ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের নিয়ে যৌথসভা  - ওবায়দুল কাদের

শদ্রোহী বক্তব্যের জন্য প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে

ঢাকা অফিস ॥ আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, এনজিও কর্মী প্রিয়া সাহার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্টের কাছে করা অভিযোগ দেশের ভেতরে লুকায়িত সাম্প্রদায়িক গোষ্ঠীকে উৎসাহিত করবে। তার এ ধরনের বক্তব্য দেশদ্রোহীতার শামিল। তিনি বলেন, প্রিয়া সাহা ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে যে অভিযোগ করেছেন তা কিভাবে ভিডিওয়ের মাধ্যমে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে গেল, তা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। সেতুমন্ত্রী কাদের বলেন, প্রিয়া সাহার বক্তব্য সম্পূর্ণ মিথ্যা, বানোয়াট, কাল্পনিক ও উদ্দেশ্য প্রণোদিত। আমরা তার এ ধরনের বক্তব্যে তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানাই। প্রিয়া সাহার বিরুদ্ধে কোন ধরনের ব্যবস্থা নেয়া হবে কি না সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে কাদের বলেন, তার (প্রিয়া সাহা) এ ধরনের দেশদ্রোহী বক্তব্যের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করতেই হবে। তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে। আওয়ামী লীগের বেশ কয়েকজন গুরুত্বপূর্ণ নেতা-নেত্রীর সঙ্গে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে প্রিয়া সাহার ছবি দেখা গেছে তাদের বিষয়ে ব্যবস্থা নেয়া হবে কি-না জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘তার সঙ্গে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক কোন সম্পর্ক নেই। তার কোথাও আওয়ামী লীগের প্রাথমিক সদস্য পদও নেই।’ ওবায়দুল কাদের গতকাল শনিবার দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডির আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার রাজনৈতিক কার্যালয়ে আগস্ট মাসের কর্মসূচী নির্ধারণ করার লক্ষ্যে দলের সম্পাদকমন্ডলীর সঙ্গে সহযোগী সংগঠন ও ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকদের নিয়ে যৌথসভা শেষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন।প্রিয়া সাহা নামের এক এনজিও কর্মী বাংলাদেশ থেকে ৩ কোটি ৭০লাখ হিন্দু, বৌদ্ধ, খ্রিস্টান ধর্মাবলম্বী উধাও হয়ে গেছে বলে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের কাছে অভিযোগ করেন। তার এ অভিযোগ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ে।এ সময় আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন এমপি, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার আব্দুস সবুর, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাত, মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান এমপিসহ সহযোগী সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকরা উপস্থিত ছিলেন।আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘দেশপ্রেমিক কোন ব্যক্তিই প্রিয়া সাহার বক্তব্যের সঙ্গে একমত হবেন না। আমি হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের শীর্ষ নেতাদের সঙ্গে তার (প্রিয়া সাহা) বক্তব্য নিয়ে আলোচনা করেছি। তারাও তার বক্তব্যের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।’তিনি বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে বাংলাদেশে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূতের সঙ্গেও কথা বলেছি। তিনিও বলেছেন, প্রিয়া সাহার বক্তব্য সম্পূর্ণ অসত্য ও কাল্পনিক। বাংলাদেশে সর্বোচ্চ সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিরাজমান। তাই এ নিয়ে আর দ্বিধা-দ্বন্দ্বের আর কোন অবকাশ থাকতে পারে না।’তিনি বলেন, কোন সামাজিক অনুষ্ঠানে বা ভিড়াভিড়ির মধ্যে কারো সঙ্গে তার ছবি থাকলে সেটা ভিন্ন বিষয়। এর সঙ্গে আওয়ামী লীগের কোন সম্পর্ক নেই।উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিদ্রোহী প্রার্থী ও তাদের মদতদাতাদের বিরুদ্ধে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়ার বিষয়ে সেতুমন্ত্রী বলেন, আগামী ২৮ জুলাই থেকে তাদের বিরুদ্ধে কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া শুরু হবে।তিনি বলেন, এখন পর্যন্ত দু’শ অভিযোগ জমা পড়েছে। আজও অভিযোগ জমা পড়েছে। এ অভিযোগগুলো দায়িত্বপ্রাপ্ত বিভাগীয় যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদকদের কাছে দেয়া হয়েছে। তারা এ অভিযোগগুলোর সত্যতা যাচাই করে ২৭ জুলাইয়ের মধ্যে জমা দেবে। তারপর ব্যবস্থা নেয়া হবে।বন্যার ত্রাণ তৎপরতা সম্পর্কে সেতুমন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশনা অনুযায়ী বন্যার ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনার জন্য ছয়টি টিম গঠন করা হয়েছে।তিনি বলেন, আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট জাহাঙ্গীর কবিরের নেতৃত্বে কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, সভাপতিমন্ডলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিমের নেতৃত্বে সিরাজগঞ্জ, বগুড়া, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফের নেতৃত্ব সিলেট, সুনামগঞ্জ ও হবিগঞ্জ, সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেনের নেতৃত্বে চট্টগ্রাম, বান্দরবান, রাঙ্গামাটি ও খাগড়াছড়ি, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপুমনির নেতৃত্বে মুন্সিগঞ্জ ও চাদপুর এবং সভাপতিমন্ডলীর সদস্য ড. আব্দুর রাজ্জাকের নেতৃত্বে মানিকগঞ্জ, টাঙ্গাইল ও জামালপুরে ত্রাণ কার্যক্রম পরিচালনা করা হবে।কাদের বলেন, আজও আওয়ামী লীগের তিনটি প্রতিনিধিদল বন্যায় পানিবন্দি মানুষের মধ্যে ত্রান বিতরণ কার্যক্রম পরিচালনা করছে। টাঙ্গাইলে দলের সাংগঠনিক সম্পাদক একেএম এনামুল হক শামীম, কুড়িগ্রাম ও লালমনিরহাটে এডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক ও সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হকের নেতৃত্বে গাইবান্ধায় ত্রান বিতরণ কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে।তিনি আরো বলেন, সরকারী ত্রাণ বিতরণ কার্যক্রমের সঙ্গে আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপ-কমিটি কাজ করে যাচ্ছে। বন্যা পরবর্তী সময়েও বন্যা দুর্গতদের পুনর্বাসনে দলের কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক কাদের বলেন, শোকের মাস আগস্ট মাসব্যাপী কর্মসূচী গ্রহনের বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়েছে। আওয়ামী লীগের পাশাপাশি সহযোগি সংগঠনের কর্মসূচীর বিষয়েও দিন তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

