৮ বছর নিষিদ্ধ চীনের অলিম্পিকজয়ী সাঁতারু সুন

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ ২০১৮ সালের সেপ্টেম্বরে ডোপ পরীক্ষা না দেওয়ায় ৮ বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন সুন ইয়াং। চীনের তিনবারের অলিম্পিকজয়ী এই সাঁতারু জানিয়েছেন, আপিল করবেন তিনি। ২৮ বছর বয়সী সুন ডোপিং-বিরোধী কোনো নিয়ম ভাঙেননি বলে গত মাসে জানিয়েছিল আন্তর্জাতিক সুইমিং ফেডারেশন বা ফিনা। পরে আন্তর্জাতিক ক্রীড়া আদালতে আপিল করে বিশ্ব ডোপিং-বিরোধী সংস্থা বা ওয়াডা। সেখানে পাল্টেছে সিদ্ধান্ত। শুক্রবার সুনকে নিষিদ্ধ করার কথা জানানো হয়। এটি তার দ্বিতীয় অপরাধ। সে কারণেই নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ ৮ বছর। এর আগে নিষিদ্ধ উপাদান নেওয়ায় ২০১৪ সালে তিন মাস নিষিদ্ধ ছিলেন তিনি। নিষেধাজ্ঞার বিরুদ্ধে আপিল করবেন বলে স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে বলেন সুন, “এটি অন্যায়। দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, আমি নিরপরাধ।” আগামী ৩০ দিনের মধ্যে সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সুইস ফেডেরাল ট্রাইব্যুনালে চ্যালেঞ্জ করা যাবে বলে জানায় আন্তর্জাতিক ক্রীড়া আদালত। গত নভেম্বরে আপিল শুনানিতে সুন বলেছিলেন, পরীক্ষাকারীরা তার বাড়িতে যাওয়ার পর তাদের পরিচয়ের প্রমাণ দিতে ব্যর্থ হওয়ায় তিনি তখন ডোপ পরীক্ষা দেননি। তার রক্তের নমুনা ছিল এমন একটি বোতল হাতুড়ি দিয়ে ভাঙার কথাও অস্বীকার করেন তিনি। চীনের ইতিহাসের অন্যতম সেরা সাঁতারু সুন ২০১৬ রিও অলিম্পিকে ২০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে সোনা জিতেছিলেন। ২০১২ লন্ডন অলিম্পিকে সোনা জেতেন ৪০০ মিটার ফ্রিস্টাইল ও ১৫০০ মিটার ফ্রিস্টাইলে।

আরো খবর...