কুষ্টিয়ায় ভাতিজার ছুরিকাঘাতে চাচা চায়ের দোকানী নিহত

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ার পোড়াদহে ভাতিজার ছুরিকাঘাতে চাচা চায়ের দোকানী ভাষা শেখ (৫০) নিহত হয়েছে। শুক্রবার রাত ৯ টার দিকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। নিহত ভাষা কুষ্টিয়া মিরপুর উপজেলার পোড়াদহ উত্তর পাড়ার আব্দুল গণির ছেলে। স্থানীয় সূত্রে জানাগেছে, পোড়াদহ উত্তরপাড়া চকপাড়া মোড়ে চায়ের দোকানে নিজ প্রতিষ্ঠানে ছিল ভাষা। সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টার দিকে পোড়াদহ উত্তর কাতদহ নিচপাড়া এলাকার হায়দার আলীর ছেলে বাদশা আসে ওই দোকানে। ভাষার সম্পর্কে ভাতিজা হয় বাদশা। পারিবারিক কলহের জের ধরে বাকবিতন্ডার সৃষ্টি হয় ভাষা ও বাদশার সাথে। এক পর্যায়ে বাদশা ক্ষিপ্ত হয়ে ভাষাকে ছুড়িকাঘাত করে। ভাষা গুরুতর আহত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়ে। স্থানীয়রা ঘটনাস্থল থেকে খাষাকে উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে। রাত ৯ টার দিকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ভাষার মৃত্যু হয়। মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, বাদশার স্ত্রীর সাথে ভাষার পরকীয়ার সম্পর্ক ছিলো। এরই জের ঘরে এ ঘটনা ঘটে।

মিরপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই জন নিহত

আমলা অফিস ॥ কুষ্টিয়ার মিরপুরে ট্রাকের ধাক্কায় পাখিভ্যানের চালকসহ দুইজন নিহত হয়েছেন। গতকাল শুক্রবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে উপজেলার কুষ্টিয়া-মেহেরপুর সড়কের ভাঙা বটতলা নামক স্থানে এ ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- মিরপুর উপজেলার নওয়াপাড়া গ্রামের দুল্লা মল্লিকের ছেলে কারিবুল ইসলাম (৪৫) ও একই উপজেলার খন্দকবাড়িয়া গ্রামের লাল মোহাম্মদের ছেলে মুন্নাফ (৫০)। স্থানীয়রা জানায়, আলমডাঙ্গা থেকে মাছ শিকার করে নিজস্ব ভ্যানযোগে মিরপুর ফিরছিলেন দুই বন্ধু কারিবুল ও মুন্নাফ। কুষ্টিয়া-মেহেরপুর সড়কের ভাঙা বটতলা নামকস্থানে পৌছালে বিপরীত  থেকে দ্রুত ছুটে আসা একটি মাল বোঝায় ট্রাক নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ভ্যানটিকে ধাক্কা দেয়। এতে ভ্যানচালক মুন্নাফ ও কারিবুল রাস্তায় ছিটকে পড়ে। এ সময় ট্রাকের চাপায় পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই দুই জনের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় চালক ও  হেলপার ট্রাকটি ঘটনাস্থলে ফেলে পালিয়ে যায়। মিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল কালাম জানান, ঘটনাস্থল থেকে ঘাতক ট্রাকটি জব্দ করা হয়েছে। তবে চালক ও হেলপার পলাতক রয়েছে। এ ঘটনায় মিরপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক কামারুল আরেফিন, নব নির্বাচিত ভাইস-চেয়ারম্যান আবুল কাশেম জোয়ার্দ্দার, জেলা পরিষদের সদস্য মহাম্মদ আলী জোয়ার্দ্দার গভীরভাবে শোক প্রকাশ করেছেন।

কাশ্মীরে ভারতের যুদ্ধবিমান বিধ্বস্ত, নিহত ২

ঢাকা অফিস ॥ কাশ্মীরের পুলওয়ামায় ভারতীয় বিমানবাহিনীর একটি বিমান বিধ্বস্তের ঘটনায় এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ দুজন নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আরও দুজন আহত হয়েছেন। আহতদের উদ্ধার করে সামরিক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার ভোররাতে কাশ্মীরের মালঙ্গপোড়া গ্রামে বিমানটি দুর্ঘটনায় পড়ে। বিমানবাহিনী জানায়, নিহতদের মধ্যে একজন স্কোয়াড্রন লিডার রয়েছেন। নিহতরা হলেন, স্কোয়াড্রন লিডার পানডে ও কর্পোরাল কুমার। বিমানবাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয়, সেখানে তারা ঘুরতে গিয়েছিলেন। এতেই বিমানটি দুর্ঘটনায় পড়ে। পুলিশ জানায়, এটি বিমানবাহিনীর ব্যক্তিগত তথ্য। তবে কী কারণে তারা সেখানে ঘুরতে গিয়েছেন সে বিষয়ে জানা যায়নি। একজন সিনিয়র পুলিশ কর্মকর্তা নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, এ ঘটনায় দুজন নিহত ও দুজন আহত হয়েছেন। আহতদের উদ্ধার করা হয়েছে। তবে ওই সময়ে কী কারণে তারা ওখানে ঘুরতে গিয়েছিলেন তা জানা যায়নি। দুর্ঘটনার স্থান থেকে বিমানবাহিনীর ঘাঁটি খুব কাছেই। এদিকে হতাহতের ঘটনায় কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী ওমর আবদুল্লাহ টুইটারে এ ঘটনায় দুঃখ প্রকাশ করেন। নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।