এর আগে ওবায়দুল কাদেরের সভাপতিত্বে এক যৌথসভা অনুষ্ঠিত হয়।

সেনেগালকে হারিয়ে আফ্রিকা নেশন্স কাপ চ্যাম্পিয়ন আলজেরিয়া

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ সেনেগালকে হারিয়ে দ্বিতীয়বারের মতো আফ্রিকা নেশন্স কাপের শিরোপা জিতেছে আলজেরিয়া। মিশরের রাজধানী কায়রোয় শুক্রবার শিরোপা লড়াইয়ে ১-০ গোলে জিতে আলজেরিয়া। ১৯৯০ সালে প্রথম এর শিরোপা জিতেছিল দেশটি। ম্যাচের শুরুতেই একমাত্র গোলটি পেয়ে যায় আলজেরিয়া। অধিকাংশ সময় বল দখলে রেখেও ম্যাচে ফিরতে পারেনি সেনেগাল। দ্বিতীয় মিনিটে প্রথম আক্রমণেই এগিয়ে যায় আলজেরিয়া। ডি-বক্সের বাইরে থেকে ফরোয়ার্ড বাগদাদ বুনেজার জোরালো শটে বল প্রতিপক্ষের এক জনের পায়ে লেগে উপরে উঠে গিয়ে ক্রসবার ঘেঁষে জালে জড়ায়। একটু এগিয়ে থাকা গোলরক্ষক যেন ভাবতেই পারেননি বল ভিতরে ঢুকতে পারে, কোনো চেষ্টাও তাই করেননি তিনি। ২০০২ সালে প্রথমবার আফ্রিকা নেশন্স কাপের ফাইনালে উঠে ক্যামেরুনের কাছে হেরে স্বপ্ন গুঁড়িয়েছিল সেনেগালের। এবারের পরাজয়ে প্রথম শিরোপা জয়ের অপেক্ষা তাদের আরও বাড়লো। বুধবার তৃতীয় স্থান নির্ধারণী ম্যাচে তিউনিসিয়াকে ১-০ গোলে হারায় নাইজেরিয়া।

