সাহিত্যিক সৈয়দা রাশিদা বারী কবি জসীমউদ্দীন পুরস্কার পেয়েছেন 

নিজ সংবাদ ॥ গত ১৩ ডিসেম্বর সন্ধ্যা ৬টায় এক অনাড়ম্বর কবি সম্মেলনে  বিশিষ্ট কবি, সাহিত্যিক ও সাংবাদিক সৈয়দা রাশিদা বারী কবি জসীমউদ্দীন পরিষদ আয়োজিত ‘জসীমউদ্দীন হল’ এ ২০১৯’ গুণীজন সম্মাননা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে কবি জসীমউদ্দীন পুরস্কার ও সম্মাননা পেয়েছেন। অনুষ্ঠানে ফরিদপুর ডায়াবেটিক হসপিটালের সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক এম. এ সামাদের সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি ছিলেন আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন আইনজীবি ব্যারিস্টার এম. আমীর উল ইসলাম। বিশেষ অতিথি ছিলেন ড. ওয়াজেদ মিয়া মেমোরিয়াল ফাউন্ডেশনের প্রতিষ্ঠাতা ও সভাপতি এ. কে. এম ফরহাদুল কবীর, সংস্কৃতি ব্যক্তিত্ব এম. এ রহিম, ফরিদপুর এর কর কমিশনার মোঃ বোরহান উদ্দিন। এদিকে অনুষ্ঠানের সার্বিক সমন্বয়কারী হিসেবে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কবি জসীমউদ্দীন পরিষদের মহাসচিব আবুবকর সিদ্দিক।  বাংলা সাহিত্যে সার্বিক শাখায় অনন্য অবদানের জন্য সৈয়দা রাশিদা বারী কবি জসীমউদ্দীন পদক ও সম্মাননা পেলেন। এ যাবৎ সৈয়দা রাশিদা বারী শতাধিক গ্রন্থ প্রণয়ন করেছেন। তিনি ঢাকাস্থ জাতীয় মাসিক স্বপ্নের দেশ পত্রিকার সম্পাদক ও প্রকাশক। বাংলাদেশ বেতার, টেলিভিশন ও চলচ্চিত্রের গীতিকার তিনি। তাঁর উল্লেখযোগ্য পুরস্কারের মধ্যে- ভারতীয় আন্তর্জাতিক আলো আভাস সাহিত্য সংস্থা ও বিশ্ব বঙ্গ সাহিত্য ও সংস্কৃতি সম্মেলন এর পুরস্কার ও সম্মাননা, কবি বে-নজীর আহমদ সাহিত্য পুরস্কার, জাতীয় সাংবাদিক সংস্থা কর্তৃক পুরস্কার, বাংলাদেশ লেখিকা সংঘের সংবর্ধনা, জাতীয় বাংলাদেশ লেখক ফোরাম কৃর্তক বেগম রোকেয়া পদক ইত্যাদি।

অনুষ্ঠানে আলোচনা ও গুণীজন সম্মানা প্রদান শেষে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়। অন্যান্যদের মধ্যে ভারত-বাংলাদেশ কবিদের মধ্যে কবি জসীমউদ্দীন পুরস্কার পেয়েছেন- শীর্ষ আইনজ্ঞ ব্যারিস্টার এম. আমীর উল ইসলাম, শিক্ষায় আলহাজ্ব সৈয়দ আবুল হোসেন, বাংলা একাডেমীর মহাপরিচালক কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী, কবি তাসলিমা জামান পান্না, সাহিত্যিক রাজিয়া জামান, পশ্চিম বঙ্গের কবি- অলোক রঞ্জন দাশগুপ্ত, ড. টিকেন্দ্র নাথ সরকার, শ্রীমৎ কান্তিবন্ধু প্রমুখ। উক্ত অনুষ্ঠানের সার্বিক উপস্থাপনায় ছিলেন কবি সুলতানা রেশমা।

 

আরো খবর...