সিমন্সের ছক্কা ঝড়ে বিশ্ব চ্যাম্পিয়দের জয়

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ ওপেনার লেন্ডল সিমন্সের ব্যাটিং তাÐবে আইরিশদের গুঁড়িয়ে সমতায় সিরিজ শেষ করেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। সিরিজের শেষ টি-টোয়েন্টিতে আয়ারল্যান্ডকে ৯ উইকেটে উড়িয়ে দিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। রান উৎসবের প্রথম ম্যাচে আইরিশরা পেয়েছিল নাটকীয় জয়, দ্বিতীয় ম্যাচ ভেসে গেছে বৃষ্টিতে। শেষটি জিতে টি-টোয়েন্টির বিশ্ব চ্যাম্পিয়নরা সিরিজ শেষ করল ড্রয়ের স্ব¯িÍতে। বাংলাদেশ সময় সোমবার ভোরে সেন্ট কিটসের এই ম্যাচে কাইরন পোলার্ড ও ডোয়াইন ব্রাভোর দারুণ বোলিংয়ে আয়ারল্যান্ড গুটিয়ে যায় ১৩৮ রানে। রান তাড়ায় ক্যারিবিয়ানরা জিতে যায় ১১ ওভারেই। ক্যারিয়ার সেরা ইনিংসে ৪০ বলে ৯১ রানে অপরাজিত থেকে যান সিমন্স। তার ইনিংসে চার ছিল ৫টি, ছক্কা ১০টি! অথচ ম্যাচের শুরুটা আয়ারল্যান্ডের ছিল উড়ন্ত। টস হেরে ব্যাটিংয়ে নামা দল ৩.২ ওভারেই কোনো উইকেট না হারিয়ে তুলে ফেলে ৫০ রান! মূলত কেভিন ও’ব্রায়েনের সৌজন্যেই রান এসেছে দ্রুতগতিতে। তাকে ফিরিয়েই দলকে ব্রেক থ্রু এনে দেন পোলার্ড। ১৮ বলে ৩৬ রান করে ফেরেন ও’ব্রায়েন। পরের ওভারেই ব্রাভো ফেরান আরেক ওপেনার পল স্টার্লিংকে। সেই যে দিশা হারাল আইরিশ ব্যাটিং, আর কোনো ব্যাটসম্যান পারেননি দলকে পথে ফেরাতে। তিনে নেমে অধিনায়ক অ্যান্ড্রু বালবার্নি রান আউট হয়ে গেছেন ২৩ বলে ২৮ করে। মিডল অর্ডারে দুই অঙ্ক ছুঁতে পারেননি কেউ। নয়ে নেমে ব্যারি ম্যাককার্থি করেছেন অপরাজিত ১৮। আগের ম্যাচে ক্যারিয়ার সেরা বোলিংয়ের পর পোলার্ড এই ম্যাচেও নিয়েছেন ২৫ রানে ৩ উইকেট। ১৯ রানে ৩টি নিয়ে ক্যারিবিয়ানদের সেরা বোলার ব্রাভো। এই পুঁজিতে ক্যারিবিয়ানদের সামান্যতম চ্যালেঞ্জ জানাতেও পারেনি আইরিশরা। সিমন্স ও এভিন লুইসের উদ্বোধনী জুটিতেই ম্যাচ প্রায় শেষ হয়ে গিয়েছিল। শুরুর জুটিতেই দুজন ১৩৩ রান তোলেন কেবল ৬৪ বলে! ২৫ বলে ৪৬ করে লুইস আউট হয়ে যান দলকে জয়ের দুয়ারে রেখে। সিমন্স শেষ করে আসেন কাজ। ২৮ বলে স্পর্শ করেছিলেন ফিফটি। এরপর ছক্কার জোয়ারে ভাসিয়ে দেন তিনি আইরিশ বোলিংকে। ম্যাচের সেরা সিমন্সই। সিরিজের সেরা ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক পোলার্ড। তবে ব্যাটিংয়ে নয়, দারুণ বোলিং দিয়ে। শেষ দুই ম্যাচেই নিয়েছেন ৭ উইকেট। সংক্ষিপ্ত স্কোর: আয়ারল্যান্ড: ১৯.১ ওভারে ১৩৮ (স্টার্লিং ১১, ও’ব্রায়েন ৩৬, বালবার্নি ২৮, ডেলানি ৬, টেক্টর ১, উইলসন ৭, অ্যাডায়ার ৬, সিমি ৫, ম্যাককার্থি ১৮*, ইয়াং ৮, লিটল ৫; কটরেল ৪-০-৩৩-০, শেফার্ড ৪-০-৩৭-১, পোলার্ড ৪-০-১৭-৩, ব্রাভো ৩.১-০-১৯-৩, ওয়ালশ ১-০-৬-০, রাদারফোর্ড ৩-০-২১-১)। ওয়েস্ট ইন্ডিজ: ১১ ওভারে ১৪০/১ (সিমন্স ৯১*, লুইস ৪৬, পুরান ১*; স্টার্লিং ১-০-১-০, ম্যাককার্থি ২-০-৩৫-০, সিমি ৩-০-৪১-১, লিটল ২-০-২৫-০, অ্যাডায়ার ২-০-২২-০, ইয়াং ১-০-১৬-০ )। ফল: ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৯ উইকেটে জয়ী সিরিজ: ৩ ম্যাচের সিরিজে ১-১ ড্র ম্যান অব দা ম্যাচ: লেন্ডল সিমন্স ম্যান অব দা সিরিজ: কাইরন পোলার্ড

আরো খবর...