সালাম মুর্শেদী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সাংসদ নির্বাচিত

খুলনা-৪ আসনে উপনির্বাচন

ঢাকা অফিস ॥ খুলনা-৪ আসনের (রূপসা-তেরখাদা-দিঘলিয়া) উপনির্বাচনে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় সাংসদ নির্বাচিত হয়েছেন সাবেক ফুটবলার ও বিশিষ্ট ব্যবসায়ী সালাম মুর্শেদী। গতকাল মঙ্গলবার বিকেল পাঁচটার দিকে রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. ইউনুচ আলী আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী সালাম মুর্শেদীকে নির্বাচিত ঘোষণা করেন। ওই আসনের উপনির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিন ছিল গতকাল মঙ্গলবার। যদি একক প্রার্থী থাকেন, তাহলে পরদিন অর্থাৎ আজ বুধবার বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত ঘোষণার কথা ছিল। জানতে চাইলে আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটার্নিং কর্মকর্তা ইউনুচ আলী বলেন, যেহেতু আর কোনো প্রার্থী ছিল না, তাই নির্বাচন কমিশনের বিধি অনুযায়ী এক দিন আগেই সালাম মুর্শেদীকে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে। নির্বাচনের সব কাগজপত্রও নির্বাচন কমিশনে পাঠানো হয়েছে। এ ক্ষেত্রে নিয়মের কোনো লঙ্ঘন হয়নি। সালাম মুর্শেদীর বাড়ি খুলনার রূপসা উপজেলায়। তিনি বাংলাদেশে এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (ইএবি) সভাপতি, এনভয় গ্র“পের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও বাংলাদেশ গার্মেন্টস ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের (বিজিএমইএ) সাবেক সভাপতি। আওয়ামী লীগ খুলনা জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক এস এম মোস্তফা রশিদী সুজার মৃত্যুতে শূন্য ঘোষিত খুলনা-৪ আসনের উপনির্বাচনে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল আগামী ২০ সেপ্টেম্বর। ওই উপনির্বাচনে অংশ নিতে রিটার্নিং কর্মকর্তার দপ্তর থেকে তিনজন প্রার্থী মনোনয়নপত্র সংগ্রহ করেছিলেন। তাঁরা হলেন আওয়ামী লীগ মনোনীত আব্দুস সালাম মুর্শেদী, জাতীয় পার্টির এস এম আনিসুর রহমান ও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে সাবেক সেনা কর্মকর্তা শেখ হাবিবুর রহমান। দিন শেষে সালাম মুর্শেদী ছাড়া আর কেউই মনোনয়ন পত্র জমা দেননি। সালাম মুর্শেদী কখনোই খুলনার রাজনীতিতে সক্রিয় ছিলেন না। তবে গত ৩ মার্চ খুলনায় অনুষ্ঠিত জনসভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তাঁকে খুলনাবাসীর সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেন। এরপর থেকেই সবাই ধরেই নিয়েছিলেন সালাম মুর্শেদী আওয়ামী লীগের হয়ে খুলনার যেকোনো আসন থেকে মনোনয়ন পেতে পারেন।

আরো খবর...