স্পেনের হয়ে খেলতে বাধা রইলো না বার্সা বিস্ময় ফাতির

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ বার্সেলোনার হয়ে ক্যারিয়ারের শুরুতেই সাড়া জাগানো আনসু ফাতিকে স্পেন দলে টানতে বেশ কিছুদিন ধরে চেষ্টা করে যাচ্ছে দেশটির ফুটবল ফেডারেশন। সে লক্ষ্যে বড় একটা ধাপ পেরিয়েছে তারা। স্প্যানিশ নাগরিকত্ব পেয়ে যাওয়ায় আন্তর্জাতিক ফুটবলে তরুণ এই ফরোয়ার্ডের খেলতে আর কোনো বাধা রইলো না। সংবাদমাধ্যমের খবর মতে, জন্মভূমি গিনি-বিসাওয়ের এর পাশাপাশি পর্তুগালের হয়েও খেলার সুযোগ আছে গত মঙ্গলবার বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের বিপক্ষে ম্যাচে বার্সেলোনার হয়ে সবচেয়ে কম বয়সে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে খেলার রেকর্ড গড়া ফাতির। তবে আপাত দৃষ্টিতে মনে হচ্ছে, জন্মভূমি বা পর্তুগাল নয়, বরং বর্তমান আবাসস্থল স্পেনের হয়েই খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ফাতি। ছয় বছর বয়সে স্বপরিবারে দেশটিতে পাড়ি জমিয়েছিলেন তিনি। নিয়মানুযায়ী স্পেনের নাগরিকত্ব পেতে দেশটিতে ১০ বছর থাকতে হয়। আর সেই মেয়াদ পূরণ হওয়ার পর তার আবেদনের প্রেক্ষিতে জরুরি ভিত্তিতে পুরো প্রক্রিয়া সারা হয়েছে। কেননা অনূর্ধ্ব-১৭ বিশ্বকাপের দল ঘোষণার শেষ দিন আগামী বুধবার। স্প্যানিশ সংবাদমাধ্যমের খবর অনুযায়ী, অক্টোবরে শুরু হতে যাওয়া এই টুর্নামেন্টে ফাতিকে দলে পেতে মরিয়া স্পেন। স্পেনের প্রধান কোচ রবের্ত মোরেনো গত সপ্তাহে জানিয়েছিলেন যে ফাতির বিষয়ে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র পেতে কাজ করছে দেশটির ফুটবল ফেডারেশন। তবে মূল সিদ্ধান্তটা এই খেলোয়াড়ের নিজেকেই নিতে হবে বলে তখন জানিয়েছিলেন তিনি। গত ২৫ আগস্ট লা লিগায় রিয়াল বেতিসের বিপক্ষে ম্যাচের শেষ দিকে বদলি হিসেবে বার্সেলোনার হয়ে অভিষেক হয় ফাতির। এর পরের সপ্তাহে ওসাসুনার বিপক্ষে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে বদলি নেমে বার্সেলোনার হয়ে স্পেনের শীর্ষ লিগে সবচেয়ে কম বয়সী খেলোয়াড় হিসেবে গোলের রেকর্ড গড়েন তিনি। আর গত শনিবার ভালেন্সিয়ার বিপক্ষে শুরুর একাদশে সুযোগ পেয়েই ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটে দলকে এগিয়ে দিয়ে লা লিগার ইতিহাসে সবচেয়ে কম বয়সী খেলোয়াড় হিসেবে কোনো ম্যাচে গোল করা ও সতীর্থের গোলে অবদান রাখেন ফাতি। অভিষেকের কদিনের মধ্যে পাদপ্রদীপের আলোয় উঠে আসা ফাতি টানা তিন ম্যাচে গড়েছেন তিনটি রেকর্ড। আগামী ৩১ অক্টোবর ১৭ বছর পূর্ণ করতে যাওয়া ফাতির সামনে চ্যালেঞ্জ এবার আরও বড়।

আরো খবর...