মাশরাফির অনুপস্থিতিতে শ্রীলঙ্কা সফরে অধিনায়ক তামিম

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ চোটের জন্য মাশরাফি বিন মুর্তজা ছিটকে যাওয়ায় শ্রীলঙ্কায় তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দেবেন উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান তামিম ইকবাল। আগেই ছুটি চাওয়ায় দলে নেই সহ-অধিনায়ক সাকিব আল হাসান। মাশরাফির সফর শেষ হয়ে যাওয়ায় বিসিবি অধিনায়ক বেছে নেয় ৩০ বছর বয়সী তামিমকে। ২০১৭ সালে মুশফিকুর রহিমের চোটে নিউ জিল্যান্ডে একটি টেস্টে দলকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তামিম। ২০০৭ সালে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে অভিষেক হওয়া বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান দুই দফায় ছিলেন সহ-অধিনায়ক। ঘরোয়া ক্রিকেটে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন দলকে নেতৃত্ব দিয়েছেন। আগামী ২৬, ২৮ ও ৩১ জুলাই শ্রীলঙ্কায় তিনটি ওয়ানডে খেলতে শনিবার দুপুরে দেশ ছাড়বে বাংলাদেশ। ২৩ জুলাই খেলবে একটি প্রস্তুতি ম্যাচ। ওয়ানডের বাংলাদেশ দল: তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), মাহমুদউল্লাহ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মোহাম্মদ মিঠুন, তাসকিন আহমেদ, মুশফিকুর রহিম, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, সাব্বির রহমান, সৌম্য সরকার, ফরহাদ রেজা, মোসাদ্দেক হোসেন, তাইজুল ইসলাম, এনামুল হক।

