হরিণাকুন্ডুতে হত্যা মামলায় ৪ জন গ্রেফতার

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি ॥ ঝিনাইদহের হরিনাকুন্ডু উপজেলার মান্দিয়া গ্রামে ক্যানেলের পাশে তোয়াজ উদ্দিন (৫০) নামের এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের জামাই আব্দুল কুদ্দুস বাদি হয়ে ৬ জনকে আসামী করে হরিণাকুন্ডু থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে ৪ জনকে গ্রেফতার করে। মঙ্গলবার (৪ সেপ্টেম্বর) ভোর রাতে ওই এলাকায় অভিযান চালিয়ে তাদেরকে গ্রেফতার করা হয়।  গ্রেফতারকৃতরা হলেন, নিহত তোয়াজ উদ্দিনের ২য় স্ত্রী কুটিলা বেগম (৪০), রঘুনাথপুর গ্রামের তাইজুদ্দিনের ছেলে লিটন হোসেন (৩০), মান্দিয়া গ্রামের আবেদ আলীর ছেলে ঠান্ডু লস্কর (৩৪) ও আনজের আলীর ছেলে ইসরাফিল ওরফে সম্রাট।  ঝিনাইদহের সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (শৈলকুপা সার্কেল) তারেক আল মেহেদি জানান, রাতে ক্যানেলের পাশে মাছ ধরছিল তোয়াজ উদ্দিন। এ সময় তাকে কুপিয়ে ও গলা কেটে হত্যা করে ফেলে রেখে যায়। এ ঘটনায় নিহতের জামাই আব্দুল কুদ্দুস বাদি হয়ে ৬ জনকে আসামী করে হরিণাকুন্ডু থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করে। এ মামলায় ৪ জনকে গ্রেফতার করে আদালতে সোপর্দ করা হয়। সে সময় তাদের কাছ থেকে হত্যা কান্ডে ব্যবহৃত একটি রক্ত মাখা দা উদ্ধার করা হয়। তিনি আরও জানান, একই স্থানে তিন বছর আগে সর্বহারা গ্র“পের হক আলী নামে এক ব্যক্তিকে হত্যার পর মাটিতে পুতে রাখা হয়েছিল। সেই মামলার ২ নম্বর আসামী ছিল এই তোয়াজ উদ্দিন। উলে¬খ্যঃ সোমবার (৩সেপ্টেম্বর) ঝিনাইদহের হরিনাকুন্ডু উপজেলার রঘুনাথপুর ইউনিয়নের মান্দিয়া গ্রামে ক্যানেলের পাশে রাত ১১ টার দিকে তোয়াজ উদ্দিন (৫০) নামের এক ব্যক্তিকে কুপিয়ে হত্যা করে। নিহত তোয়াজ উদ্দিন উপজেলার কালাপাহাড়িয়া আবাসন প্রকল্পের বাসিন্দা ও দরাপ মন্ডলের ছেলে।

আরো খবর...