বিশেষ কোন স্বার্থ চরিতার্থ করার লক্ষ্যে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ নির্বাচন কমিশন”-কে অপতৎপরতা থেকে বিরত থাকার অনুরোধ

বঙ্গবন্ধু পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির বিবৃতি

বঙ্গবন্ধু পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির প্রেস এন্ড মিডিয়া উইং আনন্দ কুমার সেন স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ডাঃ এস এ মালেক গত ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদের একটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদন করেন। উক্ত কমিটির সভাপতি আইসিটি বিভাগের প্রফেসর ড. মাহবুবুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক ব্যবস্থাপনা বিভাগের প্রফেসর ড. মাহবুবুল আরফিন। অনুমোদনের পর থেকে উক্ত কমিটি যথারীতি কেন্দ্রীয় কমিটির পরামর্শ মোতাবেক কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে। ইতিমধ্যে এ কমিটি বেশ কিছু কর্মসূচি গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করে বিশ্ববিদ্যালয়সহ সর্বমহলে প্রশংসিত হয়েছে। এমতাবস্তায় কেন্দ্রীয় কমিটি গভীর উদ্বেগের সাথে লক্ষ্য করছে যে, “ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ নির্বাচন কমিশন” নামে একটি সংগঠন হঠাৎ করে তৎপরতা শুরু করেছে। এই কমিশন নামধারী প্রতিষ্ঠানটি “ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ (শিক্ষক ইউনিট) নামের আরেকটি সংগঠনের জন্য নির্বাচন ঘোষনা করেছে। কে বা কারা, কি উদ্দেশ্যে এ ধরনের কমিটি গঠন করেছে ও ‘তৎপরতা’ চালাচ্ছে বঙ্গবন্ধু পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটি তা একেবারেই অবগত নয়। যেখানে একটি পূর্ণাঙ্গ কমিটি অনুমোদিত সেখানে বঙ্গবন্ধু পরিষদের নামে বা বঙ্গবন্ধু পরিষদের নাম ভাঙিয়ে এ ধরনের কার্যক্রম হীন উদ্দেশ্য, ব্যক্তি ও মহল বিশেষের বিশেষ কোন স্বার্থ চরিতার্থ করার লক্ষ্যে বলে কেন্দ্রীয় পরিষদ মনে করে। তাছাড়া, বঙ্গবন্ধু পরিষদ (শিক্ষক ইউনিট) নামে বাংলাদেশে বঙ্গবন্ধু পরিষদের কোন শাখা নেই। একই সাথে বঙ্গবন্ধু পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটি এ ধরনের কোন সংগঠনের স্বীকৃতি দেয় না। “ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ নির্বাচন কমিশন”- কে এ ধরনের অপতৎপরতা থেকে বিরত থাকার জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ করা গেল। অন্যথায় উদ্ভুত যে কোন পরিস্থিতি জন্য “ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু পরিষদ নির্বাচন কমিশন” ও এর সাথে জড়িতদেরকেই দায়ী থাকতে হবে। সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

আরো খবর...