কৃষিতে কৃত্রিম উপগ্রহের ব্যবহার

কৃষি প্রতিবেদক ॥ খ্রিস্টপূর্ব দশ হাজার বছর আগে মানুষ কাঠি দিয়ে মাটি গর্ত করে কৃষির সূচনা করে। এরপর- খুরপি, হস্তচালিত যন্ত্রপাতি, মানুষ, ঘোড়া, গরু ইত্যাদি দিয়ে ফসল চাষাবাদ করে আসছে। এখন কৃষিতে কৃত্রিম উপগ্রহ বা স্যাটেলাইট ব্যবহৃত হচ্ছে। কৃত্রিম উপগ্রহ কৃষির ধারা পাল্টে দিয়েছে। গড়ে তুলেছে আধুনিক কৃষি ব্যবস্থা। কৃষিপ্রযুক্তি পৌঁছে গেছে উন্নতির চরম শিখরে। তবু আমাদের কৃষি প্রকৃতির ওপর নির্ভরশীল। অনেক দেশেই প্রকৃতিকে বশ মানিয়ে কৃষি উৎপাদন করছে। মানুষ যতই কৃষি উৎপাদনের নিত্য-নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবন করছে ততই প্রাকৃতিক দুর্যোগ যেন সবসময় তাদের উপহাস করছে। তবু মানুষ থেমে থাকেনি। দুর্দম্য প্রতিকূলতার মধ্যেও মানুষ উদ্ভাবন করেছে কৃষিভিত্তিক উপগ্রহ। মহাকাশে স্থাপিত কৃত্রিম উপগ্রহ আর কম্পিউটারের সমন্বয়ে বিজ্ঞানীরা গড়ে তুলেছে একটি অত্যাধুনিক কৃষি আবহাওয়া নেটওয়ার্ক। এর মাধ্যমে কৃষির বর্তমান ও ভবিষ্যৎ অবস্থা জানা যায়। ‘মেটিওস্যাট’ একটি আবহাওয়া উপগ্রহের নাম। এটাকে বলে আফ্রিকার অতন্দ্রপ্রহরী। ১৯৮১ সালে ঊঁৎড়ঢ়ব ঝঢ়ধপব অমবহপু (ঊঝঅ) এটি মহাকাশে উৎক্ষেপণ করে। বিষুবরেখা এবং আফ্রিকা মহাদেশ থেকে ২৩০০ মাইল ওপরে মহাকাশে স্থির বিন্দুতে অবস্থান করে মেটিওস্যাট পৃথিবী প্রদক্ষিণ করে চলছে। মেটিওস্যাট ইতোমধ্যেই আফ্রিকা মহাদেশের কৃষি জরিপ সম্পন্ন করেছে। এটি প্রতি ৩০ মিনিট পর পর আফ্রিকা মহাদেশের কৃষি আবহাওয়ার খবর পাঠায়। পৃথিবীতে অবস্থিত ভূকেন্দ্রে নিয়মিত জমির বিকিরণ, বাষ্পীভবনের হার, ভূমির বন্ধুরতা ইত্যাদি তথ্য নির্ভুলভাবে পাঠাচ্ছে। এই কেন্দ্রে অত্যাধুনিক কম্পিউটারের সাহায্যে তৈরি কম্পিউটারের মাধ্যমে। প্রত্যেক ইউনিটের ফসল কেমন হবে, তার সর্বশেষ খবর সংগ্রহ করে বলেই এর নাম ‘ক্রপকাস্ট’। যুক্তরাষ্ট্রের আইস্যাট ঈৎড়ঢ় ফরধষ ঁঢ় নামে সর্বাধুনিক প্রযুক্তি চালু করেছে। এই নতুন প্রযুক্তি উপগ্রহের মাধ্যমে তথ্য সংগ্রহ করে কম্পিউটার নেটওয়ার্কের মাধ্যমে গ্রাহকদের কৃষি সম্পর্কে সর্বশেষ তথ্য জানিয়ে দেয়। যুক্তরাষ্ট্রের ভেতরে যে কোনো টার্মিনাল ব্যবহার করে ঈৎড়ঢ় ফরধষ ঁঢ় এর সঙ্গে যোগাযোগ করলে তারা জানিয়ে দেয় আবহাওয়ার প্রতিদিনের খবর, শস্যের অবস্থা, মাটির আর্দ্রতা, বৃষ্টিপাত ইত্যাদি। ফলে কৃষকরা বা খামার ব্যবস্থাপক আগাম তথ্য জেনে আগাম ব্যবস্থা নিতে পারে।
