রশিদ-নাজিবউলহর নৈপুণ্যে আয়ারল্যান্ডকে হারাল আফগানিস্তান

ক্রীড়া প্রতিবেদক পল স্টার্লিংয়ের ঝড় থামিয়ে লক্ষ্যটা নাগালের বাইরে যেতে দিলেন না রশিদ খান। রান তাড়ায় ভালো শুরুর পর দ্রুত উইকেট হারিয়ে পথ হারাতে বসেছিল দল। ছয় নম্বরে ব্যাটিংয়ে ঝড়ো ইনিংস খেললেন নাজিবউল¬াহ জাদরান। বৃষ্টিবিঘিœ ম্যাচে আয়ারল্যান্ডকে হারিয়ে টিটোয়েন্টি সিরিজ শুরু করল আফগানিস্তান। ভারতের গ্রেটার নয়ডায় শুক্রবার প্রথম টিটোয়েন্টি ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে ১১ রানে জিতে তিন ম্যাচের সিরিজে এগিয়ে গেছে আফগানিস্তান। আগে ব্যাট করে উইকেটে ১৭২ রান করেছিল আয়ারল্যান্ড। আফগানিস্তান ১৫ ওভারে উইকেটে ১৩৩ রান তোলার পর বৃষ্টি নামলে আর খেলা হয়নি। ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে জয়ের জন্য তখন আফগানদের দরকার ছিল ১২২ রান। টস জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে স্টার্লিং কেভিন ব্রায়েনের ব্যাটে উড়ন্ত সূচনা পায় আয়ারল্যান্ড। পাওয়ারপে¬ শেষ বলে ব্রায়েনকে ফিরিয়ে ৬৩ রানের জুটি ভাঙেন মুজিব উর রহমান। ব্রায়েন ১৭ বলে করেন ৩৫ রান। ইনিংসে ছিল ৪টি চার ২টি ছক্কা।

দ্বিতীয় উইকেটে অ্যান্ড্রু বালবার্নির সঙ্গে ৪২ রানের আরেকটি কার্যকরী জুটি গড়ার পথে স্টার্লিং ফিফটি পূরণ করেন ৩৮ বলে। পরের ওভারেই বিস্ফোরক এই ব্যাটসম্যানকে ফিরতি ক্যাচে ফেরান লেগ স্পিনার রশিদ। ৪১ বলে চার ছক্কায় স্টার্লিং করেন ৬০ রান। এরপর আইরিশরা উইকেট হারায় নিয়মিত। শেষ পর্যন্ত তারা ১৭২ রানের পুঁজি পায় হ্যারি টেক্টরের ১৭ বলে অপরাজিত ২৯ রানের কল্যাণে। চার এক ছক্কায় ইনিংসটি সাজান তিনি। বালবার্নির ব্যাট থেকেও আসে ২৯ রান। ২২ রানে উইকেট নিয়ে আফগানিস্তানের সেরা বোলার রশিদ। লক্ষ্য তাড়ায় হজরতউল¬াহ জাজাই রহমানউল¬াহ গুরবাজের ২৭ বলে ৫৪ রানের উদ্বোধনী জুটিতে এগিয়ে যায় আফগানিস্তান। জুটি ভাঙতেই হঠাএলোমেলো হয়ে যায় আফগানরা। বলের মধ্যে হারায় উইকেট! সিমি সিংয়ের অফ স্পিনে একই ওভারে ফেরেন দুই ওপেনার। গুরবাজ ১৩ বলে চার এক ছক্কায় করেন ২৮। ১৫ বলে ২টি করে চার ছক্কায় ২৩ রান আসে জাজাইয়ের ব্যাট থেকে। কোনো বল খেলার আগেই রান আউটে ফিরে যান অধিনায়ক আসগর আফগান। একটু পর করিম জানাতের রান আউটে স্কোর হয়ে যায় উইকেটে ৭০। পঞ্চম উইকেট জুটিতে সামিউল¬াহ শিনওয়ারির সঙ্গে প্রতিআক্রমণ শুরু করেন নাজিবউল¬াহ। তাদের ৪৪ বলে ৬৩ রানের জুটিই গড়ে দেয় ব্যবধান। সামিউল¬াহর বিদায়ে জুটি ভাঙার পরই বৃষ্টিতে আর খেলা হয়নি। ২১ বলে চার ছক্কায় ৪২ রানে অপরাজিত ছিলেন নাজিবউল¬াহ। ২৮ রান করার পথে আফগানিস্তানের চতুর্থ ব্যাটসম্যান হিসেবে এই সংস্করণে হাজার রানের মাইলফলক স্পর্শ করেন শিনওয়ারি। সংক্ষিপ্ত স্কোর: আয়ারল্যান্ড: ২০ ওভারে ১৭২/ (স্টার্লিং ৬০, ব্রায়েন ৩৫, বালবার্নি ২৯, ডেলানি , টেক্টর ২৯*, টাকার , সিমি , ডকরেল ; মুজিব ৪৯, শাপুর ৩৯, নাইব ১৯, জানাত ২৮, রশিদ ২২, নবি ১৪) আফগানিস্তান: ১৫ ওভারে ১৩৩/ (জাজাই ২৩, গুরবাজ ২৮, জানাত , আসগর , শিনওয়ারি ২৮, নাজিবউল¬াহ ৪২*; সিমি ১৮, ্যানকিন ৪৪, লিটল ১৫, ইয়াং ১২, ডকরেল ২২, ডেলানি ১৯) ফল: ডাকওয়ার্থ লুইস পদ্ধতিতে ১১ রানে জয়ী আফগানিস্তান।

আরো খবর...