এ ঘটনায় বিমানবাহিনীর পক্ষ থেকে তদন্ত করা হবে বলে জানিয়েছে। সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস।

আ’লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

পরিকল্পিত কাজ করে জনগণের আস্থা এবং বিশ্বাস অর্জন করেছি

ঢাকা অফিস ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, দেশে শান্তি ফিরিয়েছি। উন্নয়নের জোয়ার লেগেছে। পরিকল্পিত কাজ করে জনগণের আস্থা এবং বিশ্বাস অর্জন করেছি। সেই আস্থা আর বিশ্বাস থেকেই আওয়ামী লীগ এবারও সরকার গঠন করেছে। তিনি বলেছেন, জনগণ উন্নয়ন চায়। শান্তি চায়। সুন্দরভাবে বাঁচতে চায়। আমরা দেশে এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি করতে সক্ষম হয়েছি। তাতে আওয়ামী লীগ জনগণের আস্থা আর বিশ্বাস অর্জন করেছে। এজন্যই আওয়ামী লীগের নিরঙ্কুশ জয়। গতকাল শুক্রবার বিকেলে গণভবনে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ কথা বলেন। তিনি বলেন, আমরা ক্ষমতায় আসার আগে দেশে ছিল অর্থনৈতিক মন্দা। দুর্ভিক্ষের মতো পরিস্থিতি সৃষ্টি করেছিল বিএনপি। এদের অপকর্মে দেশেটি নিরাপত্তা ঝুঁকিতে পড়েছিল। শান্তিতে চলাফেরা করতে পারতো না মানুষ। চুরি-ডাকাতি বা সন্ত্রাসবাদ এমনকি মাদকের বিস্তার ছিল দেশে। আয়ের তুলনায় ব্যয় ছিল বেশি মানুষের। যে কারণে দেশের মানুষ তাদের ক্ষমতাচ্যূত করেছে। তাদের হাতে ক্ষমতা দেওয়া হলে, দেশ লুট করে খাবে- এটা বুঝতে পেরেছে জনগণ। প্রধানমন্ত্রী বলেন, আজ আমাদের পরিচালনায় দেশে শান্তি ফেরেছে। মানুষ নিশ্চিন্তে চলাফেরা করতে পারেন। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে দ্রুতগতিতে। ক্রমবর্ধমান উন্নয়নশীল দেশের শীর্ষ পাঁচে থেকে আমরা কথা বলছি। আমাদের মাথাপিছু আয় বেড়েছে এখন। প্রবৃদ্ধিতে অনেক দেশ ছাড়িয়ে গেছি। আগামীতে ৮ এর বেশি প্রবৃদ্ধি হবে আমাদের। সেভাবেই আমরা পরিচালনা করছি। আওয়ামী লীগ প্রধান বলেন, বিএনপির আমলে আমাদের নেতাকর্মীদের হত্যা করা হয়েছে। নির্যাতনে বাড়িঘরে থাকতে পারেননি নেতাকর্মীরা। এমনকি বাড়িঘর পুড়িয়ে দেওয়া হয়েছিল। আমাদের নগদ টাকাসহ অনেক সম্পদ লুট করে নিয়ে গিয়েছিল বিএনপি। মিথ্যায় মামলায় আমাদের জর্জরিত করতে চেয়েছিল। আমাদের দলীয় কার্যক্রমের কোনো সুযোগই ছিল না। কিন্তু আমরা বিএনপির নামে কোনো মিথ্যা মামলা দিচ্ছি না। খালেদা জিয়ার মামলা আমরা করিনি। এতিমের টাকা খেয়ে পার পেয়ে যেতে পারেননি, তাদেরই লোকের দেওয়া মামলায় তিনি জেলে। তিনি বলেন, বিএনপি নির্বাচন করতে আসেনি। তারা বাণিজ্যক্ষেত্র বানিয়েছিল। টাকা খেয়ে প্রার্থী মনোনয়ন দিয়েছে। এছাড়া নির্বাচনে প্রচার-প্রচারণায় আগ্রহ ছিল না তাদের। নির্বাচন উপলক্ষে বাণ্যিজ্য করাই মূল উদ্দেশ্য ছিল বিএনপির। যা জনগণ মেনে নিতে পারেনি। শেখ হাসিনা বলেন, নির্বাচনের আগেই বিভিন্ন জরিপ বলেছিল, আওয়ামী লীগ আবারও ক্ষমতায় আসছে। আমাদেরও বিশ্বাস ছিল জনগণ আমাদের বারবার চায়। সে বিশ্বাস আমরা বাস্তবে দেখেছি। নির্বাচন নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই। ২০০৮-এর নির্বাচনেও কোনো প্রশ্ন ছিল না। এছাড়া জনগণের সেবা করতেই আমরা নির্বাচন করি। বাণ্যিজের কারণেই বিএনপি জিততে পারেনি উল্লেখ করে শেখ হাসিনা আরও বলেন, লন্ডন থেকে ওহি আসে, আর সে হিসেবে বিএনপি নেতারা প্রার্থী মনোনয়ন দিয়েছেন বিপুল টাকার বিনিময়ে। এভাবে ক্ষমতায় আসা যায় না। চোর হওয়া যায়।

