‘লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড’ নিয়ে ইসি নির্বিকার – মোশাররফ

ঢাকা অফিস ॥ ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীদের বিরুদ্ধে বিএনপির প্রার্থীর নির্বাচনী প্রচারে বাধা দেওয়া ও বিধিভঙ্গের অভিযোগ তুলে খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেছেন, প্রার্থীদের সমান সুযোগ সৃষ্টিতে নির্বাচন কমিশন পদক্ষেপ এখনো নেয়নি। নির্বাচনে প্রচারণার চতুর্থ দিন সোমবার সকালে শেরেবাংলা নগরে চন্দ্রিমা উদ্যানে দলের প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের সমাধিস্থলে সাংবাদিকদের সামনে একথা বলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির এই সদস্য। তিনি বলেন, “আপনারা দেখছেন, আমাদের প্রচার অভিযানে সরকার দলীয় প্রার্থী বাধা সৃষ্টি করেছে, বিভিন্ন জায়গায় হামলা করা হচ্ছে, আমাদের কাউন্সিলরদের বাড়ি আক্রমণ করা হচ্ছে; তাদেরকে ভয়-ভীতি দেখানো হচ্ছে, প্রচারের মাইক ছিনতাই করা হচ্ছে। এটা অত্যন্ত দুঃখজনক।” ‘ভোট ডাকাতির ’ সরকার ও তার ‘পদলেহী’ নির্বাচন কমিশন সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে পারবে না মন্তব্য করে বিএনপির জ্যেষ্ঠ এই নেতা। “তবুও আমরা একটি গণতান্ত্রিক উদার রাজনৈতিক দল হিসেবে গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার, বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আন্দোলনের অংশ হিসেবে জন্য নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছি।” দক্ষিণ সিটিতে বিএনপির নির্বাচন পরিচালনা কমিটির আহ্বায়ক মোশাররফ বলেন, নির্বাচনী আইনে রঙ্গিন পোস্টার ও দেয়ালে পোস্টার লাগানো নিষেধ থাকলেও দেয়ালে আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা মানছে না। কিন্তু নির্বাচন কমিশন কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না। অর্থাৎ এখন পর্যন্ত লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি হয়নি। নির্বাচন কমিশনের কাছে ইভিএমে ভোটগ্রহণের সিদ্ধান্ত বাতিলের দাবি জানিয়ে তিনি বলেন, ভয়মুক্ত পরিবেশে ভোট হলে উত্তর ও দক্ষিণ সিটির দুই মেয়র প্রার্থীসহ দলীয় সমর্থিত কাউন্সিলররা বিজয়ী হবে। সকাল সাড়ে ১০টার দিকে উত্তরে বিএনপির মেয়র প্রার্থী তাবিথ আউয়াল ও দক্ষিণের ইশরাক হোসেনকে নিয়ে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর জিয়ার কবরে ফুল দেন। পরে প্রয়াত নেতার আত্মার মাগফেরাত কামনা করে বিশেষ মোনাজাতে অংশ নেন তারা। আবদুল্লাহ আল নোমান, মোহাম্মদ শাহজাহান, জয়নুল আবদিন ফারুক, মশিউর রহমান, আবদুস সালাম, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, হাবিব-উন নবী খান সোহেল, শহীদউদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, নাজিম উদ্দিন আলম, মীর সরফত আলী সপু, আমিনুল হক, সাইফুল ইসলাম নিরব, সুলতানা আহমেদ, হেলেন জেরিন খান ও নিপুন রায় চৌধুরীসহ দল ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা সেখানে ছিলেন। সকালে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতার কবরে ফাতেহা পাঠ করে প্রয়াত নেতার আত্মার মাগফেরাতে মোনাজাত করে চতুর্থ দিনের প্রচারণার কাজ শুরু করেন তাবিথ ও ইশরাক। বেলা ১২টায় ফার্মগেইট থেকে তাবিথ এবং টিকাটুলির অভয়দাশ লেন থেকে ইশরাক প্রচারণা শুরু করেন।

 

আরো খবর...