মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় ৪ আইনজীবীসহ ১৩ জনের করুন মৃত্যুর ঘটনা ঘটে

আজ কুষ্টিয়া জেলা আইনজীবী সমিতির বেদনাবিধূর ১৫ বছর

আরিফ মেহমুদ ॥ আজ সোমবার কুষ্টিয়া জেলা আইনজীবী সমিতিরি বেদনাবিধূর ১৫ বছর। ২০০৫ সালে ১৫ জানুয়ারী কোয়াকাটা পিকনিক শেষে কুষ্টিয়ায় ফেরার পথে ডাকাতের কবলে পড়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বাস পানি ভর্তি খাদে উল্টে গেলে কুষ্টিয়া বারের ৪ আইনজীবি ও তাদের পরিবারের সদস্যসহ মোট ১৩ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। কুষ্টিয়া আইনজীবি সমিতির পক্ষ থেকে ১৩ জানুয়ারী বৃহস্পতিবার বিকেলে দুটি বাসযোগে বিনোদন প্রেমী আইনজীবীরা তাদের পরিবারের সদস্যদের নিয়ে কুয়াকাটায় পিকনিকের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। শুক্রবার ভোর ৬টায় তারা কুয়াকাটায় পৌঁছায়। সারাদিন আইনজীবীরা পরিবার পরিজন নিয়ে সমুদ্র সৈকতের অপূর্ব নয়নাভিরাম দৃশ্য অবলোকন, উপভোগ আর পিকনিক শেষে পরিশ্রান্ত দেহে সকলে খুব হাসি-তামাশার মধ্যে দিয়ে সন্ধ্যার দিকে কুষ্টিয়ার অভিমুখে বাড়ী ফিরছিলেন। পথিমধ্যে রাত আনুমানিক আড়াইটার দিকে কুষ্টিয়া-ফরিদপুর মহাসড়কের ফরিদপুর জেলার ভাঙ্গা থানার সন্নিকটে একটি ব্রীজ অতিক্রম করা মাত্রই বাস দুটি ডাকাতদের কবলে পড়ে। রাস্তার মাঝে গাছ ফেলে আগে থেকে অবস্থান নিয়া ডাকাতরা বাসে ডাকাতি শুরু করলে পিছনে থাকা বাসটি ডাকাতের কবল থেকে রক্ষা পেতে পিছনের দিকে হটতে থাকে। এ সময় হটাৎ করে বাসটি রাস্তার বাম পাশে একটি পানি ভর্তি খাদে উল্টে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই ৪ আইনজীবী, শিশু পুত্র, কন্যা ও তাদের পরিবারের সদস্যসহ ১১ জনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়। এ দূর্ঘটনায় নিহতরা হলেন-কুষ্টিয়া জজ কোর্টের স্পেশাল পিপি এ্যাড.মকবুল হোসেন (৫৫), তার স্ত্রী হোসনে আরা বেগম (৪২), সাবেক এপিপি এ্যাড. মাসুদুজ্জামান ওরফে ছোটন (৪৫), তার স্ত্রী বিউটি (৩৫), তার কন্যা শুভ্রা (১১) ও পুত্র অভি (৭), এ্যাড. শামসুজ্জামান (৩২), তার স্ত্রী এ্যাড. হোসনেয়ারা নাজনীন ওরফে হীরা (২৬), এ্যাড. খন্দঃ সিরাজুল ইসলামের কন্যা বৃষ্টি (৮), এ্যাড. আবুল হাশেমের পুত্র হাশিমুর রহমান ওরফে অমিত (৫) ও মুহুরী আশরাফুল হক (৩৫)। আহত হয় অনন্ত ২০ জন। আহতদের ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়। এই দূর্ঘটনার কয়েকদিন পরে সিনিয়র এ্যাড. আজিজুর রহমান সহ আরো ২জন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যু বরণ করেন। শীতের কুয়াশাচ্ছন্ন খুব ভোরে ফরিদপুর থেকে এই মর্মান্তিক মৃত্যুর সংবাদটি কুষ্টিয়ায় পৌছানোর পর সর্বত্রই শোকের ছায়া নেমে আসে। বেদনায় ও শোকে মুচড়ে পড়েন নিহতের আত্মীয়-স্বজন ও কুষ্টিয়া আইনজীবী সমিতির দীর্ঘদিনের সহকর্মী সহযোদ্ধা বন্ধুরা। সেদিনের মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় কুষ্টিয়া আইনজীবী সমিতি হারিয়েছে অভিজ্ঞ ও দক্ষ আইনজীবীকে। অপর দিকে পরিবার হারিয়েছে এক মাত্র উপার্জনক্ষম ব্যক্তিকে। কুষ্টিয়া জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক এ্যাড.আবু সাঈদ জানান, বেদনাবিধূর এদিনটিকে স্বরণীয় করে রাখতে সোমবার কুষ্টিয়া জেলা আইনজীবী সমিতি নিহতদের স্বরণে দিনব্যাপী নানা কর্মসূচীর আয়োজন করেছে। সকাল থেকে শুরু হবে কোরআন খানী, কালো ব্যাচ ধারণ। মর্মান্তিক সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত শহীদ আইনজীবীদের আত্মার প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে সকাল ১০টায় শহীদদের স্মরণে নির্মিত স্মৃতিসৌধ অশ্র“র আলপনাতে জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ্যাড. অনুপ কুমার নন্দী ও সম্পাদক এ্যাড.আবু সাঈদসহ সমিতির সদস্যবৃন্দ পুস্পমাল্য অর্পন করবেন। দুপুর ২টায় সিনিয়রদের হলরুমে শহীদ আইনজীবীদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে দোয়া,স্মৃতি চারন সভা ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে।

আরো খবর...