আলিয়াকে নিয়ে নতুন গুঞ্জন

বিনোদন বাজার ॥ বলিউডে এখন সবচেয়ে আলোচিত বিষয় রণবীর কাপুর ও আলিয়া ভাটের প্রেম। শোনা যাচ্ছে, শিগগিরই বিয়ের বন্ধনে আবদ্ধ হবেন তারা। এরই মধ্যে শুরু হয়েছে আরো এক নতুন গুঞ্জনের। এই তারকা জুটি নাকি ইতোমধ্যে তাদের বাগদানের কাজটি সেরে ফেলেছেন। মুকেশ আম্বানির ছেলের বিয়েতে সুইজারল্যান্ড গিয়ে ঘনিষ্ঠ কয়েকজনকে নিয়ে নাকি তারা বাগদান সম্পন্ন করেন। এখানেই শেষ নয়, ২০২০ সালের জানুয়ারিতে বিয়ের কাজটিও সেরে ফেলবেন তারা। তারই নিমন্ত্রণপত্র নাকি পৌঁছে গেছে বলিউডের মেগাস্টার অমিতাভ বচ্চন, অয়ন মুখার্জি, করন জোহর, সালমান খান, আমির খানসহ অন্য তারকাদের কাছে। তালিকায় রয়েছেন রণবীর সিং ও দীপিকা পাড়ুকোন দম্পতিও। গত বছরের শেষ দিকে চিকিৎসার জন্য লন্ডনে গিয়েছেন ঋষি কাপুর। তার ইচ্ছে যত জলদি সম্ভব রণবীর বিয়ে করুক। এ কারণেই জলদি বিয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলিউডের এই অভিনেতা। আর এতে সম্মতিও জানিয়েছেন আলিয়া। রণবীর কাপুর ও আলিয়া ভাট এখন ব্যস্ত রয়েছেন অয়ন মুখার্জি পরিচালিত ‘ব্রক্ষ্মাস্ত্র’ ছবির শুটিং নিয়ে। এতে তাদের পাশাপাশি আরো রয়েছেন অমিতাভ বচ্চন।

আগুন নিয়ে খেলছেন কাজল!

বিনোদন বাজার ॥ জনপ্রিয় তামিল অভিনেত্রী কাজল আগরওয়াল আগুন নিয়ে খেলছেন! হ্যাঁ, সত্যিই। মঞ্চে আগুন নিয়ে তার খেলা মুগ্ধ করেছে দর্শককে।

ফায়ার অ্যাক্রোবেট কাজল সেই প্রদর্শনের একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে। মনে হচ্ছে ‘মারসাল’ অভিনেত্রী আগুন নিয়ে খেলায় বেশ দক্ষ!

একটি সিনেমার সেটে ওই স্টান্ট পারফর্ম করে দেখান কাজল আগরওয়াল। কিন্তু এই দক্ষিণী সুন্দরী সিনেমার নাম প্রকাশ করেননি। ভক্তদের অনুমান, এই স্টান্টদৃশ্য তার আসন্ন তামিল সিনেমা ‘কমলি’র, যেখানে প্রধান পুরুষ চরিত্রে আছেন জয়ম রবি।

মাইক্রো-ব্লগিং সাইট টুইটারে ভিডিও ক্লিপটি প্রকাশের সঙ্গে সঙ্গে ভক্তমহলে ঝড় উঠেছে।

‘মারসাল’ সিনেমার পর কাজল আগরওয়ালকে তামিল সিনেমায় আর দেখা যায়নি। তবে এই অভিনেত্রী ব্যস্ত রয়েছেন তেলেগু ছবি নিয়ে। তাঁকে সর্বশেষ ‘কাভাচম’ সিনেমায় দেখা যায়, যেটি বক্স অফিসে ঝড় তুলতে ব্যর্থ হয়েছে। এ ছবিতে তিনি জুটি বেঁধেছিলেন বেল্লামকোন্ডা শ্রীনিবাসনের সঙ্গে।

