বাংলাদেশ থেকে শ্রমিক নেওয়ার ব্যাপারে চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়নি – মালয়েশিয়া

ঢাকা অফিস ॥ মালয়েশিয়ার মানবসম্পদমন্ত্রী এম কুলাসেগারান জানিয়েছেন, বাংলাদেশ থেকে মালয়েশিয়ায় শ্রমিক নেওয়ার ব্যাপারে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে এ বিষয়ে নভেম্বরের শেষ সপ্তাহে সিদ্ধান্ত আসতে পারে বলে জানান তিনি। এর আগে গত বুধবার রাজধানী কুয়ালালামপুরের পার্লামেন্ট ভবনে স্থানীয় সময় বেলা ১১টায় এম কুলাসেগারানের সঙ্গে বৈঠক করেন বাংলাদেশের প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ। দুই দেশের প্রতিনিধিদলের এ বৈঠকে শ্রমবাজার চালুর বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। পরে আলোচনার বিষয়ে বলতে গিয়ে মালয়েশিয়ার শীর্ষস্থানীয় সংবাদমাধ্যম এনএসটিকে এম কুলাসেগারন জানান, আলোচনা ফলপ্রসূ হয়েছে, তবে শ্রমিক নেওয়ার ব্যাপারে এখনো কোনো চূড়ান্ত সিদ্বান্ত হয়নি। জানা গেছে, নূন্যতম অভিবাসন ব্যয়ে কর্মী প্রেরণ, উভয় দেশের রিক্রুটিং এজেন্সিগুলোর সম্পৃক্ততার পরিধি, মেডিকেল পরীক্ষা এবং সামাজিক ও আর্থিক সুরক্ষা ডাটা শেয়ারিং বিষয়ে আলোচনা হয়। আলোচনায় উভয় মন্ত্রী বন্ধ শ্রমবাজার দ্রুততম সময়ে চালুর বিষয়ে ঐকমত্য পোষণ করেন। বিশেষ করে নূন্যতম অভিবাসন ব্যয়ে কর্মী প্রেরণ এবং কর্মীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা বিড়ম্বনা নিরসনের জন্য বাংলাদেশ থেকে বহির্গমনের আগে একবার স্বাস্থ্য পরীক্ষা করার বিষয়ে উভয়পক্ষ একমত হন। এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশি কর্মীদের চাহিদার কথা বিশেষভাবে উল্লেখ করা হয়। এদিকে মালয়েশিয়ায় বন্ধ শ্রমবাজার চালুর বিষয়ে একমত প্রকাশ করে ২৪ ও ২৫ নভেম্বর ঢাকায় আসছে মালয়েশিয়ার একটি প্রতিনিধিদল। রাজধানীতে জয়েন্ট ওয়ার্কিং সভায় মিলিত হবেন তাঁরা। এদিকে মন্ত্রী ইমরান আহমদের মালয়েশিয়ায় যাওয়াকে কেন্দ্র করে দালালরা তৎপর হয়ে উঠছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ছাড়া অনেকে বন্ধ শ্রমবাজার চালু হওয়ার ব্যাপারে গুজব ছড়াচ্ছে বলেও অভিযোগ উঠেছে।

আরো খবর...