বিএনপির দলের অভ্যন্তরে গণতন্ত্র অনুপস্থিত – ওবায়দুল কাদের

ঢাকা অফিস ॥ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপির দলের অভ্যন্তরে গণতন্ত্র অনুপস্থিত। তিনি বলেন, ‘বিএনপি এমন একটি দল, যারা আন্দোলন করতে পারে না। নির্বাচনে, আন্দোলনে ব্যর্থ হয়ে সরকারের বিরুদ্ধে বিষোদগার করছে। সব বিষয়ে বিএনপি একটি ব্যর্থ দলে পরিণত হয়েছে। তাদের দলের অভ্যন্তরে গণতন্ত্র অনুপস্থিত। আমাদের দলের সম্মেলন হয়, বিএনপি’র সম্মেলনের কোন খবর পাওয়া যায় না।’ ওবায়দুল কাদের গতকাল রোববার রাজাধানীর মতিঝিলে বিআরটিসির বাস ডিপোতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র উপহার হিসেবে ৮টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে বিআরটিসি’র বাস হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশন বিআরটিসির চেয়ারম্যান মো. এহছানে এলাহী। আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, সরকারবিরোধী মিথ্যাচারই এখন বিএনপির রাজনীতি। আমাদের সবখানে নিয়ন্ত্রণ রয়েছে, শুধু বিএনপির অপপ্রচারে নিয়ন্ত্রণ নেই। বিএনপি সর্বকালের একটি ব্যর্থ দল। তিনি বলেন, দলের চেয়াপার্সন জেলে। তার মুক্তির জন্য একটা মিছিলও করতে পারেনি দলের নেতারা। দেশে ব্যর্থ হয়ে বিদেশিদের কাছে এখন বিচার দিচ্ছে। বিএনপি একটি নালিশ পার্টিতে পরিণত হয়েছে। নেতৃত্ব নিয়ে তাদের নিজেদের ঘরে অনেক প্রশ্ন উঠছে। তাদের কেন্দ্রীয় নেতারাও বলেছেন, খালেদার মুক্তি আন্দোলনে একটা কর্মসূচিও তারা দিতে পারেননি। এখন তারা নেতাকর্মীদের চাঙা করার জন্য সরকারবিরোধী লাগামহীন বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছেন।

যুবলীগের নবনির্বাচিত কমিটি প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, নতুন কমিটি যুবলীগের ভাবমূর্তি ফিরিয়ে আনতে কাজ করবে। আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশের বিষয়টি দীর্ঘদিনের। দলে আগাছা পরগাছা পরিষ্কারের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে। ঢাকায় পাঁচটি সহযোগী সংগঠনের কমিটি দেওয়া হয়েছে। সেখানে আমরা ক্লিন ইমেজের নেতৃত্ব উপহার দিয়েছি। এছাড়া, ৭০টি জেলা-উপজেলায় কমিটি হয়েছে। সেখানেও ক্লিন ইমেজের নেতৃত্ব এসেছে। দলে অনুপ্রবেশকারীদের প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, আওয়ামী লীগে অনুপ্রবেশকারীদের যে তালিকা প্রধানমন্ত্রীর কাছে ছিল। সেগুলো বিভাগীয় নেতাদের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। অনুপ্রবেশকারীদের বিষয়ে তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তালিকায় থাকা কোন নেতার বিরুদ্ধে অনুপ্রবেশকারী হিসেবে প্রমাণ হলে আওয়ামী লীগ থেকে বিতাড়িত করা হবে। বিএনপি’র সভার অনুমতি প্রসঙ্গে ওবায়দুল কাদের বলেন, সকালে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে আমার কথা হয়েছে। বিএনপি’র পার্টি অফিসের সামনে তাদের সভা করার অনুমতি দেয়া হয়েছে।

অনুষ্ঠানে সড়ক পরিবহন মন্ত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা’র অনুদানকৃত আটটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কর্তৃপক্ষের হাতে ৯টি বিআরটিসি’র বাসের চাবি হস্তান্তর করেন। ভারত থেকে আমদানিকৃত এসব বাসগুলোর প্রতিটিতে আসন সংখ্যা রয়েছে ৪৪টি করে। আটটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের মধ্যে একটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে বিআরটিসি’র দুটি বাস এবং সাত শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রতিটিকে একটি করে বাস হস্তান্তর করা হয়। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- খুলনা সরকারি মহিলা কলেজ, শামসুল হক খান স্কুল এন্ড কলেজ, সরকারি তিতুমীর কলেজ, বান্দরবান সরকারি মহিলা কলেজ, বান্দরবান সরকারি কলেজ, টাঙ্গাইলের কুমুদিনী সরকারি কলেজ, ইডেন মহিলা কলেজ ও মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়। ওবায়দুল কাদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী এ বাসগুলো দেওয়া হলো। বিআরটিসি একটি অলাভজনক জনসেবাবান্ধব রাষ্ট্রীয় পরিবহণ। লাভের দিকে গুরুত্ব না দিয়ে আমরা জনগণের সেবার ওপরে গুরুত্ব দিয়ে থাকি। নতুন এই গাড়িগুলো অবহেলায় যেন নষ্ট না হয়, সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে।

আরো খবর...