তামিল সিনেমা ‘প্যারিস প্যারিস’ মুক্তির অপেক্ষা করছেন কাজল আগরওয়াল, যেটি বলি নায়িকা কঙ্গনা রানাউতের ‘কুইন’ ছবির রিমেক। এ ছবি পরিচালনা করছেন রমেশ অরবিন্দ। ‘প্যারিস প্যারিস’ ছাড়াও ‘সীতা’র প্রধান অভিনেত্রী তিনি। এর মাধ্যমে দ্বিতীয়বারের মতো বেল্লামকোন্ডার সঙ্গে জুটি বাঁধলেন কাজল।

‘সীতা’র সংগীত পরিচালনা করেছেন অনুপ রুবেনস। এরই মধ্যে এ ছবির শুটিং শেষ হয়েছে। প্রতিবেদন বলছে, এখন সম্পাদনা পর্যায়ে রয়েছে এ সিনেমা।

সানিয়া-শোয়েবের ছেলেকে সারাজীবন রেখে দিতে চান পরিনীতি

বিনোদন বাজার ॥ টেনিস তারকা সানিয়া মির্জা ও পাকিস্তানি ক্রিকেটার শোয়েব মালিকের ছেলে ইজানকে সারাজীবনের জন্য নিজের কাছে রেখে দিতে চান বলিউড অভিনেত্রী পরিনীতি চোপড়া।

সম্প্রতি ইজানকে নিয়ে টুইটারে একটি ছবি পোস্ট করেছেন সানিয়া মির্জার প্রিয় বান্ধবী পরিনীতি চোপড়া।

তিনি ওই ছবির ক্যাপশনে লেখেন, আমি খালা হয়ে গিয়েছি। এতোটাই মিষ্টি ইজান। সানিয়া মির্জা আমি কি এই শিশুকে নিজের কাছে সারাজীবনের জন্য রেখে দিতে পারি…।

ওই পোস্টের জবাবে সানিয়া লিখেছেন, আমাদেরও সেই এক কথাই মনে হচ্ছে।

পাঁচ মাস বয়সেই স্যোশাল মিডিয়ায় বেশ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে ইজান। সম্প্রতি ইজানকে দেখতে গিয়েছিলেন সানিয়ার বান্ধবী পরিনীতি চোপড়া।

করণের সিনেমা দিয়ে বলিউডে শাহরুখপুত্রের অভিষেক

বিনোদন বাজার ॥ বেশ কয়েক বছর ধরে গুঞ্জন চলছিল, বলিউডে আসতে চলেছেন শাহরুখ খানের ছেলে আরিয়ান খান। বাবার ইচ্ছা অনুযায়ী আরিয়ান ইতিমধ্যে গ্র্যাজুয়েশন শেষ করে ফেলেছেন।

বিটাউনের বিভিন্ন গণমাধ্যমের দাবি, আরিয়ানের বলিউডে অভিষেক শুধু সময়ের অপেক্ষা মাত্র। তবে আরিয়ানকে অভিনেতা হিসেবে দেখা যাবে না, তিনি কাজ করবেন সহকারী পরিচালক হিসেবে।

চলতি বছরের অন্যতম কাক্সিক্ষত চলচ্চিত্র ‘তখত’ ছবিতে পরিচালক ও প্রযোজক করণ জোহরের সহপরিচালক হিসেবে কাজ শুরু করবেন তিনি।

এর আগে শাহরুখ খান বলেছিলেন, আরিয়ান এখন চলচ্চিত্র নির্মাণ বিষয়ে লেখাপড়া করছে এবং হিন্দি ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতে যোগ দিতে তীব্র ইচ্ছে তার।

শাহরুখ বলেন, চিত্রনির্মাতা ও লেখক হওয়ার জন্য আরিয়ান পড়াশোনা করছে। তবে অভিনেতা হতে চায় সুহানা। চিত্রনির্মাতা হতে চাইলে ওকে আরো পাঁচ-ছয় বছর লেখাপড়া চালিয়ে যেতে হবে। শুধু লেখাপড়াই নয়, ফিল্ম-মেকিং কোর্স শেষে করণের সহকারীও সম্ভবত হবে।

লন্ডনে চিত্রনাট্য লেখা ও সিনেমা নির্মাণ নিয়েই পড়াশোনা করেছেন শাহরুখপুত্র।

আমেরিকায় বাংলাদেশের ‘যদি একদিন’

বিনোদন বাজার ॥ এবার সুদূর আমেরিকায় মুক্তি পেল ঢাকাই সিনেমা ‘যদি একদিন’। গতকাল ৫ এপ্রিল দেশটিতে ছবিটির মাসব্যাপী প্রদর্শনী শুরু হয়েছে।নিউইয়র্কে জ্যামাইকা মাল্টিপ্লেক্স সিনেমাসে স্থানীয় সময় সন্ধ্যা সাড়ে ৫টায় প্রথম শো অনুষ্ঠিত হয় বলে জানা গেছে।এরপর বোস্টন, লস এঞ্জেলেস, সান ফ্রান্সিস্কো, ভার্জিনিয়া ফায়ারফ্যাক্স, বাল্টিমোর মেরিল্যান্ড, ওয়েস্ট পাল্ম বিচের সিনেমা হলগুলোতে প্রদর্শিত হবে বাংলাদেশের এই সিনেমাটি।‘যদি একদিন’ সিনেমায় অভিনয় করেছেন বাংলাদেশের জনপ্রিয় গায়ক ও অভিনেতা তাহসান খান এবং কলকাতার জনপ্রিয় নায়িকা শ্রাবন্তী।