জাপানে কৃত্রিম উপগ্রহ প্রেরিত তথ্য কম্পিউটারের বিশ্লেষণ করে ফসলের রোগ, পোকামাকড়ের আক্রমণ ও প্রাকৃতিক দুর্যোগের পূর্বাভাস দেয়। একই ভাবে ফসল কাটার সময়ও আগেই জানিয়ে দেয়। এতে ঘরে বসেই শত শত মাইল দূরে অবস্থিত জমির ফসলের খবর নেয়া যায়।
বাংলাদেশেও কৃষির কিছু কিছু ক্ষেত্রে কৃত্রিম উপগ্রহের ব্যবহার হচ্ছে। ঢাকার আগারগাঁওর স্পেস রিসার্চ অ্যান্ড রিমোট সেনসিং অর্গানাইজেশন স্পারসোতে ব্যবহৃত কৃত্রিম উপগ্রহের ওপর ভিত্তি করে তৈরি করা হয়েছে আবহাওয়া প্রজেকশন। এ ছাড়া স্যাটেলাইটভিত্তিক ভূমি জরিপ কাজে ব্যবহৃত হচ্ছে ল্যান্ডস্যাট নামের একটি কৃত্রিম উপগ্রহ। স্পারসোতে বর্তমানে কৃত্রিম উপগ্রহের মাধ্যমে খরা ও বন্যার ক্ষতির পরিমাপ, বৃষ্টিপাত, টর্নেডো, ঝড়, সাইক্লোন, জলোচ্ছ্বাস, বন্যার পূর্বাভাস, ভূমি জরিপ, ভূমিক্ষয়, মাটির লবণাক্ততা ও জমির পরিমাণ নির্ণয় করা হচ্ছে। বনের শ্রেণি, সমুদ্রের পানির উচ্চতা, পুকুরের সংখ্যা নির্ণয়, বোরো ধান চাষাবাদের এলাকা পরিমাপ, চিংড়ি চাষ এলাকা, ম্যানগ্রোভ বনাঞ্চল, বঙ্গোপসাগরে ক্লোরোফিলপূর্ণ এলাকা পরিমাপ ইত্যাদি করা হয়। এগুলো কৃত্রিম উপগ্রহের ইমেজের মাধ্যমে করা হয়। এ ছাড়া জাপান, কানাডা ও ফ্রান্স থেকে আমাদের দেশের কৃষি ও আবহাওয়া ইমেজ ক্রয় করা হয়। ওই দেশগুলোর কৃত্রিম উপগ্রহ সবসময় আমাদের দেশের ইমেজ (ছবি) নিচ্ছে। বর্তমানে ঢাকায় আছে ‘জিও স্টেশনারি মেট্রোলজিক্যাল স্যাটেলাইট’। এটি দুই ঘণ্টা পর পর ঝড়, সাইক্লোন, মেঘ, বৃষ্টি ইত্যাদি আবহাওয়ার পূর্বাভাস দেয় এবং প্রয়োজনীয় ছবিসহ ছবির সাহায্যে ঝড়ের অবস্থান, ঝড়ের আকার-বেগ, মেঘের ঘনত্ব, দূরত্ব, বায়ুপ্রবাহ, ঝড়ের সম্ভাব্য আঘাতের স্থান সম্পর্কে পূর্বাভাস, মেঘমালার অবস্থান এবং বরফ আচ্ছাদিত স্থানগুলো তিন হাজার মাইলব্যাপী নির্ণয় করা যায়। মহাকাশে স্থাপিত কৃত্রিম উপগ্রহের মাধ্যমে ভূপৃষ্ঠের সুগম ও দুর্গম স্থানের তথ্য এবং উপাত্ত সংগ্রহ সাম্প্রতিককালের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি উন্নয়নের এক বিস্ময়কর অগ্রগতি। বাংলাদেশের প্রাকৃতিক সম্পদ অনুসন্ধান করা সম্ভব কৃত্রিম উপগ্রহের মাধ্যমে। যেসব দুর্গম স্থানে মানুষের পদচারণা সম্ভব নয়, সেখানকার তথ্য সংগ্রহে কৃত্রিম উপগ্রহ বিশেষ ভূমিকা রাখছে।

