি, ভাইস চেয়ারম্যান জহিরুল আলম রুবেল ও আহসান আদেলুর রহমান এমপি এবং যুগ্ম মহাসচিব গোলাম মোহাম্মদ রাজু প্রমুখ।

 

বঙ্গবন্ধু হত্যায় জিয়া নন, আ’লীগ নেতারা জড়িত – ফখরুল

ঢাকা অফিস ॥ বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও তার পরিবারের সদস্যদের হত্যাকান্ডে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমান জড়িত নন, আওয়ামী লীগের নেতারাই জড়িত বলে মন্তব্য করেছেন দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গতকাল সোমবার দুপুরে জাতীয়তাবাদী স্বেচ্ছাসেবক দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে রাজধানীর চন্দ্রিমা উদ্যানে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের কবর জিয়ারত ও ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পর তিনি এসব কথা বলেন। বঙ্গবন্ধু হত্যাকান্ডে জিয়াউর রহমান জড়িত- আওয়ামী লীগের নেতাদের এমন অভিযোগ সম্পর্কে সাংবাদিকরা জানতে চাইলে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘দীর্ঘকাল ধরেই এই ইতিহাস তারা বিকৃত করার চেষ্টা করছেন। এটা ধ্র“ব তারার মতো সত্য, জিয়াউর রহমান স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছিলেন। তিনি কোনো মতেই কোনো হত্যাকান্ডের সঙ্গে জড়িত ছিলেন না। ইতিহাসই এর প্রমাণ। জড়িত ছিল তাদের (আওয়ামী লীগ) লোকেরা। যারা পরবর্তীতে সরকার গঠন করেছে, পার্লামেন্টে গেছে।’ জিয়াউর রহমানের শাসনকাল নিয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের মন্তব্যের জবাবে বিএনপি মহাসচিব বলেন, শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমানের শাসন যদি অবৈধ হয়ে থাকে, তা হলে আওয়ামী লীগও অবৈধ। কারণ তার সরকারের সময় তার বিধিমালা অনুসরণ করে আওয়ামী লীগ রাজনৈতিক দল হিসেবে নিবন্ধন করেছিল। পরবর্তীকালে সংসদ নির্বাচন, পরবর্তী রাজনীতি কিন্তু তার ওপর দিয়ে চলেছে। আমরা বলতে চাই, বহুদলীয় গণতন্ত্র ফিরিয়ে নিয়ে আসা অবৈধ হতে পারে না, মানুষের কথা বলার স্বাধীনতা ফিরিয়ে দেয়া অবৈধ হতে পারে না, সাংবাদিকদের মুক্ত করে দেয়া ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতা দেয়া অবৈধ হতে পারে না। প্রসঙ্গত, শুক্রবার নীলফামারী জেলার সৈয়দপুর স্টেডিয়ামের কাছে বন্যাকবলিত এলাকায় ত্রাণ বিতরণকালে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘ষোড়শ সংশোধনী বাতিলের রায়ে জিয়াউর রহমানকে ‘অবৈধ ক্ষমতা দখলকারী’ বললেও মির্জা ফখরুলরা এ বিষয়ে নিশ্চুপ রয়েছেন। এজন্য তাদের ধন্যবাদ জানাই।’ ‘বিএনপি চামড়া কিনে ফেলে দিয়েছে’- শিল্পমন্ত্রীর এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘সমস্যা হচ্ছে কী, এরা তো দেশ চালাতে পারছে না। সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। একটি অনির্বাচিত সরকার দেশ চালাতে পারে না। তারা অবৈধ। জনগণের ম্যান্ডেট তাদের প্রতি নেই। পার্লামেন্ট বলুন আর সরকারই বলুন, জনগণের প্রতিনিধি নেই। সুতরাং এই ধরনের অর্বাচীনের মতো কথা বলা ছাড়া তাদের তো আর কোনো কিছু করার নেই। এই সরকারের একনায়কত্ব জনগণ মেনে নেবে না মন্তব্য করে মির্জা ফখরুল বলেন, রাজনীতি দূর করে দিয়ে তারা এখানে প্রভুত্ব কায়েম করতে চায়। যেটা সম্ভব হবে না, এই দেশের মানুষ কখনোই মেনে নেবে না। এদেশের মানুষ অবশ্যই আন্দোলনের মধ্য দিয়ে দেশনেত্রীকে মুক্ত করবে। ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্করের ঢাকা সফর সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘আমরা খুব বেশিকিছু প্রত্যাশা করছি না। কারণ আমরা গত ১০-১২ বছর ধরে শুনছি আওয়ামী লীগের সাথে ভারত সরকারের সম্পর্ক সুউচ্চ পর্যায়ে আছে। তো, এখন পর্যন্ত তিস্তা নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা আমরা পাইনি। সীমান্তে হত্যা বন্ধ হয়নি। বাণিজ্য ঘটতি পূরণ করার জন্য কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি। আমাদের কোনো সমস্যার সমাধান হয়নি। যেটা হয়েছে, ভারতের সমস্যার সমাধান। সেজন্য আমরা খুব বেশি আশাবাদী হতে পারছি না।’ এ সময় জিয়ার মাজারে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস, সিনিয়র যুগ্ন মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ, যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন নবী খান সোহেল, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আবদুল কাদের ভুইয়া জুয়েল প্রমুখ।

খোকসায় ইউএনও মাফফারা তাসনীনের বিদায় ও নবাগত ইউএনও সাঈদ মোমেনের বরণ

খোকসা প্রতিনিধি ॥ কুষ্টিয়ার খোকস্ায় উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাফফারা তাসনীনের বিদায় ও নবাগত উপজেলা নির্বাহী অফিসার  মোহাম্মদ সাঈদ মোমেন মজুমদারের বরণ করা হয়েছে। গতকাল সোমবার বিকেলে উপজেলা পরিষদের আয়োজনে উপজেলা পরিষদ হলরুমে অনুষ্ঠিত বিদায় অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান আলহাজ্ব সদর উদ্দিন খান। বিশেষ অতিথি ছিলেন নবাগত উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ সাঈদ মোমেন মজুমদার, বিদায়ী উপজেলা নির্বাহী অফিসার মাফফারা তাসনীন, খোকসা পৌর মেয়র প্রভাষক তারিকুল ইসলাম তারিক, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সেলিম রেজা। এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা গোপেস চন্দ্র সরকার, উপজেলা কৃষি অফিসার সবুজ কুমার সাহা, উপজেলা মৎস্য অফিসার রাসেদ হাসান, যুবউন্নয়ন অফিসার বদিউজ্জামান, উপজেলা সমবায় অফিসার সাঈদ হাসান, ইউপি চেয়ারম্যান হবিবুর রহমান হবি, ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুর রাজ্জাক, ইউপি চেয়ারম্যান আনিছুর রহমান বাবলু, ইউপি চেয়ারম্যান বদর উদ্দিন খান, উপজেলা শিল্পকলা সাধারণ সম্পাদক আরিফুল আলম তশর, খোকসা প্রেসক্লাবের সাধারন সম্পাদক শেখ সাইদুল ইসলাম প্রবীন প্রমুখ। এ ছাড়াও  উপজেলা বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা, উপজেলা বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধান, ইউপি চেয়ারম্যান, সুধী, সাংবাদিক উপস্থিত ছিলেন।