এরই মধ্যে ব্যাপক সাড়া জাগিয়েছে তাহসান-শ্রাবন্তী জুটির ছবিটি। বিশেষ করে শিশুশিল্পী রাইসা এই ছবিতে অভিনয় করে বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছে।

ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন তাসকিন রহমান, সাবেরী আলম, রানী আহাদ, আনন্দ খালেদ, সুজাত শিমুল, ফখরুল বাশার মাসুম, মিলি বাশার, নাজিবা বাশার প্রমুখ।

উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ দেশের সব প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পায় পরিচালক মুহাম্মাদ মোস্তফা কামাল রাজের ‘যদি একদিন’ সিনেমাটি। এ ছাড়া দেশের বাইরে কানাডা এবং অস্ট্রেলিয়ায়ও মুক্তি পেয়েছে সিনেমাটি।

দেশে ভেষজ উদ্ভিদের উপর সহায়ক প্রাকৃতিক পরিবেশ বিদ্যমান

কৃষি প্রতিবেদক ॥ চিকিৎসার জন্য ভেষজ উদ্ভিদের উপর নির্ভরশীলতা চিরায়ত। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার মতে, পৃথিবীর প্রায় ৭০ ভাগ লোক রোগের নিরাময়ক হিসেবে ভেষজ উদ্ভিদ ব্যবহার করছে। ইউনানী, আয়ুর্বেদীয়, এলোপ্যাথিক, হোমিওপ্যাথিক, কবিরাজিসহ বিভিন্ন ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান ভেষজ উদ্ভিদ দিয়ে ওষুধ তৈরি করে থাকে। বিশ্বব্যাপী ভেষজ ওষুধের বাজার দ্রুতগতিতে প্রসার লাভ করেছে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার হিসাব মতে, ২০৫০ সালে আন্তর্জাতিক বাজারে ভেষজের বাণিজ্য হবে পাঁচ ট্রিলিয়ন ডলারের। বাংলাদেশও এই বাণিজ্যের অংশীদার। প্রায় শতকোটি টাকার ঔষধি কাঁচামালের স্থানীয় বাজার সৃষ্টি হয়েছে। ভবিষ্যতে এ বাজার বিস্তৃত হওয়ার সম্ভাবনাও উঁকি দিচ্ছে।
চাহিদা বাড়ছে দেশে ঃ ভেষজ উৎপাদনে চমৎকার সহায়ক প্রাকৃতিক পরিবেশ বাংলাদেশে বিদ্যমান। দেশে প্রায় ৬০০ প্রজাতির ভেষজ উদ্ভিদ থাকলেও ওষুধ শিল্পে বর্তমানে ১০০ ধরনের উদ্ভিদ থেকে দেড় শতাধিক ওষুধ উৎপাদন ও বাজারজাত করা হয়। ইউনানী, আয়ুর্বেদ ও হোমিওপ্যাথি ওষুধ উৎপাদনে কাঁচামাল হিসেবে ব্যবহারের পাশাপাশি বিউটি পার্লারেও প্রসাধন শিল্পে এখন প্রচুর পরিমাণে ভেষজ উপাদান ব্যবহার হচ্ছে। ফলে ভেষজ উদ্ভিদের চাহিদা বেড়েছে। তাই দেশের বিভিন্ন এলাকায় বেসরকারী উদ্যোগে ভেষজ উদ্ভিদের চাষাবাদ ও উৎপাদন শুরু হয়েছে।
