মন্ত্রিসভায় তেজষ্ক্রিয় বর্জ্য ব্যবস্থাপনায় দূষণকারীর দায় অন্তর্ভুক্ত করে বিধান অনুমোদন

ঢাকা অফিস ॥ ‘যে দূষণ করবে সে টাকা দেবে’ আন্তর্জাতিক পারমাণবিক শক্তি এজেন্সী’র (আইএইএ) এই বিধানকে অন্তর্ভুক্ত করে ‘তেজষ্ক্রিয় বর্জ্য এবং ব্যবহৃত পারমাণবিক জ্বালানি ব্যবস্থাপনা বিষয়ক জাতীয় নীতি’ এর খসড়ার অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে গতকাল সোমবার সকালে তাঁর তেজগাঁওস্থ কার্যালয়ে (পিএমও) মন্ত্রিসভার নিয়মিত বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। পরে বিকেলে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. শফিউল আলম সচিবালয়ে বৈঠক সম্পর্কে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন। তিনি বলেন,‘ এটমিক এনার্জি যেহেতু খুবই স্পর্শকাতর এবং বিপজ্জনক বিষয় তাই এটাকে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য একটি গাইড লাইন দরকার এবং সেখানে আইএইএ’র গাইড লাইনের বাইরে যাওয়ার কোন সুযোগ নেই। কাজেই সেই গাইড লাইন দিয়েই এই নীতিমালাটা তৈরী করা হয়েছে। এটা দিয়ে কোনরকমের বিপদের সম্মুখীন যেন হতে না হয়।’ মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘কীভাবে পারমাণবিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা করা হবে সেটা নিয়ে নীতিমালায় অনেকগুলো কথা আছে। বর্জ্য উৎপাদনকারী কারা কারা আছেন, তাদের উৎপাদিত তেজষ্ক্রিয় বর্জ্য ও ব্যবহৃত পারমাণবিক জ্বালানি থেকে বর্জ্য কিভাবে নিরাপদ নিষ্কাশনের ব্যবস্থা করা হবে, তার একটি নীতিমালা নির্ধারিত হয়েছে। মোটাদাগে যাকে এভাবে বলা যায়: “যে দূষণ করবে সে টাকা দেবে”। এটা আন্তর্জাতিক নীতি।’ তিনি বলেন, ‘ যে দূষণ করবে তাকে টাকা দিয়ে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা করতে হবে। এটা হল মূলনীতি।’ শফিউল আলম বলেন, এজন্য বাংলাদেশ পরমাণু শক্তি কমিশন (বিএইসি) একটা এজেন্সি নিয়োগ করবে। এটার নাম হলো তেজস্ক্রিয় বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কোম্পানি (আরডবি¬উএমসি)। তিনি বলেন, ‘এই কোম্পানীর বিশেষজ্ঞ দল থাকবে। যারা বর্জ্য ব্যবস্থাপনার কাজ করবে। সারা বাংলাদেশে যত এটমিক এনার্জির বর্জ্য পাওয়া যাবে সেগুলো ব্যবস্থাপনা তারা করবে।’ শফিউল আলম বলেন, ‘আমরা যে আল্ট্রাসনোগ্রাফি করি, এগুলোর মধ্যেও সীমিত পরিসরে এটমিক এনার্জি ব্যবহার করা হয়। এগুলোর জন্য অত বড় কিছু করার প্রয়োজন নেই, কিন্তু একসময় প্রয়োজন হবে। এজন্য আগে থেকে নীতিমালাটি করা হয়েছে। এই নীতিমালা সব সেক্টর কাভার করবে। এক্ষেত্রে লিড মিনিস্ট্রি হচ্ছে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়।’ রূপপুরে দুটি পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র করা হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘এটার যে বর্জ্য তা চুক্তি অনুযায়ী সরাসরি রাশিয়া নিয়ে যাবে। এটা আমরা এটা ধ্বংস করবো না। সচিব বলেন, রাশিয়ার সাাথে চুক্তি হয়েছে যেহেতু তাদের বিশাল দেশ, ডিসপোজালের অনেক জায়গা আছে, আমাদের ওরকম জায়গা নেই, আমাদের ঘনবসতিপূর্ণ জায়গা। চুক্তিতেই বলা হয়েছে, (পারমাণবিক বর্জ্য) তারা সিল করে নিয়ে যাবে এবং ওখানে নিয়ে ডিসপোজাল করবে।’ শফিউল আলম বলেন, ‘নীতিমালা অনুযায়ী, গবেষণা চুল্লি, নিউক্লিয়ার পাওয়ার প¬ান্ট অপারেশন, চিকিৎসা শিল্প, খনিজ সম্পদ আহরণ, কৃষি, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ গবেষণা, প্রশিক্ষণ বা বাণিজ্য প্রভৃতি ক্ষেত্রে তেজষ্ক্রিয় পদার্থের উৎপাদন ব্যবহার হয়। এসব ক্ষেত্রে এটমিক এনার্জি ব্যবহার করা হয়, আমরা হয়তো তার খবর রাখি না।’ শফিউল আলম বলেন, ‘পারমাণবিক জ্বালানির পরিমাণ যুক্তিসঙ্গতভাবে সীমিত রাখতে হবে। জ্বালানি সিল করা বাক্সে সংরক্ষণসহ পরমাণু চুল্লির রিঅ্যাকটর কোরের পরিচালনকালে যে কোনো সময় আনলোড করতে হতে পারে এমন সম্ভাবনা বিবেচনায় রেখে ব্যবহৃত জ্বালানি সংরক্ষণ স্থাপনা প্রতিষ্ঠা করতে হবে। যাতে কমপক্ষে ১০ বছর ব্যবহৃত জ্বালানি সংরক্ষণ করা যায়। এটা যারা করবে তাদের জন্য এই বাইন্ডিংস থাকবে।’ নীতিমালায় পারমাণবিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক বাধ্যবাধকতার কথা উল্লেখ করা হয়েছে জানিয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, ‘বর্জ্য ব্যবস্থাপনার ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক বাধ্যবাধকতা বা আইএইএ’র ইন্সট্রাকশন তো আমাদের আছে।’ এদিন মন্ত্রী সভার বৈঠকে ‘বাংলাদেশ প্রকৌশল গবেষণা কাউন্সিল আইন-২০১৯’র খসড়া এবং ‘বাংলাদেশ বাতিঘর আইন-২০১৯’র খসড়ার ও চূড়ান্ত অনুমোদন প্রদান করা হয়। মন্ত্রিপরিষদ সচিব বলেন, বৈঠকের শুরুতে সম্প্রতি বেশ কিছু মর্যাদাপূর্ণ আন্তর্জাতিক পুরস্কার এবং সম্মাননায় ভূষিত হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানায় মন্ত্রিসভা। ভারতের সংবাদ সংস্থা ইউনাইটেড নিউজ অব ইন্ডিয়া’র গত ৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ তারিখে প্রকাশিত একটি প্রতিবেদন অনুয়ায়ী বিশ্বে দীর্ঘ নারী প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দায়িত্ব পালন করায় মন্ত্রিসভা তাঁকে অভিনন্দিত করে। এছাড়া, ভারতের স্বনামধন্য সংস্থা ড. এপিজে আব্দুল কালাম ইন্টারন্যাশনাল এসোসিয়েশন কতৃর্ক ভারতের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নে বহুমুখী ভূমিকার জন্য ‘ড. কালাম স্মৃতি উৎকর্ষ পুরস্কার-২০১৯ ’এ ভূষিত হওয়ায়, গে¬াবাল অ্যালায়েন্স ফর ভ্যাকসিন ইমিউনাইজেশন (জিএভিআই-গ্যাভী) কতৃর্ক ‘ভ্যাকসিন হিরো’ সম্মাননায় ভূষিত হওয়ায়, জাতিসংঘের অধিবেশন চলাকালে ‘চ্যাম্পিয়ন অব স্কিল ডেভেলপমেন্ট ফর ইয়োথ’ এওয়ার্ড এবং ভারতের কলকাতা এশিয়াটিক সোসাইটি কর্তৃক মর্যাদাপূর্ণ ‘টেগর পিস এওয়ার্ডে’ ভূষিত হওয়ায় শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন জানানো হয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কন্যা সায়মা ওয়াজেদ হোসেন বৈশ্বিক মানসিক স্বাস্থ্যে উদ্ভাবনী নারী নেতৃত্বের একশ’ জনের তালিতায় অন্তর্ভুক্ত হওয়ায় মন্ত্রিসভা তাঁকেও অভিনন্দন জানায়। একইসঙ্গে যুক্তরাজ্যের লেবার পার্টির এমপি বাংলাদেশী বংশোদ্ভূত টিউলিপ রিজওয়ানা সিদ্দিক লন্ডন ভিত্তিক স্বনামধন্য সংবাদপত্র ‘ইভনিং স্ট্যান্ডার্ড’ কর্তৃক প্রকাশিত ২০১৯ সালের লন্ডনের সবচেয়ে প্রভাবশালী রাজনীতিবিদদের তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হওয়ায় মন্ত্রিসভা তাঁকেও অভিনন্দন জ্ঞাপন করে। বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি ৩১ হাজার ৫শ’ পূজা মন্ডপে এবার স্বস্তিতে এবং নিরাপত্তার সঙ্গে দুর্গাপূজা উদযাপিত হওয়ায় মন্ত্রিসভা বৈঠকের শুরুতেই সন্তোষ প্রকাশ করে, বলেন মন্ত্রিপরিষদ সচিব। তিনি বলেন, এদিনের মন্ত্রিসভার বৈঠকে, গত ২৩ থেকে ২৮ সেপ্টেম্বর মেয়াদে যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কে অনুষ্ঠিত জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪ তম অধিবেশনে প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের অংশগ্রহণ এবং গত ৩ থেকে ৬ অক্টোবর পর্যন্ত প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর এবং নয়াদিলবলীতে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরাম (ডবি¬উইএফ) এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত ইন্ডিয়ান ইকোনমিক সামিটে তাঁর অংশগ্রহণ সম্পর্কে মন্ত্রিসভাকে অবহিতকরণ করা হয়। এছাড় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর নেতৃত্বে ৬ থেকে ৮ অগাস্ট পর্যন্ত বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের ভারত সফর এবং আইনমন্ত্রীর নেত্রীত্বে জাতিসংঘের ‘কনভেনশন এগেইনষ্ট টর্চার’ সংক্রান্ত প্রারম্ভিক প্রতিবেদনের বিবেচনা সভায় বাংলাদেশ প্রতিনিধি দলের অংশগ্রহণসহ বেশ কয়েকটি বিষয় মন্ত্রিসভাকে অবহিতকরণ করা হয় বলেও সচিব জানান।

আরো খবর...