বিএনপির উদ্দেশ্যই হলো নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করা – তথ্যমন্ত্রী

ঢাকা অফিস ॥ ঢাকা সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন নিয়ে বিএনপি নেতৃবৃন্দের সাম্প্রতিক বক্তব্যের সমালোচনা করে তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিএনপির উদ্দেশ্যই হলো নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ ও বিতর্কিত করা। নির্বাচনকে বিতর্কিত করার উদ্দেশ্যে অংশ না নিয়ে, জয় লাভের উদ্দেশ্যে নির্বাচনে অংশ নিতে তিনি বিএনপির প্রতি আহবান জানান। তথ্যমন্ত্রী গতকাল বৃহস্পতিবার আওয়ামী লীগের প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলামের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত স্মরণ সভায় এসব কথা বলেন। ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপির প্রকৃত উদ্দেশ্য হচ্ছে নির্বাচনকে বিতর্কিত করা এবং গণতন্ত্রের পথ চলাকে বাধাগ্রস্ত করা। তিনি বিএনপির উদ্দেশ্যে বলেন, “আপনারা সবসময়ই নির্বাচনের আগে নির্বাচনকে বিতর্কিত করার চেষ্টা করেন। এবারও সেই বিষয়টি খোলাসা করেছেন। নির্বাচনকে বিতর্কিত করার উদ্দেশ্যে নির্বাচনে অংশ না নিয়ে আপনারা আপনাদের কর্মসূচি নিয়ে জনগণের কাছে যান। ঢাকায় আপনারা কি কি কাজ করতে চান, আপনাদের উদ্দেশ্য কি, তা জনগণকে জানান। আপনাদের জয় লাভের উদ্দেশ্য নিয়ে নির্বাচনে অংশ নেয়া উচিত বলে আমি মনে করি।” “সরকারের পতন হবে” বিএনপি নেত্রী সেলিমা রহমানের হঠাৎ এমন বক্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় ড. হাছান মাহমুদ বলেন, “তার এই বক্তব্যেই প্রমাণ করে তারা ভেতরে ভেতরে ষড়যন্ত্রে লিপ্ত। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলামের উদ্দেশ্যে বলতে চাই, ষড়যন্ত্র করে কোন লাভ নেই। অতীতেও আপনাদের ষড়যন্ত্র মানুষ দেখেছে এবং ব্যর্থ করে দিয়েছে।” সৈয়দ আশরাফের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তিনি বলেন,  সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম আজীবনই নির্মোহ এবং নির্লোভ ব্যক্তি ছিলেন। তিনি রাজনীতিকে একটি ব্রত হিসেবে নিয়ে আজীবন নিষ্ঠা এবং সততার সাথে কাজ করে গেছেন। সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব সৈয়দ হাসান ইমামের সভাপতিত্বে ও বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানার পরিচালনায় স্মরণ সভায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগ নেতা আখতার হোসেন ও এডভোকেট বলরাম পোদ্দার, স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের শিল্পী রফিকুল আলম, কবি নাসির আহম্মেদ প্রমুখ।

আরো খবর...