রোমাঞ্চকর লড়াইয়ে বার্সাকে রুখে দিল সোসিয়েদাদ

ক্রীড়া প্রতিবেদক ॥ বার্সেলোনাকে ঘরের মাঠে পেয়ে ম্যাচের শুরু থেকে দারুণভাবে চেপে ধরল রিয়াল সোসিয়েদাদ। শুরুতে গোলও পেয়ে যায় তারা। বিরতির আগে-পরে দুই গোল করে অবশ্য জয়ের সম্ভাবনা জাগিয়েছিল এরনেস্তো ভালভেরদের দল। তবে পরে আরও এক গোল খেয়ে পয়েন্ট হারিয়েছে কাতালান ক্লাবটি।  প্রতিপক্ষের মাঠে শনিবার লা লিগার ম্যাচে ২-২ ড্র করে ফিরেছে বার্সেলোনা। লিগে টানা চার জয়ের পর পয়েন্ট হারাল দলটি। মিকেল ওইয়ারসাবালের গোলে পিছিয়ে পড়া বার্সেলোনা সমতায় ফেরে অঁতোয়ান গ্রিজমানের গোলে। লুইস সুয়ারেসের গোলে এগিয়েও গিয়েছিল তারা; কিন্তু সে আনন্দ বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি তাদের। খানিক পর আলেক্সান্দার ইসাক বল জালে পাঠালে মূল্যবান ১ পয়েন্ট নিয়ে মাঠ ছাড়ে সোসিয়েদাদ। বার্সেলোনার যেকোনো ম্যাচের ফল যাই হোক না কেন, বল দখলে তাদের এগিয়ে থাকাটা চিরচেনা দৃশ্য। তবে সোসিয়েদাদের বিপক্ষে দেখা গেল ভিন্ন চিত্র; শুরু থেকে বল দখলে আধিপত্য করল স্বাগতিকরা। দ্বাদশ মিনিটে ওইয়ারসাবালের সফল স্পট কিকে এগিয়েও যায় তারা। ডি-বক্সে বার্সেলোনা মিডফিল্ডার সের্হিও বুসকেতস প্রতিপক্ষের দিয়েগো ইয়োরেন্তেকে জার্সি ধরে ফেলে দিলে পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়েছিলেন রেফারি। ৩৮তম মিনিটে অনেকটা আচমকা পাল্টা আক্রমণে সমতা টানে বার্সেলোনা। ম্যাচে এটাই তাদের প্রথম উল্লেখযোগ্য সুযোগ। সুয়ারেসের বাড়ানো বল ধরে দ্রুত ডি-বক্সে ঢুকে দারুণ চিপ শটে আগুয়ান গোলরক্ষকের ওপর দিয়ে ঠিকানা খুঁজে নেন গ্রিজমান। সাবেক দলের বিপক্ষে গোল উদযাপন করেননি ২০০৯ থেকে ২০১৪ সাল পর্যন্ত সোসিয়েদাদে খেলা ফরাসি এই ফরোয়ার্ড। দ্বিতীয়ার্ধের চতুর্থ মিনিটে এগিয়ে যায় বার্সেলোনা। সতীর্থের পাস অফসাইডের ফাঁদ ভেঙে ধরে ডি-বক্সে ঢুকে পড়েন মেসি। গোলরক্ষককে একা পেয়েছিলেন তিনি, কিন্তু নিজে শট না নিয়ে বাড়ান বাঁ দিকে সুয়ারেসকে। অনায়াসে আসরে নিজের নবম গোলটি করেন উরুগুয়ের এই স্ট্রাইকার। দ্বিতীয়ার্ধের অষ্টম মিনিটে মেসির দারুণ কর্নারে হেড করেছিলেন বিশ্রাম শেষে ফেরা জেরার্দ পিকে। বল লক্ষ্যেই ছিল, শেষমুহূর্তে গোললাইন থেকে ফেরায় স্বাগতিকরা। ৬২তম মিনিটে সোসিয়েদাদের সমতায় ফেরা গোলে কিছুটা ভাগ্যের ছোঁয়া ছিল। বাঁ দিক থেকে ওইয়ারসাবালের শট ইভান রাকিতিচের পায়ে লেগে দিক পাল্টে জালে ঢুকতে যাচ্ছিল, ঝাঁপিয়ে রুখে দেন মার্ক-আন্ড্রে টের স্টেগেন। কিন্তু বিপদমুক্ত করতে পারেননি তিনি, আলগা বল ছোট ডি-বক্সের মুখে পেয়ে জালে ঠেলেন দেন তরুণ সুইডিশ ফরোয়ার্ড ইসাক। মৌসুমের প্রথম ক্লাসিকোর আগে এই ড্র বার্সেলোনার জন্য বড় এক ধাক্কাই বটে। লিগে আগামী বুধবার ঘরের মাঠে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী রিয়ালের মুখোমুখি হবে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। এখানে হোঁচট খেলেও লিগের পয়েন্ট টেবিলে রিয়ালের চেয়ে ১ পয়েন্টে এগিয়ে গেছে বার্সেলোনা। তবে রোববার ভালেন্সিয়ার মাঠে জিতলে শীর্ষে উঠে যাবে জিনেদিন জিদানের দল। ১৬ ম্যাচে ১১ জয় ও দুই ড্রয়ে বার্সেলোনার পয়েন্ট ৩৫। এক ম্যাচ কম খেলা রিয়ালের পয়েন্ট ৩৪। ১৬ ম্যাচে ৩১ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে সেভিয়া। চার নম্বরে থাকা সোসিয়েদাদের সংগ্রহ ১৭ ম্যাচে ২৮ পয়েন্ট।

 

আরো খবর...