সরকারী নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে অবৈধভাবে বালি উত্তোলনের দায়ে ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড

দৌলতপুরে পদ্মা নদীতে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযান

শরীফুল ইসলাম ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে সরকারী নিষেধাজ্ঞা অম্যান্য করে পদ্মা নদীতে অবৈধভাবে বালি উত্তোলনের দায়ে মোজাম্মেল হোসেন (৩৫) নামে এক ব্যক্তির ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড করেছেন ভ্রাম্যমান আদালত। গতকাল শনিবার দুপুর দেড়টার দিকে দৌলতপুর উপজেলার মরিচা ইউনিয়নের বৈরাগীর চরের ভাদু শাহ্র মাজারের নিকট পদ্মা নদীতে অভিযান চালিয়ে বালি উত্তোলন ও সরবরাহ করার সময় ওই ব্যক্তির এ অর্থদন্ড করেন ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট শারমিন আক্তার।

ভ্রাম্যমান আদালত সূত্র জানায়, সরকারী নিষেধাজ্ঞা অম্যান্য করে পদ্মা নদীতে স্যালো ইঞ্জিন চালিত ড্রেজার দিয়ে অবৈধভাবে বালি উত্তোলন করা হচ্ছে এমন সংবাদ পেয়ে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত পদ্মা নদীতে অভিযান চালায়। এসময় পাবনা জেলার ঈশ^রদী উপজেলার পানসারাহাট এলাকার অবৈধ বালি উত্তোলনকারী মোজম্মেল হোসেনকে আটক করা হয়। পরে বালু মহল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এর ৪/১৫(১) ধারায় তাকে ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড করেন ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট শারমিন আক্তার। এসময় তাকে সতর্ক করা হয়। এর আগে গত ২১ সেপ্টেম্বর বৈরাগীর চর এলাকায় পদ্মা নদীতে অভিযান চালিয়ে তছিকুল ইসলাম নামে অবৈধ বালি উত্তোলনকারীকে ১ লক্ষ ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড করেন ভ্রাম্যমান আদালত।

আরো খবর...