ভেষজের আন্তর্জাতিক বাজার ঃ যুক্তরাষ্ট্র, অস্ট্রেলিয়া, কানাডা, জাপান, মালয়েশিয়া, সৌদিআরব, কুয়েত, কাতার, পাকিস্তান, কোরিয়া ভেষজ উদ্ভিদের প্রধান আমদানিকারক দেশ । বিশ্ব খাদ্য সংস্থার মতে, বর্তমানে বিশ্বে শুধু ঔষধি উদ্ভিদের বাজার রয়েছে ৬২ বিলিয়ন ডলারের। এই বিশাল বাজারের অধিকাংশই ভারত ও চীনের দখলে। অন্যদিকে ওষুধ ও প্রসাধনসামগ্রী তৈরির কাঁচামাল হিসেবে বাংলাদেশে প্রতিবছর প্রায় ৪০০ কোটি টাকার ভেষজসামগ্রী আমদানি করে থাকে। অথচ দেশের ওষুধ শিল্পে বর্তমানে যে পরিমাণ ভেষজ উদ্ভিদ ব্যবহৃত হয়, তার ৭০ ভাগই স্থানীয়ভাবে উৎপাদন করা সম্ভব। কেবল প্রয়োজন সরকারী পৃষ্ঠপোষকতা ও ব্যক্তিগত উদ্যোগ।
ঔষধিগ্রাম ঃ নাটোরের ‘খোলাবাড়িয়া’ একটি গ্রামের নাম। গ্রামের বৃক্ষপ্রেমিক আফাজ পাগলা বাড়ির পাশে ৫টি ঘৃতকুমারীর গাছ রোপণ করেছিলেন বছর ত্রিশেক আগে। সেই ঘৃতকুমারীরর গাছই বদলে দিয়েছে গ্রামটির নাম। খোলাবাড়িয়া এখন ঔষধি গ্রাম নামেই পরিচিত। গ্রামের প্রায় ষোলশ পরিবারের জীবিকা ঔষধি গাছের ওপর নির্ভর করছে। গ্রামে মোট ২৫ হেক্টর জমিতে ঔষধি গাছের চাষাবাদ করা হচ্ছে। রাস্তার মোড়ে মোড়ে ভেষজ উদ্ভিদ বিক্রির দোকান। বাণিজ্যিক সুবিধার জন্য সেখানে গড়ে উঠেছে ‘ভেষজ বহুমুখী সমবায় সমিতি’। এর মাধ্যমে ক্রেতা-বিক্রেতা আর উৎপাদনকারীর সমন্বয়ে জমে উঠেছে ভেষজ বিপ্লব। আফাজ পাগলের ১৭ কাঠার চাষী জমিতে ৪৫০ প্রজাতির ভেষজ নার্সারি গড়ে তোলা হয়েছে। গ্রামে এ রকম আরও ৮টি নার্সারি আছে। বাসক, সাদা তুলসী, উলটকম্বল, চিরতা, নিম, কৃষ্ণতুলসী, রামতুলসী, ক্যাকটাস, সর্পগন্ধা, মিশ্রিদানা, হরীতকী, লজ্জাবতীসহ হরেক রকমের ঔষধি গাছ এসব নার্সারিতে পাওয়া যায়। ঔষধি গ্রামের এই ভেষজ চাষাবাদ এখন ছড়িয়ে পড়েছে প্রতিবেশী গ্রামগুলোতেও। এ যেন এক ভেষজ বিপ্লব কাহিনী। আফাজ পাগলার দেখানো পথেই ঘটেছে এই ভেষজ বিপ্লব।
গারো পাহাড়ের ২৪ গ্রাম ঃ ‘ঔষধি গ্রাম’ হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে শেরপুরের সীমান্তবর্তী গারো পাহাড়ের ২৪ গ্রাম। এসব গ্রামের আদিবাসীরা ঔষধি গাছের নার্সারি করে ভাগ্যের পরিবর্তনে দিনরাত খেটে যাচ্ছেন। ‘সোসাইটি ফর বায়োডাইভারসিটি কনজারভেশন’ (এসবিসি) নামের সংগঠনটি ২০০৮ সাল থেকে ঝিনাইগাতী উপজেলার পাহাড়ী গ্রামসহ সীমান্তবর্তী ৪ ইউনিয়ন কাংশা, নলকুড়া, ধানশাইল ও গৌরীপুরের ২৪ গ্রামে ৩৭টি কৃষকমৈত্রী সংগঠনের মাধ্যমে ঔষধি গাছ রোপণ ও পরিচর্যার প্রশিক্ষণ দিয়ে আসছে। ভেষজ উদ্ভিদের চাষকে যদি আরো জনপ্রিয় করে তোলা যায় এবং সরকারী ও বেসরকারী উদ্যোগে ভেষজ উদ্ভিদ চাষের বিস্তার ঘটানো যায়, তবে কেবল আমদানী ব্যয় হ্রাসই নয়, বিদেশেও রপ্তানী করে প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করা সম্ভব হবে।

