সন্তানধারণের ক্ষমতা হারিয়েছেন অনুষ্কা

বিনোদন বাজার ॥ অনেকদিন ধরে জরায়ুর টিউমারে শরীরে ধকল বাড়ছিলো। ফুলে উঠলো পেট। মনে হচ্ছিলো যেন সন্তানধারণ করেছেন। কিন্তু পেটে বাসা বেঁধেছিলো অজগ্র টিউমার। শরীরে দুটি অস্ত্রোপচার হয়েছে। টিউমারের সঙ্গে তার জরায়ুও বাদ দিয়েছেন ডাক্তার। শরীর থেকে ১৩টি টিউমার বের করা হয়েছে বলে জানান বিশ্বখ্যাত সেতার শিল্পী অনুষ্কা শঙ্কর। সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি লিখেছেন, প্রথমে খুব ভয় পেয়েছিলাম। মনে হচ্ছিলো জরায়ু ফেলে দেওয়া হলে আর কোনোদিনই সন্তান জন্ম দিতে পারবো না। প্রশ্ন উঠবে আমার নারীত্ব নিয়ে। কিন্তু বহুদিন এই সমস্যা আমার শরীরে প্রভাব ফেলছিলো। মাসে প্রায় ১০ দিন ধরে আমার ঋতুশ্রাব চলতো। চিকিৎসক আমায় ওষুধ দিয়েছিলেন। তার থেকে মাইগ্রেনের ব্যথা বাড়তো। অসহ্য কোমর ব্যথায় কষ্ট পেতাম। আপাতত সেই কষ্ট থেকে মুক্তি পেলাম। বাড়ির সকলেই খুব আন্তরিক ও আমার সেবা করছে।’রবি শঙ্কর কন্যা অনুষ্কা বিশ্বখ্যাত সেতার শিল্পী। এই সমস্যার আগেই তিনি দুই সন্তান নিয়েছেন। জরায়ুর সমস্যার জন্য সন্তান জন্মের সময় তিনি খুবই কষ্ট পেয়েছেন। এবার আর সেই কষ্ট তিনি নিতে চাননি। অস্ত্রোপচারের পর অনুষ্কা সকলের জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট করেন। সেখানে তিনি জানিয়েছেন, ‘মেয়েদের জরায়ুর সমস্যার কথা খোলাখুলি বলা হয় না। তিনিই তার অভিজ্ঞতা জানিয়েছেন এবং বলেছেন সন্তান জন্ম দেওয়ার জন্য মেয়েদের সব মুখ বুজে সহ্য করার কথা বলা হয়। তবে তার আর বলতে ভয় নেই যে তিনি নিজের শরীরের কথা ভেবেই এই কঠিন পদক্ষেপ নিতে বাধ্য হয়েছেন।

 

আরো খবর...