ভিএআর সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ সেভিয়া, জিদানের জবাব

ক্রীড়া প্রতিবেদক \ লিগ ম্যাচে রিয়াল মাদ্রিদের মাঠে হারের পর রেফারির সিদ্ধান্তে ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন সেভিয়া কোচ হুলেন লোপেতেগি ও ক্লাবের স্পোর্টিং ডিরেক্টর মনচি। পাল্টা জবাব দিয়েছেন মাদ্রিদের দলটির কোচ জিনেদিন জিদানও। সান্তিয়াগো বের্নাবেউয়ে শনিবার সেভিয়াকে ২-১ গোলে হারায় রিয়াল মাদ্রিদ, তিনটি গোলই হয় ম্যাচের দ্বিতীয়ার্ধে। স্বাগতিকদের পক্ষে জোড়া গোল করেন কাসেমিরো। সেভিয়ার একমাত্র গোলটি লুক ডি ইয়ংয়ের। ম্যাচের ৩০তম মিনিটেও একবার হেডে জালে বল পাঠিয়েছিলেন সেভিয়ার ডাচ ফরোয়ার্ড লুক ডি ইয়ং। তবে এর আগমুহুর্তে ডি-বক্সে রিয়ালের ডিফেন্ডার এদের মিলিতাও প্রতিপক্ষের সঙ্গে ধাক্কা লেগে পড়ে গেলে ভিএআরের সাহায্যে ফাউলের বাঁশি বাজান রেফারি। সিদ্ধান্তটি নিয়ে রীতিমত বিস্মিত সেভিয়া কোচ লোপেতেগি। মানতেই পারছেন না তিনি। “কেউ আমাকে বুঝিয়ে না দেওয়া পর্যন্ত আসলেই আমি বুঝতে পারছি না কেন গোলটা বাতিল করা হলো এটি ছিল বড় ধরনের ভুল।” দলটির ক্রীড়া পরিচালক মনচির মতে, মুহুর্তটা ছিল ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট। “ট্যাকটিক্যালি অথবা টেকনিক্যালি আমি ম্যাচটা বিশে¬ষণ করতে যাচ্ছি না। কারণ মুহুর্তটা ছিল ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ।” মাদ্রিদ কোচ জিদান অবশ্য এটাকে দেখছেন খেলার অংশ হিসেবেই। “এ বিষয়ে আমি বলতে পারি আমি যা দেখেছি তা হলো-এটি ফাউল ছিল। রেফারি ভিএআরের সাহায্যে ফাউল দিয়েছে।” একটা জায়গায় অবশ্য জিদানেরও আপত্তির জায়গা আছে। সেটি সেভিয়ার ব্যবধান কমানো গোলটি নিয়ে। “দ্বিতীয়ার্ধে ওটা হ্যান্ডবল ছিল (ডি ইয়ংয়ের গোলের আগে), কিন্তু রেফারি দেয়নি।” “আমি কিছুই ব্যখ্যা করতে পারছি না এবং মূল্যায়নও করতে যাচ্ছি না। এটা রেফারির সিদ্ধান্ত। কখনও এটা আপনার পক্ষে যাবে কখনও বিপক্ষে।” “রেফারিই ম্যাচের ফল নির্ধারক ছিল, এমনটা আমি মনে করি না। তার যা করার ছিল সে তাই করেছে।” ২০ ম্যাচে ১২ জয় ও সাত ড্রয়ে ৪৩ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে উঠেছে রিয়াল। এক ম্যাচ কম খেলা বার্সেলোনা ৪০ পয়েন্ট নিয়ে দুইয়ে নেমে গেছে। তবে রোববার ঘরের মাঠে গ্রানাদার বিপক্ষে জিতলে আবারও শীর্ষে ফিরবে বার্সেলোনা।

আরো খবর...