সময় চাইলেন অধিনায়ক তামিম

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ ২০১৫ সালে ভীষণ চাপের মধ্যে থাকা তামিম ইকবালকে আগলে রেখেছিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। তার জায়গায় ওয়ানডে দলের নেতৃত্ব পাওয়া বাঁহাতি ওপেনারের এখন নিজেকেই সামলাতে হবে সব চাপ। তামিম জানালেন, ব্যাটিং আর নেতৃত্ব নিয়ে সমালোচনা মানতে তিনি প্রস্তুত। তবে অধিনায়ক হিসেবে সবেই শুরু করায় মানিয়ে নিতে কিছুটা সময় চাইলেন তিনি। দেশের সফলতম অধিনায়ক মাশরাফি ওয়ানডে দলের নেতৃত্ব ছাড়ার পর তামিমকে নতুন অধিনায়ক হিসেবে বেছে নিয়েছে বিসিবি। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের নতুন আসরে প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে খেলবেন বাঁহাতি এই ওপেনার। শনিবার দলের অনুশীলনের আগে জানালেন, নতুন চ্যালেঞ্জে মানিয়ে নিতে তার সময় প্রয়োজন। “সমালোচনা হবেই। এতদিন সমালোচনা হয়েছে আমার ব্যাটিং নিয়ে। এখন সমালোচনা হলে হবে দুটি দিক নিয়ে। আমি এই কথাটিই বারবার বলছি যে ব্যাটিং নিয়ে সমালোচনা হতেই পারে। সেটি আলাদা ব্যাপার। কিন্তু অধিনায়কত্বের বেলায় আমাকে সময় দিতে হবে। এমন নয় যে আমি বছরের পর বছর (অধিনায়কত্ব) করে আসছি।” ১৩ বছরের ক্যারিয়ারে নেতৃত্ব দেওয়ার খুব বেশি অভিজ্ঞতা তামিমের নেই। জাতীয় ক্রিকেট লিগ, বিসিএল, বিপিএল ও ঢাকার ক্লাব ক্রিকেট মিলিয়েও অধিনায়ক হিসেবে তিনি প্রায় নতুনই। মুশফিকুর রহিমের অনুপস্থিতিতে ২০১৭ সালে নিউ জিল্যান্ড সফরে একটি টেস্টে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন দেশকে। মাশরাফির অনুপস্থিতিতে গত বছর শ্রীলঙ্কায় তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজে অধিনায়কত্ব করেছিলেন। লম্বা সময় ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলায় অনেক ব্যাপার জানাই আছে। তবে পাকাপাকিভাবে কাজটা করতে গিয়ে সামনে আসতে পারে নতুন চ্যালেঞ্জ। সে পরীক্ষায় উতরাতে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেওয়ার কোনো বিকল্প দেখেন না তামিম। “এখানে আমাকে সময় দেওয়া উচিত। দলকে নেতৃত্ব দেওয়ার সেরা উপায় হলো সামনে থেকে নেতৃত্ব দেওয়া, পারফরম্যান্স দিয়ে। দল ভালো করছে, কিন্তু আমি করছি না, এমন হলে সেই অধিনায়কের এগিয়ে যাওয়া কঠিন। আমি চেষ্টা করব। চেষ্টাই কেবল করতে পারি। ফল তো অনেক সময় হাতে থাকে না।” পাকিস্তান সফর দিয়ে শুরু হতে পারে তামিমের ক্যারিয়ারের নতুন অধ্যায়। করাচিতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের খবর পাওয়ার পর থেকে বাড়ছে সফর নিয়ে শঙ্কা। পরিস্থিতির অবনতি হলে বাড়তে পারে তামিমের অপেক্ষা।

আরো খবর...