শিশু অপহরণ মাময়লায় এক নারীর যাবজ্জীবন

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের রায়

নিজ সংবাদ ॥ কুষ্টিয়ার দৌলতপুর থানায় শিশু অপহরণের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় বেদেনা খাতুন ওরফে লিমা (৩৮) নামে এক নারীকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা সহ যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। গতকাল সোমবার দুপুরে কুষ্টিয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের বিচারক মুন্সী মো. মশিয়ার রহমান এক জনাকীর্ণ আদালতে এ রায় প্রদান করেন। রায় ঘোষনার সময় আসামি আদালতে উপস্থিত ছিলেন। দন্ডপ্রাপ্ত বেদেনা খাতুন কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার খলিসাকুন্ডি পূর্ব মন্ডলপাড়া গ্রামের চাঁদ আলীর মেয়ে। আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৮ সালের ২৬ সেপ্টেম্বর সকাল ৯টায় খলিশাকুন্ডি গ্রামের ছমির আলীর স্ত্রী বিনা খাতুন তার ছয় মাস বয়সী শিশুপুত্রকে ঘরের বারান্দায় শুইয়ে রেখে গৃহস্থালীর কাজে বাড়ির বাইরে ব্যস্ত ছিলেন। এসময় আসামী বেদেনা খাতুনসহ অপর তিন সহযোগির যোগসাজসে শিশুটিকে অপহরণ করে অজ্ঞাত স্থানে নিয়ে যান। এ ঘটনায় শিশুটির বাবা ছমির আলী বাদী হয়ে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আইনে বেদেনা খাতুনসহ চার জনের নামোল্লেখসহ দৌলতপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। কুষ্টিয়া নারী ও শিশু নির্যাতন দমন বিশেষ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) এ্যাড. মেহেদী হাসান জানান, মামলাটি তদন্ত শেষে একই বছরের ৩০ নভেম্বর পুলিশ আদালতে চার্জশিট (অভিযোগপত্র) দাখিল করলে দীর্ঘ সাক্ষ্য শুনানি শেষে আসামি বেদেনা খাতুনের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীত প্রমাণিত হওয়ায় তাকে যাবজ্জীবন সহ ৫০ হাজার টাকা অর্থদন্ড দিয়েছেন। একই মামলায় অভিযুক্ত অন্য তিন আসামি ঠেকারী খাতুন, চাঁদ আলী ও আব্দুর রশিদ নির্দোষ প্রমাণিত হওয়ায় তাদের বেকসুর খালাস দিয়েছেন আদালত।

 

আরো খবর...