কলম্বো পৌঁছেছে বাংলাদেশ দল

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ আগামী ২৬ জুলাই থেকে শুরু হতে যাওয়া তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ খেলতে শ্রীলঙ্কায় পৌঁছেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। গতকাল শনিবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ছয়টার দিকে তামিম ইকবালের নেতৃত্বে ১৪ সদস্যের দলটি কলম্বোতে পৌঁছায়। এর আগে, শনিবার বাংলাদেশ সময় দুপুর একটার দিকে শ্রীলঙ্কার উদ্দেশে ঢাকা ছাড়ে টাইগাররা। কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে শ্রীলঙ্কা ও বাংলাদেশের তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজের সব কয়টি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হবে যথাক্রমে ২৬, ২৮ এবং ৩১ জুলাই। বাংলাদেশ দল: তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), সৌম্য সরকার, এনামুল হক বিজয়, মুশফিকুর রহিম, মাহমুদউল্লাহ, মোসাদ্দেক হোসেন, সাব্বির রহমান, মোহাম্মদ মিঠুন, মুস্তাফিজুর রহমান, রুবেল হোসেন, মেহেদী হাসান মিরাজ, তাইজুল ইসলাম, ফরহাদ রেজা, তাসকিন আহমেদ। শ্রীলঙ্কা দল: দিমুথ করুনারতেœ (অধিনায়ক), কুশাল পেরেরা, আবিস্কা ফার্নান্দো, কুসল মেন্ডিজ, অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুস, লাহিরু থিরিমান্নে, শেহান জয়সুরিয়া, ধনঞ্জয়া ডি সিলভা, নিরোশান দিকবেলা, দাসুন সানাকা, বান্দিু হাসারাঙ্গা, আকিলা ধনঞ্জয়া, আমিলা আপনসো, লক্ষণ সান্দাকান, লাসিথ মালিঙ্গা, নুয়ান প্রদীপ, কাসুন নাজিথা, লাহিরু কুমারা, থিসারা পেরেরা, ইসুরু উদানা, লাহিরু মুদাশাংকা।

 

পাকিস্তান ক্রিকেটের প্রতি ওয়াসিম আকরামের পরামর্শ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ গত রোববার লর্ডসে ফাইনাল ম্যাচের মধ্যদিয়ে শেষ ২০১৯ ক্রিকেট বিশ্বকাপ। টুর্নামেন্টে আশানুরূপ পল করতে পারেনি পাকিস্তান ক্রিকেট দল। এরপরই নিজ দলের প্রতি কিছু পরামর্শ দিয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ও লিজেন্ডারি ফাস্ট বোলার ওয়াসিম আকরাম। তার মতে বিশ্ব ক্রিকেটে শক্তভাবে দাঁড়াতে চাইলে পাকিস্তান দলকে তাদের ফিল্ডিংয়ের মান উন্নত করতে হবে। স্থানীয় গণমাধ্যমকে আকরাম বলেন, ‘এবারের বিশ্বকাপে আমরা দেখেছি ভারতসহ ব্যাটিং এবং বোলিং দক্ষতা ছাড়াও ফিল্ডিংয়ে শক্তিশালী দলগুলো সেমিফাইনালে উঠেছে। যদিও সেমিতে ভারত পরাজিত হয়েছে।’ তিনি বলেন, ‘একটা দল কিভাবে তাদের ফিল্ডিংয়ের উন্নতি ঘটাকে? প্রথমমত একজনকে বিশেষ করে ৫০ ওভার ফর্মেটে শারিরীকভাবে ফিট হতে হবে। পাকিস্তান দলকে শারীরিকভাবে ফিট হওয়া শিখতে হবে এবং অন্য সকল দলের ন্যায় তাদের উঁচুমানের ফিল্ডিং অব্যাহত রাখতে হবে।’ তিনি আরো বলেন, ‘ভারত, বাংলাদেশ যদি তাদের ফিল্ডিংয়ের মানোন্নয়ন ঘটাতে পারে তবে আমরাও পারব।’ পাকিস্তান দলের ফিল্ডিংয়ের মান কখনোই খুব ভাল ছিলনা এবং নিয়মিতভাবে ক্যাচ ফেলে দেয়া অব্যাহত থাকায় এবারের টুর্নামেন্টেও তার প্রমান মিলেছে। তবে দক্ষিণ আফ্রিকা, আফগানিস্তান, নিউজিল্যান্ড ও বাংলাদেশের বিপক্ষে টানা চারটিসহ লীগ পর্বে নয় ম্যাচের মধ্যে পাঁচটি জিতে জয়ের ধারায়ই টুর্নামেন্ট শেষ করতে পেরেছে পাকিস্তান।