১৮ ধাপ এগোলেন আবু জায়েদ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ ইন্দোর টেস্টে দল বড় ব্যবধানে হারলেও বল হাতে উজ্জ্বল ছিলেন আবু জায়েদ চৌধুরী। ভারতের শক্তিশালী ব্যাটিং লাইনআপকে একটু পরীক্ষায় ফেলতে পেরেছেন এই পেসারই। ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ে নিয়েছেন চার উইকেট। র‌্যাঙ্কিংয়েও পড়েছে এই পারফরম্যান্সের প্রতিফলন। টেস্ট বোলারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে সিলেটের এই পেসার এগিয়েছেন ১৮ ধাপ। শনিবার প্রকাশিত নতুন র‌্যাঙ্কিংয়ে টেস্ট বোলারদের তালিকায় ৬২তম স্থানে উঠে এসেছেন আবু জায়েদ। দুই ইনিংসে এক ফিফটি সহ ১০৭ রান করে ব্যাটসম্যানদের র‌্যাঙ্কিংয়ে পাঁচ ধাপ এগিয়েছেন মুশফিকুর রহিম। উঠেছেন ৩০ নম্বরে। ছয় ধাপ এগিয়ে ৮৬তম স্থানে উঠেছেন কিপার-ব্যাটসম্যান লিটন দাস। ভারতের একমাত্র ইনিংসে বিরাট কোহলিকে শূন্য রানে ফেরানোর পাশাপাশি রোহিত শর্মা, চেতেশ্বর পূজারা ও আজিঙ্কা রাহানের উইকেট নেন আবু জায়েদ। নতুন বলে সুইং এবং বোলিংয়ে নিয়ন্ত্রণে এগিয়ে ছিলেন বাকি বোলারদের চেয়ে। ১৫০ রানে গুটিয়ে যাওয়ার প্রথম ইনিংসে সর্বোচ্চ ৪৩ রান এসেছিল মুশফিকের ব্যাট থেকে। দ্বিতীয় ইনিংসেও বলার মতো লড়াই করেছেন তিনিই। ১৫০ বলে সাতটি চারে করেছেন ৬৪ রান। প্রথম ইনিংসে ২১ রান করা লিটন দ্বিতীয় ইনিংসে করেন ৩৫ রান। ম্যাচে নিজেদের দারুণ পারফরম্যান্সে র‌্যাঙ্কিংয়ে ক্যারিয়ার সেরা উচ্চতা ছুঁয়েছেন ভারতীয় ওপেনার মায়াঙ্ক আগারওয়াল ও পেসার মোহাম্মদ শামি। মায়াঙ্ক করেছেন ক্যারিয়ার সর্বোচ্চ ২৪৩ রান, দারুণ ইনিংসে পেয়েছেন ম্যাচসেরার পুরস্কার। র‌্যাঙ্কিংয়ে এগিয়েছেন সাত ধাপ। মাত্র ৮ টেস্ট খেলেই তার অবস্থান ১১তম। প্রথম ইনিংসে ২৭ রানে ৩ উইকেটের পর দ্বিতীয় ইনিংসে ৩১ রানে ৪ উইকেট শিকার করেছেন মোহাম্মদ শামি। আট ধাপ এগিয়ে তিনি উঠে এসেছেন সপ্তম স্থানে। তার বর্তমান রেটিং পয়েন্ট ৭৯০। কপিল দেব (৮৭৭) এবং জাসপ্রিত বুমরাহর (৮৩২) পর কোনো ভারতীয় পেসারের সর্বোচ্চ পয়েন্ট এটি। শামিকে দারুণ সঙ্গ দেয়া ভারতের বাকি দুই পেসার ইশান্ত শর্মা ও উমেশ যাদব এক ধাপ করে এগিয়ে যথাক্রমে ২০তম ও ২২তম অবস্থানে এসেছেন।

টেস্ট বোলারদের র‌্যাঙ্কিংয়ে শীর্ষস্থান ধরে রেখেছেন অস্ট্রেলিয়ার পেসার প্যাট কামিন্স। ইন্দোর টেস্টে ব্যর্থ হওয়ায় ব্যাটসম্যানদের র‌্যাঙ্কিংয়ে স্টিভেন স্মিথের সঙ্গে ব্যবধান কমানো হয়নি কোহলির। ৯৩৭ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই আছেন অস্ট্রেলিয়ার ব্যাটসম্যান, কোহলির ৯১২। অলরাউন্ডার র‌্যাঙ্কিংয়ের শীর্ষস্থান ধরে রেখেছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক জেসন হোল্ডার। টি-টোয়েন্টির পর নতুন প্রকাশিত টেস্ট র‌্যাঙ্কিং থেকেও ছিটকে গেছে সাকিব আল হাসানের নাম। র‌্যাঙ্কিংয়ের নিয়ম অনুযায়ী, আইসিসি কোনো ক্রিকেটারকে এক বছর বা তার বেশি সময়ের জন্য নিষিদ্ধ করলে তাকে রাখা হয় র‌্যাঙ্কিংয়ের বাইরে।

আরো খবর...