প্যারিসে হাসপাতালে পেলে

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ মূত্রঘটিত সংক্রমণের কারণে ব্রাজিলের ফুটবল কিংবদন্তি পেলেকে প্যারিসের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বুধবার পেলের মুখপাত্র এ কথা জানান। পিএসজির তারকা ফরোয়ার্ড কিলিয়ান এমবাপের সঙ্গে এক অনুষ্ঠানে যোগ দিতে প্যারিসে আসেন তিনি। দুই দিনের মধ্যেই ৭৮ বছর বয়সী পেলে হাসপাতাল ছাড়তে পারবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন চিকিৎসকরা। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বেশ কিছু শারীরিক জটিলতায় ভুগছেন পেলে। ২০১৫ সালে স্নায়ুর সমস্যায় সাও পাওলোর আলবার্ট আইনস্টাইন হাসপাতালে তার মেরুদন্ডে অস্ত্রোপচার করা হয়। কিডনি ও প্রস্টেটের সমস্যা নিয়ে একাধিকবার হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে মস্কোয় রাশিয়া বিশ্বকাপের ড্র অনুষ্ঠানে এসেছিলেন হুইলচেয়ারে বসে। ইতিহাসে একমাত্র ফুটবলার হিসেবে তিনটি বিশ্বকাপ জিতেছেন পেলে। সর্বকালের অন্যতম সেরা ফুটবলার হিসেবে বিবেচিত সাবেক এই ফরোয়ার্ড তার ২১ বছরের ক্যারিয়ারে ১ হাজার ৩৬৩ ম্যাচে ১ হাজার ২৮১টি গোল করেন। এর মধ্যে ব্রাজিলের জাতীয় দলের হয়ে ৯১ ম্যাচে করেন ৭৭ গোল। ১৯৭০ সালে বিশ্বকাপের সেরা খেলোয়াড় হিসেবে ফিফা গোল্ডেন বল পুরস্কার জেতেন তিনি।

মেসিকে আজীবন ধরে রাখতে চায় বার্সা

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ ক্লাবের ইতিহাসে অন্যতম সেরা ফুটবলার লিওনেল মেসিকে আজীবন ধরে রাখতে চান বার্সেলোনার সভাপতি জোজেপ মারিয়া বার্তোমেউ। দ্রুতই পাঁচবারের বর্ষসেরা এই ফুটবলারের সঙ্গে নতুন চুক্তির আলোচনা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। ২০১৭ সালের নভেম্বরে মেসির সঙ্গে করা বার্সেলোনার সর্বশেষ চুক্তি অনুযায়ী ২০২০-২১ মৌসুমের শেষ পর্যন্ত কাতালান ক্লাবটিতে থাকবেন আর্জেন্টিনার এই ফরোয়ার্ড। তখন তার বয়স হবে ৩৪ এর বেশি। চলতি মৌসুমে দারুণ ছন্দে আছেন বার্সেলোনা অধিনায়ক। সব প্রতিযোগিতা মিলে এ পর্যন্ত করেছেন ৪২ গোল। ইএসপিএনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে মেসির সঙ্গে নতুন চুক্তির কথা ভাবছেন বলে জানান বার্তেমেউ। “আমরা তার সত্যি লম্বা একটা ক্যারিয়ার চাই, তাহলে আমরা তাকে উপভোগ করে যেতে পারব। সবাই তাকে সম্মান করে এবং প্রতিপক্ষের মাঠে তাদের সমর্থকরা তার প্রশংসা করে।” “আমরা তার চুক্তি নবায়ন করতে চাই, এটাই পরিকল্পনা। সে এখনও তরুণ। তার পারফরম্যান্সে আপনি সেটা দেখতে পারেন। আর তার চুক্তির এখনও দুই বছর বাকি আছে। সে সবসময় উন্নতি করছে, নতুন কিছু উদ্ভাবন করছে। আমি বিশ্বাস করি যে তার ক্যারিয়ারের অনেকগুলি বছর এখনও বাকি আছে। আর দ্রুতই আমরা তার সঙ্গে বসব, যাতে করে আরও অনেকগুলি বছর সে বার্সেলোনাতে থাকে।” “মেসি তার ক্যারিয়ারে একটা ক্লাবেই খেলেছে। মাঠে সে যা কিছু করেছে এটা এরচেয়েও বড়। বার্সেলোনার সঙ্গে তার সম্পর্ক চিরদিন থাকবে। আমি পেলের উদাহরণ ব্যবহার করি, যে সবসময় সান্তোসে ছিল। আমরা চাই যে মেসি সবসময় বার্সেলোনাতে থাকুক, খেলোয়াড় হিসেবেই হোক বা ক্লাবের সঙ্গে যুক্ত থেকে (অবসরের পর)।” বার্সেলোনার ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি গোল করার রেকর্ডের মালিক মেসি এ পর্যন্ত ৬৭৬ ম্যাচ খেলে করেছেন ৫৯৪ গোল। সম্প্রতি আন্দ্রেস ইনিয়েস্তাকে ছাড়িয়ে ক্লাবের ইতিহাসে সর্বোচ্চ ম্যাচ খেলার তালিকায় দুইয়ে উঠে এসেছেন ৩১ বছর বয়সী এই ফুটবলার। ৭৬৭ ম্যাচ খেলা চাভি এরনান্দেস আছেন শুধু মেসির উপরে।

 

