মুম্বাই ও কলকাতায় মাস্ক ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেড়েছে অমিতাভের কারণে 

বিনোদন বাজার ॥ বলিউড অভিনেতা অমিতাভ বচ্চন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর মুম্বাই ও কলকাতায় মাস্ক ব্যবহারকারীর সংখ্যা বেড়েছে। ‘বিগ বি’ আক্রান্ত হওয়ার পর সাধারণ মানুষের মধ্যে এ বিষয়ে সচেতনতা তৈরি হয়েছে। পুলিশের বরাত দিয়ে ভারতীয় একটি সংবাদমাধ্যম এমনটাই দাবি করেছে। সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছেÑগত ১৩ দিনে মাস্ক না পরার অপরাধে মুম্বাইয়ে ১ হাজার ৩৩০জনকে জরিমানা করে বৃহৎ মুম্বাই পুরনিগম (বিএমসি)। কলকাতায় প্রতিদিন গড়ে ১৫০জন পথচারীকে জরিমানা করা হয়। ভারতীয় দ-বিধির ১৮৮ ধারা অনুসারে এখন মাস্ক ছাড়া বাড়ি থেকে বের হওয়া আইনত দ-ণীয়। কিন্তু তথ্য বলছে, অমিতাভ বচ্চন করোনায় আক্রান্ত হওয়ার পর এই সংখ্যা অদ্ভূতভাবে কমেছে। রোববার থেকে সিংহভাগ মানুষ মাস্ক পরে রাস্তায় বের হচ্ছেন। মানুষের মাঝে হঠাৎ এমন পরিবর্তনে অনেকে বিস্ময় প্রকাশ করেছেন। এ বিষয়ে কলকাতার ইনস্টিটিউট অব সাইকিয়াট্রির পরিচালক ডা. প্রদীপ সাহা সংবাদমাধ্যমটিতে বলেনÑএটি সম্পূর্ণ মনস্তাত্বিক বিষয়। অমিতাভ বচ্চন তুমুল জনপ্রিয় অভিনেতা। অমিতাভকে নিয়ে মানুষের মনে মানসিক ফিকশন রয়েছে। এটা কিছুটা সেলিব্রেটি ‘ওয়ারশিপ সিন্ড্রোমে’-এর মতো। ডা. প্রদীপ সাহা বিষয়টি ব্যাখ্যা করে আরো বলেনÑঅমিতাভ বচ্চন শুধু ভারতে নন, বিশ্বব্যাপী সমাদৃত। বিশাল বাংলোতে থাকেন, যার প্রতিপত্তির অভাব নেই। সাধারণ মানুষ অবচেতনে এটা ভাবছেন যে, বিগ বি’র তো সব আছে। রাস্তায় দাঁড়িয়ে বাজার করেন না, দোকানে গিয়ে আড্ডা দেন না, তাও তিনি আক্রান্ত হলেন। তার মানে আমাদের হতেই পারে। আর এই ভয় থেকে সাধারণ মানুষ মাস্ক পরতে শুরু করেছেন। গত শনিবার সন্ধ্যায় মুম্বাইয়ের নানাবতি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় অমিতাভ বচ্চনকে। পরবর্তীতে তার কোভিড-১৯ টেস্ট করা হলে পজিটিভ আসে। শারীরিক নানা সমস্যায় ভুগছেন অমিতাভ। গত বছর তাকে হাসপাতালে ভর্তি হতে হয়েছে। পরবর্তী সময়ে অমিতাভ জানান, তাকে বিশ্রামে থাকার পরামর্শ দিয়েছেন চিকিৎসক। ৭৭ বছর বয়সেও এখনো নিয়মিত অভিনয় করছেন বলিউডের ‘শাহেনশাহ’। তার সর্বশেষ মুক্তিপ্রাপ্ত সিনেমা ‘গুলাবো সিতাবো’। করোনাভাইরাসের কারণে প্রেক্ষাগৃহের পরিবর্তে ডিজিটাল প্ল্যাটফর্মে মুক্তি পেয়েছে এটি।

আরো খবর...