শেষ সুযোগ চাইলেন ইলিয়াস কোবরা

বিনোদন বাজার ॥ ঢাকাই সিনেমার খলনায়কের এক অনন্য নাম ইলিয়াস কোবরা। পাঁচ শতাধিক সিনেমায় অভিনয় করেছেন তিনি। এখনও অভিনয় করে চলেছেন। সিনেমা দর্শকের পাশাপাশি চলচ্চিত্র শিল্পীদের কাছেও প্রিয় মানুষ তিনি। বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনে এবার জায়েদ খানের বিপরীতে সাধারণ সম্পাদক পদে লড়বেন ইলিয়াস কোবরা।

 

জনপ্রিয় এই অভিনেতা জানালেন, এবারই শেষবারের মতো শিল্পী সমিতির নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন তিনি। এরপর আর শিল্পী সমিতির নির্বচন করবেন না।

 

আগামী ২৫ অক্টোবর অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০১৯-২১ মেয়াদের এ দ্বিবার্ষিক নির্বাচন। আর মাত্র ১৪ দিন বাকি আছে নির্বাচনের। সবার মতই নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছেন কোবরাও।

 

ইলিয়াস কোবরা বলেন, ‘আমি চট্টগ্রামে বদিউল আলম খোকনের ‘আগুন’ সিনেমার শুটিং নিয়ে ব্যস্ত ছিলাম। গত ২৪ সেপ্টেম্বর থেকে টানা শুটিং করেছি। শুটিং শেষ করে ফিরে নির্বাচনের মাঠে নেমেছি।

 

এর আগেও নির্বাচন করেছি। ভেবে দেখলাম, সেবামূলক কাজের জন্য সেবক দরকার। এ কারণে সবার ভালবাসা নিয়ে আমি নির্বাচনে দাঁড়িয়েছি। আমি সততার সাথে চলচ্চিত্র শিল্পী হিসেবে ৩৫ বছর ধরে কাজ করছি। ছোটবেলা থেকে সেবা মূলক নানা সংগঠন করেছি আমি। সবমিলিয়ে আমি কাজে কর্মে বিশ্বাসী। তা প্রমাণ করে যাবো।’

 

ইলিয়াস কোবরা আরও বলেন, ‘ভোটের নীতিমালায় বাসায় গিয়ে ভোটারদের কাছে ভোট চাওয়া নিষেধ। তাই ফোন করে সবার কাছে ভোট চাচ্ছি। শেষবারের মতো কাজ করার একটা সুযোগ চাই। মিশা সওদাগর-জায়েদ খান দুই বছর দায়িত্ব পালন করেছে তাদের কাছে কি পেয়েছেন? আপনারাই ভালো জানেন। আপনাদের মন যদি সাড়া দেয় আমাকে ভোট দিবেন।’

 

সমিতির ২১টি পদের মধ্যে নির্বাচন হবে ১৮টি পদের। জানা গেছে, ১৮ পদের জন্য এবার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন মোট ২৭ জন প্রার্থী। সভাপতি পদে লড়বেন চিত্রনায়িকা মৌসুমী ও মিশা সওদাগর।

 

নির্বাচনকে সামনে রেখে গঠিত হয়েছে মিশা-জায়েদ প্যানেল। এই প্যানেল থেকে মিসা সওদাগর সভাপতি পদে ও জায়েদ খান সাধারণ সম্পাদক পদে লড়বেন। এছাড়া এই প্যানেল থেকে সহ-সভাপতি পদে লড়ছেন মাসুম পারভেজ রুবেল, মনোয়ার হোসেন ডিপজল।

 

মিশা-জায়েদ প্যানেলে সহ-সাধারণ সম্পাদক পদে আরমান, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক পদে মামুনুন হাসান ইমন, দপ্তর ও প্রচার সম্পাদক পদে জ্যাকি আলমগীর, কোষাধ্যক্ষ পদে ফরহাদ, সাংস্কৃতি ও ক্রিড়া সম্পাদক পদে জাকির হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে সুব্রত লড়াই করছেন।

 

মিশা-জায়েদ প্যানেল কার্যনির্বাহী সদস্য পদে আছেন অঞ্জনা, রোজিনা, অরুণা বিশ্বাস, আলি রাজ, বাপ্পারাজ, আফজাল শরীফ, মারুফ, আসিফ ইকবাল, আলেক জান্ডার বো, জেসমিন, জয় চৌধুরী।

 

সহ-সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচন করছেন সাংকোপাঞ্জা, সংস্কৃতি ও ক্রীড়া সম্পাদক পদে নির্বাচন করছেন ডন, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক পদে ইমনের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন নূর মোহাম্মদ খালেদ আহমেদ। এছাড়া কার্য নির্বাহী সদস্য পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করবেন শামীম খান, মারুফ আকিব, রোঞ্জিতা, নাসরিন।

আরো খবর...