শেখ হাসিনার ভারত সফরে পানি বণ্টন নিয়ে ‘সুখবর’ চান ফখরুল

ঢাকা অফিস ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরে তিস্তাসহ অভিন্ন নদীর পানির ন্যায্য হিস্যা নিয়ে ‘সুখবর’ শুনতে চায় বিএনপি। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ আয়োজিত এক মানববন্ধনে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, “প্রধানমন্ত্রী গেছেন ভারতে। ভারতের সঙ্গে এই সরকারের নাকি সবচেয়ে সুউচ্চ সম্পর্ক, পর্বতের শৃঙ্গের মতো সম্পর্ক। “তো বার বার আমরা হতাশ হই; যত বার যান দেখি যে, আমাদের যে মূল সমস্যাগুলো রয়েছে সেই সমস্যাগুলো সমাধান হয় না। কিন্তু আমরা দিয়ে আসি একেবারে উজাড় করে।” ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর আমন্ত্রণে চার দিনের সরকারি সফরে বৃহস্পতিবার সকালে নয়াদিল্লিতে পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তৃতীয় মেয়াদে সরকারপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর দিল্লিতে শেখ হাসিনার এই প্রথম সফরে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে অন্যান্য বিষয়ের সঙ্গে তিস্তার পানি বণ্টন চুক্তি, আসামের নাগরিকপঞ্জি এবং সীমান্ত হত্যার প্রসঙ্গ তোলা হবে বলে আগেই জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন। বিএনপি মহাসচিব বলেন, “আজকেও জনগণ আশা করবে, জনগণের যে প্রত্যাশা- তিস্তাসহ সকল অভিন্ন নদীর পানির যে ন্যায্য হিস্যা বাংলাদেশ পাবে, সেটা সম্পর্কে অবশ্যই একটা সুখবর নিয়ে আসবেন- বাংলাদেশ পাবে। “আমরা আশা করব আমাদের সীমান্তে যে হত্যা, তা বন্ধ হয়ে যাবে।” ভারতের নাগরিকপঞ্জি নিয়ে ফখরুল বলেন, “আমাদের বাংলাদেশিদের নিয়ে যখন ভারতের মন্ত্রী ও নেতারা বিভিন্ন রকম কথা বলেন যে, বের করে দেওয়া হবে আসাম থেকে, বের করে দেওয়া হবে উত্তর প্রদেশ থেকে তখন স্বাভাবিকভাবেই বাংলাদেশের মানুষ হিসেবে, নাগরিক হিসেবে আমরা উদ্বিগ্ন হই। “এজন্য উদ্বিগ্ন হই যে, আমাদের কোনো মানুষ ভারতে গেছে বলে আমরা মনে করি না।” খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে আয়োজিত এই মানববন্ধনে সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শওকত মাহমুদের সভাপতিত্বে ও সদস্য এজেডএম জাহিদ হোসেনের পরিচালনায় আরও বক্তব্য রাখেন সাংবাদিক রুহুল আমিন গাজী, এম আবদুল্লাহ, কাদের গনি চৌধুরী, শহিদুল ইসলাম, শিক্ষাবিদ শামসুল আলম, চিকিৎসক অধ্যাপক মোস্তাক রহিম স্বপন, প্রকৌশলী রিয়াজুল ইসলাম রিজু, কৃষিবিদ মোস্তাফিজুর রহমান, শামীমুর রহমান শামীম, শিক্ষক-কর্মচারী ঐক্যজোটের জাকির হোসেন, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের রফিকুল ইসলাম, নার্সেস অ্যাসোসিয়েশনের জাহানারা বেগম প্রমুখ।

আরো খবর...