বেনাপোল এক্সপ্রেসের যাত্রা বিরতি : যাচ্ছে কমিউটার ট্রেনও

১০ জানুয়ারী থেকে ভেড়ামারা ও পোড়াদহে

বিশেষ প্রতিনিধি ॥ রাজধানী ঢাকা ও দেশের বৃহত্তম স্থলবন্দর বেনাপোলের মধ্যে চলাচলকারী বিরতিহীন আন্ত:নগর ট্রেন ‘বেনাপোল এক্সপ্রেস’ কুষ্টিয়ার ভেড়ামারা ষ্টেশন ও পোড়াদহ জংশনে যাত্রা বিরতি করবে। আগামী ১০ জানুয়ারী শুক্রবার থেকে উভয় পথের যাত্রীরা পোড়াদহ থেকে ওঠানামা করতে পারবেন বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ। এছাড়াও রাজশাহী থেকে যে কমিউটার ট্রেনটি ঈশ্বরদী পর্যন্ত আসা যাওয়া করতো ওই ট্রেনটিকেও এক্সটেনশন করে ভেড়ামারা হয়ে পোড়াদহ জংশন পর্যন্ত নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। পোড়াদহ জংশনের ষ্টেশন মাষ্টার শরিফুল ইসলাম এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, বাংলাদেশ রেলওয়ের রাজশাহী অঞ্চলের (পশ্চিম) চীফ অপারেটিং সুপারিনটেনডেন্টে-এর পক্ষে সহকারী চীফ অপারেটিং সুপারিনটেনডেন্টে আব্দুল আওয়াল স্বাক্ষরিত এক চিঠির মাধ্যমে যাত্রা বিরতির বিষয়টি তাদের জানানো হয়েছে।

সম্প্রতি কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের সংসদ সদস্য এ্যাড. আ. কা. ম. সারওয়ার জাহান বাদশাহ কুষ্টিয়া অঞ্চলের মানুষের চলাচলের সুবিধার জন্য রেলমন্ত্রী নুরুল ইসলাম সুজনের সাথে সাক্ষাত করে ভেড়ামারা ষ্টেশন ও পোড়াদহে জংশনে ‘বেনাপোল এক্সপ্রেস’ ট্রেনের যাত্রা বিরতির দাবি জানান। এ সময় রেলমন্ত্রী যাত্রা বিরতি বিষয়ে সাংসদকে আশ্বাস দেন। পরে রেলমন্ত্রীর নির্দেশে অল্প সময়ের মধ্যে এই ট্রেনের যাত্রাবিরতির বিষয়টি নিশ্চিত হয়।

এ বিষয়ে দৌলতপুর আসনের সাংসদ এ্যাড. আ. কা. ম. সারওয়ার জাহান বাদশা বলেন, বৃহত্তর কুষ্টিয়া অঞ্চল থেকে ঢাকায় যাতায়াতকারী যাত্রীদের সুবিধার কথা বিবেচনা করে এ উদ্যোগ গ্রহন করা হয়েছে। ‘বেনাপোল এক্সপ্রেস’ ভেড়ামারা ও পোড়াদহে যাত্রা বিরতির ফলে কুষ্টিয়া ও মেহেরপুরের মানুষের ঢাকার সাথে যোগাযোগের নতুন দিগন্তের সুচনা হলো। তিনি বলেন, রাজশাহী থেকে ছেড়ে আসা একটি কমিউটার ট্রেন ঈশ্বরদী পর্যন্ত যাতায়াত করে। ওই ট্রেনটিকেও ঈশ্বরদী থেকে ভেড়ামারা হয়ে পোড়াদহ পর্যন্ত নিয়ে আসা হচ্ছে। কিছুদিনের মধ্যে সেটি বাস্তবায়ন হবে। এ জন্য রেলমন্ত্রীকে কুষ্টিয়াবাসীর পক্ষ থেকে ধন্যবাদও জানান সংসদ সদস্য সরওয়ার জাহান বাদশা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত বছরের ১৭ জুলাই তাঁর সরকারী বাসভবন গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বিরতিহীন ‘বেনাপোল এক্সপ্রেস’ নামের এই নতুন ট্রেনের উদ্বোধন করেন। সেই দিন থেকে ১২বগির ট্রেনটি সপ্তাহে ছয় দিন বেনাপোল-ঢাকা পথে চলাচল করে।

পোড়াদহ ষ্টেশন মাস্টার শরিফুল ইসলাম বলেন, ঢাকাগামী যাত্রীদের জন্য ‘বেনাপোল এক্সপ্রেস’ ট্রেনে ভেড়ামারা ষ্টেশন ও পোড়াদহ জংশনে এসি কামরা বাদে সব ধরনের আসনের টিকেটের ব্যবস্থা থাকবে। অনলাইনে অ্যাপসের মাধ্যমে টিকেট কাটার সুবিধা রাখা হয়েছে। ট্রেনটি ঢাকায় যাওয়ার পথে এবং আসার পথে পোড়াদহে কোন সময় যাত্রা বিরতি করবে সে বিষয়ে ৮ জানুয়ারী বুধবার জানা যাবে।

আরো খবর...