মামলার ফাঁদে ফেলে একাধিক ব্যক্তির কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে ঝিনাইদহে জুলেখার বিরুদ্ধে

সুলতান আল একরাম ॥ ঝিনাইদহের জুলেখা বেগম নামে এক মহিলার বিরুদ্ধে একাধিক ব্যক্তির নামে বিভিন্ন ধরণের মামলা করে সাধারণ মানুষের হয়রানি ও টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। বিভিন্ন তথ্য থেকে জানা যায় হামদহ এলাকার শেরে বাংলা সড়কের আলিয়া মাদ্রাসার পূর্বপাশে মৃত মফিজ মিয়ার স্ত্রী জুলেখা বেগম তার নিজের দুই ছেলের নামে কোর্টে ৫টি মামলা এবং থানায় ৪টি অভিযোগ ছাড়াও জমি সক্রান্ত, মারামারি ও যৌতুকের মামলাসহ বিভিন্ন ব্যক্তির নামে ৩০ থেকে ৩৫টি মামলার বাদি হয়ে মামলা করার খবর পাওয়া গেছে। কোন কোন মামলা থেকে বড় অংকের টাকা নিয়ে মিমাংসা করার খবরও জানা গেছে। জুলেখার ছেলে মুন্নার নামে যে মামলাটি করেন তার নং ঝিনাইদহ সিআর ৪৩৩/১৪।  এছাড়া একই এলাকার তোফাজ্জেল হোসেন, রাজিব, রাকিব, রামেলা খাতুন এদের নামে সিআর মামলা নং১০/২০১৮,১১৬২/১২। নাসির মালিতা, ফিরোজ মালিতা, সেলিম মালিতা ও পান্টু মিয়াসহ একাধিক ব্যক্তির নামে সি আর মামলা নং ৪০১/১৬ মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করে আসছে তাছাড়া নাসির উদ্দীনের নামে অন্য আরও  মামলা রয়েছে যার নং সি আর ৫৩৬/২০১৭। শৈলকুপার নিত্তানন্দপুর সাপখোলা গ্রামের হাসমত আলির বিরুদ্ধে মিথ্যা বিবাহের কাবিন তৈরী করে  খোরপোশ এবং যৌতুকের মামলা দিয়ে হয়রানি করেছে যার মামলা নং ৪০/১০ঝিনাইদহ পারিবারিক আদালত। জুলেখা বেগমের ছেলে বলেন আমার মা একজন মামলাবাজ মহিলা সে তার জামাই নাসির উদ্দীন এবং বড় ছেলের ইন্ধোনে আমার নামে ৪টি মিথ্যা মামলাসহ বিভিন্ন ব্যক্তির নামে মামলা করে টাকা হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করে। মাসুদের নামে যে মামলা করেছে তার মধ্যে সিআর ৬৩৮/১৯, ৭৫/২০। এছাড়া আমার বাবার বাড়ির শৈলকুপা আশুর হাট এলাকার অধিকাংশ ব্যক্তির নামে একাধিক মামলা করে হয়রানি করে আসছে। এমনকি তার নিজের বাড়ি নিজে ভেঙ্গে সতিন এবং সতিনের ছেলে ও জামাইদের নামে মিথ্যা মামলা দিয়ে দীর্ঘদিন হয়রানি করে আসছে মামলা নং ঝিনাইদহ পিটিশন ২৯/২০২০। এই মামলাবাজ মহিলার জন্য এলাকাবাসী ও আত্মিয় স্বজন অতিষ্ট। সুষ্ঠু তদন্ত স্বাপেক্ষে এই মামলাবাজ মহিলার বিচার দাবি করেন এলাকাবাসী।

আরো খবর...