মেহেরপুরে নার্সসহ ৩ জন করোনা আক্রান্ত

মেহেরপুর প্রতিনিধি  ॥ মেহেরপুরে এক নার্সসহ তিনজন করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। এরা হলেন-মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালের এক নার্স। করোনা আক্রান্ত রোগীর সংস্পর্শে এসে তিনি এ রোগে আক্রান্ত হয়েছেন বলে স্বাস্থ্য বিভাগ জানায়। এছাড়াও আক্রান্ত হয়েছেন গাংনী উপজেলার সীমান্তবর্তি রংমহল গ্রামের বাসিন্দা ৩৯ বছর বয়সী এক ব্যক্তি । সে সম্প্রতি ওমান থেকে দেশে আসেন। অন্যজন হলেন- একই উপজেলার ষোলটাকা গ্রামের ৩৮ বছর বয়সী এক ব্যক্তি। সে রাজধানীর মহাম্মদপুর থেকে সম্প্রতি বাড়ি ফিরেছেন। গতকাল বুধবার মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতালের সিভিল সার্জন অফিস এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

গাংনী উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাক্তার রিয়াজুল আলম সাংবাদিকদের জানান রংমহল ও ষোলটাকা গ্রামের দু’জন ব্যক্তি করোনা উপসর্গ নিয়ে বাড়িতে ফিরে আসার পর তাদের নমুনা সংগ্রহ করা হয়। এবং হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়। নমুনা সংগ্রহের পর পরীক্ষার জন্য যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে পাঠানো হয়। সেখানে পরীক্ষার পর তাদের দু’জনের কোভিড-১৯ পজেটিভ দেখা দেয়। এখন তাদের এলাকা লকডাউন করা হয়েছে।  উল্লেখ্য, মেহেরপুর জেলার তিনটি উপজেলা রয়েছে। মেহেরপুর সদর ও গাংনী এবং মুজিবনগর উপজেলা। মেহেরপুর জেলায় এর আগে ৪জনের করোনা শনাক্ত করা হয়। এর মধ্যে মেহেরপুর সদর উপজেলায় একজন ও মুজিবনগর উপজেলায় ৩জন। আক্রান্তদের মধ্যে মুজিবনগর উপজেলার ভবরপাড়া গ্রামের ইদ্রিস আলীর মৃত্যু হয়। তার দাফন কাজে অংশ নেয়ায় মুজিবনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার উসমান গনি, মুজিবগর থানার ওসি (তদন্ত)-সহ স্বাস্থ্য বিভাগের ২৭জনকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়। এরপর তাদের নমুনা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হয়। পরে তাদের নমুনায় নেগেটিভ দেখা দেয়। তবে এর আগে জেলার গাংনী উপজেলায় কেউ করোনা আক্রান্ত না হলেও বুধবার এ উপজেলার ২জন আক্রান্তের খবর পাওয়া গেছে। এ নিয়ে জেলায় সর্ব মোট ৬জন করোনা আক্রান্ত হলো। গাংনী উপজেলা নির্বাহী অফিসার দিলারা রহমান জানান গাংনী উপজেলায় ২জন করোনা আক্রান্ত শনাক্ত হয়েছে। তাদের এলাকা লকডাউনের ঘোষণা দেয়া হয়।

আরো খবর...