ম্যানইউকে সমীহ করছেন রাকিতিচ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ চ্যাম্পিয়ন্স লিগে পিএসজির বিপক্ষে প্রথম লেগ হারের পর ঘুরে দাঁড়িয়ে শেষ আটে জায়গা করে নেওয়া ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডকে সমীহ করছেন বার্সেলোনার মিডফিল্ডার ইভান রাকিতিচ। আগামী বুধবার বাংলাদেশ সময় রাত একটায় প্রতিযোগিতার শেষ আটের প্রথম লেগে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ইউনাইটেডের মুখোমুখি হবে পাঁচবারের চ্যাম্পিয়ন বার্সেলোনা। ১৬ এপ্রিল কাম্প নউয়ে হবে ফিরতি পর্ব। ঘরের মাঠে ২-০ গোলে হারের পর পিএসজির মাঠে দারুণ নাটকীয়তায় ভরা ফিরতি পর্বে ৩-১ গোলে জিতে কোয়ার্টার-ফাইনালে ওঠে ইউনাইটেড। দুই লেগ মিলে ৩-৩ সমতার পর অ্যাওয়ে গোলে এগিয়ে ছিল উলে গুনার সুলশারের দল। আর শেষ ষোলোয় প্রথম লেগে লিওঁর মাঠে গোলশূন্য ড্রয়ের পর ফিরতি পর্বে ৫-১ গোলে জিতে শেষ আটে জায়গা করে নেয় এরনেস্তো ভালভেরদের বার্সেলোনা। জোসে মরিনিয়োর জায়গায় গত ডিসেম্বরে ইউনাইটেডের দায়িত্ব নেওয়া সুলশারের অধীনে ইংলিশ প্রতিপক্ষরা যথেষ্ট বিপজ্জনক বলে মনে করেন রাকিতিচ। “আমরা দেখেছি তারা কতটা ভালো। আর আমরা জানি যে ইংলিশ ক্লাবগুলি এখন শক্তিশালী।” “ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড দারুণ সব ফল পাচ্ছে। আর পিএসজির মাঠে তিন গোল করাটা অবিশ্বাস্য ছিল। আপনাকে এই প্রত্যাবর্তনের জন্য ম্যানচেস্টারকে সম্মান করতে হবে।” “আপনাকে নিজের সেরা দলটা সম্পর্কে জানতে হবে। আর নতুন ম্যানেজার (সুলশার) তা জানে বলেই মনে হচ্ছে।”

 

তিন সংস্করণে আফগানিস্তানের নতুন তিন অধিনায়ক

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ আসগর আফগানের নেতৃত্বে গত চার বছর যথেষ্টই সাফল্য পেয়েছে আফগানিস্তান। বিশ্বকাপের আগে তবু তাকে সরিয়ে দেওয়া হলো। শুধু এটিই নয়, নেতৃত্ব কাঠামোই আমূল বদলে ফেলেছে দলটি। তিন সংস্করণে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তিন জনকে। আসগর দায়িত্বে ছিলেন তিন সংস্করণেই। তার জায়গায় এখন টেস্ট দলকে নেতৃত্ব দেবেন রহমাত শাহ। ওয়ানডে দলের নতুন অধিনায়ক গুলবদিন নাইব। টি-টোয়েন্টি দলের অধিনায়ক রশিদ খান। আসছে বিশ্বকাপে দলকে নেতৃত্ব দেবেন গুলবদিন। আফগানিস্তানের সফলতম অধিনায়ক আসগর তাই বিশ্বকাপে দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার স্বাদ আর পাচ্ছেন না। ২০১৫ বিশ্বকাপের পর মোহাম্মদ নবিকে সরিয়ে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছিল আসগরকে। তার নেতৃত্বে ৫৬ ওয়ানডের ৩১টি জিতেছে আফগানিস্তান, টি-টোয়েন্টি জিতেছে ৪৬ ম্যাচের ৩৭টিতেই। তার অধিনায়কত্বেই নিজেদের দ্বিতীয় টেস্টে পেয়েছে প্রথম টেস্ট জয়ের স্বাদ। নতুন অধিনায়কদের মধ্যে রশিদ ছাড়া কারও ঘরোয়া ক্রিকেটেও খুব বেশি নেতৃত্বের অভিজ্ঞতা নেই। বিশ্বকাপের আগে আচমকা এই পরিবর্তন বেশ বিস্ময়কর। তবে আফগানিস্তান ক্রিকেট বোর্ডের চেয়ারম্যান আজিজউল্লাহ ফাজলি জানিয়েছেন, বিশ্বকাপ মাথায় রেখেই এই বদল। তিনি বলেন, “বিশ্বকাপ আমাদেরকে সুযোগ করে দিচ্ছে, নয়টি টেস্ট খেলুড়ে দেশের সঙ্গে লড়াই করার। এজন্যই আমরা ভেবেছি, নেতৃত্বে পরিবর্তন আনার এখনই সময়।” টেস্ট দলের সহ-অধিনায়ক করা হয়েছে হাশমতউল¬াহ শহিদিকে, ওয়ানডে দলে রশিদ ও টি- টোয়েন্টি দলে শফিকউল¬াহ শাফাক। বিশ্বকাপের আগে স্কটল্যান্ড ও আয়ারল্যান্ডে ওয়ানডে সিরিজ দিয়ে শুরু করে হবে নতুন নেতৃত্বে আফগানদের পথচলা।